Updates :

        ইউএনজিএর ৩১তম বিশেষ অধিবেশন: করোনা মোকাবিলায় আরো সহযোগিতার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

        এবার বিশ্বের দ্বিতীয় দেশ হিসাবে চাঁদে পতাকা ওড়ালো চীন

        টাইমের বর্ষসেরা শিশু গীতাঞ্জলি রাও

        মূর্তি ও ভাস্কর্য নিয়ে যা বললেন আলেমরা

        এবার 'সিটি অব লস এঞ্জেলেসে' জারি হলো 'স্টে-এট-হোম'

        বারের উপর চটেছেন ট্রাম্প

        প্রকাশ্যে টিকা নেবেন সাবেক তিন প্রেসিডেন্ট

        যুক্তরাষ্ট্রে একদিনেই হাসপাতালে ভর্তি লক্ষাধিক করোনা রোগী

        ফ্রান্সে ৭৬টি মসজিদ বন্ধের পরিকল্পনা

        আসাদুজ্জামান নূর করোনায় আক্রান্ত

        দল সাজাচ্ছেন হ্যারিস, ঘোষণা করলেন তিন নাম

        ফোবানা নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় মাসুদ চৌধুরীকে বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠনের অভিনন্দন

        আলাস্কায় ভয়াবহ ভূমিধস: নিখোঁজ ছয়

        একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড যুক্তরাষ্ট্রে

        ক্যালিফোর্নিয়ায় বইছে গরম হাওয়া, বিচ্ছিন্ন হবে বিদ্যুৎ

        টিকা বিতরণে প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র

        চীনা পণ্যের শুল্ক সহসা বাতিল হবে না: বাইডেন

        ইরানে যুক্তরাষ্ট্র হামলা চালালে আমিরাত আক্রমণের হুমকি তেহরানের

        করোনার ভুয়া টিকা নিয়ে ইন্টারপোলে সতর্কতা জারি

        অনুমতি ছাড়া ঢাকায় কোন মিছিল-সমাবেশ করা যাবে না

মৌলবাদী ইসলামের বিরুদ্ধে লড়াই অব্যাহত রাখব: ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী

মৌলবাদী ইসলামের বিরুদ্ধে লড়াই অব্যাহত রাখব: ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী

ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী জিন ক্যাসটেক্স বলেছেন, ফরাসি সরকারি ‘মৌলবাদী ইসলামের’ বিরুদ্ধে লড়াই ‘অব্যাহত রাখবে।’ গত মাসে দক্ষিণের শহর নিসে ছুরিকাঘাতে নিহত তিন জনের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে শনিবার তিনি এ কথা বলেছেন।

গত ২৯ অক্টোবরে তিউনিসিয়ার এক ব্যক্তি উপকূলীয় শহরটির একটি গির্জায় এক নারীকে গলাকেটে এবং দুজনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে। পরে পুলিশের গুলিতে সে নিহত হয়।

জিন ক্যাসটেক্স বলেছেন, ‘আমরা শত্রুকে চিনি। একে কেবল শনাক্ত করাই হয়নি, এর নামও জানা গেছে। সেটি হচ্ছে মৌলবাদী ইসলাম, যেটি মুসলমান ধর্ম থেকে পৃথক একটি রাজনৈতিক মতাদর্শ।’

তিনি বলেন, ‘এটা হচ্ছে এমন শত্রু যার বিরুদ্ধে সরকার প্রয়োজনীয় সম্পদ সরবরাহ ও তার বাহিনীকে প্রতিদিন নিয়োজিত করার মাধ্যমে নিরলসভাবে লড়াই করছে ‘

গত মাসে মহানবীর ব্যঙ্গচিত্র শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের কাছে প্রদর্শন করেন এক শিক্ষক। এর জেরে তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। এর পরপরই ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন বন্ধ না করার ঘোষণা দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে মুসলিম বিশ্বে তীব্র প্রতিবাদ হয় এবং ফ্রান্সে বেশ কয়েক জনের ওপর সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়।

শেয়ার করুন