যুক্তরাষ্ট্রে আজ রবিবার, ২০ জানুয়ারী, ২০১৯ ইং

|   ঢাকা - 10:07pm

|   লন্ডন - 04:07pm

|   নিউইয়র্ক - 11:07am

  সর্বশেষ :

  হাসপাতাল থেকে ‘বিতাড়িত’, গাছ তলায় সন্তান প্রসব   একটি আকর্ষণীয় পর্যটন স্পট সুনামগঞ্জের নিলাদ্রী লেক   যুক্তরাজ্যে ধর্ষণের দায়ে বাংলাদেশির ১০ বছরের জেল   ইসরাইলি বিমান হামলা ব্যর্থ করল সিরিয়া   সিলেটের রেল উন্নয়নে ডিও লেটার দিলেন মোমেন   আলিয়ার ‘কলঙ্ক’ ফাঁস   সিডনিতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে 'গানে গানে জোছনা'   ইতালিতে রহস্যজনক ভাবে এক বাংলাদেশীর মৃত্যু   ধনী মানুষ বৃদ্ধির হারে বিশ্বে তৃতীয় বাংলাদেশ   খাশোগি হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা   প্যারিসে জড়ো হচ্ছে ‘ইয়েলো ভেস্ট’ আন্দোলনকারীরা   নির্বাচনের কলঙ্ক ঢাকতে বিজয় সমাবেশ করছে আ.লীগ : ফখরুল   ওয়াশিংটনে পররাষ্ট্র সচিব, যুক্তরাষ্ট্রকে অর্থনৈতিক অঞ্চলে সুবিধার প্রস্তাব দেবে বাংলাদেশ   এরশাদ গুরুতর অসুস্থ, রোববার সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন   জীবন দিয়ে হলেও জনগণের ভোটের মর্যাদা রক্ষা করব : প্রধানমন্ত্রী

>>  প্রবাসী কমিউনিটি এর সকল সংবাদ

যুক্তরাজ্যে ধর্ষণের দায়ে বাংলাদেশির ১০ বছরের জেল

যুক্তরাজ্যে মদ্যপ নারীকে ধর্ষণের দায়ে মোহাম্মদ মিয়া (৩৮) নামে এক বাংলাদেশিকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত। শুক্রবার (১৮ জানুয়ারি) কার্লিসেল ক্রাউন কোর্ট এ রায় দেন।

জানা যায়, ২০১৭ সালের ২৪ ডিসেম্বর বড়দিনের আগের রাতে ইংল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলীয় কার্লিসেল শহরে এক নারী গণধর্ষণের শিকার হন। এ ঘটনায় কবির হোসেন (৪১) নামে অপর এক বাংলাদেশি আগেই সাজা পেয়েছিলেন।

আদালতের বিচারক জেমস এডকিন বলেন, মোহাম্মদ মিয়াকে সেক্স অফেন্ডার্স রেজিস্ট্রারে আজীবনের জন্য অর্ন্তভুক্ত করা হবে। একজন নারীকে ধর্ষণের ঘটনায় দোষীদের অবশ্যই শাস্তি পেতে হবে।

এদিকে

বিস্তারিত খবর

ইতালিতে রহস্যজনক ভাবে এক বাংলাদেশীর মৃত্যু

 প্রকাশিত: ২০১৯-০১-১৯ ১১:৩৯:০৮

ইতালিতে রহস্যজনক ভাবে এক প্রবাসী বাংলাদেশীর মৃত্যু হয়েছে।
জানা গেছে, গত ১৪ জানুয়ারী দিপু মন্ডল(২৮) নামের এক প্রবাসী সকালে বাসা থেকে প্রতিদিনের মত কাজে বেরিয়ে যায়। কয়েক ঘন্টা পরে এক ইতালিয়ান পার্শবর্তী পাহাড়ের জঙ্গলে তার মৃত্যুদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়।পুলিশ তার লাশ ময়না তদন্ত শেষে মর্গে রেখেছে।
দিপু মন্ডলের বাড়ী শরিয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলার তেলিপাড়া গ্রামে। তার পিতার নাম প্রান কৃষ্ণ মন্ডল।দিপুর মৃত্যু সংবাদ  গ্রামের বাড়ীতে পৌছলে তার পিতা-মাতা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।এবং এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।২০১২ সালে
ভাগ্যের চাকা গোরাতে দিপু ইউরোপের দেশ ইতালিতে আসেন। শেষ সম্ভল এক টুকরো জমি বিক্রি করে ৮ লাখ টাকা খরচ করে, মা-বাবার মুখে হাসি ফোটানোর জন্য ইতালিতে পাড়ি জমায় এই রেমিট্যেন্স যোদ্ধা। কিন্তু ভাগ্যের চাকা না ঘুরাতেই পরপারে পাড়ি দিয়েছে দিপু।
দিপু ইতালির নাপলি প্রভিন্সের পালমা কম্পানিয়ায় বসবাস করতেন। তার সাথে একই বাসার থাকা জাকির হোসেন জানান,সকালে কাজের উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হয়ে যায় দিপু মন্ডল,দুপুরে বাসায় আসেনি। রাতে বাসায় এসে জানতে পারি তার মৃত্যু হয়েছে।তিনি আরও জানান,দিপু মাঝে মাঝে অসংলগ্ন কথাবার্তা বলতেন। বেশী সময়ই সে চুপচাপ থাকতেন।
এ ব্যাপারে শরিয়তপুর কল্যান সমিতির অন্যতম নেতা কাজী আল আমিনের কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, দিপুর মৃত্যু সংবাদ আমি শুনেছি তবে কি কারনে মৃত্যু হয়েছে তা জানা যায় নি।শরিয়তপুর কল্যান সমিতি তার জন্য আর্থিক সহযোগিতা এবং লাশ পাঠানোর জন্য সবকিছু করবে বলে তিনি জানান।
দিপু মন্ডলের আকর্ষিক মৃত্যুতে পালমা এলাকায় প্রবাসী বাংলাদেশীদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে।

বিস্তারিত খবর

প্রধানমন্ত্রীর সাথে ইতালী আওয়ামীলীগের সাক্ষাত

 প্রকাশিত: ২০১৯-০১-১৮ ০৯:২৬:৩৯

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মাদার অব হিউমিনিটি শেখ হাসিনা চতুর্থ বারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ায় ১৪ জানুয়ারী গনভবনে ইতালী আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাত করেন এবং শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সর্ব ইউরোপীয়ান আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জি এন কিবরিয়া, ইতালি আওয়মী লীগের সভাপতি হাজী মোঃ ইদ্রিস ফরাজী, ইউরোপ আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকা হোসনে আরা বেগম, ইতালী আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গীর ফরাজী, আবু সাইদ খান, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক আলমগীর হোসেন, ইতালী রোম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ খলিল বন্দুকছি, ওঁম হিন্দু এসোসিয়েশন ইতালির সভাপতি অনুপ কুমার, মহিলা আওয়ামীলীগ ইতালির নেত্রী শাহনাজ আক্তার।

নির্বাচনে দেশে এসে নৌকার পক্ষে নিজ নিজ এলাকায় কাজ করায় প্রবাসী আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দদের ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।

এ সময় তিনি আরো বলেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতো উপজেলা নির্বাচনে ও ঐক্যবদ্ধ থেকে দলীয় প্রার্থীদের বিজয়ী করতে হবে।

ইতালী আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক অসুস্থ হেনরী ডি কস্তার খোজঁ খবর নেন দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা । এ সময় ইতালি আওয়ামী লীগের কার্যক্রমের ভূয়সী প্রসংশা করেন তিনি।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

হিউসটন প্রবাসী মঈন চোধুরীর ইন্তেকাল

 প্রকাশিত: ২০১৯-০১-১৬ ০১:৩৭:৪৫

হিউসটন (টেক্সাস) প্রবাসী মঈন  চোধুরী (৪৮) আর নেই। গত ১৩ই জানুয়ারী ২০১৯ তিনি ইন্তেকাল করেন। ইন্না ল্লিলাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে,  নিউমেনিয়াতে আক্রান্ত  ঐদিন হয়ে  হাসপাতালে  চিকিৎসা শেষ করে বাড়িতে এসে ঘুমন্ত অবস্থায় মারা যান । তিনি স্ত্রী মালিহা চোধুরী মালা ও তিন কন্যা সন্তান রেখে গেছেন।

