যুক্তরাষ্ট্রে আজ শনিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 10:06pm

|   লন্ডন - 04:06pm

|   নিউইয়র্ক - 11:06am

  সর্বশেষ :

  আসছে ‘বেগম খালেদা জিয়া: হার লাইফ, হার স্টোরি’   ভারতের বিখ্যাত লাল কেল্লা দখলের হুমকি পাকিস্তানি মন্ত্রীর!   কানাডায় ‘দেবী’   আসছে নির্বাচন: ফের সিএমএইচে ভর্তি এরশাদ   রবিবার থেকে বাংলাদেশে নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মিলার   ‘১০ নম্বরি’ হলেও নির্বাচনের মাঠে থাকবো : ড. কামাল   সিডরে নিখোঁজ শহিদুল বাড়ি ফিরলেন ১১ বছর পর!   বিএনপির মনোনয়ন কিনলেন সাড়ে ৪ হাজার প্রার্থী   ঐক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচনে আসছেন এএমএস কিবরিয়ার ছেলে রেজা কিবরিয়া   নতুন অস্ত্র উৎপাদন শুরু উত্তর কোরিয়ার   যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটে উঠল সৌদি আরবের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিল   কেন কর্মীদের আইফোন বর্জন করতে বললেন জাকারবার্গ?   সরকা‌রের ‘অ‌নিয়ম-দুর্নী‌তি’ প্রকা‌শে সম্পাদকদের সহ‌যো‌গিতা চায় ঐক্যফ্রন্ট   রোহিঙ্গা ইস্যুতে সু চিকে সমর্থন করল চীন   কোনো দেশেই শতভাগ সুষ্ঠু নির্বাচন হয় না : ইসি কবিতা খানম

>>  রান্নাবান্না এর সকল সংবাদ

বাসায় তৈরি করুন বোরহানি

অনেকে বোরহানি খেতে খুবই পছন্দ করেন। আবার কোনও কোনও সময় দেখা যায় পছন্দ না করলেও পরিবারের সদস্যদের জন্য বোরহানি আনতে হয় বাইরে থেকে। তবে নিজে এটা শিখে রাখলে খুব সহজেই বানিয়ে নিতে পারবেন।

উপকরণ
মিষ্টি দই ৫০০ গ্রাম, টক দই ৫০০ গ্রাম, পুদিনা পাতা বাটা ১ টেবিল চামচ, বিট লবণ ১ টেবিল চামচ, সরিষাগুঁড়া ১ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ বাটা ১ টেবিল চামচ, সাদা গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনেগুঁড়া ১ চামচ, তেঁতুলের মাড় ১ টেবিল চামচ এবং পানি পরিমাণমতো।

প্রস্তুত প্রণালী
দুই কাপ পানির সঙ্গে দই ছাড়া বাকি সব উপকরণ মিশিয়ে ছেঁকে নিতে হবে। এবার এই

বিস্তারিত খবর

চমচম মিষ্টি বানাবেন যেভাবে

 প্রকাশিত: ২০১৭-১২-২২ ১২:৩৩:৫৮

অতিথিদের সামনে হাতে বানানো চমচম পরিবেশন করলে কেমন হয়? ঐতিহ্যবাহী চমচম মিষ্টি বানিয়ে ফেলতে পারেন ঘরেই। জেনে নিন কীভাবে।

উপকরণ
দুধ- ১ লিটার
সুজি- ১ চা চামচ
ময়দা- ১ টেবিল চামচ
চিনি- স্বাদ মতো
এলাচ- কয়েকটি
মাওয়া তৈরির উপকরণ
গুঁড়া দুধ- আধা কাপ

ঘি- ২ চা চামচ
পানি- ২ চা চামচ

প্রস্তুত প্রণালি
দুধ জ্বাল দিয়ে ছানা তৈরি করুন। লেবুর রস অথবা ভিনেগার ব্যবহার করুন দুধ থেকে ছানা তৈরি করার জন্য। ছানা তৈরি হলে নামিয়ে ভালো করে পানি ঝরিয়ে নিন। এজন্য ছেঁকে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ঝুলিয়ে রাখতে পারেন। ১ ঘণ্টা পর ভালো করে চেপে চেপে পানি বের করুন। 

মাওয়া তৈরি করুন দুধ, ঘি ও পানি একসঙ্গে জ্বাল দিয়ে। সিরা তৈরি করুন এবার। চুলায় ২ কাপ চিনি ও ৫ কাপ পানি দিয়ে জ্বাল দিতে থাকুন। এলাচ দেবেন কিছুক্ষণ পর। বলক আসলে নামিয়ে নিন।

মিষ্টি বানানোর জন্য ছানা ভালো করে ছেনে নিন। ছানার সঙ্গে ময়দা, সুজি ও চিনি মেশান। সব উপকরণ একসঙ্গে মাখিয়ে মসৃণ ডো তৈরি করুন। কোনও দলা যেন না থাকে সেদিকে লক্ষ রাখা জরুরি। এবার ডো থেকে চমচমের আকারে মিষ্টি তৈরি করুন। চুলায় চিনির সিরা দিন। ফুটে উঠলে একটি একটি করে চমচম ছেড়ে দিন। চুলার জ্বাল কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন সিরার পাত্র। কিছুক্ষণ পর মিষ্টিগুলো নেড়ে দিন। এভাবে রেখে দিন দুই ঘণ্টা। পানি যেন কমে না যায় সেদিকে খেয়াল রাখবেন। সিরা যত কমতে থাকবে, চমচমের রং তত গাঢ় হবে। বাদামি হয়ে গেলে ও সিরা কমে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন। এবার মাওয়ায় গড়িয়ে সুস্বাদু চমচম পরিবেশন করুন।


এলএবাংলাটাইমস/সি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ঝটপট রান্না সারার ৩০ টিপস!

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-৩০ ১৪:৪৩:৪৪

অনেকেই রান্না করাটাকে অনেক ভয় পান। কারণ শুধু রান্নার জন্য অনেকটা সময় নষ্ট হয়ে যায়। বিশেষ করে কর্মব্যস্ত জীবনে সবসময় সাজিয়ে-গুছিয়ে সময় নিয়ে রান্না করা সম্ভব হয়না। ঝটপট রান্নার কাজটা সেরে যেতে হয় অন্য কাজে। তাই বলে ঘাবড়ে যাওয়ার কিছু নেই। চলুন তাড়াতাড়ি রান্না করার জেনে নিই ৩০টি টিপস, যা হয়তো আপনার অনেক কাজে লাগবে।

টিপস:
১. যথা সম্ভব পাতিলে ঢাকানা দিয়ে রান্না করুন, এতে খাবারের পুষ্টিমান ঠিক থাকে।

২. মাংস রান্নার শুরুতেই লবণ না দিয়ে রান্নার মাঝামাঝি সময়ে লবণ দিয়ে ভালোভাবে নাড়ুন। এরপর দেখে নিন পরিমান ঠিক হল কিনা।

৩. তরকারির ঝোল ঘন করতে চাইলে কিছু কর্ণ ফ্লাওয়ার পানিতে গুলে ঢেলে দিন। লক্ষ্য রাখুন যেন কর্ণ ফ্লাওয়ারের মিশ্রণটি ভালো মতো তরকারির সাথে মিশে যায়।

৪. চাল ধোয়ার পর ১০ মিনিট রেখে দিয়ে তারপর রান্না করুন অথবা রান্নার সময় ১ চা চামচ রান্নার তেল দিয়ে দিন। দেখবেন ভাত সুন্দর ঝরঝরে হয়েছে।

৫. সবুজ সবজি রান্নার সময় সবুজ রং ঠিক রাখতে চাইলে এক চিমটি চিনি দিন।

৬. রান্না করার জন্য একদিন আগেই মাংস সেদ্ধ এবং ঠাণ্ডা করে ফ্রিজে সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন।

৭. রান্নার সময় গরম পানি ব্যবহার করুন।

৮. মাংস তাড়াতাড়ি সেদ্ধ করতে চাইলে খোসাসহ এক টুকরো কাঁচা পেঁপে তরকারীতে দিন।

৯. মাছ, মাংস বা ডিমের ঝোলে লবণ বেশি হয়ে গেলে তরকারিতে কয়েকটি সিদ্ধ আলু ভেঙে দিন। স্বাদ ঠিক হয়ে যাবে।

১০. মুরগির মাংস বা কলিজা রান্নাইয় ১ টেবিল চামচ সিরকা দিন। এতে মাংসের গন্ধ থাকবে না আবার তাড়াতাড়ি সিদ্ধও হবে।

১১. মাছ ভাজার সময় তেল ছিটা রোধ করতে একটু লবণ ছড়িয়ে দিন।

১২. বেরেস্তা করার সময় পেঁয়াজ ভেজে নামানোর আগে সামান্য পানি ছিটিয়ে দিন এতে পেঁয়াজ তাড়াতাড়ি লালচে হবে।

১৩. কাঁচা মাছ বা মাংস ছুরি-চপিং বোর্ডে কাটতে চাইলে বেশ কিছুক্ষণ আগে থেকেই পানিতে ভিজিয়ে নরমাল করে নিন।

১৪. আলু ও ডিম একসঙ্গে সিদ্ধ করুন, আলাদা কাজে ব্যবহার করলেও তাড়াতাড়ি সিদ্ধ হবে।

১৫. স্যুপ রান্নার সময় পাতলা হয়ে গেলে দুটি সিদ্ধ আলু ম্যাশ করে স্যুপে মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন।

১৬. ডাল তাড়াতাড়ি রান্না করতে আগের রাতেই ভিজিয়ে রাখুন।

১৭. সহজে মসলাপাতি খুঁজে পেতে কৌটার গায়ে নাম লিখে রাখুন।

১৮. আগামী দিন কী রান্না করবেন তার প্রস্তুতি রাতেই নিনতাহলে সময় বেঁচে যাবে।

১৯. রান্না করার সময় অবশ্যই মাছ ও সবজির কম্বিনেশনের ব্যাপারে নজর রাখবেন ।

২০. মাছ রান্না করে কাঁচা ধনিয়া পাতা থাকলে তা কুচি করে কেটে বিছিয়ে দিন, স্বাদ অনেকগুণ গুন বেড়ে যাবে।

২১. ডালে বাগার দিতে রসুন কুচি তেলে ভেজে ডালে দিয়ে দিন।

২২. মাংস জাতীয় রান্না করে শেষে বেরেস্তা (পেঁয়াজ কুচি ভাজি) ছড়িয়ে দিন এতে স্বাদ বেড়ে যাবে।

২৩. ডিম সিদ্ব করতে পানিতে সামান্য লবণ দিয়ে নিন এতে ডিম খেতে সুস্বাদু হবে। আর ঠাণ্ডা করে ডিম ছিলুন তাহলে খোসায় লেগে ডিম নষ্ট হবে না।

২৪. মাছ ভাঁজতে কড়াই হতে নিদিষ্ট দূরে থাকুন। মাছে পানি থাকলে কিংবা ফুটে আপনার গায়ে বা চোখে তৈল পড়তে পারে।

২৫ এলাচ সম্পুর্ণ গুড়ো করে ব্যবহার করা ভালো এতে এলাচ কামড়ে পড়ে খাওয়ার মজা নষ্ট হবে না। আবার রান্নাতেও সুগন্ধ হবে।

২৬. সবজীর রং ঠিক রাখতে পাতিল ঢেকে রান্না না করাই ভালো। আর কিছু সবজিকে সামান্য সিদ্ধ করে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে কিংবা বরফ কুঁচিতে রাখলে রান্নার পরও রং ঠিক থাকে।

২৭। কিছু ভাজিতে কড়াইতে তেল গরম হলে যা দেবেন তার সাথে সামান্য লবণ দিয়ে দিন, তেলের ছিটকা উঠবে না।

২৮. ডালের মজা বৃদ্ধির জন্য বেশি সময় ধরে রান্না করুন, স্বাদ বেড়ে যাবে ।

২৯. তেলাপিয়া মাছের গন্ধ দূর করতে তেলাপিয়া মাছ হলুদ ও ভিনিগার/লেবুর রস মাখিয়ে মিনিট ১৫ রেখে রান্না করুন।

৩০. ডিম রান্না করতে চাইলে ফ্রিজ থেকে তিন ঘণ্টা আগে বেড় করে রাখুন। তাহলে পুষ্টিগুণ ঠিক থাকবে।

এলএবাংলাটাইমস/সি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

এখন থেকে ঘরেই তৈরি করুন রসগোল্লা

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৭-২৩ ১০:৫৯:৪৭

মিষ্টি অনেকেরই খুব প্রিয় খাবার। কারো কারো তো মিষ্টির নাম শুনলেই জিভে পানি এসে যায়। আবার কারো কারো খাবার শেষে মিষ্টি না হলে চলেই না। আর তাই দোকান থেকে নরম তুলতুলে রসে ভরপুর ‘রসগোল্লা’ কিনে খান তারা। কিন্তিু আপনি চাইলেই ঘরে তৈরি করে নিতে পারেন দোকানের মতো পারফেক্ট রসগোল্লা। রইলো রেসিপি-

উপকরণ
দুধ ১ লিটার
চিনি ২ কাপ
লেবুর রস ২-৩ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালী
প্রথমে চুলায় দুধ গরম করতে দিন। গরম করার সময় বার বার নাড়তে থাকুন যাতে হাঁড়ির তলায় দুধ লেগে না যায়। ছানা তৈরির জন্য লেবুর রসের সাথে দুই টেবিল চামচ পানি মিশিয়ে সেটি দুধে দিয়ে দিন। দুধ ফেটে ছানা হয়ে গেলে একটি পাতলা সুতির কাপড়ে পানি ঢেলে ছেঁকে ছানা আলাদা করে ফেলুন।

এবার ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ছানা ধুয়ে ফেলুন। এতে ছানা নরম হবে এবং লেবুতে থাকা ময়লাও দূর হয়ে যাবে। ছানা থেকে ভালো করে পানি বের করে নিন। আরও ভালো করে পানি বের করার জন্য ৩০ মিনিট কাপড়টি পেঁচিয়ে ঝুলিয়ে রাখুন। লক্ষ্য রাখবেন ছানা যেন খুব বেশি ড্রাই না হয়ে যায়।


এরপর আরেকটি পাত্রে ১০ কাপ পানিতে দুই কাপ চিনি দিয়ে সিরা তৈরি করে নিন। ছানা কাপড় থেকে বের করে ভালো করে মথে নিন। লক্ষ্য রাখবেন ছানাতে যেন পানি না থাকে আবার খুব বেশি ড্রাইও যেন না হয়ে যায়। এবার ছানাগুলো দিয়ে ছোট ছোট রসগোল্লা তৈরি করে নিন।


চিনির সিরা বলক এলে এতে রসগোল্লাগুলো দিয়ে দিন। চিনির সিরা প্রেসারে কুকারে করলে উচ্চ তাপে ১৫ মিনিট সময় ঠিক করে নিন। ৫ মিনিট পর ঢাকনা খুলে নাড়া দিন। তারপর আবার ঢাকনা দিয়ে দিন। ১৫ মিনিট পর রসগোল্লাগুলো রসসহ একটি পাত্রে ঢেলে দিন। ৬ থেকে ৭ ঘন্টা পর পরিবেশন করুন।

বিস্তারিত খবর

রেসিপি: চিংড়ি মাছের ঝাল

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৭-১৭ ১০:১৯:১৮

চিংড়ি খুবই সুস্বাদু একটি মাছ। ছোট-বড় সবার কাছেই প্রিয় এটি। খাওয়ার সময় চিংড়ির যে কোনো একটি পদ হলেই খুশি বাড়ির সবাই। যে কোনো সাইজের চিংড়ি দিয়েই রেঁধে ফেলা যায় সুস্বাদু পদ। তবে বর্ষাকালে একটু ঝাল ঝাল স্বাদ মুখে ভালই লাগে। তাই আজ শিখে নিন চিংড়ি মাছের একটি ঝাল রেসিপি।

উপকরণ
চিংড়ি ২৫০ গ্রাম (খোসা ছাড়িয়ে পরিষ্কার করা)
টমেটো কুচি ১টা
মটরশুঁটি এক মুঠো
ধনেপাতা কুচি এক মুঠো
আলু ১টা (খোসা ছাড়িয়ে ডুমো করে কাটা)
আদা বাটা ১ ইঞ্চি টুকরো
গোটা জিরে ১ চা চামচ
তেজপাতা ১টা
গুঁড়ো হলুদ ২ চা চামচ
মরিচ গুঁড়ো ২-৩ চা চামচ
গরম মশলা গুঁড়ো ১/২ চা চামচ
লবণ স্বাদমদো
তেল ২ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালী
প্রথমে চিংড়ি একটা বড় বাটিতে নিয়ে লবণ, হলুদ মাখিয়ে ৫ মিনিট রাখুন। কড়াইতে তেল গরম করে চিংড়ি সোনালি করে ভেজে তুলুন। চিংড়ি কড়াই থেকে তুলে নিয়ে জিরে ও তেজপাতা ফোড়ন দিন। ফোড়ন ফুটতে শুরু করে টমেটো কুচি ও লবণ দিয়ে ভালো ভাবে সেদ্ধ হয়ে তেল না ছাড়া পর্যন্ত রান্না করুন।

এবার হলুদ গুঁড়ো, মরিচ গুঁড়ো, আদা বাটা আর আলু দিন। ভালো করে মিশিয়ে আধা কাপ পানি দিন। ঢাকনা দিয়ে ঢকে পুরোপুরি সেদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না করুন।

সেদ্ধ হয়ে গেলে মটরশুঁটি ও চিংড়ি দিয়ে দিন। চেরা কাঁচা মরিচ দিতে পারেন ইচ্ছা হলে। আরও ১/৪ কাপ পানি দিন। এ বার আর ঢেকে দেবেন না। আঁচ একদম কমিয়ে ৩ মিনিট মতো রান্না করুন। যতক্ষণ না মটরশুঁটি পুরোপুরি সেদ্ধ হচ্ছে। ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে নামিয়ে ফেলুন। এবার পরিবেশনের পালা।

