যুক্তরাষ্ট্রে আজ সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 07:26pm

|   লন্ডন - 01:26pm

|   নিউইয়র্ক - 08:26am

  সর্বশেষ :

  ট্রাম্পকে শান্তিতে নোবেলের জন্য অনুরোধ করেছিল যুক্তরাষ্ট্র   ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাককে ফরীদ উদ্দীন মাসঊদের অভিনন্দন!   অনুমোদন পেল আরও তিন ব্যাংক   সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে শাজাহান খানের নেতৃত্বে কমিটি   ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের কমিটি গঠিত   পাকিস্তান সীমান্তে ১৪০ যুদ্ধবিমান নিয়ে ভারতের মহড়া   কাশ্মীরে বোমা বিস্ফোরণে ভারতীয় মেজর নিহত   পুলওয়ামা হামলার পর ভারতজুড়ে আতঙ্কে কাশ্মীরিরা   মা-বাবার পাশে শায়িত হলেন আল মাহমুদ   শিক্ষিত হয়েও অনেকে স্বেচ্ছায় বেকার : পরিকল্পনামন্ত্রী   মিউনিখে প্রধানমন্ত্রীকে নাগরিক সংবর্ধনা   আল মাহমুদের জানাজা সম্পন্ন, কাল নিজ গ্রামে দাফন   জামায়াত থেকে শিবিরের সাবেক সভাপতি মঞ্জু বহিষ্কার   বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হলেন ৪৯ নারী   জামায়াত বিলুপ্তির প্রস্তাব, যা বললেন ওবায়দুল কাদের

মূল পাতা   >>   বিনোদন

সিডনীতে প্রেম পুরানের ২য় ও ৩য় প্রদর্শনী ১০ ফেব্রুয়ারি

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-২৪ ১২:০৮:২২

নিউজ ডেস্ক: আসছে ১০ই ফেব্রুয়ারি শনিবার ওয়ালী পার্কের Horizon Theatre এ ২য় ও ৩য় প্রদর্শনী হতে যাচ্ছে কবিতা বিকেল প্রযোজিত বাচিকনাট্য প্রেম-পুরাণ। নাটকটির প্রযোজনা ভাবনার মূলকথা হচ্ছে সুন্দর বন। কোন এক পুরাণ কালে মালঞ্চের জলে ভাসতে ভাসতে সত্যিই কি কালীর চরে এসে উঠেছিল শ্বেতহরিণী বা জামাল খাঁ? নাকি এ কেবলি কবির কল্পণা? কালীর চর সত্য। তাকে ঘিরে আজও বহমান মালঞ্চ। বন কেড়ে নেবার চেষ্টা আর তার বিরুদ্ধে যুদ্ধও চিরকালের। বাদাবনের মানুষ এক সময় বাঘের থাবার ভয়ে বনদেবীর স্মরণ নিত। আজ নেয় শিল্পায়নের ভয়ে। গরানের শ্বাসমূলে ধুঁকছে বাদাবনের প্রান। তবু কমতে কমতে বুড়োর মাথার চুলের মতন অবশিষ্ট যে টুকুন বন আজও টিকে আছে। সেইখানে কোন গাছের গায়ে আজও যদি কান পাতে কেউ; যদি কেউ গোল পাতার ঝোঁপের ফাঁকে রাখে সন্ধানী চোখ - বনদেবী আর জামাল পীরকে দেখতে পায় তারা!

জনশ্রুতি এই যে, যেখানেই বাদাবনের উপর হামলে পড়েছে বেণিয়ার লোভ, সেখানেই প্রতিরোধ গড়তে দেখা গেছে জামাল আর শ্বেতহরিণীকে। প্রেম, নরনারীর কামনারও অধিক হয়ে উঠে জড়িয়ে নিয়েছে দুই বাংলার বাদাবন। বাদাবনের মানুষের বিশ্বাস, লোভের বাঘ তাদের ঘাড়ে লাফিয়ে পড়ার আগেই তারা আবার একদিন আসিবেন এই বাংলায়।

আমাদেরও খুব বিশ্বাস করতে ইচ্ছে করে - লড়াই হবে। বাঁচার লড়াই। চলবে বহুকাল। লড়াই ছড়িয়ে পড়বে জল থেকে জঙ্গলে, পাহাড় থেকে সমতলে। এ লড়াইয়ে জিতবে কারা? কবিতা বিকেলের এই প্রশ্নের নামই - ‘প্রেম-পুরাণ’। এই প্রযোজনার পোষ্টার, মঞ্চ সজ্জ্বা, প্রতিটি সংলাপ উপকূল বাংলার নোনা মাটির প্রতি কবিতা বিকেল’র ঋণ স্বীকার মাত্র।যারা লড়ছেন:
ওয়াসিফ আহমেদ শুভ (দশরথ কেওট, সূত্রধর ৭)
যোবাইদা আখতার রত্না (কুশলা, সূত্রধর ২)

কাজী সুলতানা শিমি (শ্বেতহরিণী)
শাকিল আরমান চৌধুরী (জামাল খাঁ, সূত্রধর ৪)
সাবিরা রহমান রীমা (সূত্রধর ৫)
মুনা মুসতফা (সূত্রধর ৮)
আফসানা রুচি (মালতি, সূত্রধর ৩)
জ্যোতি বিশ্বাস (সূত্রধর ৬) রাজন নন্দী (সূত্রধর ১) আলোক ও মঞ্চ ব্যবস্থাপনা: শীর্ষেন্দু নন্দী। আবহ সংগীত : তামিমা শাহরীন, শান্তনু কর ও জ্যোতি বিশ্বাস।রচনা ও নির্মাণ: রাজন নন্দী।


এলএবাংলাটাইমস//এলআরটি 

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ১৩৭৮ বার

আপনার মন্তব্য