ঢাকার মগ বাজারের সন্তান মঈন নিউ ইয়র্কে বসবাস করতেন তবে মালাকে বিয়ে করার পর হিউসটন (টেক্সাস) এ চলে আসেন। মালা-মঈন দুই জনে চাকরি করে খুব সুখে ও শান্তিতে ছিলেন । চাকরি ছেড়ে ব্যবসা এবং ক্যালিফরর্নিয়ার লস এঞ্জেলেসে আসার চিন্তা ভাবনা করছিলেন বলে জানা যায়।

উল্লেখ্য, মালিহা চোধুরী মালা পাবনার মেয়ে  তবে মগ বাজার কাজী অফিস লেন ঢাকাতেঅনেক দিন বসবাস করেছেন এবং ভিকানুননেছা নুন স্কুল এ শিক্ষকতা করেছেন। মালা একজন কণ্ঠশিল্পী।

হিউসটন (টেক্সাস) প্রবাসী বাংলদেশীদের কাছে মালা-মঈন অনেক জনপ্রিয়। সদা হাস্যোজ্জ্বল সল্প ভাষী মঈন চোধুরীর এ অস্বাভাবিক মৃত্যুতে সবার মাঝে শোক এর ছায়া নেমে আসে।

পরিবারের সবাই মঈন এর জন্য  আত্মার মাগফিরাতের জন্য দোয়া কামনা করেছেন। কাপাসিয়ার  গাজীপুর এ পারিবারিক গোরস্তানে  দাফন করার জন্য মরদেহ বাংলাদেশে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছেয়ে বলে জানা গেছে ।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

মাহতাবুর রহমানের সাথে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি শামীমের সৌজন্য সাক্ষাৎ

 প্রকাশিত: ২০১৯-০১-১৩ ১৩:২০:৩৯

বাংলাদেশের বিশিষ্ট শিল্পপতি এনআরবি ব্যাংক ও আল হারামাইন গ্রুপের চেয়ারম্যান, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান নাসের (সি আই পি) এর আমন্ত্রনে দুবাইতে উনার নিজ বাস ভবনে  সৌজন্য সাক্ষাত করেছেন জালালাবাদ এসোসিয়েশন ইতালীর সভাপতি অলি উদ্দিন শামীম ও বৃহত্তর সিলেট যুব সংঘ ইতালীর সভাপতি আরমান উদ্দিন স্বপন। গত১১ই জানুয়ারী রোজ শুক্রবার এই  অনুষ্ঠিত হয় ।

এসময় জালালাবাদ এসোসিয়েশন ইতালী সভাপতি অলিউদ্দিন শামীম বলেন, আমরা ২০১৯ সিলেট উৎসব ইতালীতে উদযাপন করতে আগ্রহী যদি ঢাকা কেন্দ্রীয় অফিস অনুমতি দেন, এজন্যই আমরা ঢাকা যাচ্ছি কেন্দ্রীয় সভাপতি সাধারন সম্পাদক সহ বৃহত্তর সিলেট তথা সিলেট বিভাগের বিশিষ্ট জনের সাথে সাক্ষাত করবো এবং সকলের পরামর্শ নিয়েই ঢাকা থেকে তারিখ ঘোষনা করা হবে।

উক্ত সিলেট উৎসবে সভাপতি শামীম শিল্পপতি নাছিরকে অগ্রীম আমন্ত্রন ও সহযোগিতা কামনা করেন, উত্তরে জনাব নাছির অভিনন্দন জানিয়ে বলেন আমি জালালাবাদ এসোসিয়েশনের আজিবন সদস্য তার চাইতে বড় কথা আমি শাহ্ জালাল ও শাহ, পরানের পূন্যভূমি সিলেটের সন্তান সিলেট উৎসব মানে আমাদের নিজেদের উৎসব আমি অবশ্যই অংশগ্রহন করবো এবং সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

পরিশেষে মাহতাবুর রহমানের আপ্যায়নে সিলেটের রকমারী খাবার মাহতাবুর রহমানের স্বপরিবার ও সভাপতি অলিউদ্দিন শামীমের স্বপরিবার একসাথে দুবাইতে মাহতাবুর রহমানের নিজস্ব বাসভবনে মধান্হভোজ করেন, বর্তমানে জালালাবাদ এসোসিয়েশন ইতালী সভাপতিঃঅলিউদ্দিন শামীম সিলেটে অবস্থান করছেন এসময় তিনি সিলেট সিটি কর্পোরেশনে়র জননন্দিত মেয়র জনাব, আরিফুল হক চৌধুরীসহ সিলেটের বিশিষ্ট জনের সাথে সাক্ষাত করে ইতালীতে সিলেট উৎসবের আমন্ত্রন জানাবেন,এছাড়া ও ঢাকা কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাথে সাক্ষাত করে উৎসবের তারিখ ঘোষনা করবেন।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইতালিতে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত

 প্রকাশিত: ২০১৯-০১-১১ ১৪:৪৪:২২

১০ জানুয়ারী রোজ বৃহস্পতিবার  ইতালির মিলান শহরের স্হানীয় একটি বাংলাদেশী তাজমহল রেস্তরায় যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে পালিত হলো ৪৭ তম জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন  দিবস।পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে বাঙালি বিজয় অর্জনের পর স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি প্রিয় জন্ম ভূমিতে ফিরে আসেন।

দীর্ঘ নয় মাস ব্যাপী  আন্দোলন-সংগ্রামের পথ পাড়ি দিয়ে ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ বাংলাদেশ স্বাধীন হয়। পাকিস্তানের শাসন-শোষণ ও অত্যাচার-নির্যাতনের হাত থেকে বাঙালি জাতিকে মুক্ত করতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতা ও স্বাধিকার আন্দোলনের নেতৃত্ব দেন। এ আন্দোলনের নেতৃত্ব দিতে গিয়ে জীবনের একটা বড় সময় শেখ মুজিবকে বার বার জেল, জুলুম ও অত্যাচার-নির্যাতন ভোগ করতে হয়। পাকিস্তান ঔপনিবেশিক শাসনের বিরুদ্ধে গড়ে উঠা বাঙালির সব আন্দোলনের নেতৃত্ব দেওয়ার মধ্য দিয়েই শেখ মুজিবুর রহমান হয়ে ওঠেন জাতির অবিসংবাদিত নেতা এবং ভুষিত হন বঙ্গবন্ধু উপাধিতে।
 
আন্দোলন-সংগ্রামের চূড়ান্ত পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণে বাঙালি জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেন। ২৫ মার্চ কাল রাতে পাকিস্তানি বর্বর হানাদার বাহিনী বাঙালি জাতির উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে গণহত্যা চালাতে শুরু করে। এ ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে বঙ্গবন্ধু তার ধানমন্ডির বাসভবন থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। এর পর পরই বঙ্গবন্ধুকে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।

শুরু হয় বাঙালির সশন্ত্র মুক্তিযুদ্ধ। দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ চলতে থাকে। এ সময় বঙ্গবন্ধুকে পাকিস্তানের কারাগারে বন্দি রেখে তার উপর নির্যাতন চালানো হয়। পাকিস্তানিরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার নানা পরিকল্পনা তৈরি করে। জেলের মধ্যে অত্যাচার নির্যাতনই শুধু নয়, তাকে ফাঁসির মঞ্চেও নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু দেশে-বিদেশে বঙ্গবন্ধুর জনপ্রিয়তা ও তার অদম্য সাহসের কাছে শেষ পর্যন্ত হারমানে পাকিস্তানের শাসক গোষ্ঠী এবং সেনাবাহিনী।

এদিকে বঙ্গবন্ধুর অনুপস্থিতিতেই বাঙালি জাতি বঙ্গন্ধুর আদর্শে ও নির্দেশিত পথে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ চালিয়ে যায়। যতোদিন যেতে থাকে যত রক্ত ঝরতে থাকে,স্বদেশের মাটিকে হানাদার মুক্ত করতে বাঙালি ততোই মরিয়া হয়ে উঠে। মুক্তিবাহিনী এবং মিত্রবাহিনীর যৌথ প্রতিরোধের মুখে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তান হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়।