বিস্তারিত খবর

ইফতারে রাখুন ভিন্নধর্মী সুজির কেক

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৬-০৭ ০৮:০৯:৪৯

কেক খাবারটি ছোট বড় সবাই বেশ পছন্দ করে। বেকারীর কেকের বাইরেও অনেকে ঘরে কেক তৈরি করে থাকেন। একটু ভিন্নভাবে কেক তৈরি করতে চাইলে আজকের রেসিপিটা আপনার জন্য। সুজি ও নারিকেল দিয়ে তৈরি করতে পারেন সুজির কেক। এই কেকটি সাধারণ কেকের থেকে কিছুটা ভিন্ন। ভিন্নধর্মী মজাদার সুজির কেকটির রেসিপিটা দেখে নিন এক নজরে। উপকরণ: ১ কাপ দুধ ১টি ডিম ১.২ গ্রাম জাফরান ১১০ গ্রাম গলানো মাখন বা তেল ১ চা চামচ বেকিং পাউডার ৩/৪ চা চামচ চিনি ১/২ কাপ ময়দা ১.৫ কাপ নারকেল কুচি ১ এবং ১/৪ কাপ সুজি ৩ ফোঁটা ভ্যানিলা এসেন্স ১.৫ কাপ চিনির সিরা ১ চা চামচ গোলাপ জল ১/২ চা চামচ লেবুর রস প্রণালী: ১। একটি পাত্রে সুজি, নারকেল কুচি, একসাথে মিশিয়ে নিন। ২। এর সাথে ময়দা, চিনি, বেকিং পাউডার, গলানো মাখন, ডিম, জাফরান মেশানো দুধ, ভ্যানিলা এসেন্স একসাথে মিশিয়ে ডো তৈরি করুন। ৩। লক্ষ্য রাখবেন ডো যেন নরম হয়। এবার এটি বেকিং ট্রেতে ঢেলে দিন। একটি ছুরি দিয়ে ডো বরফির আকৃতিতে কেটে নিন। ৪। এটি ওভেনে ১৯০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ৪০ মিনিট বেক করুন। কেকটি বাদামী রং হয়ে এলে ওভেন থেকে বের করে ফেলুন। ৫। এবার একটি পাত্রে পানি, চিনি, গোলাপ জল দিয়ে সিরা তৈরি করুন। এরসাথে লেবুর রস মেশানে। লেবুর রস চিনির ময়লা কেটে পানি পরিষ্কার করে দেবে। ৬। কেকের উপর চিনির সিরা চামচ দিয়ে ধীরে ধীরে ঢেলে দিন। বরফির উপর একটি করে কাঠবাদাম দিয়ে রাখুন। ৭। এবার এটি আরো ১৫ মিনিট ওভেনে বেক করতে দিন। ৮। ব্যস, তৈরি হয়ে গেলো সুজির কেক।  

বিস্তারিত খবর

এখন আপনিও তৈরি করতে পারেন মেজবানি মাংস

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৪-২২ ০২:০৬:৩৫

মেজবানি মাংস চট্টগ্রামের অত্যন্ত ঐতিহ্যবাহী খাবার। সত্যি বলতে কী, স্বাদের কারণে যে কোন অঞ্চলের ভোজন রসিকদের কাছেই এর দারুণ সুনাম। মেজবানি মাংসে সাধারণত কোন আলু দেয়া হয় না, কেননা বিশাল ডেক ভরে মাংস রান্না হয় মেজবানিতে। তবে হ্যাঁ, ঘরে অল্প মাংস রান্না করার সময়ে আপনি চাইলেই দিতে পারেন আলু। চলুন, আজ জেনে নিই অল্প মাংস দিয়েও ঘরে সুস্বাদু মেজবানি মাংস রান্না করার একটি দারুণ সহজ রেসিপি। ছবি ও রেসিপি জানিয়েছেন সায়মা সুলতানা।
যা লাগবে
গরু/ খাসির মাংস ১ কেজি ( কলিজা কয়েক টুকরা দিতে পারেন )
পেঁয়াজ কুচি ২ কাপ
পেঁয়াজ বাটা ৩ টেবল চামচ
আদা বাটা ২ টেবিল চামচ
রশুন বাটা দেড় টেবিল চামচ
হলুদ গুঁড়ো ২ চা চামচ
মরিচ গুঁড়ো দেড় চা চামচ
ধনিয়া গুঁড়ো দেড় চা চামচ
গরম মশলা গুঁড়ো ১ চা চামচ
সরিষা বাটা ১ টেবিল চামচ
জায়ফল বাটা হাফ চা চামচ
পোস্তদানা বাটা ১ চা চামচ
তেজপাতা ২-৩ টি
কাচা মরিচ ৭-৮ টি
লবণ স্বাদমতো
তেল ১ কাপ ( সরিষার তেল দিয়ে করতে পারেন )
পেঁয়াজ বেরেস্তা ১/৪ কাপ আরও ভাজা মশলার জন্য লাগবে ( তাওয়া তে অল্প আঁচে ভেজে নিয়ে গুঁড়ো করে নিতে হবে,খুব বেশি ভাজা যাবে না তাহলে তিতা হয়ে যাবে )
জিরা ১ টেবিল চামচ
এলাচি ৩-৪ টি
দারচিনি ২ টুকরা
জয়েত্রি কয়েক টুকরা
মৌরি ১ চা চামচ
মেথি ১ চা চামচ
তিল ১ চা চামচ
রাঁধুনি আধা চা চামচ
কাবাবচিনি ১ চা চামচ
প্রনালি-প্রথমে একটা বাটিতে মাংস এর সাথে ভাজা মশলার অর্ধেকটা আর সাথে পেঁয়াজ ,আদা বাটা, রশুন বাটা ,হলুদ গুঁড়ো, মরিচ গুঁড়ো ,ধনিয়া গুঁড়ো ,সরিষা বাটা , পোস্তদানা বাটা , জায়ফল বাটা, তেজপাতা ২-৩ টি, লবণ স্বাদমতো দিয়ে ভালভাবে মেখে মেরিনেট করে রাখুন ১ ঘণ্টা।-এবার হাঁড়িতে তেল দিয়ে পেয়াজ কুঁচি লাল করে বেরেস্তা করে নিন। এতে মেরিনেট করে রাখা মাংস দিয়ে কষিয়ে নিন। মাংস কষানো হলে ১ কাপ পরিমাণ গরম পানি দিন।
-মাংস সিদ্ধ হয়ে আসলে এতে পেঁয়াজ বেরেস্তা, কাঁচা মরিচ আর বাকি অর্ধেকটা ভাজা মসলা দিয়ে নাড়াচাড়া করে কম আঁচে রান্না করুন আরও ২০ মিনিট। আলু দিতে চাইলে এখন দিন। তেলে ভেজে নিতে পারেন আলুগুলোকে। তেল উঠে আসলে বুঝবেন মাংস হয়ে গেছে ।
এই মাংস চালের রুটি ,সিদ্ধ চালের ভাত কিনবা পরোটার সাথে দারুণ জমে । 

বিস্তারিত খবর

যেভাবে রান্না করবেন আপনার প্রিয় ‘সর্ষে ইলিশ’

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৪-১৩ ১১:০৮:৩৫

বাঙালির প্রাণের উৎসব বৈশাখ কড়া নাড়ছে দোরগোড়ায়। তাই নতুন বর্ষ আগমনের প্রস্তুতি চলছে প্রায় সব বাড়িতেই। বর্ষের প্রথম দিন বাঙালিরা ঐতিহ্যবাহী উৎসবে মেতে ওঠে। উৎসবে বাঙালিয়ানা খাবার খাওয়া হবে এটাই স্বাভাবিক। তাই প্রায় সকলের বাড়িতেই ইলিশ চলে এসেছে। 
বর্ষবরণের জন্য খাবার পাতে এক টুকরো ইলিশ মাছ থাকবে না তা তো হয় না। তাই বাঙালির সবচাইতে জনপ্রিয় খাবারটিই রেঁধে ফেলুন এদিন। বলছি ‘সর্ষে ইলিশ’এর কথা। জেনে নিন সর্ষে ইলিশের রেসিপি।

উপকরণ১ টি ইলিশ মাছ পিস করে কাটা৪-৫ টেবিল চামচ সরিষা বাটা৫ টি কাঁচা মরিচ বাটা২ টি কাঁচা মরিচ ফালি১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো২ টি পেঁয়াজ কুচি১ টেবিল চামচ সরিষার তেল
প্রস্তুত প্রণালীপ্রথমে মাছের পিসগুলো ভালো করে ধুয়ে পানি ঝড়িয়ে রাখুন। একটি প্যানে তেল দিন, গরম হলে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে নরম করে ভেজে নিন। এরপর একে একে মরিচ বাটা, হলুদ গুঁড়ো ও সরিষা বাটা দিয়ে কিছুক্ষণ নড়ুন।এরপর এতে ১ কাপ পরিমাণে পানি দিয়ে নেড়ে মসলা কষাতে থাকুন। মসলা কষে যখন তেল উপরে ভেসে উঠবে তখন ইলিশ মাছ দিয়ে হালকা করে নেড়ে মসলার সাথে মিশিয়ে ইলিশ কষিয়ে নিন মিনিটখানেক। তারপর পরিমাণ মতো পানি দিয়ে রান্না করতে থাকুন।

এবার উপরে দিয়ে দিন ফালি করে কাটা কাঁচা মরিচ। এরপর মাছ সেদ্ধ হয়ে এলে নিজের পছন্দমতো ঝোল শুকিয়ে নামিয়ে নিন চুলা থেকে। ব্যস, এবার বৈশাখের আয়োজনে পরিবেশন করুন জনপ্রিয় ও সুস্বাদু ‘সর্ষে ইলিশ’।

