যুক্তরাষ্ট্রে আজ সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 10:22pm

|   লন্ডন - 05:22pm

|   নিউইয়র্ক - 12:22pm

  সর্বশেষ :

  যেভাবে সুরক্ষিত রাখবেন আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট   আর ডিজেলচালিত গাড়ি বানাবে না পোরশে   মালদ্বীপে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিরোধী প্রার্থী সোলিহর জয়লাভ   নিউ ইয়র্কে প্রধানমন্ত্রীকে আ’লীগের সম্বর্ধনা : সরকার পতনে দুর্নীতিবাজরা ঐক্যবদ্ধ হয়েছে   মিয়ানমারের ওপর হস্তক্ষেপের অধিকার নেই জাতিসংঘের: সেনাপ্রধান   বাংলাদেশ সম্পর্কে অমিত শাহর বক্তব্যটি অবাঞ্ছিত : তথ্যমন্ত্রী   গিনেজ বুকের স্বীকৃতি পেল ‘স্বচ্ছ ঢাকা অভিযান’   কোটা সংস্কার আন্দোলনে প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করায় চবি শিক্ষক কারাগারে   শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে টাইগারদের জয়   বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় আরও ৫ লাখ রোহিঙ্গা   ট্রাম প্রশাসনের নতুন প্রস্তাবনা, কঠিন হয়ে পড়তে পারে গ্রিন কার্ড   নাইজেরিয়ায় কলেরা মহামারি, ৯৭ জনের মৃত্যু   মংলা-বুড়িমারী বন্দরে বছরে অবৈধ লেনদেন হয় ৩১ কোটি টাকা   অস্কারে যাচ্ছে বাংলাদেশের ‘ডুব’   উন্নত বিশ্বে দ্রুত বাড়ছে বয়স্ক মানুষের সংখ্যা

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

রানী এলিজাবেথের অন্তর্বাস নিয়ে বই লিখে বিপাকে লেখক

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১২ ১৩:০১:৫৪

নিউজ ডেস্ক: ব্রিটেনের রানী এলিজাবেথসহ রাজপরিবারের নারীদের অন্তর্বাস নিয়ে বই লিখে বিপাকে পড়েছে অন্তর্বাস সরবরাহকারী একটি প্রতিষ্ঠান। প্রায় পাঁচ দশক ধরে রাজপরিবারের নারীদের জন্য অন্তর্বাস সরবরাহকারী ওই প্রতিষ্ঠানটির সরবরাহ অনুমতি বাতিল করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, রিগবি অ্যান্ড পিলার নামে বিলাসী অন্তর্বাস প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানটি লন্ডনে প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৬০ সাল থেকে প্রতিষ্ঠানটি রাজপরিবারে অন্তর্বাস সরবরাহ করে আসছে।

রানীর জন্য অন্তর্বাস তৈরিকারী জুন কেনটন সম্প্রতি ‘স্টর্ম ইন এ ডি-কাপ’ শিরোণামে বই লেখেন। রানীর অন্তর্বাস তৈরিকারী হিসেবে কেনটন নিয়মিত বাকিংহাম প্যালেসে যাতায়াত করতেন। তিনি  রানী প্রথম এলিজাবেথ ও প্রিন্সেস মার্গারেটেরও অন্তর্বাস তৈরি করতেন। ৮২ বছরের কেনটনের লেখা বইটি গত বছরের মার্চে প্রকাশিত হয় এবং এতে তিনি রাজপরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সাক্ষাতের বিবরণ দিয়েছেন। এরপরই রাজপরিবারে বিভিন্ন ধরণের পণ্য সরবরাহ তদারককারী সংস্থা দ্য রয়েল ওয়ারেন্ট অ্যাসোসিয়েশন রিগবি অ্যান্ড পিলারের সরবরাহ অনুমোদন বাতিল করে।

কেনটন এ ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে জানিয়েছেন, তার বইতে উদ্বিগ্ন হওয়ার মতো কোনো বিষয় নেই। তার কাছে এই সিদ্ধান্ত অবিশ্বাস্য মনে হয়েছে।

বাকিংহাম প্যালেস থেকে এ ব্যাপারে বলা হয়েছে, ‘কোনো একক প্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে প্রাসাদের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য করা হয় না।’


এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৩৪৯ বার

আপনার মন্তব্য