যুক্তরাষ্ট্রে আজ বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 11:14pm

|   লন্ডন - 06:14pm

|   নিউইয়র্ক - 01:14pm

  সর্বশেষ :

  মালয়েশিয়ায় ১১ বাংলাদেশিসহ ৩৭ জন আটক   ওয়াসার পানি ফুটিয়ে বছরে অপচয় ৩৩২ কোটি টাকা   শপথ নিলে বিএনপি নেতারা হবেন জাতীয় বেইমান: অলি   নুসরাত হত্যার স্বীকারোক্তিতে লোমহর্ষক বর্ণনা   ক্ষমা চাইলেন ফেরদৌস   নটর ডেমের পুনর্নির্মাণ করতে চান ম্যাক্রন   গ্রেপ্তার এড়াতে আত্মহত্যার চেষ্টা পেরুর প্রাক্তন প্রেসিডেন্টের   বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ময়মনসিংহের প্রথম মেয়র হলেন আ.লীগের টিটু   লাইভ নিয়ন্ত্রণ করতে যাচ্ছে ফেসবুক   পুলিৎজার পেলেন মিয়ানমারে বন্দী দুই রয়টার্স সাংবাদিক   নুসরাতকে হত্যার জন্য টাকা দেন আ.লীগ নেতা মুকছুদ   শপথের ব্যাপারে আগের সিদ্ধান্তে অটল বিএনপি : ফখরুল   সিলগালা হলো বিজিএমইএ ভবন   ফেরদৌসের ভিসা বাতিল, অবিলম্বে ভারত ছাড়ার নির্দেশ   বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দল ঘোষণা, নতুন চমক রাহি

মূল পাতা   >>   সিলেট

ওসমানী মেডিকেলে রোগীর নাতনিকে ধর্ষণ, ইন্টার্ন চিকিৎসক আটক

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-১৬ ১২:৪৮:১৩

নিউজ ডেস্ক: সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন এক রোগীর নাতনিকে (১৪) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। রোববার রাতে হাসপাতালের চতুর্থ তলার ৭ নং ওয়ার্ডের ডিউটি চিকিৎসকের কক্ষে ধর্ষণের এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় সোমবার হাসপাতাল থেকে ইন্টার্ন চিকিৎসক মাক্কাম আহমদ মাহিনকে আটক করেছে পুলিশ। তিনি ময়মনসিংহ মুক্তাগাছার মীর মখলিছুর রহমানের ছেলে।

ভুক্তভোগীর বাবা বলেন, ‘গত ৯ জুলাই টনসিলের অস্ত্রোপচারের জন্য আমার শাশুড়িকে হাসপাতালের তৃতীয় তলার ৮নং ওয়ার্ডের ১৪ নং বেডে ভর্তি করি। সেদিন থেকেই নবম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ে তার নানির দেখাশোনার কাজ করছিল।’

তিনি বলেন, ‘রোববার রাতে শাশুড়ির গলায় অস্ত্রোপচার হয়। রাত দুইটার দিকে ডিউটি চিকিৎসক মাহিন কাগজপত্র নিয়ে আমার মেয়েকে তার কক্ষে যেতে বলেন। আমার মেয়ে কক্ষে গেলে তিনি দরজা লাগিয়ে ধর্ষণ করেন।’

ধর্ষিতার বাবার ভাষ্যে, রাতে অনেকবার ফোন করা হলেও মেয়ে ধরেনি। এক পর্যায়ে ডাক্তার মাহিন ফোন রিসিভ করেন। কিন্তু, মেয়ের বিষয়ে সদুত্তর দিতে পারেননি। এ অবস্থায় আমরা হাসপাতালে এসে তার রুমে মেয়েকে অচেতন অবস্থায় পাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে মেডিকেলে দায়িত্বরত পুলিশকে জানালে তারা ডাক্তার মাহিনকে ওই কক্ষে অবরুদ্ধ করে রাখেন। আর আমরা মেয়েকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেলের ওসিসি ওয়ার্ডে ভর্তি করি।’

বিষয়টি জানাজানি হলে সোমবার সকালে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করে। পরে বেলা দুইটার দিকে একটি প্রাইভেটকারে করে হাসপাতালের পেছনের গেইট দিয়ে মাহিনকে পুলিশ থানায় নিয়ে যায়।

এ সময় কোতোয়ালি থানার এসি সাদেক কাউসার দস্তগীর, ওসি মোশাররফ হোসেন সেখানে থাকলেও তারা সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলতে চাননি।

কোতোয়ালি থানার ওসি মোশাররফ হোসেন পরিবর্তন ডটকমের কাছে তিনি ইন্টার্ন চিকিৎসক মাহিনকে আটকের কথা স্বীকার করেন।

তবে তিনি বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। স্কুলছাত্রীর শারীরিক পরীক্ষা করা হবে। মামলার পরে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও জানান ওসি।

এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৮৬৫ বার

আপনার মন্তব্য

সাম্প্রতিক খবর