যুক্তরাষ্ট্রে আজ শুক্রবার, ১৪ অগাস্ট, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 01:56am

|   লন্ডন - 08:56pm

|   নিউইয়র্ক - 03:56pm

  সর্বশেষ :

  কমলা হ্যারিসের নাগরিকত্ব নিয়ে ট্রাম্পের সন্দেহ   জম্মু-কাশ্মীরে এবার দুই পুলিশকে গুলি করে হত্যা   আজ শোকাবহ ১৫ আগস্ট   গ্রিন কার্ডের জন্য সম্পত্তি তলব করতে পারবে ট্রাম্প প্রশাসন   ক্যালিফোর্নিয়ায় বন্ধ হয়ে যেতে পারে উবার!   ক্যালিফোর্নিয়ার ১৪ বছরের কিশোরী নিখোঁজ   বাইডেন-হ্যারিসের একত্রে নির্বাচনী প্রচার অভিযান শুরু   ইসরাইল ও আরব আমিরাতের মধ্যে ঐতিহাসিক শান্তিচুক্তি   যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে কিশোরদের সংঘর্ষ, নিহত ৩   যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে খুলে দেওয়া হচ্ছে 'এএমসি থিয়েটার'   বাড়ছে এঞ্জেলেস ন্যাশনাল ফরেস্টের দাবানল   যুক্তরাষ্ট্রে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ   নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত   মৃত্যুহার কম হওয়াতেই করোনা ব্রিফিং বন্ধ হয়েছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী   দেশে আজও করোনায় ৪৪ জনের মৃত্যু

মূল পাতা   >>   লস এঞ্জেলেস

করোনায় লস এঞ্জেলেসে শিশু সুরক্ষায় $১৫ মিলিয়ন বরাদ্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ২০২০-০৭-৩০ ১১:৪০:১৮

এলএ বাংলা টাইমস

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ফেডারেল সরকারের অর্থ থেকে চাইল্ড কেয়ার ভাউচারে পনেরো মিলিয়ন ডলার বরাদ্দ দিয়েছে লস এঞ্জেলেস কাউন্টি সুপারভাইজার বোর্ড। লস এঞ্জেলেস কাউন্টির পাবলিক হেলথ অফিসাররা করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে শিশুর যত্নে এসেনশিয়াল কর্মী ও নিম্ন আয়ের পরিবারের সদস্যরা কিভাবে চাইল্ড কেয়ার ভাউচারের জন্য আবেদন করবেন সে তথ্য প্রদান করেন। 

পাবলিক হেলথ ডিরেক্টর বারবারা ফেরার বলেন, ‘তিন মাস ব্যাপী এই অর্থ পাঁচ হাজার পরিবারের শিশুর যত্নে ব্যয় করা হবে।’ পাবলিক হেলথ ডিপার্টমেন্ট শিশুর সুরক্ষা ও শিক্ষার জন্য এই অর্থ বণ্টন করবে এবং চাইল্ড কেয়ার এলাইন্সের মধ্যে ভাউচার বণ্টন করবে। ফেরার বলেন, ‘প্রক্রিয়াটি দ্রুত করতে, বর্তমান ভাউচার ব্যবস্থার মধ্যে প্রদান করা হবে।’ 

বর্তমানে চাইল্ড কেয়ার এলাইন্স ভর্তুকিমূলক ভাউচার প্রদান করছে। মার মধ্যে ১,২ ও ৩ নম্বর ধাপের কেয়ারওয়ার্ক রয়েছে। বিকল্প পরিশোধ বা জরুরি চাইল্ড কেয়ারও রয়েছে।  

কত আয়ের মানুষ এই সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন এটা স্টেট নির্ধারণ করে দিবে। যে সকল পরিবারের চাইল্ড কেয়ার ভাউচার লাগবে তাদের ৮৮৮-৯২২-৪৪৫৩ নম্বরে কল করতে বলা হয়েছে। 

কেয়ার এক্ট থেকে পাওয়া কাউন্টির ১.২২ বিলিয়ন ডলার থেকে এই অর্থ ব্যয় করা হবে। এই বরাদ্দ থেকে ৩০১ মিলিয়ন ডলার করোনা টেস্ট ও ট্রেসিং, ১৬০ মিলিয়ন ডলার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের, ৮৫ মিলিয়ন ডলার খাদ্য নিরাপত্তা এবং ১০০ মিলিয়ন ডলার ভাড়া রিলিফের জন্য ব্যয় করা হয়েছে।  

এই পরিকল্পনা অনুমোদনের পর সুপারভাইজার  হিল্ডা সলিস এক বিবৃতিতে বলেন, ‘কংগ্রেস থেকে কেয়ার এক্টের মাধ্যমে যে অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে এর মাধ্যমে যে সম্প্রদায় গুলো ঐতিহাসিকভাবে বঞ্চিত হয়ে এসেছিলো তাদের প্রতি সমান ভাবে নজর দিতে পারছি। করোনা মহামারি আমাদের সমাজের কালারড মানুষের প্রতি দীর্ঘ মেয়াদি অসমতা গুলো আরও খারাপ করেছে। এখন সময় এসেছে এই সমস্যা গুলো ভালোভাবে সমাধান করার।’

এলএ বাংলা টাইমস/এস/আর   

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ২৫৪ বার

আপনার মন্তব্য