যুক্তরাষ্ট্রে আজ শুক্রবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 06:25pm

|   লন্ডন - 01:25pm

|   নিউইয়র্ক - 08:25am

  সর্বশেষ :

  নিউইয়র্কে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের আলোচনা সভা   লন্ডনে বিক্ষোভের মুখে মোদি   কোটা সংস্কার আন্দোলন: ঢাবি ক্যাম্পাসজুড়ে ভীতি   কোচিং ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে পদত্যাগ করলেন ছাত্রলীগ নেতা রনি   খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে পারলেন না বিএনপি নেতারা   প্রবাসীদের ভোটাধিকার দিতে নির্বাচন কমিশন কাজ করছে: সিইসি   ইন্দোনেশিয়ায় ভয়াবহ ভূমিকম্প, ধসে পড়েছে শতাধিক বাড়িঘর   সৌদিতে সিনেমা হল উদ্বোধন   কিমের সঙ্গে আলোচনা সফল না হলে পদত্যাগ : আবেকে ট্রাম্প   টাইম ম্যাগাজিনের ১০০ প্রভাবশালীর তালিকায় শেখ হাসিনা   বিশ্বের ৯৫ শতাংশ মানুষ দূষিত বায়ু গ্রহণ করছে   বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভারত   আরবদের বিরুদ্ধে আরবেদরই কাজে লাগাতে চাইছেন ট্রাম্প   বিসিবির চুক্তি থেকে বাদ সৌম্য-তাসকিন-সাব্বির   সৌদিতে আবার সিলিন্ডার বিস্ফোরণে সাত বাংলাদেশির মৃত্যু

মূল পাতা   >>   ইউরোপের খবর

আগের রঙে ফিরছে ব্রিটিশ পাসপোর্ট

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৭-১২-২৩ ১১:০৯:৪৩

নিউজ ডেস্ক: ২০১৯ সালের ২৯ মার্চ রাত ১১টায় আনুষ্ঠানিকভাবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ত্যাগ করবে যুক্তরাজ্য। এরপর ধারাবাহিকভাবে নানা বিষয়ে ইউরোপের প্রভাব বলয় থেকে বেরিয়ে আসবে দেশটি। ফিরে আসবে আগের নীল ও সোনালী রঙয়ের মিশেলে ডিজাইন করা পাসপোর্টে। যুক্তরাজ্যের অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী ব্র্যান্ডন লুইস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে স্কাই নিউজ।

ইউরোপীয় ইউনিয়নে যোগদানের পর যুক্তরাজ্য তার পাসপোর্ট পরিবর্তন করেছিল। কিন্তু এখন দেশটি আঞ্চলিক ওই সংস্থা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর তাদের পাসপোর্টে আর ইউরোপীয় স্ট্যান্ডার্ডের কার্যকারিতা থাকছে না। ফলে তখন নিজেদের মতো করে পাসপোর্টের রং বা ডিজাইন বাছাইয়ের ক্ষমতা থাকবে দেশটির। ফলে নতুন পাসপোর্টে প্রতীকীভাবে যুক্তরাজ্যের স্বাতন্ত্র্য বজায় রাখার দিকে নজর দেওয়া হবে।

যুক্তরাজ্যের প্রথম পাসপোর্টটি ছিল আকাশী রঙয়ের। ব্রেক্সিট কার্যকরের পর নতুন পাসপোর্টেও এর ছাপ থাকবে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নতুন ব্রিটিশ পাসপোর্টগুলো হবে খুবই উন্নত মানের। এতে জালিয়াতি এড়ানোর মতো ফিচার যুক্ত করা হবে।

যুক্তরাজ্যের অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী ব্র্যান্ডন লুইস বলেছেন, আমাদের জাতীয় স্বাতন্ত্র্য তুলে ধরার জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসা একটি সুবর্ণ সুযোগ। এটি বিশ্বে আমাদের একটি নতুন পরিচিতি দেবে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের গণভোটে ২৮ জাতির ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছাড়ার পক্ষে রায় দেন ব্রিটিশ নাগরিকরা। এক্ষেত্রে অভিবাসন ইস্যুকে প্রচারণার বড় হাতিয়ার করে ব্রেক্সিটপন্থীরা।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৭৭৬ বার

আপনার মন্তব্য

সর্বাধিক পঠিত