যুক্তরাষ্ট্রে আজ সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 07:24pm

|   লন্ডন - 01:24pm

|   নিউইয়র্ক - 08:24am

  সর্বশেষ :

  ট্রাম্পকে শান্তিতে নোবেলের জন্য অনুরোধ করেছিল যুক্তরাষ্ট্র   ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাককে ফরীদ উদ্দীন মাসঊদের অভিনন্দন!   অনুমোদন পেল আরও তিন ব্যাংক   সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে শাজাহান খানের নেতৃত্বে কমিটি   ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের কমিটি গঠিত   পাকিস্তান সীমান্তে ১৪০ যুদ্ধবিমান নিয়ে ভারতের মহড়া   কাশ্মীরে বোমা বিস্ফোরণে ভারতীয় মেজর নিহত   পুলওয়ামা হামলার পর ভারতজুড়ে আতঙ্কে কাশ্মীরিরা   মা-বাবার পাশে শায়িত হলেন আল মাহমুদ   শিক্ষিত হয়েও অনেকে স্বেচ্ছায় বেকার : পরিকল্পনামন্ত্রী   মিউনিখে প্রধানমন্ত্রীকে নাগরিক সংবর্ধনা   আল মাহমুদের জানাজা সম্পন্ন, কাল নিজ গ্রামে দাফন   জামায়াত থেকে শিবিরের সাবেক সভাপতি মঞ্জু বহিষ্কার   বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হলেন ৪৯ নারী   জামায়াত বিলুপ্তির প্রস্তাব, যা বললেন ওবায়দুল কাদের

মূল পাতা   >>   বহিঃ বিশ্ব

আমাকে উৎখাত করলে ব্রেক্সিট সহজ হবে না : থেরেসা মে

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৮-১১-১৯ ০০:৩৩:১২

নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে তার সমালোচকদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রিত্ব থেকে আমাকে উৎখাত করলেই ব্রেক্সিট সহজ হবে না।’

থেরেসা ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে বের হয়ে যাওয়ার জন্য গত সপ্তাহের খসড়া সমঝোতার পক্ষে কথা বলেন। তিনি বলেন, সামনের সপ্তাহটি খুব কঠিন হবে।

আগামী সপ্তাহে ব্রেক্সিট নিয়ে ইইউর সাথে সম্মেলনে বসতে যাচ্ছে যুক্তরাজ্য। এর আগে ইইউর সাথে যুক্তরাজ্যের ভবিষ্যৎ সম্পর্ক নিয়ে বিস্তারিত আলোচনার প্রস্তাব দেন তিনি। তার মতে, এ আলোচনা তার বিরোধিতা করা টরি পার্টির এমপিদের উদ্বেগকে প্রশমিত করবে।

প্রাক্তন ব্রেক্সিট মন্ত্রী ডমিনিক রাব জানিয়েছেন, ব্রেক্সিট নিয়ে যুক্তরাজ্যকে ভয় দেখাচ্ছে ইইউ।

লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন জানিয়েছেন, তার দল ব্রেক্সিটের জন্য ভালো চুক্তি দিতে পারত।

আগামী ২৯ মার্চ ব্রেক্সিট কার্যকর হতে যাচ্ছে।

ব্রেক্সিট নিয়ে থেরেসা মের ৫৮৫ পৃষ্ঠার খসড় সমঝোতা নিয়ে খোদ যুক্তরাজ্যেই প্রচণ্ড সমালোচনা হচ্ছে। এ খসড়ায় দেখানো হয়েছে, ব্রেক্সিট হয়ে গেলে যুক্তরাজ্য ও ইইউর সম্পর্ক কেমন হতে পারে। আগামী সপ্তাহে ইইউর সাথে যুক্তরাজ্যের সম্মেলনে এ খসড়া সমঝোতা স্বাক্ষর হতে পারে।

তবে তার আগে এই খসড়া যুক্তরাজ্যের সংসদের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমন্সের অনুমোদন পাবে কি না, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

ব্রেক্সিট ঘিরে ইতোমধ্যে যুক্তরাজ্য সরকারের কয়েকজন মন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন, যাদের মধ্যে রয়েছেন ডমিনিক রাব।

এলএবাংলাটাইমস/আই/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৩১৯ বার

আপনার মন্তব্য