যুক্তরাষ্ট্রে আজ রবিবার, ৩১ মে, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 08:16pm

|   লন্ডন - 03:16pm

|   নিউইয়র্ক - 10:16am

  সর্বশেষ :

  কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায় আন্দোলন: মেলরোজ ও ফেরারফ্যাক্স স্ট্রিটে সবচেয়ে বেশি লুন্ঠন   করোনায় একদিনে গেল আরও ৪৮ প্রাণ, আক্রান্ত ৫৩ হাজার ৬৫১   নিরাপত্তার জন্য লস এঞ্জেলেসে মোতায়েন ন্যাশনাল গার্ড সেনা   লস এঞ্জেলেসে ব্যাপক সংঘর্ষ-অগ্নিসংযোগ, কারফিউ‌ জারি   লস এঞ্জেলেসে বিক্ষোভ, ভাঙচুর, লুণ্ঠনের ঘটনায় গ্রেফতার ৫ শ   অকল্যান্ডে বন্দুক হামলায় ফেডারেল সিকিউরিটি অফিসার নিহত   লস এঞ্জেলেসের রেস্টুরেন্টগুলোতে বড় পরিসরে ব্যবসার অনুমতি   দেশে করোনায় মৃত্যু ৬০০ ছাড়াল, নতুন শনাক্ত ১৭৬৪   করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশকে ৬২২২ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে আইএমএফ   কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা: বিক্ষোভে উত্তাল লস এঞ্জেলেস, হয়েছে ভাঙচুর, ২ পুলিশ আহত   পদ্মা সেতুর সাড়ে ৪ কিলোমিটার দৃশ্যমান   প্রথমবারের মতো একই মাসে চন্দ্র ও সূর্যগ্রহণ   জিয়াউর রহমানের ৩৯তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ   প্লাজমা থেরাপি ও রেমডেসিভির ব্যবহারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিষেধাজ্ঞা   বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করলো যুক্তরাষ্ট্র

মূল পাতা   >>   প্রবাসী কমিউনিটি

মুনা কনভেনশন বাতিল, ১০ হাজার পরিবারকে ‘রমজান গিফট প্যাকেট’ প্রদানের কর্মসূচি

ইউএনএ

 প্রকাশিত: ২০২০-০৪-১৮ ০৬:২৩:১৭

বক্তব্য রাখছেন মুনা’র ন্যাশনাল প্রেসিডেন্ট ইমাম দেলোয়ার হোসাইন

ইউএনএ: করোনাভাইরাস পরিস্থিত জনিত কারণে যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিম এবং বাংলাদেশী কমিউনিটির একটি দায়িত্বশীল সংগঠন হিসেবে জাতির এই কঠিন মুহুর্তে জনগণের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে আসন্ন মুনা ন্যাশনাল কনভেনশন-২০২০ বন্ধ ঘোষণা করেছে মুনা কর্তৃপক্ষ। করোনায় আক্রান্তদের সেবা দানের জন্য খোলা হয়েছে হটলাইন (৮৭৭-৬৮৬-২৭৭৪) এবং বিপুল সংখ্যক স্বেচ্ছাসেবী সংশ্লিষ্টদের খাবার প্রদান ও চিকিৎসা সহায়াতা সহ অন্যান্য সেবা অব্যাহত রয়েছে। সেই সাথে আসন্ন পবিত্র রমজান মাসে নিউইয়র্ক সহ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে ১০ হাজার মুসলিম পরিবারের মাঝে ‘রমজান ইফতার গিফট প্যাকেট’ প্রদানের কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়েছে। উল্লেখ্য, আগামী ৩, ৪ ও ৫ জুলাই শুক্রবার, শনিবার ও রোববার ফিলাডেলফিয়ার সুবিশাল দৃষ্টি নন্দিত ‘পেনসিলভেনিয়া কনভেনশন সেন্টারে’ চলতি বছরের মুনা কনভেনশন-২০২০ হওয়ার কথা ছিলো।

বুধবার (১৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় এক টেলি প্রেস কনফারেন্সে মুনা’র নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত ঘোষণা দেন। প্রেস কনফারেন্সে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মুনা ন্যাশনাল এসিস্টেটেন্ট এক্সিকিউটিভ ডাইরেক্টর আরমান চৌধুরী। এর আগে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মুনা’র ন্যাশনাল ভাইস প্রেসিডেন্ট আবু আহমেদ নূরুজ্জামান। পরে উল্লেখিত নেতৃবৃন্দ ছাড়াও মুনা নেতৃবৃন্দের মধ্যে ন্যাশনাল প্রেসিডেন্ট ইমাম দেলোয়ার হোসাইন, ন্যাশনাল এক্সিকিউভিট ডাইরেক্টর হারুন অর রশীদ ছাড়াও মুনা’র নিউইয়র্ক জোন নর্থ-এর সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল আরীফ প্রমুখ টেলি প্রেস কনফারেন্সে যোগদানকারী সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

