যুক্তরাষ্ট্রে আজ শুক্রবার, ০৩ Jul, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 09:28am

|   লন্ডন - 04:28am

|   নিউইয়র্ক - 11:28pm

  সর্বশেষ :

  করোনা উপসর্গ নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এম এ হকের মৃত্যু   সিলেটের গোইয়ানঘাট সীমান্তে ভারতীয় খাসিয়ার গুলিতে আরেক বাংলাদেশি নিহত   এমপির মেয়ে তাই ১০ বছর বিদেশে থেকেও চাকরিতে বহাল   দেশে একদিনে ৪২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩১১৪   ভ্যাকসিন আবিস্কারে কান্না ছুঁয়ে গেছে দেশবাসীকে; কে এই আসিফ মাহমুদ   ‘পিক-আপ’ সেবা চালু করলো লস এঞ্জেলেস পাবলিক লাইব্রেরি   ১১.১ শতাংশ কর্মহীন হওয়ায় নতুন আরও ৪.৮ মিলিয়ন চাকুরির সুযোগ সৃষ্টি   করোনায় মৃত্যু প্রকাশিত সংখ্যার চেয়ে ২৮ শতাংশ বেশি   সান্তা মোনিকায় মাস্ক না পড়লে সর্বোচ্চ ১০০০ ডলার জরিমানা   লস এঞ্জেলেসে জিমনিশিয়ামেও পড়তে হবে মাস্ক ও গ্লাভস   করোনায় একদিনে গেল আরও ৫৫ প্রাণ, আক্রান্ত ১ লাখ ৭ হাজার ৬৬৭   মিয়ানমারে খনিতে ধস, নিহত ১১৩   লস এঞ্জেলেস পুলিশের বাজেট হ্রাস পেলো ১৫০ মিলিয়ন ডলার   দেশে আক্রান্তের সংখ্যা দেড় লাখ ছাড়াল, ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৮   বন্ধ হয়ে গেল রাষ্ট্রায়ত্ত সব পাটকল

মূল পাতা   >>   লস এঞ্জেলেস

গৃহহীনদের সহায়তায় ৮০০ মিলিয়ন ডলারের পরিকল্পনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ২০২০-০৬-২৬ ০৮:৩৩:১১

এলএ বাংলা টাইমস

নিজস্ব প্রতিবেদক :

প্রাণঘাতী করোনাভাইরস মহামারিতে লস এঞ্জেলেস কাউন্টির অসহায় গৃহহীন মানুষদের জন্য ৮০০ মিলিয়ন ডলারের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। তিন বছরের প্রস্তাবিত প্রকল্পে গৃহায়ন, ভাড়া ভর্তুকি ও নতুন বাসা করে দেবার মাধ্যমে স্থায়ীভাবে ১৫ হাজার বৃদ্ধ মানুষকে সহযোগিতা করতে এই পরিকল্পনা। 


এই পরিকল্পনার মাধ্যমে সরকারি গেভেন নিউসাম’স প্রজেক্ট রোমকির মাধ্যমে বিভিন্ন হোটেল ও মোটেলে কাউন্টির যে চার হাজার মানুষকে রাখা হয়েছিলো তাদের পুনর্গঠিত করা হবে। পাশাপাশি বাকি যে এগারো হাজার মানুষকে হোটেলে রাখা সম্ভব হয়নি তাদেরকেও এই পরিকল্পনার মাধ্যমে বাসা করে দেওয়া হবে।  

লস এঞ্জেলেস হোমলেস সার্ভিস অথোরিটির এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টার হাইডি মার্স্টেন বলেন, ‘এই ভালনারেবল মানুষদের জন্য জন্য একটা টেঁকসই সমাধান প্রয়োজন। আমরা ১৫ হাজারের মতো মানুষকে নতুন বাসা দেবার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করেছি।কারণ ধারণা করা হচ্ছে পঁয়ষট্টি বা তার অধিক বয়সী মানুষের সংখ্যা এটাই হবে যারা গৃহহীন হয়ে পড়েছেন। তাদের স্বাস্থ্য অবস্থা ভালো নয়।ব্যবস্থা না নিলে তারা করোনায় মারা যেতে পারেন। এর সাথে জীবন বাঁচানোর প্রশ্ন জড়িত। এত বড় সংখ্যা দেখে আমরা পিছু হটছি না। আমরা জানি কীভাবে তাদের বাসা দিতে হবে। সিটি, কাউন্টি,স্টেট ও ফেডারেল গভার্মেন্ট থেকে ফান্ডিং প্রয়োজন।’  

হোমলেস সার্ভিস অথোরিটি বলছে, ভাড়া ভর্তুকি দিয়ে জুন থেকেই প্রায় সবাইকে গৃহায়নের আওতায় নিয়ে আসা হবে। আগামী দু বছরের মধ্যে বাসাগুলোকে স্থায়ী করা হবে।   

তবে এই পরিকল্পনার অর্থায়ন কীভাবে হবে তা এখনও নিশ্চিত নয়। হোমলেস সার্ভিস অথোরিটির প্রতিবেদনে একাধিক সোর্সের কথা বলা হয়েছে। যেখানে ফেডারেল ও স্টেট করোনাভাইরাস রিলিফের ওপর  অতিমাত্রায় নির্ভর করা হয়েছে। 

এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে নতুন করে ৬০০ মিলিয়ন ডলার লাগবে।তবে ২০০ ডলার বর্তমান হোমলেস সার্ভিস প্রোগ্রামে রয়েছে। .
লস এঞ্জেলেস কাউন্টি সুপারভাইজার শিলা কু বলেন, এর জন্য আমি আমার কলিগদের সাথে কাজ করে যাবো। কিন্তু কাউন্টির একার পক্ষে হাজার হাজার বৃদ্ধকে গৃহায়নের আওতায় আনা সম্ভব না। তাদের জন্য গৃহ নিশ্চিত করতে, সিটি, স্টেট ও ফেডারেল গভার্মেন্টের সহযোগিতা প্রয়োজন। .

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ২১২ বার

আপনার মন্তব্য