যুক্তরাষ্ট্রে আজ বুধবার, ২৩ মে, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 12:24am

|   লন্ডন - 07:24pm

|   নিউইয়র্ক - 02:24pm

  সর্বশেষ :

  পুলিৎজারজয়ী ঔপন্যাসিক ফিলিপ রোথ আর নেই   যুক্তরাষ্ট্রের এক শীর্ষ কূটনীতিককে বহিষ্কার করল ভেনেজুয়েলা   মাদকবিরোধী অভিযানের নামে ক্রসফায়ার নিয়ে বিএনপির গভীর সংশয়   অস্ত্রসহ সুন্দরবনের ৫৭ বনদস্যুর আত্মসমর্পণ   মন্ত্রীদের বেতন কমাচ্ছে মালয়েশিয়া   তামিলনাড়ুতে দূষণ বিরুধী বিক্ষোভে গুলি, নিহত ৯   কথিত বন্দুকযুদ্ধ অব্যাহত, এবার নিহত ৭   চলে গেল মুক্তামনি   দ্বিতীয় বিয়ে বাধ্যতামূলক যেখানে   চীনে মসজিদে মসজিদে জাতীয় পতাকা ওড়ানোর নির্দেশ   করাচিতে দাবদাহে হিট-স্ট্রোকে ৬৫ জনের মৃত্যু   যুদ্ধক্ষেত্রে সর্বাধুনিক এফ-৩৫ উড়িয়েছে ইসরায়েল   মিলানে ছাত্রলীগের আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল   নিউজার্সিতে কুলাউড়া এসোসিয়েশনের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত   তথাকথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এবার ৯ জেলায় নিহত ১২

মূল পাতা   >>   স্বদেশ

রাজধানীতে বস্তিতে অগ্নিকাণ্ড, নিমেষেই ছাই হলে গেল ৪ হাজার ঘর

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৩-১২ ০৬:০৩:১৮

নিউজ ডেস্ক: সোমবার ভোরে রাজধানীর ১২ নম্বর সেকশনের বস্তিতে আগুন লাগলে প্রায় চার হাজার ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ছবি : ফোকাস বাংলা

আকস্মিক আগুনে পুড়ে গেছে রাজধানীর মিরপুর ১২ নম্বর সেকশনে অবস্থিত ইলিয়াস আলী মোল্লা বস্তির প্রায় চার হাজার ঘর।

আজ সোমবার ভোর ৪টায় ওই বস্তিতে হঠাৎ আগুন ধরে যায়। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে ফায়ার সার্ভিসের ২১টি ইউনিট। সকাল ৭টা ২২ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে ততক্ষণে পুড়ে গেছে চার হাজার ঘর।

ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক দেবাশীষ বর্ধন এনটিভি অনলাইনকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক শাকিল নেওয়াজ বলেন, ইলিয়াস আলি মোল্লা বস্তির প্রায় ৫০ ভাগ ঘর  আগুনে সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে। তবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনই বলা সম্ভব না। কারণ অনুসন্ধানে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরুপণ করবে।

তদন্ত কমিটির প্রধান ও ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক দেবাশীষ বর্ধন এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে গেছে ৪৫ ভাগের বেশি ঘর। ওই বস্তিতে মোট আট হাজার ঘর ছিল বলে আমরা জানতে পেরেছি। তার মানে প্রায় চার হাজার ঘর পুড়ে গেছে। তবে আগুন লাগার কারণ আমরা এখনো নিশ্চিত হতে পরেনি।’

কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে জানতে চাইলে এই কর্মকর্তা বলেন, ‘বহু টাকার জিনিসপত্র ক্ষতি হয়েছে বলে আমরা ধারণা করছি। তবে নির্দিষ্ট করে এখুনি বলতে পারছি না। আমাদের তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন জমা দিলেই আসলে আমরা নির্দিষ্ট করে বলতে পারব কী পরিমাণ ক্ষতি সেখানে হয়েছে।’

আগুনে এখন পর্যন্ত একজন নারীর দগ্ধ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

ওই বস্তির বাসিন্দা পোশাক শ্রমিক রাফিয়া বেগম জানালেন, দীর্ঘদিন ধরে এই বস্তিতে বাস করছিলেন তিনি। তাঁর ঘরে যেসব জিনিসপত্র ছিল তার কিছুই বের করতে পারেননি। তিনি বলেন, ‘সব ছাই হয়ে গেছে। আমার মেয়ের বই-খাতা, জামা-কাপড়সহ ঘরের আর কিচ্ছু নেই। আমাগোর দিকে আল্লাহরও নজর নেই। আমি এখন কী করব? চোখে অন্ধকার দেখছি।’


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি 

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৬৪৪ বার

আপনার মন্তব্য