যুক্তরাষ্ট্রে আজ শনিবার, ২১ Jul, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 12:04pm

|   লন্ডন - 07:04am

|   নিউইয়র্ক - 02:04am

  সর্বশেষ :

  বিশ্ব সিলেট সম্মেলন ২০১৮-এর পূর্ণাঙ্গ কার্যকরী পরিষদ ঘোষণা   মিতালী মুখার্জী গাইবেন সিডনীতে   বরিশাল বিভাগ সমিতির আয়োজনে বনভোজন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত   বিশ্বের ৪ কোটি মানুষ ‘আধুনিক দাসত্বে’র কবলে, যুক্তরাষ্ট্রে ৪ লক্ষাধিক   গাড়িতে চড়েন গৃহকর্মী, পরেন ২৫ লাখের গয়না!   দক্ষিণ কোরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্টের সাজা বেড়ে ৩২ বছর   এইচএসসিতে ফেল করায় ৩ ছাত্রীর আত্মহত্যা   বিএনপির বিশাল সমাবেশ : নির্বাচনে যেতে তিন শর্ত   ‘সরকার বিএনপি-জামায়াতের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি সৃষ্টি করছে’   সৌদিতে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি নিহত   ‘সালাম’ ভালোবাসার নির্মল সেতুবন্ধন   ‘ইহুদি জাতীয় রাষ্ট্র’ বিল পাস করেছে ইসরাইলি পার্লামেন্ট   সাইপ্রাসে নৌকাডুবিতে ১৯ অভিবাসীর মৃত্যু   কক্সবাজারে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ২ জন নিহত   দুই বছর জারি থাকা জরুরি অবস্থা তুলে নিল তুরস্ক

মূল পাতা   >>   ইউরোপের খবর

আগের রঙে ফিরছে ব্রিটিশ পাসপোর্ট

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৭-১২-২৩ ১১:০৯:৪৩

নিউজ ডেস্ক: ২০১৯ সালের ২৯ মার্চ রাত ১১টায় আনুষ্ঠানিকভাবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ত্যাগ করবে যুক্তরাজ্য। এরপর ধারাবাহিকভাবে নানা বিষয়ে ইউরোপের প্রভাব বলয় থেকে বেরিয়ে আসবে দেশটি। ফিরে আসবে আগের নীল ও সোনালী রঙয়ের মিশেলে ডিজাইন করা পাসপোর্টে। যুক্তরাজ্যের অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী ব্র্যান্ডন লুইস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে স্কাই নিউজ।

ইউরোপীয় ইউনিয়নে যোগদানের পর যুক্তরাজ্য তার পাসপোর্ট পরিবর্তন করেছিল। কিন্তু এখন দেশটি আঞ্চলিক ওই সংস্থা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর তাদের পাসপোর্টে আর ইউরোপীয় স্ট্যান্ডার্ডের কার্যকারিতা থাকছে না। ফলে তখন নিজেদের মতো করে পাসপোর্টের রং বা ডিজাইন বাছাইয়ের ক্ষমতা থাকবে দেশটির। ফলে নতুন পাসপোর্টে প্রতীকীভাবে যুক্তরাজ্যের স্বাতন্ত্র্য বজায় রাখার দিকে নজর দেওয়া হবে।

যুক্তরাজ্যের প্রথম পাসপোর্টটি ছিল আকাশী রঙয়ের। ব্রেক্সিট কার্যকরের পর নতুন পাসপোর্টেও এর ছাপ থাকবে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নতুন ব্রিটিশ পাসপোর্টগুলো হবে খুবই উন্নত মানের। এতে জালিয়াতি এড়ানোর মতো ফিচার যুক্ত করা হবে।

যুক্তরাজ্যের অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী ব্র্যান্ডন লুইস বলেছেন, আমাদের জাতীয় স্বাতন্ত্র্য তুলে ধরার জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসা একটি সুবর্ণ সুযোগ। এটি বিশ্বে আমাদের একটি নতুন পরিচিতি দেবে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের গণভোটে ২৮ জাতির ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছাড়ার পক্ষে রায় দেন ব্রিটিশ নাগরিকরা। এক্ষেত্রে অভিবাসন ইস্যুকে প্রচারণার বড় হাতিয়ার করে ব্রেক্সিটপন্থীরা।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৮৪৯ বার

আপনার মন্তব্য