যুক্তরাষ্ট্রে আজ শনিবার, ২০ জানুয়ারী, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 10:51am

|   লন্ডন - 04:51am

|   নিউইয়র্ক - 11:51pm

  সর্বশেষ :

  বাংলাদেশ স্পোর্টস কাউন্সিল অব আমেরিকা’র কমিটি ঘোষণা   রোহিঙ্গা সংকট দ্রুতগতিতে বাড়ছে, জরুরি সহায়তা প্রয়োজন : বিশ্বব্যাংক   ভেরিফিকেশনে গিয়ে ফুল-মিষ্টি দিয়ে পুলিশ সুপারের শুভেচ্ছা!   দেশের রেডিওতে শুদ্ধ বাংলা ব্যবহারের নির্দেশ   দ্বিতীয় মেয়াদেও প্রেসিডেন্ট পদে প্রার্থী হবেন সিসি   ভুয়া খবরের প্রচার ঠেকাতে ‘বিশ্বস্ত সংবাদমাধ্যম’র র‍্যাংকিং করবে ফেসবুক   কঙ্গোতে বিদ্রোহীদের হামলায় ২২ সেনা নিহত   যুক্তরাষ্ট্রে সরকার ব্যবস্থায় অচলাবস্থা, নেপথ্য কারণ   টাওয়ার হ্যামলেটসকে ‘ট্রাম্পমুক্ত এলাকা’ ঘোষণা : নেতৃত্বে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কাউন্সিলর   সিলেটে অর্থমন্ত্রীর গাড়ির ধাক্কায় ১০ জন আহত   নাইজেরিয়ায় আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ১২   জাতিসংঘের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ   রাজশাহীতে প্রথম ফ্লাইওভার নির্মাণের সিদ্ধান্ত   তহবিল সংকটের কারণে ফের শাটডাউনের শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্র   ফিলিস্তিনকে সাড়ে ৪ কোটি ডলার খাদ্য সহায়তা দেবে না যুক্তরাষ্ট্র

>>  স্বদেশ এর সকল সংবাদ

রোহিঙ্গা সংকট দ্রুতগতিতে বাড়ছে, জরুরি সহায়তা প্রয়োজন : বিশ্বব্যাংক

বাংলাদেশে রোহিঙ্গা উদ্বাস্তু সংকট দ্রুতগতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে। রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ বন্ধে এবং মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া এসব রোহিঙ্গার জন্য জরুরি সহায়তা প্রয়োজন। শনিবার ঢাকায় বিশ্বব্যাংকের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা বলা হয়।

বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া আঞ্চলিক ভাইস প্রেসিডেন্ট এ্যানেট ডিক্সন কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শিবিরগুলো পরির্দশন শেষে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া বিপুলসংখ্যক রোহিঙ্গার আশ্রয় দেয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকার এবং জনগণের প্রশংসা করেছেন।

তিনি বলেন, বিশ্বব্যাংক কক্সবাজারে আশ্রয় গ্রহণকারী

বিস্তারিত খবর

ভেরিফিকেশনে গিয়ে ফুল-মিষ্টি দিয়ে পুলিশ সুপারের শুভেচ্ছা!

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-২০ ১২:০১:৪৭

বিসিএস ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ পাওয়া ১২ জনের ভেরিফিকেশন করতে গিয়ে ফুল ও মিষ্টি দিয়ে তাদের শুভেচ্ছা জানিয়ে এসেছে পুলিশ। বুধ থেকে শনিবার (১৭ থেকে ২০ জানুয়ারি) বরিশালের উজিরপুর উপজেলার ৯ জন ও বানারীপাড়া উপজেলার ৩ জনের বাসায় ফুল ও মিষ্টি নিয়ে যান জেলা পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (উজিরপুর সার্কেল) মো. আকরামুল হাসান। ব্যতিক্রমী এমন উদ্যোগে মুগ্ধ সুপারিশ পাওয়া ১২ জনের অভিভাবকরাও।

৩৬তম বিসিএসে নিয়োগের সুপারিশ পেয়েছেন উজিরপুরের মইনুল ইমরান রানা, উম্মে সালমা তানিয়া, শাহজালাল নাইম, জাহিদুল ইসলাম, ইমরান হোসেন সোহাগ, সাদিয়া আফরিণ জুলি, মোর্শেদা আক্তার মিমি, সীমা মন্ডল ও এজেডএম খালিদ হাসান সৈকত এবং বানারীপাড়া উপজেলার মো. মিলন মিয়া, সাবিহা মেহবুবা লিয়া ও মাহমুদুল হাসান।

উজিরপুরের দক্ষিণ বড়াকোঠা গ্রামের সীমা মন্ডল বলেন, ‘পুলিশ ভেরিফিকেশনে নানা ধরনের হয়রানির কথা শুনেছি। আমি কিছুটা শঙ্কিত ছিলাম। তবে আমার ক্ষেত্রে ভেরিফিকেশনে এসে পুলিশ ফুল ও মিষ্টি দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে গেছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘শুনেছি, ওই পুলিশ কর্মকর্তা খোঁজ-খবর নেওয়ার পর মিষ্টি নিয়ে বাসায় আসেন এবং ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এ ঘটনায় আমি ও আমার পরিবার মুগ্ধ।’

নিয়োগের সুপারিশ পাওয়া একই গ্রামের আরও একজন বলেন, ‘আমি ভাবতেও পারিনি, পুলিশ কর্মকর্তা মিষ্টি নিয়ে বাসায় এসে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাবেন। সত্যিই এটি আমার জীবনের স্মরণীয় ঘটনা হয়ে থাকবে।’

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. আকরামুল হাসান বলেন, ‘নিয়োগের সুপারিশ পাওয়া ৯ জনের বাড়ি আমার থানার মধ্যে। সুপারিশপ্রাপ্তদের মধ্যে পুলিশ ভেরিফিকেশন নিয়ে ভীতি ও নেতিবাচক ধারণা থাকে। সে ধারণা ভেঙে দিতে আমি তাদের শুভেচ্ছা জানাতে গিয়েছিলাম।’ তিনি আরও বলেন, ‘কয়েক লাখ পরীক্ষার্থীর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে উজিরপুর উপজেলার ৯ জন শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়ে চাকরিতে নিয়োগের সুপারিশ পেয়েছেন। নিঃসন্দেহে তারা অনেক মেধাবী। সেজন্যও তাদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো।’


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

দেশের রেডিওতে শুদ্ধ বাংলা ব্যবহারের নির্দেশ

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-২০ ১১:৫৭:০৫

দেশের রেডিও স্টেশনগুলোকে শুদ্ধ বাংলা ব্যবহার করে অনুষ্ঠান উপস্থাপনার নির্দেশ দিয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে শুক্রবার এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এতে বাংলা ও ইংরেজির ভুল এবং বিকৃত উপস্থাপন না করতেও বলা হয়েছে।

রেডিও স্টেশনের বিভিন্ন অনুষ্ঠান উপস্থাপনার সময় বাংলা ও ইংরেজি মিলে বিকৃতভাবে ব্যবহার করা হয়, যেটি তারানা হালিমের দৃষ্টিতে ‘বাংরেজি’।

এ বিষয়ে তারানা হালিম জানান, বাংলা ও ইংরেজি মিলিয়ে যে ‘বাংরেজি’ ভাষা তৈরি হয়েছে, সেটি বন্ধ করতে বলেছি। বিভিন্ন রেডিও স্টেশনের বেশকিছু অনুষ্ঠানে আই নো, ইউ নো টাইপের শব্দ দিয়ে আধা ইংরেজি আধা বাংলা বলা হয়, যা বন্ধ হওয়া দরকার।

প্রতিমন্ত্রী জানান, ভাষার ক্ষেত্রে যারা এমন করছেন, তারা ঠিকমতো একটি ইংরেজি কিংবা বাংলা বাক্য বলতে পারবেন কিনা আমার সন্দেহ হয়।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

রাজশাহীতে প্রথম ফ্লাইওভার নির্মাণের সিদ্ধান্ত

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৯ ১২:১৮:৩৩

রাজশাহী নগরীতে প্রথম নির্মিত হতে যাচ্ছে একটি ফ্লাইওভার। নগরীর বুধপাড়া রেলক্রসিং এলাকায় ফ্লাইওভারটি নির্মিত হবে।

রাজশাহী-নওগাঁ-নাটোর চার লেন সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় এই ফ্লাইওভার নির্মাণ করা হবে। এ প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ১৮২ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। এর মধ্যে ফ্লাইওভার নির্মাণে ব্যয় হবে ২৯ কোটি ২৮ লাখ ৭৭ হাজার ৫৩২ টাকা।

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) উদ্যোগে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অধীন প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে। ইতিমধ্যে ফ্লাইওভার ও সড়ক নির্মাণ করতে ঢাকার দুই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে।

রাসিকের মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বলেন, রাজশাহী নগরীর যানজট নিরসন ও নগরবাসীর চলাচলের পথ সহজ করতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সুষ্ঠুভাবে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে।

তিনি জানান, এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান এমবিআইএল-আরই (জেভি)। প্রকল্পের অংশ হিসেবে ফ্লাইওভার নির্মাণ করবে ডিয়েনকো লিমিটেড।

মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বলেন, রাসিকের জন্য এটি অনেক বড় কাজ। ফ্লাইওভার নির্মাণের চুক্তি স্বাক্ষরের মাধ্যমে নাটোর-নওগাঁ সড়কের মধ্যে একটি বন্ধন তৈরি হতে যাচ্ছে। প্রকল্পের কাজ শেষ হলে নগরীর ট্রাফিক ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটবে।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

নারায়ণগঞ্জের ঘটনায় জড়িতদের বিচার হবেই : ওবায়দুল কাদের

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৯ ১০:৫৩:২৪

নারায়ণগঞ্জের ঘটনা তদন্ত করে এর সঙ্গে জড়িতদের বিচার হবেই বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

নারায়ণগঞ্জের ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি আয়োজিত আলোচনা সভায় শুক্রবার বিকেলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

কাদের বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে বলেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সঙ্গে কথা বলতে। নারায়ণগঞ্জের ঘটনা তদন্ত করে এর সঙ্গে জড়িতদের তিনি খুঁজে বের করতে বলেছেন। এ ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত, তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হবেই।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিচারপতি শামসুল হুদা।

গত ২৫ ডিসেম্বর থেকে নারায়ণগঞ্জে হকার উচ্ছেদ শুরু করে সিটি করপোরেশন। এরপর থেকেই হকাররা ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছিলেন।

গত ১৫ জানুয়ারি হকাররা শহরে তাদের বসতে দেওয়ার জন্য বিশাল সমাবেশ করেন। গত মঙ্গলবার শহরের চাষাঢ়ায় উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে হকারদের সঙ্গে মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর লোকজনের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এতে আহত হন সাংবাদিক, আওয়ামী লীগ নেতা, হকারসহ অন্তত অর্ধশত লোকজন।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইউরোপে অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরাতে প্রণোদনা দেবে ইইউ

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৮ ১৩:০২:০৬

ইউরোপে অবৈধভাবে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের একটি উন্নয়ন মডেলের অধীনে ফেরত আনতে চায় সরকার। যাতে তারা নিজে থেকেই দেশে ফিরে আসতে উৎসাহিত বোধ করে। ইতোমধ্যে ওই উন্নয়ন মডেলের আওতায় ইউরোপ ত্যাগ করা বাংলাদেশিদের প্রণোদনা দিতে সাড়ে ১২ মিলিয়ন ইউরো বরাদ্দ করেছে ইইউ।

এ বিষয়ে সরকারের একজন কর্মকর্তা বলেন, আমরা চাই ইউরোপে অবৈধভাবে অবস্থানরত বাংলাদেশিরা নিজ আগ্রহে দেশে ফেরত আসুক। এজন্য অভিবাসীরা দেশে ফেরত আসার সময় একটি ডেভেলপমেন্ট মডেলের আওতায় তাদের আর্থিক প্রণোদনা দিতে আমরা ইউরোপীয় ইউনিয়নকে (ইইউ) বলেছি। যাতে তারা দেশে ফেরত এসে নিজস্ব উদ্যোগে কিছু করতে পারে। ইতোমধ্যে প্রণোদনার জন্য অর্থ বরাদ্দও করেছে ইইউ।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ থেকে যারা ইউরোপে যায়, তারা প্রচুর অর্থ খরচ করেই যায়। তারা প্রধানত অর্থনৈতিক কারণেই যায়। ফলে তারা সেখানে অবৈধভাবে অবস্থান করে যত বেশি অর্থ আয় করা সম্ভব সেই চেষ্টা করে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে বাংলাদেশের চুক্তি অনুযায়ী, ইউরোপের দেশগুলো সেখান থেকে অনিয়মিত বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠাতে পারবে। বাংলাদেশ এই গোটা প্রক্রিয়াটি একটি উন্নয়ন মডেলের আওতায় করতে চায়। এই মডেলের মধ্যে অভিবাসীদের পুনর্বাসন, কর্মসংস্থানের জন্য অর্থ যোগান ও প্রশিক্ষণ ইত্যাদি বিষয় থাকবে।

ওই কর্মকর্তা জানান, এই খাতে ইইউ আগে সাড়ে ছয় মিলিয়ন ইউরো বরাদ্দ রেখেছিল। বর্তমানে তারা আরও ছয় মিলিয়ন বরাদ্দ করেছে। পরে বরাদ্দ আরও বাড়ানোর আশ্বাস দিয়েছে ইউরোপের দেশগুলোর এই জোট।

চুক্তির বাস্তবায়ন
গত সেপ্টেম্বরে নিউ ইয়র্কে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী এবং ইইউর অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী দিমিত্রিস আভ্রেমোপোলস ইউরোপ থেকে অনিয়মিত বাংলাদেশিদের ফেরত আনার জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করেন। গত মাসে এর প্রথম যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক ব্রাসেলসে অনুষ্ঠিত হয়।

সরকারের আরেকজন কর্মকর্তা বলেন, চুক্তি স্বাক্ষরের পর এর অধীনে গত চার মাসে অন্তত ৪০ জন বাংলাদেশি ফেরত এসেছেন। জার্মানি কমপক্ষে ১০০ জনের একটি তালিকা দিয়েছিল। সেখান থেকে যাচাই বাছাই করে অনিয়মিতদের ফেরত আনা হয়েছে এবং বাকিদের বিষয়ে যাচাই বাছাই চলছে।

এ চুক্তির অধীনে প্রথম ছয় মাস প্রতিমাসে ১০০ জনের বেশি তারা ফেরত পাঠাতে পারবে না।

ইউরোপে কত জন অনিয়মিত বাংলাদেশি আছে এর কোনও তালিকা আছে কিনা জানতে চাইলে ওই কর্মকর্তা বলেন, আমরা একাধিকবার তাদের কাছে তালিকা চেয়েছি কিন্তু তারা এটি সরবরাহ করতে পারেনি।

উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন, গতমাসে ডেনমার্ক ও নরওয়েতে অনিয়মিত ১২ জন ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদের পর যারা বাংলাদেশি তাদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ে গেছে। তিনি বলেন, একজন বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠানোর আগে তার নাগরিকত্ব ইউরোপেই নিশ্চিত করতে হবে এবং তার বিরুদ্ধে সব ধরনের প্রশাসনিক ও আইনগত বিধিবিধান শেষ করতে হবে।

২০১৪ সালে ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলো বাংলাদেশিদের জন্য প্রায় ২৬ হাজার, ২০১৫ সালে প্রায় ২১ হাজার এবং ২০১৬ সালে প্রায় ২৫ হাজার রেসিডেন্ট পারমিট ইস্যু করে। কিন্তু ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে জুন মাস পর্যন্ত মাত্র ৪ হাজার ১০০ পারমিট ইস্যু করা হয়।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত যুক্তরাজ্য বাদে ইইউর বাকি ২৭টি দেশে প্রায় দুই লাখ বৈধ ভিসাধারী বাংলাদেশি অবস্থান করছেন। যাদের সেখানে থাকার এবং কাজ করার অনুমতি আছে। অন্য আরেকটি পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ২০১৬ সালে প্রায় ৮ হাজার ২০০ জন এবং ২০১৭ সালের ১৯ জুলাই পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৮ হাজার বাংলাদেশি ইতালিতে অবৈধভাবে প্রবেশ করেছে।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ঢাকায় সাক্ষরতার হার ৭০.৫৪

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৮ ১২:৪৭:১৩

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, জেলাওয়ারী সাক্ষরতার হারের মধ্যে ঢাকায় ৭০ দশমিক ৫৪ শতাংশ  এবং ময়মনসিংহে ৪৩ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের দশম অধিবেশনে সংসদ সদস্য আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইনের (পটুয়াখালী-৩) এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

তিনি বলেন, জেলাওয়ারী সাক্ষরতার হারের মধ্যে রয়েছে, ঢাকায় ৭০ দশমিক ৫৪ শতাংশ, ঝালকাঠিতে ৬৬ দশমিক ৬৮ শতাংশ, পিরোজপুরে ৬৪ দশমিক ৮৫ শতাংশ, গাজীপুরে ৬২ দশমিক ৬০ শতাংশ, নড়াইলে ৬১ দশমিক ২৭ শতাংশ, বরিশালে ৬১ দশমিক ২৪ শতাংশ, খুলনায় ৬০ দশমিক ১৪ শতাংশ, ফেনীতে ৫৯ দশমিক ৬৩ শতাংশ, বাগেরহাটে ৫৮ দশমিক ৯৮ শতাংশ, চট্টগ্রামে ৫৮ দশমিক ৯১ শতাংশ, কুমিল্লায় ৫৩ দশমিক ৩২ শতাংশ, সিলেট ৫১ দশমিক ১৮ শতাংশ, রাজশাহী ৫২ দশমিক ৯৮ শতাংশ, রংপুর ৪৮ দশমিক ৫৫ শতাংশ  এবং ময়মনসিংহ ৪৩ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

তিনি আরো বলেন, ২০১৬ সালে দেশে সাক্ষরতার হার ছিল শতকরা ৭১ শতাংশ। এর মধ্যে পুরুষ সাক্ষরতার হার ৭৩ শতাংশ ও নারী সাক্ষরতার হার ৬৮ দশমিক ৯ শতাংশ। ২০০৯ সালে দেশে এ হার ছিল ৪৬ দশমিক ১৫ শতাংশ।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

হাসপাতালের আইসিসিইউতে মেয়র আইভী

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৮ ১২:৪৩:৩৭

নারায়ণগঞ্জের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালের আইসিসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে চিকিৎসার জন্য তাকে নারায়ণগঞ্জ থেকে অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় আনা হয়।

মঙ্গলবারের সংঘর্ষে আহত আইভী বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে বেশি অসুস্থ অনুভব করেন। এরপর কয়েকবার বমি করলে তাকে স্যালাইন দেয়া হচ্ছিলো। তবুও শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় নিয়ে আসার পরামর্শ দেন। এরপর বিকেল ৪টায় মেয়র আইভীকে নিয়ে একটি অ্যাম্বুলেন্স ঢাকার দিকে রওনা হয়।

এর আগে সংঘর্ষের বিষয়ে বুধবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করে সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছিলেন, হত্যার উদ্দেশ্যেই তার ওপর হামলা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আধাঘণ্টা রাস্তায় পড়ে ছিলাম, তখন পুলিশ আসতে পারতো। ত্বকী হত্যার ঘটনায় সবচেয়ে বেশি আন্দোলনে তো আমিই ছিলাম। তখন তো পুলিশ চলে আসতো মাঝখানে। একতরফা এভাবে কেউ মার খাইনি।

‘‘আমার দেড়শ’ থেকে দুইশ’ কর্মীকে আহত করলো। আমার কর্মীদের সবার মাথা ফাঁটা। আমার ভাই আহত, আমি হাঁটতে পারি না। প্রশাসন আমাকে ইনফর্ম করতে পারতো। বলতে পারতো, ওখানে এত বড় ঘটনা ঘটতে পারে, আপনি যাবেন না ওখানে। আমরা যারা মানুষের জন্য কাজ করি তারা জন্মমৃত্যু নিয়েই কাজ করি।’’

নারায়ণগঞ্জের ফুটপাতে হকার বসানোকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার এমপি শামীম ওসমান ও মেয়র আইভী সমর্থকদের সংঘর্ষে মেয়র আইভী, সাংবাদিকসহ শতাধিক আহত হয়। প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়াসহ দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ দুই শতাধিক শর্ট গানের ফাঁকা গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। মঙ্গলবার বিকেলে নগরীর চাষাঢ়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সেসময় অস্ত্র উঁচিয়ে তেড়ে গেলে গণধোলাইয়ের শিকার হন শামীম ওসমানের সমর্থক নিয়াজুল।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

মুক্তিযোদ্ধা বিবেচনার ন্যূনতম বয়স সাড়ে ১২ বছর পুনঃনির্ধারণ

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৭ ১১:৪৮:৪৭

মুক্তিযোদ্ধা বিবেচনার ন্যূনতম বয়স পুনঃনির্ধারণ করে পরিপত্র জারি করেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

১৭ জানুয়ারি বুধবার মন্ত্রণালয় সংশোধিত এ পরিপত্র জারি করে।

পরিপত্র অনুযায়ী এখন থেকে মুক্তিযোদ্ধা বিবেচনার বয়স ৩০ নভেম্বর ১৯৭১ খ্রিস্টাব্দে কমপক্ষে ১২ বছর ৬ মাস হতে হবে।

এর আগে ২০১৭ সালে জারিকৃত মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ৭৭২ স্মারকের পরিপত্র অনুযায়ী মুক্তিযোদ্ধা বিবেচনার নূন্যতম বয়স ছিল ১৩ বছর।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ডিএনসিসি’র মেয়র পদে উপনির্বাচন স্থগিত

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৭ ০১:৪৬:০৭

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়রের শূন্য পদে উপ-নির্বাচন স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

বুধবার হাইকোর্টের বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ ৩ মাসের জন্য এ স্থগিতাদেশ দিয়েছেন।

সেই সঙ্গে ওই নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল কেন ‘আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত’ ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চেয়ে হাই কোর্ট রুল জারি করেছেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী কামরুল হক সিদ্দিকী ও ব্যারিস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোখলেসুর রহমান।

গতকাল মঙ্গলবার সকালে রিটটি করেছিলেন আতাউর রহমান ও মো. জাহাঙ্গীর আলম।

রিটে উল্লেখ করা হয়, সিটি করপোরেশন আইন অনুসারে ৭৫ শতাংশ কাউন্সিলর নির্বাচনের মাধ্যমে ফল সরকারি গেজেটে প্রকাশিত হবে। এর ভিত্তিতে মেয়র পদ গঠিত হবে।

অথচ গত বছরের জুলাইতে উত্তর সিটি করপোরেশনে ১৮টি ওয়ার্ড সম্প্রসারিত করা হয়। এ অবস্থায় ৭৫ শতাংশ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর নির্বাচন হচ্ছে না। নতুন পুনর্গঠিত ওয়ার্ডের ভোটার তালিকা এখনো প্রকাশ করা হয়নি। এ পরিস্থিতিতে নির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিটটি করা হয়।

এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বাংলাদেশে প্রবাহিত ৫৭টি নদীর বেশির ভাগই নাব্যতাহীন

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৬ ১৩:১৯:১০

ভারত ও মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে মোট ৫৭টি নদী প্রবাহিত হচ্ছে। এর মধ্যে ৫৪টি ভারত থেকে এবং ৩টি নদী মিয়ানমার থেকে এ দেশে প্রবেশ করেছে। তবে এসব নদীর বেশির ভাগই নাব্যতা হারিয়েছে, যা খননের কাজ হাতে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পানি সম্পদ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর। মঙ্গলবার স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদে নওগাঁ-৬ আসনের এমপি ইসরাফিল আলমের এক প্রশ্নের জবাবে পানিসম্পদ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর পক্ষে এমন তথ্য দেন মন্ত্রণারয়ের প্রতিমন্ত্রী নজরুল ইসলাম।

মন্ত্রীর দেয়া তালিকা অনুযায়ী ভারত থেকে এ দেশে প্রবাহিত নদী গুলোর মধ্যে রয়েছে- রায়মঙ্গল নদী, ইছামতি কালিন্দী নদী, বেতনা কোদালিয়া নদী, ভৈরব কপোতাক্ষ নদী, মাথাভাঙা নদী, গঙ্গা, পাগলা, আত্রাই, পুনর্ভবা, তেঁতুলিয়া, ট্যাংগন, কুলীক, নাগর, মহানন্দা, ডাহুক, করতোয়া, তালমা, ঘোড়ামারা, দেওনাই-যমুনেশ্বরী, বুড়ি-তিস্তা, তিস্তা, ধরলা, দুধকুমার, ব্রম্ভপুত্র নদ, জিঞ্জিরাম, চিলাখালি, ভোগাই, নিতাই, জালুখালি- দামালিয়া, নয়াগাং, উমিয়াম, ধলা, পিয়াইন, সারি গোয়াইন, সুরমা, কুশিয়ারা, সোনাই বরদল, জুরী, মনু, ধলাই, লংলা, খোয়াই, সুতাং, সোনাই, হাওরা, বিজনী, সালদা, গোমতী কাকরী-ডাকাতিয়া সেলোনিয়া, মুহুরী, সুমেশ্বরী, যাদুকাটা এবং ফেনী নদী। এছাড়া মিয়ানমার থেকে যে ৩টি নদী প্রবাহিত হচ্ছে- সাঙ্গু, মাতামুহুরী এবং নাফ নদী।

মন্ত্রী বলেন, এসব নদীর অনেকগুলোর নাব্যতা ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার। ক্যাপিটাল ড্রেজিং অব রিভার সিস্টেম ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় যমুনা নদীর ২২ কিলো মিটার ড্রেজিং করতে ৯৯৩ কোটি ৩৮ লাখ টাকা ব্যয় করা হয়েছে। এ ছাড়া সীমান্ত নদী তীর সংরক্ষণ ও উন্নয়ন প্রকল্পের (২য় পর্যায়) একনেকে গৃহিত হয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় ১৫টি সীমান্ত নদীর ৩৪.৬০৯ কিলোমিটার ব্যাপী ৭৮টি স্থানে প্রতিরক্ষামূলক কাজের সংস্থান রয়েছে। যা দেশের ১২টি জেলার ২২টি উপজেলায় বাস্তবায়িত হবে। মোট ৪৪৬ কোটি ৫৯ লাখ টাকা ব্যয়ে এ কাজটি তাড়াতাড়ি শুরু হবে।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ভোলার ভেদুরিয়ায় নতুন গ্যাসক্ষেত্রের সন্ধান

