যুক্তরাষ্ট্রে আজ শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 12:06pm

|   লন্ডন - 07:06am

|   নিউইয়র্ক - 02:06am

  সর্বশেষ :

  আলোচনায় চেয়ে মোদিকে ইমরানের চিঠি   অন্তর্জ্বালা থেকে মনগড়া ও ভুতুড়ে কথা বলেছেন সিনহা : কাদের   ফিলিপাইনে ভূমিধস, ১২ জনের মৃত্যু   বিশ্বে প্রতি ৫ সেকেন্ডে ১ শিশু মারা যায়   ঢাকায় পুলিশের লাঠিপেটায় বাম জোটের ঘেরাও কর্মসূচি পণ্ড   বাংলাদেশে বছরে একলাখ লোক ক্যান্সারে মারা যায়   রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বব্যাংকের ৪১০ কোটি টাকা সহায়তা   অনুপস্থিতিতেই বিচার চলবে খালেদা জিয়ার   বাংলা প্রেসক্লাব ইতালির সংবর্ধনায় সুন্দর সমাজ গঠনে সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান   ১৭তম নজরুল সম্মেলনে আজীবন সম্মাননা পেলেন ইকবাল বাহার চৌধুরী   ভারতে এবার বিক্রি হবে গোবর, গো-মূত্রের সাবান   নাজিব রাজাক গ্রেপ্তার   মুক্তি পেলেন নওয়াজ শরিফ   দুর্ভিক্ষের ঝুঁকিতে ইয়েমেনের ৫২ লাখ শিশু   কওমির দাওরায়ে হাদিস সনদকে মাস্টার্সের সমমান প্রদান

মূল পাতা   >>   স্বদেশ

চট্টগ্রামে ইফতার সামগ্রী নিতে গিয়ে পদপিষ্ট হয়ে নিহত ১১

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৫-১৪ ০৯:০২:১৪

নিউজ ডেস্ক: চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় বিতরণ করা ইফতার সামগ্রী নিতে গিয়ে অতিরিক্ত ভিড়ের চাপে ১১ নারীর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও আহত হয়েছেন অর্ধ শতাধিক।

উপজেলার নলুয়া ইউনিয়নের গাতিয়াডাঙ্গায় একটি মাদ্রাসার মাঠে সোমবার দুপুরের দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রগুলো জানিয়েছে, কেএসআরএম ইস্পাত কারখানার মালিকপক্ষ প্রতিবছর রোজার আগে স্থানীয় দুস্থ ও অসহায় পরিবারের মধ্যে ইফতারি তৈরির নানা সামগ্রী বিতরণ করে।

এবারো আসন্ন রমজানকে সামনে রেখে নলুয়ার ওই মাদ্রাসার মাঠে ইফতার সমাগ্রী বিতরণের ব্যবস্থা বরে কেএসআরএম। আর এসব সামগ্রী নিতে সকাল থেকে প্রায় অন্তত ২০ হাজার লোক জড়ো হয় সেখানে। এর একপর্যায়ে অতিরিক্ত ভিড়ের কারণে আর গরমের মধ্যে চাপাচাপিতে ১১ নারী মারা যান।

সাতকানিয়া উপজেলার অপর একটি সূত্র জানিয়েছে, কেএসআরএমের পক্ষে সকাল আটটা থেকে গরিব ও অসহায় মানুষের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছিল। বিতরণের এক পর্যায়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হলে প্রচণ্ড ভিড়ের মধ্যে পড়ে পদদলিত হয়ে ১১ নারী নিহত হন।

কেএসআরএমের একজন কর্মকর্তা মো. রফিক বলেন, ‘আমাদের কোম্পানির পক্ষ থেকে সকালে দুঃস্থ-গরিবদের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছিল। সে সময় ভিড়ের মধ্যে পড়ে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে।’

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের একটি সূত্র ভিড়ের মধ্যে অতিরিক্ত গরমে হিট স্ট্রোকে তাদের মৃত্যু হতে পারে বলে জানিয়েছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম-পরিচয় জানাতে পারেনি পুলিশ।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালে একই ঘটনায় পদদলিত হয়ে ৭ জন নিহত হয়েছিল। ওই ঘটনার পর থেকে কয়েক বছর ইফতার সামগ্রী বিতরণ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। এরপর কার্ড সিস্টেম করে আবার গরিবদের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছিল। কিন্তু এবার কার্ড সিস্টেম না করায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়ে পদদলনের এই ঘটনা ঘটল।


এলএবাংলাটাইমস/এন/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৭৯১ বার

আপনার মন্তব্য