যুক্তরাষ্ট্রে আজ শুক্রবার, ০৫ Jun, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 04:11pm

|   লন্ডন - 11:11am

|   নিউইয়র্ক - 06:11am

  সর্বশেষ :

  রক্তবর্ণ নদী, রাশিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি   করোনায় একদিনে গেল আরও ৪৪ প্রাণ, আক্রান্ত ৫৯ হাজার ৬৫০   দেশে ১০ জেলায় বজ্রপাতে ২২ জনের মৃত্যু   লস এঞ্জেলেস কাউন্টিতে বৃহস্পতিবার কারফিউ থাকছে না: শেরিফ   জর্জ ফ্লয়েড হত্যা: বিক্ষোভে ট্রাম্পের মেয়ের সমর্থন   করোনায় রানা প্লাজার মালিকের মৃত্যু   দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩৫, নতুন শনাক্ত ২৪২৩   রবিবার ফেসবুক ও ইস্টাগ্রাম লাইভে আসছেন পাপী মনা   যেভাবে করোনাভাইরাস থেকে নিজেকে এবং পরিবারকে সুরক্ষিত রাখবেন   বিশ্বব্যাপী একদিনে করোনা থেকে সুস্থ দেড় লাখ, মৃত্যু সাড়ে ৫ হাজার   ক্যালিফোর্নিয়ায় বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের অগ্রভাগে তরুণরা   প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্ট প্রকাশ   পুলিশের বাজেট বাড়ছে না, ব্ল্যাক কমিউনিটি বরাদ্দ পাবে ২৫০ মিলিয়ন ডলার   করোনায় একদিনে গেল আরও ৪৬ প্রাণ, আক্রান্ত ৫৮ হাজার ২৩৪   যেভাবে বর্ণবাদের ইতিহাসে নাম লেখাল যুক্তরাষ্ট্র

মূল পাতা   >>   স্বদেশ

কারাগারে অনিককে পেঠালো কয়েদিরা

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৯-১০-১৩ ১২:৪৫:৩১

নিউজ ডেস্ক:
বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার প্রধান আসামি অনিক কারাগারে তোপের মুখে আছেন। সাধারণ হাজতি এবং কয়েদিরা আবরারকে নিদর্য়ভাবে হত্যা মেনে নিতে নিতে পারেননি। তারা অনিককে পিটিয়েছে বলে জানা গেছে।

রোববার দুপুরে কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুর ইসলামের এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, ভেতরে তেমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। অনিককে আনার পর তাকে সাধারণ একটি সেলে রাখা হয়েছে।

কারা  সূত্র বলছে, আবরার হত্যা দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচার হয়। ফলে কারাগারের ভেতর হাজতি এবং কয়েদিরাও এ ঘটনা জানতে পারেন।

তারা মেধাবী এই ছাত্রকে এভাবে নির্মম নির্দয়ভাবে পিটিয়ে হত্যা কোনভাবেই মেনে নিতে পারছিলেন না। শনিবার সন্ধ্যায় অনিককে যখন কারাগারের প্রধান ফটকে নেওয়া হয় তখন সাধারণ হাজতি এবং কয়েদিরা উত্তেজিত হয়ে ওঠেন।

তারা অনিককে মারতে তেড়ে আসেন। তাকে চড়-থাপ্পর মারেন। এরপর কারা অভ্যন্তরে আইন-শৃঙ্খলায় নিয়োজিত সদস‌্যরা তাকে উদ্ধার করে।

বুয়েটের ২০১১ নম্বর রুমে আবরারকে অনেকেই পিটিয়ে হত্যা করলেও অনিক ছিল অগ্রণী ভূমিকায়। তিনি অতিরিক্ত মদ্যপ অবস্থায় স্টাম্প দিয়ে বেধড়ক পিটিয়েছেন আবরারকে। অনিক ইতোমধ্যে এ হত্যায় তার সংশ্লিষ্টতা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। এতে আবরারকে পিটিয়ে হত্যার লোমহষর্ক বণর্না দিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ৬ অক্টোবর রাতে ছাত্রলীগ বুয়েট শাখার নেতাকর্মীরা আবরারকে বেধড়ক পিটিয়ে হত্যা করেন। পরে এ ঘটনায় আবরারের বাবা ১৯ জনকে আসামি করে মামলা করেন। মামলায় অনিক অন্যতম অভিযুক্ত।

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৪৬৮ বার

আপনার মন্তব্য