যুক্তরাষ্ট্রে আজ শনিবার, ২০ জানুয়ারী, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 03:21pm

|   লন্ডন - 09:21am

|   নিউইয়র্ক - 04:21am

  সর্বশেষ :

  টাওয়ার হ্যামলেটসকে ‘ট্রাম্পমুক্ত এলাকা’ ঘোষণা : নেতৃত্বে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কাউন্সিলর   সিলেটে অর্থমন্ত্রীর গাড়ির ধাক্কায় ১০ জন আহত   নাইজেরিয়ায় আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ১২   জাতিসংঘের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ   রাজশাহীতে প্রথম ফ্লাইওভার নির্মাণের সিদ্ধান্ত   তহবিল সংকটের কারণে ফের শাটডাউনের শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্র   ফিলিস্তিনকে সাড়ে ৪ কোটি ডলার খাদ্য সহায়তা দেবে না যুক্তরাষ্ট্র   নারায়ণগঞ্জের ঘটনায় জড়িতদের বিচার হবেই : ওবায়দুল কাদের   শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ   হিজাব পরে শ্যাম্পুর বিজ্ঞাপনে   ক্যান্সার চিকিৎসা গবেষণায় যুগান্তকারী আবিষ্কার   লস এঞ্জেলেসে পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত   বাংলাদেশ ডে প্যারেড উপলক্ষে বাফলার ফান্ড রাইজিং অনুষ্ঠিত   ইউরোপে অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরাতে প্রণোদনা দেবে ইইউ   ঢাকায় সাক্ষরতার হার ৭০.৫৪

মূল পাতা   >>   স্বদেশ

সহনীয় পর্যায়ে ঘুষ খাওয়ার কথা বলায় শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০১-০৯ ১১:৩৪:০৪

নিউজ ডেস্ক: সহনীয় পর্যায়ে ঘুষ খাওয়ার কথা বলায় এবং সব মন্ত্রী ঘুষ খায়- এমন মন্তব্য করায় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে সব মন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চাওয়ার অনুরোধ এবং এ বিষয়ে সংসদে বিবৃতির দাবি জানিয়েছেন ঝিনাইদহ-২ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য তাহজীব আলম সিদ্দিকী।

একইসাথে তিনি এ ধরনের মন্তব্যের জন্য শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগও দাবি করেন। মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে এক অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ দাবি জানান।

সম্প্রতি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করে বিভিন্ন বিষয়ে যারা প্রতিবেদন দেন সেই কর্মকর্তাদের ‘সহনশীল মাত্রা’য় ঘুষ খেতে শিক্ষামন্ত্রীর পরামর্শ দেয়ার খবর বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। পরে সংবাদ সম্মেলন করে এই খবর তার বক্তব্যের ভুল বোঝাবুঝির উপস্থাপন বলে দাবি করেন শিক্ষামন্ত্রী।

তাহজীব আলম বলেন, শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন সহনীয় পর্যায়ে ঘুষ খান। আপনাদের ঘুষ না খাওয়ার নৈতিক সাহস আমার নেই। কারণ আমি ঘুষ খাই। মন্ত্রীরা ঘুষ খান। তিনি বলেন, সব মন্ত্রী বিশেষ করে যারা স্বচ্ছতা ও শততার সঙ্গে সব বিতর্কের ঊর্ধ্বে কাজ করে যাচ্ছেন এই সংসদে দাঁড়িয়ে শিক্ষামন্ত্রীকে তাদের কাছ নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ার অনুরোধ করছি, আবেদন করছি, নিবেদন জানাচ্ছি।

তাহজীব বলেন, শিক্ষামন্ত্রীকে তার বক্তব্যের ব্যাপারে সংসদে ব্যাখ্যা দিতে হবে। আর সত্যি সত্যি তিনি যদি আত্মস্বীকৃত দুর্নীতিবাজ হন তাহলে সমগ্র সরকারকে জনগণের কাছে বিতর্কিত না করে তার উচিত নিজ পদ থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে সেয়া। নিশ্চয় একটি সফল সরকারের ভাবমূর্তি তার বক্তব্যে ভুলণ্ঠিত হতে পারে না। যারা নির্বাহী দায়িত্বে আছেন তারা অবশ্যই বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে উপলব্ধি করবেন।

এরপর কুমিল্লার জাতীয় পার্টির এমপি নূরুল ইসলাম মিলন শিক্ষাব্যবস্থার সমালোচনা করে বলেন, আমাদের শিক্ষাব্যবস্থা এমন একপর্যায়ে এসে দাঁড়িয়েছে সেটা অত্যন্ত দুঃখজনক। তিনি প্রাথমিক সমাপনী ও জেএসসি পরীক্ষার নেয়ার বিরোধিতা করে বলেন, এর প্রয়োজন ছিল না। এর ফলে দুর্নীতি বাড়ে। শিক্ষকরা আজকে প্রশ্নপত্র ফাঁস করেন।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৫৬৯ বার

আপনার মন্তব্য