যুক্তরাষ্ট্রে আজ বুধবার, ০৮ এপ্রিল, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 03:06pm

|   লন্ডন - 10:06am

|   নিউইয়র্ক - 05:06am

  সর্বশেষ :

  ১১ সপ্তাহ লকডাউনের পর উন্মুক্ত উহান   যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ১৯৭০ জনের প্রাণহানি   ‘ওয়াইএমসিএ’র ছাঁটাইকৃত কর্মীদের চাকরির ঘোষণা দিলেন লস এঞ্জেলেস মেয়র   করোনা ঠেকাতে বাধ্যতামূলক মাস্ক পড়ার নিয়ম করল সান বার্নার্ডিনো কাউন্টি   করোনায় কমেছে লস এঞ্জেলেসের সকল প্রকার অপরাধঃ এলএ পুলিশ চীফ   কভিড-১৯; লস এঞ্জেলেসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৬৯; আক্রান্ত ৬ হাজার ৯১০   গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জ জেলা লকডাউন   বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের নাতি ছাত্রলীগের সেক্রেটারি   পুলিশের মহাপরিদর্শক হচ্ছেন বেনজীর, র‌্যাব মহাপরিচালক মামুন   করোনাভাইরাস: বিশ্বব্যাপী সুস্থ হয়ে উঠেছে ৩ লাখ মানুষ   ফ্রান্সে করোনায় মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়ালো   নিউইয়র্কে মর্গে জায়গা নেই, ফ্রিজে লাশ রাখার সিদ্ধান্ত   সিঙ্গাপুরে একদিনে ৪৭ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত   বিশ্বনবীর মিম্বর থেকে করোনা নিয়ে যা বললেন শাইখ সুদাইস   এখন থেকে লস এঞ্জেলেসের যে কোন বাসিন্দা করোনা টেস্ট করাতে পারবে

>>  লন্ডন এর সকল সংবাদ

মার্কিন রণতরীর বরখাস্ত ক্যাপ্টেন করোনায় আক্রান্ত

মার্কিন নৌবাহিনীর সমালোচনা করে বরখাস্ত হওয়া যুদ্ধবিমানবাহী রণতরী থিওডোর রুজভেল্টের ক্যাপ্টেন ব্রেট ক্রোজিয়ারের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। সোমবার (০৬ এপ্রিল) দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস এ তথ্য জানায়। তবে মার্কিন নৌবাহিনীর মুখপাত্র এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

গত বৃহস্পতিবার (০২ এপ্রিল) ওই রণতরী থেকে সরিয়ে নেওয়া হয় ক্রোজিয়ারকে। তখনই তার শরীরে কোভিড-১৯ এর উপসর্গ দেখা দিয়েছিল।

রণতরীতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ধরায় পড়ায় দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে নৌবাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উদ্দেশে চিঠি লিখে সেটি সংবাদমাধ্যমে ফাঁস করার

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাষ্ট্রের সামনে আরো অনেক বেশি মৃত্যু: ট্রাম্প

 প্রকাশিত: ২০২০-০৪-০৫ ০২:৫৭:৫৪

করোনা ভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রে সামনের দিনগুলোতে আরো বেশি মৃত্যু হবে বলে জানিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। হোয়াইট হাউজে এক সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এমনটি জানান। এসময় যুক্তরাষ্ট্রের সকলকে আরো সতর্কভাবে চলার আহ্বানও জানান ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, অনেক মৃত্যু হতে চলেছে। যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্য সরকারের সমালোচনা করে ট্রাম্প বলেন, অনেকেই প্রয়োজনের চেয়ে বেশি ভেন্টিলেটর পেতে চাইছে। এসময় ট্রাম্প আরো বলেন, আমরা এমন এক সময়ে উপনীত হয়েছি যেটা খুবই ভয়াবহ। আমরা মনে হয় কখনো এমন সংখ্যা দেখিনি।

হোয়াইট হাউজের বিশেষজ্ঞরা ইতিমধ্যে জানিয়ে দিয়েছে ঘরবন্দি হয়েও যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় এক থেকে আড়াই লাখ মানুষ মারা যেতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ১১ হাজার ৬৩৫ জন। মারা গেছেন ৮ হাজার ৪শ ৫৪ জন।


এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

করোনা গুজবে যুক্তরাজ্যে ৫জি টাওয়ারে আগুন

 প্রকাশিত: ২০২০-০৪-০৪ ১১:০৩:৫৩

মহামারী করোনাভাইরাস আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। ইতিমধ্যে প্রাণঘাতী এ রোগ নিয়ে নানা কৌতুহল জেগেছে সবার মনে। একে পুঁজি করে বিভিন্ন ধরনের গুজব ছড়িয়ে পড়েছে। এর মধ্যে এমন গুজবও ছড়ানো হয়েছে যে, ‘ফাইভ জি নেটওয়ার্কের কারণে করোনা ছড়াচ্ছে’।

এ গুজবের জেরে শুক্রবার আগুন লাগানো হয়েছে দেশটির বার্মিংহামের একটি মোবাইল নেটওয়ার্ক টাওয়ারে।
যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য সান জানিয়েছে, গত কয়েকদিনে যুক্তরাজ্যের সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজব ছড়িয়েছে যে, ৫জি নেটওয়ার্ক করোনাভাইরাস ছড়াতে সাহায্য করে। এরপর অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখতে থাকেন - করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে যার যার এলাকার ৫জি টাওয়ার গুঁড়িয়ে দাও। এসব টাওয়ার থেকেই করোনাভাইরাস ছড়াচ্ছে। এরপর এমন অদ্ভূত ধারণা বিশ্বাস করে বার্মিংহামের ওই ৫জি টাওয়ারে আগুন ধরিয়ে দেয় স্থানীয়রা।

জানা গেছে, গত মার্চ থেকে এ গুজব রটান শুরু হয়। ওই সময় যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য সম্মেলনে এক ব্যক্তি দাবি করেন, আফ্রিকার দেশগুলোতে ৫জি নেই বিধায় সেখানে করোনার সংক্রমণ কম। সোশ্যাল মিডিয়ায় দ্রুতই ভাইরাল হয়ে পড়ে ওই ব্যক্তির সেই বক্তব্য।

এদিকে টাওয়ারে আগুন দেয়া ও ভাঙচুরকারীদের ধরতে অভিযানে নেমেছে পুলিশ। গুজব বন্ধে ইতিমধ্যে বেশ কিছু গ্রুপ ও পেজ বন্ধ করে দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

এরইমধ্যে এমন গুজবে কান না দিতে আহ্বান জানিয়ে গবেষকরা বলেছেন, ৫জি প্রযুক্তির সঙ্গে করোনাভাইরাস বিস্তারের কোনো সম্পর্ক নেই।


এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

করোনার থাবায় যুক্তরাষ্ট্রে এক কোটি বেকার

 প্রকাশিত: ২০২০-০৪-০৩ ০৯:০৩:১৩

যুক্তরাষ্ট্রের শ্রম বিভাগ বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, ৬৬ লাখের বেশি মার্কিন নাগরিক গত সপ্তাহে বেকারত্ব ভাতার জন্য আবেদন করেছেন। এর আগে গত সপ্তাহে ৩৩ লাখ মানুষের আবেদনের কথা জানানো হয়েছিল।

ফলে সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত প্রায় এক কোটি মানুষ বেকারত্ব ভাতার জন্য আবেদন করলেন। বেকারত্ব ভাতার আবেদন সাধারণত চাকরি থেকে ছাঁটাইয়ের বিষয়টি প্রতিফলিত করে।

করোনার কারণে যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ মানুষকে ঘরে থাকতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এই অবস্থায় টিকে থাকতে রেস্তোরাঁ, হোটেল, ব্যায়ামগার, সিনেমা হলের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো কর্মী ছাঁটাই করছে।

অনেক অর্থনীতিবিদ আশঙ্কা করছেন, এপ্রিলের শেষ নাগাদ বেকারের সংখ্যা প্রায় দুই কোটি হতে পারে।