বিস্তারিত খবর

রেসিপি: নারিকেলী গোশত

 প্রকাশিত: ২০১৫-১০-১৫ ০৯:২৪:৫৩

এই বৃষ্টি, এই রোদ। আবহাওয়ার মতিগতি
বোঝা যেন মুশকিল হয়ে পড়েছে!
এই সময় খাবারের মেনুতে যদি থাকে
খিচুড়ি, গরুর মাংস, তাহলে সেটা দারুণ একটা
ব্যাপার। আর মাংসটা যদি হয় ভিন্ন স্বাদের
তাহলে তো কথাই নেই। একেবারে
সোনায় সোহাগা!
উপকরণ:
- গরুর মাংস ২ কেজি
- আদা বাটা ৩ টেবিল চামচ
- রসুন বাটা ৩ টেবিল চামচ
- জিরা গুড়া ২ চা চামচ
- হলুদ গুড়া ১ টেবিল চামচ
- গোল মরিচ গুড়া ১ চা চামচ
- জয়ত্রি বাটা ১ চা চামচ
- গরম মশলা দারুচিনি ৪/৫ পিস, এলাচি ৭/৮ টা,
তেজপাতা ৩/৪ টা
- কাঁচা মরিচ ৫/৬ টা
- নারিকেল দুধ ঘন দুইকাপ
- টক দই ১/৪ কাপ
- লবণ পরিমানমতো
- চিনি ১ চা চামচ
- পানি পরিমাণমতো
- তেল পরিমাণমতো (আধা কাপের কম
হলে ভালো)
- বেরেস্তা আধা কাপ
প্রণালী:
মাংস পছন্দমতো টুকরা করে কেটে
ভাল করে ধুয়ে নিন এবং পাতিলে
প্রথমে তেল নিন। প্রথমে টক দই দিন।
তার পর একে একে সব মশলাপাতি দিয়ে
দিন এবং এর পর দিন নারিকেলের দুধ।
এবার ভাল করে মিশিয়ে নিন এবং মধ্যম
আঁচে চুলায় বসিয়ে দিন। মাঝে মাঝে
ঢাকনা উলটে নেড়ে দিতে হবে।
আধঘণ্টা পর মাংস নরম হল কি না দেখুন। না
হলে আরো পানি দিন। এই পর্যায়ে
আগুনের আঁচ কমিয়ে দিতে পারেন।
ব্যস, হয়ে গেল নারকেলী মাংস।
বেরেস্তা দিয়ে পরিবেশন করুন।

বিস্তারিত খবর

শুধু আলুর তৈরি অসাধারণ স্বাদের এই খাবারটির রেসিপি জানা নেই আপনার

 প্রকাশিত: ২০১৫-০৬-১০ ০৬:২৩:৩২

আলুর তৈরি ফ্রেঞ্চ ফ্রাই, ওয়েজেস, চিপস, ললিপপ তো হরহামেশাই খাওয়া হয়ে থাকে। বেশ

জনপ্রিয় ফাস্টফুড এই খাবারগুলো। কিন্তু শুধু আলুর তৈরি আরেকটি জনপ্রিয় খাবার রয়েছে যা স্বাদে

সত্যিই অসাধারণ। অনেকেই ‘হ্যাশ ব্রাউন’এর নাম শুনেছেন, কিন্তু চেখে দেখা হয়েছে কি? খুবই

সহজ এই সুস্বাদু স্ন্যাকসটির রেসিপি। তাহলে দেরি কেন, ঝটপট জেনে নিন রেসিপিটি, আর খুব

সহজেই তৈরি করে ফেলুন ঘরেই।
উপকরণঃ
- ২ টি বড় আলু
- ২ টেবিল চামচ কর্ণফ্লাওয়ার
- ২ টেবিল চামচ চালের গুঁড়ো
- ১ টেবিল চামচ ময়দা
- দেড় চা চামচ পেপরিকা পাউডার
- দেড় চা চামচ মরিচগুঁড়ো (ইচ্ছা)
- ১/৪ চা চামচ গোল মরিচ গুঁড়ো
- ১ চা চামচ বাটার/ ঘি
- লবণ স্বাদমতো
- তেল ভাজার জন্য
* চাইলে নিজের ইচ্ছে মতো সিজনিংয়ের মসলা দিতে পারেন।
পদ্ধতিঃ
    - প্রথমে আলু ছিলে নিয়ে গ্রেটারে গ্রেট করে নিন। এরপর একটি বড় বাটিতে পানি দিয়ে

এতে বরফ মিশিয়ে এতে গ্রেট করা আলু ডুবিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট।
    - এরপর গ্রেট করা আলু চিপে বাড়তি পানি ঝড়িয়ে পেপার টাওয়েল বা কিচেন টিস্যুতে

ভালো করে মুড়ে নিন যাতে আলুর পানি সব শুষে যায়। এভাবে আলু শুকনো করে ফেলুন।
    - একটি প্যানে ঘি বা বাটার দিয়ে গরম করে গ্রেট করা আলু দিয়ে ভালো করে নেড়ে অল্প

কিছুটা ভাজা ভাজা করে নিন। এরপর নামিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন।
    - এরপর এতে দিন সকল মসলার সিজনিং এবং ভালো করে হাতে মেখে ডোয়ের মতো

তৈরি করে নিন।
    - এরপর একটি কাটিং বোর্ড বা রুটি বেলার পিঁড়িতে ডো রেখে উপরে প্ল্যাস্টিক র‍্যাপ

দিয়ে সমান পুরু করে বেলে নিন এবং চারকোণা করে কেটে নিন। চাইলে বেলার ঝামেলা না করে

হাতেই নিজের পছন্দমতো আকার দিয়ে নিতে পারেন।
    - এরপর প্যানে তেল গরম করে তেলে হ্যাশ ব্রাউনগুলো ছেড়ে দিন। আঁচ মাঝারি রেখে

লালচে করে ভেজে কিচেন টিস্যুতে তুলে বাড়তি তেল ঝড়িয়ে নিন।
    - ব্যস, এবার সস বা মেয়োনেজের সাথে মজা নিন সুস্বাদু ক্রিসপি হ্যাশ ব্রাউনের।

বিস্তারিত খবর

সাধারণ সুজি ও আম দিয়ে তৈরি করুন একটি অসাধারণ বরফি হালুয়া

 প্রকাশিত: ২০১৫-০৬-০২ ০৪:৫৯:০২

শবে বরাতের জন্য কিচ্ছু প্রস্তুতি নেয়া হয়নি? মোটামুটি সকল ঘরেই থাকে সুজি। আর এই আমের মৌসুমে আম তো ঘরে থাকেই। তাহলে আর দেরি কেন। এই অসাধারণ দুটি উপাদান দিয়ে খুব সহজে বানিয়ে ফেলুন অসাধারণ একটি বরফি হালুয়া। সময় তো কম লাগবেই, সাথে স্বাদ হবে একেবারেই মন কাড়া। অন্য কোন হালুয়ার স্বাদ ভুলে সকলেই মেতে উঠবেন এই হালুয়া নিয়ে। চলুন, জেনে নিই মুনমুন মেহমুদের রেসিপি।
যা যা লাগবে
সুজি ২ টেবিল চামচ
চিনি ৩ টেবিল চামচ
ঘি ৩ টেবিল চামচ
পাকা আমের পাল্প দেড়কাপ
কাজু বাদাম ১০ টি
কিশমিশ ১০ টি
পানি দুই কাপ

যেভাবে করবেন

•    -১ চা চামচ ঘি তে কাজু আর কিশমিশ গুলো হালকা করে ভেজে তুলে রাখুন।
•    -বাকি ঘি টা দিয়ে সুজিটা ভালো ভাবে ভেজে নিয়ে তুলে রাখুন।
•    -এবার দুই কাপ পানি,চিনি ,আমের পাল্প একসাথে করে চুলায় দিন।
•    -একটু ঘন হয়ে এলে এর মধ্যে আগে থেকে ভেজে রাখা সুজি দিয়ে দিন।
•    -মাখা মাখা হয়ে এলে কাজু আর কিশমিশ দিন।
•    -এবার নামিয়ে ঠাণ্ডা হলে বরফির মত করে কেটে নিন।
•    -এবার মনের মত করে সাজিয়ে পরিবেশন করুন আমের বরফি হালুয়া।

বিস্তারিত খবর

"পারফেক্ট" চাইনিজ ভেজিটেবল তৈরির সবচাইতে সহজ রেসিপি!

