যুক্তরাষ্ট্রে আজ বুধবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 08:32am

|   লন্ডন - 02:32am

|   নিউইয়র্ক - 09:32pm

  সর্বশেষ :

  চট্টগ্রামে আমীর খসরুর গণসংযোগকালে হামলা   নির্বাচন কমিশন থেকে ফেরার পথে বিএনপি নেতা আটক   ব্রাজিলে গির্জায় গোলাগুলি, নিহত ৫   ২৪ ডিসেম্বর মাঠে নামছে সেনবাহিনী   আটকে গেল ২ বিএনপি নেতার নির্বাচন   নেতৃত্ব হারাতে পারেন থেরেসা মে   টুঙ্গিপাড়া থেকে নির্বাচনী প্রচার শুরু শেখ হাসিনার   অনুমোদন পেল বেঙ্গল গ্রুপের নতুন ব্যাংক   দাবানলে সর্বহারা মার্কিন মাহিলার পাশে বাফলা   নিসচা নিউজার্সি শাখার উদ্যোগে ইলিয়াস কাঞ্চনকে নাগরিক সংবর্ধনা   ইতালি বিএনপি’র তীব্র নিন্দা   আজ মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ১৩৮তম জন্মবার্ষিকী   জেলে যেতে পারেন ট্রাম্প   দলকে নয় গণতন্ত্রকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র: রাষ্ট্রদূত   কিসমিসের উপকারিতা

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

তেল মজুদের দিক দিয়ে বিশ্বে ৬ষ্ঠ পাকিস্তান!

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৮-০৮ ০৭:১৮:৩২

নিউজ ডেস্ক: ইরান সীমান্তের কাছে বিশাল তেলের মজুদ আবিষ্কারের খবর দিয়েছেন পাকিস্তানের অন্তর্বর্তী সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল্লাহ হুসেইন হারুন। তিনি দাবি করেছেন, এই একটি খনিতে কুয়েতের মোট মজুদের চেয়েও বেশি তেল রয়েছে।

তিনি গতকাল মঙ্গলবার পাকিস্তানের ফেডারেশন অব চেম্বার্স অব কমার্স ইন্ডাস্ট্রির এক বৈঠকে ঘোষণা করেন- ইরান-পাকিস্তান পানিসীমার কাছে যুক্তরাষ্ট্রের ‘এক্সন মবিল’ কোম্পানি বিশাল এক তেলের মজুদ খুঁজে পেয়েছে। উত্তোলন উপযোগী এই তেলের খনি পাকিস্তানকে তেলের মজুদের দিক দিয়ে বিশ্বের ৬ষ্ঠ দেশে পরিণত করবে।

এই তেল ক্ষেত্র থেকে তেল উত্তোলন শুরু করতে এক হাজার কোটি ডলার খরচ হবে বলে জানান এই অস্থায়ী পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, পাকিস্তান সরকারের সঙ্গে স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুযায়ী, এই ক্ষেত্র থেকে উত্তোলনকৃত তেলের শতকরা ২৫ ভাগ এক্সন মবিলকে দিতে হবে।

সম্প্রতি এক্সন মবিল জানিয়েছিল, তারা ইরান-পাকিস্তান সীমান্তে বড় ধরনের তেলের মজুদ পাওয়ার কাছাকাছি অবস্থায় রয়েছে।

পাকিস্তানের জিও নিউজ জানিয়েছে, দেশটিতে তেল ও গ্যাসের মতো খনিজ সম্পদের সন্ধানে এক্সন মবিল এ পর্যন্ত পাঁচ হাজার মিটার খননকাজ সম্পন্ন করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের এ কোম্পানিকে গ্যাস অনুসন্ধানেরও দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

পাকিস্তানের অস্থায়ী পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দেয়া তথ্য সঠিক হয়ে থাকলে তা পাকিস্তানের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য এক যুগান্তকারী ঘটনা হবে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। বর্তমানে পাকিস্তানের মোট তেলের চাহিদার শতকরা ১৫ ভাগ অভ্যন্তরীণভাবে উৎপন্ন হয়। বাকি ৮৫ ভাগ প্রয়োজনের জন্য দেশটি আমদানির ওপর নির্ভরশীল।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৭৬৩ বার

আপনার মন্তব্য