যুক্তরাষ্ট্রে আজ শনিবার, ১১ Jul, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 12:30am

|   লন্ডন - 07:30pm

|   নিউইয়র্ক - 02:30pm

  সর্বশেষ :

  নতুন ভিসা আদেশ বাতিলে মামলা বিদেশী শিক্ষার্থীদের   মাদক পাচারে আটক ৫১, বাজেয়াপ্ত $৪ মিলিয়ন ডলার   ডেথ ভ্যালিতে তাপমাত্রা উঠতে পারে ১২৬ ডিগ্রি   রক্তও করোনা ঝুঁকির মাত্রা নির্দেশক   প্রাক্তন উপদেষ্টা রজার স্টোনের সাজা কমালেন ট্রাম্প   করোনা টেস্ট বাড়াতে ৮০০০ স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে   করোনায় মায়ের মৃত্যুর পরও বেঁচে রইলো গর্ভের শিশু   লস এঞ্জেলেসে হত্যাকান্ডের তদন্তে হমোসাইড গোয়েন্দারা   লস এঞ্জেলেসে হত্যাকান্ডের তদন্তে হমোসাইড গোয়েন্দারা   কুয়েত থেকে দেশে ফেরার আশঙ্কায় আড়াই লাখের বেশি বাংলাদেশি   ৮৬ বছর পর তুরস্কের হাইয়া সোফিয়ায় আজান   নিউজার্সির বাংলাদেশি শিক্ষার্থী ফাবিহা চিকিৎসাবিজ্ঞানে উচ্চতর ডিগ্রি নিতে চায়   গল্প: ঝাড়খণ্ড থেকে শালীমার গার্ডেন   ছড়া-কবিতা   জয়প্রকাশ মণ্ডল-এর কবিতা

মূল পাতা   >>   টুকিটাকি

ঢেউয়ে ভাসে মসজিদ : তিন মিনিট পরপর খুলে যায় ছাদ

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৮-৩০ ১৭:১৪:১৪

নিউজ ডেস্ক: মরক্কোর মাটিতে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে থাকা দৃষ্টিনন্দন পানিতে ভাসমান এ মসজিদটির নাম গ্র্যান্ড মস্ক হাসান–২ বা দ্বিতীয় হাসান মসজিদ। একে ভাসমান মসজিদ বলার কারণ হচ্ছে, মসজিদটির তিন ভাগের এক ভাগ আটলান্টিক মহাসাগরের ওপর অবস্থিত। দূরের কোনো জাহাজ থেকে দেখলে মনে হয়, ঢেউয়ের বুকে যেন মসজিদটি দুলছে আর মুসল্লিরা যেন নামাজ পড়ছেন পানির ওপর।

মহাসাগরে ভাসমান এ মসজিদটি মরক্কোসহ আফ্রিকার সবচেয়ে বড় মসজিদ। ঝড়–বৃষ্টির সময় ছাড়া প্রাকৃতিক আলো ও মুক্তবাতাস প্রবেশ করায় মসজিদটির ছাদ স্বয়ংক্রিয়ভাবে খুলে যায় তিন মিনিট পরপর। ৩৩ ফুট উচ্চতার সামুদ্রিকঢেউ সামলে নেওয়ার ব্যবস্থা আছে মসজিদটিতে। সমুদ্রের কোনো গর্জন শোনা যায় না মসজিদটির ভেতর থেকে।

২২ দশমিক ২৪ একর জায়গার ওপর অবস্থিত এ মসজিদের মূল ভবনের সঙ্গে আছে সভাকক্ষসহ লাইব্রেরি, কোরআন শিক্ষালয়, অজুখানা। আড়াই হাজার পিলারের ওপর স্থাপিত এ মসজিদের ভেতরের পুরোটায়ই টাইলসবসানো। মসজিদ এলাকার আশপাশ সাজানো হয়েছে ১২৪টি ঝরনা ও ৫০টি ক্রিস্টালের ঝাড়বাতি দিয়ে। শুধু তা–ইনয়, কোথাও কোথাও এসব মোড়ানো হয়েছে স্বর্ণের পাত দিয়ে। মসজিদটির মেঝে থেকে ছাদের উচ্চতা ৬৫ মিটার। মেহরাবের উচ্চতা দোতলা ভবনের সমান। আর মিনারের উচ্চতা ২১০ মিটার। ৬০ তলা ভবনের সমান এমিনারের ওপর রয়েছে লেজার রশ্মি, যা নাবিকদের দেখিয়ে দেয় পবিত্র কাবা শরিফের পথ। ৩০ কিলোমিটার দূরথেকেও স্পষ্ট দেখা যায় এই লেজার রশ্মি। বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু মিনার এটি।

মরক্কোর বাদশাহ দ্বিতীয় হাসান মসজিদটি তৈরি করেছেন। এটি নির্মাণে কাজ করেছেন ফরাসি কম্পানি বয়গিসের প্রকৌশলীরা। আর নকশা করেছেন ফরাসি স্থপতি মিশেল পিনচিউ।

 এলএবাংলাটাইমস/টি/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ২০৮৬ বার

আপনার মন্তব্য