Updates :

        আলাস্কায় ভয়াবহ ভূমিধস: নিখোঁজ ছয়

        একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড যুক্তরাষ্ট্রে

        ক্যালিফোর্নিয়ায় বইছে গরম হাওয়া, বিচ্ছিন্ন হবে বিদ্যুৎ

        টিকা বিতরণে প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র

        চীনা পণ্যের শুল্ক সহসা বাতিল হবে না: বাইডেন

        ইরানে যুক্তরাষ্ট্র হামলা চালালে আমিরাত আক্রমণের হুমকি তেহরানের

        করোনার ভুয়া টিকা নিয়ে ইন্টারপোলে সতর্কতা জারি

        অনুমতি ছাড়া ঢাকায় কোন মিছিল-সমাবেশ করা যাবে না

        ইরানের বিজ্ঞানী হত্যাকাণ্ডে দায়ী ইসরায়েল: মার্কিন কর্মকর্তা

        এপ্রিলের পর আবারো সর্বোচ্চ মৃত্যু যুক্তরাষ্ট্রে

        যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধ অভিবাসী গ্রেপ্তার হলে ১০ দিনের মধ্যে আদালতে তোলার নির্দেশ

        চাঁদে চীনের মহাকাশযানের সফল অবতরণ

        শুধু বিএনপি নয়, গোটা দেশই ভয়াবহ দুঃসময় পার করছে: ফখরুল

        ক্যালিফোর্নিয়ায় কর শিথিল, প্রণোদনা ৫০০ মিলিয়ন

        লস এঞ্জেলেসে চলছে 'সংকটপূর্ণ' সময়

        করোনাযোদ্ধাদের জন্য স্টারবাকসের ফ্রি কফি!

        পরিবেশ সংরক্ষণে নজর দিচ্ছেন বাইডেন

        ওমানে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই ভাইসহ তিন বাংলাদেশির মৃত্যু

        ম্যারাডোনার সমাধিতে চুরি: প্রহরায় সশস্ত্র পুলিশ

        নিরীহ আফগান নাগরিকদের হত্যার বিচার চাইল চীন

এবার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড যুক্তরাষ্ট্রে

এবার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড যুক্তরাষ্ট্রে

ছবি: এলএবাংলাটাইমস

চলমান করোনা মহামারিতে যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড হয় চলতি সপ্তাহের শুক্রবার। শনিবার (২৪ আগস্ট) হলো দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড।

জন্স হপকিন্স ইউনিভার্সিটির সূত্র মতে, শনিবার যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৮৩ হাজার ৭১৮ জন। গত শুক্রবারের সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা থেকে আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে ৩৯ জন।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রের করোনা পরিস্থিতি খুব শীঘ্রই উন্নতি হবে না। শীতে সর্বোচ্চ সংক্রমণ দেখবে যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়াও দেশজুড়ে বাড়বে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা। ধীরে ধীরে বাড়বে মৃতের সংখ্যাও। ইতোমধ্যে চলমান মহামারি করোনা ভাইরাসে দেশজুড়ে ৮০ লাখের বেশি বাসিন্দা আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ২ লাখ ২৪ হাজার ৯৮১জন।

ইউনিভার্সিটি অব মিনেসোটার গবেষক ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মিশেল অস্টারহোলম বলেন, যুক্তরাষ্ট্র খুব শীঘ্রই আক্রান্তের দিক থেকে ছয় অংকের ঘরে পৌঁছে যাবে। আগামী তিন থেকে চার মাসের মধ্যে বাড়বে মৃত্যুর সংখ্যাও।

শীতে স্বাস্থ্যবিধি শিথিল ও সোশ্যাল গেদারিং বড় পরিসরে করার সুযোগ করে দেওয়ায় করোনা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে বলে মন্তব্য করেন এই স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

অফিশিয়াল সূত্র জানিয়েছে, ম্যারিল্যান্ড ও নর্থ ক্যারোলিনায় সংক্রমণ বৃদ্ধির পিছনে অন্যতম কারণ হলো সামাজিক দূরত্ব পালনে বাসিন্দাদের অবহেলা।

এদিকে, সম্প্রতি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে করোনা পরিস্থিতি সামাল দেওয়া সম্ভব হয়েছে। কিন্তু সাম্প্রতিক করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ৩৪টি রাজ্যে করোনার সংক্রমণ অব্যাহতভাবে বাড়ছে৷

এলএবাংলাটাইমস /ওএম

শেয়ার করুন