যুক্তরাষ্ট্রে আজ সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 07:33pm

|   লন্ডন - 01:33pm

|   নিউইয়র্ক - 08:33am

  সর্বশেষ :

  ট্রাম্পকে শান্তিতে নোবেলের জন্য অনুরোধ করেছিল যুক্তরাষ্ট্র   ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাককে ফরীদ উদ্দীন মাসঊদের অভিনন্দন!   অনুমোদন পেল আরও তিন ব্যাংক   সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে শাজাহান খানের নেতৃত্বে কমিটি   ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের কমিটি গঠিত   পাকিস্তান সীমান্তে ১৪০ যুদ্ধবিমান নিয়ে ভারতের মহড়া   কাশ্মীরে বোমা বিস্ফোরণে ভারতীয় মেজর নিহত   পুলওয়ামা হামলার পর ভারতজুড়ে আতঙ্কে কাশ্মীরিরা   মা-বাবার পাশে শায়িত হলেন আল মাহমুদ   শিক্ষিত হয়েও অনেকে স্বেচ্ছায় বেকার : পরিকল্পনামন্ত্রী   মিউনিখে প্রধানমন্ত্রীকে নাগরিক সংবর্ধনা   আল মাহমুদের জানাজা সম্পন্ন, কাল নিজ গ্রামে দাফন   জামায়াত থেকে শিবিরের সাবেক সভাপতি মঞ্জু বহিষ্কার   বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হলেন ৪৯ নারী   জামায়াত বিলুপ্তির প্রস্তাব, যা বললেন ওবায়দুল কাদের

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

বাংলাদেশের হাইকমিশনারকে বহিষ্কার করতে চায় পাকিস্তান

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-১০-১০ ১৪:৫৫:৩৬

নিউজ ডেস্ক: ইসলামাবাদে বাংলাদেশের হাইকমিশনার তারেক আহসানকে বহিষ্কার করতে পারে পাকিস্তান। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে এ পরামর্শ দিয়েছেন। ইসলামাবাদ থেকে প্রকাশিত ডেইলি টাইমস এ খবর দিয়েছে।

ঢাকায় পাকিস্তানের নতুন হাইকমিশনার হিসেবে একজন কূটনীতিকের নিয়োগ অনুমোদন দিতে বাংলাদেশের গড়িমসির অভিযোগ তুলে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে এ পরামর্শ দিয়েছেন। পাকিস্তানের হাইকমিশনারের পদটি আট মাস ধরে খালি রয়েছে।

ঢাকায় নিযুক্ত পাকিস্তানের সাবেক হাইকমিশনার রফিকুজ্জামান সিদ্দিকী গত ফেব্রুয়ারিতে অবসরে গেছেন। এরপর পেশাদার কূটনীতিক সাকলাইন সাইদাকে বাংলাদেশের পরবর্তী হাইকমিশনার হিসেবে নিয়োগ দেয়ার জন্য অনুরোধপত্র (এগ্রিমো) পাঠায় পাকিস্তান। এরপর নোট ভারবালের (কূটনৈতিক পত্র) মাধ্যমে পাকিস্তান বেশ কয়েক দফায় তাগাদা দিলেও বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে কোনো সাড়া দেয়নি। এগ্রিমো অনুমোদন না করার কোনো কারণও দেখায়নি ঢাকা।

২০১৪ সালে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার আবারো ক্ষমতা নেয়ার পর পাকিস্তানের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্কের অবনতি হতে থাকে। বিশেষ করে যুদ্ধাপরাধের বিচারকে কেন্দ্র করে পাকিস্তানের প্রতিক্রিয়ার কারণে এ সম্পর্কে টানাপড়েন শুরু হয়। একপর্যায়ে দুই দেশের মিশনের কর্মকর্তাদের বহিষ্কার-পাল্টা বহিষ্কার, এমনকি অপহরণ-পাল্টা অপহরণের ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে সাবেক হাইকমিশনার রফিকুজ্জামান সিদ্দিকী ডেইলি টাইমসকে বলেন, এগ্রিমো অনুমোদনের জন্য বড়জোর এক মাস সময় প্রয়োজন হয়। এ ক্ষেত্রে দেরি করার অর্থ হচ্ছে বাংলাদেশ সরকার হাইকমিশনার হিসেবে পাকিস্তানের মনোনীত ব্যক্তিকে গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছে।

তারেক আহসান ২০১৪ সালের অক্টোবর থেকে ইসলামাবাদে বাংলাদেশের হাইকমিশনারের দায়িত্ব পালন করছেন।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৪৯৬ বার

আপনার মন্তব্য