যুক্তরাষ্ট্রে আজ শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 05:31am

|   লন্ডন - 12:31am

|   নিউইয়র্ক - 07:31pm

  সর্বশেষ :

  মিয়ানমার কারও কথা শোনে না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী   পরীক্ষা ছাড়া ভর্তিকে কেন্দ্র করে ঢাবিতে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ছাত্রলীগের হাতাহাতি   ১৮টি অমুসলিম উপাসনালয়ের অনুমোদন দিচ্ছে আরব আমিরাত   দেশে দুর্নীতি মহামারী আকার ধারণ করেছে : মওদুদ   লাইবেরিয়ায় ধর্মীয় স্কুলে আগুন, নিহত ৩০   ১৮ দিনেও খালেদা জিয়ার সাক্ষাৎ পাননি স্বজনরা, উদ্বেগ   নিউইয়র্কে ইন্টারন্যাশনাল সীরাত কনভেনশন শনিবার   নিউইয়র্কে বিয়ানীবাজার এডুকেশন এন্ড ডেভেলপমেন্ট ট্রাস্টের ক্রিকেট টুনার্মেন্ট সম্পন্ন   ওয়াশিংটন ডিসিতে শুদ্ধ উচ্চারণ ও আবৃত্তি সংগঠন ‘সমস্বর’-এর আত্মপ্রকাশ   বাফলা চ্যারিটির ফান্ড রাইজিং ডিনার রবিবার   দক্ষিণ কোরিয়ার রাজনীতিবিদরা মাথা ন্যাড়া করছেন   বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আরো ভাগাভাগি হচ্ছে, গণমাধ্যমে আসছে না: আরেফিন সিদ্দিক   ‘জাবির অর্থ কেলেঙ্কারি ফাঁসকারী ছাত্রলীগ নেতারা হুমকির সম্মুখীন’   খালেদা কিছুই দেননি, হাসিনা আমাদের সম্মানিত করেছেন: আল্লামা শফী   রাখাইনে আরও ৬ লাখ রোহিঙ্গা গণহত্যার চরম ঝুঁকিতে : জাতিসংঘ

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

পশ্চিমবঙ্গেও এনআরসির সিদ্ধান্ত বিজেপির

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৯-০৯-১১ ১৪:২৮:১০

নিউজ ডেস্ক:
পশ্চিমবঙ্গেও এনআরসি হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। আসামের জাতীয় নাগরিক নিবন্ধন (এনআরসি) নিয়ে যখন পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতি উত্তাল, তখনই এ সিদ্ধান্তের কথা জানালেন তিনি।

মঙ্গলবার খোদ কলকাতায় এসে তিনি জোর দিয়ে বললেন, পশ্চিমবঙ্গে এনআরসির করা বিজেপির দলীয় সিদ্ধান্ত।

আসামে এনআরসি প্রকাশের পর ১৯ লাখ মানুষের নাগরিকত্ব প্রশ্নের মুখে পড়েছে। বাদ পড়া এসব মানুষের অনেকেই বাংলাভাষী। এনআরসির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস, কংগ্রেস, বাম ফ্রন্টসহ রাজ্যের বেশ কিছু রাজনৈতিক দল এবং বিভিন্ন সামাজিক সংস্থা।

তারা সবাই দাবি তুলেছে, পশ্চিমবঙ্গে এনআরসির নামে কোনো বাঙালিকে তাড়ানো চলবে না। এই রাজ্যে কার্যকর করতে দেওয়াও হবে না এনআরসি। এই এনআরসির বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিধানসভায় একটি প্রস্তাবও পাস হয়েছে। তবে ওই প্রস্তাব মানছে না বিজেপি। প্রস্তাব নিয়ে আলোচনার সময় বিজেপি এর বিরোধিতা করে অধিবেশন বয়কট করেছিল। বিজেপি এখনো অনড় রয়েছে পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি কার্যকর করার প্রশ্নে।

মোদি সরকারের শততম দিন উপলক্ষে মঙ্গলবার কলকাতায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন স্মৃতি ইরানি। তুলে ধরেন বিগত ১০০ দিনে মোদি সরকারের সাফল্যের নানা দিক।

স্মৃতি ইরানি সংবাদ সম্মেলনে বলেন, এই রাজ্যে অনুপ্রবেশকারী রুখতে কার্যকর করা হবে এনআরসি। মোট কথা, শুধু এই রাজ্য নয়, পুরো ভারতে কার্যকর করা হবে এনআরসি। কোনো অনুপ্রবেশকারীকে ঠাঁই দেওয়া হবে না পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতের কোনো রাজ্যে। এ ব্যাপারে বিজেপি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। আর বাংলায় এনআরসির ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সরকার দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। এনআরসির মাধ্যমে এই বাংলা থেকে বিতাড়ন করা হবে অনুপ্রবেশকারীদের।

স্মৃতি ইরানি বলেন, একসময় এই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনুপ্রবেশের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন। অভিযোগও তুলেছিলেন, বামফ্রন্ট সরকার ভোট বাড়াতে অনুপ্রবেশকারীদের এই রাজ্যে ঠাঁই দিচ্ছে। কিন্তু এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই অনুপ্রবেশকারীদের পক্ষে অবস্থা নিয়েছেন। এটা মমতার দ্বিচারিতা।

স্মৃতি ইরানি এ কথা বলেন, কাট মানি ফেরত দেওয়ার কথা বলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তো স্বীকারই করে নিলেন যে তাঁর সরকার দুর্নীতিপরায়ণ।

স্মৃতি ইরানির অভিযোগ উড়িয়ে রাজ্যের পৌরমন্ত্রী ও কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম বললেন, স্মৃতি আজ যা বলছেন, কাল নিজেই বলবেন তা ঠিক নয়। এসব কথাকে বেশি গুরুত্ব না দেওয়াই ভালো।

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৯৮ বার

আপনার মন্তব্য

সর্বাধিক পঠিত

সাম্প্রতিক খবর