Updates :

        লস এঞ্জেলেসের 'অভিবাসীপূর্ণ' এলাকায় সংক্রমণ বেশি

        ফেসবুকের বিকল্প হয়ে উঠছে 'মিউই'

        লস এঞ্জেলেস কাউন্টিতে ছোট ব্যবসায়ীরা পাচ্ছেন ক্ষুদ্র ঋণ

        ক্যালিফোর্নিয়ায় আগামী বছর উচ্ছেদ মামলা হতে পারে দ্বিগুণ

        স্কুল ক্যাম্পাস চালুর দরখাস্ত নাকচ ক্যালিফোর্নিয়া সুপ্রিম কোর্টের

        বাইডেন প্রেসিডেন্ট হওয়ায় মার্কিনিদের পকেটে কেমন প্রভাব পড়বে

        অরেঞ্জ কাউন্টিতে চালু দ্বিতীয় টিকাদান কেন্দ্র

        ২০০ পর্বে পা দিলো ‘রান্নাবান্না’

        লস এঞ্জেলেস কাউন্টি হাসপাতালে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

        নিউ ইয়র্কে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, ৩ সেনার মৃত্যু

        লস এঞ্জেলেস কাউন্টিতে টিকা সংকট চরমে

        ‘চমকের গান, ভাষা, সুর আমাকে মুগ্ধ করে’

        সিনেমায় হালকা ধাঁচের মিষ্টি গান থাকবে: চমক

        করোনা টিকা নিতে কমিউনিটির বয়স্কদের প্রতি আহ্বান

        ৬০ দেশে শনাক্ত নতুন ধরনের করোনা

        ট্রাম্পের বিদায়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে ইরান

        দেশে পৌঁছালো ২০ লাখ ডোজ করোনা টিকা

        ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা এখন রোনাল্ডো

        বয়স্কদের টিকাদান শুরু করেছে সান বার্নার্ডিনো

        ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টির দেখা মিলতে পারে সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়ার কিছু অংশে

সিলেটে হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র পেল ২৫৬ জন

সিলেটে হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র পেল ২৫৬ জন

প্রতীকী ছবি

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে সিলেটে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা ২৫৬ জনকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগটিতে ৩০ জনকে কোয়ারেন্টিন রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে রয়েছেন সিলেটে ২ জন, সুনামগঞ্জে ১৪ জন, হবিগঞ্জে ১০ জন ও মৌলভীবাজারে ৪ জন।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) তাদের থেকে ছাড়পত্র দেয় হয়।

সিলেট স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে বিভাগটিতে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন এক হাজার ২৩৩ জন। এরমধ্যে রয়েছেন সিলেটে ৪৭৮ জন, সুনামগঞ্জে ২২০ জন, হবিগঞ্জে ৩৫৪ জন ও মৌলভীবাজারে ১৮১ জন।

তিনি বলেন, গত ১০ মার্চ থেকে এখন পর্যন্ত বিভাগটিতে হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ১ হাজার ৭৯৯ জন। এরমধ্যে রয়েছেন সিলেটে ৪০৮ জন, সুনামগঞ্জে ৩৯২ জন, হবিগঞ্জে ৫৪২ জন ও মৌলভীবাজারে ৪৫৪ জন।

তিনি আরো জানান, সিলেট শহীদ ডা. শামসুদ্দিন হাসপাতাল আইসোলেশনে রয়েছেন ২৩ বছর ও ষাটোর্ধ্ব দুই নারী ও তিন পুরুষ। এদের মধ্যে একজন ফ্রান্স, অপরজন লন্ডন প্রবাসী। অন্য তিন জনের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে। নতুন দু’জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হবে। ইতোমধ্যে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আসা করোনা টেস্টের পলিমার চেইন রিঅ্যাকশন (পিসিআর) মেশিন এখনো প্রস্তুত হয়নি।

এলএবাংলাটাইমস/এম/এইচ/টি

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত