যুক্তরাষ্ট্রে আজ মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭ ইং

|   ঢাকা - 04:44am

|   লন্ডন - 10:44pm

|   নিউইয়র্ক - 05:44pm

  সর্বশেষ :

  ধর্ম অবমাননা নিয়ে রংপুরে সহিংসতা, আদালতে টিটু রায়ের স্বীকারোক্তি   টিকাতেই নিরাময় হবে ক্যান্সার   মিয়ানমারে রোহিঙ্গারা ‘জাতিগত বৈষম্যের’ শিকার : অ্যামনেস্টি   ঢাবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র জালিয়াতি, আটক ৮   নাইজেরিয়ায় মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৫০   রোহিঙ্গাদের ফেরাতে চলতি সপ্তাহে সমঝোতার আশা সু চি’র   জানুয়ারি থেকে সব বাহিনীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিশেষ ভাতা: প্রধানমন্ত্রী   আমেরিকান মিউজিক অ্যাওয়ার্ডসে সেরা হলেন যারা   পদত্যাগ নয়, জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলেন মুগাবে   কেন সৌদি আরব এমন করছে?   মরক্কোয় ত্রাণ নেওয়ার সময় পদদলিত হয়ে নিহত ১৫   ৭ মার্চকে ঐতিহাসিক দিবস ঘোষণা চেয়ে হাইকোর্টে রিট   শাহজালালের মাজারের কুপের পানিকে জমজমের পানি বলে প্রতারণা : তদন্তের নির্দেশ আদালতের   এলপিজি আমদানির জাহাজ কিনলো বেক্সিমকো পেট্রোলিয়াম   রোহঙ্গিা সঙ্কট নিরসনে চীনের ৩ ধাপের প্রস্তাব

>>  বহিঃ বিশ্ব এর সকল সংবাদ

মিয়ানমারে রোহিঙ্গারা ‘জাতিগত বৈষম্যের’ শিকার : অ্যামনেস্টি

'মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের চরম ঘৃণা ও অবজ্ঞার দৃষ্টিতে দেখা হয়'। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর মিয়ানমার সরকারের অত্যন্ত কঠোর নিয়ন্ত্রণ ‘জাতিগত বৈষম্যে’ রূপ নিয়েছে। মঙ্গলবার অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল একথা জানিয়েছে। মিয়ানমার থেকে ৬ লাখ ২০ হাজার রোহিঙ্গা প্রতিবেশী বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়ার মূল কারণ উদঘাটন করতে গিয়ে এ তথ্য বেরিয়ে এসেছে।
বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের করুণ অবস্থা বিশ্ববিবেককে নাড়া দিয়েছে। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনের কথা শুনে বিভিন্ন দেশের মানুষ ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। আগস্ট মাস থেকে রাখাইন রাজ্য

বিস্তারিত খবর

নাইজেরিয়ায় মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ৫০

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-২১ ০৯:৫৯:২৭

নাইজেরিয়ায় একটি মসজিদে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৫০ জন নিহত হয়েছেন।

দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শহর মুবিতে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার ভোরে ফজরের নামাজ আদায়ের সময় এই বিস্ফোরণ হয়। নামাজের সময় মসজিদ ভরা মুসল্লি ছিলেন।

এ হামলার দায় এখনো কেউ বা কোনো পক্ষ স্বীকার করেনি। তবে জঙ্গিগোষ্ঠী বোকো হারাম সাধারণত নাইজেরিয়ার উত্তরাঞ্চলে জনসমাগমের স্থানে হামলা চালিয়ে থাকে। কিন্তু তাদের পক্ষ থেকে এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

নাইজেরিয়া পুলিশ দাবি করেছে, তারা জানতে পেরেছে এক কিশোর এই হামলা চালিয়েছে। তবে পরিচয় উদঘাটন করতে পারেনি তারা। এ ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে।

আবু বকর সুলে নামে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী মুসল্লিদের সঙ্গে মিশে ছিলেন। তবে হামলাকারীর পরিচয় দিতে পারেননি তিনি।

বোকো হারাম তাদের আট বছরের জঙ্গি তৎপরতার সময়ে প্রায় ২০ হাজার মানুষকে হত্যা করেছে। সম্প্রতি তারা হরহামেশা বোমা হামলা করছে। গত বছর ডিসেম্বর মাসে একই এলাকায় এক বোমা হামলায় ৪৫ জনতে হত্যা করে জঙ্গি সংগঠনটি।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

রোহিঙ্গাদের ফেরাতে চলতি সপ্তাহে সমঝোতার আশা সু চি’র

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-২১ ০৯:৫৮:২১

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ফেরাতে বাংলাদেশের সঙ্গে চলমান আলোচনায় চলতি সপ্তাহেই ‘নিরাপদ ও স্বেচ্ছায় প্রত্যাবাসন’ শীর্ষক একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের আশা প্রকাশ করেছেন মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সানি সু চি। তবে দুই দেশ চুক্তি সংক্রান্ত আলোচনায় ঐক্যমতের কতটা কাছাকাছি পৌঁছেছে তা জানাতে অস্বীকার করেছেন তিনি।

মঙ্গলবার মিয়ানমারের রাজধানী নেপিদোয় এশিয়া-ইউরোপের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সম্মেলন আসেমে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে সু চি এসব জানান।

রাখাইনে মানবাধিকার লঙ্ঘন সংক্রান্ত সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা ঘটেছে কিনা আমরা তা বলতে চাই না। তবে সরকারের দায়িত্ব হলো এটা যাতে ঘটতে না পারে।’

দীর্ঘ সামরিক শাসনের পর দুই বছরের কম সময় ধরে একটি বেসামরিক সরকারের নেতৃত্ব দিচ্ছেন সু চি। গত ২৫ আগস্ট রাখাইন রাজ্যে বিদ্রোহীদের হামলার পর সেনাবাহিনীর অভিযানে ছয় লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছে। মানবাধিকার সংগঠন ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ওই এলাকায় জাতিগত নিধনের জন্য দেশটির সেনাবাহিনীকে অভিযুক্ত করেছে। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে দেশটি। আর সেনাবাহিনীর নিধনযজ্ঞের বিষয়ে চুপ থাকায় বিশ্বব্যাপী সমালোচিত হচ্ছেন সু চি। অভিযোগ উঠেছে সেনা কর্মকর্তাদের ওপর নিজের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে ব্যর্থ হয়েছেন তিনি।

সু চি জানান, রোহিঙ্গাদের ফেরাতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে বুধবার এবং বৃহস্পতিবারও আলোচনা চলবে। ফিরতে চাওয়া রোহিঙ্গাদের আবেদন প্রক্রিয়া ঠিক করতে দুই দেশের কর্মকর্তারা গত মাস থেকেই আলোচনা চালাচ্ছেন।

তিনি বলেন, আশা করছি এর মাধ্যমে ওই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করা যাবে। আর এর মাধ্যমেই নিরাপদ ও স্বেচ্ছায় সীমান্ত পাড়ি দেওয়া ব্যক্তিরা দেশে ফিরতে পারবেন।

শান্তিতে নোবেল জয়ী সু চি রোহিঙ্গা শব্দটি ব্যবহার করেননি। দেশটিতে রাষ্ট্রীয়ভাবে এই শব্দ ব্যবহার করে না। রোহিঙ্গাদের ফেরাতে ১৯৯০ সালে স্বাক্ষরিত চুক্তির আওতায় নতুন সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হবে বলে জানান সু চি।

ওই চুক্তিতে রোহিঙ্গাদের নাগরিক স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি। তবে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এবার রোহিঙ্গাদের নিজেদের দেশে আরও সুরক্ষার ব্যবস্থা করার ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে।

আবাসিকতার ভিত্তিতে তাদের মিয়ানমারে ফেরানোর বিষয়ে দুই দেশই দীর্ঘ সময় আগে একমত হয়েছিল বলে জানিয়ে সু চি বলেন, এবারও সেই ফর্মুলা অনুসরণ করা হবে।

এর আগে দুই দেশের আলোচনায় প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করতে একটি চুক্তির জন্য আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছিল। তবে মিয়ানমারের কর্মকর্তারা পরে বাংলাদেশকে অভিযুক্ত করে বলেন, তারা বিদেশি সাহায্য পাওয়া অব্যাহত রাখতে শরণার্থীদের নিজ দেশে রাখতে আগ্রহ দেখাচ্ছে।

