যুক্তরাষ্ট্রে আজ শুক্রবার, ১০ Jul, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 10:48pm

|   লন্ডন - 05:48pm

|   নিউইয়র্ক - 12:48pm

  সর্বশেষ :

  অরেঞ্জ কাউন্টিতে করোনা সংক্রমণের দ্বিগুণ বৃদ্ধি   করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধিতে স্কুল খোলার পরিকল্পনা পেছালো   ১৮ আগস্ট থেকে অনলাইন ক্লাস শুরু লস এঞ্জেলেসে   ভয়াবহ বন্দুকযুদ্ধে নিহত ১, আহত ৩ শেরিফ ডেপুটি   দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৭, শনাক্ত ২৯৪৯   লকডাউনে ভারতে তাবলীগে যোগ দেওয়া ৮২ বাংলাদেশি জামিন পেলেন   এবার নিজ জন্মভূমিতে পোড়ানো হলো মেলানিয়া ট্রাম্পের মূর্তি   করোনার মধ্যে স্কুল খোলার হুমকি দিল ট্রাম্প   এবার ভারমন্টে ‘খাদ্য বর্জ্য নিষিদ্ধ’ নামে নতুন আইন   এবার করবিবরণী নিয়ে ট্রাম্পের নতুন বিপত্তি   বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় প্রতারণা করেছিলেন ট্রাম্প   ৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশি ফ্লাইটে ইতালির নিষেধাজ্ঞা   জুতা সেন্ডেলের আঠার নেশায় বুঁদ কিশোররা   সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন আর নেই   ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট হলেন ড্রেইক

মূল পাতা   >>   লস এঞ্জেলেস

যুক্তরাষ্ট্রের পতন কি অনিবার্য!

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ২০২০-০৬-০৩ ২১:০৭:৪৫

ছবিঃ লস এঞ্জেলেস বাংলা টাইমস

নিজস্ব প্রতিবেদক:
বিশ্বব্যাপী তাণ্ডব চালাচ্ছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। এই ভাইরাসে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর রাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্র। লকডাউনের কারণে হুমকির মুখে পড়েছে বিশ্ব অর্থনীতি। আর এতে করে সবচেয়ে বেশি হুমকিতে আছে মার্কিন অর্থনীতি। সামনে এই প্রভাব বিশ্ব নেতৃত্বই পাল্টে দিতে যাচ্ছে বলে মনে করছেন রাজনীতি বিশ্লেষকরা। নিক্কেই এশিয়ান রিভিউকে সাক্ষাৎকার দেন মার্কিন ব্যবসায়ী, ব্রিজওয়াটার অ্যাসোসিয়েশনের কোচেয়ারম্যান রে ডালিও। তাঁর মতে, এই ভাইরাস পরবর্তী বিশ্ব নেতৃত্বে ব্যাপক পরিতবর্তন আসতে যাচ্ছে। এতে আমেরিকার পতনের সম্ভাবনা রয়েছে।


তিনি জানান, আমেরিকা বর্তমানে ঋণের স্তুপে চাপা পড়ে আছে। এই ঋণ মেটাতে হলে কিছুদিনের মধ্যেই ডলার ছাপিয়ে চাপ সামাল দিতে হতে পারে। আর সেটা করা হলেই আমেরিকান ডলারের পতন ঘটতে পারে। মূল্য অবিশ্বাস্যভাবে কমে যাবে। এর ফলে দুর্বল হয়ে পড়বে আমেরিকার অর্থনৈতিক শক্তি। আমেরিকার এখন উচিত শিক্ষা, কার্যনীতি ও আইনের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা। ইতিহাস বলে সব সাম্রাজ্যের উত্থান ও পতন নির্ভর করে তাদের ঋণ ও মুদ্রার ওপর। ব্রিটিশ এবং ডাচ সাম্রাজ্যের অভিজ্ঞতা এবং তাদের রিজার্ভ মুদ্রার সঙ্গে এর খুবই মিল রয়েছে, বলে উল্লেখ করেন এই মার্কিন ব্যবসায়ী।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান জোসেফ বোরেল বিশ্বে মার্কিন যুগের অবসান হওয়ার কথা, উল্লেখ করেন। সেইসাথে চীনের ব্যাপারে শক্তিশালী কৌশলগত নীতি গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি জানান, বিশেষজ্ঞরা বহু  আগেই মার্কিন আধিপত্যের দিন শেষ হওয়ার কথা বলে আসছিলেন। তার মতে, করোনা পরিস্থিতি মার্কিন পতনকে আরো তরান্বিত করেছে। করোনার কারণে মার্কিন সরকার আর্থরাজনৈতিক, সামাজিক ও স্বাস্থ্যখাতে নজিরবিহীন সংকটে পড়েছে। এতে করে প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের শক্তির ভারসাম্যে বিরাট পরিবর্তন এনে দেবে উল্লেখ করেন তিনি। সেইসাথে জানান, ইউরোপীয় ইউনিয়ন কোনদিকে যাবে তা স্পষ্ট করার জন্য চাপ ক্রমেই বাড়ছে। গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হচ্ছে জোসেফ বোরেল এটাও স্বীকার করেন, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে মার্কিনবিরোধী শক্তিগুলো নিজেদের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে তুলেছে। আর তা ভেতরে ও বাইরে মার্কিন সাম্রাজ্যের পতন ডেকে আনবে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা থেকে, প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে বেরিয়ে যান। এসব বিষয় আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয়। এছাড়া আরো বহু চুক্তি থেকে বেআইনিভাবে বেরিয়ে বিশ্বকে বিপদের মুখে ঠেলে দিয়েছেন ট্রাম্প। এ কারণে জোসেফ বোরেল বিশ্বে মার্কিন নেতৃত্ব ও মোড়লিপনার যুগের অবসান ঘটতে চলেছে, বলে মন্তব্য করেন।

এদিকে এবার মার্কিন সাম্রাজ্যের পতন ঘটবে বলে, মনে করছেন ইরানের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা কর্তা আলী শামখানি। তার বক্তব্য ‘বড় শয়তান’ আমেরিকার পতনের লক্ষণ আগের চেয়ে অনেক বেশি স্পষ্ট হয়েছে। পুলিশি হেফাজতে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে যেভাবে আমেরিকায় অশান্তি ছড়িয়ে পড়েছে তার প্রেক্ষিতে তিনি টুইটারে বার্তা দিয়েছেন। আলী শামখানির ওই টুইটার বার্তায়, বিক্ষোভকারীদের ভয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মাটির তলায় বাংকারে আশ্রয় নেওয়ার কথাও উল্লেখ করেছেন। বিশ্লেষকদের এ সকল পর্যবেক্ষণ থেকে বলাই যায়, তাহলে কি যুক্তরাষ্ট্রের পতন অনিবার্য!

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ১১৯৯ বার

আপনার মন্তব্য