Updates :

        ম্যারাডোনার সমাধিতে চুরি: প্রহরায় সশস্ত্র পুলিশ

        নিরীহ আফগান নাগরিকদের হত্যার বিচার চাইল চীন

        বাংলাদেশ থেকে ব্যান্ডউইথ কিনবে সৌদি-ভারত-নেপাল-ভুটান

        ভাস্কর্য আর মূর্তি এক নয়: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

        আগামী বছর ‘বিশ্ব শান্তি সম্মেলন’ আয়োজন করবে বাংলাদেশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

        টিকা নিন, সুস্থ থাকুন: ফাউসি

        আজ বিশ্ব এইডস দিবস: বিশ্বে প্রতিদিন সাড়ে ৫ হাজার মানুষ এইডসে আক্রান্ত হয়

        এলো রক্তঝরা বিজয়ের মাস

        'ঐতিহাসিক' মন্ত্রিসভা গড়ছেন বাইডেন

        যুক্তরাষ্ট্র পেতে পারে প্রথম নারী অর্থমন্ত্রী

        অবৈধ অভিবাসীদের গণনা জটিলতা, সুপ্রিম কোর্টে শুনানি

        টিকা অনুমোদনের জন্য আবেদন করছে মডার্না

        পা ভাঙ্গলেন বাইডেন!

        করোনা সংক্রমণের আতঙ্কে শ্রীলঙ্কায় কারাগারে সংঘর্ষে নিহত ৬

        মাস্ক না পরলে জেলেও যেতে হতে পারে বাংলাদেশে

        এমসি কলেজে ধর্ষণ: ডিএনএ টেস্টে ৮ আসামিরই জড়িত থাকার প্রমাণ

        জিয়াউর রহমানের নামে থাকা বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করায় বিএনপির নিন্দা

        সৃষ্টিকে ভালোবাসুন, ভালো লাগার মতো নিজেকে যোগ্য করে তুলুন

        দেশে মাশরুমের মতো বেসরকারি মেডিকেল কলেজ গড়ে উঠেছে

        ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন স্বাস্থ্য সেক্টরের বিনামূল্যে চোখের চিকিৎসা

যুক্তরাষ্ট্রে লাগামহীন করোনার সংক্রমণ

যুক্তরাষ্ট্রে লাগামহীন করোনার সংক্রমণ

ছবি: এলএবাংলাটাইমস

যুক্তরাষ্ট্রে লাগামহীন গতিতে ছুটছে করোনাভাইরাস এর সংক্রমণ। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মহামারির শুরু থেকে এতো দ্রুত গতিতে এর আগে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েনি দেশটিতে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, যুক্তরাষ্ট্রে নভেম্বর মাসের মতো এতো বিপর্যস্ত অবস্থা মহামারির শুরু থেকে আর হয়নি।

নভেম্বরের ২১ তারিখ পর্যন্ত প্রায় ২০ লাখ ৭০ হাজার বাসিন্দা করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। প্রায় প্রতিটি অঙ্গ রাজ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে।

জন্স হপকিন্স ইউনিভার্সিটি সূত্র জানায়, শুক্রবার (২০ নভেম্বর) সারাদেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৯৫ হাজার বাসিন্দা।

কোভিড ট্র‍্যাকিং সূত্র জানায়, শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক বাসিন্দা করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে৷ প্রায় ৮৪ হাজার রোগী এদিন বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে আগের থেকে। গত সপ্তাহে প্রায় ১০ হাজার বাসিন্দা করোনায় মারা গেছেন বলে তথ্য রয়েছে৷ আগের সপ্তাহগুলো থেকে মৃত্যুর হার বেড়েছে দ্বিগুণ।

করোনার সংক্রমণ মোকাবেলায় নতুন স্বাস্থ্যবিধি ও নীতিমালা জারি করা হয়েছে অনেক অঙ্গরাজ্যে। নিউইয়র্কে গত সাতদিনে সংক্রমণের হার অনেক বেড়ে যাওয়ায় পাবলিক স্কুলগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া মিনেসোটায় সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, রেস্টুরেন্ট এবং পানশালা কমপক্ষে আগামী ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি বেড়েছে দেশটির মধ্য- পশ্চিমাঞ্চলে। সেখানে আগের থেকে সংক্রমণ বেড়েছে ৫৬ শতাংশ।

লস এঞ্জেলেসে আগামী কয়েক সপ্তাহে ক্রমাগত করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকলে স্টে-এট-হোম জারি হতে পারে। এই নীতিমালা বাস্তবায়ন হলে বাসিন্দাদের নির্দিষ্ট সময় বাড়িতে বাধ্যতামূলকভাবে থাকতে হবে।

তবে কাউন্টি কর্তৃপক্ষ বলছে, সম্পূর্নরুপে লকডাউন না দেওয়ার সর্বাত্মক চেষ্টা করা হবে। থ্যাংকসগিভিং হলিডের সময় করোনার সংক্রমণ আরো বেড়ে যাওয়ার আশংকা করছে কর্তৃপক্ষ।

তাই সংক্রমণ ঠেকাতে ইতোমধ্যে কিছু নীতিমালা জারি করা হয়েছে৷ নতুন নীতিমালা অনুযায়ী, সকল ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, বার এবং পানশালা রাত দশটার সময় বন্ধ করতে হবে।

এছাড়াও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে বাড়ির বাহিরে সর্বোচ্চ ১৫ জন বাসিন্দা অথবা ৩টি বাড়ির বাসিন্দারা একত্রিত হতে পারবে। এর আগে সর্বোচ্চ কতোজন বাইরে একত্রিত হতে পারবে, সেই বিষয়ে কোনো নিষেধাজ্ঞা ছিলো না৷

এছাড়া রেস্টুরেন্টে আসন সংখ্যার সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ ব্যবহার করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। অন্যান্য ব্যক্তিগত অফিসে ২৫ শতাংশে কমিয়ে আনা হয়েছে।

নতুন নীতিমালায় নেইল পার্লার ও অন্যান্য ব্যক্তিগত কেয়ার শপেও পরিবর্তন আনা হয়েছে৷ আগে থেকে বুকিং দিয়ে দিয়ে সেবা নিতে হবে।

এলএবাংলাটাইমস /ওএম

শেয়ার করুন