যুক্তরাষ্ট্রে আজ বুধবার, ০৮ এপ্রিল, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 05:10pm

|   লন্ডন - 12:10pm

|   নিউইয়র্ক - 07:10am

  সর্বশেষ :

  আবারও বিশ্বের শীর্ষ ধনী বেজোস   আবদুল মাজেদের মৃত্যু পরোয়ানা জারি   দেশে করোনায় নতুন আক্রান্ত ৫৪, মৃত্যু বেড়ে ২০   ১১ সপ্তাহ লকডাউনের পর উন্মুক্ত উহান   যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ১৯৭০ জনের প্রাণহানি   ‘ওয়াইএমসিএ’র ছাঁটাইকৃত কর্মীদের চাকরির ঘোষণা দিলেন লস এঞ্জেলেস মেয়র   করোনা ঠেকাতে বাধ্যতামূলক মাস্ক পড়ার নিয়ম করল সান বার্নার্ডিনো কাউন্টি   করোনায় কমেছে লস এঞ্জেলেসের সকল প্রকার অপরাধঃ এলএ পুলিশ চীফ   কভিড-১৯; লস এঞ্জেলেসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৬৯; আক্রান্ত ৬ হাজার ৯১০   গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জ জেলা লকডাউন   বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের নাতি ছাত্রলীগের সেক্রেটারি   পুলিশের মহাপরিদর্শক হচ্ছেন বেনজীর, র‌্যাব মহাপরিচালক মামুন   করোনাভাইরাস: বিশ্বব্যাপী সুস্থ হয়ে উঠেছে ৩ লাখ মানুষ   ফ্রান্সে করোনায় মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়ালো   নিউইয়র্কে মর্গে জায়গা নেই, ফ্রিজে লাশ রাখার সিদ্ধান্ত

মূল পাতা   >>   স্বাস্থ্য

করোনা প্রতিরোধে লস এঞ্জেলেস প্রবাসী সংক্রামক ব্যাধি বিশেষজ্ঞ ডা. নাসিমার পরামর্শ

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ২০২০-০৩-২৩ ০২:৩১:২৬

নিজস্ব প্রতিবেদক: সারা বিশ্বের মতো যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফার্নিয়ায়ও ছড়িয়ে পড়েছে মরনব্যধি করোনাভাইরাস। ইতোমধ্যে ক্যালিফোর্নিয়াকে অবরুদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। একান্ত জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হতে নিষেধ করা হয়েছে। কোভিড-১৯ নামের এই ভাইরাস প্রতিরোধে পরামর্শ দিয়েছেন লস এঞ্জেলেস প্রবাসী বাংলাদেশি চিকিৎসক, সংক্রামক রোগব্যাধির অ্যান্টিবায়োটিক স্টুয়ার্ডশিপ প্রোগ্রামের চেয়ারম্যান এবং সংক্রামক ব্যাধি বিশেষজ্ঞ‌ ডা. নাসিমা বেগম।
এলএ বাংলটাইমসের সাথে আলাপকালে তিনি সবার জন্য এই পরিস্থিতিতে কিছু জরুরি পরামর্শ দিয়েছেন। এই পরিস্থিতি কীভাবে মোকাবেলা করা যায় এবং নিজেকে কিভাবে সুরক্ষিত রাখা যায় এব্যাপারে বিস্তারিত কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস একটি সংক্রামক ব্যধি। যা ইতোমধে সারা বিশ্বে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর যা চিনের হোবেই প্রদেশে প্রথম ধরা পড়ে। মাত্র ১১ সপ্তাহে তা সারা বিশ্বে ছড়িয়েছে। তার মানে এটি অত্যন্ত শক্তিশালি একটি ভাইরাস। এটি মূলত পশুদের একটি ভাইরাস ছিল যা এখন মানুষের শরীরে এসেছে। তাই এর ঝুঁকি প্রতিরোধে আমাদের সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। এটি যেহেতু এখন সবখানে ছড়িয়ে গেছে, একজনের মাধ্যমে আরেকজনের মধ্যে ছড়াচ্ছে। কাজেই কোনভাবে একজন আক্রান্ত হলে এর মাধ্যমে তার পরিবার ও আশপাশের মানুষের মাঝে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনাকে সামনে রেখে করোনা প্রতিরোধে ডা. নাসিমার পরার্শ হলো: হ্যান্ড সেনিটাইজার দিয়ে বারবার খুব ভালোভাবে হাত ধুতে হবে। কমপক্ষে বিশ সেকেন্ড। হাতের উপরে-নিচে, আঙ্গুলের ফাঁকে, নোখের মাঝে পরিস্কার করতে হবে। এক্ষেত্রে সাবান-পানি এবং এলকোহেল বেজড সেনিটাইজার ব্যবহার করা যায়। তারপর ব্লিচিং পাউডার দিয়ে সেনিটাইজার বানিয়ে ঘরের সবেচেয়ে বেশি যে স্থানগুলোতে হাত দিতে হয় যেমন: দরজার নব, কিচেনের কাউন্টারের উপর, কম্পিউটারের কি-বোর্ডে, গাড়ির দরজাতে, টেলিফোনে- এসব স্থানে মুছে মুছে জীবণুমুক্ত করতে হবে। হ্যান্ডশেক থেকে বিরত থাকতে হবে। প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হওয়া যাবে না। কারও সাথে কথা বলতে হলে ৩-৬ ফিট দূরত্বে দাঁড়িয়ে কথা বলতে হবে। হাঁচি-কাঁশি দেওয়ার সময় টিস্যু ব্যবহার করতে হবে। তারপর টিস্যুটি ডাস্টবিনে ফেলতে হবে।
কমিউনিটি  এবং দেশ-বিদেশের সবার জন্য এই সতর্কতাগুলো মেনে চলতে অনুরোধ জানান ডা. নাসিমা।

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ২৫৯ বার

আপনার মন্তব্য

সর্বাধিক পঠিত