যুক্তরাষ্ট্রে আজ মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 02:38pm

|   লন্ডন - 08:38am

|   নিউইয়র্ক - 04:38am

  সর্বশেষ :

  রাঙামাটিতে নির্বাচনকর্মীদের উপর গুলিবর্ষণ: নিহত ৭   প্যাটারসন সিটির ইউ‌নিয়ন এ‌ভি‌নিউ-এর নাম এখন ‘বাংলা‌দেশ বুলেভার্ড’   নিজের জন্য সংগৃহীত ৪২ হাজার ডলার নিহতদের পরিবারে দান করছেন ‘এগ বয়’   অসুস্থতার কারণে আদালতে খালেদা জিয়াকে হাজির করেনি কারা কর্তৃপক্ষ   এই বিশ্বে ইসলামবিদ্বেষের কোনো স্থান নেই: কানাডার প্রধানমন্ত্রী   ‘মুজিব কোট’ পরে এসেছিল শিশুরা   ক্রাইস্টচার্চে সন্তানকে বাঁচাতে বন্দুকের সামনে বুক পাতেন বাবা!   সিনেটরের মাথায় ডিম ভেঙে রাতারাতি হিরো কনোলি   লাশ আনতে প্রতি পরিবারের একজন নিউজিল্যান্ডে যেতে পারবেন   আবারও ডাকসুর পুনর্নির্বাচন চাইলেন ভিপি নুর   ক্রাইস্টচার্চে হামলাকারীর মৃত্যুদণ্ড চাইলেন তার বোন   ইতালিতে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রবাসীর মৃত্যু   ক্রাইস্টচার্চে বাংলাদেশি নিহতের সংখ্যা ৮ হতে পারে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী   এবার অস্ট্রেলিয়ায় মসজিদে গাড়ি নিয়ে ঢুকে পড়লো উগ্রবাদী   বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মদিন আজ

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ক্যারোলাইনায় কারাগারে দাঙ্গা, ৭ জন নিহত

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৪-১৬ ১৩:১৯:৪৪

নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ক্যারোলাইনা রাজ্যের একটি কারাগারে দাঙ্গায় অন্তত সাতজন নিহত ও ১৭ জন আহত হয়েছে।

স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে এ দাঙ্গার ঘটনা ঘটে বলে কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে সিএনএ ও নিউইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে।

দক্ষিণ ক্যারোলাইনার সংশোধন বিভাগের মুখপাত্র জেফরি টেইলন জানান, বিশপভিলে লি কারেকশনাল ইনস্টিটিউশনের ওই দাঙ্গায় কোনো পুলিশ কর্মকর্তা কিংবা কারাগারের কোনো কর্মী আহত হননি।

তিনি জানান, সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় কারাবন্দীদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয় এবং তা প্রায় আট ঘণ্টা ধরে চলে। নিরাপত্তা কর্মকর্তারা সংঘর্ষ থামানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। অবশেষে রাত ৩টার দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

কি কারণে বন্দীরা সংঘর্ষে জড়িয়েছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। কর্মকর্তারা তাৎক্ষণিক হতাহতদের পরিচয় জানাতে পারেননি। সাংবাদিকদের তারা জানিয়েছেন, বেশিরভাগ বন্দী ছুরিকাঘাত কিংবা মারধরের ফলে নিহত হয়েছে।

লি সংশোধন কেন্দ্র স্থাপিত হয় ১৯৯৩ সালে। এর বন্দী ধারণ ক্ষমতা প্রায় ১ হাজার ৬৫০ জন। দক্ষিণ ক্যারোলাইনার সবচেয়ে বিপজ্জনক কারাগার হিসেবে চিহ্নিত এটি। সেখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা অত্যন্ত কঠোর। তা সত্ত্বেও মাঝেমধ্যে সেখানে সংঘর্ষ বা দাঙ্গার ঘটনা ঘটে। রাজ্যের কর্মকর্তারা কয়েক বছর ধরে এ কারাগারকে নিরাপদ করার চেষ্টা চালিয়ে আসছেন।

২০১৫ সালে সেখানে এক দাঙ্গায় দুই কর্মকর্তা ছুরিকাঘাতে নিহত হন। ২০১৭ সালের জুলাইয়ে সংঘর্ষে নিহত হয় এক বন্দী। একই বছরের নভেম্বরে এক জন এবং এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে অপর এক বন্দী ছুরিকাঘাতে নিহত হয়। এছাড়া গত মাসে কয়েকজন বন্দী ডরমেটরি ভবনে এক নিরাপত্তা রক্ষীকে জিম্মি করে এক ঘণ্টার বেশি সময় ভবনটি নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রেখেছিল।


এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ১১০৪ বার

আপনার মন্তব্য

সর্বাধিক পঠিত

সাম্প্রতিক খবর