যুক্তরাষ্ট্রে আজ শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 05:36am

|   লন্ডন - 11:36pm

|   নিউইয়র্ক - 06:36pm

  সর্বশেষ :

  বিশ্বে ধর্ষণের রাজধানী ভারত : রাহুল গান্ধী   রুম্পার মৃত্যু, বয়ফ্রেন্ড সৈকত আটক   রোহিঙ্গা সঙ্কটের আশু সমাধান নেই : কানাডিয়ান হাইকমিশনার   ঢাকায় আলাদা স্থানে দুই বাসে আগুন   ৩২ টাকায় কেনা পেঁয়াজ ২৩০ টাকায় বিক্রি   বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন   বঙ্গবন্ধুকে ডক্টরেট ডিগ্রি দেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়   মেয়ের কবরের সামনে পুলিশ কর্মকর্তা বাবার আহাজারি: বিচার দাবিতে বিক্ষোভ   বেশি পেঁয়াজ খায় সিলেট অঞ্চলে, কম বরিশালে   ইউরোপের প্রথম পরিবেশ বান্ধব মসজিদ উদ্বোধন করলেন এরদোগান   স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি ছাত্রী রুম্পার মৃত্যুর রহস্য উদ্ঘাটন হয়নি ৪৫ ঘণ্টায়ও   বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলেন সৃজিত-মিথিলা   বন্ধুপ্রতীম ভারত বাংলাদেশের জন্য আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি করবে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রীর   ভারত থেকে বাংলাদেশে অবৈধ অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সীমান্তে কড়াকড়ি   ভারতে ধর্ষণের পর হত্যা, চার ধর্ষকই পুলিশের গুলিতে নিহত

মূল পাতা   >>   নিউইয়র্ক

বিশ্বনবীর উম্মাতদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে চলার সময় এসেছে: নিউইয়র্কে ইন্টারন্যাশনাল সীরাত কনভেনশনে বক্তারা

রশীদ আহমদ, ‍নিউইয়র্ক থেকে, নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৯-০৯-২৪ ০২:০০:৩৭

রশীদ আহমদ, ‍নিউইয়র্ক থেকে: নিউইয়র্কে উৎসবমুখর পরিবেশে আমেরিকান মুসলিম সেন্টার কর্তৃক আয়োজিত ১২তম  সীরাত কনভেনশন  সম্পন্ন হয়েছে।এবারের সীরাত কনভেনশনের প্রতিপাদ্য বিষয়  ছিল: মুহাম্মদ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বিশ্ব শান্তি ও সামাজিক ন্যায়বিচারের প্রতীক।পাশাপাশি মুসলিম সম্প্রদায়ের একটি যৌথ প্রচেষ্টা।

গত ২১শে সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটায় জ্যামাইকার সুসান বি.এন্থোনী একাডেমীতে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানটি দু'টি পর্বে অনুষ্ঠিত হয়।প্রথম পর্বে তাসনুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও মুফতি মুহাম্মদ  আবদুল মালেক,হাফেজ রফিকুল ইসলাম ও মাওলানা মুহাম্মদ মানজুরুল করীম এর যৌথ পরিচালনায় শুরুতে কালামে হাকীম থেকে তেলাওয়াত করেন হাফেজ মুহাম্মদ আদনান ও ক্বারী সামিদ হোসাইন।নাশিদ পেশ করেন ডাক্তার আতাউল ওসমানী ও আমজাদ কোরেশী।স্বাগত বক্তব্য রাখেন সীরাত কনভেনশনের কনভেনর ও  এমএমসির প্রেসিডেন্ট সাব্বীর আহমদ। 
 বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাউথ কুইন্স প্রিসেন্ট পুলিশের এসিসটেন্ট চীপ ডেভিড ব্যারিয়ার,স্টেট সিনেটর জন ল্যু, কমিউনিটি এপ্যেয়ার্সের ডিটেকটিভ মার্ক কুস্তা,কাউন্সিলম্যান ডোনাভান জে রিসার্ড,হাফেজ জুনাইদ আহমদ আল মাদানী, আবু সাঈদ মাহফুজ,ইমাম হাফেজ আকীব আল মাদানী, ইমাম সার্জাদ ও আখতার রহমান টিপু। প্রথম পর্বটি বিকেল পাঁচটায় থেকে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত চলে।যা ছিল নতুন প্রজন্মের জন্য ইংলিশ পর্ব।আর বাদ মাগরিব হতে ২য় (বাংলা) পর্ব শুরু হয় চলে রাত এগারোটা পর্যন্ত।উভয় পর্বে পুরুষ ও মহিলাদের জন্য সু-ব্যবস্থা ছিল।

২য় পর্বটি রাইয়ান এহসানের তেলাওয়াতের মাধ্যমে ও আলহাজ ফারুক উদ্দিনের সভাপতিত্বে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন মুফতি মুহাম্মদ আবদুল মালেক ও হাফেজ রফিকুল ইসলাম।এই পর্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মুফতি মুহাম্মদ ফারহান,জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের ইমাম ও খতীব মাওলানা আবু জাফর বেগ ও আমেরিকান মুসলিম সেন্টারের উপদেষ্টা,মাওলানা শাহজাহান সিরাজী।সীরাত কনভেনশনে প্রধান আলোচকের গুরুত্বপূর্ণ বয়ান পেশ করেন লন্ডন থেকে আগত,বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ ও গবেষক ড.আবুল কালাম আজাদ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এখন সময় পত্রিকার সম্পাদক কাজী সামছুল হক,রাইট কেয়ার মেডিকেল অফিসের সিইও ডাঃ মুহাম্মদ হোসাইন ইমরান এমডি, মুহাম্মদ শাহ নেওয়াজ, নজরুল ইসলাম,শাহাদত হোসাইন,খালেদ মাসুদ,নুরুল হক, আজিজুল হক, ইবরাহীম ভুঁইয়া,বিএমএমসিসি ইসলামিক স্কুলের প্রিন্সিপাল মাওলানা রশীদ আহমদ,বায়তুল গাফফার মসজিদের ইমাম মাওলানা মাসুক আহমদ,ইঞ্জিনিয়ার মুহাম্মদ আলী,আবু তাহের মিয়া ও আবু তাহের ভুঁইয়া  প্রমূখ।

কনভেনশনে প্রধান আলোচক ড.আবুল কালাম আজাদ বলেন, বিশ্ব নবীর বিশ্ব উম্মাত,ঐক্যবদ্ধ মুসলিম মিল্লাতের বিশ্ব শান্তিময় বিশ্ব প্রতিষ্ঠায় মহা আয়োজন এই কনভেনশন।বর্তমান বিশ্বে রাসুল সাঃ প্রেমিক সকল উম্মাতকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে একযোগে কাজ করার সময় এসেছে। কনভেনশন থেকে শিক্ষা নিয়ে বিশ্ব মানবতার নবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) সহ অন্যান্য নবীদের আদর্শ অনুস্মরণ করে আগে নিজেকে সত্যিকার মুসলমান হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। নবী-রাসুলগণ তাঁদের আচার-আচরণ আর ব্যবহারের গুণেই ভিন্ন ধর্মীদের মন জয় করেছিলেন। তাঁদের সেই পথ অনুস্মরণ, অনুকরণ করেই বিশ্ববাসীর কাছে ইসলামের দাওয়াতী কাজ করতে হবে।

প্রধান অতিথি বিশিষ্ট সমাজ সেবক আমীর খান বলেন, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবার মাঝে শান্তির ধর্ম ইসলামের দাওয়াত পৌছে দেয়াই মূলত: এই কনভেনশনের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। তাই ইসলামের আদর্শ সবার কাছে পৌছে দেয়া আমাদের নৈতিক ও সামাজিক দায়িত্ব। বক্তারা আরো বলেন, "বিশ্বনবীর বিশ্ব উম্মাত,ঐক্যবদ্ধ মুসলিম মিল্লাত" এই শ্লোগানকে সামনে রেখে চলার সময় এসেছে।তাই ইসলামকে মুসলমানদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখলে চলবে না। ইসলামের শান্তির বার্তা সবার মাঝে পৌঁছৈ দিতে হবে।তিনি আরো বলেন, ইন্টারন্যাশানাল সীরাত কনভেনশন হচ্ছে জ্যামাইকার এএমসির দীর্ঘদিনের সোনালী স্বপ।পাশাপাশি উম্মাতের ঐক্যের সার্বজনীন প্লাটফর্ম। ঐক্যের ঠিকানায় পথহারা-দিশাহারা উম্মাতের সামনে সীরাত কনভেনশন উন্মোচন করবে ঐক্যের নতুন দিগন্ত।মহানবী সাঃ এর সীরাত আমব্রেলার নীচে মত পথ ভুলে সকল উম্মাত একাকার।

আমেরিকান মুসলিম সেন্টার কর্তৃক ১২তম ইউনাইটেড সীরাত কনভেনশন ২০১৯ সফল ভাবে সম্পন্ন করতে পারায় মহান রবের দরবারে শুকরিয়া আদায় করেন।পাশাপাশি কর্তৃপক্ষ কনভেনশনে আগত সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধান ও সহায়তায় ছিলেন এএমসির ইমাম মাওলানা আতাউর রহমান জালালাবাদী ও ডাইরেক্টর মাওলানা মুহাম্মদ ফয়সল নওয়াজ।অনুষ্ঠান শেষে দেশ,জাতি ও বিশ্ব মুসলিমের জন্য মোনাজাত পরিচালনা করেন বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন ও গবেষক মাওলানা ফয়সল আহমদ জালালী

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ২৫০ বার

আপনার মন্তব্য

সাম্প্রতিক খবর