যুক্তরাষ্ট্রে আজ সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 04:23pm

|   লন্ডন - 11:23am

|   নিউইয়র্ক - 06:23am

  সর্বশেষ :

  শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে টাইগারদের জয়   বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় আরও ৫ লাখ রোহিঙ্গা   ট্রাম প্রশাসনের নতুন প্রস্তাবনা, কঠিন হয়ে পড়তে পারে গ্রিন কার্ড   নাইজেরিয়ায় কলেরা মহামারি, ৯৭ জনের মৃত্যু   মংলা-বুড়িমারী বন্দরে বছরে অবৈধ লেনদেন হয় ৩১ কোটি টাকা   অস্কারে যাচ্ছে বাংলাদেশের ‘ডুব’   উন্নত বিশ্বে দ্রুত বাড়ছে বয়স্ক মানুষের সংখ্যা   ৩ লাখ বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ৪ হাজার ‘কাল্পনিক’ মামলা: তদন্তে কমিশন চেয়ে রিট   গাজীপুরে বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের মহাসড়ক অবরোধ   লস এঞ্জেলেসে বৃহত্তর বরিশালবাসীর পিকনিক ৩০ সেপ্টেম্বর   নিউজার্সিতে নবীগঞ্জ উপজেলার সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের মতবিনিময় সভা   ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট যুবলীগের উদ্যোগে শেখ হাসিনার সংবর্ধনা নিয়ে প্রস্তুতি সভা   যেখানে হাসিনা, সেখানেই প্রতিরোধ : যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি’র কর্মসূচি   প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাষ্ট্র আগমন উপলক্ষে নাগরিক সংবর্ধনার প্রস্তুতি সভা   ডিসেম্বর থেকে লন্ডন-ঢাকা রুটে বাড়ছে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

ব্রেক্সিট নিয়ে টেরিজা মে’র সঙ্গে মতবিরোধ, ২ মন্ত্রীর পদত্যাগ

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০৯ ০১:৫৭:৪১

নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র সঙ্গে ‘মতবিরোধের’ কারণে পদত্যাগ করেছেন ব্রেক্সিট বিষয়ক মন্ত্রী ডেভিড ডেভিস ও তার দপ্তরের উপমন্ত্রী স্টিভেন বেকার। ব্রেক্সিট পরিকল্পনা মন্ত্রিসভার থেরেসা অনুমোদন পাওয়ার মাত্র দুই দিনের মাথায় আজ  রোববার পদত্যাগ করলেন তারা।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার বিষয়ে দর কষাকষির দায়িত্ব দিয়ে ডেভিড ডেভিসকে ২০১৬ সালে মন্ত্রিসভায় আনেন টেরিজা মে।

পদত্যাগপত্রে ডেভিস লিখেছেন, প্রধানমন্ত্রী মে যে নীতি আর কৌশল নিয়ে অগ্রসর হচ্ছেন তাতে যুক্তরাজ্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছাড়তে পারবে বলে তার মনে হচ্ছে না।

জবাবে থেরেসা মে লিখেছেন, শুক্রবার মন্ত্রিসভার সম্মতি পাওয়া প্রস্তাবকে যে ভাষায় ডেভিস বর্ণনা করেছেন, তার সঙ্গে তিনি একমত নন।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ডেভিস সরে যাওয়ায় তিনি দুঃখ পেয়েছেন। তবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসার জন্য যে দায়িত্ব তিনি এতদিন পালন করেছেন, সেজন্য তাকে ধন্যবাদ জানাতে চান।

ব্রেক্সিট কী?
২০১৬ সালের গণভোটে যুক্তরাজ্যের জনগণ ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পক্ষে ভোট দেয়। এই বিচ্ছেদকেই বলা হচ্ছে ব্রেক্সিট, যা ২০১৯ সালের মার্চের মধ্যে শেষ করতে দুই পক্ষের মধ্যে দর কষাকষি চলছে।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৩৯৮ বার

আপনার মন্তব্য