ব্যতিক্রমী এই প্রেস কনফারেন্সে আরমান চৌধুরী তার লিখিত বক্তব্যের শুরুতেই সম্প্রতি যারা করোনা ভাইরাসের মহামারিতে আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করেছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনার সাথে সাথে কভিড-১৯-এ আক্রান্ত সকলের আশু সুস্থতার জন্যে পরম করুণাময়ের দরবারে দোয়া করে বলেন, রাব্বুল আলামিন অসুস্থ এ সকল অসহায় মানুষদেরকে পুরোপুরি সুস্থতার নিয়ামত দান করুন। উল্লেখ্য, সন্ধ্যা সাড়ে ৮টার দিকে শুরু হওয়া এই কনফারেন্স চলে রাত ১১টা পর্যন্ত। এতে নিউইয়র্ক ছাড়াও বিভিন্ন অঙ্গরাজ্য থেকে সাংবাদিকগণ অংশ নেন।

এক প্রশ্নের উত্তরে মুনা নেতৃবৃন্দ বলেন, মুনা যেহেতু যুক্তরাষ্ট্রের নন প্রফিট সংগঠন তাই যুক্তরাষ্ট্রবাসীদের বিশেষ করে বাংলাদেশী কমিউনিটির সেবা করাই লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। তাই বাংলাদেশে মুনা’র কোন কার্যক্রম না থাকলেও অনেক সংগঠন রয়েছে যারা বাংলাদেশের মানুষের সেবায় কাজ করছে। অপর এক প্রশ্নের উত্তরে নেতৃবৃন্দ বলেন, বৈধ-অবৈধ, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে যে কোন কমিউনিটির লোক মুনা’র সাহায্য নিতে পারে। এছাড়াও মুনা’র পক্ষ থেকে প্রয়োজনে আনএমপ্লয়মেন্ট আবেদন করতেও সাহায্য করা হবে।

অপর এক প্রশ্নের উত্তরে মুনা নেতৃবুন্দ জানান, তারা করোনাভাইরাসে মৃত্যুবরণকারী বাংলাদেশীদের সাহায্য ছাড়াও আক্রান্তদেও চিকিৎসার ব্যাপারে সাহায্য এবং প্রয়োজনে খাবার দিয়ে সেবা করছেন। বিভিন্ন সাহায্যের জন্য গড়ে প্রতিদিন মুনা’র হটলাইনে ২০০ কল আসছে বলে তারা জানান।

লিখিত বক্তব্যে আরমান চৌধুরী বলেন, পৃথিবী আজ যে ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখী; বিশেষজ্ঞদের মতে, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে এমন অনিশ্চিত অবস্থা আর কখনো ঘটেনি। এ পরিস্থিতির সূচনালগ্ন থেকে করোনার ভয়াবহতার কথা বিশ্বের মানুষকে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, সতর্কতার কথা বলেছেন দেশের রাষ্ট্রনায়করা; কিন্ত বাস্তবতা হলো এ মরণব্যাধি ভাইরাস মানব জাতির সকল প্রতিবন্ধকতাকে উপেক্ষা করে গ্রাস করে চলেছে একের পর এক মানবজীবন। আমরা ইতিমধ্যে নিউইয়র্ক সিটিতে বাংলাদেশ সোসাইটির সভাপতি কামাল আহমেদ, গ্রেটার কুমিল্লা সমিটির সাবেক সভাপতি আজাদ বাকের, সাংবাদিক আব্দুল হাই স্বপন, বিএমএএনএ নিউইয়র্ক চ্যাপ্টারের সদস্য ডা. আলী মামুন, ডা. মোহাম্মদ ইফতেখার উদ্দীন, ডা. রেজা চৌধুরী, এস্টোরিয়া আইডিয়াল স্কুলের শিক্ষক প্রফেসর রফিকুল ইসলাম সোবহানী, বাংলাবাজার জামে মসজিদ, বঙ্ক্রস’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি গিয়াস উদ্দীনসহ অনেক দায়িতশ¡ীল আপনজনদের হারিয়েছি। এছাড়াও বিভিন্ন স্টেটে করোনা আক্রান্ত বাংলাদেশীদের মৃত্যু সংবাদ আমাদের কাছে আসছে প্রতিদিন। এখনো আইসিইউতে এ মরণব্যাধি ভাইরাসের সাথে জীবন-মৃত্যুর পাঞ্জা লড়ছেন অনেকে।

আরমান চৌধুরী বলেন, মুসলিম উম্মাহ অফ নর্থ আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিম এবং বাংলাদেশী কমিউনিটির একটি দায়িত্বশীল সংগঠন হিসেবে জাতির এই কঠিন মুহূর্তে জনগণের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে আসন্ন মুনা ন্যাশনাল কনভেনশন ২০২০কে বন্ধ ঘোষণা করেছে। আমরা অসুস্থ, অসহায়, বয়স্ক মানুষের পাশে দাঁড়ানো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে ইতিমধ্যে বিভিন্ন কার্যক্রম শুরু করেছি। দেশব্যাপী হটলাইন নাম্বারের মাধ্যমে অসহায়, অসুস্থ, বয়স্ক মানুষের জন্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র, গ্রোসারী সরবরাহ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। সেই সাথে যাঁরা মারা যাচ্ছেন, তাদের দাফন-কাফনের সার্বিক সহযোগিতা আমরা প্রদান করে যাচ্ছি। যারা সহজে চিকিৎসা নিতে পারছেন না; আমাদের ভাই-বোনদের একটি ডাক্তার গ্রুপ হটলাইনের মাধ্যমে চিকিৎসা পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন; চিকিৎসা সেবা প্রদান করে যাচ্ছেন। এছাড়াও অনেকে যারা জব হারিয়েছেন, ব্যক্তিগতভাবে ব্যবসা-বাণিজ্য করতেন। ক্যাব চালাতেন, উবার চালাতেন; বর্তমান কঠিন পরিস্থিতিতে তাদের উপাজর্নের পথ প্রায় রুদ্ধ। আমরা যতদরূ জানতে পেরেছি, একই ভাবে সাংবাদিকতা পেশার সাথে জড়িত অনেকেই, অনেকের পরিবার আর্থিকভাবে কঠিন সময় পার করছেন। তারা যাতে সরকারের কাছ থেকে আনএমপ্লয়মেন্ট সুবিধা নিতে পারেন, হটলাইনের মাধ্যমে সেই প্রচেষ্টা এবং সহযোগিতা আমরা অব্যাহত রেখেছি।

তিনি বলেন, মাহে রমজান আসন্ন। অথচ এ রমজান কিভাবে পালন করবো, এমাসকে কিভাবে কাটাবো তা আমরা কেউই জানিনা। একটি অনিশ্চয়তা, একটি আতংকের মধ্যে দিনাতিপাত করছি আমরা সকলে। এ অবস্থায় মুনা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে- ১০ হাজার পরিবারের মাঝে ‘রমজান ইফতার গিফট প্যাকেট’ সরবরাহ করবে, যাতে করে কিছুটা হলেও স্বস্তির সাথে একটি পরিবার মাহে রমজানকে শুরু করতে পারে। 
আরমান চৌধুরী বলেন, গোটা দুনিয়ায় বিষয়টি আজ আবারও প্রমাণিত হলো; আল্লাহ ছাড়া আমাদের আর কোন উপায় নেই। সুতরাং আমরা ইতিপূর্বে যত ভুল করেছি, অন্যায় করেছি, জুলুম করেছি, নামাজ ছেড়ে দিয়েছি, আল্লাহ’র অনেক হুকুম অমান্য করেছি; আসুন, সে সকল ভুলের জন্য রহমানের দরবারে ক্ষমা চাই। আল্লাহ বলেছেন, ‘তোমরা আমার রহমত থেকে নিরাশ হয়োনা। আমার কাছে ক্ষমা চাও, আমি তোমাদেরকে ক্ষমা করবো।’ আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’য়ালা কুরআন মজিদের বহু জায়গায় নিজেকে ‘গাফুরুর রাহীম’- ক্ষমাশীল বলেছেন। সুতরাং আমাদের সকলের উচিত আপন অপরাধ স্বীকার করে ‘গাফুরুর রাহীমে’র দরবারে ধরণা দেয়া। মুসলিম উম্মাহ অফ নর্থ আমেরিকা গোটা দেশব্যাপী মানুষকে আল্লাহমুখী হওয়ার জন্যে উদাত্ত আহবান করে যাচ্ছে। কুরআনের আলোকে, ইসলামের আলোকে জীবন, পরিবার, সমাজ গঠনের জন্য সাংগঠনিক দাওয়াহ কমর্সূিচ অব্যাহত রেখেছে। মানষুকে ‘সিরাতাল মুস্তাকীমে’র পথে আহবানের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আপনিও আমাদের সাথে শরীক হোন।
পরিশেষে তিনি সবাইকে মাহে রামজানের আগাম শুভেচ্ছা এবং অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্যে আবারো অনুরোধ জানান এবং মুনা’র ইমার্জেন্সী ফান্ডে বিত্তবানদের আর্থিক সহযোগিতা কামনা করেন।

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/এএল

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৬২৭ বার

আপনার মন্তব্য

সর্বাধিক পঠিত

সাম্প্রতিক খবর