যুক্তরাষ্ট্রে আজ শনিবার, ২৬ মে, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 09:23pm

|   লন্ডন - 04:23pm

|   নিউইয়র্ক - 11:23am

  সর্বশেষ :

  একসাথে দুই প্রেমিকাকে বিয়ে করবেন রোনালদিনহো!   কঙ্গোতে নৌকা ডুবে ৪৯ জনের মৃত্যু   ট্রাম্প-কিম সম্মেলন বাতিলে উত্তেজনা-অস্থিতিশীলতার আশঙ্কা   যুক্তরাজ্যে ফের মেয়র নির্বাচিত হলেন সিলেটের মুজিবুর   কানাডায় রেঁস্তোরায় বিস্ফোরণে আহত ১৫   ভারতের পশ্চিমবঙ্গে হাসিনা-মোদির ‘বাংলাদেশ ভবন’ উদ্বোধন   নিরপেক্ষ সরকার ও নির্বাচন কমিশন গঠনের দাবি জানালেন বি চৌধুরী   ইতালীতে আ.লীগ নেতার উদ্যোগে ইফতার মাহফিল   বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১১৯তম জন্মবার্ষিকী আজ   প্রফেসর ইউনূসকে অভ্যর্থনা জানালেন ইতালীয় পার্লামেন্ট স্পীকার   জালালাবাদ এসোসিয়েশনের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত   নোয়াখালী সমিতি’র ইফতার ও দোয়া মাহফিল   ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্টকে শেখ হাসিনার ফোন   শিক্ষা ছাড়া হারিয়ে যাওয়া একটি প্রজন্মে পরিণত হবে রোহিঙ্গা শিশুরা : প্রিয়াঙ্কা চোপড়া   কিমের সঙ্গে বৈঠক বাতিল করলেন ট্রাম্প

>>  লন্ডন এর সকল সংবাদ

লন্ডনে যাত্রীকে ধর্ষণের পর সেলফি, উবারচালকের জেল

যাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে যুক্তরাজ্যে একজন উবার চালককে ১২ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মুহাম্মদ খুররাম দুররানি নামের ওই ব্যক্তি তার ২৭ বছর বয়সী যাত্রীকে তার গাড়ির পেছনে সিটে ধর্ষণ করেন এবং সেলফি তোলেন। খবর দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্টের।

সাউথওয়ার্ক ক্রাউন কোর্টের বিবরণীতে জানা যায়, ৩৮ বছর বয়সী দুররানি ২০১৬ সালের ২৩ জুলাই রাতে ওই নারীকে তার গন্তব্যে পৌঁছে দেয়।

বিচারক ডেভিড টমলিনসন বলেন, ওই চালক তার যাত্রীর ঘুমন্ত ছবি তোলার পর ‘আত্মনিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে’। তারা গন্তব্যস্থলে পৌঁছালে ওই নারী যখন তার বাড়ির সমুখ দরজার কাছে যায়, তখন দুররানি তাকে পেছনে

বিস্তারিত খবর

নিউইয়র্কে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের আলোচনা সভা

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৪-১৯ ১৫:০৫:১৬

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতায় ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক সাতই মার্চের মতো ‘মুজিবনগর সরকার’ প্রতিষ্ঠার ঘটনাও ঐতিহাসিক। ১৯৭১ সালের  ১৭ এপ্রিল শেখ মুজিবের অনুপস্থিতিতে মেহেরপুরের আ¤্রকাননে জাতীয় নেতা নজরুল ইসলামকে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি আর তাজউদ্দিন আহমদকে প্রধানমন্ত্রী করে বাংলাদেশ সরকার গঠন করা হয়। সেই দিনের সরকার গঠনের সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের স্বাধীনতার আন্দোলনকে তড়ান্বিত করে। বক্তাদের কেউ কেউ বাংলাদেশের রাজধানী মুজিবনগর করার দাবী এবং আগামী নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগকে পু:ননির্বাচিত করে দেশের উন্নয়নের ধারা আব্যাহত রাখতে ভূমিকা রাখার জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানান।

সভায় বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সদস্য অধ্যাপক ডা. এম হাবীবে মিল্লাত মুজিবনগর দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে বলেন, বাংলাদেশের সর্বত্রই উন্নয়নের জোয়ার বইছে। দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে হবে। আর এজন্য শুধু আওয়ামী লীগ সমর্থকদের ভোট পেলেই চলবে না, দেশের সংখ্যাগরিষ্ট লোকের ভোট দরকার। কেননা, আওয়ামী লীগ-বিএনপি’র সমর্থকদের বাইরেও বিপুল সংখ্যক ভোটার রয়েছেন। তাদেরকে নৌকার পক্ষে ভোট দিতে প্রবাসীদের অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে।

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন উপলক্ষে গত ১৬ এপ্রিল সোমবার রাতে জ্যাকসন হাইটসের জুইস সেন্টারে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ব্যানারে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সিরাজগঞ্জ-২ আসন (সদর-কামারখন্দ)-এর সদস্য প্রফেসর ডা. হাবীবে মিল্লাত। সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদের অন্যতম সদস্য শরীফ কামরুল আলম হীরা। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্বদ্যিালয়ের প্রো-ভিসি অধ্যাপক ডা. শরাফ উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ ক্যান্সার সোসাইটির সভাপতি ড. প্রফেসর ওয়াহেদ উল্লাহ বাকী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম উপদেষ্টা ড. মহসীন আলী, ডা. মাসুদুল হাসান, ড. প্রদীপ রঞ্জন কর, তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী, বদরুল হোসেন খান ও হাকিকুল ইসলাম খোকন, জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সমন্বয়কারী ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহিম বাদশা, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ড. আবদুল বাতেন, মুক্তিযোদ্ধা সরাফ সরকার ও নিউইর্য়ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুর রহমান রফিক, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের আহবায়ক তারেকুল হায়দার চৌধুরী।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকীর সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দলের কার্যকরী পরিষদের সদস্য ও গোপালগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হিন্দাল কাদির বাপ্পা, মুক্তিযোদ্ধা বিএম বাকির হোসেন (হিরু ভূইয়া), মুক্তিযোদ্ধা ফারুক হোসাইন, শেখ হাসিনা মঞ্চের সভাপতি জালাল উদ্দিন জলিল, আওয়ামী লীগ নেতা ওয়ালী হোসেন, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সহ সভাপতি মঞ্জুর চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি দুরুদ মিয়া রনেল, নিউইর্য়ক মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সাইকুল ইসলাম, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জেডএ জয়,  সহ সভাপতি শহিদুল ইসলাম, শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ ইউএস’র সভাপতি লিপটন এবং নিউইয়র্ক প্রবাসী ও সিরাজগঞ্জের কামারকন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আবদুল মজিদ মন্ডল ।

সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জিনাত বেগম এবং গীতা থেকে পাঠ করেন গনেশ কির্ত্তনীয়া। এরপর ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুুজিবনগর সরকারের নেতৃবৃন্দ সহ সকল শহীদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। পরে সঙ্গীত শিল্পী রোকেয়া খানমের নেতৃত্বে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। এছাড়াও জিনাত বেগম একটি কবিতা আবৃত্তি করেন।

অনুষ্ঠানে উল্লাপাড়া সমিতি ইউএসএ, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিকলীগ ও যুবলীগের পক্ষ থেকে ডা. হাবীবে ডা. মিল্লাত এমপি-কে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।
সভায় ডা. হাবীবে মিল্লাত বলেন, মুজিবনগর সরকারের তাৎপর্য উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, দিবসটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এক অনন্য দিন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ১৭ এপ্রিল মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলা গ্রামের আ¤্রকাননে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে শপথ গ্রহণ করে। আর স্বাধীনতা সংগ্রামের সেই কঠিন মুহুর্তে মুজিবনগর সরকার বাঙালীর স্বাধীনতা আন্দোলনের ন্যয়সঙ্গত অধিকারের পক্ষ্যে বহির্বিশ্বে জনমত গঠন ও বিভিন্ন রাষ্ট্রসমূহের সমর্থন আদায়ে মূল ভূমিকা পালন করে।
ডা. হাবীবে মিল্লাত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডের সংক্ষিপ্ত বিবরণ তুলে ধরে বলেন, বিএনপি-জামায়াত অপশক্তি উন্নয়নের প্রধান শত্রু। আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নির্বাচিত না হলে দেশ আবারো পিছিয়ে যাবে। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষার্থে তিনি বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগকে আবারো বিজয়ী করার আহবান জানান।

নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগ, মহানগর আওয়ামী লীগ, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগ, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র শেখ হাসিনা মঞ্চ, যুক্তরাষ্ট্র  মহিলা আওয়ামী লীগ, যুক্তরাষ্ট্র শেখ কামাল স্মৃতি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের সহযোগিতায় ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় বলে সভায় উল্লেখ করা হয়। 


এলএবাংলাটাইমস/এনওয়াই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে বিক্ষোভের মুখে মোদি

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৪-১৯ ১৪:৪৩:৪৮

কাশ্মীরের কাঠুয়ায় নাবালিকা ধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে  বিদেশের মাটিতেও। এই ইস্যুতে এবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিক্ষোভের মুখোমুখি হলেন। লন্ডনের পার্লামেন্ট স্কোয়ারের সামনে মোদির বিরুদ্ধে স্লোগান দিলেন বিক্ষোভকারীরা। মঙ্গলবার রাতে সুইডেন থেকে যুক্তরাজ্যে আসেন মোদি। বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন। খবর পশ্চিমবঙ্গ দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা।

বুধবার ডাউনিং স্ট্রিটে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে'র বাসভবনে তার সঙ্গে দেখা করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

ডাউনিং স্ট্রিটে মোদিকে অভ্যর্থনা ও বৈশাখীর শুভেচ্ছা জানাতে অনেকে আসলেও এসময়  কাশ্মীরের কাঠুয়ায়  নির্যাতিতার ছবিসহ অনেককে বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে।  সেই ছবির নিচে স্পষ্টই লেখা রয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর দলের নেতারা ওই ঘটনায় অভিযুক্তদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। পরে ওয়েস্টমিনস্টারে প্রবাসী ভারতীয়দের সঙ্গে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

তার আগেই পার্লামেন্ট স্কোয়ার এবং ওয়েস্টমিনস্টার ক্যাথিড্রালের সামনে শুরু হয় বিক্ষোভ।  কাশ্মীরের নির্যাতিতার সুবিচার ও নিহত সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের খুনিদের গ্রেপ্তারের দাবিতে বিক্ষোভ হয়।

উল্লেখ্য,  আট বছরের  কন্যা শিশু আসিফা বানুকে চলতি বছরের জানুয়ারিতে জম্মু ও কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলার রাসানা গ্রামে এক সপ্তাহ ধরে আটকে রেখে ধর্ষণ করার পর হত্যা করা হয়।

এলএবাংলাটাইমস/এ/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে বাঙালি কাউন্সিলর প্রার্থীর ওপর হামলা

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৪-০৮ ০১:০৬:২০

লন্ডনে হামলার শিকার হয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন। তিনি পূর্ব লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটস নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী।

গত শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকেলে নিজের নির্বাচনী প্রচারকালে হামলার শিকার হন আবদুল্লাহ আল মামুন। তাঁর মাথা ফেটে রক্ত ঝরে। চিকিৎসা শেষে তিনি বাসায় ফিরেছেন। এ ঘটনা আবারও জাগিয়ে দিল টাওয়ার হ্যামলেটসের ‘নোংরা রাজনীতি’র বদনাম।

আগামী ৩ মে যুক্তরাজ্যে স্থানীয় সরকার নির্বাচন। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে জমে উঠেছে প্রচার-প্রচারণা। আর বাংলাদেশি-অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটসে নির্বাচন মানেই আলাদা উত্তাপ। নেতিবাচক ঘটনার কারণে এই কাউন্সিলের নির্বাচন বরাবরই খবরের শিরোনাম হয়।

মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন টাওয়ার হ্যামলেটসের স্বতন্ত্র দল অ্যাসপায়ারের প্রার্থী। লড়ছেন ওয়াপিং ওয়ার্ডে। পেশায় রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ী মামুন এবারই প্রথম নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন। বাংলাদেশে তাঁর বাড়ি কুমিল্লার লালমাই থানার ভাবকপাড়া গ্রামে।

গতকাল শনিবার রাতে আবদুল্লাহ আল মামুন  বলেন, নিজ নির্বাচনী এলাকার রিয়ারডন হাউস ভবনে ঘরে ঘরে গিয়ে নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছিলেন তিনি। ভবনটির দোতলায় মুখোশধারী এক লোক পেছন থেকে তাঁর মাথায় শক্ত ধাতব বস্তু দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। এতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তাঁর মাথা থেকে প্রচুর রক্ত ঝরতে থাকে। কোনো রকমে ভবন থেকে নেমে আসেন। আশপাশের লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। মিনিট দশেকের মধ্যে পুলিশ এসে তাঁকে উদ্ধার করে। স্থানীয় রয়্যাল লন্ডন হাসপাতালে তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হয়। গতকাল ভোরে তিনি বাসায় ফেরেন। মামুন জানান, তাঁর মাথায় ১১টি সেলাই দিতে হয়েছে।

এই কাউন্সিলর প্রার্থী বলেন, কারও সঙ্গে তার কোনো শত্রুতা নেই। নির্বাচনী প্রচারকাজ থেকে বিরত রাখতে এই হামলা হয়েছে বলে তিনি মনে করেন। এর আগে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এক লোক তাঁকে নির্বাচনী প্রচার থেকে বিরত থাকতে হুমকি দিয়েছিল বলে দাবি করেন তিনি।

অ্যাসপায়ার দলের মেয়র প্রার্থী আবুল মনসুর অহিদ আহমদ গতকাল বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলন করে এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, যারা হামলা চালিয়েছে, তারা সন্ত্রাসী। একটি গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় এমন আচরণ কোনোভাবে কাম্য নয়। অহিদ আহমদ জানান, তিনি স্থানীয় পুলিশপ্রধান ও রিটার্নিং কর্মকর্তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। এই ঘটনার দ্রুত বিচারের পাশাপাশি তাঁর দলের কাউন্সিলর প্রার্থীদের নিরাপত্তা চেয়েছেন।


এলএবাংলাটাইমস/এ/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে বিএনপি কর্মীদের হামলা, ভাঙচুর

 প্রকাশিত: ২০১৮-০২-০৭ ২৩:৫৬:২৭

লন্ডনের বাংলাদেশ হাইকমিশনে জোর করে ঢুকে ভাঙচুর করেছেন বিএনপির যুক্তরাজ্য শাখার নেতা-কর্মীরা । একপর্যায়ে তাঁরা সেখানে থাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি ভাঙচুর করেন। গতকাল বুধবার স্থানীয় সময় বিকেল চারটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার আগে প্রায় ১০ মিনিট পর্যন্ত বিএনপি কর্মীরা হাইকমিশনের নিচতলার অভ্যর্থনাকক্ষে হট্টগোল করেন। হাইকমিশনের বিভিন্ন কর্মকর্তার নাম ধরে খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন। এ ঘটনায় পুলিশ যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নাসির আহমদ শাহীনকে আটক করেছে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে যুক্তরাজ্য বিএনপি। স্থানীয় সময় বেলা আড়াইটা থেকে বিকেল সাড়ে চারটা পর্যন্ত চলা ওই বিক্ষোভে দুই শর বেশি নেতা-কর্মী যোগ দেন।

লন্ডন মহানগর বিএনপির নির্বাহী সদস্য দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘সরকার জোর করে আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জেলে বন্দী করতে চায়। সরকারকে হুঁশিয়ার করে দিতেই আমরা এখানে হাজির হয়েছি।’

পশ্চিম লন্ডনের কেনসিংটন এলাকার ‘কুইন্স গেট’ রাস্তায় অবস্থিত বাংলাদেশ হাইকমিশন। হাইকমিশনের বিপরীত পাশের ফুটপাতে বিএনপি কর্মীদের বিক্ষোভের জন্য বেষ্টনী তৈরি করে দেয় ‍পুলিশ। একপর্যায়ে রাস্তা পার হয়ে বিএনপির বেশ কিছু নেতা-কর্মী হাইকমিশন ভবনে ঢুকে পড়েন।

হাইকমিশনের এক কর্মকর্তা বলেন, বিএনপি নেতা-কর্মীরা শুরু থেকেই আগ্রাসী এবং বেপরোয়া ছিলেন। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে হাইকমিশনের কর্মকর্তা কে এম শামীম রেজা ও আজিজুর রহমানকে বাইরে নিয়োজিত করা হয়। তাঁদের উদ্দেশ করে বিক্ষোভকারীরা গালাগাল এবং নানা হুমকি-ধমকি দিতে থাকেন। একপর্যায়ে হাইকমিশনের কর্মকর্তা শামীম রেজাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাইকমিশনের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, স্মারকলিপি দেওয়ার জন্য বিএনপির একজনকে ভেতরে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু পুলিশকে ধাক্কা দিয়ে ওই সময় বিএনপির ১৫ থেকে ২০ জন নেতা-কর্মী ভেতরে ঢুকে পড়েন। অভ্যর্থনাকক্ষে রাখা বঙ্গবন্ধুর একটি ছবির ফ্রেম ভেঙে ছবিটি বাইরে নিয়ে যান। বিএনপির লোকজন একটি চেয়ারও ভাঙচুর করেন বলে জানান এই কর্মকর্তা।

হাইকমিশনের ওই কর্মকর্তা আরও জানান, বিএনপির এই বিক্ষোভ সম্পর্কে ‘ডিপ্লোম্যাটিক পুলিশ’কে আগেভাগে জানিয়ে রাখা হয়েছিল। কিন্তু নিরাপত্তাব্যবস্থা পর্যাপ্ত ছিল না। ঘটনার পর মেট্রোপলিটন পুলিশের স্থানীয় কমান্ডারকে টেলিফোন করা হয়। তিনি হাইকমিশনে এসে দুঃখ প্রকাশ করেন এবং অপরাধীদের আটকের আশ্বাস দেন।

যোগাযোগ করা হলে যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক বলেন, তাঁরা শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ করছিলেন। কিন্তু হাইকমিশনের কর্মকর্তারা সেখানে তাঁদের ছবি তুলতে যান। গুমের লিস্টে নাম দিয়ে দেওয়ার হুমকি দেন। হাইকমিশন তাঁদের স্মারকলিপি দেওয়ার অনুমতি দিচ্ছিল না। যে কারণে নেতা-কর্মীরা ক্ষুব্ধ হন। আজ  বাংলাদেশে খালেদা জিয়ার মামলার রায় ঘোষণা শেষ না হওয়া পর্যন্ত যুক্তরাজ্য বিএনপির নেতা-কর্মীরা ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করবেন বলে জানান এম এ মালেক।

আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ হাইকমিশনের সামনে যুক্তরাজ্য বিএনপির আবারও বিক্ষোভ করার কথা ছিল। কিন্তু সেটি বাতিল করা হয়েছে। যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি বলেন, ‘হাইকমিশনে সব আওয়ামী লীগের লোক। ওরা আমাদের স্মারকলিপি নিতে চায় না। তাই তাদের কাছে গিয়ে কোনো লাভ নেই।’

লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশের গণসংযোগ শাখা জানায়, গতকাল বাংলাদেশ হাইকমিশনের সামনে অনুষ্ঠিত এক বিক্ষোভে পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বিকেল সাড়ে চারটার দিকে বিক্ষোভকারীরা স্থান ত্যাগ করেন। ক্ষয়ক্ষতির সঙ্গে জড়িত সন্দেহে পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করে। তদন্ত চলছে।


এলএবাংলাটাইমস/এ/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাজ্যে ইইউ বহির্ভূত অভিবাসীদের তালিকায় শীর্ষ দশে বাংলাদেশিরা

 প্রকাশিত: ২০১৭-১২-০৫ ১০:১৬:৪৯

যুক্তরাজ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) বহির্ভূত অভিবাসীদের সর্বোচ্চ সংখ্যার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অষ্টম স্থানে অবস্থান করছে। ২০১৬ সালের জুলাই থেকে ২০১৭ সালের জুন পর্যন্ত হিসেবে তালিকায় বাংলাদেশের এই অবস্থান। এ সময়ে বাংলাদেশ থেকে ৬৯ হাজার মানুষ যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমিয়েছেন। বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যের জাতীয় পরিসংখ্যান কার্যালয় (ওএনএস) এই তথ্য জানিয়েছে।

ওএনএস-এর তথ্য অনুসারে, ইইউ বহির্ভূত অভিবাসীদের তালিকায় শীর্ষ দশ দেশের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকা (৭৫ হাজার) সপ্তম ও অস্ট্রেলিয়া (৭১ হাজার) ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে। এই সময়ে যুক্তরাজ্যে সর্বোচ্চ অভিবাসী আসা পাঁচটি দেশের মধ্যে রয়েছে ভারত (৩ লাখ ৫ হাজার), পাকিস্তান (১ লাখ ৭১ হাজার), চীন (১ লাখ ৯ হাজার), নাইজেরিয়া (৯০ হাজার) ও যুক্তরাষ্ট্র (৮৪ হাজার)।

সামগ্রিকভাবে ২০১৬ সালের জুনে ব্রেক্সিটের পক্ষে গণভোটের এই প্রথম অভিবাসীদের সংখ্যা কমেছে। এর আগের বছরের তুলনায় এই সময়ে অভিবাসীর সংখ্যা কমেছে ১ লাখ ৬ হাজার।

ওএনএস-এর অভিবাসন পরিসংখ্যানের প্রধান নিকোলা হোয়াইট জানান, সংখ্যা কমে এসেছে কারণ এর আগের বছর সর্বোচ্চ সংখ্যক অভিবাসী এসেছিল। এখনই বলা যাচ্ছে না বিষয়টি দীর্ঘ মেয়াদি প্রবণতা হবে। এই পরিবর্তনের ফলে মনে হচ্ছে মানুষের স্থানান্তরিত হওয়ার ক্ষেত্রে ব্রেক্সিটের প্রভাব থাকতে পারে। তবে অভিবাসন অনেক জটিল ও অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় থাকে।

গত বছরে ইইউ বহির্ভূত অভিবাসীদের যুক্তরাজ্য ছেড়ে চলে যাওয়ার সংখ্যা স্থিতিশীল রয়েছে। তবে ইইউ নাগরিকদের দেশটি ছেড়ে যাওয়া উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যমের একাংশ এই প্রবণতাকে ‘ব্রেক্সোডাস’ হিসেবে আখ্যায়িত করছে।

পরিসংখ্যান অনুসারে, ইইউ নাগরিকদের যুক্তরাজ্য থেকে চলে যাওয়ার পরিমাণ ২৯ শতাংশ (১ লাখ ২৩ হাজার)। ৪৩ জানিয়েছেন তারা নিজ দেশে ফিরে যাবেন। ২০০৮ সালের অর্থনৈতিক মন্দার পর যুক্তরাজ্য ছেড়ে চলে যাওয়ার এটিই সর্বোচ্চ সংখ্যা।

গত ১২ মাসে যুক্তরাজ্যে এসেছেন ৫ লাখ ৭২ হাজার মানুষ। আর অভিবাসিত হয়েছেন ৩ লাখ ৪২ হাজার। এই সময়ে অভিবাসীর সংখ্যা কমেছে ৮০ হাজার।

যুক্তরাজ্যের কনজারভেটিভ পার্টির সরকার বার্ষিক অভিবাসীদের সংখ্যা কমিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। সর্বশেষ এই পরিসংখ্যানকে স্বাগত জানিয়েছেন মন্ত্রীরা। বিরোধী দল লেবার পার্টি জানিয়েছে, সরকারের অভিবাসীদের সংখ্যা ১ লাখের নিচে নামিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা অর্থহীন।

এলএবাংলাটাইমস/এ/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে বন্ধ হচ্ছে উবার

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৯-২৪ ০১:৪৮:৪০

যুক্তরাজ্যের লন্ডনে অ্যাপভিত্তিক ট্যাক্সি সেবা নেটওয়ার্ক উবার বন্ধ হচ্ছে চলতি মাসেই।

ট্রান্সপোর্ট ফর লন্ডন জানিয়েছে, অ্যাপভিত্তিক ট্যক্সি সার্ভিস উবারের লাইসেন্স আর নবায়ন করা হবে না। শুক্রবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

লন্ডন ট্রান্সপোর্টের এই সংস্থাটি আরো জানায়, ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে দায়িত্বশীলতাসহ বিভিন্ন জায়গায় বড় ধরনের ঘাটতি রয়েছে অ্যাপভিত্তিক এই প্রতিষ্ঠানটির। এসব ঘাটতি নাগরিকদের জন্য নিরাপত্তা ঝুঁকি তৈরি করতে পারে।

এদিকে লাইসেন্স নবায়ন না করার সিদ্ধান্তের বিপক্ষে অবিলম্বে আদালতে যাবার ঘোষণা দিয়েছে উবার কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, লন্ডনে প্রায় ত্রিশ লাখেরও বেশি মানুষ এই সার্ভিসটি গ্রহণ করে এবং চালক আছে অন্তত ৪০ হাজার।

এদিকে উবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘যারা ভোক্তাদের পছন্দ সীমিত করে ফেলতে চায় তাদের পথে চলছে ট্রান্সপোর্ট ফর লন্ডন ও শহরটির মেয়র। এই সিদ্ধান্তে বুঝা যায় লন্ডন উদার নয়’।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাজ্যের ৪০টির বেশি শহরে এই সেবা চালু রয়েছে। গত বছরের ২২ নভেম্বর উবার ঢাকায় যাত্রা শুরু করে।

এলএবাংলাটাইমস/এল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডন অগ্নিকাণ্ড : পাঁচ দিন পর এক পরিবারকে জীবিত উদ্ধার

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৬-২০ ১৬:৫৪:৫১

লন্ডনের গ্রেনফেল টাওয়ারের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিখোঁজদের মধ্যে পাঁচজনকে নিরাপদে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ঘটনার পাঁচ দিন পরে সিরিয়ান পরিবারের এ পাঁচ সদস্যকে নিরাপদে জীবিত উদ্ধারকে অলৌকিক বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল এ খবর প্রকাশ করেছে।

এখন পর্যন্ত এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৭৯ জন নিখোঁজ রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে টাওয়ারের ভিতরে আটকে পড়ে তাদের সকলেরই মৃত্যু হয়েছে।

কুদাইরের পরিবার নামে পরিচিত উদ্ধারকৃত পরিবারের মধ্যে তিনজন তরুণীও রয়েছে। পরিবারটি উন্নত জীবনের আশায় যুদ্ধাক্রান্ত সিরিয়া থেকে ব্রিটেনে পালিয়ে এসেছিলেন। পরিবারটি টাওয়ারের প্রায় মধ্যভাগের উপরের অংশে এক ফ্ল্যাটে থাকতেন। তাদের ইংরেজি ভাষা শিক্ষিকা ক্যাথেরিন লিন্ডসে পরিবারটির নিখোঁজের ব্যাপারে জানিয়েছিলেন।

এ ঘটনার তদন্ত কমিটির প্রধান মেট্রোপলিটন পুলিশ কমান্ডার স্টুয়ার্ট কন্ডি এ জীবিত উদ্ধারের ঘোষণা দেন। কিন্তু উদ্ধারকৃত পরিবারের পরিচয় প্রকাশ করেননি তিনি।

গত বুধবার রাত একটার দিকে ল্যাটিমার রোডে অবস্থিতগ্রেনফেল টাওয়ারে দেশটির ইতিহাসে ভয়াবহ এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।


এলএবাংলাটাইমস/এল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ফের বিজয়ী হলেন তিন বাঙালি কন্যা

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৬-০৯ ০৭:৪৯:৪০

যুক্তরাজ্যের মধ্যবর্তী নির্বাচনে জয় পেয়েছেন তিন বাঙালি কন্যা। তিনজনই বিরোধী দল লেবার পার্টি থেকে মনোনয়ন পেয়েছিলেন। ঢাকায় সহযোগী অনলাইন সংবাদমাধ্যমগুলো তাদের প্রতিনিধির বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে।

তিনজনের মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসনে, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুশনারা আলী বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসনে এবং রূপা হক ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসনে জয়ী হয়েছেন।

হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্নে টিউলিপ পেয়েছেন ৩৪ হাজার ৪৬৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ দলের প্রার্থী ক্লেয়ার লুইচ লিল্যান্ড পেয়েছেন ১৮ হাজার ৯০৪ ভোট। ২০১৫ সালে মাত্র ১ হাজার ১৩৮ ভোটের ব্যবধানে প্রথমবার এমপি নির্বাচিত হন টিউলিপ। এবার সেই ব্যবধান বেড়ে হলো ১৫ হাজার ৫৬০। টিউলিপ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট বোন শেখ রেহানার মেয়ে।

পূর্ব লন্ডনের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুশনারা আলী পেয়েছেন ৪২ হাজার ৯৬৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির চার্লট চিরিকো পেয়েছেন ৭ হাজার ৫৭৬ ভোট। এ নিয়ে এই আসন থেকে তৃতীয় মেয়াদে এমপি নির্বাচিত হলেন রুশনারা। সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় জন্ম নেওয়া রুশনারা সাত বছর বয়সে মা-বাবার সঙ্গে যুক্তরাজ্যে গিয়েছিলেন।

লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসনে দ্বিতীয় মেয়াদে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রূপা হক। তিনি পেয়েছেন ৩৩ হাজার ৩৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির জয় মোরিসি পেয়েছেন ১৯ হাজার ২৩০ ভোট। গতবার মাত্র ২৭৪ ভোটে জয় পাওয়া রূপা এবার জিতেছেন ১৩ হাজার ৮০৭ ভোটের ব্যবধানে। কিংসটন ইউনিভার্সিটির সমাজবিজ্ঞানের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক রূপা হকের আদি বাড়ি পাবনায়।


এলএবাংলাটাইমস/এল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

থেরেসা মে’র প্রধানমন্ত্রী পদে থাকা নিয়ে সংশয়

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৬-০৯ ০৪:২৮:০৯

বড় রকমের বাজি ধরেছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। এই মুহূর্তে নির্বাচনের কোনো বাধ্যবাধকতা ছিল না। প্রতিদ্বন্দ্বী লেবার পার্টির চেয়েও তার দল কনজারভেটিভ পার্টি স্পষ্ট ব্যবধানেই এগিয়ে ছিল। প্রতিদ্বন্দ্বীর দুর্দিনে তাকে আরও মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেওয়ার যে ‘চক্রান্ত’ থেরেসা মে করেছিলেন, সম্ভবত সে চক্রান্তে ফেঁসে যাচ্ছেন নিজেই! যদিও নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক কারণ সম্পর্কে তিনি বলেছিলেন, ব্রেক্সিট বাস্তবায়নে নিজের ক্ষমতা আরও নিরঙ্কুশ করাই এ নির্বাচনের উদ্দেশ্য। নির্বাচনে বিপুল ব্যবধানে জিতবেন, সে আত্মবিশ্বাস ছিল তার। কিন্তু নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হওয়ার পর থেকেই হাওয়া বদল হতে শুরু করে। কনজারভেটিভদের সাথে লেবার পার্টির ব্যবধান কমতে কমতে একসময় জরিপে উভয় দলের সম্ভাবনাই সমান হয়ে যায়। 
ভোটের ফলাফল ইতোমধ্যে আসতে শুরু করেছে। এখন পর্যন্ত ৬১৬টি আসনের ফল জানা গেছে। প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী, কনজারভেটিভ পার্টি পেয়েছে ২৯৯ আসন। লেবার পার্টি পেয়েছে ২৫২ আসন। এসএনপি ৩৪ আসন। লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি বা লিবডেম পেয়েছে ১০ আসন। অন্যান্য দল পেয়েছে ২১ আসন। ব্রিটিশ পার্লামেন্টের নিম্ন কক্ষ হাউস অব কমনসের মোট আসন ৬৫০টি। কোনো দল এককভাবে ৩২৬টি আসন পেলেই মিলবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা। তবে বিবিসি তাদের পূর্বাভাসে বলছে, একক সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য প্রয়োজনীয় আসন পাচ্ছে না কনজারভেটিভরা। বিবিসি বলছে, দলটি সর্বোচ্চ ৩২২টি আসন পেতে পারে। অর্থাৎ মাত্র ৪ আসনের জন্য সংসদে একক সংক্যাগরিষ্ঠতা হারাতে যাচ্ছে তারা। যদিও দল হিসেবে তারাই সংসদে সবচেয়ে বড় দলের স্বীকৃতি পাচ্ছে। 
এ অবস্থায় প্রধানমন্ত্রী পদে থেরেসা মে’র ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনা কল্পনা শুরু হয়ে গেছে। ফলাফল আসতে শুরু হওয়ার পর থেরেসা মে তার উপদেষ্টাদের নিয়ে কনজারভেটিভ সদর দপ্তরে আলোচনায় বসেছেন। সাবেক একজন মন্ত্রী অ্যানা সব্রি বলেছেন, ‘তার ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর এখন ভাবা উচিত।’ রাজনীতির ভাষায় এটা পদত্যাগের আহবান। অরেকজন শীর্ষস্থানীয় এমপিকে উদ্বৃত করে বিবিসি বলেছে, ‘তিনি কীভাবে এরপরও প্রধানমন্ত্রী পদে থাকবেন, তা বুঝতে পারছি না।’ এমনকি অন্য আরেকজন মন্ত্রী বিবিসিকে জানিয়েছেন, ১০ জুন শনিবারের মধ্যে থেরেমা মে’র পদত্যাগের সম্ভাবনা ৫০ শতাংশ। 
বিবিসি লিখেছে, থেরেসা মে ভেবেছিলেন এখন মধ্যবর্তী নির্বাচন ডাকলে টোরিরা তাদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা আরও বাড়াতে পারবে। কিন্তু নির্বাচনের ফলাফল অনুযায়ী কনজারভেটিভ পার্টি হয়ত অন্য দলের সাহায্য নিয়ে সরকার গঠন করতেও পারে কিন্তু থেরেসা নিশ্চিতভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। তার ‘শক্তিশালী এবং স্থিতিশীল’ ভাবমূর্তি ধুলায় লুটিয়েছে। বিবিসির রাজনীতি বিষয়ক সম্পাদক বলছেন মেয়াদ শেষ হবার আগে এই নির্বাচন ডাকা ছিল বর্তমান সময়ের অন্যতম সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক ভুল।
এর আগে, থেরেসা মে’র পূর্বসুরী সাবেক প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনও ইউরোপীয় ইউনিয়নে থাকা না থাকার প্রশ্নে গণভোট দিয়ে জুয়া খেলেছিলেন, যে গণভোট দেওয়ার কোনো বাধ্যবাধকতা তার ছিল না। ওই গণভোটের প্রেক্ষাপটে ক্যামেরনকে অকালে তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার শেষ করতে হয়েছিল। এবারও নির্বাচনের বাধ্যবাধকতা না থাকা সত্বেও আগম নির্বাচন দিয়ে জুয়া খেললেন থেরেসা মে। এদিকে নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী পদে থেরেসা মে’র সাথে পতিদ্বন্দ্বিতাকারী লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন নিজের আসনে জেতার পর বলেছেন জনগণ ব্যয়সঙ্কোচনের রাজনীতি প্রত্যাখান করেছে এবং থেরেসা মের পদত্যাগ করা উচিত। 
ব্রিটিশ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউজ অব কমনসের মোট আসন ৬৫০টি। কোনো দল এককভাবে ৩২৬টি আসন পেলেই মিলবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা। তবে এর কম আসন পেলে তখন জোট সরকার গঠন করতে হবে। কনজারভেটিভদের যেহেতু একক সংখ্যাগরিষ্ঠতার সম্ভাবনা কমে যাচ্ছে, তাহলে জোট সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে থেরেসা মে’র ভবিষ্যতও সন্দিহান বলে মন্তব্য করেছে বিবিসি। 

বিস্তারিত খবর

টিউলিপ, রুশনারা ও রূপাকে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৬-০৯ ০৪:১৫:০৯

যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনে দ্বিতীয়বারের মতো জেতায় বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত টিউলিপ সিদ্দিক, রুশনারা আলী ও রূপা হককে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং থেকে এক বার্তায় এ অভিনন্দন জানানো হয়। অভিনন্দন বার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাদের এই জয় যুক্তরাজ্যের রাজনীতিতে বাংলাদেশীদের অংশগ্রহণকে আরও গুরুত্ববহ করে তুলবে।
বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী এই তিন বাঙালি কন্যাই লেবার পার্টির প্রার্থী ছিলেন। রুশনারা তৃতীয় ও টিউলিপ এবং রূপা দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হয়েছেন। এই তিন জনই ২০১৫ সালের পার্লামেন্ট নির্বাচনে জিতেছিলেন।লন্ডনের হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর চেয়ে সাড়ে ১৫ হাজারেরও বেশি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ। লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসন থেকে রূপা হক গত নির্বাচনে জিতেছিলেন ২৭৪ ভোটের ব্যবধানে। বৃহস্পতিবার ভোটে তিনি জিতলেন ১৩ হাজার ৮০৭ ভোটের ব্যবধানে।
রুশনারা আলীও জিতেছেন বাঙালি অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটসের বেথনাল গ্রিন ও বো আসন থেকে। তিনি ৩৫ হাজার ৩৯৩ ভোটের বিশাল ব্যবধানে জয়ী হন। গত নির্বাচনে তিনি জিতেছিলেন ২৪ হাজার ভোটের ব্যবধানে।

বিস্তারিত খবর

ব্রিটিশ রাজনীতিতে ফেরার ঘোষণা ব্লেয়ারের

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৫-০২ ০৮:১৭:৩৬

ব্রিটেনের সাবেক প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ার দেশটির ঘরোয়া রাজনীতিতে ফেরার ঘোষণা দিয়েছেন। ব্রেক্সিট বিতর্ক মোকাবেলায় সোমবার তিনি রাজনীতিতে ফেরার এ ঘোষণা দেন। তবে আগামী ৮ জুন অনুষ্ঠেয় দেশটির সাধারণ নির্বাচনে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না। খবর বার্তা সংস্থা এএফপির।
৬৩ বছর বয়সী ব্লেয়ার ১৯৯৪ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত লেবার পার্টির নেতৃত্ব দেন। এছাড়া তিনি ১৯৯৭ সাল থেকে প্রায় এক দশক দেশটির প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন।
ব্লেয়ার বলেন, তিনি জানেন এর জন্য তাকে ব্যাপক সমালোচনার মুখোমুখি হতে হবে। তিনি আরো বলেন, ব্রেক্সিট বিতর্ক নিয়ে নীতি নির্ধারণের লক্ষ্যে তিনি একটি রাজনৈতিক আন্দোলন গড়ে তুলতে চান।  

বিস্তারিত খবর

শুকনো নারকেলের স্বাস্থ্য উপকারিতা

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৫-০২ ০৭:৫৪:৩৫

গ্রীষ্ম মণ্ডলীয় আবহাওয়ায় নারিকেল গাছ বৃদ্ধি পায়। একারণেই গ্রীষ্মমণ্ডলীয় অঞ্চলের  বাসিন্দাদের ডায়েটের একটি প্রধান অংশ হচ্ছে নারইকেল। শীত প্রধান দেশে যারা বাস করেন  তাদের অনেকেই হয়তো কাঁচা নারকেলের শাঁস কখোনো খান নি। নারকেলের খোলস থেকে এর শাঁস বা মাংসল অংশ আলাদা করাটা একটু কঠিন। বাজারে আস্ত নারকেল ও ভাঙ্গা নারকেল কিনতে পাওয়া যায়। এই শুকনো নারকেলের শাঁস এমনিতেও খাওয়া যায় আবার অন্য খাবারের সাথে মিশিয়ে বা পিঠা তৈরির সময় ও ব্যবহার করা যায়। শুকনো নারকেলের শাঁসের প্রচুর পুষ্টি উপকারিতা আছে, যা আমরা জানবো আজকের ফিচারে।
১। ফ্যাটি এসিডএক কাপ কাঁচা নারকেলের মাংসে ২৮৩ ক্যালোরি থাকে। যার বেশীরভাগই আসে ২৬.৮ গ্রাম ফ্যাট থেকে। বেশীরভাগ উদ্ভিজ খাদ্যে খুব কম সম্পৃক্ত ফ্যাট থাকে, কিন্তু শুকনো নারকেলে এটি প্রচুর পরিমাণে থাকে প্রায় ২৩.৮ গ্রাম করে প্রতি কাপে। যদিও অন্য সম্পৃক্ত চর্বিতে ফ্যাটি এসিডের দীর্ঘ শৃঙ্খল থাকে, কিন্তু নারকেলের চর্বির ফ্যাটি এসিডের শৃঙ্খল মধ্যম আকারের হয়। দীর্ঘ ফ্যাটি এসিডের চেইন এর চেয়ে মধ্যম আকারের ফ্যাটি এসিড খুব দ্রুত ভাঙ্গে। তাই তারা কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি করেনা। দ্যা ফিলিপাইন জার্নাল অফ কার্ডিওলজি এর মতে, নারিকেলের ফ্যাট সম্ভবত খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে এবং ভালো কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এই সম্ভাব্য উপকারিতা থাকা সত্ত্বেও যদি আপনার হৃদরোগ এবং উচ্চ কোলেস্টেরলের সমস্যা থাকে তাহলে নারিকেল খাওয়ার বিষয়টি আপনার চিকিৎসকের সাথে কথা বলে জেনে নিন।
২। ফাইবার শুকনো নারকেলের শাঁসে প্রচুর ফাইবার থাকে, এক কাপে ৭.২ গ্রাম। যা একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের দৈনিক চাহিদার ২০% এর বেশি। ফাইবার হজম প্রক্রিয়ায় সাহায্য করে মলের পরিমাণ বৃদ্ধি করার মাধ্যমে। ফাইবার পেট ভরা রাখতেও সাহায্য করে বলে আপনি যদি ওজন কমাতে চান তাহলে নারিকেল খেতে পারেন।
৩। ম্যাঙ্গানিজনারিকেলে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় খনিজ ম্যাঙ্গানিজ থাকে। এক কাপ নারিকেলে একজন মানুষের দৈনিক চাহিদার ৬৭% ম্যাঙ্গানিজ থাকে। ম্যাঙ্গানিজ ফ্যাট ও প্রোটিন বিপাকে সাহায্য করে। এছাড়াও ইমিউন সিস্টেম ও স্নায়ু তন্ত্রের কাজে সাহায্য করে এবং রক্তের চিনির মাত্রা স্থিতিশীল রাখতে সাহায্য করে। ম্যাঙ্গানিজ শরীরকে আয়রন, থায়ামিন এবং ভিটামিন ই এর ব্যবহারে সাহায্য করে।
৪। পটাসিয়াম ও কপারশুকনো নারকেলের শাঁসে অন্য দুটি গুরুত্বপূর্ণ খনিজ পটাসিয়াম ও কপার ও থাকে। এক কাপ নারিকেলে ১৪% পটাসিয়াম ও ৩৯% কপার থাকে। শরীরের কোষের তরলের ভারসাম্য রক্ষায় সাহায্য করে পটাসিয়াম। পেশীর বৃদ্ধি ও হৃদপিন্ডের কাজের জন্য প্রয়োজনীয় পটাসিয়াম। লাল রক্ত কোষের উৎপাদনের জন্য প্রয়োজনীয় কপার এবং স্বাদের অনুভূতিতেও সাহায্য করে কপার।  

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে ট্রাম লাইনচ্যুত হয়ে নিহত ৫

 প্রকাশিত: ২০১৬-১১-০৯ ১২:৩১:০০

ইংল্যান্ডে ট্রাম লাইনচ্যুত হয়ে কমপক্ষে পাঁচজন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ৫০ জন। স্থানীয় সময় বুধবার দক্ষিণ লন্ডনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ব্রিটিশ ট্রান্সপোর্ট পুলিশ (বিটিপি) জানিয়েছে, এ ঘটনার পর ট্রামচালককে আটক করা হয়েছে। তবে কী কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

দক্ষিণ লন্ডনের ক্রয়ডন এলাকায় সকাল ৬টার দিকে ট্রামটি লাইনচ্যুত হয়। দুর্ঘটনার পরপর ট্রামটির ভেতরে আটকে পড়া লোকজনদের উদ্ধার করা হয়। আহত ৫০জনকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে লন্ডন অ্যাম্বুলেন্স সেবাকেন্দ্র জানিয়েছে, তিনটি হাসপাতালে ৫১জনকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা হান্নাহ কলিয়ার বলেন, ‘ আমি বিছানায় শুয়ে নির্বাচনের খবর দেখছিলাম। ওই সময় আমি বিকট আওয়াজ শুনতে পাই। তখন মনে করেছিলাম এটি বাতাসের শব্দ। এরপরই আমি লোকজনের চিৎকার ও জরুরি সেবা বিভাগের গাড়ির আওয়াজ পাই।’

প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে বলেছেন, ‘এই ভয়াবহ ঘটনা মোকাবেলায় প্রয়োজনীয়  সবকিছু করার জন্য জরুরি সেবা বিভাগ ও কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তার সরকার সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রক্ষা করছে।’


এলএবাংলাটাইমস/এল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে বর্ণবাদ বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত

 প্রকাশিত: ২০১৬-১০-৩০ ০৭:১০:৪৭

সম্প্রতি বাংলাদেশী অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটস এলাকার ইয়ুথ ওয়ার্কার জাকারিয়া হোসেন ও ১৩ বছর বয়সী স্কুল ছাত্রীকে পুলিশ কর্তৃক নির্যাতনের প্রতিবাদে টাওয়ার হ্যামলেটস স্ট্যান্ডআপ টু রেসিজম এবং ক্যাম্পেইন এগেইনস্ট রেসিজম এন্ড হেইট ক্রাইম সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে শনিবার পূর্ব লন্ডনের আলতাব আলী পার্কে বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে সর্বস্থরের কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ ও বিপুল সংখ্যক তরুন-তরুনী অংশনেয়।

গত ৮ অক্টোবর বাঙালি তরুণ জাকারিয়ার উপর পুলিশের অতিরিক্ত বলপ্রয়োগের বিষয়টি স্থানীয় পুলিশ সদস্যদের নিষ্ঠুরতা নিয়ে কমিউনিটিতে যখন নিন্দার ঝড় বইছে তখনই সোশ্যাল মিডিয়ায় আসা আরেকটি ভিডিওচিত্র । এই দুই ঘটনায় রীতিমতো তোলপাড় তুলেছে টাওয়ার হ্যামলেটসে। দ্বিতীয় ভিডিওচিত্রে দেখা গেছে পুলিশের নির্দয় আচরণের শিকার হয়েছে মাত্র ১৩ বছর বয়সের এক কিশোরী। তাকে হাতকড়া দিয়ে মাটিতে ফেলে এক পুলিশ সদস্যের চেপে বসার চিত্রটি আসলেই অবিশ্বাস্য।
কেটলিন কিং নামের ওই কিশোরী তার জমজ বোনকে নিয়ে ওয়াপিং হাই স্কুলে এক বন্ধুর সাথে দেখা করতে গিয়েছিলো। সেখানে ঐ স্কুলের একটি মেয়ের সাথে তার ঝগড়া বাঁধে। এরপর পুলিশ এসে তাকে হাতকড়া পরায়। মাটিতে ফেলে চুল ধরে টেনেহিচড়ে ফুটপাত ধরে টেনে নিয়ে যায়। স্থানীয় একটি পত্রিকায় পুলিশি আচরণের এমনই বর্ণনা ছাপা হয়েছে।

এদিকে বাঙালি তরুণ জাকারিয়ার উপর পুলিশের অতিরিক্ত বলপ্রয়োগের ভিডিও স্যোশাল মিডিয়া প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে কমিউনিটিতে ক্ষোভ বিরাজ করছে। ইতিমধ্যে একাদিক সভা সমাবেশ করেছেন কমিউনিটির মানুষ। তাদের দাবী পুলিশ বাড়া বাড়ি করেছে। তাদের শাস্তি দিতে হবে। সভায় বক্তারা জাকারিয়া হোসেনের বিরুদ্ধে পুলিশী রিপোর্ট না দেয়ার জোরদাবী জানান।
কমিউনিটি নেতা সিরাজ হক ও সিলা মার্গেট এর যৌথ পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের মেয়র জন বিগস, জিএলএ মেম্বার উমেশ দিশাই, কাউন্সিলার রাবিনা খান, সাবেক কাউন্সিলার আবদাল উল্লাহ, কমিউনিটি নেতা রফিক উল্লাহ, কেএম আবু তাহের চৌধুরী, তরুন প্রজন্মের মধ্যে খাদিজা বেগম, হবিব মিয়া প্রমুখ।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

হিলারিকে সমর্থন জানালেন লন্ডনের মেয়র সাদিক খান

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৯-১৭ ১৪:২৪:৫৫

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকে সমর্থন দিয়েছেন লন্ডনের প্রথম মুসলিম মেয়র সাদিক খান। রিপাবলিকান দলের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প মুসলিম-বিদ্বেষী যে দৃষ্টিভঙ্গির যে প্রকাশ ঘটিয়েছেন তাতে ইসলামিক স্টেটকেই (আইএস) আরও উস্কে দেওয়া হবে বলে সতর্কও করেছেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম সফরে শিকাগোয় পৌঁছে খান বলেন, তিনি হিলারি ক্লিনটনের অনেক বড় ভক্ত এবং ৮ নভেম্বরের নির্বাচনে হিলারিই জিতবেন বলে আশা করছেন।

শিকাগো কাউন্সিল অন গ্লোবাল এফেয়ার্সে ২৫০ জনেরও বেশি দর্শকশ্রোতার উদ্দেশ্যে এক বক্তব্যের পর সাংবাদিকদেরকে সাদিক খান বলেন, “হিলারি যৌক্তিকভাবেই প্রেসিডেন্ট পদের দৌড়ে সবচেয়ে অভিজ্ঞ একজন প্রার্থী।”

মে মাসে লন্ডনের প্রথম মুসলিম মেয়র হওয়ার পরপরই ট্রাম্পের মুসলিম বিদ্বেষী মন্তব্যের কারণে তার সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়েছিলেন পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত সাদিক খান। গত বছর প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলায় ১৩০ জন নিহত হওয়ার পর ডোনাল্ড ট্রাম্প মুসলিমদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রস্তাব করেছিলেন।

বিষয়টি নিয়ে তিনি দেশে ও দেশের বাইরে ব্যাপক সমালোচনার শিকার হন। সাদিক খান সে সময় উদ্বেগ প্রকাশ করে টাইম ম্যাগাজিনকে বলেছিলেন, “আমি যুক্তরাষ্ট্রে যেতে চাই সেখানকার মেয়রদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে, তাদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়তে।

কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে আমার ধর্মবিশ্বাসের কারণে সেখানে (যুক্তরাষ্ট্রে) আমাকে ঢুকতে দেওয়া হবে না।”


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

চুরের ছুরিকাঘাতে ইষ্ট লন্ডনে যুবক নিহত

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৯-১৪ ১২:৫০:৩১

ইষ্ট লন্ডনে নিজ ঘরের সামনে ছুরিকাঘাতে নিহত হয়েছেন ২৭ বছর বয়সী এক যুবক। এসময় তার পিতা ৪৬ বছর বয়সী পিতা গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিবিসি সূত্রে জানাগেছে ইষ্ট লন্ডন এলাকার ছাদয়াল হিথ এলাকার গিবফিল্ড ক্লোজ এলাকায় মঙ্গলবার রাত দেড়টায় এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্রে জানাযায় গভীর রাতে ঘরের বাইরে থাকা জিনিসপত্র ৪সদস্যের চুরের দল নিয়ে যাচ্ছে এমন শব্দ শুনে বাইরে আসলে তারা আক্রমনের শিকার হন। চুরের দল তাদের মারাত্মক ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে তাদেরকে ইষ্ট লন্ডন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ভোর রাতে যুবকের মৃত্যুবরণ করেন। তার পিতার আহত হলেও আশংকাজনক নয়।

এদিকে বুধবার সকালে ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে ২জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।


এলএবাংলাটাইমস/এল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে শীর্ষ প্রভাবশালীদের তালিকায় চার বাংলাদেশি

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৯-১০ ০৬:৩৫:০২

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ এমপি ও বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ সিদ্দিক, বেথনালগ্রিন ও বো আসনের এমপি রুশনারা আলী, প্রখ্যাত বাংলাদেশি-ব্রিটিশ নৃত্যশিল্পী আকরাম খান এবং মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেনের সেক্রেটারি জেনারেল হারুন খানের নাম যোগ হলো লন্ডনের প্রভাবশালীদের তালিকায়।

লন্ডনের জনপ্রিয় পত্রিকা ইভিনিং স্ট্যান্ডার্ড প্রতিবছর এই প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বদের তালিকা প্রস্তুত করে।

এ বছর পত্রিকাটি মোট ৩২টি ক্যাটাগরিতে লন্ডনের মোট এক হাজার প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বকে নির্বাচিত করেছে। প্রিন্স চার্লসের উপস্থিতিতে লন্ডনের স্থানীয় সময় বুধবার সন্ধ্যায় তালিকাটি প্রকাশিত হয়।

এ তালিকায় রাজনীতিভিত্তিক ওয়েস্টমিনিস্টার ক্যাটাগরিতে স্থান পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ এমপি টিউলিপ সিদ্দিক এবং বেথনালগ্রিন ও বো আসনের এমপি রুশনারা আলী। আর নৃত্য ক্যাটাগরিতে জায়গা করে নিয়েছেন আকরাম খান।

এ ছাড়াও ফেইথ লিডার ক্যাটাগরিতে মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেনের সেক্রেটারি জেনারেল হারুন খানের নাম এসেছে।

শহরের সায়েন্স মিউজিয়ামে অনুষ্ঠিত জমকালো ওই অনুষ্ঠানে ‘দ্য প্রোগ্রেস ওয়ান থাউজেন্ড’ শিরোনামে দশমবারের মতো লন্ডনের হাজার প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বের তালিকা প্রকাশ করে পত্রিকাটি।

এ বছর তালিকার শীর্ষে ছিলেন লন্ডনের মেয়র সাদিক খান। তাকে লন্ডনার অব দ্য ইয়ার হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়।

এ ছাড়াও ওই তালিকায় আছেন যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসনের মতো ব্যক্তিত্ব।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

স্কার্ফ পরা নিয়ে ফের ব্রিটিশ মিডিয়ায় আলোচিত বাংলাদেশি নাদিয়া

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৮-১৬ ১৬:৩১:৪১

ফের ব্রিটিশ মিডিয়ার সংবাদ শিরোনামে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নাদিয়া হোসেন। তবে এবার ‘বেক অফ’ হিসেবে নয়, কেন তিনি মাথায় স্কার্ফ পরেন সে কারণে সংবাদ শিরোনাম হয়েছেন। দ্য টাইমসের বরাত দিয়ে খরবটি দিয়েছে ডেইলি মেইল। দ্য টাইমসের সঙ্গে আলাপচারিতায় নাদিয়া বলেন, আমার চুলগুলো খুব বাজে। তা ঢেকে রাখতেই আমি মাথায় স্কার্ফ পরতে শুরু করি। আর তার এ সরল স্বীকারোক্তি লুফে নিয়েছে ব্রিটিশ মিডিয়া। ইতোমধ্যেই মাথায় স্কার্ফ-পরা নারী মডেলে পরিণত হয়েছেন তিনি।

নাদিয়া জানান, মাথায় স্কার্ফ পরা তার পারিবারিক ঐতিহ্য নয়। তিনি স্রেফ চুল ঢেকে রাখার জন্য এটা পরেন। এর পেছনে আর কোন কারণ নেই। হয়তো তার এ স্বীকারোক্তিতে পরিবারও বিস্মিত হতে পারেন। তিন সন্তানের মা ৩১ বছর বয়সী নাদিয়া বলেন, আমার মাথায় স্কার্ফ দেখে বাংলাদেশ থেকে বৃটেনে আসা অনেকেই বিস্ময় প্রকাশ করেন। যখন আমি বাংলাদেশে যাই তখনও কেউ কেউ প্রশ্ন করেন, কেন আপনি মাথায় স্কার্ফ পরে আছেন? আপনার মাথায় কি কোন দাগ আছে?

দ্য টাইমসকে নাদিয়া জানান, এখন থেকে ১৭ বছর আগে তিনি মাথায় স্কার্ফ পরা শুরু করেন। তখন খুব কম মানুষই স্কার্ফ পরতেন। তিনি বলেন, আমি স্কুল লাইব্রেরিতে অনেকটা সময় অবস্থান করতাম। এ ছাড়া শিক্ষা সংক্রান্ত বিভিন্ন সেকশনে আমাকে যেতে হয়েছে। আমি খুব বেশি ধার্মিক পরিবারের মেয়ে নই। কিন্তু আমি আমার ধর্মকে বেছে নিয়েছি। আমার বাবা খুব বাজেভাবে আমার চুল কেটে দিতেন। তাই মাথাটা ঢেকে রাখার জন্যই স্কার্ফ পরা শুরু করি।

নাদিয়া বলেন, প্রথমে তিনি বেডরুমেই একা একা পরীক্ষামূলকভাবে স্কার্ফ পরা শুরু করেন, যাতে তা অন্য কেউ কপি করতে না পারে। অথবা কিভাবে পরতে হবে সে বিষয়ে কেউ নাক গলাতে না আসে। এভাবে তিনি যে পদ্ধতিতে স্কার্ফ পরা শুরু করেন তা তার পোশাকের সঙ্গে চমৎকার মানিয়ে যায়। তিনি কৌতুক করে বলেন, আমাকে দেখতে তো তুতেনখামেনের মতো। আমাকে তখন সুন্দর দেখাতো না। নাদিয়া বলেন, তিনি কেন স্কার্ফ পরা শুরু করলেন তা নিয়ে তার পিতামাতা দ্বিধাদ্বন্দ্বে ছিলেন। কিন্তু তাদেরকে তিনি বলে দিয়েছেন, সমাজের কে কি বলবে সেদিকে তিনি থোড়াই কেয়ার করেন।

গ্রেট বৃটেন বেক অফ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই নারী শুধু বৃটেনে নয়, সারাবিশ্বে একটি রোল মডেলে পরিণত হয়েছেন। সিলেটের বিয়ানীবাজারে তার পৈত্রিক বাড়ি। গত জুনে তার প্রথম রান্না বিষয়ক বই ‘নাদিয়াস কিচেন’ প্রকাশিত হয়েছে। দ্য টাইমসে তিনি একটি কলামও লেখেন। বৃটেনের রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের ৯০তম জন্মদিনের কেকও বানিয়েছেন নাদিয়া। তিনি নিজেই ‘দ্য ক্রোনিকলস অব নাদিয়া’ নামে একটি টিভি শো করবেন বলে কথা রয়েছে। এতে বাংলাদেশি রন্ধনশৈলীও প্রদর্শন করবেন তিনি।

ডেইলি মেইল জানিয়েছে, জুনিয়র বেক অফ প্রতিযোগিতায় বিচারক হিসেবে থাকবেন নাদিয়া। তার নতুন এ ভূমিকা নিয়ে তিনি বেশ উদ্বেলিত। সিবিবিসি প্রোগ্রামে অংশ নিচ্ছে ৪০ জন টিনেজার বেকার (রন্ধনশিল্পী)। তাতে আন্তর্জাতিক সব শেফ ও রান্না বিষয়ক লেখক আলেগ্রা ম্যাকএভেডির সঙ্গ বিচারক হিসেবে থাকছেন দ্য গ্রেট বৃটিশ বেক অফ ২০১৫ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নাদিয়া হোসেন। অংশগ্রহণকারীদের সবার বয়স ৯ থেকে ১২ বছরের মধ্যে।

এ জন্য লুটনে জন্ম নেয়া এই তারকা বলেন, গত বছর এই সময়ে আমি ছিলাম বেক অফ প্রতিযোগিতার শিবিরে। এবার আমি আবারও সেখানে যাচ্ছি। তবে সেখানে আগামী প্রজন্মকে তাদের রন্ধনশৈলীতে উৎসাহিত করতে যাচ্ছি। এ সুযোগ পেয়ে আমি আবেগাপ্লুত।


 এলএবাংলাটাইমস/এল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

আরব বসন্তের পর এবার ইংরেজী বসন্ত!

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৬-২৯ ২২:১৪:০৩

ব্রেক্সিট বিরোধী মিছিলের সারি লম্বা হচ্ছে দিন দিন। তিন দিন আগে ছিল কয়েক হাজার। বৃহস্পতিবার লাখ ছাড়িয়েছে। বৃটিশ পার্লামেন্টের সামনে হাজার হাজার মানুষ স্লোগান দিচ্ছে, গান গাইছে। বলছে মানি না, মানি না এ রায়। প্রায় এক সপ্তাহ আগে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যারা ডিভোর্স চেয়েছিলেন, তারাও এ মিছিলে শামিল হয়েছেন। প্রথম দিকে দোদুল্যমানতা ছিল। ব্রেক্সিট পরবর্তী পরিস্থিতি জনগণকে রাস্তায় নামিয়েছে। জনরায়কে সরকারও মান্যতা দিয়েছিল। কিন্তু এখন পরিস্থিতি দ্রুত পাল্টে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবারের জনস্রোতে যোগ দিয়েছিলেন বিজনেস মিনিস্টার আন্না সবরি। তিনি জনতার উদ্দেশ্যে আবেগঘন বক্তব্য রাখেন। বলেন, আমি ছিলাম লিভের পক্ষে। কিন্তু আমার ৮৪ বছর বয়সী মা এবং দুই সন্তান এই ফলাফলে ক্ষুব্ধ। তার এ বক্তব্যের পরে ব্রেক্সিট বিরোধী আওয়াজ আরও বেড়ে যায়। এই বিক্ষোভের আয়োজক স্যোসাল মিডিয়া, রেডিও, টেলিভিশন, সংবাদপত্রতো আছেই। বৃটিশ পার্লামেন্টের সামনে শুধু বিক্ষোভ হয়নি, বিক্ষোভ হয়েছে ইংল্যান্ডের আরো অনেক শহরেও। ব্রেক্সিট প্রধানমন্ত্রীকে গদি ছাড়তে বাধ্য করেছে, বিরোধী নেতার গদি টলটলায়মান। ট্রাফালগার স্কয়ারের সামনে বিক্ষোভকারীরা বলেছে, তিনশ ৫০ মিলিয়ন পাউন্ড কোথায়। লিভের প্রচারণাকারীরা বলেছিল, প্রতি সপ্তাহে লন্ডন থেকে তিনশ ৫০ মিলিয়ন পাউন্ড যায় ব্রাসেলসে। এখন তারা তা অস্বীকার করছে। বলছে, তারা এমন কথা বলেনি। বেশিরভাগ মানুষ তাদের কথায় সায় দিয়েছিল। ইউরোপীয় ইউনিয়নের বৈঠকে বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর নিষ্ফল উপস্থিতি জনগণকে আরও আবেগ আপ্লুত করেছে। কারণ ৪৩ বছরে কোন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর এমন নিষ্ফল উপস্থিতি ছিল না। গণভোট নিয়ে কী হবে, এ রায় কী পরিবর্তন হবে? বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী এ সম্ভাবনাও নাকচ করে দিয়েছেন। কিন্তু জনস্রোত যেদিকে যাচ্ছে তা কি আরব বসন্তের মতো ইংরেজ বসন্তে রূপ নেবে? কেউ কেউ অবশ্য এমনটাই হতাশ যে, তারা মনে করেন গুগলের সার্চ ইঞ্জিনও বৃটিশ রাজনীতির কোন চটজলদি সমাধান দিতে পারবে না।

বিস্তারিত খবর

ঈদের পর লন্ডন যাবেন খালেদা জিয়া

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৬-২৬ ২১:৪৫:৪৬

পবিত্র ঈদুল ফিতরের পরপর লন্ডন যেতে পারেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। চোখের চিকিৎসার উদ্দেশ লন্ডন সফর হলেও এটি রাজনৈতিকভাবেই গুরুত্ব পাবে। তবে সফরের দিনক্ষণ এখনও চূড়ান্ত হয়নি। দলের গুলশান ও নয়াপল্টন কার্যালয় সূত্রে এ সংক্রান্ত তথ্য পাওয়া গেছে।দলের নেতাকর্মীদের মতে, পূর্ণাঙ্গ কমিটি চূড়ান্ত এবং পরবর্তী করণীয় নিয়ে ছেলে তারেক রহমানের পরামর্শ নিতেই তিনি সরাসরি লন্ডনে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন। এদিকে বিএনপি প্রধানের সম্ভাব্য এ সফর নিয়ে দলের পদ-প্রত্যাশীদের নতুন করে চিন্তার খোরাক জোগাচ্ছে। চেয়ারপারসন লন্ডন গেলে ঈদের আগে কমিটি হচ্ছে না। এ বিষয়ে দলের বড় একটি অংশ মোটামুটি নিশ্চিত। দেশে ফেরার পরই ঘোষণা করা হতে পারে স্থায়ী কমিটিসহ নতুন নেতাদের নাম। তবে ঈদের আগে নির্বাহী কমিটির সম্পাদকীয় পদে নেতাদের নাম ঘোষণার জোর সম্ভাবনা আছে বলে মনে করেন নেতাকর্মীরা।২০১৫ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর চিকিৎসার জন্য লন্ডনে গিয়েছিলেন খালেদা জিয়া। দু’মাসের বেশি সময় পরে তিনি দেশে ফেরেন।১৯ মার্চ বিএনপির ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠানের পর কয়েক ধাপে মহাসচিবসহ ৪২টি পদে নাম ঘোষণা করা হয়। কমিটির বাকি পদের বিষয়ে নেতারা প্রায় অন্ধকারেই আছেন। বাকি কমিটি ঘোষণায় বিলম্ব নিয়ে কোনো কোনো নেতা দলের হাইকমান্ডের ওপর চরম ক্ষুব্ধ। এদিকে যেসব পদ ঘোষণা করা হয়েছে তা নিয়েও দলের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে বিভেদ। অনেকের অভিযোগ, কমিটি গঠনে যোগ্যতা ও সিনিয়র-জুনিয়র মানা হয়নি। এ নিয়ে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানও ঘনিষ্ঠদের কাছে অসন্তোস প্রকাশ করেন।দলীয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি সপ্তাহে নির্বাহী কমিটির সম্পাদক পর্যায়ের নেতাদের নাম ঘোষণা করা নিয়ে আলোচনা চলছে। তবে ঈদের আগে নাম ঘোষণা করা, না করা নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে মত রয়েছে। দলের একটি পক্ষ চান, যা হওয়ার হবে। এ সপ্তাহে কমিটি ঘোষণা দিলে এলাকায় গিয়ে ঈদ উদযাপন করা যাবে। তবে অপর পক্ষ চাইছে, ঈদের পরে কমিটি ঘোষণা করা হোক। কারণ, এ সময়ে কমিটি ঘোষণা হলে যারা কাক্সিক্ষত পদ পাবেন না তাদের ঈদ মাটি হয়ে যাবে।জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম বলেন, কমিটি গঠনের দায়িত্ব চেয়ারপারসনকে দেয়া হয়েছে। তিনি জেনে-বুঝে কমিটি ঘোষণা করবেন। বিএনপির স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ইতিমধ্যে দলের চেয়ারপারসন, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান, মহাসচিবসহ আরও কিছু পদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। দলের চেয়ারপারসন দ্রুতই পুরো কমিটি ঘোষণা দেবেন। এ নিয়ে দলের মধ্যে কোনো সমস্যা নেই।দলীয় সূত্রে জানা গেছে, অতিমাত্রায় পদের জন্য ‘লালায়িত নেতারা’ কাক্সিক্ষত পদ না পেলে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া হিসেবে দল থেকে পদত্যাগ বা স্বেচ্ছায় রাজনীতি থেকে নিষ্ক্রিয় হয়ে যাওয়ারও ঘোষণা দিতে পারেন। এ তালিকায় দলের ভাইস চেয়ারম্যান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এবং কয়েকজন সম্পাদকও আছেন। এদের অনেকের বিরুদ্ধেই বিগত এক-এগারোর সময়ে বিতর্কিত ভূমিকার অভিযোগ রয়েছে। ইতিমধ্যে এসব নেতারা গুলশান কার্যালয়ে স্বাস্থ্যগত কারণ দেখিয়ে যাওয়া প্রায় ছেড়েই দিয়েছেন। এদের মধ্যে যারা এতদিন দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সমালোচনা করতেন, তারা কমিটি গঠন নিয়ে এখন ভেতরে ভেতরে খালেদা জিয়ার সমালোচনা করতেও দ্বিধা করছেন না। তবে দলের অনেকেই মনে করছেন, পদ পেতে হাইকমান্ডকে চাপে রাখতেই রাজনীতি ছেড়ে দেয়া বা নিষ্ক্রিয় হয়ে যাওয়ার কৌশল নিয়েছেন কেউ কেউ।

বিস্তারিত খবর

ব্রিটিশ এমপি জো কক্সকে গুলি করে হত্যা

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৬-১৬ ২১:৪৯:১৪

জো কক্স ইংল্যান্ডে দুর্বৃত্তদের গুলিতে আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন জো কক্স নামে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের এক সদস্য।
এর আগে উত্তরাঞ্চলীয় লিডস শহরের অদূরে বৃহস্পতিবার গুলিবিদ্ধ হন লেবার পার্টি থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য জো কক্স।
গুলিবিদ্ধ হওয়ার পরপরই তাকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে লিডস শহরের একটি হাসপাতালে নেয়া হয়।
৪১ বছর বয়সী দুই সন্তানের জননী কক্স ২০১৫ সালের সাধারণ নির্বাচনে বিজয়ী হন। তিনি ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সিরিয়া বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সভাপতি। এ হত্যাকাণ্ডর পর পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

বিস্তারিত খবর

ইন্টারনেটে টিউলিপকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছিলো

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৬-১২ ০০:৪৬:০২

ইন্টারনেটে হত্যার হুমকি পেয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ এমপি টিউলিপ সিদ্দিক ।
সানডে টাইমসকে সম্প্রতি টিউলিপ বলেন, ‘ভয়ঙ্কর সব হুমকি আমাকে দেওয়া হয়েছে। তুমি হিজাব পরো না কেন? ‘পারলে তোমাকে খুন করতাম’- এরকম কথাও শুনতে হয়েছে।’ সানডে টাইমস তার এই বক্তব্য ৫ জুন প্রকাশ করে।
এবারই নয়। এর আগেও অনলাইনে প্রথম তাকে আজেবাজে কথা বলা হয় ২০১৪ সালে, যখন নিউ হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসন থেকে লেবার পার্টির হয়ে তার নির্বাচনের প্রচার চলছিল। সে সময় তাকে কথা শুনতে হয়েছিল বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হওয়ার কারণে।
টিউলিপ সানডে টাইমসকে বলেন, ‘আমাকে বলা হয়েছিল, ‘তোমার মত নামের কাউকে হ্যাম্পস্টেডের তরুণ ভোটাররা কখনোই ভোট দেবে না।’
প্রথমবার পার্লামেন্ট সদস্য হওয়ার পর গত এপ্রিলে প্রথম সন্তানের মা হওয়ার আগে যখন চারদিক থেকে অভিনন্দন বার্তা পাচ্ছেন, তখনও টুইটারে বাজে মন্তব্যের শিকার হতে হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।
এ ধরনের বিদ্বেষ মোকাবিলায় হাউস অব কমন্সে নিজেদের মধ্যে একটি আনঅফিসিয়াল সাপোর্ট গ্রুপ তৈরি করার কথাও জানিয়েছেন টিউলিপ।
প্রসঙ্গত, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাগ্নি টিউলিপ সিদ্দিক। তিনি লন্ডনের মিচামে জন্মগ্রহণ করেন। তার শৈশব কেটেছে বাংলাদেশ, ভারত এবং সিঙ্গাপুরে। ১৫ বছর বয়স থেকে তিনি হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্নে বাস করছেন। এই এলাকায় স্কুলে পড়েছেন ও কাউন্সিলর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। লন্ডনের কিংস কলেজ থেকে পলিটিক্স, পলিসি এন্ড গভর্নমেন্ট বিষয়ে তার স্নাতকোত্তর ডিগ্রি রয়েছে। মাত্র ১৬ বছর বয়সে লেবার পার্টির সদস্য হওয়া টিউলিপ অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল গ্রেটার লন্ডন অথরিটি এবং সেইভ দ্য চিলড্রেনের সঙ্গেও কাজ করেছেন। ২০১০ সালে ক্যামডেন কাউন্সিলে প্রথম বাঙালি নারী কাউন্সিলর নির্বাচিত হন তিনি।

বিস্তারিত খবর

ব্রিটেনে হেনস্তার শিকার সিলেটের নাদিয়া

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৫-৩০ ১৪:৩৪:৫৮

প্রত্যেকটা জঙ্গি হামলার পর আমার মাথার ওপর মেঘের পাহাড় নিয়ে দরজার বাইরে যাই। যখন আমি ট্রেনে থাকি, মানুষ তখন আমার থেকে দূরে বসেন, আমার পিঠে ব্যাগ অথবা স্যুইটকেস থাকে… আমি বাসের অপেক্ষা থাকার সময় লোকজনেরগুতা খাই, ইসলামভীতি থেকে অনেকে হেনস্তাও করেন’।

ব্রিটেনে ‘গ্রেট ব্রিটিশ বেক অফ প্রতিযোগিতা’য় গত বছর শিরোপা জিতেছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক নাদিয়া হুসেইন। বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে জঙ্গিদের হামলার পর কী ধরনের পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয় সে বিষয়ে জানিয়েছেন ব্রিটেনের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম দ্য টাইমস ম্যাগাজিনকে।
নাদিয়া হুসেইন বলেন, তাকে অনেক বিব্রতকর পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়, ইসলামভীতি থেকে অনেকেই তাকে হেনস্থা করেন। তবে এটি ভয়াবহ আকার ধারণ করে প্রত্যেকটি জঙ্গি হামলার পর।
নাদিয়া লিডসে বাস করেন। গ্রেট ব্রিটিশ বেক অফ প্রতিযোগিতার রান্না বিষয়ক একটি অনুষ্ঠান ব্রিটেনের জনপ্রিয় টেলিভিশন অনুষ্ঠানগুলোর মধ্যে একটি। গত বছর চূড়ান্ত পর্বটি দেখতে এক কোটি ৩৪ লাখ দর্শক টেলিভিশনের সামনে ছিলেন। এ পর্বটি সবচেয়ে বেশি দেখা টেলিভিশন অনুষ্ঠানের মধ্যে একটি।
ওই প্রতিযোগিতার পর থেকে সংবাদপত্রে কলাম লিখছেন নাদিয়া। কিছুদিন আগে ব্রিটিশ রাণীর জন্মদিনের কেক বানিয়েছিলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই ব্রিটিশ বেকার। ব্যাপক জনপ্রিয়তা সত্ত্বেও ধর্ম এবং হিজাব পড়া নিয়ে অনলাইনে হেনস্থার স্বীকার হন তিনি। গত জানুয়ারিতে নাদিয়া তার বাড়িতে পুলিশি নিরাপত্তার কথা প্রকাশ করেন।
গত বছরের নভেম্বরে প্যারিসে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার পর তার ভাই মৌখিক আক্রমণের শিকার হন।

বিস্তারিত খবর

ক্যান্সারের টিকা আবিষ্কার

 প্রকাশিত: ২০১৬-০৫-৩০ ১৪:২৫:৪৬

মানব শরীরের ক্যান্সার জীবাণু ধ্বংসকারী টিকা ‘ক্যান্সার ভ্যাকসিন' আবিষ্কার করেছে বলে দাবি করেছে লন্ডন ভিত্তিক এক গবেষণাগারের গবেষকরা। 

এই টিকা শরীরের যেকোনো অংশে ছড়িয়ে থাকা ক্যান্সারের জীবাণু ধ্বংস করবে বলে দাবি করেছেন গবেষকেরা।
ইতিহাস সৃষ্টিকারী এই টিকা এখনো পরীক্ষামূলক অবস্থায় রয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা। প্রথমবারের মতো এক রোগীর শরীরে প্রয়োগ করার পর ইতিবাচক ইঙ্গিত মিলেছে। 
লন্ডনের বেকেনহ্যামের বাসিন্দা কেলি পটারের শরীরে প্রথম প্রয়োগ করা হয় ওই টিকা। ৩৫ বছরের ওই মহিলা জরায়ু ক্যান্সার আক্রান্ত ছিলেন।
তার শরীরে যখন ক্যান্সারের টিকা প্রয়োগ করা হয় তখন ক্যান্সার পৌঁছে গিয়েছে চতুর্থ পর্যায়ে। তার লিভার এবং ফুসফুসের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ছিল ক্যান্সারের জীবাণু।
টিকা দেওয়ার পর তার শরীরে ক্যান্সারের ব্যাপ্তি এখন অনেক স্থিতিশীল হয়েছে। একইসঙ্গে লিভার ও ফুসফুসের মধ্যে জীবাণু ছড়িয়ে পড়াও বন্ধ হয়েছে। আগের চেয়ে এখন অনেক ভালো আছেন বলে জানিয়েছেন কেলি পটার।
শুধুমাত্র ক্যান্সার নয় মানব শরীরের অনেক মরণরোগ নিরাময় করতে এই টিকা কাজ করবে বলে জানিয়েছেন ক্যান্সার টিকা নিয়ে গবেষণা সংস্থা গাই’স অ্যান্ড সেন্ট থমাস বায়োমেডিকেল রিসার্চ সেন্টার’ এর প্রধান জেমস স্পাইসার।
তিনি বলেন, ‘মানুষের শরীরে অনেক সময় খুব শক্ত টিউমার হয়। এই টিকা প্রয়োগের মাধ্যমে তা সম্পূর্ণভাবে নির্মূল করা সম্ভব’।
ক্যান্সার এই টিকা খুবই কার্যকরী হবে বলেও আশাবাদী তিনি। যদিও ক্যান্সার শরীর থেকে পুরোপুরি নির্মূল করতে এই টিকার সঙ্গে কম মাত্রার কেমোথেরাপি দেওয়ার পরামর্শ দেন জেমস স্পাইসার।
গবেষণা সংস্থাটির তরফে বলা হয়েছে ‘হিউম্যান টেলোমারেজ রিভার্স ট্রান্সক্রিপটেজ’ নামের এক ধরণের উৎসেচক বিভাজনের মাধ্যমে ক্যান্সার কোষের ক্রমাগত বংশ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এই উৎসেচকের গঠনমূলক প্রোটিনের সামান্য অংশ এই টিকাতে রাখা হয়েছে।
আশা করা হচ্ছে, এই টিকাটি ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে শরীরের রক্তে প্রবেশ করালে তা ভাল কোষ গুলোকে অক্ষুণ্ণ রেখে ক্ষতিকর ক্যান্সার কোষগুলোকে খুঁজে বের করে ধ্বংস করতে সক্ষম হবে।

বিস্তারিত খবর

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত