যুক্তরাষ্ট্রে আজ বুধবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 08:07am

|   লন্ডন - 02:07am

|   নিউইয়র্ক - 09:07pm

  সর্বশেষ :

  বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতনের দৃষ্টান্ত নেই : পররাষ্ট্রমন্ত্রী   সেনাপ্রধানসহ মিয়ানমারের ৪ কর্মকর্তার ওপর ফের মার্কিন নিষেধাজ্ঞা   দিল্লির দূষণ নিয়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামির অবাক করা বক্তব্য   নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে উত্তাল ত্রিপুরা, মোবাইল-ইন্টারনেট সেবা বন্ধ   নিউ জার্সিতে বন্দুকধারীর গুলিতে পুলিশসহ ৬ জন নিহত   সান দিয়াগোতে বিজয় মেলা আগামী শনিবার   প্রথম দিনের শুনানিতে আদালতে চুপচাপ সু চি   ভারতে ভিসার অতিরিক্ত সময় থাকলে বাংলাদেশি মুসলিমদের জরিমানা ২১০০০, হিন্দুদের ১০০   গণতান্ত্রিক দেশের তালিকায় নেই বাংলাদেশ   নো এনআরসি, নো ডিভাইড অ্যান্ড রুল: মমতা   ৩৮ আরোহী নিয়ে চিলির বিমান নিখোঁজ   ছাত্রদল সন্দেহে ২ শিক্ষার্থীকে হল থেকে বের করে দিল ছাত্রলীগ   নায়ক থেকে খলনায়ক সু চি   ‘সু চির জন্য দোয়া করতাম, তিনি আজ খুনিদের পক্ষে’   খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে সিএনএন ভবনের সামনে ক্যালিফোর্নিয়া বিএনপির বিক্ষোভ

মূল পাতা   >>   স্বদেশ

কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৯-১১-১৮ ০০:২২:৩৯

 আপডেট: ২০১৯-১১-১৮ ০০:২৩:৩৩

নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর পাইকারি ও খুচরাবাজারে পেঁয়াজের ঝাঁজ কমতে শুরু করেছে। খুচরাবাজারে ২০ টাকা কমে, প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২২০ টাকায়। পাইকারি বাজারে দর এখন ২০০ টাকাই রয়েছে।

কার্গো বিমানে করে পেঁয়াজ আমদানির ঘোষণায় থমকে দাঁড়িয়েছে দেশের পেঁয়াজের বাজার। আড়ত, পাইকারি কিংবা খুচরাবাজার- কোথাও ক্রেতা নেই। মজুদ করা পেঁয়াজ যে যার মতো করে বিক্রি করে দেয়ার চেষ্টা করছেন।

শুক্র-শনিবারও ঢাকার বাজারগুলোতে ২৫০ টাকার আশপাশে প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হয়। তবে রোববার সেই দাম কিছুটা কমে ২৩০ টাকার আশপাশে চলে আসে। আজ সোমবার কারওয়ানবাজারে খুচরাবাজারে ২০ টাকা কমে, প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২২০ টাকায়; পাইকারি বাজারে দর এখন ২০০ টাকা রয়েছে বলে জান গেছে।

এ ছাড়া দেশের উত্তর ও মধ্যঞ্চল থেকে নতুন পেঁয়াজ আসা শুরু করলে আরও কমে আসবে দাম। পাবনাসহ বিভিন্ন স্থানে নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসতে শুরু করেছে।

খুচরা পর্যায়ের ব্যবসায়ীরা বলছেন, সকালে যারা মোকাম থেকে পেঁয়াজ সংগ্রহ করেছেন, তারা ২৩০ টাকা দরে বিক্রি করছেন।

মিরপুরের শাহ আলী মার্কেটের আড়ৎ মালিকদার সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল বলেন, বাজারে মুড়িকাটা পেঁয়াজ এসেছে। এসব কারণে পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে। দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৯০ থেকে ২০০ টাকার মধ্যে। আগামীকাল দাম আরেক ধাপে কমে যাবে।

কারওয়ানবাজারে পেঁয়াজের পাইকারি বিক্রেতা আলাউদ্দিন জানান, মানিকগঞ্জে তার গ্রামের বাড়ি। সেখানেই তিনি কিছু দিন ধরে নতুন পেঁয়াজের আবাদ করছেন। কিছু আগাম মৌসুমের মুড়িকাটা পেঁয়াজ মানিকগঞ্জের হাটে উঠতে শুরু করেছে। ফলে পুরনো পেঁয়াজের দামও কিছুটা কমেছে।

এর সুফল খুচরা দোকানেও পড়বে। সরকারের বিভিন্ন পর্যায় থেকে ঘোষণা আসার প্রভাব পড়তে শুরু করছে। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে, ক্রেতাদের ভোগ প্রবণতা কমে আসা।

গত সেপ্টেম্বরে ভারত প্রথমে পেঁয়াজের রফতানিমূল্য বৃদ্ধি এবং পরে রফতানি বন্ধ করার পর ধাপে ধাপে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। পেঁয়াজ আগে কেজি ৩০ টাকা দরে আশপাশে বিক্রি হয়েছে, তা ভারতের রফতানিমূল্য বৃদ্ধির ঘোষণায় ৬০-৭০ টাকায় উঠে যায়। এর পর সেপ্টেম্বরের শেষে পেঁয়াজের দাম বেড়ে ১০০ হয়।

পুরো অক্টোবরজুড়ে সরকারের নানামুখী তৎপরতার মধ্যেও পেঁয়াজের দাম ক্রমশ বাড়ে। নভেম্বরে সেই দাম আড়াইশয় ওঠে।

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ১৬২ বার

আপনার মন্তব্য