যুক্তরাষ্ট্রে আজ বুধবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৭ ইং

|   ঢাকা - 08:39pm

|   লন্ডন - 02:39pm

|   নিউইয়র্ক - 09:39am

  সর্বশেষ :

  ইতালিতে বাংলাদেশ সমাজ কল্যাণ সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন   ধর্ম অবমাননা নিয়ে রংপুরে সহিংসতা, আদালতে টিটু রায়ের স্বীকারোক্তি   টিকাতেই নিরাময় হবে ক্যান্সার   মিয়ানমারে রোহিঙ্গারা ‘জাতিগত বৈষম্যের’ শিকার : অ্যামনেস্টি   ঢাবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র জালিয়াতি, আটক ৮   নাইজেরিয়ায় মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৫০   রোহিঙ্গাদের ফেরাতে চলতি সপ্তাহে সমঝোতার আশা সু চি’র   জানুয়ারি থেকে সব বাহিনীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিশেষ ভাতা: প্রধানমন্ত্রী   আমেরিকান মিউজিক অ্যাওয়ার্ডসে সেরা হলেন যারা   পদত্যাগ নয়, জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলেন মুগাবে   কেন সৌদি আরব এমন করছে?   মরক্কোয় ত্রাণ নেওয়ার সময় পদদলিত হয়ে নিহত ১৫   ৭ মার্চকে ঐতিহাসিক দিবস ঘোষণা চেয়ে হাইকোর্টে রিট   শাহজালালের মাজারের কুপের পানিকে জমজমের পানি বলে প্রতারণা : তদন্তের নির্দেশ আদালতের   এলপিজি আমদানির জাহাজ কিনলো বেক্সিমকো পেট্রোলিয়াম

>>  আইটি এর সকল সংবাদ

১১ মিনিট উধাও ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্ট

১১ মিনিটের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ব্যক্তিগত টুইটার অ্যাকাউন্ট বৃহস্পতিবার ‘উধাও’ হয়ে গিয়েছিল বলে খবর দিয়েছে বিবিসি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বিষয়টি প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, তাদের এক কর্মী তার শেষ কর্মদিবসে ‘ইচ্ছাকৃতভাবে’ এ কাণ্ড ঘটিয়েছে।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় বিকেল ৪টায় হঠাৎ করেই টুইটারে ট্রাম্পের @realdonaldtrump অ্যাকাউন্টটি বন্ধ হয়ে যায়। পরে তা সচল করা হয়। ওই ১১ মিনিট যারা ট্রাম্পের টুইটার পেইজে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন, তারা কেবল একটি নোটিস দেখেছেন। সেখানে লেখা ছিল- ‘দুঃখিত, এই পৃষ্ঠাটির অস্তিত্ব নেই!’ তবে মার্কিন

বিস্তারিত খবর

গুগল অ্যাডসেন্স এবার বাংলা ভাষার ওয়েবসাইটে

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৯-২৭ ১৫:৫৯:৩০

বাংলা ভাষার ওয়েবসাইটে গুগল অ্যাডসেন্স ব্যবহার করা যাবে বলে ঘোষণা দিয়েছে সার্চ জায়ান্ট গুগল। সম্প্রতি এক ব্লগপোস্টে নতুন এই সুবিধা চালু করার তথ্য জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

গুগল জানিয়েছে, বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ, ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অনলাইনে বাংলা কনটেন্ট বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলা ভাষায় ওয়েবসাইটের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। এসব কিছু বিবেচনা করে বাংলায় গুগল অ্যাডসেন্স চালু করা হল।

অ্যাডসেন্স হচ্ছে, গুগলের লাভ-অংশীদারী প্রকল্প। এর মাধ্যমে ওয়েবসাইটের মালিক তার ওয়েবসাইটে কিছু শর্তসাপেক্ষে গুগল নির্ধারিত বিজ্ঞাপণ প্রদর্শনের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। প্রচুর বাংলাদেশি ব্লগার এবং ওয়েবসাইটের মালিক গুগল অ্যাডসেন্সের বিজ্ঞাপণ প্রদর্শনের মাধ্যমে বর্তমানে অর্থ আয় করছেন। অ্যাডসেন্স শুধু ওয়েবসাইট নয়, ইউটিউব, মোবাইল অ্যাপ ইত্যাদিতেও ব্যবহার করা যায় এবং সেখান থেকেও আয় করা যায়।

বর্তমানে বিশ্বের প্রায় দেড় কোটি ওয়েবসাইটে গুগল অ্যাডসেন্স ব্যবহার করা হচ্ছে। ২০১৫ সালেই প্রতিষ্ঠানটি গুগল অ্যাডসেন্স প্রকাশকদের প্রায় ১০ বিলিয়ন ডলার পেমেন্ট দিয়েছে, যা ক্রমবর্ধমান হারে বাড়ছে। বাংলা ভাষায় অ্যাডসেন্স চালু হওয়ার ফলে এ সংখ্যায় নতুনমাত্রা যুক্ত হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

মিনিটেই তৈরি হবে বাড়ি!

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৮-২০ ০২:৪০:১৬

বাড়ি বানানো কি সহজ কাজ? ইট-সিমেন্টের জোগান আর কারিগরদের সঙ্গে পরিকল্পনা ও খরচ জোগাতে গিয়ে অনেকের শরীরের রক্তচাপই স্বাভাবিক থাকে না। এ কারণেই বাড়ি বানানোর বদলে অনেকের নজর এখন ফ্ল্যাটের দিকে। নিষ্কণ্টক খালি জমির দুষ্প্রাপ্যতাও অবশ্য আরেকটি কারণ।

সম্প্রতি ব্রিটেনের একটি সংস্থা বাড়ি বানানোর তাক লাগানো পদ্ধতি আবিষ্কার করেছে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন’র এক প্রতিবেদনে যে আশ্চর্য বাড়ির কথা বলা হয়েছে তা নিজে থেকেই তৈরি হয়ে যায়। তাও আবার মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যে।



টেন ফোল্ড ইঞ্জিনিয়ারিং নামের ওই সংস্থা বলছে, তাদের নির্মিত বাড়ি মাত্র অল্প সময়ের মধ্যেই সম্পূর্ণ বসবাসের জন্য উপযোগী হয়ে উঠবে। তাদের দাবি, ৬৪৫ স্কোয়ার ফুটের বাড়ি তৈরি হতে সময় নেবে মাত্র ১০ মিনিট।

তবে আকর্ষণীয় বিষয় হচ্ছে এটিকে প্রয়োজনে যে কোনো সময় গুটিয়ে ফেলা সম্ভব। অর্থাৎ বাড়িটিকে গুটিয়ে যে কোনো স্থানে নিয়ে আবারও বসিয়ে দেয়া যাবে।

স্বয়ংক্রিয়ভাবেই বাড়িটিকে গুটিয়ে কিংবা বিস্তার ঘটানো সম্ভব বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠানটি। সহজে বহনযোগ্য হওয়ায় গাড়িতে করে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নেয়া যাবে। এমনকি শিপিং কন্টেইনারে করেও এটিকে দূরে কোথাও পাঠানো সম্ভব।

প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার স্থপতি ডেভিড মার্টিন জানিয়েছেন, বাড়িটি ঘন ঘন ফোল্ড করলে কিংবা খুললেও এটি দুর্বল হবে না, রঙও নষ্ট হবে না।

অবশ্য ইউবক্স ডিজাইনের বাড়িটি এখনও প্রথম পর্যায়ে রয়েছে। তবে তাক লাগানো বাড়িটির দামও কিন্তু তাক লাগানোর মতোই... মাত্র ১০ কোটি ৫৭ লাখ টাকা!


এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ফেসবুকের নগ্নতার নীতিমালায় ঘায়েল নগ্ন চিত্রকর্ম

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৮-১৯ ০২:৪৯:১১

‘অযৌক্তিক সেন্সরশিপ’ হিসেবে ফেসবুককে অভিযুক্ত করা হয়েছে, কারণ তারা বিখ্যাত কিছু নগ্ন চিত্রকর্মের ছবি ফেসবুকে পোস্ট করতে দেয়নি।

খ্যাতনামা কয়েকজন চিত্রশিল্পীর আঁকা উনিশ শতকের নগ্ন নারী ও আদিম নগ্ন নারীর কিছু চিত্রকর্মের ছবি প্রকাশে বাঁধা দিয়েছে ফেসবুক।

একটি নিলাম প্রতিষ্ঠান চিত্রকর্মগুলো নিলামে তোলার আগে বিক্রয়ের প্রচারের জন্য ছবিগুলো ফেসবুকে পোস্ট করতে চেয়েছিল। কিন্তু ফেসবুকের বার্তায় জানানো হয় যে, এই পোস্ট তাদের বিজ্ঞাপনের নীতিমালাকে ভঙ্গ করেছে, ‘বিজ্ঞাপনে প্রাপ্তবয়স্কদের কোনো কনটেন্ট অন্তর্ভুক্ত হবে না।’

এ ঘটনায় নিলাম প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা টিম গুডম্যান, ফেসবুকের সিইও মার্ক জাকারবার্গের প্রতি একটি চিঠি খোলা চিঠি লিখেছেন। এতে তিনি উল্লেখ করেছেন যে, ফেসবুকের ‘রোবট’ পর্নোগ্রাফি এবং শিল্পের মধ্যে পার্থক্য করতে ব্যর্থ হয়েছে।

ফেসবুক সামাজিক সততার ওপর তার একচেটিয়া নগ্নতার নীতিমালা ব্যবহার করে বিদ্বেষপূর্ণ মান আরোপ করছে বলে লিখেছেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘অত্যাধিক যৌনতাপূর্ণ ছবি, পর্নোগ্রাফি, সচেনতার জন্য নগ্নতা, নতুনত্বের জন্য নগ্নতা এবং শিল্পের মধ্যে নগ্নতার মধ্যে কোনো পার্থক্য করছে না ফেসবুক। সবগুলোকে একই কাতারে ফেলছে। সমস্যাটা এমন না যে আপনার রক্ষণশীল নীতিমালা রয়েছে, আপনি এমন একটা সিস্টেম তৈরি করেছেন যা প্রকৃত বিচারের অনুমতি দেয় না।’

গুডম্যান এর অস্ট্রেলিয়ান নিলাম প্রতিষ্ঠান ‘ফাইন আর্ট বারস’ অ্যান্ডি ওয়ারহোল এবং কিথ হারিং সহ বিভিন্ন প্রখ্যাত শিল্পীদের আঁকা নগ্ন এবং প্রেমমূলক চিত্রকর্ম, ভাস্কর্য এবং ছবি নিলামে বিক্রি করে থাকে।

গুডম্যান বলেন, ‘সেন্সরশিপ ইস্যুটির নৈতিক বিচার, মানবিক সংবেদনশীলতা ও জবাবদিহিতা প্রয়োজন। আমি বিশ্বাস করি, শিল্পের সঙ্গে পর্নোগ্রাফি গুলিয়ে ফেলার এ ধরনের ব্যর্থতা অনিবার্য যদি আপনি কর্মীদের প্রশিক্ষণের পরিবর্তে রোবটগুলোর মাধ্যমে অভিযোগ ও স্বতন্ত্র ঘটনাগুলো পরিচালনা অব্যাহত রাখেন।’

‘আপনি গত এক দশকের সবচেয়ে মূল্যবান ১০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে অন্যতম একটি চালাচ্ছেন এবং নগ্নতা নিয়ে আপনার সম্পাদনা নীতিমালা কোনো সাধারণ অফিসের নগ্নতাবিষয়ক নীতিমালার বেশি আধুনিক নয়।’

তিনি বলেন, ‘আমরা ১৯ শতকের কিছু ফরাসি নগ্ন চিত্রকর্ম বিক্রির জন্য প্রচার করতে চেয়েছিলাম কিন্তু ফেসবুক ছবিগুলোতে নারী শরীরের উন্মুক্ত অংশগুলো সেন্সর করেছে এবং এটিতে আপত্তি জানিয়েছে।’

গুডম্যান জানান, তিনি বিষয়টি ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কাছে পরিষ্কার বোঝানোর জন্য ইমেইল পাঠিয়েছিলেন কিন্তু স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতির উত্তর পেয়েছেন। স্বয়ংক্রিয় উত্তরে ফেসবুকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘নগ্নতা প্রকাশ করে এমন বিজ্ঞাপনগুলো আমরা অনুমোদন করি না, এমনকি তা প্রাকৃতিক যৌনতা না হলেও। শৈল্পিক বা শিক্ষাগত উদ্দেশ্যে নগ্নতাও এর অন্তর্ভুক্ত।’

এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

অনলাইন শ্রমিক সরবরাহে বাংলাদেশ দ্বিতীয়

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৭-২৩ ০২:৪৮:৫৭

বাংলাদেশ বিশ্বে দ্বিতীয় বৃহত্তম অনলাইন শ্রমিক সরবরাহকারী দেশ। সম্প্রতি এক রিপোর্টে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। নিয়োগকর্তাদের সঙ্গে ফ্রিল্যান্সারদের সংযোগ করার ক্ষেত্রে ইন্টারনেট প্লাটফর্মগুলোর তথ্য বিশ্লেষণ করে এ রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে।

অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির অক্সফোর্ড ইন্টারনেট ইনস্টিটিউট প্রকাশিত এ রিপোর্টে বলা হয়েছে, অনলাইন শ্রমিক বা ফ্রিল্যান্সার সরবরাহে বিশ্বের মোট বাজারের ১৬ শতাংশ বাংলাদেশের দখলে রয়েছে। এই বাজারের ২৪ শতাংশ দখলে নিয়ে বিশ্বে প্রথম অবস্থানে রয়েছে ভারত। ১২ শতাংশ দখলে নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। চতুর্থ, পঞ্চম ও ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে যথাক্রমে পাকিস্তান, ফিলিপাইন এবং যুক্তরাজ্য।

‘আই-লেবার প্রজেক্ট’ হিসেবে এই রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে। যার অংশ হিসেবে অনলাইন শ্রমিক সূচক তৈরি করা হয়ে থাকে। রিপোর্টে দেখা গেছে, বিভিন্ন দেশের অনলাইন শ্রমিক বা ফ্রিল্যান্সাররা ভিন্ন ভিন্ন কাজের ওপর প্রাধান্য দিয়ে থাকে। যেমন সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ও টেকনোলজি ক্যাটাগরিতে শীর্ষে রয়েছে ভারতীয় উপমহাদেশের দেশগুলো, যাদের দখলে রয়েছে সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ও টেকনোলজির ৫৫ শতাংশ বাজার।

অন্যদিকে প্রফেশনাল সার্ভিস ক্যাটাগরি যেমন অ্যাকাউন্টিং, লিগ্যাল সার্ভিস ও বিজনেস কনসাল্টিংয়ের বাজারে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাজ্য। মোট বাজারের ২২ শতাংশ রয়েছে তাদের দখলে। ভারতে অনলাইনে কাজের ক্ষেত্রে সফটওয়্যার এবং টেকনোলজি শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। ক্রিয়েটিভ এবং মাল্টিমিডিয়া রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। সেলস এবং মার্কেটিং সাপোর্ট দেশটিতে অনলাইনে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে।

ফিজার, ফ্রিল্যান্সার, গুরু এবং পিপলপারআওয়ার- এই ৪টি অনলাইনের তথ্য বিশ্লেষণ করে রিপোর্টটি তৈরি করেছে অক্সফোর্ড ইন্টারনেট ইনস্টিটিউট। প্রতিষ্ঠানটির জ্যেষ্ঠ গবেষক ভিলি লেদনভিরতা বলেন, বিশ্বের মোট ফ্রিল্যান্সিং কাজের ৪০ শতাংশ দখল করে রেখেছে এই চারটি প্লাটফর্ম। সাইটগুলোর ট্রাফিকের তথ্যানুসারে এই রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে। আমরা প্লাটফর্মগুলোকে প্রতিনিধিত্বশীল বলতে পারি।


এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

চার্জারবিহীন মোবাইল উদ্ভাবন করলেন ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক দল

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৭-০৬ ১৫:১৩:৪৯

 চার্জার বা ব্যাটারি ছাড়া মোবাইল ফোন চলবে না- এই ধারণায় ইতি পড়ে গেল। উদ্ভাবন হয়েছে এমন এক ধরনের মোবাইল, যা ব্যাটারি বা বৈদ্যুতিক চার্জ ছাড়াই কাজ করতে সক্ষম।

ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টার পর তৈরি করেছেন ব্যাটারিবিহীন মোবাইল ফোন। ব্যাটারি ছাড়া কেমন করে মোবাইল চলবে, কীভাবে এটি উদ্ভাবন করা হলো, তা নিয়ে একটি গবেষণাপত্র প্রকাশ করেছেন তারা। ‘প্রসিডিংস অব দ্য অ্যাসোসিয়েশন ফর কম্পিউটিং মেশিনারি অন ইন্টার-অ্যাক্টিভ, মোবাইল, ওয়্যারেবল অ্যান্ড ইউবিকুইটাস টেকনোলজি’ নামে জার্নালে ১ জুলাই গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে।

গবেষণাপত্রে বলা হয়েছে, ব্যাটারি ছাড়া মোবাইল কাজ করবে আশপাশের আলোকতরঙ্গ বা রেডিও সিগন্যালের সাহায্যে। বৈদ্যুতিক চার্জের প্রয়োজন হবে না।

একটি নমুনা (প্রোটোটাইপ) মোবাইল ফোন তৈরি করেছেন ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা। নমুনা ফোনটি মাত্র তিন মাইক্রোওয়াট বিদ্যুৎ পেলেই কাজ করবে। ফলে এ জন্য চার্জারের প্রয়োজন হবে না। অ্যাম্বিয়েন্ট রেডিও সিগন্যাল বা আলোকতরঙ্গ থেকে এ পরিমাণ বিদ্যুৎ টানতে সক্ষম ব্যাটারিবিহীন এই মোবাইলটি।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত বিজ্ঞানী ও গবেষকদলের সদস্য শ্যাম গোল্লাকোটা বলেছেন, ‘প্রথমবারের মতো আমরা এমন একটি মোবাইল উদ্ভাবন করেছি, যা প্রায় জিরো পাওয়ার ব্যবহার করবে।’ তিনি আরো জানান, স্কাইপ-এর সাহায্যে এই মোবাইলে কল রিসিভ ও কথোপকথন করা যাবে।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল সায়েন্স ফাউন্ডেশন ও গুগল ফ্যাকাল্টি রিসার্চ অ্যাওয়ার্ডসের অর্থায়নে ব্যাটারিবিহীন মোবাইল ফোন উদ্ভাবনের গবেষণা পরিচালিত হয়েছে। এ-সংক্রান্ত গবেষণাপত্রে বলা হয়েছে, রেডিও সিগন্যাল থেকে শক্তি সঞ্চয় করে মোবাইলের বেস স্টেশন থেকে ৩১ ফুট দূরত্ব পর্যন্ত কথোপকথন করা যাবে। তবে আলোকতরঙ্গের সাহায্যে মোবাইলটি চললে, তা বেস স্টেশনের ৫০ ফুট দূরত্ব পর্যন্ত কাজ করবে।


এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

আইটিইউয়ের সহায়তায় ইন্টারনেটের মূল্য কমবে বাংলাদেশে

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৬-১৪ ০৮:৩৫:২২

বাংলাদেশে ইন্টারনেটের মূল্য কমানোর জন্য এবার জাতিসংঘের অধীনস্থ সংস্থা আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ইউনিয়নের (আইটিইউ) সহায়তা নিচ্ছে সরকার। ইতোমধ্যে ‘কস্ট মডেলিং’ (সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের ইন্টারনেট খরচ বের করার পদ্ধতি) করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। কস্ট মডেলিংয়ের জন্য আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ইউনিয়নের (আইটিইউ) পরামর্শক ও টেলিকম অপারেটরদের প্রতিনিধির উপস্থিতিতে বিটিআরসিতে গত ৮ জুন বৃহস্পতিবার থেকে চলছে বিশেষ সভা। এই সভা থেকেই সিদ্ধান্ত আসবে। 
বিটিআরসি সূত্রে জানা গেছে, গত ২৭ মার্চ ডিজিটাল বাংলাদেশ টাস্কফোর্স কমিটির বৈঠকে কস্ট মডেলিংয়ের জন্য পরামর্শক নিয়োগে বিটিআরসিকে নির্দেশ দেওয়া হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই কমিটিতে বিটিআরসি ছাড়াও টেলিযোগাযোগ খাতসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি রাখা হয়েছে।
এরপর গত ১৪ এপ্রিল ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছিলেন, আগামী ৬ মাসের মধ্যে ইন্টারনেটের নতুন মূল্য নির্ধারণ হবে। এজন্য টেলিযোগাযোগ বিভাগ হতে বিটিআরসিকে কস্ট মডেলিং তৈরি করতে বলা হয়। এ জন্য আইটিইউ-এর একজন কর্মকর্তাকে বাংলাদেশে পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। এই পরামর্শক খাত সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে ইন্টারনেটের সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন মূল্য নির্ধারণে বিটিআরসিকে পরামর্শ দিচ্ছেন। 
২০১৬ সালেও ইন্টারনেটের মূল্য নির্ধারণে একবার কস্ট মডেলিং করার উদ্যোগ নিয়েছিল বিটিআরসি। কিন্তু সেটা আর সম্ভব হয়ে ওঠেনি। তবে ২০০৮ সালে মোবাইল ফোনে কল করার মূল্য নির্ধারণে আইটিইউর পরামর্শক দিয়ে একটি কস্ট মডেলিং করেছিল বিটিআরসি। সেই মডেল অনুসারে প্রতি মিনিট ভয়েস কলের সর্বোচ্চ মূল্য ২ টাকা আর সর্বনিম্ন মূল্য ২৫ পয়সা নির্ধারণ করা হয়েছিল।
তবে ২০০৮ সালে ভয়েস কলের ক্ষেত্রে কস্ট মডেলিং বিনামূল্যে করে দিলেও এবার কস্ট মডেলিংয়ের জন্য চড়া মূল্য রাখবে আইটিইউ। কারণ ২০০৮ সালে বাংলাদেশ নিম্ন আয়ের দেশ ছিল। কিন্তু নিম্নমধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়ায় আইটিইউয়ের নিয়ম অনুযায়ী, বাংলাদেশকে এখন কস্ট মডেলিংয়ের জন্য অর্থ খরচ করতে হচ্ছে। আইটিইউয়ের পরামর্শক দিয়ে কাজটি করাতে বিটিআরসির প্রায় ৩০ লাখ টাকা খরচ হচ্ছে বলে জানা গেছে।
এদিকে, ইন্টারনেটের মূল্য কমানোর বিষয়ে আইটিইউ-এর পরামর্শ এবং সম্ভাব্য করণীয় নিয়ে শিগগির আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করার কথা রয়েছে বিটিআরসির। তবে বিটিআরসি চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ দেশে না থাকায় এই বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্তে পৌঁছানো যায়নি। তিনি দেশে ফিরলেই আনুষ্ঠানিকভাবে বিটিআরসির পক্ষ থেকে এ নিয়ে বিস্তারিত জানানো হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। 
বিটিআরসির সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাংলাদেশে মোট ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৬ কোটি ৭২ লাখ। এর মধ্যে মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৬ কোটি ৩১ লাখ, যা মোট ব্যবহারকারীর ৯৪ শতাংশ। আইএসপি এবং পিএসটিএন ইন্টারনেট গ্রাহক ৪০ লাখ ৩৬ হাজার এবং ওয়াইম্যাক্স ইন্টারনেট গ্রাহক ৮৯ হাজার। 
প্রসঙ্গত, মোবাইল ফোন অপারেটরদের ডাটাভিত্তিক সেবার তথ্যানুযায়ী, বর্তমানে ফ্লেক্সিপ্ল্যানে ৩০ দিন মেয়াদে ১ জিবি ডাটা কিনতে গ্রামীণফোনের গ্রাহকের ব্যয় ২৭৪ টাকা ২৮ পয়সা। একই পরিমাণ ডাটা কিনতে বাংলালিংকের গ্রাহকদের দিতে হচ্ছে ২০৯ টাকা। রবি ও এয়ারটেলের ১ জিবি ডাটা প্যাকেজের মূল্য যথাক্রমে ২১৩ টাকা ৬ পয়সা ও ২০৯ টাকা। তবে এক্ষেত্রে মেয়াদ ধরা হয়েছে ২৮ দিন। আর রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটকের ৩০ দিন মেয়াদি ১ জিবি ডাটা প্যাকেজের মূল্য ১৮০ টাকা।   

বিস্তারিত খবর

বিল গেটসের চোখে যে তিনটি ক্ষেত্র বদলে দিবে বিশ্ব

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৫-২১ ০৯:৫৮:৫৬

মাইক্রোসফটের সহ প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস কলেজ ড্রপআউট ছিলেন। তবে কলেজ থেকে ড্রপআউট হয়ে পল অ্যালেনকে নিয়ে তিনি মাইক্রোসফট প্রতিষ্ঠা করেন যা বিশ্বে সফটওয়্যার বিপ্লব ঘটিয়ে দেয়। আর গেটস মনে করেন আজকের গ্র্যাজুয়েটরা সমাজে এমনই বিপ্লব ঘটাতে পারে। 
১৫ মে প্রকাশিত ব্লগে বিল গেটস বলেন, সমাজে প্রভাব বিস্তারে সর্বাধিক সুযোগ হিসাবে তিনি তিনটি ক্ষেত্র দেখেন। তার দৃষ্টিতে এই ক্ষেত্রগুলো হল- কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, শক্তি এবং বায়োসায়েন্স। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে গেটস বলেন, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সবকটি পথে আমাদের শুধুমাত্র আঘাত করতে হবে এবং এটি এটি মানুষের জীবনকে আরও সৃজনশীল করে তুলবে।
শক্তির ব্যাপারে বিল গেটস মনে করেন, দারিদ্র্য বিমোচন এবং জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য পরিষ্কার, সাশ্রয়ী মূল্যের এবং নির্ভরযোগ্য শক্তি উৎপাদন খুব প্রয়োজন। সবশেষে বায়োসায়েন্স নিয়ে বিল গেটস বলেন, দীর্ঘস্থায়ী, স্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রায় মানুষকে সাহায্য করার জন্য এই ক্ষেত্রটির প্রয়োজনীয়তাও অপরিসীম। 
গেটস তার ব্লগে একথাও বলেন যে, ‘যখন আপনি মানুষকে বলবেন যে পৃথিবী উন্নতি করছে, তখন তারা প্রায়ই আপনার দিকে এমনভাবে তাকিয়ে থাকবে যে আপনি হয় অতিসরল বা পাগল’। কিন্তু এটা সত্য, এবং একবার আপনি এটি বুঝতে পারলে আপনি বিশ্বকে ভিন্নভাবে দেখতে শুরু করবেন।
সূত্র: সিএনবিসি  

