যুক্তরাষ্ট্রে আজ সোমবার, ১৫ Jul, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 02:54am

|   লন্ডন - 09:54pm

|   নিউইয়র্ক - 04:54pm

  সর্বশেষ :

  রক্তের বিনিময়ে হলেও এরশাদের লাশ পল্লী নিবাসেই দাফন করা হবে : রংপুর মেয়র   সব মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য একই ডিজাইনের কবর হবে   কংগ্রেসের ভিন্ন বর্ণের নারীদের ‘দেশে ফিরতে’বললেন ট্রাম্প   নেতাকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত এরশাদ   ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কায় আসামের মুসলমানরা   ঢাবি ক্যাম্পাসকে প্লাস্টিকমুক্ত ঘোষণা   মর্মান্তিক: মাইক্রোবাসে ট্রেনের ধাক্কায় বর-কনেসহ নিহত ৯   কুমিল্লায় আদালতের ভেতর আসামির ছুরিকাঘাতে আসামির মৃত্যু   দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে বাংলাদেশের তিন চুক্তি স্বাক্ষর   সুইডেনে বিমান বিধ্বস্ত, নিহত ৯   ইংল্যান্ডের প্রথম বিশ্বকাপ জয়   এরশাদের মৃত্যুতে প্রতিক্রিয়া জানাতে সময় লাগবে বিএনপির   এরশাদের সন্তানরা কে কী করেন?   বৃহস্পতিবার সোহেল তাজের ‘আনুষ্ঠানিক ঘোষণা’   আফগানিস্তান সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে যৌন হয়রানির অভিযোগে তোলপাড়

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

কী কথা হলো মোদি-ইমরানের?

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৯-০৬-১৬ ১৫:১৮:০৪

নিউজ ডেস্ক: দুই দেশের মধ্যে নানা ইস্যু নিয়ে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করলেও মুখোমুখি দেখায় স্বস্তির বার্তাই যেন বইয়ে গেল। দেখা হলো; কথা হলো ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আর ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের।

কিরগিজস্তানের রাজধানী বিশকেকে সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার (এসসিও) সম্মেলনে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে সাক্ষাৎ হয় বলে ডনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

সূত্র বলছে, সম্মেলনের লাউঞ্জে ‘সৌজন্য বিনিময়’ হয়েছ এই দুই নেতার। হয়েছে কুশলাদি বিনিময়ও। পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকেও বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। তবে তারা জানিয়েছে, এটি কোনও আনুষ্ঠানিক বৈঠক নয়, দুই নেতার কথা হয়েছে।

সম্মেলনের পর পাকিস্তানের একটি বেসরকারি টেলিভিশনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, ঘরোয়া কথাবার্তা হয়েছে দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে। সৌজন্য বিনিময়ও হয়েছে। তারা করমর্দন করেছেন।

কুরেশি বলেন, সাম্প্রতিক নির্বাচনে জয়ের জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন আমাদের প্রধানমন্ত্রী। এটা ঠিকই যে, ভারতের একটি বড় রাজনৈতিক পরিবারকে হারিয়ে বিপুল ভোটে জিতে এসেছেন মোদি।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ভারত-পাক আলোচনা শুরু হলে ঘরোয়া রাজনীতিতে দুই দেশের জন্যই তা স্বস্তিদায়ক হবে। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে নিজেদের প্রয়াসের ছবি তুলে ধরাটা অনেকটা কূটনৈতিক বাধ্যবাধকতাও।

বৈঠকের কথা অস্বীকার করেছে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, অনেকে বলছেন, দুই নেতার মধ্যে নাকি বৈঠক হয়েছে। স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে- কোনও বৈঠক হয়নি। যেটা হয়েছে, তা নেহাতই সৌজন্য বিনিময়। ফলে অযথা খবরকে বিকৃত না-করাই ভাল।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে বলা হচ্ছে, শুক্রবার থেকেই একাধিক বার মুখোমুখি হন মোদি-ইমরান। অনুষ্ঠানে একই সারিতে বসেছেন। কিন্তু বাক্যবিনিময় করতে দেখা যায়নি তাদের। গ্রুপ ছবিতেও দুইজনে দাঁড়িয়েছেন দুই প্রান্তে।

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ১৪৪ বার

আপনার মন্তব্য