তবে সু চি জানান, দুই দেশ চুক্তির কতটা কাছাকাছি পৌঁছেছে তা বলা কঠিন। বরাবর তিনি বলে আসছেন, রাখাইনের নিরাপত্তা বজায় রাখতে তার দেশ সবকিছুই করবে। তবে তাতে সময় লাগবে বলেও জানিয়েছেন।

রোহিঙ্গাদের অধিগ্রহণ করে নেওয়া জমি ফিরিয়ে না দিয়ে মিয়ানমার শরণার্থীদের জন্য ‘মডেল গ্রাম’ বানাতে চায়। এ বিষয়ে জাতিসংঘ সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, এর মাধ্যমে চিরস্থায়ী শিবির বানানো হবে।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

পদত্যাগ নয়, জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলেন মুগাবে

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-২০ ১১:১৪:১৯

সেনাবাহিনী জিম্বাবুয়ের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর চারদিক থেকে অব্যাহত চাপের মুখে পদত্যাগের ঘোষণা না দিয়ে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলেন জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে।

রোববার ক্ষমতাসীন জানু-পিএফ পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটি মুগাবেকে দলীয় প্রধানের পদ থেকে বহিষ্কার করার পর জাতির উদ্দেশে দেওয়া টেলিভিশন ভাষণে বললেন, আগামী মাসে অনুষ্ঠেয় দলীয় কংগ্রেসে সভাপতিত্ব করবেন তিনি। ভাষণ দেওয়ার সময় তার পাশে সেনাবাহিনীর জেনারেলরা উপস্থিত ছিলেন।

বুধবার সেনাবাহিনী দেশের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর জিম্বাবুয়েজুড়ে মুগাবের পদত্যাগের দাবি জোরালো হয়। দেশটির জনগণ প্রতীক্ষায় ছিল, পরিবর্তীত পরিস্থিতিতে মুগাবে রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানের পদ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দেবেন। কিন্তু গৃহবন্দি মুগাবে তার লিখিত ভাষণে পদত্যাগের বিষয়টি উল্লেখ না করে দেশের স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

সরকারের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ায় সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিষোদগার করেননি মুগাবে। তিনি তাদের ক্ষমা করে সমস্যা সমাধানের কথা বলেছেন।

তবে এর আগে মুগাবের জানু-পিএফ পার্টি তাকে ও ফার্স্ট লেডি গ্রেস মুগাবেকে দল থেকে বহিষ্কার করে এবং প্রেসিডেন্টের পদ থেকে সরে দাঁড়াতে তাকে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেয়। কিন্তু টেলিভিশন ভাষণে এ বিষয়ে কোনো কথা বলেননি তিনি।

সম্প্রতি ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাগওয়াকে বহিষ্কারের পর মুগাবে সরকারের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনী ক্ষোভ প্রকাশ করে এবং এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার তারা হারারে দখল করে। বুধবার সপরিবারে মুগাবেকে গৃহবন্দি করে দেশের নিয়ন্ত্রণ নেয়। এরপর সেনা-জনতা মিলে মুগাবের পদত্যাগের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। কিন্তু তিনি তার অবস্থানে অনড় রয়েছেন।

স্থানীয় সময় সোমবার দুপুরের মধ্যে পদত্যাগ না করলে প্রেসিডেন্ট মুগাবের বিরুদ্ধে অভিশংসন করা হবে বলে হুমকি দিয়েছে জানু-পিএফ পার্টির শীর্ষ নেতৃত্ব। কিন্তু মুগাবে তার মতোই এগোচ্ছেন। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সময় পার করতে চাইছেন তিনি। আগামী মাসে দলীয় কংগ্রেসে সভাপতিত্ব করার ঘোষণা দেওয়ার মধ্য দিয়ে তিনি আপাতত পদত্যাগের সম্ভাবনা নাকচ করে দিলেন। এর ফলে সরকারের ভেতরে ও বাইরে কী ঘটে চলেছে, তা নিয়ে জনগণের মধ্যে ধোঁয়াশা সৃষ্টি হয়েছে।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

মরক্কোয় ত্রাণ নেওয়ার সময় পদদলিত হয়ে নিহত ১৫

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-২০ ১১:১১:১৮

মরক্কোয় ত্রাণ সামগ্রী নেওয়ার সময় পদদলিত হয়ে কমপক্ষে ১৫ নারী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরো বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।

রবিবার (১৯ নভেম্বর) দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর সিদি বৌলায়ালামের একটি বাজারে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। খবর- বিবিসির।

স্থানীয় একটি ব্যক্তিগত দাতব্য সংস্থা এই ত্রাণ বিতরণ করছিল।কয়েকটি খবরে জানা গেছে, এ ঘটনায় আহতদের সংখ্যা ৪০ জন পর্যন্ত হতে পারে। স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, হতাহতদের অধিকাংশই নারী ও বয়োবৃদ্ধ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই ঘটনার ছবি ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে দেখা যায় রাস্তার ওপর ওই নারীদের মৃতদেহগুলো পড়ে রয়েছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, সিদি বৌলালাম দেশটির পিছিয়ে পড়া একটি শহর। শহরটির জনসংখ্যা আট হাজারের কিছুটা বেশি। তারা বলছে, এ বছর শহরটির স্থানীয় মার্কেটে বার্ষিক খাদ্য সরবরাহে ঘাটতি রয়েছে।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, এ বছর আমরা অনেক মানুষ দেখেছি। মানুষজন ব্যারিকেড ভেঙে, দেয়াল খুঁড়ে খাবার সংগ্রহ করার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ে।

মরক্কোর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বাদশাহ ষষ্ঠ মোহাম্মদ স্থানীয় কর্মকর্তাদের দুর্গত ব্যক্তিদের সহায়তার নির্দেশ দিয়েছেন। বাদশাহ ব্যক্তিগতভাবে আহতদের চিকিৎসার খরচ বহন করবেন।

একইসঙ্গে মৃতদের দাফনের জন্যও অর্থ দেবেন তিনি বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তবে কি কারণে এই পদদলনের ঘটনা ঘটেছে সেটা এখনো স্পষ্ট নয়।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

রোহঙ্গিা সঙ্কট নিরসনে চীনের ৩ ধাপের প্রস্তাব

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-২০ ১১:০৪:৩৬

মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর দেশটির সেনাবাহিনীর নিপীড়নে যে সঙ্কটের সৃষ্টি হয়েছে তা নিরসেন কিছু প্রস্তাব রেখেছে চীন। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই রোহিঙ্গা সঙ্কট নিরসনের লক্ষ্যে যে পরিকল্পনা প্রকাশ করেছেন তাতে রয়েছে তিনটি ধাপ। এগুলো হলো-অস্ত্রবিরতি, সংলাপ ও উন্নয়ন।

মিয়ানমারে আসেম সম্মেলনের যোগদানের উদ্দেশ্যে ওয়াং বর্তমানে মিয়ানমারের রাজধানী নেপিড'তে রয়েছেন। তিনি এই পরিকল্পনা নিয়ে মিয়ানমার সরকারের সাথে কথাবার্তা বলেছেন।

এই পরিকল্পনাটি তিনি তার ঢাকা সফরের সময় বাংলাদেশ সরকারের কাছেও ব্যাখ্যা করেছেন।

ওয়াং বলেছেন, আলোচনার মাধ্যমে প্রতিবেশী দুই দেশ মিয়ানমার এবং বাংলাদেশের কাছে গ্রহণযোগ্য কোন পরিকল্পনাই বর্তমান সঙ্কটের সমাধান করতে পারে।

অস্ত্রবিরতি: চীনা সরকারি বার্তা সংস্থা শিনহুয়ার খবর অনুযায়ী, ওয়াং তার পরিকল্পনার প্রথম ধাপে রাখাইনে অস্ত্রবিরতির প্রস্তাব রাখা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, ঐ এলাকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে হবে, যাতে সেখান থেকে রোহিঙ্গাদের অন্যত্র চলে যেতে না হয়।

তবে এই চীনা পরিকল্পনায় যেসব রোহিঙ্গা বাংলাদেশে শরণার্থী হয়ে আছেন, তাদের প্রত্যাবর্তনের বিষয়ে সরাসরি কোন কথা বলা হয়নি।