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৬ ১৩:১৬:১১

বোরহানউদ্দিনের পর এবার ভোলার সদর উপজেলার ভেদুরিয়া ইউনিয়নে আরও একটি নতুন গ্যাসক্ষেত্রের সন্ধান পেয়েছে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন এন্ড প্রডাকশন কোম্পানি লিমিটেড বাপেক্স। নতুন এই ক্ষেত্রে প্রায় ৬০০ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস মজুদ থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। সব মিলিয়ে ভোলার তিনটি গ্যাসক্ষেত্রে সর্বমোট প্রায় ঘনফুট গ্যাস মজুদ রয়েছে বলে জানিয়েছেন বাপেক্স কর্মকর্তাগণ। এদিকে ভোলায় নতুন আরও একটি গ্রাসক্ষেত্র আবিষ্কারের সংবাদে এলকাবাসীর মধ্যে আনন্দ ছড়িয়ে পড়েছে। 

২০০৯ সালে ভোলা জেলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার কুতুবা গ্রামে প্রথম শাহবাজপুর গ্যাসক্ষেত্র থেকে প্রথম গ্যাস উত্তোলন শুরু হয়েছে। এরপর গত বছরের ০৯ ডিসেম্বর একই উপজেলার মুলাইপত্তন গ্রামে শাহবাজপুর ইস্ট-১ নামে ভোলার দ্বিতীয় গ্যাসক্ষেত্রটি আবিষ্কৃত হয়। ওই একই দিন ভোলা সদর উপজেলার ভেদুরিয়া ইউনিয়নের মাঝিরহাট গ্রামে ভোলা নর্থ-১ নামে ভোলার তৃতীয় গ্যাসক্ষেত্রটির অনুসন্ধান কাজ শুরু হয়। এই নতুন গ্যাসক্ষেত্র ভোলার তৃতীয় এবং দেশের ২৭তম গ্যাসক্ষেত্র।
 
এদিকে নতুন গ্যাস ক্ষেত্র ভেদুরিয়ায় গ্যাস মজুদের বিষয় নিশ্চিত হওয়ায় খবর শুনে ভোলার মানুষের মধ্যে আনন্দ বিরাজ করছে। এলাকায় নতুন নতুন শিল্পকারখানা গড়ে ওঠার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন ভোলাবাসী।

এলাকাবাসীর দাবী আমাদের ভোলায় গ্যাস পাওয়ার সংবাদে আমরা খুবই খুশি। আশা করছি এই গ্যাসকে কেন্দ্র করে এখানে অনেক কলকারখানা গড়ে উঠবে।

ভোলায় বিপুল পরিমাণ গ্যাস সম্পদ রয়েছে। এই গ্যাস সম্পদ কাজে লাগিয়ে ভোলা তথা সমগ্র বাংলাদেশ আরও সমৃদ্ধ হবে বলে আমরা মনে করছি।

ভোলার গ্যাস দিয়ে আগে ভোলায় শিল্প কারখানা গড়ে তুলতে হবে। তারপর প্রয়োজনে ন্যাশনাল গ্রিডে গ্যাস সরবরাহ করা হবে।

ভোলা একটি দ্বীপ জেলা। সারা দেশের তুলনায় আমরা দীর্ঘ দিন অবহেলিত ছিলাম। এখন এখানে গ্যাস পাওয়া গেছে। গ্যাস উত্তোলন করাও হচ্ছে। আমাদের দাবি এই গ্যাসের উপর ভিত্তি করে ভোলায় শিল্পাঞ্চল গড়ে তোলা হোক।

আমাদের গ্যাস আমাদেরকে গৃহস্থালির কাজে ব্যবহার করার সুযোগ দিতে হবে। আমাদেরকে না দিয়ে এই গ্যাস অন্যত্র নেয়াটা হবে অমানবিক। এটা ভোলাবাসী কোনভাবেই মানতে পারবে না।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ডিএনসিসি উপনির্বাচনে আ.লীগের মেয়র পদে প্রার্থী আতিকুল

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৬ ১২:২৯:০৬

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন ব্যবসায়ী নেতা আতিকুল ইসলাম আতিক।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভায় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়। সভা শুরুর আগে ডিএনসিসির উপ-নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী ১৭ জনের সাক্ষাৎকার নেন মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি শেখ হাসিনা।

আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সভা হয়। সভায় দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সভা শেষে আতিকুল ইসলামকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দেওয়ার বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান ওবায়দুল কাদের। 

নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন,  আমাদের কোনো প্রার্থীর যোগ্যতা কম নয়। ১৮ জন থেকে একজন খুঁজে বের করা কঠিন। মনোনয়ন বোর্ডে সবার সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ক্লিন ইমেজের সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তানকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

গতকাল সোমবার বিকেলে বিজিএমইএর প্রাক্তন সভাপতি আতিকুল ইসলাম আতিক আওয়ামী লীগ সভাপতির শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম জমা দেন। সকাল ১২টার পর থেকে দলীয় নেতাকর্মীদের বহর নিয়ে একে একে মেয়র পদে ফরম জমা দিতে আসেন অন্যরা। এতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়সহ আশপাশের রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়। নেতাকর্মীদের আনাগোনায় মুখর হয়ে ওঠে সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়সহ সামনের রাস্তা।

এর আগে গত তিন দিনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের  মনোনয়নপ্রত্যাশী ১৭ জন ফরম সংগ্রহ করেন। গত শনিবার থেকে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু হয়। গত তিন দিনে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন এবং জমা দেন মেয়র পদপ্রার্থী রাসেল আশেকী, আদম তমিজি হক, আতিকুল ইসলাম আতিক, মোহাম্মদ ফরহাদ হোসেন, শাহ আলম, এইচ বি এম ইকবাল, হেলাল উদ্দিন, জোবায়ের আলম, আবেদ মনসুর, মমতাজ হোসেন মেহেদী, ইয়াদ আল ফকির, আবুল বাশার, শামীম হাসান, ওসমান গনি, আসমা জেরিন ঝুমু, মোহাম্মাদ জামান ভুঞা ও শাহীন হক।

প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া মেয়র পদে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণ হবে। ডিএনসিসির প্রথম নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে মেয়র পদে বিজয়ী হন আনিসুল হক।

এর আগে আওয়ামী লীগের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম ১৩, ১৪ ও ১৫ জানুয়ারি বিতরণ করা হবে। এবার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরমের মূল্য ধরা হয়েছে ২৫ হাজার টাকা।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

নারায়ণগঞ্জে শামীম ওসমানের সাথে সংঘর্ষ : মেয়র আইভী আহত

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৬ ১২:২২:৩৭

হকার বসানো ও উচ্ছেদ নিয়ে নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী এমপি শামীম ওসমান ও সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীপন্থীদের মধ্যে মঙ্গলবার বিকেলে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে চাষাঢ়ায় বঙ্গবন্ধু সড়কে ঘণ্টাখানেকের ওই সংঘর্ষের কারণে পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। এতে মেয়র আইভী, স্বেচ্ছাসেবক লীগের শহরের সভাপতি জুয়েল হোসেনসহ অর্ধশত আহত হয়েছে। ওই সময়ে পুলিশ প্রচুর কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষের সময়ে শামীম ওসমান ও আইভী দু'জনই সড়কে ছিলেন।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ শহরের ফুটপাত হকারমুক্ত রাখতে কয়েক দিন ধরেই এমপি শামীম ওসমান ও আইভী সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা চলছিল। সবশেষ সোমবার বিকেলে সমাবেশ করে শামীম ওসমান। তিনি ঘোষণা দেন হকারদের পুনর্বাসনের আগে আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মঙ্গলবার বিকেল ৫টা হতে রাত ১০টা পর্যন্ত হকার বসবে। কিন্তু ওই সময়ে আইভী এও ঘোষণা দেন কোনোভাবেই হকার বসতে দেয়া হবে না।

ওই ঘোষণার প্রেক্ষাপটে মঙ্গলবার বিকেল ৪ টা ১৮ মিনিটে নগর ভবনের সামনে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও কাউন্সিলরদের নিয়ে অবস্থান নেন মেয়র আইভী। ওখান থেকে অনুগামী নেতাকর্মীদের নিয়ে আইভী মিছিল নিয়ে ফুটপাতের উপর দিয়ে চাষাঢ়ার দিকে আসতে থাকে। অপরদিকে চাষাঢ়া শহীদ মিনারে হকারদের কয়েকটি গ্রুপ বিকেল সোয়া ৪টার দিকে অবস্থান নেয়।