 প্রকাশিত: ২০১৫-০১-২৪ ০৫:০৫:১২

একদম ঠিক ঠিক চাইনিজ রেস্তরাঁর মত ভেজিটেবল তৈরি করতে চান? অনেকেই এটা ঘরে করে বটে, তবে কারোটায় সবজির রঙ নষ্ট হয়ে যায়, কারোটায় ঠিক রেস্তরাঁর মত মিষ্টি সুবাস আসে না, কারোটায় মেলে না রেস্তরাঁর স্বাদ। চলুন, তাহলে জেনে নিই আফরিনা নাজনীনের একটি দারুণ রেসিপি। চাইনিজ স্টাইল ভেজিটেবল তৈরির এর চাইতে সহজ রেসিপি আর হয় না। 
উপকরণ১. ব্রকলি ১.৫ টা লম্বা লম্বা করে (বেশি ছোট হবে না)
২. বরবটি ২৫০ গ্রাম (লম্বা, বাঁকা করে কাটা)
৩. গাজর মাঝারি সাইজ (৫-৬ টা, এটাও বাঁকা করে কেটে নিতে হবে)
৪. পেপে মাঝারি সাইজ ১ টা (গাজর এর মত বাঁকা করে)
৫. বাঁধাকপি ৪ ভাগের এক ভাগ।
৫. ক্যাপসিকাম ১ টা লম্বা চিকন করে কাটা।
৬. কালো গোলমরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ
৭. সয়াসস (ডার্ক টা) ১ টেবিল চামচ
৮. কর্ণ ফ্লাওআর ২ টেবিল চামচ ১/২ কাপ পানিতে গুলে নিতে হবে
৯. চিনি ১ টেবিল চামচ
১০. চিকেন বুকের মাংস লম্বা টুকরা করা।
১১. গরম পানি ২ কাপ
১২. কর্ণ ফ্লাওয়ার সিদ্ধ করার জন্য
১৩. আদা ও রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ করে
১৪. পেঁয়াজ (৪ ভাগ করে ছাড়িয়ে নিতে হবে)প্রনালি-ক্যাপসিকাম বাদে সব সবজি আলাদা ভাবে সেদ্ধ করতে হবে। সেদ্ধ করার সময়ে একটু লবণ ও কর্ণ ফ্লাওয়ার মিক্স করে নিলে সবজির রঙ ঠিক থাকে। সবুজ রঙ আর সবুজ হবে। (যে সবজির যে রঙ সেটা আরও গাড় হবে)-সবজি গুলো আধাসেদ্ধর একটু বেশি হবে। খেয়াল রাখতে হবে যাতে গলে না যায়।-সবজিগুলো থেকে পানি ছেঁকে নিতে হবে।-এবার একটা প্যাণে তেল নিয়ে আদা ও রসুন হালকা সোনালি না হওয়া পর্যন্ত ভাজতে হবে।-হয়ে গেলে মুরগি দিয়ে ভাজতে হবে।-সাথে একটু লবণ, গোলমরিচ গুঁড়া ও সয়সস দিয়ে আর ৪-৫ মিনিট ভাজা ভাজা করতে হবে-এবার ক্যাপসিকাম ও পেঁয়াজ দিয়ে আর ১-২ মিনিট নেড়ে চেড়ে সব সবজি দিয়ে ৪-৫ মিনিট ভালো করে নাড়তে হবে।-এবার ২ কাপ গরম পানি দিয়ে ঢেকে রাখুন। পানি যখন একটু কমে যাবে বা ৫-৬ মিনিট পর ঢাকনা খুলে কর্ণ ফ্লাওআর গোলানো পানি দিয়ে (এই সময়ই তাড়াতাড়ি নাড়তে হবে) আর ২-৩ মিনিট রান্না করুন।-এবার চিনি ও লেবুর রস দিয়ে নামিয়ে ফেলুন।টিপস- 
১.সবজির রঙ ঠিক রাখার জন্য আলাদা আলাদা সেদ্ধ করলে ভালো।
২. অবশ্যই সেদ্ধ করার সময়ই কর্ণ ফ্লাওয়ার ও লবণ দেবেন। এটা সবজির রঙ ঠিক রাখে।
৩. ইচ্ছা করলে টেস্টিং সল্ট দিতে পারেন।

বিস্তারিত খবর

রেসিপিঃ মিষ্টি পানতোয়া

 প্রকাশিত: ২০১৫-০১-২৩ ০৫:১৯:১৪

 আজ আপনাদের জন্য রয়েছে রেসিপি মিষ্টি পানতোয়া। তাহলে আসুন কিভাবে ঘরে বসে বানাতে হবে এই মিষ্টি পানতোয়া। অতিথি আপ্যায়নে পানতোয়ার জুড়ি নেই।    উপকরণ:# ছানা ২ কাপ# ময়দা আধা কাপ# মাওয়া আধা কাপ# খাবার সোডা কোয়ার্টার চা চামচ# চিনি ২ কাপ# পানি ৪ কাপ# ঘি ২ টেবিল চামচপ্রস্তুত প্রণালীছানা, ময়দা, মাওয়া, খাওয়ার সোডা ও ঘি দিয়ে চাপড়ে হাতের তালু দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। মলায়েম হলে লাল মোহন (চমচম আকারে) বানাতে হবে। এবার অল্প আঁচে লাল করে ভাজতে হবে। আরেকটি পাত্রে পানি ও চিনি জ্বাল দিয়ে সিরা তৈরি করে নিতে হবে। এবার লাল মোহনগুলো গরম গরম অবস্থায় সিরার মধ্যে ভেজাতে হবে। সিরার মধ্যে ঘণ্টা খানেক রাখার পর উঠিয়ে ফেলুন। এবার টেবিলে সাজিয়ে মাওয়ার গোড়া পানতোয়ার উপর ছিটিয়ে দিয়ে পরিবেশন করুন।

বিস্তারিত খবর

একেবারেই ভিন্ন স্বাদের নতুন রেসিপি: "দুধ খেজুর পিঠা"

 প্রকাশিত: ২০১৫-০১-২৩ ০৫:১৬:৪০

এই পিঠাটি তৈরি কিন্তু অনেক সহজ আর খেতে ভীষণ মজা। তুলতুলে নরম এবং দুধের সরের স্বাদের এই পিঠা একবার খেলে মুখে লেগে থাকবে স্বাদ বহুদিন! অনেকেই অনেক নামে ডাকেন একে। তবে নাম দিয়ে আর কি আসে যায়, স্বাদেই এর পরিচয়। একেবারেই অন্যরকম এই রেসিপিটি দিয়েছেন ফারহানা রহমান।

উপকরণ :খামির এর জন্য-
হাফ কাপ ময়দা
হাফ কাপ দুধ
১ চিমটি লবণ
১ টা ডিমের অর্ধেক
১ টুকরো পাউরুটির সাদা অংশের অর্ধেক টা
২ টেবিল চামচ ঘিসিরার জন্য: 
১কাপ চিনি
১কাপ পানি
২টা এলাচআরও লাগবে:
আলাদা ভাবে ২ কাপ দুধ
২টেবিল চামচ চিনিযেভাবে করতে হবে :-প্রথমেই সিরা করতে হবে। পানি, চিনি, এলাচ জ্বাল দিয়ে খুবই পাতলা সিরা বানাতে হবে।-অন্যপাত্রে দুধ গরম করে চুলাতেই দুধের ভেতর ময়দা এবং লবণ দিয়ে রুটির মত খামির বানাতে হবে।-এবার চুলা বন্ধ করে খামির একটু ঠান্ডা হলে ঘি, ডিম, পাউরুটি মিশিয়ে খুবই নরম খামির বানাতে হবে। যতক্ষণ না খামির এর আঠালো ভাব না যাবে ততক্ষণ মথতে হবে।-এবার ছোট ছোট বল বানিয়ে হাত দিয়ে একটু চ্যাপটা করে ইচ্ছে মত নকশা দিতে হবে। আমি আমার খইচালা/ঝাকা/খাবার ঢেকে রাখার প্লাস্টিক এর ফুটো ফুটো কাভার এ তেল লাগিয়ে চ্যাপটা বল গুলো চেপে চেপে ডিজাইন করেছি।-এবার অল্প তাপে ডুবো তেলে লাল করে ভেজে কুসুম গরম সিরাতে ছাড়তে হবে।-৩ ঘন্টা পর ২ কাপ দুধ জ্বাল দিয়ে ঘন করে ১ কাপ করতে হবে।-২টেবিল চামচ চিনি মিশিয়ে নিতে হবে। চুলা বন্ধ করে দিন। এবার পিঠা গুলো সিরা থেকে তুলে নিয়ে দুধে দিয়ে ঢেকে রাখুন।-পরিবেশন এর সময় পিঠার উপর দুধের সর দিয়ে পরিবেশন করুন।

বিস্তারিত খবর

চিলি চিকেন রেসিপি

 প্রকাশিত: ২০১৫-০১-১৪ ০৪:১১:০৯

রেস্তরাঁর চিলি চিকেন খেতে ভালোবাসেন খুব? তাহলে ঝটপট দেখে নিন আতিয়া হোসেন তনীর চিলি চিকেন রেসিপি। তৈরিতে সময় লাগবে খুবই কম। আর হার মানাবে রেস্তরাঁর চিলি চিকেনের স্বাদকেও। চলুন, দেখে নিই।
উপকরণহাড় ছাড়া মুরগির মাংস কিউব করে কাটা ২০০ গ্রাম
ক্যাপসিকাম ২-৩ টি কিউব করে কাটা
শুকনো মরিচ ফালি ২-৩ টি ( অথবা ইচ্ছেমত )
পেঁয়াজ ( চার টুকরা করে ভাঁজ খুলে নেয়া )
সয়াসস ১ টেবিল চামচ
উসটার সস ১ চা চামচ
রসুন কুচি ১ টেবিলচামচ
আদা কুচি ১ টেবিলচামচ
ডিম একটি
কর্নফ্লাওয়ার ৩ টেবিল চামচ + ১ চা চামচ
চিকেন স্টক ১ কাপ
কাজুবাদাম ( ইচ্ছে )
চিলি - গার্লিক সস
চিনি সামান্য
সেসামি অয়েল ২-৩ টেবিল চামচ
সয়াবিন তেল ( চিকেন ভাজার জন্য )
পেঁয়াজ পাতা গার্নিশের জন্যপ্রণালী-একটি বাটিতে কিউব করে কাটা মুরগির টুকরাগুলো নিয়ে এর সাথে কর্নফ্লাওয়ার ( ৩ টেবিলচামচ ), লবণ, একটি ডিম ফেটিয়ে ভালো মত চিকেনের সাথে মিশিয়ে নিন।-প্যানে তেল গরম করে লাল করে মুরগির টুকরা গুলো ভাজতে হবে।-আরেকটি প্যানে সেসামি তেল দিয়ে আদা কুচি - রসুন কুচি , শুকনা মরিচ ফালি দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজতে হবে।-পেঁয়াজ কিউব , কাপ্সিকাম কিউব , কাজুবাদাম দিয়ে ভালো মত নেড়েচেড়ে চিলি - গার্লিক সস, সয় সস , লবণ , গোলমরিচ গুঁড়ো ,সামান্য চিনি দিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করতে হবে।-চিকেন স্টক দিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করতে হবে।-এরপর আগে থেকে ভেজে রাখা চিকেন দিয়ে ভালোমত নেড়েচেড়ে এর সাথে ১ টেবিলচামচ কর্ণফ্লাওয়ার এর সাথে ২ টেবিলচামচ পানি মিশিয়ে অল্প অল্প করে দিতে হবে।-ঘন হয়ে আসলে নামাতে হবে। পেঁয়াজ পাতা দিয়ে গার্নিশ করে গরম গরম পরিবেশন।

বিস্তারিত খবর

ক্যানড টুনা ফিশ দিয়ে অত্যন্ত সুস্বাদু টুনা কাবাব

 প্রকাশিত: ২০১৫-০১-০৮ ০০:১৩:৪৬

ক্যানড টুনা ফিশ এমন কোন আহামরি দামী জিনিস নয়। ১৪০ টাকা থেকে শুরু করে ২০০ টাকার মাঝেই মেলে এই ক্যানড টুনা। তবে অনেকেই জানেন না কীভাবে এই টুনা রান্না করতে হয়। মাছের কাবাব কি কেবল তাজা মাছ দিয়ে তৈরি করেন? ক্যাড টুনা ফিশ দিয়েও কিন্তু দারুণ কাবাব হয় মাছের। দারুণ রেসিপিটি দিয়েছেন ফারহিন রহমান।
উপকরণ-- টুনা ১ এক কাপ [ canned ]
- সেদ্ধ আলু ১টি মাঝারি সাইজ
- কাঁচা মরিচ কুচি
- পিঁয়াজ কুচি ১ টি
- ধনে পাতা কুচি
- পুদিনা পাতা কুচি
- লবণ স্বাদ মত
- আদা-রসুন বাটা ১/২ চা চামচ
- ধনে-জিরা গুঁড়ো ১/২ চা চামচ
- কাবাব মশলা ১/২ চা চামচ
- গুঁড়ো মরিচ ১/২ চা চামচ
- গোলমরিচ গুঁড়ো ১/৪ চা চামচ
- টমেটো সস ১ টেবিল চামচ
- চিনি সামান্য
- ব্রেড ১ পিস বা ব্রেড এর গুঁড়ো ৩-৪ টেবিল চামচ
- ডিম ২ টা
- ব্রেড গুঁড়ো ১ কাপ ভাজার জন্য
- তেল ভাজার জন্যপ্রণালি--এক বাটিতে টুনা, আলু, একটা ডিম, ৩-৪ টেবিল চামচ ব্রেড গুঁড়ো ( আস্ত ব্রেড হলে পানিতে একটু ভিজিয়ে নরম করে নিয়ে মিশাতে হবে ) সহ সব উপকরণ এক সাথে মিশিয়ে নিতে হবে।-এবার পছন্দ মত শেপে কাবাব বানিয়ে ব্রেড গুঁড়োতে গড়িয়ে ফেটানো ডিমে চুবিয়ে হালকা গরম তেলে মিডিয়াম আছে ভেজে নিন।-আপনি চাইলে প্রথমে ডিমে চুবিয়ে তারপর ব্রেড গুঁড়ো দিতে পারেন। এতে কাবাব ক্রিসপি হবে।-পরিবেশন করুন গরম গরম।

বিস্তারিত খবর

মাটন কাচ্চি বিরিয়ানী

 প্রকাশিত: ২০১৪-১২-২৪ ২২:২২:২৭

আমরা ঘরে বসেও মজার মজার খাবার তৈরি করতে পারি। একটু খেয়াল করলেই দেখবেন এসব মজার মজার খাবার তৈরি কোন অসাধ্য কিছু নয়। আমরা পর্যায়ক্রমে সব রকম রেসিপি আপনাদের সামনে তুলে ধরবো। আজকের আইটেম মাটন কাচ্চি বিরিয়ানী
উপকরণঃ
# খাসীর মাংস (১কেজি= ১০পিছ) আড়াই কেজি# পোলার চাউল ১২৫০ (১জনের ১২৫ গ্রাম করে)# আলু ৫০০ গ্রাম# ঘি ১০০ গ্রাম# বাটার অয়েল ১০০ গ্রাম# সয়াবিন তেল ২০০ গ্রাম# পেয়াজ ভাজা ১০ গ্রাম# আদা বাটা ১০০ গ্রাম# রসুন বাটা ৭৫ গ্রাম# গুড়া মরিচ ১০ গ্রাম# জিরা গুড়া ৮ গ্রাম# দারচিনি গুড়া ৬ গ্রাম# বড় এলাচ গুড়া ২ গ্রাম# এলাচ, জয়ফল, জয়ত্রী, কাবাব চিনিগুড়া ১০ গ্রাম# টক দই ৫০ গ্রাম# আলু বোখারা# কিচমিচ ১০ গ্রাম# কাঠ বাদাম# মাওয়া ৫ গ্রাম# কেওড়া সেন্ট ২টি# জাফরান ১/৪ গ্রাম# পেস্তাবাদাম কুচানো ৮ গ্রাম# টেস্টিং সল্ট- লবণ পরিমাণ মতো# আটা এবং কাঠ কয়লা যা লাগে
প্রণালী:

প্রথমে মাংসকে পানিতে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। পরে পাত্রে মাংস ঢেলে সব মসলা, উপকরণ অনুযায়ী দিয়ে মেরিনাইড করে কিছুক্ষণ পাত্রটা ঢেকে রাখতে হবে। পরে আলাদা পাত্রে চাউলটাকে ৮০ থেকে ৯০ ভাগ সিদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে মাংসের উপর দিয়ে চুলোয় চড়িয়ে দিতে হবে। আটা দিয়ে পাত্রের ঢাকনা ভালো ভাবে চাপ দিয়ে দিতে হবে। যখন আটা এবং ঢাকনার ফাঁক দিয়ে হাওয়া বাহির হবে তখন ঢাকনার উপর কাঠ কয়লা জ্বালিয়ে দিতে হবে এবং আগুনে তাপ কমিয়ে দিতে হবে। এভাবে অন্তত: আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা চুলার উপর অল্প তাপে রাখতে হবে। যখন কাচ্চির পাকা ফ্লেবার আসবে তখন ঢাকনা খুলে একটি কাঠি দিয়ে পাত্রের মাঝখানে চেক করতে দেখতে হবে ভিতরে কোন রকম পানি আছে কিনা। যদি পানি না থাকে তাহলে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করতে হবে। তবে মনে রাখতে হবে পাত্র চুলোয় উঠানোর আগে আলুটাকে গরম তেলে হালকা ভেজে নিয়ে মাংসের উপর দিতে হবে এবং পরে চাউল দিতে হবে।

বিস্তারিত খবর

গুঁড়ো দুধ দিয়ে ঝটপট তৈরি করুন "পারফেক্ট" গোলাপ জাম

 প্রকাশিত: ২০১৪-১২-১৭ ২২:০৯:১২

আজকাল অনেকেই মিষ্টি তৈরি করেন ঘরে, তবে কাজটা কিন্তু অনেক সময় সাপেক্ষ। বিশেষ করে গোলাপ জাম তৈরি বেশ একটা ঝক্কির ব্যাপারই বটে। অনেকের গোলাপ জামই ভেতরে শক্ত রয়ে যায়, অনেকেরটা ভেঙে যায়, অনেকটা ভেতরে কাঁচা রয়ে যায়। আজ জেনে নিন একদম পারফেক্ট গোলাপ জাম তৈরির দারুণ এক রেসিপি। আর রেসিপিটি দিয়েছেন ফারহানা রহমান।
যা যা লাগবে:১কাপ গুঁড়ো দুধ( নিডো ফুল ক্রিম গুঁড়ো দুধ দিয়ে খুব ভালো মিষ্টি হয়)
১ টেবিল চামচ সুজি (৫ মিনিট পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে।পরে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে।)
১ চা চামচ বেকিং পাউডার
১টেবিল চামচ ঘি
১টা ডিম
ভাজার জন্য তেলসিরার জন্য-
২ কাপ চিনি
৩ কাপ পানি
৩ টা এলাচ
১ চা চামচ লেবুর রসপ্রনালি:-প্রথমেই পানি, চিনি,এলাচ ও লেবুর রস দিয়ে সিরা তৈরি করুন। কয়েকটা বলক উঠলে চুলার তাপ একেবারে কমিয়ে দিন। তবে চুলা বন্ধ করবেন না। সিরা বেশি ঘন হবে না।-অন্যদিকে গুঁড়ো দুধ, বেকিং পাউডার, ডিম, ঘি,সুজি এক সাথে মিশিয়ে খামির তৈরি করুন। ভাল ভাবে মথে নিন।-হাতে তেল লাগিয়ে ছোট ছোট মসৃণ বল বানান। সাথে সাথে ডুবো তেলে সময় নিয়ে লাল করে ভাজুন।-চুলার তাপ মিডিয়ামে রাখতে হবে। সময় নিয়ে সব দিকে সমান ভাবে ভাজতে হবে। ভাজা হলে সরাসরি গরম সিরাতে মিস্টি ছাড়তে হবে। ঢেকে দেওয়ার দরকার নেই। ৫ মিনিট পর চুলা বন্ধ করে ওভাবেই ১ ঘন্টা রাখতে হবে।-মিষ্টিগুলো রস শুষে নিয়ে ডাবল সাইজের হয়ে যাবে। ব্যাস! তৈরি গোলাপ জাম মিষ্টি।

বিস্তারিত খবর

ভাতের পাতে ৬ রকমের ভর্তা

 প্রকাশিত: ২০১৪-১২-১১ ০২:৫১:২৫

শীতের দিনে গরম ভাতের পাতে হরেক রকমের ভর্তা- শুনেই জিভে পানি চলে আসে, তাই না? ৬টি দারুণ ভর্তার রেসিপি নিয়ে আজ এসেছনে নদী সিনা। এই ভর্তাগুলো সুস্বাদু তো বটেই, সাথে স্বাস্থ্যকরও। চলুন, জেনে নিই রেসিপি।
১.কালোজিরা ভর্তাউপকরণ: কালোজিরা সিকি কাপ, রসুনের কোয়া ১ টেবিল-চামচ, কাঁচামরিচ ৩-৪টি, পেঁয়াজ কুচি ১ টেবিল-চামচ, লবণ পরিমাণমতো, সরিষার তেল ১ টেবিল-চামচ।
প্রণালি: রসুন, পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ প্যানে টেলে নিতে হবে। তেল বাদে সব উপকরণ পাটায় বেটে তেল দিয়ে মাখিয়ে ভর্তা করতে হবে।

২.টমেটো ভর্তাউপকরণ: টমেটো আধা কেজি, কাঁচা মরিচ ৫/৬টি, লবণ পরিমাণ মতো, পিঁয়াজ কুচি সিকি কাপ, ধনে পাতা কুচি সিকি কাপ, সরিষার টেল স্বাদ অনুযায়ী
প্রণালি: টমেটো ধুয়ে পানি ঝড়িয়ে নিন। চুলায় ফ্রাই প্যানে টমেটোগুলি দিয়ে ঢেকে দিন অল্প আঁচে। ১০/১৫ মিনিট পর উটিয়ে দিন। টমেটো সিদ্ধ হয়ে গেলে প্যান থেকে নামিয়ে নিন। এবার টমেটোগুলির খোসা ছাড়িয়ে নিন। পাত্রে পিঁয়াজ কুচি, কাঁচামরিচ কুচি, ধনে পাতা কুচি নিন। হাতে মেখে টমেটোগুলি তার সাথে মিশিয়ে ভর্তা করে নিন। তেল যোগ করুন। তৈরি হয়ে গেল চমৎকার টমেটো ভর্তা।
৩.লাউপাতা /কুমড়া পাতা ভর্তাউপকরণ : কচি লাউপাতা/কুমড়া পাতা ১৫/২০টি, চিংড়ি ১/২ কাপ ছোট, পেঁয়াজ ১/৪ কাপ, কাঁচামরিচ যে যেমন ঝাল খাবেন , রসুন ১ টেবিল চামচ ,লবণ সাদমত, সরিষার তেল ১ টেবিল চামচ
প্রণাল : লাউপাতা ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। এইবার বাকি সব দিয়ে প্যানে একটু নেড়ে পানি শুকিয়ে নিন। পানি শুকিয়ে গেলে পেস্ট করে নিন। সব শেষে সরিষার তেল মেখে পরিবেশন করুন।
৪. বেগুন ভর্তাউপকরণ: বেগুন - ৪০০ গ্রাম, সরিষার তেল - ১ টেবিল চামচ,পেঁয়াজ কুচি - ১/৪ কাপ,কাঁচামরিচ - ৪-৫ টা (কুচি করে দিতে পারেন অথবা হাল্কা করে টেলে নিয়ে ভর্তা করে দিতে পারেন),ধনিয়াপাতা কুচি- ২ টেবিল চামচ (ইচ্ছা),লবণ- ১ চা চামচ অথবা পছন্দমত
প্রণালী:বেগুন নরম হওয়া পর্যন্ত পুড়িয়ে নিন। বেগুন পোড়া হয়ে গেলে বেগুনটা ঠান্ডা হতে দিন। তারপর চামড়া আস্তে আস্তে ছাড়িয়ে নিয়ে ভাল করে ভর্তা করে নিন। তারপর পেঁয়াজকুচি, মরিচকুচি, লবণ ও ধনিয়াপাতাকুচি ভাল করে মিশিয়ে নিয়ে গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন।
৫. সবজির ভর্তাউপকরণ: আলু ২টি, মিষ্টি কুমড়া আধা কাপ, ফুল কপি ১ কাপ, ব্রকলি ১ কাপ, বরবটি ১ কাপ,গাজর ১/২ কাপ , লবণ পরিমাণমতো, সরিষার তেল ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ/শুকনা মরিচ ভাজা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি সিকি কাপ, ধনেপাতা কুচি ৪ টেবিল চামচ।
যেভাবে তৈরি করবেন : সব সবজি চারকোনা করে কেটে নিন। সব সবজি সামান্য লবণ দিয়ে সিদ্ধ করে নিন।এরপর সবজিগুলো একসঙ্গে ভর্তা করে সরিষার তেল, কাঁচা মরিচ কুচি, পেঁয়াজ কুচি ও ধনেপাতা কুচি দিয়ে মেখে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন।
৬.পালংশাক ভর্তাউপকরন: পালংশাক ২০০ গ্রাম , কাঁচা মরিচ/ শুকনা মরিচ ভাজা ৫ থেকে ৬ টি পেয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ। লবণ ও সরিষার তেল -নিজের পছন্দ মত।
প্রনালী: প্রথমে পালংশাক ভাল করে ধুয়ে বড় করে কেটে যে কোন পাত্রে সিদ্ধ করে নিন। শাক সিদ্ধ হয়ে গেলে পেয়াজ কুচি, মরিচ ও লবণ হাত দিয়ে চেটকিয়ে মিহি করুন। তারপর সরিষার তেল দিয়ে মাখিয়ে পরিবেশন করুন। শীতের দিনে গরম গরম ভাতের সাথে শাক ভর্তা অনেক সুস্বাদু লাগে।

বিস্তারিত খবর

রেসিপিঃ আমেরিকান ফ্রাইড চিকেন

 প্রকাশিত: ২০১৪-১২-০৩ ২২:০৪:৪৫

ঈদে গরু-খাসির মাংসের পর খাওয়ায় অরুচি ধরতে পারে তাই চিকেন আইটেম এই মুহূর্তের একটি পছন্দসই আইটেম হতে পারে। আজকের আইটেম আমেরিকান ফ্রাইড চিকেন।
উপকরণ:# মোরগ ১ কেজি ওজনের ১টি
# ডিম ১টি# মাস্টার পেস্ট ১ চা চামচ# গোল মরিচ গুড়া ১ চা চামচ# ময়দা/কর্ণপাউডার ১ টেবিল চামচ# ওয়েস্টার সস ১ টেবিল চামচ# টোস্টের গুড়া ১ কাপ# লবণ স্বাদ অনুযায়ী# তেল ভাজার জন্য
প্রণালী:মোরগ ৮ টুকরা করে নিতে হবে। ডিমের সাথে মাস্টার পেস্ট, গোলমরিচ গুড়া, ওয়েস্টার সস, ময়দা ও লবণ মিশিয়ে নিতে হবে। মাংস ডিমের মসল্লায় ডুবিয়ে সেখান থেকে তুলে টোস্টের গুড়ায় গড়িয়ে নিয়ে ডুবো তেলে ভেজে নিতে হবে। এবার গরম গরম পরিবেশন করুন।

বিস্তারিত খবর

গাজরের ফিরনি

 প্রকাশিত: ২০১৪-১১-২৮ ০৫:১৮:৩৭

হালুয়া অনেকেই পছন্দ করেন, তবে বাজার থেকে কিনে খাওয়ার থেকে নিজেই যদি বানাতে পারেন বিষয়টি মন্দ হয়না। আজ আমরা জানবো কিভাবে গাজরের ফিরনি বানাবেন এবং পরিবেশন করবেন সবার মাঝে।

উপরকণ : দুধ ২ লিটার, পোলাওর চাল ১ মুঠ, গাজর ১ কাপ, চিনি ১ কাপ, কিশমিশ ২ টেবিল চামচ, এলাচ ৪টি, ঘি ২ টেবিল চামচ, গোলাপ জল ১ চা চামচ, জাফরান সামান্য, পেস্তাবাদাম কুচি ২ চা চামচ, কাঠবাদাম কুচি ২ চা চামচ।
প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে চাল আধ ভাঙা করে নিন। দুধ এলাচা দিয়ে জাল দিন। ফুটে উঠলে তাতে চাল দিন। ভালোভাবে নাড়তে থাকুন। গাজর দিন। চাল ও গাজর সিদ্ধ হয়ে গেলে তাতে চিনি দিন। একে একে কিশমিশ, পেস্তাবাদাম, কাঠবাদাম, ঘি, জাফরান, গোলাপজল দিন। দুধ ঘন হয়ে গেলে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

বিস্তারিত খবর

ভেজিটেবল ফ্রাইড রাইস

 প্রকাশিত: ২০১৪-১১-২৫ ০৪:৫৮:০২

ফ্রাইড ফাইস অনেক স্বাস্থ্যসম্মত খাবার। রোজা কিংবা অনুষ্ঠানে ফ্রাইড রাইস আলাদা আমেজ নিয়ে আসতে পারে। তাই আমাদের আজকের রেসিপি আয়োজনে রয়েছে ভেজিটেবিল ফ্রাইড রাইস তৈরির সহজ পদ্ধতি।
উপকরণ:সরু চাল ২০০ গ্রাম। মটরশুঁটি ছাড়ানো ১০০ গ্রাম। মোরগের কলিজা ৪টি। মোরগের মাংস ২০০ গ্রাম। চিংড়ি ৬০ গ্রাম। ডিম ৩টি। সয়াসস ২ টেবিল-চামচ। মরিচ গুঁড়া চা-চামচের ৪ ভাগের ১ ভাগ। অঙ্কুরিত ডাল ৭৫ গ্রাম। তেল ৫ টেবিল-চামচ। লবণ ও গোলমরিচ স্বাদমতো।
প্রণালী:চাল ধুয়ে ফুটন্ত লবণ পানিতে ১০ মিনিট ফোটান। ঝাঁঝরিতে ভাত ঢালুন। কলের নিচে ধরে ঠাণ্ডা পানিতে ভাত ধুয়ে নিন। পানি ঝরান। মটরশুঁটি, কলিজা, মাংস, চিংড়ি আলাদা আলাদা আধা সিদ্ধ করে ভাতের সঙ্গে মেশান। ডিমে সয়াসস, মরিচ, লবণ, গোলমরিচ ও চিনি দিয়ে ফেটিয়ে রাখুন। অঙ্কুরিত ডাল গামলায় নিয়ে উপরে ফুটন্ত পানি ঢালুন। সঙ্গে সঙ্গে পানি ঝরিয়ে ঠাণ্ডা পানিতে রাখুন। কড়াইয়ে তেল গরম করুন। ভাত দিয়ে ১০ মিনিট নেড়ে নেড়ে ভাজুন। অঙ্কুরিত ডাল দিয়ে একবার নাড়ুন। ফেটানো ডিম ঢেলে দিন। ডিম ঘন হতে আরম্ভ করলে মাঝে মাঝে নেড়ে মেশান। গরম গরম পরিবেশন করুন।

বিস্তারিত খবর

ঝটপট মজাদার ‘কড়াই চিকেন’

 প্রকাশিত: ২০১৪-১১-২০ ০০:১৯:১৪

একই ধরণের খাবারের স্বাদ বদলে নতুন নতুন পদ রান্না করতে ভালোই লাগে। বিশেষ করে মুরগীর মাংসের পদগুলো। কারণ একই মুরগীর মাংস দিয়ে ভিন্ন স্টাইলে অনেক ধরণের খাবার তৈরি করা যায়। এবং সব চাইতে ভালো ব্যাপারটি হলো খেতেও বেশ সুস্বাদুই হয়। আজকে এমনই একটি মজার পদ নিয়ে হাজির হলাম। চলুন তবে ঝটপট শিখে নিই ‘কড়াই চিকেন’ রান্নার সহজ রেসিপিটি। 
উপকরণঃ- আধা কেজি মুরগীর মাংস
- ৩ টি বড় পেঁয়াজ কিউব করে কেটে ছাড়িয়ে নেয়া
- ২ টি বড় টমেটো পিষে নেয়া
- আধা কাপ ক্যাপসিকাম বড় করে কিউব করে কাটা
- ১ চা চামচ গরম মসলা গুঁড়ো
- লবণ স্বাদ মতো
- ২ কাপ পানি
- ৩ চা চামচ আদা-রসুন বাটা
- আধা চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
- ২ টেবিল চামচ লেবুর রস
- ৩ টেবিল চামচ তেল
- ২ টি তেজ পাতা
- ২ টি লবঙ্গ
- ৫-৬ টি এলাচমসলার জন্য 
- ধনে ১ চা চামচ
- ৪ টি শুকনো মরিচ
- ১ চা চামচ জিরা
- ১ ইঞ্চি দারুচিনিপদ্ধতিঃ- মসলার জন্য রাখা সব কিছু একটি প্যানে শুকনো করে ২ মিনিট ভেজে গুঁড়ো করে নিন বা হামান দিস্তায় পিষে নিন।
- মুরগী ছোটো করে কেটে ধুয়ে নিয়ে বানানো মসলার অর্ধেক, ১ চা চামচ আদা-রসুন বাটা, হলুদ গুঁড়ো, আধা চা চামচ লবণ ও লেবুর রস দিয়ে মাখিয়ে রেখে দিন ৩০ মিনিট।
- একটি প্যানে তেল দিয়ে এতে তেজপাতা, লবঙ্গ ও এলাচ দিয়ে নেড়ে নিন। এতে পেঁয়াজ ও আদা-রসুন বাটা দিয়ে নেড়ে নিন ভালো করে।
- পেঁয়াজ নরম হয়ে এলে বান্যে রাখা মসলার বাকি অর্ধেকটা দিয়ে ১ মিনিট নেড়ে নিয়ে পিষে রাখা টমেটো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নাড়তে থাকুন।
- তেল উপরে উঠে এলে মুরগীর মাংস দিয়ে মিশিয়ে নিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ৪-৫ মিনিট রেঁধে নিন।
- এরপর লবণ ও ২ কাপ পানি দিয়ে দিন। ঝোল ফুটতে শুরু করলে ধকনা দিয়ে ঢেকে ১২-১৫ মিনিট রান্না করুন। মুরগীর মাংস সেদ্ধ এবং ঝোল মাখা মাখা ধরণের হয়ে এলে ক্যাপসিকাম সিয়ে নেড়ে নিন। এবং ঢাকনা দিয়ে ঢেকে আরও ৫ মিনিট রান্না করুন মাঝারি আঁচে।
- ক্যাপসিকাম সেদ্ধ হয়ে এলে এবং ঝোল পুরো মাখা মাখা হয়ে এলে লবণের স্বাদ বুঝে নিন। এরপর ওপরে গরম মসলা গুঁড়ো ছিটিয়ে একটু নেড়ে নিয়ে চুলা থেকে নামিয়ে ফেলুন।
- ব্যস, এবার গরম ভাত বা রুটি পরোটার সাথে মজা নিন সুস্বাদু ‘কড়াই চিকেন’এর।

বিস্তারিত খবর

আমেরিকান ফ্রাইড চিকেন

 প্রকাশিত: ২০১৪-১১-১৮ ১৩:১৬:২৪

ঈদে গরু-খাসির মাংসের পর খাওয়ায় অরুচি ধরতে পারে তাই চিকেন আইটেম এই মুহূর্তের একটি পছন্দসই আইটেম হতে পারে। আজকের আইটেম আমেরিকান ফ্রাইড চিকেন।
উপকরণ: মোরগ ১ কেজি ওজনের ১টি ডিম ১টি মাস্টার পেস্ট ১ চা চামচ গোল মরিচ গুড়া ১ চা চামচ ময়দা/কর্ণপাউডার ১ টেবিল চামচ ওয়েস্টার সস ১ টেবিল চামচ টোস্টের গুড়া ১ কাপ লবণ স্বাদ অনুযায়ী তেল ভাজার জন্যপ্রণালী:মোরগ ৮ টুকরা করে নিতে হবে। ডিমের সাথে মাস্টার পেস্ট, গোলমরিচ গুড়া, ওয়েস্টার সস, ময়দা ও লবণ মিশিয়ে নিতে হবে। মাংস ডিমের মসল্লায় ডুবিয়ে সেখান থেকে তুলে টোস্টের গুড়ায় গড়িয়ে নিয়ে ডুবো তেলে ভেজে নিতে হবে। এবার গরম গরম পরিবেশন করুন।

বিস্তারিত খবর

ইয়ুথ ফেস্টে প্রবাসী বাংলাদেশিদের অংশগ্রহণ

 প্রকাশিত: ২০১৪-১১-০৮ ২২:৪৮:০৯

ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সংগঠন বাংলাদেশি আমেরিকান ক্যালিফোর্নিয়া সোসাইটি (বিএসিএস)। সংগঠনটি এই প্রথমবারের মতো মরেনো ভেলি সিটি হল আয়োজিত ইয়ুথ ফেস্টের এক আন্তর্জাতিক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে প্রশংসা অর্জন করেছে।
সম্প্রতি এই ইয়ুথ ফেস্ট অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের পরিবেশনায় মুগ্ধ হয়ে স্থানীয় সাপ্তাহিক মরেনো ভেলি সিটি নিউজ বাংলাদেশি সংস্কৃতির ওপর একটি বিশদ প্রতিবেদন প্রকাশ করে। ওই পত্রিকায় সংগঠনের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়েও সংবাদ পরিবেশন করা হয়।
উল্লেখ্য, লস অ্যাঞ্জেলেসের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এবং চ্যানেল আই ও ভয়েস অব আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়া প্রতিনিধি সাইফুর রহমান ওসমানী জিতুর নেতৃত্বে ২০১২ সালে বাংলাদেশি আমেরিকান ক্যালিফোর্নিয়া সোসাইটি প্রতিষ্ঠিত হয়। সংগঠনটি ইতিমধ্যে মূলধারায় ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে।

বিস্তারিত খবর

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত