যুক্তরাষ্ট্রে আজ শুক্রবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 06:16pm

|   লন্ডন - 01:16pm

|   নিউইয়র্ক - 08:16am

  সর্বশেষ :

  নিউইয়র্কে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের আলোচনা সভা   লন্ডনে বিক্ষোভের মুখে মোদি   কোটা সংস্কার আন্দোলন: ঢাবি ক্যাম্পাসজুড়ে ভীতি   কোচিং ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে পদত্যাগ করলেন ছাত্রলীগ নেতা রনি   খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে পারলেন না বিএনপি নেতারা   প্রবাসীদের ভোটাধিকার দিতে নির্বাচন কমিশন কাজ করছে: সিইসি   ইন্দোনেশিয়ায় ভয়াবহ ভূমিকম্প, ধসে পড়েছে শতাধিক বাড়িঘর   সৌদিতে সিনেমা হল উদ্বোধন   কিমের সঙ্গে আলোচনা সফল না হলে পদত্যাগ : আবেকে ট্রাম্প   টাইম ম্যাগাজিনের ১০০ প্রভাবশালীর তালিকায় শেখ হাসিনা   বিশ্বের ৯৫ শতাংশ মানুষ দূষিত বায়ু গ্রহণ করছে   বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভারত   আরবদের বিরুদ্ধে আরবেদরই কাজে লাগাতে চাইছেন ট্রাম্প   বিসিবির চুক্তি থেকে বাদ সৌম্য-তাসকিন-সাব্বির   সৌদিতে আবার সিলিন্ডার বিস্ফোরণে সাত বাংলাদেশির মৃত্যু

মূল পাতা   >>   খেলাধুলা

ভারতকে হারিয়ে সাফের শিরোপা জিতলো বাংলাদেশের কিশোরীরা

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৭-১২-২৪ ১১:৫৮:৪৭

নিউজ ডেস্ক: সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপে ভারতকে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হলো বাংলাদেশ। রবিবার (২৪ ডিসেম্বর) দুপুরে টুর্নামেন্টের ফাইনালে বাংলাদেশ ১-০ গোলে হারায় ভারতকে। ম্যাচের একমাত্র গোলটি করে বাংলাদেশকে শিরোপা এনে দিয়েছেন শামসুন্নাহার।
কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে আত্মবিশ্বাসে টগবগে হয়ে ফাইনাল খেলতে নামে বাংলাদেশ। কারণ গত বৃহস্পতিবারই গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে ভারতকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিলো বাংলাদেশের কিশোরীরা। তাই শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচের শুরু থেকেও ভারতের উপর চাপ সৃষ্টি করে খেলতে থাকে বাংলাদেশ।
তবে সময় গড়ানোর সাথে সাথে বাংলাদেশের সাথে সমানতালে লড়াই শুরু করে ভারত। কিন্তু এতে ভড়কে যায়নি বাংলাদেশ। কাঙ্খিত গোলের জন্য নিজেদের সেরাটা দেয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করছিলো স্বাগতিকরা।
অবশেষে কাঙ্খিত গোলের দেখা পায় বাংলাদেশই। ৪১ মিনিটে আনুচিং মারমার শট গোলরক্ষকের হাত থেকে ফিরে এলে ফিরতি বল বাঁ-পায়ের শটে ভারতের জালে পাঠিয়ে বাংলাদেশকে প্রথম গোলের স্বাদ দেন শামসুন্নাহার। ফলে ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে ম্যাচের প্রথমার্ধ শেষ করে গোলাম রব্বানি ছোটনের দল।
১-০ গোলে এগিয়ে থেকেও দ্বিতীয়ার্ধে ব্যবধান বাড়ানোর চেষ্টা করেছিলো বাংলাদেশ। ম্যাচে সমতা আনতে গোলের জন্য মরিয়া ছিলো ভারতও। কিন্তু রক্ষণদূর্গের দক্ষতার কারণে বাংলাদেশকে বড় কোন পরীক্ষায় ফেলতে পারেনি ভারত।
তবে ম্যাচের ব্যবধান দ্বিগুন করার ভালো একটি সুযোগ পরবর্তীতে পেয়েছিলো বাংলাদেশ। ৬১ মিনিটে মগিনী-মার্জিয়ার সহায়তায় বল পেয়ে একক প্রচেষ্টায় ভারতের সীমানায় ঢুকে পড়েন তহুরা। এরপর গোলরক্ষককে কাটাতে পারলেও বলের গতি বেশি থাকায় তা তহুরার নিয়ন্ত্রের বাইরে চলে যায়। ফলে এবার গোল বঞ্চিত হয় বাংলাদেশ।
গোল বঞ্চিত হলে আক্রমণের ধারা অব্যাহত রেখেছিলো বাংলাদেশ। কিন্তু শেষ বাঁিশ বাজার আগ পর্যন্ত আর কোন গোলের দেখা পয়নি স্বাগতিকরা। ফলে ১-০ গোলের ব্যবধানে ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জিতে নেয় বাংলাদেশের কিশোরীরা।
চার দলের এবারের টুর্নামেন্টে গ্রুপ পর্বের তিন ম্যাচই জিতেছিলো বাংলাদেশ। গ্রুপ পর্বে নেপালকে ৬-০, ভুটানকে ৩-০ এবং ভারতকে ৩-০ গোলে হারায় বাংলাদেশ। অন্যদিকে, ভুটানকে ৩-০ গোলে হারানোর পর নেপালকে ১০-০ গোলের বড় ব্যবধানে হারায় ভারত। তবে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের কাছে হেরে যায় ভারত।
পুরো টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ প্রতিপক্ষের জালে ১৩ গোল দিয়েছে। কিন্তু একটি গোলও হজম করতে হয়নি তাদের। তাই দলগত সাফল্যগুলো বাংলাদেশের শিরোপা জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাই রাখলো।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৬৪৪ বার

আপনার মন্তব্য

সর্বাধিক পঠিত