বিকেল ৪টা ৪০ মিনিটে ৫টায় আইভীর নেতৃত্বে মিছিল চাষাঢ়া সায়াম প্লাজার সামনে আসে। সেখানে কয়েকজন হকারকে ফুটপাত থেকে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে তাদের মধ্যে ব্যাপক বাকবিতন্ডা ঘটে। এছাড়া আইভীর মিছিলটি পুলিশ আটকে দেয়। তখন বাধা উপেক্ষা করে মিছিল সামনের দিয়ে অগ্রসর হতে চাইল পুলিশের সঙ্গে বাকবিতন্ডা ঘটে।

ওই সময়ে একজন হকারকে মারধর করা হলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তখন শামীম ওসমানের অনুগামী হিসেবে পরিচিত চাষাঢ়া এলাকার নিয়াজুল সেখানে গেলে তাকে মারধর করা হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন গেলে তাকেও মারধর করা হয়।

এ খবর চাষাঢ়ায় ছড়িয়ে গেলে সেখানে থাকা আওয়ামী লীগের মহানগর কমিটির যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সাজনুসহ অন্যরা ঘটনাস্থলে এগিয়ে গেলে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়।

তখন আওয়ামী লীগের লোকজনদের পক্ষে হকাররাও অবস্থান নেন। ওই সময়ে সায়াম প্লাজার সামনে লোকজন ব্যারিকেডে দিয়ে আইভীকে রক্ষা করেন। এসময় আইভী পায়ে আঘাত পান। পরে লোকজন এসে আইভীকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবে নিয়ে যায়।

দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সময়ে উভয় পক্ষের মিছিল থেকে প্রচুর গুলির শব্দ পাওয়া গেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সংঘর্ষের সময়ে উভয় পক্ষের লোকজন একে অন্যকে লক্ষ্য করে বৃষ্টির মতো ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। এতে পুরো শহরে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। বন্ধ হয়ে যায় বঙ্গবন্ধু শহরে যান চলাচল ও আশেপাশের সকল দোকানপাট।

এদিকে বিকেল ৫টায় চাষাঢ়া গোলচত্বর এলাকাতে আওয়ামী লীগের লোকজন জড়ো হলে পুলিশ মিছিলে বাধা দেয়। তখন আওয়ামী লীগের লোকজনদের পুলিশ ধাওয়া করলে বিকেল ৫টা ৫ মিনিটে রাইফেল ক্লাব থেকে বেরিয়ে আসেন সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। তখন পুলিশ সরে গেলে শামীম ওসমান লোকজন নিয়ে চাষাঢ়ায় হক প্লাজার সামনে অবস্থান নেন। তখন হকার ও লোকজন ঘটনা নিয়ে শামীম ওসমানকে একের পর এক নালিশ দিতে থাকে। শামীম ওসমান তখন বলেন, আমি এর বিচার আল্লাহকে দিব। আমাদের নেতাকর্মীদের উপর লক্ষ্য করে গুলি করা হয়েছে। আমাদের প্রচুর লোকজনদের মেরে আহত করা হয়েছে। আমরা আইন নিজের হাতে তুলে নেইনি।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে আইভী বলেন, আমি কারো কাছে সাহায্য চেয়ে পাইনি। আমি ডিসি ও এসপির প্রত্যাহার চাইছি। আমরা শান্ত নারায়ণগঞ্জ চাই।

আইভী বলেন, আমি শান্তিপূর্ণভাবে লোকজনদের নিয়ে ফুটপাত দিয়ে চাষাঢ়া আসছি। কিন্তু সেখানে বিনা উস্কানীতে আমাদের উপর হামলা করা হয়েছে। নিরীহ লোকজনদের মারধর করা হয়েছে। শামীম ওসমান রাইফেল ক্লাবে থেকে গুলির নির্দেশ দিয়েছেন। তার লোকজন একের পর এক গুলি করেছে।
নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার আসাদুজ্জামান বলেন, ‘আহত ৩০ জনকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে। যার মধ্যে ৫ থেকে ৬ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শরফুদ্দিন বলেন, মেয়র সমর্থকদের সঙ্গে হকারদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। তবে কয়জন আহত হয়েছে জানা নেই। পরিস্থিত নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুড়ে।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ডিএনসিসি উপ-নির্বাচনে মেয়রপদে বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়াল

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৫ ১৩:২৩:১৪

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) উপ-নির্বাচনে মেয়রপদে দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়ালকে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি। সোমবার রাতে মনোনয়ন প্রত্যাশী পাঁচ প্রার্থীর সাক্ষাৎকার নেয়ার পর তাবিথকে মনোনয়ন দেয়ার কথা সাংবাদিকদের জানান দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এর আগে রাত পৌনে ১০টা থেকে গুলশানে নিজ কার্যালয়ে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

মনোনয়ন প্রত্যাশী বাকি চারজন ছিলেন- সাবেক এমপি মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান, বিএনপির সহ-প্রকাশনা সম্পাদক শাকিল ওয়াহেদ, বিশেষ সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন ও ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সভাপতি এম এ কাইয়ুম।

এম এ কাইয়ুম বিদেশে অবস্থান করায় তার পক্ষে এসেছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বজলুল বাসিত আঞ্জুম।

সাক্ষাৎকার বোর্ডে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বাংলাদেশ বিনিয়োগের জন্য আকর্ষণীয় স্থান : প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাতে প্রণব মুখার্জী

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৫ ১৩:২১:১৬

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশের চমকপ্রদ আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের প্রশংসা করে ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জী বলেছেন, বাংলাদেশ এখন বিনিয়োগের জন্য একটি আকর্ষণীয় স্থান।

সফররত ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জী সোমবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার সরকারি বাসভবন গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে এ কথা বলেন। বৈঠকের পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

বৈঠকের শুরুতেই দুই নেতা নিজেদের মধ্যে কুশল বিনিময় করেন, বলেন প্রেস সচিব। প্রণব মুখার্জী তার অবসর সময় কাটানোর বৃত্তান্ত তুলে ধরে বলেন, বই পড়েই এখন সময় কাটছে।

তিনি বলেন, ‘আমি জীবনের দীর্ঘ সময় রাজনীতি করেছি। ভারতের সংসদে এবং রাষ্ট্রপতির পদের মত সাংবিধানিক পদে ছিলাম। অবসর গ্রহণের পরে আমার অফুরন্ত সময় পড়ার জন্য।’

তিনি ২০১৩ সালে ভারতের রাষ্ট্রপতি হিসেবে বাংলাদেশে তার প্রথম বিদেশ সফরের কথাও স্মরণ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের উল্লেখযোগ্য দিক তুলে ধরে বলেন, তার সরকারের বিভিন্ন বাস্তবধর্মী পদক্ষেপের ফলে দারিদ্র্যের হার ২২ শতাংশে নেমে এসেছে। গত বছরের বন্যার ফলে দেশের অর্থনীতি খানিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে।

রোহিঙ্গা ইস্যু সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ মানবিক কারণে প্রায় ১০ লাখ বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিককে আশ্রয় প্রদান করেছে।

প্রণব মুখার্জীর মেয়ে শর্মিষ্ঠা মুখার্জী, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিনিয়র সচিব সুরাইয়া বেগম এ সময় উপস্থিত ছিলেন। পরে ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আয়োজিত মধ্যাহ্ন ভোজে অংশগ্রহণ করেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনের প্রধান প্রবেশ মুখে ফুলের তোড়া হাতে প্রণব মুখার্জীকে স্বাগত জানান। প্রণব মুখার্জী চারদিনের ব্যক্তিগত সফরে গতকাল রোববার  ঢাকা এসে পৌঁছান।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বাংলাদেশে ৩৭ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রী সাড়ে ৩১ লাখ

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৪ ১১:৪১:৩৩

দেশে ৩৭টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এবং এসবের অধিভূক্ত ও অঙ্গিভূত কলেজ/মাদরাসায় ৩১ লাখ ৫০ হাজার ৪০৯ শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছে। এর মধ্যে ছাত্র ১৭ লাখ ৫৭ হাজার ৩২৭ জন, ছাত্রী ১৩ লাখ ৯৩ হাজার ৮২ জন। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালসমূহে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীর অনুপাত ১ : ২০।
গতকাল রোববার দশম জাতীয় সংসদে সংসদ সদস্য দিদারুল আলমের (চট্টগ্রাম-৪) এক প্রশ্নের জবাবে এসব তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ।
সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরীর (ভোলা-৩) এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, দেশের প্রতিটি জেলায় সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে প্রয়োজনে একটি করে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে। দেশে বর্তমানে মোট ৪০টি সরকারি এবং  ৯৫টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। আইন ও বিচার বিষয়ে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির লক্ষ্যে দেশের সাধারণ ধারার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আইন বিষয়সহ বিভিন্ন বিষয়ে অধ্যয়নের সুযোগ রয়েছে। তাই দেশে স্বতন্ত্র আইন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা সরকারের আপাতত নেই।
মো. মামুনুর রশীদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে সরকার অনুমোদিত সকল স্তরের বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেসমূহের বেতন-ভাতা বাবদ সরকারের মোট ৮ হাজার ২৪৩ কোটি ৫৭ লাখ ১৪ হাজার ৩৮২ টাকা ব্যয় হয়েছে। ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে সরকার অনুমোদিত বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমুহে (স্কুল ও কলেজ) ব্যয়ের লক্ষ্যমাত্রা ৮ হাজার ৫৮৩ কোটি ৫৭ লাখ ১৯ হাজার।
সংসদ সদস্য এম আব্দুল লতিফের (চট্টগ্রাম-১১) এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সরকারি কলেজে অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ নিয়োগের ক্ষেত্রে  কোনো নীতিমালা নেই।  তবে সরকারি  কলেজে অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে  অধ্যাপক ও সহযোগী অধ্যাপকগণের নিকট হতে আবেদনপত্র আহ্বান করা হয়। প্রাপ্ত আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আবদেনকারীগণের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হয় এবং একটি ফিট লিস্ট তৈরি করা হয়। উক্ত ফিট লিস্টে বিবেচিত অধ্যাপক ও সহেযোগী অধ্যাপকদের মধ্য হতে অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষের শূন্য পদসমূহে পদায়ন করা হয়।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

আওয়ামী লীগ নেতা হত্যা মামলায় ৯ জনের ফাঁসির আদেশ

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৪ ১১:৩২:৪৪

নড়াইলের আওয়ামী লীগ নেতা প্রভাষ রায়কে হত্যার দায়ে এক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানসহ নয়জনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন খুলনার একটি বিশেষ আদালত।

আজ রোববার দুপুরে খুলনা বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এম এ রব হাওলাদার এ রায় দেন। এ সময় সব আসামিই আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় শোনার পর আসামিদের স্বজনরা কান্নায় ভেঙে পড়ে।

এঁরা হলেন- সদর উপজেলার ভদ্রবিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সাহিদুর রহমান মিনা ওরফে সহিদ (৫২) ও মো. ইলিয়াছ মিনা (৫৬), ইউপি চেয়ারম্যান সাহিদুর রহমান মিনার ছেলে মো. আশিকুর রহমান মিনা ওরফে আশিক (২২), মোশারফ মিনার ছেলে মো. রাসেল মিনা (৩০), আটেরহাট গ্রামের মৃত হারান মোল্লার ছেলে এনায়েত মোল্লা (৫৩), মীরাপাড়ার মতিয়ার মোল্লার ছেলে ইয়াসিন মোল্লা (২৪), পলইডাঙ্গা গ্রামের মুসা মিনার ছেলে মামুন মিনা (২৮) এবং মীরাপাড়ার মৃত হাতেম মোল্লার ছেলে বাশার মোল্লা (৩০) এবং মোশারফ মোল্লার ছেলে রবিউল মোল্লা ওরফে রবিউল শেখ (২৫)। 

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসলি এনামুল হক, আসামিপক্ষের আইনজীবী মনজুর আহমেদ, রজব আলী সরদার ও মামুন রহমান গণমাধ্যমকে বিষয়টি জানিয়েছেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ভদ্রবিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রভাষ রায় ওরফে হানু বিগত ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের পক্ষে নির্বাচনী প্রচার চালালে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাহিদুর রহমান মিনা ওরফে সহিদ ক্ষিপ্ত হয়। পরে নির্বাচনে সাহিদুর রহমান মিনা ওরফে সহিদ জয়লাভ করেন। নির্বাচনের পর চেয়ারম্যানের সমর্থকরা প্রভাষ রায়ের বাড়ি ভাঙচুর করেন। এ ঘটনায় প্রভাষ রায় চেয়ারম্যানসহ অন্যদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

এ ঘটনার পর থেকে প্রভাষ রায়কে হুমকি দিয়ে আসছিলেন সহিদ ও তাঁর সমর্থকরা। ভয়-ভীতির মুখে প্রভাষ পরিবার-পরিজন নিয়ে স্থানীয় কুড়িগ্রামস্থ ভাড়াবাড়িতে বসবাস করতেন।

গত বছরের ১ ফেব্রুয়ারি বিকেলে প্রভাষ রায় নড়াইল জেলা সদর থেকে সরস্বতী পূজা উপলক্ষে ভদ্রবিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. খায়রুজ্জামান ফকিরের সঙ্গে মোটরসাইকেলে করে বিভিন্ন পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করেন। পরে তিনি মীরাপাড়া বাজারে যান।

সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বাজারে ফারুকের চায়ের দোকানের সামনে দাঁড়িয়ে মান্নান বিশ্বাসের সঙ্গে কথা বলছিলেন প্রভাষ। খবর পেয়ে সহিদ চেয়ারম্যানসহ তাঁর লোকজন অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাঁর ওপর হামলা চালায় এবং কুপিয়ে ও ছুরি মেরে গুরুতর আহত করে। 

বাজারের লোকজন প্রভাষকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখান থেকে যশোর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে রাত সাড়ে ৯টার দিকে প্রভাষ মারা যান।

এ ঘটনায় প্রভাষ রায়ের স্ত্রী টুটুল রানী রায় বাদী হয়ে ৩ ফেব্রুয়ারি নড়াইল সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় নয়জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো পাঁচ-সাতজনকে আসামি করা হয়।

ওই বছরের ২২ ফেব্রুয়ারি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নড়াইল সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ভবতোষ রায় নয়জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন। মামলায় ১৮ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৭ জন সাক্ষ্য দেন।

গত বছরের ১৩ জুন মামলাটি নড়াইল থেকে খুলনা বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর করা হয়। ৩ জুলাই আদালত অভিযোগ গঠন করেন।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব সমাপ্ত

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৪ ১১:২৯:৩৯

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ তীরে তাবলিগ জামাতের ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম ধাপ। আখেরি মোনাজাতে আল্লাহর কাছে ক্ষমাপ্রার্থনাসহ ইহকালে শান্তি ও পরকালের মাগফেরাত এবং বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সুখ-শান্তি, সমৃদ্ধি, সংহতি কামনা করেছেন মুসল্লীরা।
রবিবার বেলা ১১টায় শুরুর কথা থাকলেও প্রতিকূল আবহাওয়ার জন্য সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে আখেরি মোনাজাত শুরু হয়। ঢাকার কাকরাইল মসজিদের ইমাম হাফেজ মোহাম্মদ জোবায়ের আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন।
এদিন সকাল থেকে বাংলাদেশের মাওলানা প্রকৌশলী আনিসুর রহমানের বয়ানের মধ্য দিয়ে প্রথম পর্বের তৃতীয় তথা শেষ দিনের কার্যক্রম শুরু হয়। পরে হেদায়াতি বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল মতিন।
এরপর অনুষ্ঠিত হয় আখেরি মোনাজাত। ইজতেমা ময়দানে বিদেশি নিবাসের পূর্বপার্শ্বে বিশেষভাবে স্থাপিত মঞ্চ থেকে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করা হয়। বিশ্ব ইজতেমায় সমবেত দেশি-বিদেশি মুসল্লিদের পাশাপাশি রাজধানী ঢাকা, গাজীপুর ও আশপাশের জেলার মুসল্লিরা আখেরি মোনাজাতে শরিক হন।
চার দিন বিরতির পর আগামী ১৯ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু হবে। আগামী ২১ জানুয়ারি ওই পর্বের আখেরি মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার সমাপ্তি ঘটবে।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

আ.লীগ খালেদাকে পাল্টা উকিল নোটিশ পাঠাবে : ওবায়দুল কাদের

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৪ ০০:২৫:২৮

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পাঠানো আইনি নোটিশের জবাবে পাল্টা উকিল নোটিশ পাঠানো হবে। এমনটাই মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

কমলাপুরে ঢাকা দক্ষিণ আওয়ামী লীগের শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে শুক্রবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, `ভুয়া ও মিথ্যা উকিল নোটিশ পাঠানোর জন্য তাদেরও উকিল নোটিশ দেওয়া হচ্ছে। অপেক্ষা করুন।’ তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী জিয়া পরিবারের যে দুর্নীতির খবর তুলে ধরেছেন, তা দেশি-বিদেশি গণমাধ্যমের তথ্যের ভিত্তিতে। এই তথ্যগুলো গণমাধ্যম দিয়েছে। এটা প্রমাণিত।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপির দুর্নীতির কেচ্ছা রূপকথার কাহিনিকেও হার মানাবে। প্রধানমন্ত্রীর সৎ সাহস আছে বলে তিনি সত্যকে তুলে ধরেছেন। এতে বিএনপি নেতাদের অন্তর্জ্বালা শুরু হয়ে গেছে।’

পদ্মাসেতুর অবকাঠামো নির্মাণের বিষয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ প্রমাণ করতে না পারলে তাঁকে মামলার মুখোমুখি হতে হবে বলেও জানিয়েছেন ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ভুল’ নকশায় পদ্মাসেতু নির্মাণ করা হচ্ছে। এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে আজ সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, ‘এখন ফখরুল সাহেব বলছেন পদ্মাসেতুর ডিজাইনে ভুল আছে। ডিজাইনে ভুল আছে প্রমাণ করতে আসুন, তথ্য উপাত্ত নিয়ে আসুন। প্রমাণ না দেখাতে পারলে, আপনাকেও মামলার মুখোমুখি হতে হবে।’

এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ঘন কুয়াশার কারণে ঢাকায় বিমান উড্ডয়ন করতে পারছে না

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৩ ২৩:৪৮:৪০

ঘন কুয়াশার কারণে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমান উড্ডয়ন করতে পারছে না। তবে রোববার দুপুর ১২টার পর ফ্লাইট ছেড়ে যেতে পারে বলে বিমান সংশ্লিষ্টরা বলছেন।

বিমানবন্দরের ফ্লাইট অপারেশন শাখার কর্মকর্তা জাকির হোসেন গণমাধ্যমকে জানান, ‘অভ্যন্তরীণ রুটে শিডিউল মতো ফ্লাইট যেতে পারছে না। সকাল ৭টা ৫০মিনিট থেকে ফ্লাইট চলাচল শুরুর কথা থাকলেও কোনো ফ্লাইট উড্ডয়ন করেনি। কুয়াশার কারণে অভ্যন্তরীণ রুটের সব ফ্লাইটের যাত্রা রি-সিডিউল করা হবে।’

বিমানবন্দর থেকে জানানো হয়, সকাল থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত বিভিন্ন এয়ারলাইন্সের অভ্যন্তরীণ রুটে মোট ১২টি ফ্লাইট ঢাকা ছেড়ে যাওয়ার কথা রয়েছে। সকাল ১০টার মধ্যে বিমান বাংলাদেশ, ইউএস-বাংলা, রিজেন্ট ও নভোএয়ারসহ ৬টি ফ্লাইট ছিল। যেগুলো ছেড়ে যেতে পারেনি। আর নির্দিষ্ট সময় বিমান ছেড়ে না যাওয়ায় যাত্রীদের পড়তে হচ্ছে ভোগান্তিতে।

এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণ চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১২ ১৩:১৫:৩৬

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে নিবন্ধিত সব রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেছেন, ‘সংবিধান অনুযায়ী ২০১৮ সালের শেষদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আশা করি, নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত সব দল নির্বাচনে অংশ নিয়ে দেশের গণতান্ত্রিক ধারা সমুন্নত রাখতে সহায়তা করবে।’

শুক্রবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা বলেন। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদের চার বছর পূর্তি উপলক্ষে এই ভাষণ দেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর এই ভাষণ বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতার বাংলাদেশসহ কয়েকটি বেসরকারি টিভি চ্যানেল ও রেডিও একযোগে সম্প্রচার করে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ তার সরকারের টানা দ্বিতীয় মেয়াদের চার বছরের পূর্তি উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে বলেছেন, বর্তমান সরকার অতীতের সফলতা এবং ব্যর্থতার মূল্যায়ন করে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।

তিনি বলেন, আমরা অতীতকে আঁকড়ে ধরে রাখতে চাই না, তবে এটা ভুলে গেলেও আমাদের চলবে না। আমাদের অতীতের সাফল্য এবং ব্যর্থতার মূল্যায়ন এবং ভুল-ত্রুটিগুলো সংশোধন করেই এগিয়ে যেতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা এখন উন্নয়নের মহাসড়কে রয়েছি, কাজেই পেছনে ফিরে তাকানোর আর সুযোগ নেই এবং আশা করছি বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্ম সমৃদ্ধি ও অগ্রগতির পথে সব বাধা অপসারণের দায়িত্ব নেবে।

শেখ হাসিনা ১০ বছর আগে দেশটির অবস্থান কী ছিল তা স্মরণ করেই আগামীতে জনগণকে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের আহ্বান জানান।

তিনি দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন, সব নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল আগামী সাধারণ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে দেশটির গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে সাহায্য করবে এবং লক্ষ্য করা যাচ্ছে, নির্বাচন কমিশন এখন মানুষের আস্থা অর্জন করছে।
সরকার প্রধান বলেন, রাষ্ট্রপতি একটি সার্চ কমিটির মাধ্যমে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করেছেন। এই কমিশনের অধীনে দুটি সিটি করপোরেশন নির্বাচনসহ বিভিন্ন স্থানীয় নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

তিনি একইসঙ্গে আগামী নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র সম্পর্কে জনগণকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, একটি স্বার্থান্বেষী মহল নির্বাচনের আগে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে পারে, তাই জনগণকে সতর্ক থাকতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, সংবিধানের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে পরবর্তী নির্বাচন ২০১৮ সালের শেষে অনুষ্ঠিত হবে এবং নির্বাচনের আগে একটি নির্বাচনকালীন সরকার গঠিত হবে। সে সরকার নির্বাচন কমিশনকে সকল প্রকার সহায়তা দেবে।

তিনি বলেন, ‘দেশের মানুষ শান্তি চায়। তারা নির্বাচন বানচালের কোনো পদক্ষেপ এবং আন্দোলনের নামে জনগণের সম্পত্তি ধ্বংস করা বরদাশত করবে না।’

তার পুরো বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী ভবিষ্যতে বাংলাদেশের জাতীয় ঐক্যের দাবি জানিয়ে বলেন, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটি সুষম, সুখী এবং সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার জন্য দল এবং সর্বস্তরের মানুষের মতামতকে সন্মান দিয়ে আমরা এগিয়ে যেতে চাই।
শেখ হাসিনা ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সাল নাগাদ একটি উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে তার দৃঢ়সংকল্প পুনর্ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, আমরা আমাদের লক্ষ্য নির্ধারণ করে শুধু বসে থাকতে চাই না। আমরা পরিকল্পনা প্রণয়ন করে সেগুলো বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে ৪৭ বছর অতিবাহিত হয়েছে এবং এখন আমরা বিশ্ব দরবারে মর্যাদাপূর্ণ জাতি হিসেবে মাথা উঁচু করে চলতে চাই।

তিনি বলেন, যদি আপনাদের এটাই প্রত্যাশা হয় তাহলে সবসময়ই আমরা আপনাদের পাশে থাকব।

তিনি বলেন, ২০০১ সালের নির্বাচনে গভীর চক্রান্ত করে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আসতে দেওয়া হলো না। এরপর দেশবাসী দেখেছেন রাজনৈতিক দুর্বৃত্তায়ন; অর্থ লুটপাট, হাওয়া ভবনের দৌরাত্ম্য, জঙ্গিবাদ সৃষ্টি, বাংলা ভাইয়ের উত্থান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন মন্ত্রী ও দুই সংসদ সদস্যসহ হাজার হাজার নেতাকর্মীকে হত্যা, সংখ্যালঘুদের নির্যাতন ও হত্যা, জমি, ঘরবাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দখল, চাঁদাবাজি, মানিলন্ডারিং, দুর্নীতি। ৬৩ জেলায় একসঙ্গে ৫০০ জায়গায় বোমা হামলা হয়।
শেখ হাসিনা বলেন, ২০০৪ সালে ২১শে আগস্ট আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা করে ২২ নেতাকর্মী হত্যা, সিলেটে ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলা, দেশব্যাপী নারীদের ওপর পাশবিক অত্যাচার- সমগ্র দেশ যেন জ্বলন্ত অগ্নিকুণ্ডে পরিণত হয়েছিল। দেশবাসী প্রতিনিয়ত সে যন্ত্রণায় দাহ হচ্ছিলেন।

এমনি পরিস্থিতিতে জরুরি অবস্থা জারি করা হলো উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সাত বছর দুঃসহ যন্ত্রণা ভোগ করার পর ২০০৮ সালের নির্বাচনে আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে আপনাদের সেবা করার সুযোগ দিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা জনগণের সার্বিক উন্নয়নের জন্য আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছি।’

তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট থেকে ১৯৯৬ সালের ২৩ জুন পর্যন্ত ২১ বছর এবং ২০০১ সালের ১ অক্টোবর থেকে ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত সাত বছর- এই ২৮ বছর বাংলাদেশের জনগণ বঞ্চিত থেকেছে।

তিনি বলেন, যারা ক্ষমতা দখল করেছে তারা নিজেদের আখের গোছাতেই ব্যস্ত ছিল। জনগণের কল্যাণে তারা কোনো ভূমিকা রাখেনি। বরং আমরা জনকল্যাণে যেসব কাজ হাতে নিয়েছিলাম তারা তা বন্ধ করে দেয়।

২০০৯ সালে সরকার গঠন করে আশু করণীয়, মধ্যমেয়াদি ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করে তা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি, গ্রহণ করেছি দশ বছর মেয়াদি প্রেক্ষিত পরিকল্পনা।

আমরা দিন বদলের সনদ ঘোষণা দিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলেছি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে আপনাদের জীবনমান সহজ করা এবং উন্নত করার উদ্যোগ নিয়েছি। আপনারা আজ সেসব সেবা পাচ্ছেন। দেশে ১৩ কোটি মোবাইল সিম ব্যবহৃত হচ্ছে। ইন্টারনেট সার্ভিস প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। ৮ কোটি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবল স্থাপন করে ব্যান্ডউইথ বৃদ্ধি করা হয়েছে। গ্রামাঞ্চল পর্যন্ত ব্রডব্যান্ড সম্প্রসারণ করা হচ্ছে। প্রতিটি ইউনিয়নে ডিজিটাল সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। সেখান থেকে জনগণ ২০০ ধরনের সেবা পাচ্ছেন।

৯ বছর একটানা জনসেবার সুযোগ পেয়েছি বলেই বাংলাদেশ উন্নত হচ্ছে উল্লেখ করে সরকার প্রধান বলেন, বিশ্বব্যাপী মন্দা থাকা সত্ত্বেও আমাদের দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি অব্যাহত রাখতে সক্ষম হয়েছি। জনগণ এর সুফল ভোগ করছেন।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, একই পরিবারের চারজনের মৃত্যু

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১২ ১৩:১৩:৫৯

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে ট্রানজিট ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে একই পরিবারের চারজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুমে রোহিঙ্গা ঝুপড়িতে আগুন লাগলে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার তাদের মৃত্যু হয়।

শুক্রবার উখিয়ার ইউএনও মো. নিকারুজ্জামান চৌধুরী এ কথা জানিয়েছেন।

নিহতরা হলেন-মিয়ানমারের নাগরিক আব্দুর রহিমের স্ত্রী নুরবাহার (৩২) ও তার ছেলে আমির শরীফ (৮), মেয়ে দিলবিবি (৫) ও দেড় বছর বয়সী আরজুমান।

ইউএনও বলেন, ‘মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের প্রাথমিকভাবে আশ্রয়ের জন্য নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমে একটি ট্রানজিট ক্যাম্প খোলা আছে। সেখানে শুক্রবার ভোর রাতে আশ্রয় নিয়েছিল রহিমের পরিবার। ভোরে অসাবধনতাবশত মোমবাতি থেকে রহিমের তাঁবুতে আগুন লাগে। এতে অগ্নিদগ্ধ হন ওই চারজন।তাদের উদ্ধার করে কুতুপালং রেড ক্রিসেন্ট ও এমএসএফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে সেখানে তাদের মৃত্যু হয়।’

অগ্নিকাণ্ডের সময় রহিম তাঁবুর বাইরে থাকায় তিনি প্রাণে বেঁচে যান বলে জানান ইউএনও নিকারুজ্জামান।মৃত মা ও তিন সন্তানকে রাতে স্থানীয়ভাবে দাফন করা হয়েছে বলে জানান তিনি।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না মাওলানা সাদ, ফিরে যাবেন ভারতে

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১১ ১১:৩৪:৩৬

দিল্লির মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভি বিশ্ব ইজতেমায় যাবেন না বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।

১১ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ডিএমপি কমিশনারের বরাত দিয়ে ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার কৃষ্ণপদ রায় কাকরাইল মসজিদের সামনে উপস্থিত সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। 

তিনি জানান, ইজতেমা ইজতেমার মতো চলবে, মাওলানা সাদ কাকরাইলে মসজিদেই থাকবেন। ইজতেমা শেষে তিনি ফিরে যাবেন। সার্বিক বিষয় বিবেচনা করে মাওলানা সাদ ইজতেমা ময়দানে যাবেন না।

এ ছাড়া কাকরাইলে নিরাপত্তা সম্পর্কে তিনি জানান, জনগণের যাতে কোনো ভোগান্তি যেন না হয়, কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা যেন না হয় এই কারণে কাকরাইলে পুলিশের নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের জিম্মাদার মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভী গত তিন বছর বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন। কিন্তু সম্প্রতি তিনি কোরআন-সুন্নাহবিরোধী কথাবার্তা বলে বেশ সমালোচিত হন বলে অভিযোগ। ফলে তাবলিগ ও আলেম-ওলামাদের একটি অংশের মাঝে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছিল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ১০ জানুয়ারি বুধবার তিনি যেন বিশ্ব ইজতেমায় অংশগ্রহণ করতে না পারেন, সেজন্য শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সামনে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে তাবলিগ জামাতের একটি অংশ এবং আলেম-ওলামারা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেন।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

পুলিশের সাইবার নজরদারিতে বাকস্বাধীনতা খর্ব হওয়ার আশঙ্কা টিআইবির

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১১ ১১:১৭:৩০

উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে পুলিশের বিশেষ ইউনিটের সাইবার অপরাধ নজরদারি অপরিহার্য, তবে অপপ্রয়োগে মত প্রকাশ ও বাকস্বাধীনতা খর্ব হওয়ার আশঙ্কা করছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। সংস্থাটি বলছে, এ ধরনের ইউনিট যদি রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক প্রভাবমুক্ত হয়ে অনিয়ম-দুর্নীতির ঊর্ধ্বে থেকে বস্তুনিষ্ঠতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনে সক্ষম না হলে এই নজরদারি ঝুঁকিপূর্ণ ও আত্মঘাতী হতে পারে।

বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান এ কথা বলেছেন।

তিনি বলেছেন, ‘গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা যাচ্ছে, ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মানহানিকর, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও উসকানিমূলক এবং অপরাধমূলক প্রচারণাকারীদের নজরদারির লক্ষ্যে সরকার বিশেষ সফটওয়্যার সমৃদ্ধ পুলিশের বিশেষায়িত একটি ইউনিট গঠনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সাইবার অপরাধ প্রতিরোধ ও দমন একটি বৈশ্বিক সমস্যা। বাংলাদেশও এ ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম নয়। তাই এ ধরনের অপরাধ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে কার্যকর নজরদারি অপরিহার্য। তবে নজরদারিতে নিয়োজিত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের প্রয়োজনীয় প্রযুক্তিগত দক্ষতা, সততা, পেশাদারি ও নিরপেক্ষতার ঘাটতি থাকলে এ ধরনের নজরদারির মাধ্যমে জনগণের বাক্স্বাধীনতা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা খর্ব হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে। বিশেষ করে এ ধরনের ইউনিট যদি রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক প্রভাবমুক্ত হয়ে অনিয়ম-দুর্নীতির ঊর্ধ্বে থেকে বস্তুনিষ্ঠতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনে সক্ষম না হয় তাহলে উক্ত নজরদারি ঝুঁকিপূর্ণ ও আত্মঘাতী হতে পারে।’

বাকস্বাধীনতা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা ৫৭ ধারার কারণে ইতিমধ্যে সংকুচিত হয়েছে মন্তব্য করে ইফতেখারুজ্জামান বলেছেন, ‘তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারার কারণে বাকস্বাধীনতা ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা ইতিমধ্যে সংকুচিত হয়েছে। যার স্বীকৃতিস্বরূপ মাননীয় আইনমন্ত্রী ও তথ্যমন্ত্রী উক্ত ধারা বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন। সে প্রতিশ্রুতি অবিলম্বে পূরণ করতে হবে। একই সঙ্গে উল্লিখিত প্রযুক্তিনির্ভর বিশেষায়িত ইউনিটের কার্যক্রম শুরুর আগে এর সুনির্দিষ্ট বিধিমালা প্রণয়ন বিশেষ করে অর্পিত ক্ষমতা ব্যবহারের ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ নিরপেক্ষতা, বস্তুনিষ্ঠতা ও পেশাদারি নিশ্চিতের জন্য কঠোর পরিবীক্ষণ, অভ্যন্তরীণ নিয়ন্ত্রণ ও জবাবদিহি ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। বিধিমালা প্রণয়ন প্রক্রিয়ায় সংশ্লিষ্ট খাতে বিশেষজ্ঞ ও অংশীজনদের সম্পৃক্ত করতে হবে। এ ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা গ্রহণ করাও অপরিহার্য মনে করছে টিআইবি।’


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত