যুক্তরাষ্ট্রে আজ সোমবার, ১৯ অগাস্ট, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 01:22am

|   লন্ডন - 08:22pm

|   নিউইয়র্ক - 03:22pm

  সর্বশেষ :

  পদ্মা সেতু নির্মাণের মেয়াদ ও ব্যয় দুটোই বাড়ছে   ডেঙ্গুতে আরো ৫ জনের মৃত্যু   ৩০ বছরে তলিয়ে যেতে পারে জাকার্তা   গ্রীনল্যান্ড বিক্রির প্রস্তাব হাস্যকর : ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী   গ্রীনল্যান্ড বিক্রির প্রস্তাব হাস্যকর : ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী   ভার্জিনিয়াতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিনা মূল্যে স্বাস্থ্যসেবা   গভীর চক্রান্তে হজ্জ, মুসলিম সেজে বোরকা পরে মদিনায় মহিলা সেকশনে পুরুষ ই’হুদী চর   পুড়ে যাওয়া বস্তি যেন দর্শনীয় স্থান!   ডেঙ্গু: চব্বিশ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ১৭০৬   আসামের এনআরসি ও কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল: নেপথ্যে মোদির মুসলিমবিদ্বেষ   কাশ্মীর ইস্যুতে আরব দেশগুলোর নীরবতার নেপথ্য কারণ কী?   কাবুলে বিয়ের অনুষ্ঠানে হামলা, নিহত ৬৩   মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী লীগ যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর সোহেল’র ইন্তেকাল   ভারতের পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডার এখন ফ্যাসিস্ট মোদির হাতে : ইমরান খানের হুঁশিয়ারি   রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের সাথে গুলি বিনিময়ে এক সেনাসদস্য নিহত

মূল পাতা   >>   সিলেট

অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে ইনাম চৌধুরীর সৌজন্য সাক্ষাৎ, বিএনপিতে সমালোচনা

সিলেট প্রতিনিধি, নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-১১-২৯ ০৯:৩০:০৪

সিলেট প্রতিনিধি: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের বাসায় গিয়ে তাঁর সাথে দেখা করেছেন সিলেট-১ আসনে বিএনপির প্রার্থী ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম আহমদ চৌধুরী। এসময় তিনি সিলেট-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী, অর্থমন্ত্রীর অনুজ একে আব্দুল মোমেনের সাথেও সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

বৃহস্পতিবার (২৯ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ইনাম আহমদ নগরীর ধোপাদিঘীরপাড়ে হাফিজ কমপ্লেক্সে অর্থমন্ত্রীর বাসভবনে গিয়ে তাঁর দেখা করেন। মুহিত সিলেট-১ আসনের বর্তমান সাংসদ। এবার মুহিতের বদলে তার ভাই মোমেন এ আসনে প্রার্থী হয়েছেন। অপরদিকে, বিএনপি থেকে ইনাম আহমদ ও খন্দকার আব্দুল মুক্তাদিরকে এ আসনে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। শেষ পর্যন্ত প্রাইভেটাইজেশন কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ইনাম আহমদই এ আসনে বিএনপির প্রার্থী হতে পারেন বলে জানা গেছে।

বুধবার (২৮ নভেম্বর) সিলেট-১ আসনের জন্য জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা কাজী এমদাদুল ইসলামের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন ইনাম আহমদ চৌধুরী। মনোনয়ন জমা দানের পরদিনই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর বাড়িতে হাজির হন ইনাম। মোমেন ও ইনাম দু'জনই সিলেটের ঐতিহ্যবাহী পরিবারের সন্তান।

ইনাম আহমদ চৌধুরী সকালে বাসায় গেলে তাকে মিষ্টি দিয়ে আপ্যায়ন করেন অর্থমন্ত্রী মুহিত ।

মুহিত, ইনাম ও মোমেন তিনজনে মিলে সিলেটের রাজনৈতিক ঐতিহ্য নিয়ে প্রায় ৪৫ মিনিট আলাপ-আলোচনা করেন। একাদশ সংসদ নির্বাচন সিলেটে যাতে শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয় সে বিষয়ে আলোচনা করেন তারা। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সিলেটে কোনোভাবেই যেন রাজনৈতিক সম্প্রীতি না ভাঙে সেদিকে লক্ষ রেখে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করার আহ্বান জানান একে অন্যের প্রতি। এ সময় ইনাম আহমদ চৌধুরী সিলেট-১ আসন থেকে বিএনপির প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন বলে অর্থমন্ত্রীকে জানান। প্রার্থী হওয়ায় অর্থমন্ত্রী তাকে স্বাগত জানান।

এ ব্যাপারে ইনাম আহমদ চৌধুরী বলেন, ‘অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত আমার পছন্দের মানুষ। তার সঙ্গে শিক্ষাজীবন থেকে শুরু করে কর্মজীবনে কনিষ্ঠ হিসেবে কাজ করার সৌভাগ্য হয়েছে আমার। তাই তার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছি। তাকে জানিয়েছি আমি এবার সিলেট-১ আসন থেকে বিএনপির প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। তিনি শুনেই আমাকে স্বাগত জানান।’

অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে কী কথা হয়েছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘নির্বাচন ও সিলেটের রাজনৈতিক ঐতিহ্য নিয়ে আমাদের কথা হয়েছে। এছাড়াও আমাদের কর্মজীবনের বিভিন্ন বিষয়ে আলাপ-আলোচনা হয়।’

এ বিষয়ে কথা বলতে অর্থমন্ত্রীর ভাই ও সিলেট-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

বিএনপিতে সমালোচনা :
এদিকে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের বাসায় সৌজন্য সাক্ষাতে গিয়ে দলের ভেতরে সমালোচনার মুখে পড়েছেন সিলেট-১ আসনে বিএনপির প্রার্থী ইনাম আহমদ চৌধুরী।

এই সাক্ষাতকে সিলেটের রাজনীতির সম্প্রতির দৃষ্টান্ত হিসেবে অনেকে অভিহিত করলেও বিএনপির অনেক নেতাকর্মীই এই কাজকে সন্দেহের চোখে দেখছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইনাম আহমদের সমালোচনায় মেতে উঠেছেন তাঁরা।

ইনাম চৌধুরীর এই সৌজন্য সাক্ষাত নিয়ে ফেসবুকে মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মিফতা সিদ্দিকী লিখেছেন-
“ দেশনেত্রীকে কারাগারে রেখে, নেতাকর্মীদের প্রতিনিয়ত নির্যাতনের মুখামুখি দেখে ও যারা আওয়ামী ফ্যাসিস্ট গোষ্ঠীর সাথে সৌহার্দ্যপূর্ণ সহাবস্থানের কথা চিন্তা করেন, আমি স্পষ্টভাবে মনে করি তাদের সাথে আমার চিন্তা ও ধ্যান-ধারণার মিল হতে পারে না। আমি গতকাল নির্বাচনী কার্যক্রমে সম্পৃক্ত হওয়াটাকে আমার স্পষ্ট ভুল সিদ্ধান্ত বলে মনে করছি। অনুতপ্ত বোধ করছি।“

ছাত্রদল নেতা রাজ্জাক খান রাজ ফেসবুকে লিখেছেন-
“দেশনেত্রীকে কারাগারে রেখে, নেতাকর্মীদের কারাগারে রেখে আওয়ামী ফ্যাসিস্ট সরকারের সাথে সৌহার্দ্যপূর্ণ সহাবস্থানের কথা চিন্তা করেন?
ছিঃ ছিঃ
এ কেমন রাজনৈতিক সম্প্রীতি?“

আবুল মাল আবদুল মুহিত আর ইনাম আহমদ চৌধুরী দুজনের রাজনৈতিক পরিচয় ভিন্ন হলেও পারিবারিক সম্পর্ক, চিন্তা-চেতনা,শিক্ষা আর পেশাগত কারণে দুজনের অবস্থান কাছাকাছি। একজন বর্তমান সরকারের অর্থমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আর আরেকজন প্রাইভেটাইজেশন কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান (প্রতিমন্ত্রী) ও বিএনপির অন্যতম ভাইস চেয়ারম্যান। দুজনই সিলেটের দুটি আলোকিত পরিবারের সন্তান। ইনাম চৌধুরীর বড় ভাই, সাবেক পররাষ্ট্র সচিব ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ফারুক চৌধুরী ছিলেন অর্থমন্ত্রী মুহিতের বন্ধু। ইনাম চৌধুরী, আবুল মাল আবদুল মুহিতকে বড় ভাই হিসেবে মান্য করেন। তিনি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন জানাতে এবং দোয়া নিতে অর্থমন্ত্রীর বাসায় গিয়ে সাক্ষাৎ করেন। এসময় অর্থমন্ত্রীর ছোট ভাই, আওয়ামী লীগের প্রার্থী ড.এ কে এ মোমেন, বিএনপির প্রার্থী ইনাম চৌধুরী কে স্বাগত জানান।

এদিকে, দলীয় নেতাকর্মীদের এই সমালোচনার প্রেক্ষিতে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করতে আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন ইনাম আহমদ চৌধুরী।


এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৮৭২ বার

আপনার মন্তব্য

সর্বাধিক পঠিত

সাম্প্রতিক খবর