সংলাপ: শিনহুয়া বলছে, চীনা পরিকল্পনার দ্বিতীয় ধাপে এই সঙ্কটের সবগুলো পক্ষ এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আলোচনার প্রক্রিয়া চালু রাখার তাগিদ দেয়া হয়েছে, যাতে 'সমতার ভিত্তিতে এবং সৌহার্দপূর্ণভাবে' সঙ্কটের সমাধান করা যায়।

উন্নয়ন: চীনা পরিকল্পনার তৃতীয় ধাপে রাখাইনের উন্নয়নের প্রস্তাব রাখা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে রাখাইন রাজ্য প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর। কিন্তু সেখানে উন্নয়নের ধারা থমকে গিয়েছে। রাখাইনের উন্নয়নের জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সহায়তা করার ব্যাপারেও চীনা পরিকল্পনায় তাগিদ দেয়া হয়েছে।

চীনা সংবাদমাধ্যমের খবরে দাবি করা হয়েছে, এই পরিকল্পনার পেছনে মিয়ানমার এবং বাংলাদেশ উভয় সরকারের সমর্থন রয়েছে।

তবে এই ব্যাপারে এককভাবে বাংলাদেশ সরকারের বক্তব্য জানা যায়নি।

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দাবি, সব পক্ষের চেষ্টায় এই ফর্মুলার প্রথম ধাপ ইতোমধ্যে ‘অর্জিত হয়েছে’। এখন সেখানে যাতে নতুন করে কোনো যুদ্ধের উসকানি তৈরি না হয়, সেটা নিশ্চিত করা সবচেয়ে জরুরি।

চলতি বছর অগাস্টের শেষ দিকে রাখাইনে সেনা অভিযান শুরুর পর এ পর্যন্ত সোয়া ছয় লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। জাতিসংঘ এই অভিযানকে চিহ্নিত করেছে ‘জাতিগত নির্মূল অভিযান’ হিসেবে।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

হিলারিকে ট্রাম্পের চ্যালেঞ্জ

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৯ ০৯:৩০:১৪

২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আবারও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য গত নির্বাচনের পরাজিত প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শনিবার এক টুইটার বার্তায় এ চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন ট্রাম্প।

হিলারিকে ‘সবচেয়ে বাজে ও সর্বোচ্চ পরাজিত প্রার্থী’ উল্লেখ করে ট্রাম্প লিখেছেন, ‘আবার চেষ্টা করে দেখুন’

তিনি লিখেছেন, ‘তিনি থামবেন না যা রিপাবলিকান দলের জন্য ভালো। হিলারি, আপনি জীবনে উন্নতি করুন এবং আগামী তিন বছর পর আবার চেষ্টা করুন।’

এর আগে শুক্রবার প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের বিজয়য়ের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন হিলারি। ট্রাম্পের বিজয়ের পেছনে যেসব কারণ রয়েছে তার মধ্যে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ অন্যতম বলে দাবি করেন হিলারি।

গত বছর নির্বাচনী প্রচারণার সময় হিলারি বলেছিলেন, ট্রাম্প যদি জেতে তাহলে তিনি রাশিয়ার হাতের পুতুলে পরিণত হবেন। সাক্ষাৎকারে হিলারির কাছে জানতে চাওয়া হয় এ মন্তব্যকে এখনো তিনি সমর্থন করেন কিনা। জবাবে ডেমোক্রেট দলের সাবেক এই প্রার্থী জানান, তিনি এখনো আগের মতকেই সমর্থন করেন।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ভারতে প্রকাশ্যে মলমূত্র ত্যাগ করে ৭০ কোটি মানুষ

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৯ ০৯:২৬:৫১

ভারতে এখনো ৭০ কোটি লোক প্রকাশ্য স্থানে বা অনিরাপদ টয়লেটে মলমূত্র ত্যাগ করে - কিন্তু তাদের প্রতিবেশী বাংলাদেশে প্রকাশ্যে এ কাজ করা 'প্রায় সম্পূর্ণ বিলুপ্ত' হয়ে গেছে। বিশ্ব টয়লেট দিবস উপলক্ষে নতুন প্রকাশ করা এক রিপোর্টে ওয়াটাএইড নামে একটি সংস্থা বলছে, একেবারে প্রাথমিক স্তরের টয়লেট সুবিধা নেই এরকম লোকের সংখ্যা ভারতে বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বেশি।
 
ভারতে ৭০ কোটি লোক এখনো প্রকাশ্যে বা অনিরাপদ টয়লেটে মলমূত্র ত্যাগ করে- যদিও গত কয়েক বছরে পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে।
 
‘পৃথিবীর টয়লেটের অবস্থা’ নামের এক রিপোর্টে ওয়াটারএইড একথা বলছে। নেপালে প্রকাশ্যে মলমূত্র ত্যাগ করা ২০০০ সাল থেকে এ পর্যন্ত সময়ের মধ্যে অর্ধেকে নেমে এসেছে বলে ধারণা করা হয়।
 
এই রিপোর্ট অনুযায়ী পৃথিবীতে এখনো প্রতি তিনজনের একজনের জন্য একটি ভালো টয়লেটে যাবার সুযোগ নেই। মেয়েদের ঋতুস্রাবের সময় তাদের বাড়ির বাইরে টয়লেটের আরো বেশি দরকার হয়।
কিন্তু ইউনেস্কোর এক রিপোর্টে বলা হয়েছে আফ্রিকায় প্রতি ১০ জনের একজন মেয়ে ঋতুস্রাবের সময়টায় স্কুলে যায় না।
 
ভারতে প্রকাশ্য স্থানে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হবার ঘটনাও ঘটেছে ২০১৪ সালে।বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা ও ইউনিসেফের এক রিপোর্টে বলা হচ্ছে, বিশ্বের ৯০টি দেশে প্রাথমিক পয়প্রণালী সুবিধার ক্ষেত্রে অগ্রগতি এখনো ধীর। পৃথিবীতে ৬০ কোটি লোক অন্য পরিবারের সাথে টয়লেট ভাগাভাগি করে ব্যবহার করে। ভারতে ৩৫ কোটি নারীর জন্য কোন নিরাপদ টয়লেট নেই। ইথিওপিয়ায় এ সংখ্যা ৪ কোটি ৬০ লাখ। টয়লেটের ব্যাপারটি বিশেষ করে মেয়েদের ঘরের বাইরে চলাফেরার জন্য একটা বিরাট অসুবিধার কারণ হতে পারে এবং পৃথিবীর বহু দেশে হয়েও থাকে। কিন্তু এমনটা কি হতে পারে যে মেয়েরা যাতে ঘরের বাইরে বেরুতে না পারে সে জন্য পরিকল্পিতভাবেই তাদের টয়লেট সুবিধা রাখা হয় না?
 
বিবিসির শত নারী অনুষ্ঠানমালার পক্ষ থেকে এ নিয়ে খোঁজখবর নিয়ে দেখা যাচ্ছে, অন্তত ভিক্টোরিয়ার ইংল্যান্ডে ব্যাপারটা ছিল তাই।
ব্রিস্টলের ইউনিভার্সিটি অব দি ওয়েস্ট অব ইংল্যান্ড-এর অধ্যাপক ড. ক্লারা গ্রিড বলছেন, ভিক্টোরিয়ান যুগে মেয়েদের বাইরে চলাচল নিয়ন্ত্রণ করার জন্য এবং তাদেরকে প্রকাশ্যে আসতে না দেবার জন্য ইচ্ছে করেই ঘরের বাইরে তাদের জন্য কোন টয়লেট রাখা হতো না। মেয়েদের জন্য টয়লেট তৈরি করাকে নেতিবাচক দৃষ্টিতে দেখা হতো। ভাবা হতো ভদ্র মেয়েদের পাবলিক টয়লেট উচিত নয়।
 
ড. গ্রিড বলছেন, এ কারণেই মেয়েরা দীর্ঘ সময়ের জন্য ঘরের বাইরে আসতো না। সে যুগে বিভিন্ন অফিস আদালত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বা বিনোদনের জায়গাগুলো বানানোই হতো শুধু পুরুষদের প্রয়োজনের কথা চিন্তা করে।
 
মেয়েদেরকে নানা উপায়ে টয়লেটের অভাবের সাথে মানিয়ে নিতে হতো। যেমন কম পানি খাওয়া, ঘন্টার পর ঘন্টা প্রস্রাবের বেগ আটকে রাখা এবং ঘরের বাইরে কম সময় কাটানো" - বলছিলেন বোস্টনের ইনস্টিটিউট ফর হিউম্যান সেন্টার্ড ডিজাইনের মেগান আর ডুফ্রেসনে।
 
তবে উনবিংশ শতাব্দীর শেষ দিকে মেয়েদের ভোটাধিকারের আন্দোলন বা সাফ্রাগেট, ডিপার্টমেন্ট স্টোর এবং ক্যফের জনপ্রিয়তা বাড়ার সাথে সাথে মেয়েদের টয়লেট ব্যবহার অনেক বেশি গ্রহণযোগ্যকা পেতে থাকে।

 এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বিশ্বে আগামী বছর বাড়বে ভূমিকম্পের সংখ্যা ও তীব্রতা

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৯ ০৯:২০:০২

চলতি বছরের তুলনায় আগামী বছর বিশ্বে ভূমিকম্পের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে সতর্ক করেছেন বিজ্ঞানীরা। তাদের বিশ্বাস পৃথিবীর ঘূর্ণনের গতির তারতম্য ভূকম্পনের তীব্রতা বাড়াতে পারে। বিশেষ করে পৃথিবীর গ্রীষ্মমন্ডলীয় অঞ্চলের জনসংখ্যাবহুল দেশগুলোতে কম্পনের এই মাত্রা বেশি হতে পারে।

এতে বলা হয়েছে, ঘূর্ণনের এই তারতম্যের হার ক্ষুদ্র- যার ফলে দিনের দৈর্ঘ্য এক মিলিসেকেন্ড করে বাড়ছে। ভূগর্ভস্থ শক্তির ব্যাপক ক্ষয়ের সঙ্গে এর সম্পৃক্ততা থাকতে পারে।

গত মাসে জিওলজিক্যাল সোসাইটি অব আমেরিকার বার্ষিক বৈঠকে ইউনিভার্সিটি অব কলোরাডোর রজার বিলহ্যাম এবং ইউনিভার্সিটি অব মন্টানার রেবেকা বেনডিক এক গবেষণাপত্রে পৃথিবীর ঘূর্ণনের সঙ্গে ভূকম্পনের সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি তুলে ধরেন।

গত সপ্তাহে মার্কিন সংবাদমাধ্যম অবজারভারকে বিলহ্যাম বলেছেন, ‘পৃথিবীর ঘূর্ণন ও ভূকম্পনের সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়টি বেশ জোরালো। আর এটা ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, আগামী বছর ভূকম্পনের সংখ্যা বাড়তে পারে।’

বিলহ্যাম ও বেনডিক তাদের গবেষণাপত্রে দেখিয়েছেন, গত দেড় শতাব্দি ধরে প্রতি পাঁচ বছর অন্তর পৃথিবীর ঘূর্ণনের গতি কিছুটা ধীর হয়। আর দুর্ভাগ্যজনভাবে এই সময়গুলোতে বড় মাত্রার ভূকম্পনের সংখ্যা বেড়ে যায়।

বিলহ্যাম বলেন, ‘ব্যাপারটা সোজাসাপ্টা। পৃথিবী আমাদেরকে পাঁচ বছর সামনে রেখে ভবিষ্যত ভূমিকম্পের বিষয়টি জানাচ্ছে।’

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

দলীয় প্রধানের পদ থেকে বরখাস্ত হলেন মুগাবে

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৯ ০৯:১৭:৩৮

ক্ষমতাসীন জানু-পিএফ পার্টি দলীয় প্রধানের পদ থেকে জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবেকে বরখাস্ত করেছে। একইসঙ্গে বরখাস্তকৃত ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাওয়াকে দলীয় প্রধান হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছে।

রোববার বিশেষ কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয় বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

দলের বৈঠকে অংশ নেওয়া এক প্রতিনিধি  রয়টার্সকে বলেছেন, ‘তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। নানগাওয়া  এখন আমাদের নতুন নেতা।’

এদিকে বিবিসি জানিয়েছে, রোববার সেনাপ্রধানের সঙ্গে মুগাবের বৈঠক হওয়ার কথা।  তার বাসভবন থেকে একটি গাড়ির বহর বের হয়ে  যেতে দেখা গেছে।

মুগাবের পদত্যাগের দাবিতে শনিবার হাজার হাজার বিক্ষোভকারী রাজধানী হারারেতে তার বাসভবনের কাছে বিক্ষোভ করেছে। এসময় বিক্ষোভকারীরা সেনাবাহিনীর পক্ষে স্লোগান দেয়।

দুই সপ্তাহ আগে মুগাবে ভাইস প্রেসিডেন্ট নানগাওয়াকে সরকার ও দল থেকে বহিষ্কার করেন। মূলত স্ত্রী গ্রেস মুগাবেকে দলের ভবিষ্যত উত্তরসূরি করতেই এই পদক্ষেপ নিয়েছিলেন ৩৭ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা মুগাবে।

ক্ষমতাসীন দলের অর্ন্তকোন্দলের জের ধরে গত বুধবার সেনাবাহিনী দেশটির নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার ঘোষণা দেয়।

এরপরই ৯৩ বছরের মুগাবেকে গৃহবন্দি করে রাখা হয়।অব্যাহত জনঅসন্তোষের পরিপ্রেক্ষিতে গত শুক্রবার জানু-পিএফ পার্টি ঘোষণা দেয় তারা মুগাবেকে দলীয় প্রধানের পদ থেকে বরখাস্ত করতে যাচ্ছে।


এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে নির্বাচনে লড়তে চান এই পর্নস্টার!

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৭ ২৩:৪৮:৪৫

নভেম্বরে যখন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট পদে আসীন হয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প, তখন সে খবর বিশ্বাসই করতে পারেননি পর্নস্টার চেরি ডেভিলা। তাঁর ‘অপছন্দ’-এর মানুষটি কীভাবে বারাক ওবামার উত্তরসূরি হলেন, ভেবেই উঠতে পারছিলেন না তিনি। তাই আগামী নির্বাচনে ট্রাম্পকে সরাতে নিজেই লড়াইয়ে দাঁড়ানোর কথা ভাবছেন পর্নোগ্রাফির অভিনেত্রী।

একাধিক পর্ন ছবির অভিনয় করা অভিজ্ঞ চেরি চান না ২০২০ সালের পর আর আমেরিকার সর্বোচ্চ মসনদে থাকুন ট্রাম্প। ৩৯ বছর বয়সি অভিনেত্রী সেই কারণে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার কথাও ভেবে ফেলেছেন। যদিও এখনও পর্যন্ত এ বিষয়ে লিখিতভাবে কিছু জানাননি তিনি। বলছেন, যতক্ষণ না পর্যন্ত রাজনীতির প্রতি নিজেকে পুরোপুরি নিমজ্জিত করতে পারছেন, ততক্ষণ লিখিতভাবে এ নিয়ে কিছু জানাবেন না। PornStarForPresident.com নামে একটি ওয়েবসাইটও রয়েছে চেরির। সেখানেই ট্রাম্পের বিরুদ্ধে লড়াই ঘোষণার একটি ভিডিও পোস্ট করার সিদ্ধান্তও নিয়ে ফেলেছেন। যে ভিডিওতে অন্যান্য পর্নস্টাররা তো থাকবেনই, সঙ্গে চেরির হয়ে গলা ফাটাবেন নব্বইয়ের দশকের সুপারস্টার ব়্যাপার কুলিও। এভাবেই নিজের স্বপক্ষে প্রচারের প্রথম পদক্ষেপের জন্য তৈরি চেরি।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে পর্নস্টার বলছেন, “প্রথমবার যখন শুনেছিলাম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চালানোর দায়িত্ব পেয়েছেন ট্রাম্প। ভেবেছিলাম সবাই হয়তো মজা করছে। কারণ মানুষ নিজের ভাল-মন্দটা অন্তত বোঝেন। কিন্তু পরে মনে হল আমজনতা কোনও ব্যক্তির মতামত, বক্তব্যের চেয়ে সেলিব্রিটি ট্যাগ দেখতেই হয়তো বেশি পছন্দ করেন। আর সত্যিই যদি তাঁরা এমনটাই চান, তাহলে এর সম্পূর্ণ সুযোগ আমি কাজে লাগাব। তাতে যদি ট্রাম্পকে পদ থেকে সরানো যায়, তাহলে এর চেয়ে ভাল আর কীই বা হতে পারে।” এখন প্রশ্ন হল, চেরির কথা কি ট্রাম্পের কান অবধি পৌঁছল? তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ভোটে প্রার্থী হওয়ার পদ্ধতি অত্যন্ত জটিল। একাধিক স্তর পেরিয়ে এসে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হয়। চেরি কি আটঘাঁট বেধে নামছেন। তা অবশ্য জানা যায়নি।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

মুগাবেকে ক্ষমতায় চায় না তার নিজের দল

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৭ ২৩:৪৫:৪৯

প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের উপরে 'অনাস্থা' এনে তারই ক্ষমতাসীন দল জানু-পিএফ পার্টি তাকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছে।

এই খবর প্রকাশ করেছে জিম্বাবুয়ের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম।

দেশটির হেরাল্ড নিউজ পেপারের সংবাদ অনুযায়ী, দেশটির দশটি আঞ্চলিক শাখা থেকেই মি. মুগাবেকে পদত্যাগের জন্য ডাক দেয়া হয়েছে।

শনিবারে দেশটির রাজধানী হারারেতে একটি বিক্ষোভ সমাবেশ হবার কথা রয়েছে। সেনা সমর্থনেই এই সমাবেশ হচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে।

জিম্বাবুয়ের সংবাদমাধ্যমে বলা হচ্ছে, রবার্ট মুগাবে তার ক্ষমতা হারাচ্ছেন

সেই বিক্ষোভের আগেই জানু-এফ পার্টির আঞ্চলিক শাখাগুলো তাকে পদত্যাগের জন্য এই ডাক দেয়া হলো। দেশটির উদারপন্থীরাও তাকে পদত্যাগের আহবান জানিয়েছে।

সেনারা জিম্বাবুয়ের নিয়ন্ত্রণ নেবার পর থেকে মি. মুগাবে গৃহবন্দী আছেন যদিও তিনি পদত্যাগ করতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছেন বলে জানা যাচ্ছে। সেনারা দেশটির নিয়ন্ত্রণ নেবার পর শুক্রবার প্রথমবারের মতো তাকে জনসম্মুখে দেয়া যায়। সে সময় তিনি একটি সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

১৯৮০ সাল থেকে জিম্বাবুয়ের ক্ষমতায় রয়েছেন ৯৩ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে।

প্রেসিডেন্ট মুগাবে গত সপ্তাহে তার ভাইস প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাগওয়াকে বরখাস্ত করলে এই রাজনৈতিক সংকটের সূচনা হয়।

সম্প্রতি জিম্বাবুয়ের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করে সেনাবাহিনী

মি: নানগাগওয়াকে এতদিন প্রেসিডেন্ট মুগাবের উত্তরসূরী ভাবা হলেও সম্প্রতি তার জায়গায় ফার্স্ট লেডি গ্রেস মুগাবের নাম সামনে চলে আসে।

এর জের ধরে মি. নানগাগওয়াকে বরখাস্ত করেন মি. মুগাবে।

আর তারপরই দেশটির ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করে জিম্বাবুয়ের সেনাবাহিনী।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল ভারত- চীন সীমান্ত

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৭ ২৩:৪১:৩৭

শনিবার সকালে শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল ভারত- চীন সীমান্তে অবস্থিত অরুণাচল প্রদেশ৷ তবে এখনও পর্যন্ত কোন প্রাণহানি বা ক্ষয়ক্ষতির বিষয়ে কিছু জানা যায়নি৷ ভূমিকম্পের তীব্রতা বেশি অনুভূত হয়েছে চীনের দক্ষিণ প্রান্তে৷ অন্যদিকে অরুণাচলের বড় মেট্রো শহরেও সকালের দিকে কম্পন টের পাওয়া গিয়েছে৷

আমেরিকার জিওলজিক্যাল সার্ভে জানাচ্ছে, ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ভারত-চীন সীমান্তের কাছে৷ অরুণাচলের তেজু শহর থেকে কম্পনস্থলের দুরত্ব ৩৩০ কিলোমিটার৷ পাশিঘাট থেকে দুরত্ব ২৪৪ কিলোমিটার৷ রিখটার স্কেলে কম্পনের তীব্রতা ছিল ৬.৪৷ এদিন ভারতীয় সময় সকাল ৫টা নাগাদ দুলে ওঠে মাটি৷ তবে চিনের এক সংবাদ সংস্থার দাবি, এদিন সকাল ৬টা নাগাদ সেখানে কম্পন টের পাওয়া গিয়েছে৷ রিখটার স্কেলে যার তীব্রতা ৬.৯৷

রয়টারের রিপোর্ট বলছে, চিনের যে প্রান্তে কম্পন টের পাওয়া গিয়েছে সেই জায়গাটি ঘন জনবসতিপূর্ণ৷ একই সঙ্গে ভারতের যে যে অংশে কম্পন টের পাওয়া গিয়েছে সেখানে মানুষের বসবাস বেশি৷ ফলে দুই দেশেই ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাজ্যে আকাশে বিমান-হেলিকপ্টার সংঘর্ষ

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৭ ২৩:৩৭:৫২

যুক্তরাজ্যের বাকিংহ্যামশায়ারে মধ্য আকাশে একটি বিমান ও একটি হেলিকপ্টারের সংঘর্ষ হয়েছে। স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়েছে কি না তা তাৎক্ষনিকভাবে জানা যায়নি।

যুক্তরাজ্যের বিমান দুর্ঘটনা তদন্ত সংস্থা দ্য এয়ার অ্যাকসিডেন্টস ইনিভেস্টিগেশন ব্রাঞ্চ জানিয়েছে, বাকিংহ্যামশায়ারের এইলিসবারিতে মধ্য আকাশে হেলিকপ্টার ও বিমান সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে তদন্তকারী দল পাঠানো হয়েছে

ওয়েকম্বি এয়ার পার্কের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, বিমান ও হেলিকপ্টার দুটি হাই ওয়েকম্বির কাছের একটি বিমান ঘাঁটি থেকে উড্ডয়ন হয়েছিল।

পুলিশ জানিয়েছে, বিমান বা হেলিকপ্টার আরোহীদের জীবন বাঁচানোর বিষয়টিকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ, অ্যাম্বুলেন্স ও অগ্নিনির্বাপন বাহিনীর কর্মীরা ছুটে গেছে।

সাউথ সেন্ট্রাল অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, হতাহতের সংখ্যা অনেক। তবে সুনির্দিষ্ট কোনো সংখ্যা বলতে তারা অস্বীকৃতি জানিয়েছে।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ হারাম, সৌদি মুফতির এমন মন্তব্যে মুসলিম বিশ্বে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৬ ০২:৫২:৩১

ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করা জায়েজ হবেনা বলে ঘোষণা দিয়ে সৌদি আরবের গ্রান্ড মুফতি আব্দুল আল শায়েখ বলেন, আল-আকসা প্রান্তরে ইসরায়েলীদের হত্যা করা কিংবা তাদের বিরুদ্ধে লড়াই করা শরিয়ত মোতাবেক অবৈধ। 

তার এই বক্তব্য নিয়ে বিভিন্ন যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল সমালোচনা হয়েছে। ব্যাপক নিন্দা জানিয়েছেন বিভিন্ন এক্টিভিটিসরা।
স্থানীয় একটি টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে সৌদি মুফতি বলেন, ইহুদিরা আল-আকসা মসজিদ নিয়ন্ত্রণ করছে, এবং মসজিদ তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে, এজন্য ধ্বংসের পথে নিজেকে ফেলে দেয়ার বিধান অনুসারে ইহুদিদেরকে হত্যা করা অথবা তাদের বিরুদ্ধে লড়াই করা জায়েজ হবে না।

তিনি আরো বলেন, হামাস একটি সন্ত্রাসী সংগঠন, তারা ফিলিস্তিনিদের জন্য বিপদ ও অনিষ্ট। সারা বিশ্বে বিশেষ করে আরব বিশ্বে এবং মুসলিম বিশ্বে আকসা এবং গাজাকে সাহায্যের জন্য যে বিক্ষোভ করছে তা নিছক হৈহুল্লোড়, এতে কোনো কল্যাণ নেই।

তিনি আরো বলেন, লেবাননের ইসলামী আন্দোলনকে (সম্ভবত হিযবুল্লাহকে ইঙ্গিত ) দমনের জন্য ইসরায়েলী সেনাবাহিনীর সাহায্য গ্রহণ করা বৈধ হবে। যেহেতু বিশেষ প্রয়োজনে মুশরিকদের সাহায্য গ্রহণ করা যায়।
এ নীতির ভিত্তিতেই সৌদি আরব ইসরায়েলের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে চেষ্টা করছে।

এই বিবৃতির পরই বসে নেই ইসরায়েল। ইসরায়েলী যোগাযোগমন্ত্রী সৌদি গ্রান্ড মুফতির এ উক্তির প্রেক্ষিতে তার প্রশংসা বার্তা পাঠিয়েছেন টুইটারে। টুইট বার্তায় বলেন, আমরা আবদুল আজিজ আল শেখকে অভিনন্দন জানাই। তিনি সৌদি আরবের গ্রান্ড মুফতি এবং সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা। তিনি যে ফতোয়া দিয়েছেন, ইসরাইলিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ এবং হত্যা নিষিদ্ধ এজন্য তাকে অভিনন্দন।

তিনি বলেন, একই সঙ্গে আমরা গ্রান্ড মুফতিকে ইসরাইল ভ্রমণের আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। তাকে আমাদের দেশে সর্বোচ্চ সম্মানিত করা হবে।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

রোহিঙ্গাদের ওপর নৃশংসতার নির্ভরযোগ্য তদন্ত চায় যুক্তরাষ্ট্র

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৫ ২৩:৫১:৩৩

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ওপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নৃশংসতার খবরগুলোর বিশ্বাসযোগ্য তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন।
দেশটির সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে স্থানীয় সময় বুধবার টিলারসন এই আহ্বান জানান।
বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ মিয়ানমারে চলতি বছরের আগস্টের শেষের দিকে বিদ্রোহীদের দমনের নামে সেনাবাহিনীর শুদ্ধি অভিযান শুরুর পর থেকে ছয় লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে এসেছে।
জাতিসংঘের শীর্ষ এক কর্মকর্তা রাখাইনে সেনাদের এই অভিযানকে জাতিগত নিধনের ‘ধ্রুপদী উদাহরণ’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন।
সেনাদের সঙ্গে ক্ষমতা ভাগাভাগি করে দুই বছরেরও কম সময় আগে দায়িত্ব নেওয়া মিয়ানমারের বেসামরিক প্রশাসনের প্রধান তথা কার্যত নেতা অং সান সু চির সঙ্গে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে রোহিঙ্গাদের ওপর নৃশংসতায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন টিলারসন। তিনি বলেন, ‘রাখাইন রাজ্যে সাম্প্রতিক সহিংসতার সময় মিয়ানমারের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও দোসরদের (যাদের নিয়ন্ত্রণ করেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী) ব্যাপক নৃশংসতার বিশ্বাসযোগ্য বহু খবরে আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।’
সংবাদ সম্মেলনের আগে রোহিঙ্গাদের ওপর নৃশংসতার অভিযোগ থাকা মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল মিন অং হ্লাইংয়ের সঙ্গে দেখা করেন টিলারসন।
মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মিয়ানমার সফরের আগে বাংলাদেশের কক্সবাজারে শরণার্থী ক্যাম্পগুলো পরিদর্শন শেষে যুক্তরাষ্ট্রের জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা বার্মিজ সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা নারীদের গণধর্ষণ, এই জনগোষ্ঠীর মানুষকে হত্যা ও নির্যাতনের অভিযোগ আনেন।
বুধবার টিলারসন মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনাগুলোর সুষ্ঠু ও বিশ্বাসযোগ্য তদন্তের আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, এর সঙ্গে জড়িতদের জবাবদিহি নিশ্চিত করতে হবে।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ক্যালিফোর্নিয়ায় স্কুলে বন্দুকধারীর হামলা, নিহত ৫

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৫ ০৭:১৪:২৭

উত্তর ক্যালিফোর্নিয়ায় একটি স্কুলের সামনে বন্দুকধারীর হামলা। এলোপাথাড়ি গুলিতে মৃত্যু হল ৫ জনের। আহত হয়েছেন ১০ জন। পরে পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয় বন্দুকধারীর।

স্থানীয় সময় সকাল ৮টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে র‍্যাঞ্চো তেহমা এলিমেন্টারি স্কুলের সামনে। অভিভাবকরা যখন তাঁদের শিশুদের স্কুলে ছাড়তে এসেছিলেন তখনই গুলি চালায় বন্দুকধারী।

তেহমার অ্যাসিস্ট্যান্ট শেরিফ ফিল জনস্টন বলেন, “হামলায় ৫ জন নিহত হয়েছেন এবং ১০ জন আহত হয়েছেন। তেহমা প্রদেশের অন্তত সাতটি জায়গায় গুলি চালানো হয়েছে।” স্কুলের কর্মীদের তৎপরতার প্রশংসা করে ফিল জনস্টন আরও বলেন, “ঘটনাটি আরও খারাপ হতে পারত।” ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে তিনি বলেন, “বন্দুকধারীর কাছে আরও অস্ত্র ছিল। ঘটনাটি মোট ৬ মিনিট স্থায়ী হয়।”

এখনও পর্যন্ত বন্দুকধারীর পরিচয় পাওয়া যায়নি। এলিমেন্টারি স্কুল আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে। ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তদন্ত করবে FBI, ATF ও ক্যালিফোর্নিয়া হাইওয়ে পেট্রল। গুলিচালনার কারণ সম্পর্কে এখনও কিছুই জানা যায়নি। ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর জেরি ব্রাউন ও অ্যামেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সিরিয়ায় বিমান হামলায় নিহত ৪৩

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৪ ০৯:০৮:৩৮

সিরিয়ার পশ্চিমাঞ্চলীয় আলেপ্পো প্রদেশের আল-আতারিব শহরে বিমান হামলায় ৪৩ জন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

লন্ডনভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, সিরিয়া না কি রাশিয়ার যুদ্ধবিমান থেকে এ হামলা চালানো হয়েছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। হামলায় বেশ কয়েকজন গুরুতর আহত হয়েছে ও কয়েকজন এখনো নিখোঁজ রয়েছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে, নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা গেছে, অনেক ভবন ও ঘরবাড়ি ধ্বংস হয়েছে। রাস্তায় রক্তাক্ত মরদেহ ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে।

সিরিয়া গৃহযুদ্ধের শান্তিপূর্ণ সমাধান নিয়ে আস্তানায় বহুপক্ষীয় আলোচনার দুই সপ্তাহেরও কম সময়ে আল-আতারিব শহরে এই বিমান হামলা চালানো হলো। আস্তানা শান্তি আলোচনায় অংশ নিয়ে তুরস্ক, রাশিয়া ও ইরান সিরিয়ার চারটি শহরে ‘নো-ফ্লাই জোন’ কার্যকর করার ঘোষণা দেয়।

সিরিয়ার খুবই গুরুত্বপূর্ণ চার শহর ইদলিব, হোমস, লাটাকিয়া ও হামা- এই চার শহরে নো-ফ্লাই জোন কার্যকরের ঘোষণা দেওয়া হয়। শর্তানুযায়ী, প্রায় ২৫ লাখ লোকের ওই চার শহরে বিমান হামলাসহ সব ধরনের সংঘর্ষ আগামী ছয় মাসের জন্য বন্ধ রাখার কথা।


এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে সু চিকে জাতিসংঘ মহাসচিবের অনুরোধ

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১৪ ০৯:০২:৩৯

জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্টনিও গুতেরেস মিয়ানমারের নেত্রী ও স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চিকে রোহিঙ্গাদের সম্মানজনক প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে অনুরোধ জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার ফিলিপাইনের সংবাদমাধ্যম ইনকোয়েরার জানিয়েছে, রাজধানী ম্যানিলায় আসিয়ান সম্মেলনের ফাঁকে সু চির সঙ্গে বৈঠকে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ থেকে ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে গুরুত্বারোপ করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব।

জাতিসংঘ এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘মহাসচিব ও স্টেট কাউন্সিলর রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছেন। সম্প্রদায়গুলোর মধ্যে সত্যিকারের সমন্বয়ের প্রয়োজনীয়তার পাশাপাশি মানবিক ত্রাণ প্রবেশে নিশ্চয়তা, নিরাপদ, সম্মান, স্বেচ্ছামূলক ও টেকসই প্রত্যাবাসনের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন মহাসচিব।

ইনকোয়েরার জানিয়েছে, সু চির সঙ্গে পৃথক বৈঠকে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন রাখাইনে মানবিক ত্রাণ পাঠানোর বিষয়ে আলোচনা করেছেন। তবে বৈঠকে সু চি কী বলেছেন তা জানা যায়নি।

প্রসঙ্গত, মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর হত্যা-নির্যাতন থেকে বাঁচতে গত ২৫ আগস্ট থেকে এ পর্যন্ত ছয় লাখের বেশি রোহিঙ্গা প্রবেশ করেছে বাংলাদেশে। আন্তর্জাতিক সংগঠন ও রাষ্ট্র নায়কদের নিন্দা-বিবৃতি সত্ত্বেও নির্যাতন বন্ধ ও রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে নিশ্চুপ ভূমিকা পালন করছে মিয়ানমার সরকার।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

থেরেসা মেকে সরাতে দলের ৪০ এমপি একজোট

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১২ ১০:০০:১৭

ব্রিটিশ পার্লামেন্টের ৪০ জন সদস্য প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব দিতে একটি চিঠিতে স্বাক্ষর করার ব্যাপারে সম্মত হয়েছে। এরা সবাই ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ দলের সদস্য। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম সানডে টাইমস এ তথ্য জানিয়েছে।

গত জুনে আগাম নির্বাচনে পার্লামেন্টে দলের সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারায় কনজারভেটিভ পার্টি। এর পর থেকেই দলের কর্তৃত্ব নিয়ে বেশ চাপের মুখে রয়েছেন মে। বেক্সিট ইস্যু নিয়ে দলের আইনপ্রণেতাদের বিভক্তি এবং বেশ কয়েকজন মন্ত্রীর কেলেঙ্কারি আরো চাপে ফেলেছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, থেরেসা মেকে দলের নেতৃত্ব ও প্রধানমন্ত্রীত্ব থেকে সরাতে হলে দলের আরো আট আইনপ্রণেতার অনাস্থা ভোট লাগবে।

চলতি মাসে থেরেসা মে তার দুই মন্ত্রীকে হারিয়েছেন। যৌন কেলেঙ্কারি ফাঁস হওয়া প্রতিরক্ষামন্ত্রী মাইকেল ফ্যালন পদত্যাগে বাধ্য হয়েছেন। এর রেশ না কাটতেই ইসরায়েলের সেনাবাহিনীকে ত্রাণ হিসেবে ব্রিটিশ জনগণের করের অর্থ দেওয়ার বিষয়ে ইসরায়েলি কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনার অভিযোগ ওঠে ত্রাণমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেলের বিরুদ্ধে। চলতি সপ্তাহে প্রীতি প্যাটেল চাপের মুখে পদত্যাগ পত্র জমা দিয়েছেন।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

কিম আমাকে বুড়ো বলে অপমান করেছে : ট্রাম্প

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১২ ০৯:৫৬:১৮

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন তাকে ‘বুড়ো’ বলে অপমান করেছে। তবে তিনি কখনো কিমকে ‘বেটে ও মোটা’ বলবেন না।

রোববার এক টুইটারবার্তায় তিনি এ মন্তব্য করেছেন।

ট্রাম্প তাই টুইটার ওয়ালে লিখেছেন, ‘কিম জং উন আমাকে বুড়ো বলে কেন অপমান করেছে, যেখানে আমি তাকে কখনো মোটা ও বেটে বলিনি? ভালো, আমি তার বন্ধু হওয়ার জন্য অনেক চেষ্টা করেছি। হয়তো কোনো একদিন সেটা সম্ভব হবে।’

এর আগে কিম জং উনকে ‘ক্ষুদে রকেটম্যান’ বলেছিলেন ট্রাম্প। এর জবাবে কিম ট্রাম্পকে বলেছিলেন, ‘মানসিকভাবে অসুস্থ মার্কিন ভীমরতিগ্রস্থ বৃদ্ধ’। একইসঙ্গে কিম যুক্তরাষ্ট্রকে আগুনের গোলায় পরিণত করার হুমকিও দিয়েছিলেন।

রোববার পৃথক টুইটার বার্তায় উত্তর কোরিয়ার ঘনিষ্ঠ মিত্র চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের প্রশংসা করেছেন ট্রাম্প। তিনি লিখেছেন, উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার জবাবে দেশটির ওপর নিষেধাজ্ঞার পরিধি বাড়াতে কাজ করেছেন শি জিনপিং।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইরাকে ৪০০ লাশের গণকবরের সন্ধান

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১২ ০৯:৫৪:৫৬

ইরাকে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) কাছ থেকে দখল মুক্ত করা হাউইজা শহরে কয়েকটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে।

এসব গণকবরে প্রায় ৪০০ ব্যক্তির লাশ রয়েছে বলে জানিয়েছে ইরাকি বাহিনী। ইরাকের কিরকুক প্রদেশের গভর্নর রাকান সাইদ জানিয়েছেন, হাউইজা শহরের অদূরে একটি বিমানঘাঁটিতে লোকজনকে হত্যা করার পর তাদের লাশের গণকবর দেয় জঙ্গিরা।

গণকবরে পাওয়া কিছু মরদেহে বেসামরিক পোশাক থাকলেও অধিকাংশের শরীরে জাম্মস্যুট পরানো রয়েছে। আইএসের বর্বর বিচারে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে কাউকে হত্যা করার আগে এ ধরনের পোশাক পরানো হয়। রাকান সাইদ বলেছেন, হাউইজা বিমানঘাঁটি ‘হত্যাক্ষেত্রে’ পরিণত হয়।

ইরাকি সেনাবাহিনীর জেনারেল মোরতাদা আল-লুওয়াইবি জানিয়েছেন, স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে আলাপ করে তারা গণকবরগুলোর সন্ধান পেয়েছেন।

ইরাকের যেসব স্থান আইএস দখল করেছিল, তাদের বিতাড়িত করার পর সেসব জায়গায় বহু গণকবরের সন্ধান পেয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী। তবে গত বছর বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) এক জরিপে আইএসের নিয়ন্ত্রিত অঞ্চল ও শহরগুলোতে ৭২টি গণকবরের তথ্য উঠে আসে। ওইসব গণকবরে ৫ হাজার ২০০ জন থেকে ১৫ হাজার লোকের লাশ কবর দেওয়া হয়েছে বলে ধারণা দেয় বার্তা সংস্থাটি।

গত বছর থেকে এ পর্যন্ত তুমুল সামরিক লড়াইয়ের মাধ্যমে আইএসকে বিতাড়িত করে ইরাকি বাহিনী ও তাদের মিত্র শক্তি। ২০১৩ সালের শেষ দিকে বাগদাদ থেকে ২৪০ কিলোমিটার উত্তরে হাউইজা শহর দখল করে নেয় আইএস। গত মাসে সেখান থেকে তাদের বিতাড়িত করা হয়।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

কাতালোনিয়ায় ফের ব্যাপক বিক্ষোভ, আটক নেতাদের মুক্তির দাবি

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১২ ০৯:৪৪:৩০

কাতালোনিয়ার স্বাধীনতাকামী আটক নেতাদের মুক্তির দাবিতে বার্সেলোনায় ব্যাপক বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার রাতে ওই অঞ্চলের প্রায় সাড়ে ৭ লাখ কাতালান বিক্ষোভে অংশ নেন। এসময় তারা আটক কাতালান নেতাদের মুক্তির দাবি জানান।

এদিকে বিক্ষোভের পর কাতালোনিয়ায় যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাজয়। ১৫ দিন আগে কাতালোনিয়ায় স্পেনের সরাসরি শাসন জারির পর এ প্রথম সেখানে সফরে যাবেন তিনি।