এর আগে ২০০৭ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০০৯ সালের জুন পর্যন্ত চলা আর্থিক মন্দার (গ্রেট রিসেশন) সময় যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় ৮৭ লাখ মানুষ চাকরি হারিয়েছিলেন। অর্থাৎ করোনার কারণে সংখ্যাটি এবার দ্বিগুনের বেশি হতে পারে। করোনার প্রভাব কমাতে গত সপ্তাহে ২.২ ট্রিলিয়ন ডলারের আর্থিক প্রণোদনা ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।



এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

করোনা সংক্রমণ: যুক্তরাষ্ট্রে সব কারাগার লকডাউন

 প্রকাশিত: ২০২০-০৪-০২ ১০:০৯:৩৭

করোনাভাইরাসের বিস্তার প্রতিরোধে যুক্তরাষ্ট্রে সব কারাগার ১৪ দিনের জন্য লকডাউন করা হয়েছে। দেশটিতে কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশন বাড়তে থাকায় বুধবার এ সিদ্ধান্ত নেয় ফেডারেল বুর্যো অব প্রিজন।

সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বন্দিদের কোয়ার্টারে বা সেলে থাকতে হবে অনন্ত দুই সপ্তাহের জন্য। তবে লকডাউন আরও বাড়তে পারে।

কারাগারে লকডাউনের সময় প্রতিনিধি, লন্ড্রি, পানি, কম্পিউটার এবং টেলিফোন এ সব ক্ষেত্রে বিশেষ সুবিধা পাওয়া যাবে। মার্কিন ম্যাগাজিন পলিটিকো এক প্রতিবেদনে জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের কারা কর্তৃপক্ষ করোনাভাইরাস বিস্তার রোধে ফেডারেল কারাগারে ১৪ দিনের জন্য বন্দিদের (তাদের জন্য নির্দিষ্ট সেল) থাকতে আদেশ দিয়েছে। বুর্যো অব প্রিজনের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত এক বিবৃতি দেয়া হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সাধারণ কর্মসূচি ও স্যানিটেশন বজায় রাখার জন্য কিছু ব্যতিক্রম অনুমোদন করা হবে। ফেডারেল প্রিজন এজেন্সির পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে, তারা যুক্তরাষ্ট্রের মার্সাল সার্ভিসের সঙ্গে যৌথ কাজ করে যাবে; যাতে লকডাউনের সময় নতুন বন্দি সীমিত করা যায়।

মঙ্গলবার প্রকাশিত ফেডারেল কারাগার ব্যবস্থাপনার এক সমীক্ষায় জানা গেছে, ফেডারেল কারাগারে ২৯ জন বন্দি ও ৩০ জন কর্মী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একজন বন্দি মারা গেছেন।

আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা জনস হপকিন্স ইউনির্ভাসিটির তথ্যানুযায়ী বুধবার পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৬ হাজার। আর এ ভাইরাটিতে দেশটিতে সাড়ে ৪ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন।

চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত সারা বিশ্বে ৪৮ হাজার ৩১৯ জন মারা গেছেন। আর এ ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৯ লাখ ৭১ হাজার ৭৫৪ জন।

এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে করোনাভাইরাসে আ.লীগ নেতার মৃত্যু

 প্রকাশিত: ২০২০-০৪-০১ ১২:৫৫:৪২

যুক্তরাজ্যের লন্ডনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন সাউথ-লন্ডন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোহাম্মদ তোয়াহিদ আলী (৭৮)।

বুধবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সাইথ-লন্ডনের লুইসাম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

মারা যাওয়া তোয়াহিদ সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার সদর ইউনিয়নের মুফতির গাঁও গ্রামের বাসিন্দা ও ‘ বিশ্বনাথ প্রবাসী এডুকেশন ট্রাস্ট ইউকে’র একজন সিনিয়র ট্রাস্টি ছিলেন। তিনি স্ত্রী, তিন ছেলে ও এক মেয়েসহ দেশে-বিদেশে অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

আওয়ামী লীগ নেতা তোয়াহিদের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন লন্ডনে অবস্থারনত যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চোৗধুরী।

তিনি বলেন, প্রবাসে বসবাসরত বাঙলিরা এখন কঠিন সময় পার করছেন। প্রবাসীদের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন আনোয়ারুজ্জামান।

তিনি জানান, এর আগে মঙ্গলবার একই এলাকায় বসবাসকারী বিশ্বনাথের বাওনপুরের বাসিন্দা মশহুদ আলীও (৭৫) মৃত্যুবরণ করেছেন। করোনায় মারা যাওয়া দু’জনেই আরও কয়েকটি রোগে আক্রান্ত ছিলেন।

যুক্তরাজ্যের নরউইচ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিশ্বনাথের দশপাইকা গ্রামের বাসিন্দা মোহাম্মদ মোহাব্বত শেখ বলেন, সাউথ লন্ডনের সিলেট তান্দুরি রেষ্টুরেন্টের সত্ত্বাধীকারী তোয়াহিদ আলী ব্রিটিশ আমলে যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান। বর্তমানে তার তিন ছেলে ও এক মেয়ে সাউথ-লন্ডনে প্রতিষ্ঠিত।

বিশ্বনাথের মুফতিরগাঁও গ্রামের সালিশি ব্যক্তিত্ব ফুলকাছ আলী, তোয়াহিদ আলীর ভাতিজা শামীম আহমদ এবং লুৎফুর রহমান বলেন, লন্ডনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তোয়াহিদ আলী মারা যাবার বিষয়টি তারাও জেনেছেন। ২০১৬ সালে একবারই কেবল তিনি দেশে ফিরেছিলেন বলেও জানান তারা।

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/এল

বিস্তারিত খবর

করোনার জেরে যুক্তরাষ্ট্রে ৩৫শ বন্দীকে মুক্তি

 প্রকাশিত: ২০২০-০৪-০১ ০৫:৩৭:২৯

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার কারাগার থেকে সহিংসতার অভিযোগ নেই এমন ৩ হাজার ৫শ’জন বন্দীকে মুক্তি দেয়ার পরিকল্পনা করেছে দেশটির সরকার।

ক্যালিফোর্নিয়া ডিপার্টমেন্ট অব কারেকশান এন্ড রিহ্যাবিলিটেশন (সিডিআরসি) মঙ্গলবার বলেছে, যাদের সাজার মেয়াদ শেষ হতে ৩০ দিনেরও কম এবং এর পরে যাদের মেয়াদ ৬০ দিনের কম তাদের মুক্তি দেয়া হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য অঙ্গরাজ্যের বিচারব্যবস্থা অনুযায়ী নিউজার্সি অঙ্গরাজ্য এবং আরো কিছু নগরীতে বন্দী মুক্তি দেয়া হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের এটর্নি জেনারেল বিল বার গত সপ্তাহে বলেছেন, করোনা মহামারীর কারনে কেন্দ্রীয় সরকার কিছু বন্দীর মুক্তি দেবে, এদের সংখ্যা ২ হাজারের মতো হবে।

ক্যালিফোর্নিয়া কারেকশন এজেন্সির সেক্রেটারি রালফ দিরাজ এক বিবৃতিতে বলেছেন, এই নতুন ব্যাবস্থাকে আমরা হালকাভাবে নিচ্ছি না। আমাদের প্রধান লক্ষ্য সিডিসিআর ষ্টাফ ও বন্দীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।


এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

স্পেনে করোনায় আক্রান্ত ৬৬ বাংলাদেশি

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-৩১ ০৯:১৮:০০

করোনা আতঙ্কিত বিশ্ব। প্রতিদিন পাল্লা দিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, লম্বা হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল! পৃথিবীর করোনা সংক্রমণের দিক থেকে চতুর্থ অবস্থানে স্পেন।

স্পেনে বাংলাদেশি বৈধ এবং অবৈধদের সংখ্যা প্রায় ৩০০০০। করোনায় স্পেনে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৯৬৭৩ এবং মারা গেছেন ২৬৯৬ জন। এর মধ্যে বাংলাদেশি আক্রান্ত হয়েছেন কতজন এ বিষয় জানতে দূতাবাসে কল করা হলে ৬৬ জন আক্রান্ত আছেন বলে জানান বাংলাদেশ দূতাবাসের এক কর্মকর্তা। এদের মধ্যে ৭ জনের অবস্থা গুরুতর।

অবৈধভাবে বসবাস করা বাংলাদেশিদের জন্য দূতাবাসের পক্ষ থেকে ১০ লাখ টাকার ফান্ড সংগ্রহ করা হয়েছে, করোনা দুর্যোগে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে এ অর্থ-বন্টন করা হবে বলে জানান দূতাবাসের মিশন উপ-প্রধান হারুন আল রশীদ।

এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাষ্ট্রের ৬ কংগ্রেস সদস্য করোনায় আক্রান্ত, কোয়ারেন্টাইনে ৩০

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-৩১ ০৯:০৯:০৪

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের অন্তত ছয় সদস্য করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন। এছাড়া, ৩০ জন কংগ্রেস সদস্য স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টাইনে চলে গেছেন। তাদের মাধ্যমে যাতে করোনাভাইরাস ছড়াতে না পারে সেজন্য তারা নিজেরাই এ ব্যবস্থা নিয়েছেন।

আমেরিকায় এরইমধ্যে করোনাভাইরাসের মহামারী ভয়ঙ্করভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। দেশটিতে তিন হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছে এবং এক লাখ ৬৩ হাজার মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।


পরিস্থিতি মোকাবেলায় মার্কিন সরকার এরইমধ্যে ২.২ ট্রিলিয়ন ডলারের অর্থনৈতিক সহায়তা বরাদ্দ করেছে এবং বিষয়টি এরইমধ্যে কংগ্রেসে আইন আকারে পাস করা হয়েছে। ফলে ক্যাপিটলহিলে কংগ্রেস এ বসার জন্য আর কোনো সদস্যকে আগামী ২০ এপ্রিলের আগে ওয়াশিংটনে ফিরতে হবে না।

উল্লেখ্য, ২.২ ট্রিলিয়ন ডলার অর্থ সহায়তা বিল পাস করার জন্য গত শুক্রবার ২৩০ জন প্রতিনিধি পরিষদ সদস্য ওয়াশিংটনে জড়ো হয়েছিলেন।


এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি বিপদে ভারতীয়রা!

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-৩১ ০৯:০৫:২৩

আমেরিকায় কর্মরত ভারতীয়রা বিপদে। করোনা ভাইরাসের প্রকোপে শুধু প্রাণ নিয়ে নয়, চাকরি নিয়েও টানাটানি শুরু হয়েছে সেদেশে। চাকরি খোয়ালে এইচ–১ বি ভিসার অধিকারীদের সেদেশে থাকার অনুমতিও থাকবে না।

করোনাভাইরাস সংকটের কারণে আমেরিকাতে ব্যাপক ছাঁটাইয়ের আশঙ্কা। আমেরিকায় কর্মরত বিভিন্ন দেশের বাসিন্দারা হুমকির মুখে পড়েছেন। সবচেয়ে বিপদে পড়েছেন ভারতীয়রা। সবচেয়ে বেশি সংখ্যক এইচ–১ বি ভিসাধারকেরা ভারতের নাগরিক। ট্রাম্প প্রশাসনের কাছে তাদের আবেদন, চাকরি হারানোর পর আমেরিকায় বসবাস করার সময়সীমা বাড়িয়ে দেয়া হোক। ৬০ থেকে ১৮০ দিনের মধ্যে করা হোক।


কী এই এইচ–১ বি ভিসা?‌
তাত্ত্বিক বা প্রযুক্তিগত দক্ষতার প্রয়োজনে মার্কিন সংস্থাগুলোকে ভিনদেশি কর্মী নিয়োগ করার অনুমতি দেয় এই ভিসা। এছাড়া এই ভিসাধারক ভিনদেশিরা আমেরিকায় গিয়ে বসবাস করতে পারবেন। তবে কাজের জন্য। স্থায়ী বসবাসের জন্য নয়। কিন্তু সমস্যা হল, বর্তমান ফেডারাল বিধি অনুযায়ী, এই ভিসাধারক ব্যক্তির চাকরি চলে গেলে তাকে ৬০ দিনের মধ্যে সেদেশ ছেড়ে দিতে হবে। উপরন্তু তারা কোনো সামাজিক সুরক্ষার সুবিধাও পাবেন না। যদিও তাদের বেতন থেকে এতদিন ধরে সামাজিক সুরক্ষা বাবদ টাকা কাটা হয়েছে। সেই সময়সীমার মধ্যে যদি অন্য কোনো চাকরি পেয়ে যান, তাহলে আর কোনো অসুবিধা নেই। তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলো ভারত ও চীনের মতো দেশগুলো থেকে প্রতি বছর কয়েক হাজার কর্মচারী নিয়োগের জন্য এটির উপর নির্ভর করে। ইতিমধ্যেই অনেক কর্মীর কাছে চাকরি থেকে ছাঁটাই করার নোটিশ চলে গেছে। অনেককে আবার ছাড়িয়ে দেয়াও হয়েছে। তাদের মধ্যে ৩.‌৩ মিলিয়ন আমেরিকানও আছেন।

আপাতত এই ভিসাধারকেরা হোয়াইট হাউজের ওয়েবসাইটে পিটিশন দিয়েছেন। যেখানে এখন পর্যন্ত ২০ হাজার সই সংগ্রহ করা হয়েছে। কিন্তু সইয়ের ন্যূনতম সীমা এক লাখ। তবেই উত্তর আসবে ওপার থেকে। তারা পিটিশনে লিখেছেন, তাদের যেন চাকরি থেকে ছাড়িয়ে দেয়ার পর ৬০ থেকে ১৮০ দিন পর্যন্ত থাকার অনুমতি দেয়া হয়। এতদিন পর্যন্ত তারা সেদেশের জন্য খেটেছেন এবং আয়করও জমা করেছেন। এই পরিস্থিতিতে ভারতের মতো অনেক দেশে ফিরে যাওয়ার অবস্থা নেই। সেসব দেশে লকডাউন চলছে।



এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

মার্কিন বিমানবাহী রণতরীতে করোনার আঘাত

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-৩০ ০৭:০৪:৩৩

বিমানবাহী রণতরীতে করেনাভাইরাসের প্রকোপ দেখা দেয়ায় মার্কিন নৌবাহিনীর রণ-প্রস্তুতি হুমকিতে পড়বে বলে ধারণা ব্যক্ত করেছেন অ্যাডমিরাল জেমস স্টাভরিডিস।

প্রশান্ত মহাসাগরে মোতায়েন মার্কিন বিমানবাহী রণতরী ইউএসএস থিওডোর রুজভেল্টের সাবেক কমান্ডার অ্যাডমিরাল জেমস স্টাভরিডিস বলেন, সামনের মাসগুলোতে নৌবাহিনীর রণ-প্রস্তুতি হুমকিতে পড়বে। রণতরী রুজভেল্টের ১১ জন সক্রিয় নাবিক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে খবর প্রকাশিত হওয়ার পর এ কথা বলেন তিনি।

রুজভেল্টে নাবিকদের জন্য ঠাসাঠাসি করে শোওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এটি করোনা ভাইরাসের সূতিকাগারে পরিণত হবে।


এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

পরিস্থিতি আরও খারাপ হওয়ার সতর্কবার্তা দিলেন জনসন

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৯ ০৯:১১:১৭

করোনাভাইরাস সংকট ‘ভাল হওয়ার আগেই পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে’ বলে সতর্ক করেছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। যুক্তরাজ্যের প্রতিটি পরিবারকে চিঠি পাঠিয়ে তিনি এ বার্তা দিচ্ছেন।

জনসনের স্বাস্থ্য পরীক্ষায় কোভিড-১৯ ধরা পড়ার পর থেকেই তিনি নিজেকে সবার কাছ থেকে আলাদা রেখেছেন।

ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে প্রয়োজনে কঠোর বাধানিষেধ আরোপ করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

ব্রিটিশ নাগরিকদেরকে বাড়ি থেকে বের হওয়া এবং স্বাস্থ্য সম্পর্কিত তথ্যের বিষয়ে সরকারি নিয়মকানুনের বিস্তারিত জানাতে লিফলেটও দেওয়া হবে।

যুক্তরাজ্যে এ পর্যন্ত দেওয়া সরকারি পরামর্শের স্পষ্টতা নিয়ে সমালোচনার পর এ পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

যুক্তরাজ্যে শনিবার আরো ২৬০ জন মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে বলে জানানো হয়েছে।এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ১৯ জনে।আর আক্রান্তের সংখ্যা এখন ১৭ হাজার ৮৯ জন।

এ পরিস্থিতিতে ৫৮ লাখ পাউন্ড খরচ করে যুক্তরাজ্যের তিন কোটি পরিবারকে চিঠি পাঠিয়ে দেওয়া বার্তায় প্রধানমন্ত্রী জনসন লিখেছেন, শুরু থেকেই আমরা সঠিক সময়ে সঠিক ব্যবস্থা নেওয়ার চেষ্টা করেছি।বৈজ্ঞানিক ও চিকিৎসকদের পরামর্শে আমাদেরকে কিছু করতে বলা হলে,আমরা তা অবশ্যই করব।

চিঠিতে বলা হয়েছে, আমরা জানি পরিস্থিতি ভাল হওয়ার আগে আরও খারাপের দিকে যাবে’।তবে আমরা সঠিক প্রস্তুতি নিচ্ছি।আমরা সবাই নিয়ম যত বেশি মেনে চলব,তত কম জীবন হারাব এবং ততো তাড়াতাড়ি স্বাভাবিক জীবন ফিরে আসতে পারবে।

করোনাভাইরাস ঠেকাতে যুক্তরাজ্যে গত সপ্তাহেই দুইজনের বেশি মানুষের সমাগমে নিষেধাজ্ঞা,দোকানপাট বন্ধ রাখা এবং অপরিহার্য নয় এমন সব জিনিসের বিক্রি বন্ধের মতো পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

কিন্তু সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং দৈনন্দিন জীবনে আরোপিত এইসব বাধানিষেধের প্রভাব পড়ার আগেই আগামী দুই থেকে তিন সপ্তাহ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে থাকবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

জনসন তার চিঠিতে এ বিশ্ব মহামারীকে ‘জাতীয় জরুরি পরিস্থিতি’ হিসাবে উল্লেখ করেছেন এবং আবারো জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা সুরক্ষাসহ জীবন বাঁচাতে সবাইকে সরকারি নির্দেশ মেনে বাড়িতে থাকার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন।


এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাজ্যে করোনায় মৃতের গণকবরে সমাহিত করা হতে পারে!

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৮ ০৬:৩৬:০৭



ইউনিভার্সিটি অফ হডার্সফিল্ড এর গবেষকদের একটি দলের অভিমত, প্রাণহানীর ঘটনা বৃদ্ধি পেলে তা মোকাবিলায় যুক্তরাজ্যের পরিষেবাগুলি ভালোভাবে প্রস্তুত নয়। তারা বলছেন, করোনাভাইরাসের মহামারীতে (পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে) স্থানীয় কর্তৃপক্ষ মৃতদেরকে গণকবরে কবর দিতে বাধ্য হতে পারে।

তারা পূর্বাভাস দিয়েছেন যে কোভিড-১৯-এ সংক্রামিতদের মধ্যে মৃত্যুর হার যদি এমনকি ১ শতাংশ পর্যন্তও পৌঁছে যায় তবে দাফন সংক্রান্ত পরিষেবাগুলি ব্যাহত হতে পারে। মৃত ব্যক্তির ডেথ সার্টিফিকেট দেয়া, জানাজার পরিষেবা প্রদান এবং এমনকি কবরের স্থান দেওয়ার ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি হতে পারে।

তাদের অভিমত,সীমিত কবরস্থানও একটি বড় সমস্যা হয়ে উঠতে পারে। যার ফলে গণকবরের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছ।

গবেষক ড. জুলিয়া মেটন, ড. আন্না উইলিয়ামস এবং  হেলেন-মেরি ক্রুগার স্বীকার করেছেন যে, এটি 'অত্যন্ত বিতর্কিত বিষয়। এটা অনেক সম্প্রদায়ের মন খারাপ ও ক্রুদ্ধতার বিষয় হবে'। তারা বলছেন,  গণকবরের বিষয়টা ব্যক্তিগত ট্র্যাজেডির বিষয় হয়ে দাড়াবে।

সম্প্রতি বার্মিংহাম বিমানবন্দরের একটি অংশকে কমপক্ষে ১,৫০০ মৃতদেহের জন্য অস্থায়ী কবরস্থানে পরিণত করার কাজ শুরু হয়েছে। এই ঘটনার পর এ ধরনের বিবৃতি আসলো।

এদিকে ওয়েস্ট মিডল্যান্ডস পুলিশ জানিয়েছে, মহামারীর বিস্তার যেহেতু বাড়ছে তাই কবর দেয়ার 'সক্ষমতা সম্প্রসারণের সুযোগ' বাড়াতে হবে।


এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

করোনাভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রে ৮১ হাজার মানুষের মৃত্যু হবে: গবেষণা

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৭ ০৯:১৯:৪৫

মহামারী করোনাভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রে আগামী চার মাসে অন্তত ৮১ হাজার মানুষের মৃত্যু হতে পারে। আর জুনের আগে ভাইরাসটির প্রকোপ নাও কমতে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন ইউনির্ভাসিটি অব ওয়াশিংটন স্কুল অব মেডিসিনের এক দল গবেষক।

বিভিন্ন তথ্যম-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে তারা এ আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন।

গবেষকদের মতে, আগামী এপ্রিল মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাবে। এর মধ্যে কোনো কোনো রাজ্যে ওই মাসের শেষ দিকে রোগী বাড়তে পারে। জুলাইয়ের শেষ দিক পর্যন্ত এ ভাইরাসের কারণে কোনো কোনো রাজ্যক থেকে মারা যাওয়ার খবর আসতে পারে। তবে মারা গেলেও জুনের শেষ দিকে সে সংখ্যা দিনে ১০ এর নিচে নেমে যেতে পারে।

সরকারি তথ্য, হাসপাতাল এবং অন্যা ন সূত্র থেকে পাওয়া তথ্য থেকে গবেষকরা ধারণা করছেন, ভাইরাসটিতে যুক্তরাষ্ট্রে কম বেশি হলে মৃত্যুযর সংখ্যাও ৩৮ হাজার থেকে এক লাখ ৬২ হাজার পর্যন্ত হতে পারে।

এদিকে করোনা সংক্রমণ বিস্তারে চীন ও ইতালিকে ছাড়িয়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৮৫ হাজারের বেশি। চীনে ৮১ হাজার ৮৯৪ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন, আর ইতালিতে সে সংখ্যা ৮০ হাজার ৫৮৯ জন।

বিশ্বের ১৯৯টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মারা গেছেন ২৪ হাজারের বেশি মানুষ। আক্রান্ত হয়েছেন সোয়া পাঁচ লাখের বেশি মানুষ। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন প্রায় সোয়া এক লাখ মানুষ।

এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন করোনায় আক্রান্ত

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৭ ০৮:২৮:১২

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাই তিনি নিজের সিদ্ধান্তেই আসোলেশনে (বিচ্ছিন্নকরণ) গেছেন। বরিস জনসন নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে এ কথা জানিয়েছেন।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি আজ শুক্রবার এ কথা জানায়। জনসন বিষয়টি নিয়ে টুইটারে একটি ভিডিও বার্তাও দিয়েছেন।

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন টুইটারে বলেছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণগুলো দেখা দেওয়ায় পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি ধরা পড়ে। তাই আমি স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তবে ঘরে বসে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাব।

আজ শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত যুক্তরাজ্যে ১১ হাজার ৮১৬ জন ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে দেশটিতে ৫৮০ জন মারা গেছে।

এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসে প্রতি ১৩ মিনিটে একজন মারা যাচ্ছে

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৬ ২৩:৩৮:৫৬

বর্তমানে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কেন্দ্র হয়ে উঠেছে ইউরোপ। ইতালি, স্পেন, ফ্রান্স রীতিমতো মৃত্যুপুরী। জার্মানি, সুইজারল্যান্ড, যুক্তরাজ্যের অবস্থাও ভয়াবহ।

যুক্তরাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১ হাজার ৬৫৮ জন, মারা গেছেন ৫৭৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ১২৯ জন, প্রাণ হারিয়েছেন ১১৫ জন। অর্থাৎ যুক্তরাজ্যে প্রতি ১৩ মিনিটে একজন মারা যাচ্ছেন করোনায়।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে ছয় মাস পর্যন্ত যুক্তরাজ্যে লকডাউন পরিস্থিতি থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন দেশটির এক জ্যেষ্ঠ স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। সব না হলেও বর্তমানে চলমান অনেক নিষেধাজ্ঞাই দীর্ঘদিন বলবৎ রাখার পক্ষে মত দিয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি বিবিসি রেডিও ৪-এর এক অনুষ্ঠানে এ কথা জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যের ডেপুটি চিফ মেডিকেল অফিসার ডা. জেনি হ্যারিস। তার মতে, আগামী দু’সপ্তাহের মধ্যেই দেশটিতে করোনা সংক্রমণ সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছাবে। এরপর থেকেই তা ধীরে ধীরে কমতে শুরু করবে এবং গ্রীষ্মকাল শুরুর সঙ্গে সঙ্গেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

দেশজুড়ে বর্তমান কড়াকড়ি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা চাই না এসব ব্যবস্থা এত তাড়াতাড়ি তুলে নেয়া হোক। এতে হঠাৎ করেই সংক্রমণ বেড়ে যেতে পারে, যাতে আমাদের সব চেষ্টাই বৃথা হয়ে যাবে।’ ডা. জেনি বলেন, ‘সব মিলিয়ে অন্তত ছয় মাসের মতো হতে পারে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা পাঁচ লাখের কোটা পেরিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সারাবিশ্বে করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন প্রায় ৫৪ হাজার। ফলে বৃহস্পতিবার দিনগত রাত ১টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত আক্রান্তের মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ২০ হাজার ৩৬০ জন। গতকাল এটি ছিল ৪ লাখ ৬৬ হাজার ৭৫৯ জন।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথমবারের মতো শনাক্ত হয় নভেল করোনাভাইরাস। এরই মধ্যে বিশ্বের অন্তত ১৯৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে সেটি। এতে মারা গেছেন অন্তত ২৩ হাজার ৫৯৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যা বেড়েছে প্রায় আড়াই হাজার।

এম/এইচ/টি

বিস্তারিত খবর

লন্ডন ব্রিজে সন্ত্রাসী হামলা,নিহত এক

 প্রকাশিত: ২০১৯-১১-২৯ ১৩:০৬:৩৮


যুক্তরাজ্যের লন্ডন ব্রিজে সন্ত্রাসী হামলায় কমপক্ষে একজন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় ব্রিজটি ঘিরে রেখেছে পুলিশ। স্থানীয় সময় শুক্রবার বেলা ২টার দিকে সেন্ট্রাল লন্ডনে এ ঘটনা ঘটে। খবর বিবিসির।

খবরে বলা হয়, লন্ডন ব্রিজে ছুরি নিয়ে এক ব্যক্তি হামলা চালায়। এ সময় বেশ কয়েকজনকে ছুরিকাঘাত করা হয়। হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। এক পর্যায়ে পুলিশও গুলি ছুঁড়ে। পরে তারা নিশ্চিত করে সেই হামলাকারী এবং সে মারা গেছে। পুলিশ একে সন্ত্রাসী হামলা বলে নিশ্চিত করেছে।

নিরাপত্তাকর্মীরা জানান, পুলিশ সন্দেহভাজন একজনকে গুলি করেছে। এক সন্দেহভাজনকে আটক করা হয়েছে। হামলার পর পরই ওই এলাকা ঘেরাও করে রেখেছে পুলিশ। সেতু দিয়ে সব ধরনের চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়।

ব্রিটিশ ট্রান্সপোর্ট পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার পর লন্ডন ব্রিজ স্টেশন তাৎক্ষণিকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

২০১৭ সালের জুনে লন্ডন ব্রিজ ও বারো মার্কেটে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। সে ঘটনায় ৭ জন নিহত হয়। এ ঘটনাকে ব্রিটেনের পুলিশ সন্ত্রাসী হামলা বলে উল্লেখ করেছে। ঘটনাটিকে ভয়াবহ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন তৎকালীন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী।

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে যাত্রীকে ধর্ষণের পর সেলফি, উবারচালকের জেল

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৫-১১ ১৩:৪৯:৫৫

যাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে যুক্তরাজ্যে একজন উবার চালককে ১২ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মুহাম্মদ খুররাম দুররানি নামের ওই ব্যক্তি তার ২৭ বছর বয়সী যাত্রীকে তার গাড়ির পেছনে সিটে ধর্ষণ করেন এবং সেলফি তোলেন। খবর দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্টের।

সাউথওয়ার্ক ক্রাউন কোর্টের বিবরণীতে জানা যায়, ৩৮ বছর বয়সী দুররানি ২০১৬ সালের ২৩ জুলাই রাতে ওই নারীকে তার গন্তব্যে পৌঁছে দেয়।

বিচারক ডেভিড টমলিনসন বলেন, ওই চালক তার যাত্রীর ঘুমন্ত ছবি তোলার পর ‘আত্মনিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে’। তারা গন্তব্যস্থলে পৌঁছালে ওই নারী যখন তার বাড়ির সমুখ দরজার কাছে যায়, তখন দুররানি তাকে পেছনে থেকে ধরে গাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে ওই নারীকে নির্যাতন ও ধর্ষণ করে দুররানি। তার কৃতকর্মের পর ওই নারীর সঙ্গে একটি সেলফিও তোলেন দুররানি।

বিচারক টমলিনসন বলেন, এটা বলা অবাক করা ব্যাপার বা অতিরঞ্জিত হবে না যে আপনি ওই নারীর জীবন ধ্বংস করে দিয়েছেন। ওই রাতে আপনি যে ক্ষতি করেছেন তা অপরিমেয়।

রায়ের সময় বিচারক টমলিনসন আরও বলেন, আমার এতে কোনো সন্দেহ নেই যে, দুররানি এ বিষয়ে পুরোপুরি নিশ্চিত ছিলেন, তার শিকার ‘প্রায় অবশের মতো মাতাল’ ছিল।

দক্ষিণ লন্ডনের স্ট্রেটহ্যামের বাসিন্দা দুররানিকে গেলো এপ্রিলে যৌন নিপীড়ন ও ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত করা হয়। আদালত ওই দুই অপরাধে দুররানিকে যথাক্রমে ৮ বছর ও ১২ বছর কারাদণ্ড দেন। তবে দুররানির সাজা ১২ বছরই হবে। যেহেতু দুটো অপরাধেরই কারাদণ্ড একইসঙ্গে চলবে।

এছাড়া সেক্স অফেন্ডার্স রেজিস্টারে আজীবনের জন্য দুররানির নাম লিপিবদ্ধ করা হবে। একইসঙ্গে পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ন্ত্রণ আদেশ ও সেক্সুয়াল হার্ম প্রোটেকশন অর্ডার দিতে পারবেন আদালত।

উল্লেখ্য, এর আগে যুক্তরাজ্যের কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা লন্ডনে উবারের লাইসেন্স নবায়ন করবে না। এর কারণ হিসেবে উবার চালকদের অপরাধের রেকর্ড ও অন্যান্য বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির মনোভাবকেই দায়ী করেন কর্তৃপক্ষ।

এলএবাংলাটাইমস/এলএলআরটি

বিস্তারিত খবর

নিউইয়র্কে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের আলোচনা সভা

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৪-১৯ ১৫:০৫:১৬

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতায় ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক সাতই মার্চের মতো ‘মুজিবনগর সরকার’ প্রতিষ্ঠার ঘটনাও ঐতিহাসিক। ১৯৭১ সালের  ১৭ এপ্রিল শেখ মুজিবের অনুপস্থিতিতে মেহেরপুরের আ¤্রকাননে জাতীয় নেতা নজরুল ইসলামকে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি আর তাজউদ্দিন আহমদকে প্রধানমন্ত্রী করে বাংলাদেশ সরকার গঠন করা হয়। সেই দিনের সরকার গঠনের সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের স্বাধীনতার আন্দোলনকে তড়ান্বিত করে। বক্তাদের কেউ কেউ বাংলাদেশের রাজধানী মুজিবনগর করার দাবী এবং আগামী নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগকে পু:ননির্বাচিত করে দেশের উন্নয়নের ধারা আব্যাহত রাখতে ভূমিকা রাখার জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানান।

সভায় বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সদস্য অধ্যাপক ডা. এম হাবীবে মিল্লাত মুজিবনগর দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে বলেন, বাংলাদেশের সর্বত্রই উন্নয়নের জোয়ার বইছে। দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে হবে। আর এজন্য শুধু আওয়ামী লীগ সমর্থকদের ভোট পেলেই চলবে না, দেশের সংখ্যাগরিষ্ট লোকের ভোট দরকার। কেননা, আওয়ামী লীগ-বিএনপি’র সমর্থকদের বাইরেও বিপুল সংখ্যক ভোটার রয়েছেন। তাদেরকে নৌকার পক্ষে ভোট দিতে প্রবাসীদের অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে।

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন উপলক্ষে গত ১৬ এপ্রিল সোমবার রাতে জ্যাকসন হাইটসের জুইস সেন্টারে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ব্যানারে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সিরাজগঞ্জ-২ আসন (সদর-কামারখন্দ)-এর সদস্য প্রফেসর ডা. হাবীবে মিল্লাত। সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কার্যকরী পরিষদের অন্যতম সদস্য শরীফ কামরুল আলম হীরা। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্বদ্যিালয়ের প্রো-ভিসি অধ্যাপক ডা. শরাফ উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ ক্যান্সার সোসাইটির সভাপতি ড. প্রফেসর ওয়াহেদ উল্লাহ বাকী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম উপদেষ্টা ড. মহসীন আলী, ডা. মাসুদুল হাসান, ড. প্রদীপ রঞ্জন কর, তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী, বদরুল হোসেন খান ও হাকিকুল ইসলাম খোকন, জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সমন্বয়কারী ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহিম বাদশা, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ড. আবদুল বাতেন, মুক্তিযোদ্ধা সরাফ সরকার ও নিউইর্য়ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুর রহমান রফিক, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের আহবায়ক তারেকুল হায়দার চৌধুরী।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকীর সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দলের কার্যকরী পরিষদের সদস্য ও গোপালগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হিন্দাল কাদির বাপ্পা, মুক্তিযোদ্ধা বিএম বাকির হোসেন (হিরু ভূইয়া), মুক্তিযোদ্ধা ফারুক হোসাইন, শেখ হাসিনা মঞ্চের সভাপতি জালাল উদ্দিন জলিল, আওয়ামী লীগ নেতা ওয়ালী হোসেন, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগের সহ সভাপতি মঞ্জুর চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি দুরুদ মিয়া রনেল, নিউইর্য়ক মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সাইকুল ইসলাম, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জেডএ জয়,  সহ সভাপতি শহিদুল ইসলাম, শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ ইউএস’র সভাপতি লিপটন এবং নিউইয়র্ক প্রবাসী ও সিরাজগঞ্জের কামারকন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আবদুল মজিদ মন্ডল ।

সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জিনাত বেগম এবং গীতা থেকে পাঠ করেন গনেশ কির্ত্তনীয়া। এরপর ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুুজিবনগর সরকারের নেতৃবৃন্দ সহ সকল শহীদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। পরে সঙ্গীত শিল্পী রোকেয়া খানমের নেতৃত্বে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। এছাড়াও জিনাত বেগম একটি কবিতা আবৃত্তি করেন।

অনুষ্ঠানে উল্লাপাড়া সমিতি ইউএসএ, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিকলীগ ও যুবলীগের পক্ষ থেকে ডা. হাবীবে ডা. মিল্লাত এমপি-কে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।
সভায় ডা. হাবীবে মিল্লাত বলেন, মুজিবনগর সরকারের তাৎপর্য উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, দিবসটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এক অনন্য দিন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ১৭ এপ্রিল মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলা গ্রামের আ¤্রকাননে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে শপথ গ্রহণ করে। আর স্বাধীনতা সংগ্রামের সেই কঠিন মুহুর্তে মুজিবনগর সরকার বাঙালীর স্বাধীনতা আন্দোলনের ন্যয়সঙ্গত অধিকারের পক্ষ্যে বহির্বিশ্বে জনমত গঠন ও বিভিন্ন রাষ্ট্রসমূহের সমর্থন আদায়ে মূল ভূমিকা পালন করে।
ডা. হাবীবে মিল্লাত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডের সংক্ষিপ্ত বিবরণ তুলে ধরে বলেন, বিএনপি-জামায়াত অপশক্তি উন্নয়নের প্রধান শত্রু। আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নির্বাচিত না হলে দেশ আবারো পিছিয়ে যাবে। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষার্থে তিনি বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগকে আবারো বিজয়ী করার আহবান জানান।

নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগ, মহানগর আওয়ামী লীগ, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগ, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র শেখ হাসিনা মঞ্চ, যুক্তরাষ্ট্র  মহিলা আওয়ামী লীগ, যুক্তরাষ্ট্র শেখ কামাল স্মৃতি পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের সহযোগিতায় ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় বলে সভায় উল্লেখ করা হয়। 


এলএবাংলাটাইমস/এনওয়াই/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে বিক্ষোভের মুখে মোদি

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৪-১৯ ১৪:৪৩:৪৮

কাশ্মীরের কাঠুয়ায় নাবালিকা ধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে  বিদেশের মাটিতেও। এই ইস্যুতে এবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিক্ষোভের মুখোমুখি হলেন। লন্ডনের পার্লামেন্ট স্কোয়ারের সামনে মোদির বিরুদ্ধে স্লোগান দিলেন বিক্ষোভকারীরা। মঙ্গলবার রাতে সুইডেন থেকে যুক্তরাজ্যে আসেন মোদি। বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন। খবর পশ্চিমবঙ্গ দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা।

বুধবার ডাউনিং স্ট্রিটে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে'র বাসভবনে তার সঙ্গে দেখা করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

ডাউনিং স্ট্রিটে মোদিকে অভ্যর্থনা ও বৈশাখীর শুভেচ্ছা জানাতে অনেকে আসলেও এসময়  কাশ্মীরের কাঠুয়ায়  নির্যাতিতার ছবিসহ অনেককে বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে।  সেই ছবির নিচে স্পষ্টই লেখা রয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর দলের নেতারা ওই ঘটনায় অভিযুক্তদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। পরে ওয়েস্টমিনস্টারে প্রবাসী ভারতীয়দের সঙ্গে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

তার আগেই পার্লামেন্ট স্কোয়ার এবং ওয়েস্টমিনস্টার ক্যাথিড্রালের সামনে শুরু হয় বিক্ষোভ।  কাশ্মীরের নির্যাতিতার সুবিচার ও নিহত সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের খুনিদের গ্রেপ্তারের দাবিতে বিক্ষোভ হয়।

উল্লেখ্য,  আট বছরের  কন্যা শিশু আসিফা বানুকে চলতি বছরের জানুয়ারিতে জম্মু ও কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলার রাসানা গ্রামে এক সপ্তাহ ধরে আটকে রেখে ধর্ষণ করার পর হত্যা করা হয়।

এলএবাংলাটাইমস/এ/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে বাঙালি কাউন্সিলর প্রার্থীর ওপর হামলা

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৪-০৮ ০১:০৬:২০

লন্ডনে হামলার শিকার হয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন। তিনি পূর্ব লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটস নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী।

গত শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকেলে নিজের নির্বাচনী প্রচারকালে হামলার শিকার হন আবদুল্লাহ আল মামুন। তাঁর মাথা ফেটে রক্ত ঝরে। চিকিৎসা শেষে তিনি বাসায় ফিরেছেন। এ ঘটনা আবারও জাগিয়ে দিল টাওয়ার হ্যামলেটসের ‘নোংরা রাজনীতি’র বদনাম।

আগামী ৩ মে যুক্তরাজ্যে স্থানীয় সরকার নির্বাচন। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে জমে উঠেছে প্রচার-প্রচারণা। আর বাংলাদেশি-অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটসে নির্বাচন মানেই আলাদা উত্তাপ। নেতিবাচক ঘটনার কারণে এই কাউন্সিলের নির্বাচন বরাবরই খবরের শিরোনাম হয়।

মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন টাওয়ার হ্যামলেটসের স্বতন্ত্র দল অ্যাসপায়ারের প্রার্থী। লড়ছেন ওয়াপিং ওয়ার্ডে। পেশায় রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ী মামুন এবারই প্রথম নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন। বাংলাদেশে তাঁর বাড়ি কুমিল্লার লালমাই থানার ভাবকপাড়া গ্রামে।

গতকাল শনিবার রাতে আবদুল্লাহ আল মামুন  বলেন, নিজ নির্বাচনী এলাকার রিয়ারডন হাউস ভবনে ঘরে ঘরে গিয়ে নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছিলেন তিনি। ভবনটির দোতলায় মুখোশধারী এক লোক পেছন থেকে তাঁর মাথায় শক্ত ধাতব বস্তু দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। এতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তাঁর মাথা থেকে প্রচুর রক্ত ঝরতে থাকে। কোনো রকমে ভবন থেকে নেমে আসেন। আশপাশের লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। মিনিট দশেকের মধ্যে পুলিশ এসে তাঁকে উদ্ধার করে। স্থানীয় রয়্যাল লন্ডন হাসপাতালে তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হয়। গতকাল ভোরে তিনি বাসায় ফেরেন। মামুন জানান, তাঁর মাথায় ১১টি সেলাই দিতে হয়েছে।

এই কাউন্সিলর প্রার্থী বলেন, কারও সঙ্গে তার কোনো শত্রুতা নেই। নির্বাচনী প্রচারকাজ থেকে বিরত রাখতে এই হামলা হয়েছে বলে তিনি মনে করেন। এর আগে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এক লোক তাঁকে নির্বাচনী প্রচার থেকে বিরত থাকতে হুমকি দিয়েছিল বলে দাবি করেন তিনি।

অ্যাসপায়ার দলের মেয়র প্রার্থী আবুল মনসুর অহিদ আহমদ গতকাল বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলন করে এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, যারা হামলা চালিয়েছে, তারা সন্ত্রাসী। একটি গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় এমন আচরণ কোনোভাবে কাম্য নয়। অহিদ আহমদ জানান, তিনি স্থানীয় পুলিশপ্রধান ও রিটার্নিং কর্মকর্তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। এই ঘটনার দ্রুত বিচারের পাশাপাশি তাঁর দলের কাউন্সিলর প্রার্থীদের নিরাপত্তা চেয়েছেন।


এলএবাংলাটাইমস/এ/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে বিএনপি কর্মীদের হামলা, ভাঙচুর

 প্রকাশিত: ২০১৮-০২-০৭ ২৩:৫৬:২৭

লন্ডনের বাংলাদেশ হাইকমিশনে জোর করে ঢুকে ভাঙচুর করেছেন বিএনপির যুক্তরাজ্য শাখার নেতা-কর্মীরা । একপর্যায়ে তাঁরা সেখানে থাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি ভাঙচুর করেন। গতকাল বুধবার স্থানীয় সময় বিকেল চারটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার আগে প্রায় ১০ মিনিট পর্যন্ত বিএনপি কর্মীরা হাইকমিশনের নিচতলার অভ্যর্থনাকক্ষে হট্টগোল করেন। হাইকমিশনের বিভিন্ন কর্মকর্তার নাম ধরে খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন। এ ঘটনায় পুলিশ যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নাসির আহমদ শাহীনকে আটক করেছে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে যুক্তরাজ্য বিএনপি। স্থানীয় সময় বেলা আড়াইটা থেকে বিকেল সাড়ে চারটা পর্যন্ত চলা ওই বিক্ষোভে দুই শর বেশি নেতা-কর্মী যোগ দেন।

লন্ডন মহানগর বিএনপির নির্বাহী সদস্য দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘সরকার জোর করে আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জেলে বন্দী করতে চায়। সরকারকে হুঁশিয়ার করে দিতেই আমরা এখানে হাজির হয়েছি।’

পশ্চিম লন্ডনের কেনসিংটন এলাকার ‘কুইন্স গেট’ রাস্তায় অবস্থিত বাংলাদেশ হাইকমিশন। হাইকমিশনের বিপরীত পাশের ফুটপাতে বিএনপি কর্মীদের বিক্ষোভের জন্য বেষ্টনী তৈরি করে দেয় ‍পুলিশ। একপর্যায়ে রাস্তা পার হয়ে বিএনপির বেশ কিছু নেতা-কর্মী হাইকমিশন ভবনে ঢুকে পড়েন।

হাইকমিশনের এক কর্মকর্তা বলেন, বিএনপি নেতা-কর্মীরা শুরু থেকেই আগ্রাসী এবং বেপরোয়া ছিলেন। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে হাইকমিশনের কর্মকর্তা কে এম শামীম রেজা ও আজিজুর রহমানকে বাইরে নিয়োজিত করা হয়। তাঁদের উদ্দেশ করে বিক্ষোভকারীরা গালাগাল এবং নানা হুমকি-ধমকি দিতে থাকেন। একপর্যায়ে হাইকমিশনের কর্মকর্তা শামীম রেজাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাইকমিশনের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, স্মারকলিপি দেওয়ার জন্য বিএনপির একজনকে ভেতরে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু পুলিশকে ধাক্কা দিয়ে ওই সময় বিএনপির ১৫ থেকে ২০ জন নেতা-কর্মী ভেতরে ঢুকে পড়েন। অভ্যর্থনাকক্ষে রাখা বঙ্গবন্ধুর একটি ছবির ফ্রেম ভেঙে ছবিটি বাইরে নিয়ে যান। বিএনপির লোকজন একটি চেয়ারও ভাঙচুর করেন বলে জানান এই কর্মকর্তা।

হাইকমিশনের ওই কর্মকর্তা আরও জানান, বিএনপির এই বিক্ষোভ সম্পর্কে ‘ডিপ্লোম্যাটিক পুলিশ’কে আগেভাগে জানিয়ে রাখা হয়েছিল। কিন্তু নিরাপত্তাব্যবস্থা পর্যাপ্ত ছিল না। ঘটনার পর মেট্রোপলিটন পুলিশের স্থানীয় কমান্ডারকে টেলিফোন করা হয়। তিনি হাইকমিশনে এসে দুঃখ প্রকাশ করেন এবং অপরাধীদের আটকের আশ্বাস দেন।

যোগাযোগ করা হলে যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক বলেন, তাঁরা শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ করছিলেন। কিন্তু হাইকমিশনের কর্মকর্তারা সেখানে তাঁদের ছবি তুলতে যান। গুমের লিস্টে নাম দিয়ে দেওয়ার হুমকি দেন। হাইকমিশন তাঁদের স্মারকলিপি দেওয়ার অনুমতি দিচ্ছিল না। যে কারণে নেতা-কর্মীরা ক্ষুব্ধ হন। আজ  বাংলাদেশে খালেদা জিয়ার মামলার রায় ঘোষণা শেষ না হওয়া পর্যন্ত যুক্তরাজ্য বিএনপির নেতা-কর্মীরা ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করবেন বলে জানান এম এ মালেক।

আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ হাইকমিশনের সামনে যুক্তরাজ্য বিএনপির আবারও বিক্ষোভ করার কথা ছিল। কিন্তু সেটি বাতিল করা হয়েছে। যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি বলেন, ‘হাইকমিশনে সব আওয়ামী লীগের লোক। ওরা আমাদের স্মারকলিপি নিতে চায় না। তাই তাদের কাছে গিয়ে কোনো লাভ নেই।’

লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশের গণসংযোগ শাখা জানায়, গতকাল বাংলাদেশ হাইকমিশনের সামনে অনুষ্ঠিত এক বিক্ষোভে পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বিকেল সাড়ে চারটার দিকে বিক্ষোভকারীরা স্থান ত্যাগ করেন। ক্ষয়ক্ষতির সঙ্গে জড়িত সন্দেহে পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করে। তদন্ত চলছে।


এলএবাংলাটাইমস/এ/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাজ্যে ইইউ বহির্ভূত অভিবাসীদের তালিকায় শীর্ষ দশে বাংলাদেশিরা

 প্রকাশিত: ২০১৭-১২-০৫ ১০:১৬:৪৯

যুক্তরাজ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) বহির্ভূত অভিবাসীদের সর্বোচ্চ সংখ্যার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অষ্টম স্থানে অবস্থান করছে। ২০১৬ সালের জুলাই থেকে ২০১৭ সালের জুন পর্যন্ত হিসেবে তালিকায় বাংলাদেশের এই অবস্থান। এ সময়ে বাংলাদেশ থেকে ৬৯ হাজার মানুষ যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমিয়েছেন। বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যের জাতীয় পরিসংখ্যান কার্যালয় (ওএনএস) এই তথ্য জানিয়েছে।

ওএনএস-এর তথ্য অনুসারে, ইইউ বহির্ভূত অভিবাসীদের তালিকায় শীর্ষ দশ দেশের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকা (৭৫ হাজার) সপ্তম ও অস্ট্রেলিয়া (৭১ হাজার) ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে। এই সময়ে যুক্তরাজ্যে সর্বোচ্চ অভিবাসী আসা পাঁচটি দেশের মধ্যে রয়েছে ভারত (৩ লাখ ৫ হাজার), পাকিস্তান (১ লাখ ৭১ হাজার), চীন (১ লাখ ৯ হাজার), নাইজেরিয়া (৯০ হাজার) ও যুক্তরাষ্ট্র (৮৪ হাজার)।

সামগ্রিকভাবে ২০১৬ সালের জুনে ব্রেক্সিটের পক্ষে গণভোটের এই প্রথম অভিবাসীদের সংখ্যা কমেছে। এর আগের বছরের তুলনায় এই সময়ে অভিবাসীর সংখ্যা কমেছে ১ লাখ ৬ হাজার।

ওএনএস-এর অভিবাসন পরিসংখ্যানের প্রধান নিকোলা হোয়াইট জানান, সংখ্যা কমে এসেছে কারণ এর আগের বছর সর্বোচ্চ সংখ্যক অভিবাসী এসেছিল। এখনই বলা যাচ্ছে না বিষয়টি দীর্ঘ মেয়াদি প্রবণতা হবে। এই পরিবর্তনের ফলে মনে হচ্ছে মানুষের স্থানান্তরিত হওয়ার ক্ষেত্রে ব্রেক্সিটের প্রভাব থাকতে পারে। তবে অভিবাসন অনেক জটিল ও অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় থাকে।

গত বছরে ইইউ বহির্ভূত অভিবাসীদের যুক্তরাজ্য ছেড়ে চলে যাওয়ার সংখ্যা স্থিতিশীল রয়েছে। তবে ইইউ নাগরিকদের দেশটি ছেড়ে যাওয়া উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যমের একাংশ এই প্রবণতাকে ‘ব্রেক্সোডাস’ হিসেবে আখ্যায়িত করছে।

পরিসংখ্যান অনুসারে, ইইউ নাগরিকদের যুক্তরাজ্য থেকে চলে যাওয়ার পরিমাণ ২৯ শতাংশ (১ লাখ ২৩ হাজার)। ৪৩ জানিয়েছেন তারা নিজ দেশে ফিরে যাবেন। ২০০৮ সালের অর্থনৈতিক মন্দার পর যুক্তরাজ্য ছেড়ে চলে যাওয়ার এটিই সর্বোচ্চ সংখ্যা।

গত ১২ মাসে যুক্তরাজ্যে এসেছেন ৫ লাখ ৭২ হাজার মানুষ। আর অভিবাসিত হয়েছেন ৩ লাখ ৪২ হাজার। এই সময়ে অভিবাসীর সংখ্যা কমেছে ৮০ হাজার।

যুক্তরাজ্যের কনজারভেটিভ পার্টির সরকার বার্ষিক অভিবাসীদের সংখ্যা কমিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। সর্বশেষ এই পরিসংখ্যানকে স্বাগত জানিয়েছেন মন্ত্রীরা। বিরোধী দল লেবার পার্টি জানিয়েছে, সরকারের অভিবাসীদের সংখ্যা ১ লাখের নিচে নামিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা অর্থহীন।

এলএবাংলাটাইমস/এ/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডনে বন্ধ হচ্ছে উবার

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৯-২৪ ০১:৪৮:৪০

যুক্তরাজ্যের লন্ডনে অ্যাপভিত্তিক ট্যাক্সি সেবা নেটওয়ার্ক উবার বন্ধ হচ্ছে চলতি মাসেই।

ট্রান্সপোর্ট ফর লন্ডন জানিয়েছে, অ্যাপভিত্তিক ট্যক্সি সার্ভিস উবারের লাইসেন্স আর নবায়ন করা হবে না। শুক্রবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

লন্ডন ট্রান্সপোর্টের এই সংস্থাটি আরো জানায়, ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে দায়িত্বশীলতাসহ বিভিন্ন জায়গায় বড় ধরনের ঘাটতি রয়েছে অ্যাপভিত্তিক এই প্রতিষ্ঠানটির। এসব ঘাটতি নাগরিকদের জন্য নিরাপত্তা ঝুঁকি তৈরি করতে পারে।

এদিকে লাইসেন্স নবায়ন না করার সিদ্ধান্তের বিপক্ষে অবিলম্বে আদালতে যাবার ঘোষণা দিয়েছে উবার কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, লন্ডনে প্রায় ত্রিশ লাখেরও বেশি মানুষ এই সার্ভিসটি গ্রহণ করে এবং চালক আছে অন্তত ৪০ হাজার।

এদিকে উবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘যারা ভোক্তাদের পছন্দ সীমিত করে ফেলতে চায় তাদের পথে চলছে ট্রান্সপোর্ট ফর লন্ডন ও শহরটির মেয়র। এই সিদ্ধান্তে বুঝা যায় লন্ডন উদার নয়’।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাজ্যের ৪০টির বেশি শহরে এই সেবা চালু রয়েছে। গত বছরের ২২ নভেম্বর উবার ঢাকায় যাত্রা শুরু করে।

এলএবাংলাটাইমস/এল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

লন্ডন অগ্নিকাণ্ড : পাঁচ দিন পর এক পরিবারকে জীবিত উদ্ধার

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৬-২০ ১৬:৫৪:৫১

লন্ডনের গ্রেনফেল টাওয়ারের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিখোঁজদের মধ্যে পাঁচজনকে নিরাপদে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ঘটনার পাঁচ দিন পরে সিরিয়ান পরিবারের এ পাঁচ সদস্যকে নিরাপদে জীবিত উদ্ধারকে অলৌকিক বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল এ খবর প্রকাশ করেছে।

এখন পর্যন্ত এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৭৯ জন নিখোঁজ রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে টাওয়ারের ভিতরে আটকে পড়ে তাদের সকলেরই মৃত্যু হয়েছে।

কুদাইরের পরিবার নামে পরিচিত উদ্ধারকৃত পরিবারের মধ্যে তিনজন তরুণীও রয়েছে। পরিবারটি উন্নত জীবনের আশায় যুদ্ধাক্রান্ত সিরিয়া থেকে ব্রিটেনে পালিয়ে এসেছিলেন। পরিবারটি টাওয়ারের প্রায় মধ্যভাগের উপরের অংশে এক ফ্ল্যাটে থাকতেন। তাদের ইংরেজি ভাষা শিক্ষিকা ক্যাথেরিন লিন্ডসে পরিবারটির নিখোঁজের ব্যাপারে জানিয়েছিলেন।

এ ঘটনার তদন্ত কমিটির প্রধান মেট্রোপলিটন পুলিশ কমান্ডার স্টুয়ার্ট কন্ডি এ জীবিত উদ্ধারের ঘোষণা দেন। কিন্তু উদ্ধারকৃত পরিবারের পরিচয় প্রকাশ করেননি তিনি।

গত বুধবার রাত একটার দিকে ল্যাটিমার রোডে অবস্থিতগ্রেনফেল টাওয়ারে দেশটির ইতিহাসে ভয়াবহ এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।


এলএবাংলাটাইমস/এল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত