যুক্তরাষ্ট্রে আজ মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 07:35am

|   লন্ডন - 01:35am

|   নিউইয়র্ক - 08:35pm

  সর্বশেষ :

  সিরিয়ায় সরকারি বাহিনীর বিমান হামলা, নিহত ৯৪   রাশিয়ার চার্চে বন্দুকধারীর হামলা, নিহত ৫   তৃতীয়বারের মতো বিয়ে করলেন ইমরান খান   পুরুষের অনুমতি ছাড়া ব্যবসা করতে পারবে সৌদি নারীরা   ভারতে ট্রাম্পের নাম ভেঙ্গে ফ্ল্যাট বিক্রি   ইরানে বিধ্বস্ত উড়োজাহাজের ধ্বংসাবশেষের সন্ধান   বিএনপি নির্বাচনে না এলে কিছু করার নেই : সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী   রায়ের কপি পেলেন খালেদার আইনজীবীরা, জামিন আবেদন কাল   কুষ্টিয়া জেলা সমিতি ইউএসএ ইনকের শীত বস্ত্র বিতরণ   ইতালীতে দু’টি শহীদ মিনারেরই বেহাল অবস্থা   ফিল্মফেয়ারে সেরা অভিনেত্রী জয়া আহসান   স্কুলে বন্ধুক হামলার ঘটনায় এফবিআইয়ের কড়া সমালোচনা ট্রাম্পের   ডিসেম্বর নয়, আজকেই অবসরে যান : মুহিতকে বাবলু   নো-ম্যান্স ল্যান্ডে রোহিঙ্গাদের গণহত্যার প্রস্তুতি মিয়ানমারের!   বাংলাদেশ থেকে কার্গো পরিবহনে বাধা তুলে নিল যুক্তরাজ্য

মূল পাতা   >>   লাইফ স্টাইল

ফ্রিজ ব্যবহারের সাত-সতেরো

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৭-০৭-২৮ ১০:৫৭:৩১

নিউজ ডেস্ক: ব্যস্ত জীবনে রেফ্রিজারেটর ছাড়া গতি নেই। কিন্তু ফ্রিজে রাখা খাবার আদৌ খাওয়া উচিত কি না, তা নিয়েও রয়েছে নানা দ্বিধাদ্বন্দ্ব। ক্লিনিক্যাল ডায়টেশিয়ান অর্পিতা দেব ঘোষ জানাচ্ছেন, এখনকার ফ্রিজে যেভাবে তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করা হয়, তাতে স্বচ্ছন্দে দিন সাতেক খাবার রাখতে পারেন। কিন্তু রোজকার খাবার রাখার সময় আমরা না জেনেই ছোটখাট কিছু ভুল করে থাকি। যা থেকে হতে পারে নানা সমস্যা।

❏ বাজারে রোজ যাওয়া সম্ভব হয় না, তাই অনেকটা মাছ-মাংস একবারে কিনে ডিপ ফ্রিজে চালান করে দেয়া হয়। রান্না করার আগে সেই মাছ বা মাংসের প্যাকেট বের করে সেখান থেকেই রোজেরটা সরিয়ে নিয়ে আবার বাকিটা তুলে রাখা হয়। একটা প্যাকেট বা কন্টেইনারে সব মাছ-মাংস রাখলে এ ক্ষেত্রে একটি সমস্যা হতে পারে।

❏ জমাট বরফ না গলা পর্যন্ত মাছ বা মাংস আলাদা করা যায় না। এভাবে অনেকক্ষণ বাইরে রাখার পরে যে অংশ কাঁচা অবস্থায় আবার তুলে দেয়া হয়, তাতে ব্যাকটেরিয়া বাসা বাঁধতে পারে। তাপমাত্রার হেরফেরের জন্য এমনটা হয়। তাই এক বারে বেশ কিছু দিনের জন্য রাখতে হলে আলাদা আলাদা কন্টেইনার বা প্যাকেট করে রাখতে হবে। যাতে নির্দিষ্ট কোনও দিনের জন্য যেটুকু দরকার, সেটাই বাইরে বের করা হয়।

❏ রান্না করা খাবারের ক্ষেত্রেও একই ব্যাপার। বার বার খাবার বের করে গরম করে আবার ফ্রিজে যেন ঢোকাতে না হয়। বরং আলাদা পাত্রে খাবার রাখবেন।

❏ অনেকের ধারণা গরম অবস্থায় খাবার ফ্রিজে রাখলে সেটি পচে যায়। তা নয়। খাবার ঠাণ্ডা করে তোলা হয়, যাতে কম্প্রেসারের ওপর চাপ কম পড়ে। বরং অল্প গরম অবস্থাতেই খাবার ফ্রিজে রাখবেন।

❏ বার বার ফ্রিজ খুলবেন আর বন্ধ করবেন না।

❏ তবে শাকসব্জি বা ফলে ফ্রিজে বেশ কিছু দিন রেখে খেলে তার থেকে খানিকটা ভিটামিন-মিনারেল কমে যায়।

❏ মাছ-মাংস ডিপ ফ্রিজে রাখতে হবে। তবে ৩-৪ দিনের বেশি রাখা উচিত নয়।

❏ ফ্রিজের খাবার সব সময় ঢাকা দিয়ে রাখবেন। নইলে বিভিন্ন খাবারের গন্ধ মিলেমিশে একাকার হয়ে যাবে।

❏ কাঁচা সব্জি প্যাকেটে মুড়ে না রাখলে তার থেকে আর্দ্রতা চলে যায়।

❏ অনেকের ধারণা, ঠাণ্ডা জল খেলে মোটা হয়ে যায়। কিন্তু ঠাণ্ডা জলে কোনও ক্যালোরি নেই। তাই মোটা হওয়ার ভয় নেই।

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৩২৯ বার

আপনার মন্তব্য