যুক্তরাষ্ট্রে আজ মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 09:38am

|   লন্ডন - 04:38am

|   নিউইয়র্ক - 11:38pm

  সর্বশেষ :

  অথৈ জলরাশির বুকে মনকাড়া মনপুরা দ্বীপ   শেখ রেহানার সাথে ইতালী মহিলা আ.লীগ নেত্রীর সৌজন্য সাক্ষাত   বিচারপতি জয়নুল আবেদীনের তথ্য চেয়ে যুক্তরাষ্ট্রে চিঠি   সরকারের সাম্প্রতিক পদক্ষেপে আমরা উদ্বিগ্ন : ড. কামাল   মিয়ানমারের পাঁচ সেনা কর্মকর্তার ওপর অস্ট্রেলিয়ার কঠোর নিষেধাজ্ঞা   খাসোগির মৃতদেহ কোথায়, জানতে চান এরদোয়ান   জামায়াতে ইসলামীকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখার আইন নেই : ইসি সচিব   কারাগারের সাধারণ ওয়ার্ডে ব্যারিস্টার মইনুল   বলিউডের ছবিতে বাংলাদেশি সিয়াম-পূজা   বিশ্বের সবচেয়ে দামি গাড়ি   বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী মুসলিম এরদোগান   ইয়াবা-হেরোইন কেনাবেচায় সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড   খাসোগি হত্যাকাণ্ড : মঙ্গলবার সব সত্য প্রকাশ করবেন এরদোগানে   খাশোগি হত্যা : কিলিং মিশনে অংশ নেওয়া সৌদি ‘টাইগার স্কোয়াড’র অজানা কথা   ২৬ অক্টোবর শুরু হচ্ছে কানেক্ট বাংলাদেশ’র রোম সম্মেলন

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

দ্বিতীয় বিয়ে বাধ্যতামূলক যেখানে

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৫-২২ ১৪:২৩:৩০

নিউজ ডেস্ক: ভারত ও পাকিস্তান সীমান্তে রাজস্থানের একটি গ্রাম দেরাসর। ওই গ্রামের প্রত্যেক পুরুষের জন্য দুবার করে বিয়ে বাধ্যতামূলক। কিন্তু একটি প্রত্যন্ত গ্রামে কেন এই অদ্ভুত রীতি? কেনই বা দীর্ঘদিন ধরে এটাই রেওয়াজ হিসেবে চলে আসছে?

দেরাসর গ্রামে ৬০০ মানুষের বাস। মুসলিম অধ্যুষিত গ্রামটিতে সব মিলিয়ে রয়েছে ৭০টি পরিবার।

বহু দিন ধরেই চলে আসা এই প্রথা মেনে চলেন সবাই। এ আধুনিক যুগেও এর ব্যতিক্রম হয় না। ইসলাম ধর্মে বহুবিবাহ প্রথার চল রয়েছে। তবে, দেরাসরে জোর করে ছেলেদের দ্বিতীয়বার বিয়ে করতে বাধ্য করে পরিবার। কিন্তু কেন এমন রেওয়াজ?

গ্রামবাসীর ভাষ্য, গ্রামে যতজন পুরুষ বিয়ে করতেন, তাদের কারও প্রথম পক্ষের ঘরে সন্তান হতো না। দ্বিতীয়বার বিয়ের পরেই স্ত্রীর গর্ভে সন্তান আসত। বহুকাল ধরে এমন ঘটনা ঘটে আসছে গ্রামে এবং সেটাকেই রীতি হিসেবে অনুসরণ করেন গ্রামবাসীরা।

সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় হলো, এখনো নাকি এমন ঘটনা ঘটে চলেছে গ্রামটিতে।

গ্রামবাসীর কথায়, প্রথমবার বিয়ের পর অনেকেই দীর্ঘকাল সন্তানের জন্য অপেক্ষা করেছেন, এরকম উদাহরণ প্রচুর রয়েছে। কিন্তু আশা পূরণ হয়নি। দ্বিতীয়বার বিয়ের পরেই তাদের ঘরে সন্তান এসেছে।

দ্বিতীয়বার বিয়েকে এই গ্রামে শুভ যোগ বলেই মানা হয়। প্রথম পক্ষের স্ত্রীও সতীনের সঙ্গে সুখে সংসার করেন। সতীনের সন্তানদের নিজের সন্তান মনে করেই বড় করে তোলেন।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৭৯১ বার

আপনার মন্তব্য