বিস্তারিত খবর

আইবিএম ‘ওয়ার্কিং ফ্রম হোম’ সুবিধা বন্ধ করে দিল

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৫-২১ ০৯:৫৪:৪৬

মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান আইবিএমের কর্মীরা বাসায় বসে অফিসের কাজ করার সুবিধা পেতেন। ১৯ মে  শুক্রবার প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বলা হয়, অনেক কর্মীর জন্যই বাড়ি থেকে কাজ করার সুবিধা বাতিল করা হচ্ছে। তবে একদম অল্পকিছুসংখ্যক কর্মীর জন্য আগের সুবিধাটি বহাল থাকবে।
২০০৭ সালে আইবিএম এর পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, বিশ্ব জুড়ে প্রতিষ্ঠানের চার লাখ কর্মীর প্রায় ৪০ শতাংশের প্রচলিত অফিস নেই। এবার সে নীতি পরিবর্তন করছে তারা। প্রতিষ্ঠানের অনেক কর্মীকেই এখন অফিস জীবনের সঙ্গে অভ্যস্ত হতে হবে। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, যদি কেউ অফিসে আসতে অসম্মতি জানান, তারা চাকরি হারাতে পারেন। তবে যেসব কর্মীকে অফিস করতে বলা হয়েছে, তাদের বেশির ভাগই রাজি হয়েছেন। নতুন নীতিমালায় ঠিক কতো জন কর্মীকে অফিসে এসে কাজ করতে হবে এবং তাদেরকে কোথায় কাজে লাগানো হবে সে বিষয়ে আইবিএম কিছু জানায়নি। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে আরও বলা হয়, এখনো কিছু কর্মী বাড়ি থেকে কাজ করতে পারবেন।
আইবিএম এক বিবৃতিতে জানায়, ‘সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট এবং ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের মতো বেশ কিছু খাতে কাজের প্রকৃতি পরিবর্তন হচ্ছে, এখন কাজের নতুন ধরন দরকার।’
কর্মীদের বড় একটি অংশ বাসা থেকে অফিসের কাজ করেও প্রযুক্তি খাতের শীর্ষ প্রতিষ্ঠানের একটি হিসেবে টিকে ছিল আইবিএম। তাদের দাবি ছিল, এতে কর্মীদের সময় বেঁচে যায় এবং উৎপাদন আরও বাড়ে। আর কর্মীদের জন্য বাসা থেকে কাজ করার সুবিধা বন্ধ করা প্রতিষ্ঠান আইবিএম ই প্রথম নয়। চার বছর আগে ইয়াহুও কর্মীদের ঘরে বসে কাজ করার সুবিধা বন্ধ করে দেয়।
সূত্র: সিএনএন  

বিস্তারিত খবর

মা-বাবার অতিরিক্ত মোবাইল ব্যবহার পারিবারিক জীবন ক্ষতিগ্রস্ত করে: জরিপ

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৪-২৪ ০৯:৫৯:২৯

মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের মধ্যে চালানো এক জরিপে দেখা গেছে, বাবা মায়ের অতিরিক্ত মোবাইল ফোনের ব্যবহার পারিবারিক জীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। জরিপে ১১ থেকে ১৮ বছর বয়স্ক ২ হাজার শিক্ষার্থীর মধ্যে  অন্তত এক-তৃতীয়াংশ কিশোর-কিশোরী সারাক্ষণ মোবাইল না দেখতে তাদের বাবা-মাকে অনুরোধ করেছে। 
এই জরিপের ১৪ শতাংশ বলেছে, তাদের মা-বাবা খাবার টেবিলেও মোবাইল নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। কিন্তু জরিপের ৩ হাজার অভিভাবকের ৯৫ শতাংশ এই তথ্য অস্বীকার করেছেন। আর মাত্র ১০ শতাংশ অভিভাবক বলেছেন, তাদের মোবাইল ব্যবহার করাটা কোনো সমস্যা নয়। 
৪৫ শতাংশ অভিভাবক মনে করেন, তারা নিজস্ব সময়ের অনেকখানিই অনলাইনে অপচয় করেন। ৩৭ শতাংশ বলেছেন, তারা ছুটির দিনগুলোতে ৩ থেকে ৫ ঘণ্টা অনলাইনে থাকেন। ৫ শতাংশ বলেছেন, ছুটির দিনে তারা অনলাইনে সময় কাটান ১৫ ঘণ্টা পর্যন্ত।
ডিজিটাল অ্যাওয়ারনেস ইউকে (ডাউক) এবং হেডমাস্টার্স ও হেডমিস্ট্রেসেস কনফারেন্স নামে যুক্তরাজ্যের দুটি সংগঠন (এইচএমসি) এই সমীক্ষাটি চালিয়েছে। 
সূত্র: বিবিসি  

বিস্তারিত খবর

বাজারে আসছে আঙুলের ছাপ শনাক্তকারী ক্রেডিটকার্ড

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৪-২০ ১৫:১২:১১

ক্রেডিটকার্ড সরবরাহকারী আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ম্যাস্টারকার্ড তৈরি করেছে নতুন ধরনের কার্ড। মূল্য পরিশোধের কাজে ব্যবহৃত এই কার্ডটি আঙুলের ছাপ শনাক্ত করতে পারবে।

দক্ষিণআফ্রিকার দুটি সফল পরীক্ষার পর কার্ডটির উদ্বোধন করা হচ্ছে।

অর্থ লেনদেনের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত মোবাইলের মতোই কাজ করবে কার্ডটি। ক্রয়-বিক্রয়ের সময় ব্যবহারকারীদের সেন্সরের উপর আঙুল রাখতে হবে। এ ছাড়াও কার্ডটি টার্মিনালের ইলেক্ট্রিসিটি ব্যবহার করবে, ফলেএর নিজস্ব ব্যাটারির প্রয়োজন হবে না। পাশাপাশি এই প্রথম একই কার্ডে শুধু ছাপ দেওয়ার ব্যবস্থাই নয়, তা শনাক্ত করার প্রযুক্তিও কার্ডের ভেতরেই দেওয়া থাকবে।

মাস্টারকার্ডের নিরাপত্তারবিষয়ক প্রধান অজয় ভাল্লা বলেন, আঙুলেরছাপ শনাক্তকারী প্রযুক্তি মানুষকে বাড়তি সুবিধা ও নিরাপত্তা দেবে। এটি চুরি করা বা নকল করা সম্ভব নয়।

তবে এই কার্ডটি নিয়েও জালিয়াতি সম্ভব। বার্লিনের সিকিউরিটি রিসার্চ ল্যাব- এর প্রধান গবেষক কার্স্টেন নোল বলেন, কারো আঙুলের ছাপ তার স্পর্শ করা কাঁচ বা অন্য কোনো কিছু থেকে সংগ্রহ করা অসম্ভব নয়। আর এই তথ্য একবার চুরি হয়ে গেলে আর মাত্র ৯ বার বদলানো সম্ভব হবে, এর বেশি নয়। ভেঙে বললে দাঁড়াচ্ছে, মানুষের দুই হাতে ১০ আঙুল আছে। কোনো ব্যক্তির ১০ আঙুলের ছাপই যদি চুরি হয়ে যায়, তাহলে ওই ব্যক্তির জন্য আর আঙুলের ছাপ ব্যবহার করা সম্ভব হবে কোনো দিনই।

তবে বিশেষজ্ঞরা  এ-ও বলছেন, যদিও এই কার্ড-ব্যবস্থা নিশ্ছিদ্র নয়, তবু তা বায়োমেট্রিক প্রযুক্তির বিচক্ষণ প্রয়োগ।

নোল বলেন, চিপ-পিন সমন্বয়ের ক্ষেত্রে দুর্বলতম অংশ হলো পিন। আঙুলের ছাপ সে সমস্যা দূর করতে পারে। দুর্বল পাসওয়ার্ড বলতে কিছু থাকল না। অপরাধীদের পক্ষে মানুষের আঙুল কেটে নেওয়া অসাধ্যপ্রায়। তাই এ মুহূর্তে এ এটাই শ্রেষ্ঠ প্রযুক্তি।

কিন্তু এই প্রযুক্তি এ মুহূর্তে শুধু দোকানে দোকানেই ব্যবহার করা যাবে। অনলাইন বা কার্ড গ্রহণযোগ্য নয়- এমন আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে বাড়তি নিরাপদ মানদণ্ডের প্রয়োজন হবে।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

পৃথিবীর মতো সাত গ্রহের সন্ধান

 প্রকাশিত: ২০১৭-০২-২৩ ০৪:৫২:২৫

সৌরজগতের নিকটবর্তী একটি নক্ষত্রকে ঘিরে ঘূর্ণায়মান অন্তত সাতটি গ্রহের সন্ধান পেয়েছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। যেগুলো দেখতে অনেকটা পৃথিবীর মতো ।

বুধবার নেচার জার্নালে প্রকাশিত হয় বিজ্ঞানীদের নতুন এই আবিষ্কার। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে নাসার সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনেও এই বিষয়ে জানানো হয়।

নতুন আবিষ্কৃত এই গ্রহগুলো পৃথিবী থেকে ৪০ আলোকবর্ষ (২৩৫ ট্রিলিয়ন মাইল) দূরের একটি নক্ষত্রকে ঘিরে প্রদক্ষিণ করছে। অত্যন্ত শীতল ও অপেক্ষাকৃত ছোট আকৃতির ওই নক্ষত্রের নাম দেওয়া হয়েছে টিআরএপিপিআইএসটি-১। গবেষণায় নেতৃত্ব দেওয়া বেলজিয়ামের লিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যোতির্বিদ মাইকেল গালোন বলেন, এই প্রথম একই নক্ষত্র ঘিরে এ ধরনের এতগুলো গ্রহ পাওয়া গেছে।

নাসা তাদের স্পিৎজার স্পেস টেলিস্কোপ ও ভূমিতে বসানো টেলিস্কোপের সাহায্যে এই গ্রহগুলোর সন্ধান পেয়েছে।

এ ঘটনাকে বিরল হিসেবে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। এর কারণ হিসেবে তারা বলছেন, এসব গ্রহ পৃথিবীর আকৃতির এবং এগুলোর পৃষ্ঠে পানি থাকতে পারে। তার অর্থ গ্রহগুলোর আবহাওয়া প্রাণের জন্য উপযুক্ত হতে পারে। এর মধ্যে তিনটি গ্রহে (টিআরএপিপিআইএসটি-১ ই, এফ ও জি) সম্ভাবনা বেশি। কেননা এগুলোতে তরল পানি কিংবা মহাসাগর থাকতে পারে।

তারা বলছেন, গ্রহগুলো শক্ত গঠনের। তবে এগুলো বৃহস্পতি গ্রহের মতো গ্যাসীয় নয়, বরং শিলা দ্বারা গঠিত হতে পারে। এর মধ্যে টিআরএপিপিআইএসটি-১এফ প্রাণের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত। কেননা এই গ্রহটি পৃথিবীর চেয়ে কিছুটা শীতল।


এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি 


বিস্তারিত খবর

আইফোনের আদলে পিস্তল!

 প্রকাশিত: ২০১৭-০১-১৩ ১২:১০:০৮

হেডলাইন দেখে চমকে গেলেও তার চেয়ে বেশি শঙ্কায় রয়েছে গোটা ইউরোপ। দেখতে ঠিক আইফোনের মতোই। কিন্তু বাস্তবে তা আইফোন নয়। বিশেষভাবে আইফোনের মতো ভাঁজ করা পিস্তল! একে বলা হচ্ছে ‘আইফোন গান’।

পিটিআই, ইভনিং স্ট্যান্ডার্ডসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে বলা হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি ৯ মিমি দুই ব্যারেলের এই এ ‘আইফোন গান’টি ইউরোপে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। ফলে ইউরোপজুড়ে আইফোন সদৃশ পিস্তল সম্পর্কে সতর্ক অবস্থায় আছে দেশটির পুলিশ।

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটাভিত্তিক আইডিয়াল কনসেল এর নির্মাতা। আইফোনের মতো দেখতে এ গানটির বাটনে চাপ দিলেই তা অস্ত্র হিসেবে রূপ নেয়। ইতোমধ্যে অস্ত্রটির জন্য ১২ হাজার চাহিদা পেয়েছে নির্মাতারা।

বেলজিয়ান পুলিশ এক সতর্ক বার্তায় বলেছে, এটি এমন অস্ত্র, চোখে দেখলে মোবাইল ফোনের সঙ্গে পার্থক্য বের করা সম্ভব নয়। ফলে এটা যেকোনো ভাবে চোখ এড়িয়ে যেতে পারে। তবে এখন পর্যন্ত সেখানে এ ধরনের কোনো অস্ত্র যায়নি।


এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ফেসবুক টুইটার ইউটিউবের বিরুদ্ধে মামলা

 প্রকাশিত: ২০১৬-১২-২১ ০৯:৪২:২৯

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, টুইটার এবং ইউটিউবের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে যুক্তরাষ্ট্রের অরল্যান্ড অঙ্গরাজ্যে বন্দুকধারীদের হামলায় নিহত তিনজনের পরিবারের সদস্যরা। ওই তিন পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, সন্ত্রাসবাদী জেনেও আইএসের মতো জঙ্গিগোষ্ঠীগুলোকে ফেসবুক, টুইটার এবং ইউটিউব ব্যবহার করতে দেওয়া হচ্ছে।

তাদের মতে, ফেসবুক, টুইটার এবং গুগলের সহায়তা না পেলে গত কয়েক বছরে আইএসের এই উত্থান সম্ভব ছিল না। অবশ্য ওই ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন ফেসবুকের মুখপাত্র। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন,‘মৃতদের পরিবারের প্রতি আমরা সমবেদনা জানাচ্ছি। পাশপাশি আমরা স্পষ্ট করে দিতে চাই ফেসবুক কখনই সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করে না। আমাদের কাছে অভিযোগ আসলেই ফেসবুক থেকে সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করে এরকম জিনিস সরিয়ে দেওয়া হয়।’

মামলার বিষয়ে তিন সংস্থার কেউই কোনো মন্তব্য করেনি। তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও একাধিকবার এই তিন সংস্থার নামে একই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল।

এর আগে ফ্রান্সের নিস শহরে হামলার ঘটনায় এক নিহতের বাবাও একই দাবি করে এই তিন কোম্পানির নামে অভিযোগ করেন। এছাড়া চলতি বছরে আরও বেশ কয়েকটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। জঙ্গিরা যেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে ব্যবহার করে তাদের কার্যসিদ্ধি করতে না পারেন সেজন্য খুব শিগগিরই ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সংস্থাগুলো।


এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ভুয়া খবর ঠেকাতে নতুন ফিচার আনছে ফেসবুক

 প্রকাশিত: ২০১৬-১২-১৬ ১১:২৭:৫৮

মনগড়া খবর ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে নতুন ফিচার আনার ঘোষণা দিয়েছে ফেসবুক।

নতুন ফিচারগুলোর মধ্যে একটি যোগ হচ্ছে ভুয়া খবরের পোস্ট নিয়ে অভিযোগ জানানোর বিষয়ে। মিথ্যা তথ্যের বিস্তার ঠেকাতে অন্যান্য পরিবর্তনও সংযুক্ত হচ্ছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভুয়া খবরের প্রভাব ছিল- বেশ ক’জন ব্যবহারকারীর কাছ থেকে এমন অভিযোগ উত্থাপিত হওয়ার পর, গেল মাসে বড় রকমের সমালোচনা মুখে পড়েছিল ফেসবুক।

নতুন ফিচারগুলোর মধ্যে থাকছে ভুয়া খবর চিহ্নিত করার সুযোগ। এছাড়া ভবিষ্যতে ফেসবুক তাদের অ্যালগরিদমেও পরিবর্তন আনতে পারে।

প্রতিষ্ঠানটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ভুয়া খবরের বিষয়টিকে তার খুব গুরুত্বের সঙ্গে বিচেচনা করছে।

‘স্প্যাম’ বা এ জাতীয় কোনো কিছুর বিষয়ে অভিযোগ জানাতে বর্তমানে যে ফিচারটি ব্যবহৃত হয় সেখানে ‘ইটস এ ফেক নিউজ স্টোরি’ নামে নতুন একটি অপশন যোগ করছে ফেসবুক।

এছাড়া কোনো খবর বিতর্কিত হলে সেটি চিহ্নিত করার ব্যবস্থাও ব্যবহারকারীর হাতে ছাড়ছে প্রতিষ্ঠানটি। এরকম ক্ষেত্রে তৃতীয় কোনো পক্ষ তখন ওই খবরের সত্যতা যাচাই করবে। তবে এই তৃতীয় পক্ষকে অবশ্যই নিবন্ধিত হতে হবে।

ফেসবুক বলছে, নতুন ফিচারের আওতায় বিতর্কিত কোনো খবর যখন কোনো ব্যবহারকারী শেয়ার করবেন তখন ওই খবর বিষয়ে তাকে সতর্ক করে দেয়া হবে।

ভবিষ্যতে আরো কী ব্যবস্থা নেয়া যায়, সে বিষয়েও ভাবছে প্রতিষ্ঠানটি।

যেসব ওয়েবসাইট মূল ধারার কোনো প্রকাশকের লেখা জালিয়াতি করে নিজেরা প্রকাশ করে তাদের শাস্তির আওতায় আনার কথাও ভাবছে ফেসবুক।


এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ভুল ঠিকানায় পাঠালেও ফিরে পাবেন আপনার ই-মেইল

 প্রকাশিত: ২০১৬-১১-১৬ ০৭:২৫:৩৮


অসাবধানতাবশত অনেক সময়ই ভুল করে অন্য মানুষের কাছে মেইল পাঠিয়ে দেন। যার কারণে অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয়। এ ক্ষেত্রে আপনার ভুল ব্যক্তিকে পাঠানো মেলটি ফেরানোর উপায়ও রয়েছে।আপনার মেলটি যদি জি-মেল থেকে পাঠিয়ে থাকেন, তাহলে সেই মেল প্রত্যাহার করার উপায় আছে। 
সুবিধাটি পেতে প্রথমে জি-মেল ওপেন করুন। ডানপাশে ওপর দিক থেকে সেটিং-এ ক্লিক করুন। সেটিং-এ গিয়ে Undo Send-এ গিয়ে Enable Undo Send-এ ক্লিক করুন। এরপর Send cancellation period-এ কোন সময়ে মেলটি পাঠিয়েছিলেন সে সময়টি দিন। এবার একেবারে পেইজের নিচে save changes-এ ক্লিক করুন। Undo sending your message-এ ক্লিক করুন। ব্যস মুছে যাবে আপনার মেইলটি।
এরপর থেকে Undo Send-এ ক্লিক করার পরই আপনি যেকোনো ই-মেল পাঠালে তা বাতিল করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে Your message has been sent বলে একটি মেসেজ আপনি দেখতে পাবেন। সেখানে Undo or View message দুটি অপশন পাবেন।যদি ভুল ব্যক্তিকে মেল পাঠিয়ে থাকেন, তবে Undo অপশনে ক্লিক করুন। এর জন্য ২০ সেকেন্ড সময় পাওয়া যাবে।
(নিউজটি ভাল লাগলে শেয়ার করার অনুরোধ রইল।)

বিস্তারিত খবর

‘দ্বিতীয় পৃথিবী’ নিয়ে বিজ্ঞানীদের ব্যাপক আশা

 প্রকাশিত: ২০১৬-১০-১০ ১২:৩০:৪২

সৌরজগতের বাইরে প্রাণের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়ার সেরা সম্ভাবনা এবার সম্ভবত পাওয়া গেছে। কারণ পৃথিবী থেকে মাত্র ৪ আলোকবর্ষ দূরে প্রাণ ধারণের উপযোগী ‘প্রক্সিমা বি’ নামক যে পাথুরে গ্রহটি এ বছরের আগস্টে বিজ্ঞানীরা আবিস্কার করেছিলেন, সেই গ্রহটিতে তরল সমুদ্র থাকার সম্ভাবনার কথা সম্প্রতি জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।


ফ্রান্সের সিএনআরএস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানীদের বিশ্বাস, গ্রহটির তাপমাত্রা এবং পৃথিবীর সঙ্গে অন্য বিষয়গুলোর সাদৃশ্য থাকায় গ্রহটিতে তরল সমুদ্র থাকার সম্ভাবনা প্রবল, এমনকি পানির অস্তিত্বও থাকতে পারে।


পৃথিবীর মতো পাথুরে পরিবেশ এবং সমুদ্র ও পানির অস্তিত্বের সম্ভাবনার ফলে মনে করা হচ্ছে, গ্রহটিতে প্রাণের অস্তিত্বের বাস্তবিক সম্ভাবনা রয়েছে। তাই গ্রহটিকে অভিহীত করা হয়েছে, দ্বিতীয় পৃথিবী হিসেবে।
 

সৌরজগতের বাইরে এখনো পর্যন্ত আবিষ্কৃত এক্সোপ্ল্যানেটগুলোর মধ্যে এটিই পৃথিবীর সবচেয়ে নিকটতম। গবেষকদের দাবী সৌরজগতের বাইরের এই গ্রহটিতে প্রাণের অস্তিত্ব অনুসন্ধানের অভিযান ভবিষ্যতে সম্ভব হতে পারে।


বিজ্ঞানীরা প্রমাণ পেয়েছেন, আমাদের নিকটতম নক্ষত্র প্রক্সিমা সেন্টরিকে প্রদক্ষিণ করছে নতুন এই গ্রহটি। ভবিষ্যতের আরো অনেক অগ্রগতির সময়ে পৃথিবী থেকে মহাকাশচারীদের পদচারণা ঘটতে পারে গ্রহটিতে। এসব কিছুই হতে পারে কারণ প্রক্সিমা সেন্টরি নক্ষত্রটি অনুজ্জ্বল এবং এর ৪.৬ মিলিয়ন মাইল দূরত্ব থেকে প্রদক্ষিণ করছে গ্রহটি।


যেহেতু প্রক্সিমা সেন্টরি নক্ষত্রটি অনুজ্জ্বল বামন নক্ষত্র, সূর্যের চেয়ে অনেক কম তাপের এবং প্রক্সিমা বি গ্রহটি উপযুক্ত দূরত্বে অবস্থিত হওয়ায় এর তাপমাত্রা খুব গরম নয় আবার খুব ঠান্ডাও নয়, সেহেতু মনে করা হচ্ছে গ্রহটিতে প্রাণের অস্তিত্বে সম্ভাবনা প্রবল। 

ইউরোপিয়ান সাউদার্ন অবজারভেটরি টেলিস্কোপ ব্যবহার করে এ বছরের আগস্টে আবিষ্কৃত রোমাঞ্চকর এই নতুন বিশ্বকে ‘প্রক্সিমা বি’ নাম দিয়েছেন গবেষকরা। লন্ডনের কুইন মেরি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. গুইলিম অ্যানগালাডার নেতৃত্বে ৩০ জন আন্তর্জাতিক জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের একটি দল গ্রহটি আবিষ্কারে কাজ করেছেন।
 

হাজারের বেশি এক্সোপ্ল্যানেট এখন পর্যন্ত আবিস্কৃত হয়েছে, কিন্তু এটি অন্যগুলো থেকে ভিন্ন। এটি আমাদের নাগালের মধ্যে মাত্র চার আলোকবর্ষ দূরে। যদিও চার আলোকবর্ষ অনেক দীর্ঘ একটা পথ, ২৫ ট্রিলিয়ন মাইলেরও বেশি। বর্তমানে যে প্রযুক্তির রকেট রয়েছে, তাতে এই দূরত্ব পারি দিতে সময় লেগে যাবে ৭৬ হাজার বছর! তবে আগামী কয়েক দশকের মধ্যেই ভবিষ্যত প্রজন্মের অতিদ্রুত মহাকাশযান, গ্রহটি ভ্রমণে সক্ষম হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।


এলএবাংলাটাইমস/আইসটি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বাংলাদেশের ২৩% নারী ফেসবুক ব্যবহার করেন

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৯-২২ ১৮:০৪:২৩

পশ্চিমা বিশ্বে ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যাঅনেক বেশী। সেসব দেশে নারী ব্যবহারকারীরসংখ্যাও অনেক বেশী। তবে যুক্তরাজ্যভিত্তিকপরামর্শক প্রতিষ্ঠান উই আর সোশ্যালের একপ্রতিবেদন বলছে, বাংলাদেশে ২৩% নারী ফেসবুকব্যবহার করে। সবচেয়ে বেশি (৫৯ শতাংশ) নারীফেসবুক ব্যবহারকারীর দেশ নিউজিল্যান্ড।তাছাড়া প্রতিবেদন আরও বলছে, এশিয়া ও প্রশান্তমহাসাগরীয় অঞ্চলে নারী ফেসবুক ব্যবহারকারীরসংখ্যা তুলনামূলক ভাবে কম। তথ্য অনুযায়ী বর্তমানেনারী ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৩৮ শতাংশ।প্রতিবেশী দেশের মধ্যে ভারতে নারী ফেসবুকব্যবহারকারীর সংখ্যা ২৪ শতাংশ আর পাকিস্তানে২২ শতাংশ।অন্যদিকে, অস্ট্রেলিয়া, মঙ্গোলিয়া ওফিলিপাইনে ২০১৫ সালের মার্চ মাসের পরসামাজিক যোগাযোগের ব্যবহার ৩১ শতাংশবেড়েছে।

বিস্তারিত খবর

বাংলাদেশ থেকে আরো ব্যান্ডউইথ নেওয়ার আগ্রহ ভারতের

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৮-১৪ ১২:৪৫:০৭

বাংলাদেশ থেকে আরো ব্যান্ডউইথ নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভারত।

রোববার ভারতের হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের সঙ্গে তার দপ্তরে সাক্ষাৎ করে এ আগ্রহ প্রকাশ করেন।

এর আগে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে ১০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ রপ্তানি করে বাংলাদেশ।

প্রতিমন্ত্রী ভারতে ব্যান্ডউইথ রপ্তানির বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেন। এ ছাড়াও তারা সাইবার নিরাপত্তা এবং সার্ক স্যাটেলাইট বিষয়ে আলোচনা করেন এবং সাইবার নিরাপত্তা বিষয় একসাথে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। তারা পারস্পরিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা করেন।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব মো. ফায়জুর রহমান চৌধুরী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।


 এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

২০১৭ সালের মধ্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৭-২০ ১৩:২২:৫৯

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ২০১৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণ করা সম্ভব হবে। প্রধানমন্ত্রী বুধবার সংসদে তাঁর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারি দলের সদস্য মো. মনিরুল ইসলামের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, বর্তমান সরকার মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণের কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।

তিনি বলেন, আগামী ২০১৭ সালের ১৬ ডিসেম্বরে ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট’ সফলভাবে উৎক্ষেপিত হলে নির্দিষ্ট অরবিটার স্লট ১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমাংশে পৌঁছতে প্রায় ২ সপ্তাহের মত সময় লাগবে। সফল উৎক্ষেপণের পর স্যাটেলাইটের ‘ইন-অরবিট টেস্ট (আইওটি) সম্পন্ন করতে আনুমানিক ৩ মাস সময় লাগবে। সম্পূর্ণ ‘টেস্টিং মিসনিং’ শেষে ২০১৮ সালের এপ্রিল নাগাদ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট পূর্ণাঙ্গভাবে বাণিজ্যিক কার্যক্রম করতে পারবে বলে আশা করা যায়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট সফলভাবে উৎক্ষেপণের পর পর্যায়ক্রমিকভাবে বঙ্গবন্ধু-২ ও বঙ্গবন্ধু-৩ নামক আরও ২টি স্যাটেলাইট মহাকাশে প্রেরণের পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের ফলে সমগ্র বাংলাদেশের স্থল ও জলসীমায় নিরবচ্ছিন্ন টেলিযোগাযোগ ও সম্প্রচারের নিশ্চয়তা পাওয়া যাবে এবং স্যাটেলাইট টেকনোলজি ও সেবা প্রসারের মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটে মোট ৪০টি ট্রান্সপন্ডার থাকবে তার মধ্যে ২০টি বাংলাদেশের জন্য এবং ২০টি দেশের বাইরে ব্যবহার করে বিশেষতঃ মধ্যপ্রাচ্যের কোন কোন দেশসহ পার্শ্ববর্তী দেশসমূহে ট্রান্সপন্ডার লীজের মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা আয় সম্ভব হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে টেলিযোগাযোগ ও সম্প্রচার সেবার পাশাপাশি টেলিমেডিসিন, ই-লার্নিং, ই-এডুকেশন, ‘ডিটিএইচ (ডাইরেক্ট টু হোম) প্রভৃতি সেবা প্রদান এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগে টেরিস্ট্রিয়াল অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হলে সারাদেশে নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগ ব্যবস্থা বহাল রাখা সম্ভব হবে। এছাড়া পরিবেশবান্ধব যোগাযোগ মাধ্যম হিসাবে ই-সেবা নিশ্চিত কর হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট স্পেস টেকনোলজির জ্ঞান সমৃদ্ধ মর্যাদাশীল জাতি গঠনে অনবদ্য ভূমিকা রাখবে।

তিনি বলেন, বর্তমানে বিদেশী স্যাটেলাইটের ভাড়া বাবদ প্রদেয় বার্ষিক প্রায় ১৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সাশ্রয়সহ বৈদেশিক মুদ্রা আয়ের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণের ফলে বাংলাদেশের মানুষ এ সেবাসমূহ লাভ করবে।

বিস্তারিত খবর

দেড় সেকেন্ডে ১০০ কিমি গতি তুলে বৈদ্যুতিক গাড়ির বিশ্ব রেকর্ড

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৬-২৯ ২২:০৯:৩৬

ইঞ্জিনের গাড়ি দ্রুত গতি তুলতে পারে। দামি দামি স্পোর্টস গাড়ি শূন্য থেকে ১০০ কিমি গতি তুলতে পারে ৩ কিংবা ৪ সেকেন্ডে। যে গাড়ির এক্সেলারেশান যত বেশি সেটা তত দামি। অনেকেই মনে করেন, ব্যাটারি চালিত ইলেকট্রিক গাড়ি ইঞ্জিন চালিত গাড়ির মত দ্রুত গতি তুলতে পারেনা। তাদের জন্য চমক রয়েছে।সুইজারল্যান্ডের ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ৩০ জন ছাত্রের একটি দল এমন একটি বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরি করেছেন যেটা দ্রুত গতি তোলায় বিশ্ব রেকর্ড গড়েছে। ব্যাটারি চালিত বৈদ্যুতিক গাড়ির ইতিহাসে এটা অভিনব ঘটনা।সুইজারল্যান্ডের গ্রিমসেলের এই বৈদ্যুতিক গাড়ি ০-১০০ কিমি গতি তুলেছে মাত্র ১.৫১৩ সেকেন্ডে যেটা কিনা আগের রেকর্ডের চেয়ে সেকেন্ডের একচতুর্থাংশ কম। আগের রেকর্ড ছিল ১.৭৭৯ সেকেন্ড। কিন্তু এই বৈদ্যুতিক গারিটি মাত্র ৩০ মিটার দূরত্বের মধ্যেই ১০০ কিমি গতি তুলেছে।এখন পর্যন্ত কোন পেট্রোল চালিত গাড়ি এই সময়ের মধ্যে এই পরিমাণ গতি তুলতে পারেনি। কাছাকাছি গতির গাড়ির মধ্যে রয়েছে পোর্শে কোম্পানির ৯১৮ স্পাইডার হাইব্রিড। ১০০ কিমি গতি তুলতে এর সময় লাগে ২.২ সেকেন্ড।নতুন এই গাড়িটি গত এক বছর ধরে উন্নত করেছে সুইজারল্যান্ডের দুইটি নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত বিজ্ঞানের ছাত্ররা। টায়ার, ব্যাটারি সেল এবং মটর কন্ট্রোল ইউনিট বাদে গাড়িটির সমস্ত পার্টস তারা হাতে তৈরি করেছে।কার্বন ফাইবার ব্যবহার করায় বিদ্যুৎ গতির এই গাড়ির ওজন মাত্র ১৬৮ কেজি। সুইজারল্যান্ডের রাজধানী জুরিখের ডুবেনডর্ফ বিমানবন্দরে গতির এই রেকর্ড গড়েছে গাড়িটি।

বিস্তারিত খবর

নারী নির্যাতন বন্ধে মোবাইল ফোন অ্যাপ তৈরি করছে বাংলাদেশ

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৬-২১ ১৫:১১:৫৬

বিপদের সম্মুখীন নারী এবং শিশুরা যাতে দ্রুত সাহায্য চাইতে পারেন, সেরকম একটি মোবাইল অ্যাপ তৈরি করছে বাংলাদেশ সরকারের নারী ও শিশু মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি মঙ্গলবার ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানিয়েছেন।

আগামী ৮ আগস্ট ঢাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে অ্যাপসটি চালু করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি জানান, নারী এবং শিশু নির্যাতনের অনেক ঘটনার সময় তাৎক্ষণিক সাহায্য চাওয়া যায় না। উপযুক্ত প্রমাণের অভাবে অপরাধ প্রমাণ করাও কঠিন হয়ে পড়ে। নতুন মোবাইল অ্যাপটি এসব সমস্যার সমাধানে সহায়ক হবে।

এই মোবাইল অ্যাপের নাম দেয়া হয়েছে ‘জয়’।

কেউ নির্যাতনের হুমকিতে পড়লে মোবাইল অ্যাপটি স্পর্শ করার সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলের ঠিকানাসহ বিপদ সংকেতের বার্তা চেল যাবে পরিবারের সদস্য, নিকটস্থা পুলিশ স্টেশন এবং নারী নির্যাতন প্রতিরোধে ন্যাশনাল হেল্পলাইন সেন্টারে।

অ্যাপটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে সব কথাবার্তা রেকর্ড করবে এবং সংরক্ষণ করবে। এটি ছবিও তুলবে। যা মোবাইল ফোন থেকে চলে যাবে ন্যাশনাল হেল্পলাইন সেন্টারের সার্ভারে।


এলএবাংলাটাইমস/আইসিটি/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

নয়া অপশন পাচ্ছেন ফেসবুক ব্যবহারকারীরা

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৬-০৯ ২১:৩৫:৪০

নতুন এক ফিচার আনতে চলেছে ফেসবুক। এবার নিজের প্রোফাইলে দেওয়া কোনো আপডেট লুকিয়ে ফেলা যাবে। অন্যান্যদের প্রোফাইলে তা না দেখিয়েই কেবলমাত্র নিউজ ফিডে দেখানো যাবে।
এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা ফেসবুকের ফিডে পোস্ট করতে পারবেন। অর্থাৎ তাদের পোস্ট বন্ধুরা দেখবেন এবং সার্চের মাধ্যমে তা দেখা যাবে। কিন্তু যারা সরাসরি কারো প্রোফাইলে প্রবেশ করেন তারা দেখতে পারবে না।
বেশ অনেকদিন ধরেই ব্যবহারকারীরা অভিযোগ করছেন যে, তারা নিজেদের জীবন ও অন্যান্য বিষয় নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেন। কিন্তু তারা চান না এই লিঙ্ক অন্যান্য ওয়েবসাইটে শেয়ার হোক। নতুন ফিচারের মাধ্যমে কেউ তার প্রোফাইলে আপডেট দেবেন, কিন্তু তা যে আজীবন সেখানে থেকে যাবে এমন কথা নয়।
এ পরিবর্তনের আগে ফেসবুকের সকল পোস্ট মানুষের প্রোফাইলে চলে যেত নিউজ ফিডের মাধ্যমে। ফলে এগুলো মাঝে মাঝে সেই সব বন্ধুদের কাছেই দেখা দেয় যারা সরাসরি ফেসবুকের হোম পেজে যান।
এখন থেকে ব্যবহারকারীদের একটি বাটন দেওয়া হবে। এর মাধ্যমে 'ক্রিয়েট পোস্টস জাস্ট ফর নিউজ ফি' অপশনটি দেখানো হবে। এই টুলের মাধ্যমে পোস্ট দেওয়া আগের মতোই সহজ কাজ। শুধু বাচনটি ক্লিক করলে নতুন অপশনের সুবিধা নেওয়া যাবে।
ফেসবুক আসলে চাইছে ব্যবহারকারীরা তাদের প্রোফাইলের ওপর আরো বেশি নিয়ন্ত্রণ আরোপ করতে পারেন। প্রাইভেসি অপশনের জন্যেও যেন তাদের অভাব না থাকে। কোনো ছবি তারা না চাওয়া পর্যন্ত মানুষ দেখতে পারবে না কিংবা মেসেজ লুকিয়ে রাখা যাবে। আবার পোস্ট নির্দিষ্ট করে দেওয়া মানুষের কাছেই যাবে।
বিশ্বের সবচেয়ে বড় সোশাল প্লাটফর্মটি চাইছে, মানুষ তার ব্যক্তিগত জীবনটাকে চাইলেই ফেসবুকে প্রতিফলন ঘটাতে পারবেন। নিজেকে যেমন নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন, তেমনি প্রোফাইলটাকেও নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। সূত্র : ইনডিপেনডেন্ট

বিস্তারিত খবর

শিশুর জীবন রক্ষা পেল অ্যাপলের ‘সিরি’ আপসে

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৬-০৮ ২২:০০:২৮

অস্ট্রেলিয়ায় এক শিশুর জীবন বাঁচাতে আইফোনের সিরি প্রোগ্রামের সাহায্য নিয়ে অ্যাম্বুলেন্স ডেকেছিলেন শিশুটির মা। এক বছর বয়সী শিশুটি যখন আর শ্বাস নিচ্ছিল না, তখন শিশুটির মা তার আইফোন নিয়ে দ্রুত কাছে ছুটে যান। এসময় তার হাত থেকে আইফোনটি মেঝেতে পড়ে যায়।
ফোন তোলায় সময় নষ্ট না করে মা স্ট্যাসি গ্লীসন ব্যস্ত হয়ে পড়েন মেয়ের মুখে মুখ দিয়ে শ্বাস-প্রশ্বাস চালু রাখতে। অ্যাপলের পার্সোনাল অ্যাসিস্ট্যান্ট 'সিরি'। ভয়েস কমান্ড দিয়ে যে কোন কিছু করতে বলা যায় তাকে। তবে একই সময়ে তিনি তার আইফোনের দিকে চিৎকার করে ‘সিরি’ প্রোগ্রাম সচল করেন এবং স্পীকারফোনে অ্যাম্বুলেন্স ডাকার জন্য নির্দেশ দেন।
স্ট্যাসি গ্লীসন যখন মেয়ের শ্বাস চালু রাখার চেষ্টা করছিলেন, একই সময়ে তিনি স্পীকারফোনে অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা এবং কথাবার্তা চালিয়ে যেতে সক্ষম হন। স্ট্যাসি গ্লীসন বিবিসিকে জানিয়েছেন, এর ফলে হয়তো তিনি তার মেয়ের জীবন বাঁচাতে সক্ষম হয়েছেন।
তিনি বলেন, ঐ মূহুর্তে যদি ফোনটি তার হাত থেকে পড়েও না যেত, তারপরও তখন তার পক্ষে ফোন করে অ্যাম্বুলেন্স ডাকতে অনেক বেগ পেতে হতো। আইফোনের ‘সিরি’ প্রোগ্রামকে বর্ণনা করা হয় ‘পার্সোনাল অ্যাসিস্ট্যান্ট’ হিসেবে। ভয়েস কমান্ড দিয়ে ‘সিরি’ প্রোগ্রাম দিয়ে আইফোন এবং এর বিভিন্ন অ্যাপ চালানো যায়।
মিস গ্লিসনের এক বছর বয়সী কন্যা ‘জিয়ানা’ এখন পুরোপুরি সুস্থ। ডাক্তাররা জানিয়েছেন, তার জীবন রক্ষার জন্য ঐ সময়ের প্রতিটি সেকেন্ড ছিল গুরুত্বপূর্ণ। স্ট্যাসি গ্লীসন তার এই অভিজ্ঞতা জানিয়েছিলেন অ্যাপলকে। অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যমে এই খবর প্রচারিত হওয়ার পর এটি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা চলছে। বিবিসি।

বিস্তারিত খবর

ক্যারিয়ারের জন্য দরকারি অ্যাপগুলো

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৬-০৬ ২২:০৯:৫২

ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ক্রমেই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠছে স্মার্টফোন। নিজের ক্যারিয়ারটাকে এগিয়ে নিতেও স্মার্টফোন দারুন মাধ্যম। বেশ কিছু দারুণ অ্যাপ রয়েছে আপনাকে বহুদূর এগিয়ে নিতে পারে। এখানে নিন এমনই কিছু অ্যাপের খবর।
১. অনেকটা টিন্ডারের মতো ইন্টারফেস নিয়ে আছে জবার। বাজারে নতুন করে চাকরি না খুঁজতে থাকলেও, মাঝে মাঝে এটি দেখতে পারেন। ডান বা বামে সোয়াইপ করেই সহজে এক ঝলক চাকরির খবরগুলো দেখ নেওয়া যায়। অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস-এ ফ্রি মিলবে এটি।
২. নতুন কারো সঙ্গে পরিচিত হলে তাদের বিজনেস কার্ডটি 'বিজনেস কার্ড রিডার প্রো'-এর মাধ্যমে স্মার্টফোনেই রেখে দিত পারেন। আইওএস-এ ৬.৯৯ ডলারে মিলবে অ্যাপটি।
৩. হেস্টাকের মাধ্যমে আপনি নিজের ডিজিটাল বিজনেস কার্ড বানিয়ে নিতে পারেন। নেটওয়ার্কের মাধ্যমে এটি পরিচিত-অপরিচিতদের সঙ্গে শেয়ার করতে পারেন। একে নেক্সট জেনারেশন বিজনেস কার্ড বলে মনে করা হচ্ছে। আইওএস ও অ্যান্ড্রয়েডে ফ্রি মিলবে অ্যাপটি।
৪. পকেট রিজ্যুমি'র মাধ্যমে কয়েক মিনিটের মধ্যেই একটা রিজ্যুমি বানিয়ে ফেলতে পারেন। রিজ্যুমি তৈরির দারুণ এক টুল। আইওএস-এ পাওয়া যাবে ৪.৯৯ ডলারে।
৫. ইনডিড জব সার্চ-এর মাধ্যমে পদ খালি আছে এমন চাকরির তালিকা পেয়ে যাবেন। এর মাধ্যমে চাকরিদাতা ও চাকরিপ্রার্থীদের একই প্লাটফর্মে এনেছে অ্যাপটি। আইওএস ও অ্যান্ড্রয়েডে মিলবে বিনামূল্যে।
৬. কোন প্রতিষ্ঠানে কাজ করার আগে এ চাকরি সম্পর্কে নানা তথ্য জানাবে 'গ্লাসডোর'। আইওএস এবং অ্যান্ড্রয়েডে আছে বিনামূল্যে।
৭. লিঙ্কডইন এমন এক অ্যাপ যা আপনার ক্যারিয়ারের বিস্তর সুযোগ সৃষ্টি করতে পারে। স্থানভেদে চাকরির সুযোগের খবর দেবে লিঙ্কডইন। পড়াশোনা শেষ করে বের হচ্ছেন বা বের হয়েছেন তাদের জন্যে দারুণ কাজের অ্যাপ। লিঙ্কডইন মোবাইল, লিঙ্কডইন জব সার্চ এবং লিঙ্কডইন স্টুডেন্টস মিলবে ফ্রি-তে। সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার

বিস্তারিত খবর

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত