যুক্তরাষ্ট্রে আজ বুধবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 09:27am

|   লন্ডন - 03:27am

|   নিউইয়র্ক - 10:27pm

  সর্বশেষ :

  নিউইয়র্কে নববর্ষ উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের শুভেচ্ছা বিনিময়   প্যারেডের থ্রিডি প্রদর্শনীর মাধ্যমে বাফলার ফান্ডরাইজিং অনুষ্ঠিত   নিউ ইয়র্কে মুসলমানদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র, গ্রেপ্তার ৪   আরব আমিরাতে অবৈধ অভিবাসীকে আশ্রয় দিলে এক লাখ দিরহাম জরিমানা   টয়লেট টিস্যুতে ‘আল্লাহ’, বিক্ষুব্ধ যুক্তরাজ্যের মুসলিমরা   ১১ মার্চ ডাকসু নির্বাচন   বিশ্বের শীর্ষ ১০০ চিন্তাবিদের তালিকায় শেখ হাসিনা   শান্তি ও মানবাধিকারের অনন্য আশ্রয়ভূমি ফ্রান্স   কারাগারে ‘মারা গেছেন’ মসজিদে নববীর এক ইমাম   ক্যালিফোর্নিয়ায় বাংলাদেশি খুদে শিক্ষার্থীর চমক, ৯ বছরেই কলেজে   আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে মোস্তাফিজ   সালমান খানকে প্রত্যাখ্যান করেছিলেন তিনি   কৃষ্ণ সাগরে দুই জাহাজে আগুন, নিহত ১০   প্যাটারসন সিটির পাবলিক স্কুলে হালাল ফুড   আর্জেন্টাইন ফুটবলারসহ দুজনকে নিয়ে বিমান নিখোঁজ

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

প্রথমবারের মতো মার্কিন কংগ্রেসে ২ মুসলিম নারী

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-১১-০৭ ০৩:১৮:২৪

নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাচনে প্রথমবারের মতো কংগ্রেসের সদস্য হিসেবে জয়ী হয়েছেন দুই মুসলিম নারী। মঙ্গলবারের ভোটে তারা দু’জনই ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেন।

এ দুজনের একজন সোমালি বংশোদ্ভূত ইলহান ওমর এবং অন্যজন ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত রাশিদা তালিব। ইলহান ওমর জয়লাভ করেছেন মিনেসোটা রাজ্য থেকে। আর রাশিদা তালিব মিশিগানে জয়ী হয়েছেন।

বিবিসি ও রয়টার্স জানিয়েছে, গৃহযুদ্ধের কারণে সোমালিয়া থেকে পালিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে আসার পর ইলহান ওমর মার্কিন নাগরিকত্ব পান। মিনেসোটা রাজ্যের আইন পরিষদেরও সদস্য ছিলেন তিনি।

অন্যদিকে ডেট্রয়টে জন্মগ্রহণকারী রাশিদা তালিব ফিলিস্তিন-আমেরিকান পিতামাতার সন্তান। ২০০৮ সালে প্রথম মুসলিম নারী হিসেবে তিনি মিশিগান আইন পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রে মধ্যবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয় সময় সকাল থেকে দেশজুড়ে ভোট দিতে শুরু করেন সে দেশের নাগরিকরা। শেষ হয় সন্ধ্যা ৬টায়। এরপর আসতে শুরু করে নির্বাচনী ফলাফল।

ভোটের মাধ্যমে কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস এর সব কয়টি (৪৩৫) আসনের প্রতিনিধি নির্বাচন করছেন ভোটাররা। এ ছাড়া, উচ্চকক্ষ অর্থাৎ সিনেটের একশ’ আসনের মধ্যে ভোট গ্রহণ করা হয় ৩৫টির।

আর ৫০টি অঙ্গরাজ্যের মধ্যে ৩৬টির গভর্নর নির্বাচনে ভোট প্রদান করেন ভোটাররা। পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের তিনটি অঞ্চলের গভর্নর নির্বাচন করা হবে। এর বাইরে অনেক নগরীর মেয়র এবং স্থানীয় কর্মকর্তাও নির্বাচিত হবেন এ ভোটের মাধ্যমে।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৮২০ বার

আপনার মন্তব্য