যুক্তরাষ্ট্রে আজ মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 10:21am

|   লন্ডন - 05:21am

|   নিউইয়র্ক - 12:21am

ব্রেকিং নিউজ >>   ঢাকায় ভিপি নুর আটক

  সর্বশেষ :

  আসছে শীতে যুক্তরাষ্ট্রে 'টুইনডেমিক' আতঙ্ক   টেক্সাসে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে চারজনের মৃত্যু   করোনা মোকাবেলায় নিজেকে 'এ প্লাস' দিলেন ট্রাম্প!   ওহাইও থেকে নিখোঁজ ৩৫ কিশোরী উদ্ধার   যুক্তরাষ্ট্রে টিকটকের চুক্তি নিয়ে পরিস্থিতি ধোঁয়াশা   নতুন বিচারপতি হতে পারেন এমি কোনি ব্যারেট   বেকার ভাতার আবেদন বেড়েছে ক্যালিফোর্নিয়ায়   ট্রাম্পকে বিষ মাখানো চিঠি, সন্দেহভাজন নারী গ্রেফতার   স্বাস্থ্যে অধিদপ্তরের সেই গাড়িচালক ১৪ দিনের রিমান্ডে   ঢাকায় ভিপি নুর আটক   মহামারী হেলাফেলা আত্মঘাতী   আহমদ শফী (রহ:) ছিলেন সর্বজন শ্রদ্ধয় বুজর্গ ও উলামায়ে কেরামের সিপাহসালার: নিউইয়র্কে দুআ মাহফিলে বক্তারা   জাতিসংঘের সদস্যপদ লাভের ৪৬ বছর পূর্তি: যুক্তরাষ্ট্র আ. লীগের আনন্দ সমাবেশ   কবিতা   সব ধরনের রোগীরাই পোস্ট কোভিড-১৯ সিনড্রোমে ভুগছেন

মূল পাতা   >>   লস এঞ্জেলেস

লস এঞ্জেলেসঃ যেন এক ভূতুড়ে নগরী

করোনাভাইরাসের প্রভাব

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৩ ০৮:০৬:০৭

 আপডেট: ২০২০-০৩-২৩ ১১:১৭:২০

লস এঞ্জেলেসের মানচিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ক্যালিফোর্নিয়ার অন্যতম জনপ্রিয় নগরী হচ্ছে লস এঞ্জেলেস। বিশ্বব্যাপী চলচ্চিত্র ও পর্যটন নগরী হিসেবে এর খ্যাতি রয়েছে। তাছাড়া, এই শহরকে বলা চলে পৃথিবীর প্রযুক্তি পণ্যের রাজধানী। কম্পিউটার চিপ তৈরির জন্য প্রসিদ্ধ সিলিকন ভ্যালি থেকে শুরু করে আইবিএম, মাইক্রোসফট, ফেসবুক ইত্যাদি সকল প্রতিষ্ঠানের সদর দপ্তর অবস্থিত এখানে।


লস এঞ্জেলেস নগরীতে রয়েছে বহু দর্শনীয় পর্যটন এলাকা ও বিনোদন কেন্দ্র। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে এই শহর যেন এক ভূতুড়ে নগরীতে পরিণত হয়েছে। সম্প্রতি নগর প্রশাসন এক নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে সবাইকে ঘরে থাকার আহ্বান জানান। জরুরী অবস্থা জারি হয়েছে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যুর পর।


কয়দিন আগেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সকল বিনোদন ও পর্যটন স্থানগুলো। সেইসাথে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, আদালত, ব্যায়ামাগার, বার কি নেই এই বন্ধের তালিকায়। সবখানে এক থমথমে ভীতিকর পরিবেশ। কেউ যেন আর বাইরে বের হতে চাচ্ছে না।


লস এঞ্জেলেসের পর্যটন ও বিনোদন স্পটগুলোতে নতুন করোনাভাইরাসের কতটুকু প্রভাব পড়েছে, তাই নিয়ে এলএবাংলা টাইমসের এই আয়োজন। এই সপ্তাহের শনি ও রবিবার শহরের বেশ কিছু এলাকা ঘুরে এই প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে।      

লা ব্রিয়া টার পিটস্ লস এঞ্জেলেস নগরীর একটি অন্যতম দর্শনীয় স্থান। বিভিন্ন ধরনের লাখ লাখ হাঁড় থাকার কারণে এটাকে ‘হাড় কংকাল জাদুঘর’ও বলা হয়। এখানে দর্শনার্থীদের উপস্থিতি দেখলে মনে হবে জাদুঘরটির প্রবেশ ফি ৫ ডলার থেকে ৫০০ ডলার হয়ে গেছে। সেখানে গিয়ে এই প্রতিবেদক দুই\তিন জনের বেশি দেখা পেলেন না।


গেট্টি সেন্টার, লস এঞ্জেলেসের একটি প্রসিদ্ধ শিল্প জাদুঘর। আধুনিক শিল্পকর্মে বিধৃত হয়েছে বিশ্বের ইতিহাস। এখানে রেনেসাঁর যুগ থেকে আধুনিককাল পর্যন্ত সময়ের বহু প্রাচীন ও আধুনিক আকর্ষণীয় শিল্পকর্ম স্থান পেয়েছে। রয়েছে ফরাসীদের ডেকোরেটিভ আর্ট ও ফটোগ্রাফি। কিন্তু এখন আর এসবে যেন কারো আগ্রহ নেই। দর্শনার্থীদের অভাবে এমনই ফাঁকা এই যাদুঘর।


বিশ্বের চলচ্চিত্রপ্রেমীদের কাছে একটি পরিচিত নাম ‘ইউনিভার্সাল স্টুডিওজ’। এখানে রয়েছে রেকর্ডিংয়ের সব আধুনিক সরঞ্জাম। চলচ্চিত্রপ্রেমীরা এখানে বিশ্বের বিশাল ব্যয় বহুল চলচ্চিত্রগুলোর প্রাথমিক নির্মাণ কাজ কীভাবে সম্পন্ন হয়, তা দেখতে আসে। এখানে আসলে অনেক বিখ্যাত অভিনেতা-অভিনেত্রীরও সাক্ষাৎ পাওয়া যায়। তাই প্রতিদিন অগণিত লোকের ভিড় হয় এখানে।


কিন্তু এখনকার দৃশ্য। যে কেউ তা দেখলে আঁতকে উঠবে। সেখানে গিয়ে যে কয়জনের দেখা পাওয়া গেল, প্রায় সবাই সেখানে কাজ করেন বলে জানান। গেইটে থাকা এক কর্মচারীর সাথে কথা হয় এলএবাংলা প্রতিবেদকের। জানতে চাই, দর্শনার্থীদের উপস্থিতির বিষয়ে। স্বল্পভাষী লোকটি খুব অল্প কথায় বলে দিলেন, কাজ না থাকলে এখন তেমন কেউ আসে না।


সানসেট বুলেভার। লস এঞ্জেলেসের একটি প্রসিদ্ধ রাস্তা। ম্যুভি, সংগীত ও অন্যান্য গণমাধ্যম বিনোদনের জন্য বিখ্যাত। রোমান্সপ্রিয় ও আড্ডাবাজদের আখড়া বলা যায় এই স্থানটিকে। কিন্তু পরিচিত এই জায়গাটি এখন আপনার চিনতেই কষ্ট হবে। বারবার মনে হবে ভুলে অন্য কোথাও এসে পড়লাম না তো। জন মানুষের চিহ্ন নেই জনাকীর্ণ এই স্থানটিতে।


প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রভাব পড়েছে লস এঞ্জেলেসের বাউল সম্প্রদায়েও। সংগীত প্রেমীদের আনাগোনা কমে গিয়েছে ‘হলিউড বাউলে’। করোনাভাইরাসের ভয়ে এখন আর কোন সঙ্গীতপ্রেমী সংগীতের লাইভ পরিবেশনা উপভোগ করতে আসছে না নগরীর সর্ববৃহৎ প্রাকৃতিক এই এম্ফিথিয়েটার।


একইরকম চিত্র দেখা গেল, ডিজনিল্যান্ড, হলিউড সাইন ও লস এঞ্জেলেস এয়ারপোর্টেও। কর্মব্যস্ত এই জায়গাগুলোতে কোথাও নেই কোন কর্মচাঞ্চল্য। সবকিছু কেমন যেন স্থবির। যেন এক ভূতুড়ে নগরী।      

এলএবাংলা টাইমস

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ১৫০৩ বার

আপনার মন্তব্য