Updates :

        আগাম ভোটারদের টানতে প্রচারণায় ট্রাম্প ও বাইডেন

        ক্যালিফোর্নিয়ায় প্রস্তাবনা ২১ পাশ হলে কমবে উচ্ছেদ শঙ্কা

        চিরনিদ্রায় শায়িত ব্যারিস্টার রফিক-উল হক

        জার্মানিতে বন্দুকধারীর হামলায় ৬ শিশু নিহত

        বিশ্বব্যাপী একদিনে করোনা আক্রান্ত প্রায় ৫ লাখ, মৃত্যু সাড়ে ৬ হাজার

        ক্যাম্পাস ক্লাব সামিটে অংশ নিচ্ছে চবির ২২ টি সংগঠন

        সৌদিসহ পাঁচ দেশ ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনে আগ্রহী: ট্রাম্প

        `এই সরকার 'অটো পাসের' সরকার'

        আইনের বাতিঘর ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আর নেই

        মাস্ক ব্যবহারে রাষ্ট্রীয় আদেশ জারি করতে হবে: ফাউসি

        করোনা বিপর্যয়: একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড

        লিবিয়ায় শান্তির সুবাতাস, ৩ মাসের মধ্যে বিদেশি সেনা প্রত্যাহার

        করোনার দ্বিতীয় ঢেউ সামলাতে ইউরোপজুড়ে কড়া পদক্ষেপ

        রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে জাতিসংঘের আরও জোরালো ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী

        করোনার টিকায় ব্রাজিলে একজনের মৃত্যু

        চরিত্র বদলাচ্ছে সব ঋতু! কেন?

        করোনা: একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু সাড়ে ৬ হাজার

        সিদ্ধার্থ সিংহের 'পঞ্চাশটি গল্প' বইটিকে ঘিরে গল্প লেখার প্রতিযোগিতা

        করোনাভাইরাস: লস এঞ্জেলেসে শিথিল হচ্ছে নিষেধাজ্ঞা

        প্রস্তাবনা ১৪: নিজস্ব স্টেম সেল রিসার্চ সেন্টার হবে ক্যালিফোর্নিয়ায়

ডেঙ্গু আক্রান্তরা হতে পারেন করোনা প্রতিরোধে সক্ষম: গবেষণা

ডেঙ্গু আক্রান্তরা হতে পারেন করোনা প্রতিরোধে সক্ষম: গবেষণা

ডেঙ্গু রোগের বাহক এডিস মশা

যেসব এলাকায় আগে ডেঙ্গু জ্বরের প্রাদুর্ভাব হয়েছে সেসব এলাকার মানুষের করোনাভাইরাসে আক্রান্তের হার কম বলে দেখা গেছে নতুন এক গবেষণায়।  যুক্তরাষ্ট্রের ডিউক ইউনিভার্সিটির গবেষকেরা ব্রাজিলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বিশ্লেষণ করে এমন চিত্র দেখতে পেয়েছেন। 


গবেষক দলের প্রধান ডিউক ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক মিগুয়েল নিকোলেলিস মনে করছেন, মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গু থেকে আরোগ্য পাওয়া ব্যক্তিরা হয়তো কিছু মাত্রায় কোভিড-১৯ প্রতিরোধ ক্ষমতা অর্জন করেছেন। এই অনুমান সত্যি হলে ডেঙ্গুর নিরাপদ ভ্যাকসিন ব্যবহার করে কিছু মাত্রায় করোনাভাইরাস প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে। ব্রিটিশ বার্তা রয়টার্স এ খবর জানায়। 

বিশ্বের অন্যতম করোনা কবলিত দেশটিতে প্রায় প্রতিবছরই ডেঙ্গু ভাইরাসের প্রকোপ দেখা যায়। ফলে ২০১৯ ও ২০২০ সালে ব্রাজিলের যেসব অঞ্চলে ডেঙ্গুর প্রকোপ দেখা গেছে সেসব অঞ্চলে করোনাভাইরাস আক্রান্তের হার তুলনা করে দেখেন গবেষকেরা। 

এতে দেখা যায়, এই বছর কিংবা আগের বছর যেসব এলাকা ডেঙ্গুর তীব্র প্রকোপ প্রত্যক্ষ করেছে সেসব এলাকায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের হার কম আর সেখানে আক্রান্তের সংখ্যাও বেড়েছে ধীর গতিতে।

গবেষণাটির ফলাফলে বলা হয়েছে, “এই আকর্ষণীয় অনুসন্ধানটি ডেঙ্গুর ফ্লাভিভাইরাস সেরোটাইপস (ডেঙ্গুর অ্যান্টিবডি) এবং সার্স-কোভ-২ (করোনাভাইরাসের অ্যান্টিবডি) এর মধ্যে প্রতিরোধগত আন্ত:মিথষ্ক্রিয়ার সম্ভাবনা চমৎকারভাবে বাড়িয়ে দিয়েছে।” 

এতে বলা হয়, “যদি সঠিক প্রমাণিত হয় তাহলে এই অনুমানের অর্থ হবে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কার্যকর হয়ে উঠতে পারে ডেঙ্গু সংক্রমণ কিংবা ডেঙ্গুর ভ্যাকসিন করোনার বিরুদ্ধেও কিছু মাত্রায় কার্যকর হয়ে উঠতে পারে।”

অধ্যাপক মিগুয়েল নিকোলেলিস বলেন, “এর মাধ্যমে দুটি ভাইরাসের মধ্যে প্রতিরোধগত মিথষ্ক্রিয়ার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে, যা কেউ আশা করতে পারেনি কেননা এই দুটি ভাইরাস সম্পূর্ণ আলাদা পরিবারের।”

নিকোলেলিস জানান, তাদের গবেষক দলটি দুর্ঘটনাবশত ডেঙ্গু এবং করোনাভাইরাসের মধ্যকার সংযোগটি আবিষ্কার করেছে। কারণ তাদের গবেষণার উদ্দেশ্য ছিলো ব্রাজিলে কিভাবে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঘটেছে তা খতিয়ে দেখা।








এলএ বাংলা টাইমস/এমকে

শেয়ার করুন