যুক্তরাষ্ট্রে আজ সোমবার, ১৮ Jun, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 01:41pm

|   লন্ডন - 08:41am

|   নিউইয়র্ক - 03:41am

  সর্বশেষ :

  খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে সরকার সময়ক্ষেপন করছে : মির্জা ফখরুল   রেমিট্যান্সে ভ্যাট আরোপ হয়নি : এনবিআর   নিউজিল্যান্ডে সুন্দরী প্রতিযোগিতায় প্রথমবারের মতো হিজাবি তরুণী   নাম পরিবর্তন করল মেসিডোনিয়া   ২০২৬ বিশ্বকাপের আয়োজক যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো-কানাডা   ফ্লোরিডায় ৪ সন্তানকে হত্যার পর বাবার আত্মহত্যা   তিন সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি   পাকিস্তানিদের গোলায় জম্মু ও কাশ্মীরে ৪ বিএসএফ নিহত   নাপলি আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত   ইমরানের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় শতবর্ষী নারী!   নিয়মিত রোজা রাখেন ১১৮ বছরের বৃদ্ধ   বাংলাদেশে পালিত হচ্ছে শবে কদর   জাতীয় পার্টি মহাজোটে নেই, আর কখনও মহাজোটে থাকবেও না : এরশাদ   কারাগারে জীর্ণশীর্ণ খালেদা জিয়া!   বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে নয় ইউনাইটেডে চিকিৎসা নিতে চান খালেদা জিয়া

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

লস এঞ্জেলেসসহ যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ৭-১১ স্টোরে ইমিগ্রেশনের ধরপাকড় অব্যাহত

কাগজপত্রহীনদের সাবধানে থাকার পরামর্শ

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১০ ২৩:৪৮:২০

ফাইল ফটো

নিউজ ডেস্ক: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ইমিগ্র্যান্ট বিরোধী কড়াকড়ির অংশ হিসেবে গত কয়েকদিন থেকে লস এঞ্জেলেসসহ যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ৭-১১ স্টোরগুলোতে ব্যাপক অভিযান ও ধরপাকড় অব্যাহত রয়েছে। এজন্য কাগজপত্রহীনদের সাবধানে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ।

অভিযানের জন্য বিশেষভাবে বেছে নেয়া হয়েছে ছোট কিন্তু লাভজনক ব্যবসার রোল মডেল হিসেবে পরিচিত সেভেন ইলেভেন ফ্রান্চাইজি স্টোরগুলোকে। কারণ ইমিগ্রেশন জানে সেভেন ইলেভেন স্টোরগুলোতে ভারত উপমহাদেশসহ আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য ও ল্যাটিন আমেরিকার অনেক দেশ থেকে আগত অবৈধ অভিবাসীরা কাজ করে । একেকটি স্টোরে দল বেঁধেই হানা দিচ্ছে ইমিগ্রেশন আইন প্রয়োগকারী সংস্থা আইস-এর এজেন্টরা । সেভেন ইলেভেন স্টোরগুলো প্রতিদিন তিন শিফট করে দিনরাত চব্বিশ ঘন্টা সপ্তাহের সাত দিনই খোলা থাকে । তাই ইমিগ্রেশন এজেন্টরা হানা দিচ্ছে দিনের বিভিন্ন সময়ে । মালিক অথবা অনডিউটি ম্যানেজারের কাছে এবং কর্মরত এমপ্লয়ীদের কাছে সোশ্যাল সিকিউরিটি কার্ডসহ আমেরিকা কাজ করার অনুমতিযুক্ত কাগজপত্র(ওয়ার্ক অথরাইজেশন) দেখতে চাচ্ছে। না পেলে অবৈধ কর্মীদেরকে এবং তাদেরকে বেআইনীভাবে কাজ দেবার জন্য মালিক বা ম্যানেজারদেরকে গ্রেপ্তার করে ডিটেনশান সেন্টারে পাঠিয়ে দিচ্ছে । মানিকদেরকে করা হচ্ছে কমবেশি অর্ধ লক্ষ ডলার জরিমানা ।

গতকাল বুধবার একদিনেই ক্যালিফোর্নিয়া থেকে ফ্লোরিডা পর্যন্ত ইমিগ্র্যান্ট অধ্যুষিত ১৭টি স্টেটে ৯৮টি স্টোরে হানা দিয়ে ২১ জনকে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে ।

আইন-এর ভারপ্রাপ্ত পরিচালক থমাস বলেছেন, অভিযানযজ্ঞের সবে শুরু । বাসাবাডিতে হানা দেয়াও জোরালোভাবে শুরু হবে । সংগে হানা দেয়া হবে অন্য সব কর্মক্ষেত্রেও ।

সেভেন ইলেভেন-এর ডালাস শহরের কর্পোরেট অফিস থেকে এসব অভিযান ও গ্রেপ্তারের দায় নিতে অস্বীকৃত জানানো হয়েছে । ওখান থেকে এক মুখপাত্র বলেছেন সেভেন ইলেভেনের স্টোরগুলো ইনডিভিজুয়াল ফ্রান্চাইজি ওনারদের মানিকানধীন । কাজেই স্টোরে কাকে কাজে নেয়াহল, নেবার সময় কাগজপত্রের বৈধতা দেখা হল কিনা নাকি জেনেশুনে অবৈধদের নিয়োগ করা হল তার দায় দায়িত্ব বর্তাবে স্টোরগুলোর মালিক বা ম্যানেজারদের ওপর ।

এগেন কঠিন পরিস্থিতিতে অসংখ্য সেভেন ইলেভেনসহ নানা ক্ষেত্রে কর্মরত অবৈধ বাংলাদেশসহ সকল দেশের কাগজপত্রহীন ইমিগ্র্যান্টদের সাবধানে থাকার পরামর্শ দিয়েছে ইমিগ্রেশন এডভোকেসি গ্রুপগুলো।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৪১৫৮ বার

আপনার মন্তব্য