আঞ্চলিক সরকারকে বহিষ্কারের পর আগামী ডিসেম্বরে কাতালোনিয়ায় নির্বাচনের ডাক দিয়েছেন তিনি। তার মধ্য ডানপন্থী রাজনৈতিক দলের এক সমাবেশে ভাষণ দেবেন তিনি।

একতরফা স্বাধীনতা ঘোষণার পর চলতি মাসে কাতালোনিয়া সরকারের বেশ কয়েকজন শীর্ষ স্থানীয় নেতাকে গ্রেফতার করা হয়। গত অক্টোবরে কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার প্রশ্নে অনুষ্ঠিত বিতর্কিত গণভোটের জেরে ওই অঞ্চলে ব্যাপক উত্তেজনা শুরু হয়। কাতালোনিয়ার এই গণভোট স্পেনের আদালত নিষিদ্ধ করেছিল।

কাতালান কর্মকর্তারা বলছেন, স্বাধীনতার প্রচারাভিযান ৯২ শতাংশে ভোটে জয়ী হয়েছে; তবে মোট ভোট পড়েছে ৪৩ শতাংশ। তবে স্বাধীনতার বিপক্ষে থাকা অনেকেই ভোট প্রদান থেকে বিরত থেকেছেন এবং ভোটের বৈধতাকে স্বীকৃতি দিতে অস্বীকার করেছেন।

গণভোটের পর স্পেন সরকার কাতালোনিয়ার আঞ্চলিক পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়ে সরাসরি কেন্দ্রী শাসন জারি করেছে। আগামী ২১ ডিসেম্বর কাতালোনিয়ার আগাম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মাদ্রিদের ব্যাপক কড়াকড়ির মধ্যে কাতালোনিয়ার প্রেসিডেন্ট কার্লেস পুজেমন স্বেচ্ছা নির্বাসনে বেলজিয়ামে পাড়ি জমিয়েছেন। রাষ্ট্রদ্রোহীতার অভিযোগে স্পেনের আদালতে তার শীর্ষ মিত্রদের বিচার চলছে।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

আন্তর্জাতিক ব্রেক্সিটের চূড়ান্ত সময় ঘোষণা টেরিজার

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১১ ১০:৫২:৩৭

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া, ব্রেক্সিট কার্যকরের ডেডলাইন ঘোষণা করলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে। ২০১৯ সালের ২৯ মার্চ রাত ১১টায় ইউরোপীয় ইইউ থেকে বেরিয়ে যাবে ব্রিটেন। আগামী বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমন্সে এই সংক্রান্ত বিলটি উত্থাপন করা হবে। প্রস্তাবিত বিলে এই সময়সুচির প্রস্তাব করা হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার টেরিজা মে বলেন, ব্রেক্সিট নিয়ে আমাদের দৃঢ় সংকল্পে কোনও সন্দেহের অবকাশ নেই। এটি বাস্তবায়নের প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। এই ঐতিহাসিক আইনটির প্রথম পৃষ্ঠায় কালো ও সাদা হরফে উল্লেখ থাকবে ২০১৯ সালের ২৯ মার্চ রাত ১১টায় যুক্তরাজ্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন ত্যাগ করবে। ইইউ ছাড়ার ব্যাপারে ব্রিটিশ জনগণ তাদের গণতান্ত্রিক আকাঙ্ক্ষার জানান দিয়েছে। এখন এই বিল সংশোধন প্রক্রিয়ায় কোনও সময়ক্ষেপণ সহ্য করা হবে না।

হাউস অব লর্ডসের ক্রসবেঞ্চার জন কের অবশ্য বলেন, আমরা যদি চাই তাহলে যে কোনও পর্যায়ে আমরা নিজেদের অবস্থান পরিবর্তন করতে পারি। আমরা জানি সেটা করলে আমাদের অংশীদাররাও খুব খুশি হবে। ব্রেক্সিটপন্থীরা এমন একটি ধারণা তৈরি করেছেন যে, আর্টিকেল ৫০ অনুসারে, ২০১৯ সালের ২৯ মার্চ আমরা স্বয়ংক্রিয়ভাবে ইইউ থেকে বের হয়ে যাব। কিন্তু এটা সঠিক নয়। এই স্বয়ংক্রিয়ভাবে ব্রেক্সিট কার্যকরের বিষয়টি বিভ্রান্তিমূলক। আমাদের ইইউ চুক্তি সংক্রান্ত আইনটি দেখে নেওয়া দরকার।

এর আগে গত জুনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী জানান, যুক্তরাজ্যে কিছু অভ্যন্তরীণ সংকট সত্ত্বেও ব্রেক্সিট বাস্তবায়ন সংক্রান্ত আলোচনার প্রস্তুতি অব্যাহত আছে।

২০১৬ সালে এক গণভোটে ২৮ জাতির ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছাড়ার পক্ষে রায় দেন ব্রিটিশ নাগরিকরা। এক্ষেত্রে অভিবাসন ইস্যুকে প্রচারণার বড় হাতিয়ার করে ব্রেক্সিটপন্থীরা।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

যুদ্ধ বাঁধাতে এশিয়া ঘুরছেন ট্রাম্প : উ. কোরিয়া

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১১ ১০:৫১:৫৮

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার এশিয়া সফরে উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কার্যক্রম বন্ধের ওপর সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিলেও পিয়ংইয়ং দাবি করেছে, কোরীয় উপদ্বীপে একটি পরমাণু যুদ্ধ বাঁধানোর জন্য এশিয়া ঘুরছেন তিনি।

শনিবার উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনে সেদেশের সরকারের মুখপাত্রের এক বিবৃতির বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, ‘ট্রাম্পের এশিয়া সফর থেকে প্রতীয়মাণ হয়েছে, তিনি একজন ধ্বংসকারী এবং কোরীয় উপদ্বীপে একটি পরমাণু যুদ্ধের জন্য সবার সাহায্য চাইছেন।’

বুধবার দক্ষিণ কোরিয়া সফর শেষ করার আগে দেশটির পার্লামেন্টে দেওয়া ভাষণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনকে সতর্ক করে বলেছিলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রকে খাটো করে দেখার চেষ্টা করবেন না এবং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে লাগতে আসবেন না।’

ট্রাম্পের এশিয়া সফর চলার মধ্যেই পিয়ংইয়ং তার হুঁশিয়ারির জবাব দিল। বিবৃতিতে উত্তর কোরিয়া সরকারের মুখপাত্র পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে বলেছেন, কোনো কিছুই উত্তর কোরিয়াকে পরমাণু কার্যক্রম থেকে বিরত রাখতে পারবে না।

সাম্প্রতিক মাসগুলোর মধ্যে উত্তর কোরিয়া তাদের ষষ্ঠ এবং সবচেয়ে বড় পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্রসহ বেশ কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করার পর যুক্তরাষ্ট্র, বিশেষ করে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প একটু বেশিই নড়েচড়ে বসেন। পিয়ংইয়ং ঘোষণা দেয়, তাদের আন্তমহাদেশীয় বিধ্বংসী পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত করতে সক্ষম। এ ছাড়া জাপানের ওপর দিয়ে উত্তর কোরিয়া দুটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায়, যা জাপানের অর্থনৈতিক জলসীমায় গিড়ে পড়ে। এরপর জাপানও ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানায় এবং দেশটিকে মোকাবিলার প্রতিশ্রুতি দেয়।

ট্রাম্পের হুঁশিয়ারির জবাবে শনিবার ওই মুখপাত্র বলেছেন, ‘তার হুমকি কখনোই আমাদের ভীতসন্ত্রস্ত করতে পাবে না, না পারবে আমাদের অগ্রগতি থামাতে।’ এর বদলে যা হবে, তা হলো উত্তর কোরিয়ার ‘পরমাণু অস্ত্র বাহিনীর পরিপূর্ণতা পাওয়া’।

ডোনাল্ড ট্রাম্প জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, চীন ও ভিয়েতনামে তার সফরে উত্তর কোরিয়াকে পরমাণু নিরস্ত্রীকারণ করার জন্য সবার সাহায্য চেয়েছেন। তবে একই সময়ে কখনো কখনো কঠোর অবস্থান থেকে সুর নরম করে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আলোচনা ও কূটনৈতিক সমঝোতার প্রচেষ্টার কথাও বলেছেন।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত