Updates :

        মাসিক শিশুভাতা প্রদান শুরু জুলাই থেকে

        কোয়ারেন্টিনে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা

        দেশে মাথাপিছু আয় বেড়ে হলো ২২২৭ ডলার

        ইসরাইলের হামলায় ফিলিস্তিনে নিহতের সংখ্যা ২০০

        পশ্চিমবঙ্গের ৪ মন্ত্রী গ্রেফতার

        মিতু হত্যা: জবানবন্দি দেননি বাবুল আক্তার, কারাগারে প্রেরণ

        ওয়ার্ল্ড হাইপারটেনশন লীগের পুরস্কার পেলেন জাতীয় অধ্যাপক মালিক

        মিস ইউনিভার্স মুকুট জিতলেন মেক্সিকান সুন্দরী

        কর্মীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক ছিল বিল গেটসের !

        লস এঞ্জেলেসের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের বিনামূল্যে রেফ্রিজারেটর প্রদান

        ফ্রি কনসার্ট নিয়ে ফিরছে হলিউড বাউল

        লস এঞ্জেলেসে বাড়ানো হচ্ছে টিকাদান কার্যক্রমের ব্যাপ্তি

        লস এঞ্জেলেসে দাবানলের আগুন দ্বিগুণ হলো

        অভিবাসনে স্বাস্থ্যসেবার শর্ত বাতিল করলো যুক্তরাষ্ট্র

        দেশের করোনা পরিস্থিতি এখন অনেকটা ভালো: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

        বিনোদন পার্কে মাস্ক ব্যবহার নির্দেশমালায় পরিবর্তন

        লস এঞ্জেলেসে দাবানল: অন্যত্র সরে যেতে বাসিন্দাদের নির্দেশ

        হামাস প্রধানের বাড়িতে ইসরায়েলের বোমা হামলা

        লস এঞ্জেলেসে ১২ থেকে ১৫ বছর বয়েসীদের টিকাদান শুরু

        উগ্রবাদী হামলা নিয়ে সতর্কবার্তা জারি

যুক্তরাজ্যে ইইউ বহির্ভূত অভিবাসীদের তালিকায় শীর্ষ দশে বাংলাদেশিরা

যুক্তরাজ্যে ইইউ বহির্ভূত অভিবাসীদের তালিকায় শীর্ষ দশে বাংলাদেশিরা

যুক্তরাজ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) বহির্ভূত অভিবাসীদের সর্বোচ্চ সংখ্যার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অষ্টম স্থানে অবস্থান করছে। ২০১৬ সালের জুলাই থেকে ২০১৭ সালের জুন পর্যন্ত হিসেবে তালিকায় বাংলাদেশের এই অবস্থান। এ সময়ে বাংলাদেশ থেকে ৬৯ হাজার মানুষ যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমিয়েছেন। বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যের জাতীয় পরিসংখ্যান কার্যালয় (ওএনএস) এই তথ্য জানিয়েছে।

ওএনএস-এর তথ্য অনুসারে, ইইউ বহির্ভূত অভিবাসীদের তালিকায় শীর্ষ দশ দেশের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকা (৭৫ হাজার) সপ্তম ও অস্ট্রেলিয়া (৭১ হাজার) ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে। এই সময়ে যুক্তরাজ্যে সর্বোচ্চ অভিবাসী আসা পাঁচটি দেশের মধ্যে রয়েছে ভারত (৩ লাখ ৫ হাজার), পাকিস্তান (১ লাখ ৭১ হাজার), চীন (১ লাখ ৯ হাজার), নাইজেরিয়া (৯০ হাজার) ও যুক্তরাষ্ট্র (৮৪ হাজার)।

সামগ্রিকভাবে ২০১৬ সালের জুনে ব্রেক্সিটের পক্ষে গণভোটের এই প্রথম অভিবাসীদের সংখ্যা কমেছে। এর আগের বছরের তুলনায় এই সময়ে অভিবাসীর সংখ্যা কমেছে ১ লাখ ৬ হাজার।

ওএনএস-এর অভিবাসন পরিসংখ্যানের প্রধান নিকোলা হোয়াইট জানান, সংখ্যা কমে এসেছে কারণ এর আগের বছর সর্বোচ্চ সংখ্যক অভিবাসী এসেছিল। এখনই বলা যাচ্ছে না বিষয়টি দীর্ঘ মেয়াদি প্রবণতা হবে। এই পরিবর্তনের ফলে মনে হচ্ছে মানুষের স্থানান্তরিত হওয়ার ক্ষেত্রে ব্রেক্সিটের প্রভাব থাকতে পারে। তবে অভিবাসন অনেক জটিল ও অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় থাকে।

গত বছরে ইইউ বহির্ভূত অভিবাসীদের যুক্তরাজ্য ছেড়ে চলে যাওয়ার সংখ্যা স্থিতিশীল রয়েছে। তবে ইইউ নাগরিকদের দেশটি ছেড়ে যাওয়া উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যমের একাংশ এই প্রবণতাকে ‘ব্রেক্সোডাস’ হিসেবে আখ্যায়িত করছে।

পরিসংখ্যান অনুসারে, ইইউ নাগরিকদের যুক্তরাজ্য থেকে চলে যাওয়ার পরিমাণ ২৯ শতাংশ (১ লাখ ২৩ হাজার)। ৪৩ জানিয়েছেন তারা নিজ দেশে ফিরে যাবেন। ২০০৮ সালের অর্থনৈতিক মন্দার পর যুক্তরাজ্য ছেড়ে চলে যাওয়ার এটিই সর্বোচ্চ সংখ্যা।

গত ১২ মাসে যুক্তরাজ্যে এসেছেন ৫ লাখ ৭২ হাজার মানুষ। আর অভিবাসিত হয়েছেন ৩ লাখ ৪২ হাজার। এই সময়ে অভিবাসীর সংখ্যা কমেছে ৮০ হাজার।

যুক্তরাজ্যের কনজারভেটিভ পার্টির সরকার বার্ষিক অভিবাসীদের সংখ্যা কমিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। সর্বশেষ এই পরিসংখ্যানকে স্বাগত জানিয়েছেন মন্ত্রীরা। বিরোধী দল লেবার পার্টি জানিয়েছে, সরকারের অভিবাসীদের সংখ্যা ১ লাখের নিচে নামিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা অর্থহীন।

এলএবাংলাটাইমস/এ/এলআরটি

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত