যুক্তরাষ্ট্রে আজ মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 02:50am

|   লন্ডন - 09:50pm

|   নিউইয়র্ক - 04:50pm

  সর্বশেষ :

  নিয়ন্ত্রণে আসছে ক্যালিফোর্নিয়ার দাবানল 'ববক্যাট ফায়ার'   ক্যালিফোর্নিয়ার ডিজনিল্যান্ড পার্ক খুলতে কর্তৃপক্ষের কাছে আপিল   যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা দুই লাখ ছাড়ালো   নির্বাচনের আগেই বিচারপতি নিয়োগের ভোট হবে সিনেটে: মিচ ম্যাককনেল   করোনার জন্য জাতিসংঘে চীনকে দায়ী করলেন ট্রাম্প   দেশে করোনায় মৃত্যু ৫ হাজার ছাড়ালো   ভিপি নূরের মামলাকে মিথ্যা বললেন ড. কামাল, দেবেন আইনি সহায়তা   বাণিজ্য করার উদ্দেশ্যে গণস্বাস্থ্যের কিটের অনুমতি দেয়নি সরকার: ডা. জাফরউল্লাহ   একের পর এক দুর্যোগে নাজেহাল ক্যালিফোর্নিয়া   ভূরাজনৈতিক বিরোধ জাতিসংঘকে যেন দুর্বল না করে: প্রধানমন্ত্রী   নূরের বিরুদ্ধে অপহরণ-ধর্ষণ ও ডিজিটাল আইনে আরেক মামলা   চীন-রাশিয়া থেকে অস্ত্র কিনবে ইরান   ক্যালিফোর্নিয়ায় প্রথমবারের মতো সংক্রমণ ৩ শতাংশেরও নিচে   ডেঙ্গু আক্রান্তরা হতে পারেন করোনা প্রতিরোধে সক্ষম: গবেষণা   আসছে শীতে যুক্তরাষ্ট্রে 'টুইনডেমিক' আতঙ্ক

মূল পাতা   >>   লস এঞ্জেলেস

লস এঞ্জেলেসে অনলাইনে বাড়ছে যৌন নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ২০২০-০৫-২১ ১৬:০০:৫৩

সংগৃহীত ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক:
করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সবাইকে ঘরেই অবস্থান করতে হচ্ছে। শিশুরাও অনলাইনে সময় কাটাচ্ছে বেশি। লস এঞ্জেলেসের আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাগুলো জানাচ্ছে, এ সময়টাতে বেড়েছে অনলাইনে যৌন নির্যাতন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও অন্যান্য অনলাইন প্লাটফর্মে যৌন হেনস্তার মতো কনটেন্ট বাড়ছে।

যৌন অপরাধেযুক্তরা মহামারির সুযোগ নিয়ে বিভিন্ন ছবি ও ভিডিও প্রকাশ করছে যা অনৈতিক ও ক্ষতিকর। দ্য ন্যাশনাল সেন্টার ফর মিসিং অ্যান্ড এক্সপ্লয়টেড চিলড্রেন এ সংক্রান্ত প্রায় ৪.১ মিলিয়ন  রিপোর্ট গ্রহণ করেছে শুধুমাত্র এপ্রিল মাসেই। মার্চ মাসে এ সংখ্যা ছিল ২ মিলিয়নের কিছু বেশি।

সংস্থাটির কর্মকর্তা শেহহান জানান, মহামারির এই সময়ে অনলাইনে যৌন অপরাধের মতো বিষয় সারাবিশ্বেই আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর জন্য বাড়তি চাপ হয়ে দেখা দিয়েছে।

দ্য লস এঞ্জেলেস পুলিশ ডিপার্টমেন্ট এর ইন্টারনেট ক্রাইম এগিনিস্ট চিলড্রেন ইউনিট এ সংক্রান্ত অপরাধের প্রায় তিন হাজার সুপারিশ নিয়েছে, এপ্রিলে যা মার্চে ছিল মাত্র ১৩৫৫টি। ইউনিট কমান্ডার লেফটন্যান্ট অ্যান্থনি কাটো এ তথ্য জানিয়েছেন।

পুলিশের মুখপাত্র জস রুবেনস্টাইন বলেন, এই ইউনিটের অনেককে করোনা সংকটে অন্য দায়িত্ব দিতে হয়েছে। তবে শিশুদের অনলাইনে নির্যাতন করছে এমন যে কাউকে বিচারের আওতায় আনতে পুলিশ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

ইন্টারনেটর নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ অ্যালিসিয়া কোয়াকেউইচ বলেন, এমন একটা পরিস্থিতি তৈরি হবে তা অনুমানযোগ্য ছিল। আইসোলেশনের সময়টায় শিশুরা মানসিকভাবে বেশি অনিরাপদ থাকে। অপরাধীরা এই সুযোগটা নেয়।

ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও বিভিন্ন গেমিং প্ল্যাটফর্মে শিশুদের নানা প্ররোচনায় ফেলে অশালীন ছবি ও ভিডিও পাঠাতে এবং পরবর্তীতে তাদের সামাজিকভাবে হেয়, বিব্রত করতে চেষ্টা করে অপরাধীরা। এক্ষেত্রে পিতামাতার সচেতনতার কোনো বিকল্প নেই বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

/এলএ বাংলা টাইমস/এন/এইচ


এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৬৮১ বার

আপনার মন্তব্য