যুক্তরাষ্ট্রে আজ শনিবার, ২৫ মে, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 02:05am

|   লন্ডন - 09:05pm

|   নিউইয়র্ক - 04:05pm

ব্রেকিং নিউজ >>   আমি ইফতারে যাব : মমতা

  সর্বশেষ :

  সংবিধান সমুন্নত রাখতে জনগণের ঐক্য প্রয়োজন: ড. কামাল   আমি ইফতারে যাব : মমতা   ইফতারে যোগ দিয়ে চমকে দিলেন নেদারল্যান্ডসের রাজা   শেখ হাসিনার নির্দেশ উপেক্ষা করে দলের বিরুদ্ধে শাজাহান খান   মোদির জয়ের পরই ভারতে নারীসহ ৩ মুসলিমকে নির্যাতন   ইরানকে ঠেকাতে সৌদিকে অস্ত্র দিচ্ছেন ট্রাম্প   প্রথম মুসলিম প্রধানমন্ত্রী পেতে পারে ব্রিটেন!   এবারের বাজেট ৫ লাখ কোটি টাকার ওপরে: প্রধানমন্ত্রী   শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় নিহতদের স্মরণে সিডনিতে শোক   পদত্যাগ করছেন রাহুল গান্ধী   খালেদার মুক্তির সঙ্গে সংসদে যোগ দেয়ার সম্পর্ক নেই : ফখরুল   ভারতের নতুন সরকারের আমলে তিস্তা চুক্তি হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী   পশ্চিমবঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষ, বিজেপি নেতা গুলিবিদ্ধ   পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন থেরেসা মে   মোদির গুজরাটে ভয়াবহ আগুন, নিহত ১৮

মূল পাতা   >>   খেলাধুলা

আফগানিস্তানের কাছে বাংলাদেশের লজ্জাজনক হার

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-০৫ ১৫:২৪:০৪

নিউজ ডেস্ক: সিরিজটাও হারল বাংলাদেশ। র‌্যাংকিংয়ের ওপরে থাকা আফগানদের যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন থাকল না। বরং বাংলাদেশ প্রমাণ করে দিলো টি-২০ ক্রিকেটে এখনো তারা সেই ব্যাক বেঞ্চেই। নতুবা টানা দুই ম্যাচে একই পারফরম্যান্স হয় কী করে। প্রথম ম্যাচেও ১৬৮ রানের লক্ষ্যে নেমে ১২২ রানে অলআউট। কালও দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচে প্রথম ব্যাটিং করে ১৩৪/৮ এর গুটিয়ে যায় তারা। ব্যাটসম্যানদের এ নিদারুণ ব্যর্থতায় বোলারদের আর করার ছিল না কিছুই। টি-২০ ক্রিকেটের যুগে প্রথম ব্যাটিং করলে ১৮০ প্লাস রান করার যোগ্যতা থাকা প্রয়োজন। বাংলাদেশ তা এখনো পারছে না।
এ ম্যাচেও আফগান স্পিনার রশীদ খান তার যোগ্যতার প্রমাণ রেখেছেন। চার উইকেট নিয়েছেন তিনি ১২ রানের বিনিময়ে। মূলত রশীদের ওই অ্যাটাকিং বোলিংয়ের বিপক্ষে কিছুই করার ছিল না বাংলাদেশের। খেলতেই পারছিলেন না তারা রশীদকে। খেলার ১৬তম ওভারেই ঘটেছিল বড় ঘটনা। হ্যাটট্রিকও হতে পারত। প্রথম বলে উইকেট প্রাপ্তির পর গ্যাপ দিয়ে চতুর্থ ও পঞ্চম বলেও নেন উইকেট। সাকিব, তামিম ও মোসাদ্দেকের মতো ব্যাটসম্যানদের নেন তিনি ওই ওভারে। সেখানেই ভেঙে পড়ে বাংলাদেশের সব প্রতিরোধ। এরপর হ্যাটট্রিক হতে দেয়নি আবু হায়দার রনি। এরপর নিজের শেষ ওভারে সৌম্য সরকারকেও তুলে নেন তিনি। গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে দলের একজন ব্যাটসম্যানও খেলতে পারেননি দায়িত্ব নিয়ে। তামিম এ ম্যাচে কিছুক্ষণ লড়েছেন। কিন্তু ড্যাসিং ব্যাটিংটা আর হয়নি তার। ৪৮ বলে ৫ চারের সাহায্যে ৪৩। এ ছাড়া মুশফিকের ২২ রান উল্লেখযোগ্য। ব্যাটিং অর্ডারে হেরফের করা হয়। সাকিব সৌম্য নামেন পরে। কিন্তু তাতে কোনো কাজ হয়নি।
১৩৫ রানের জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে আফগানরা সহজেই পৌঁছে যায় সাত বল হাতে রেখে। সাকিবের প্রত্যাশা ছিল অন্তত একটি উইকেট। তা হলে একটা অর্জন তার হয়ে যেত। কিন্তু ব্যর্থ হয়েছেন উইকেট লাভে। এখন শেষ ম্যাচ পানে তাকিয়ে থাকতে হবে তাকে। ওয়ান ডাউনে নামা আফগান ব্যাটসম্যান সামিউল্লাহ সেনওয়ারী দায়িত্বপূর্ণ এক ইনিংস খেলে দলকে পৌঁছে দেন জয়ের লক্ষ্যে। ৪১ বলে ৪৯ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। তিন ছক্কা আছে তাতে। এ ছাড়া মোহাম্মাদ নবির অপরাজিত ১৫ বলে করা ৩১ ও মোহাম্মাদ শাহজাদের ১৮ বলে করা ২৪ রান ছিল উল্লেখযোগ্য। মোসাদ্দেক নেন দুই উইকেট। এ ছাড়া রুবেল ও রনি নেন একটি করে উইকেট। খেলায় ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার পান রশীদ খান। এতে তিন ম্যাচ সিরিজে ২-০ তে সিরিজ জয় নিশ্চিত করল আফগানরা।


এলএবাংলাটাইমস//এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৬৪৮ বার

আপনার মন্তব্য