যুক্তরাষ্ট্রে আজ বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 04:13am

|   লন্ডন - 11:13pm

|   নিউইয়র্ক - 06:13pm

  সর্বশেষ :

  স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতির ভাইয়ের গোডাউনে ৬৩০ বস্তা চাল   করোনার মধ্যে বিয়ে করায় সরকারি কর্মকর্তা বরখাস্ত   আইসিইউ থেকে ওয়ার্ডে নেওয়া হয়েছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে   ঢাকায় বাড়ি থেকে করোনা রোগীর ভাইয়ের পলায়ন, সন্ধানে পুলিশের মাইকিং   করোনা: স্পেনে কমছে মৃতের সংখ্যা   করোনায় মারা গেলেন গার্মেন্টস মালিক   যুক্তরাজ্যে ভয়াবহ আকারে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা   নারায়ণগঞ্জ থেকে নীলফামারী যাওয়া পোশাক শ্রমিক করোনা আক্রান্ত   লস এঞ্জেলেসের করোনা সংক্রমণ যে কারণে চীন থেকে ভিন্ন   করোনায় মানসিক দুশ্চিন্তা কাটাতে ‘হেলথ ডেস্ক’ খুলেছে গভর্নর নিউসোম   করোনায় বেকার ভাতার আবেদন করল ১ কোটি লোক   ট্রাম্পের ধন্যবাদের জবাবে যা বললেন মোদি   সব ধরনের চিকিৎসা সেবায় ৬৯ বেসরকারি হাসপাতাল প্রস্তুত   জার্মান নাগরিকরাও ঢাকা ছাড়ছেন   যেভাবে জীবাণুমুক্ত করবেন প্রতিদিনের বাজার

মূল পাতা   >>   ইসলামী জীবন

৯ এপ্রিল শবে বরাত

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৫ ১১:১০:০৩

 আপডেট: ২০২০-০৩-২৫ ১১:১০:৪৮

নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশের আকাশে কোথাও ১৪৪১ হিজরি সালের শাবান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি।  ফলে বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) রজব মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হবে এবং শুক্রবার (২৭ মার্চ) থেকে পহেলা শাবান মাসের গণনা শুরু হবে।

এ পরিপ্রেক্ষিতে আগামী ৯ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) দিবাগত রাতে শবেবরাত পালিত হবে।

বুধবার (২৫ মার্চ) সন্ধ্যায় বায়তুল মোকাররমের ইসলামিক ফাউন্ডেশন সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ড. আনিস মাহমুদ।

বৈঠক শেষে আনিস মাহমুদ বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সব জেলায় আমরা খোঁজ খবর নিয়েছি, কিন্তু বাংলাদেশের আকাশে কোথাও শাবান মাসের চাঁদ দেখার খবর পাওয়া যায়নি।  ফলে শুক্রবার শাবান মাসের গণনা শুরু হবে। এ হিসেবে ৯ এপ্রিল দিবাগত রাতে শবেবরাত অনুষ্ঠিত হবে।

বৈঠকে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের জ্যেষ্ঠ ইমাম মুফতি মোহাম্মদ মিজানুর রহমানসহ আলেমে দ্বীন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

হিজরি সালের শাবান মাসের ১৪ তারিখ দিবাগত রাতই শবেবরাত। মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছে এ রাতটি ‘লাইলাতুল বরাত’ কিংবা সৌভাগ্যের রজনী হিসেবে পরিচিত।

বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা মহান আল্লাহর রহমত ও নৈকট্য লাভের আশায় নফল নামাজ, কোরআন তেলাওয়াত, জিকির, ওয়াজ ও মিলাদ মাহফিলসহ এবাদত-বন্দেগির মধ্য দিয়ে রাত অতিবাহিত করবেন।  মহিমান্বিত এ রজনীতে মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশ্বের মুসলমানরা বিশেষ মোনাজাত করবেন।

এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/আইএল

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ১৯৭ বার

আপনার মন্তব্য

সর্বাধিক পঠিত