পাকিস্তানের আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়ে বাঙালি জাতি বিজয় অর্জন করেন। মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদ হন ও ৩ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রম হারান। এতো রক্ত ও প্রাণের বিনিময়ে বিজয় এলেও মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানের কারাগারে বন্দি থাকায় বাঙালির অর্জিত বিজয় পূর্ণতা পায়নি। বিজয়ী বাঙালি জাতি উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্য দিয়ে অপেক্ষা করতে থাকে তাদের নেতার ফিরে আসার।

মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জনের পর বিশ্বব্যাপী বঙ্গবন্ধু জনপ্রিয়তা আরও বাড়তে থাকে। বাঙালির পাশাপাশি বিশ্বের স্বাধীনতা ও শান্তিকামি মানুষও বঙ্গবন্ধুর মুক্তির দাবিতে সোচ্চার হয়ে উঠে। আন্তর্জাতিক চাপের কাছে নতিস্বীকার করে অবশেষে ১৯৭২ সালের ৮ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয় পাকিস্তান। কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে বঙ্গবন্ধু সোজা লন্ডন চলে যান। সেখান থেকে ভারত হয়ে ১০ জানুয়ারি স্বদেশে ফেরেন। সেদিন সারা দেশ থেকে মানুষ ছুটে আসেন তাদের নেতাকে একবার দেখর দেখার জন্য। স্বাধীন দেশে ফিরে বাঙালির ভালবাসায় সিক্ত হন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বিমানবন্দর থেকে লাখ লাখ জনতার জনসমুদ্র পাড়ি দিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে (তৎকালীন রেসকোর্স) দাঁড়িয়ে বঙ্গবন্ধু তার বক্তব্যে বলেছিলেন, বাঙালি আমাকে যে ভালোবাসা দিয়েছে সেই বাঙালির জন্য আমি রক্ত দিতেও প্রস্তুত। এর মাত্র সাড়ে তিন বছরের মাথায় ৭৫ এর ১৫ আগস্ট স্বাধীনতার পরাজিত শত্রু ও দেশি-বিদেশি চক্রের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে ঘাতকের হাতে স্বপরিবারে জীবন দেন।

ইতালি আওয়ামী লীগ লোম্বারদিয়া শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আ: মান্নান মালিথার সভাপতিত্বে এবং ভারপ্রাপ্ত  সাধারণ সম্পাদক জামিল আহমেদ'র পরিচালনায় সভার শুরুতেই কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা রবিউল ইসলাম এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু,আ'লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সহ সকল শহীদদের  আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া মোনাজাত করেন মাওলানা জাহিদুল ইসলাম।

বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন  দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরেন এবং জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন,পাকিস্তানের কারাগারেরর বন্দিদশা থেকে দীর্ঘ নয় মাস পর মুক্তিলাভ ও ১০ জানুয়ারী ১৯৭২ সালে রক্তস্নাত স্বদেশের বুকে ফিরে আসেন, লাখো জনতার ভীরে ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আবেগ জড়িত কন্ঠের বিভিন্ন দিক তুলে বক্তব্য রাখেন,ইতালি আওয়ামী লীগ লোম্বার্দিয়া শাখার ভারপ্রাপ্ত  সভাপতি জনাব আ: মান্নান মালিথা,ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জামিল আহমেদ,সম্মানিত সদস্য রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব আকরাম হোসেন,সহ সভাপতি দেলোয়ার হোসেন মোল্লা,যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক তুহিন মাহামুদ, সহ সভাপতি আবু আলম,বঙ্গবন্ধু পরিষদ সভাপতি হাজ্বী শাহআলম,স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি তোফায়েল আহমেদ খান তপু,সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম কাওছার,শ্রমিক লীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুনছুর খালাসীআ'লীগ সদস্য কাওছার,ইউনুছ মোড়ল, শামিম হাওলাদার সহ  প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।সভায় উপস্হিত ছিলেন,জনতা ব্যাংকের ম্যানেজার মিজানুর রহমান সহ আরও অনেকে। সবশেষে তবারক বিতরণের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বর্ণাঢ্য আয়োজনে ইতালীতে মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত

 প্রকাশিত: ২০১৯-০১-১১ ০৬:৫২:৪২

ইতালী রোমে বাংলার ঐতিহ্যবাহী শীতকালীন পিঠা উৎসবের আসর বসে বাংলা অধ্যুষিত এলাকা তরপিনাত্তারা সুন্দরবন রেস্টুরেন্টের হলরুমে। গত ৬ই জানুয়ারি রবিবার মহিলা সমাজ কল্যান সমিতি এর আয়োজন করে। বাহারি স্বাদের ৫৮ ধরনের পিঠার সম্ভার ছিল এই মেলায়।

এতে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দা শামীমার উপস্থাপনায় সভাপতি লায়লা শাহ্ মেলা উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মহিলা সমাজ কল্যান সমিতি কার্যকরী কমিটির সকল নেতৃবৃন্দরা।

এতে অতিথি হিসেবে আরোও উপস্থিত হয়ে বক্তব্য রাখেন ইতালীর আঞ্চলিক, সামাজিক, রাজনৈতিক সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা। অতিথিরা তাদের বক্তব্যেতে বলেন, আমাদের প্রবাসী সন্তানরা যখন দেশীয় ইতিহাস ঐতিহ্য ভুলতে বসেছে ঠিক সেই মুহূর্তে এই দেশীয় পিঠা উত্সব অবশ্যই প্রসংশনীয়। বাঙালির এই চিরন্তন ঐতিহ্য পিঠা নগরজীবনের আধুনিকতার ছোঁয়া আর পিৎ​জা ও ফার্স্ট ফুডের ভিড়ে হারিয়ে যেতে বসেছে। তারা আরো বলেন, পিঠা মেলায় দলমত নির্বিশেষে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার বাংলাদেশিদের মিলনমেলা দেখে অনেক ভালো লাগছে। এই ধরনের উদ্যোগ বাস্তবায়নে মহিলা সমাজ কল্যান সমিতি সব ধরনের সহযোগিতা করবে বলেও আশ্বাস দেন অতিথিরা।

উদ্ভোধন ও আলোচনা পর মেলা ঘুরে দেখছেন আমন্ত্রিত অতিথিরা ভাপা পিঠা, ফুলি পিঠা, সন্দেশ ছাড়াও আরও অনেক বাহারি পিঠার স্টল নিয়ে বসেন প্রবাসী বাঙালি নারীরা।

স্টলের মধ্য থেকে পিঠা বানানোর পদ্ধতি, স্বাস্থ্যসম্মত আর মজাদার পিঠা ইত্যাদি বিবেচনায় করে অতিথিরা তাদের ভূয়সী প্রশংসা করেন। সব মিলিয়ে অনুষ্ঠানটি ছিল পুরো বাঙালিয়ানায় পরিপূর্ণ। দেশের গান, নাচ, কবিতা, আবৃত্তি, কৌতুক সহ নানা বিনোদনে ছিল মনোমুগ্ধকর। এসব দর্শকদের বেশ আনন্দ দিয়েছে। এ আয়োজন গুলো ছিল চোখে পড়ার মতো। সুন্দরবন রেস্টুরেন্টের বিশাল হলরুমে অনুষ্ঠিত এই মেলায় প্রবাসী বাঙালিদের ব্যাপক উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। রোম শহরের দূর দূর অঞ্চল থেকে নানা বয়সের শিশু নারী-পুরুষ মেলায় অংশগ্রহণ ও হরেক রকমের পিঠা পরিদর্শন করেন।

এই মেলায় সংগঠনের নেতৃবৃন্দদের মধ্যে বিশেষ সহযোগিতায় ছিলেন সহ সভাপতি আঁখি সীমা কাওসার, নিলুফা বানু, ফাতেমা কবির, সায়মা পিংকি, সহ সাধারণ সম্পাদক  তাহমিনা আক্তার, রোকেয়া খাতুন মিরা, নাসরিন চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবা আক্তার চৌধুরী বাবলি, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেনাজ তাবাস্সুম শেলী, সহ কোষাধ্যক্ষ মনি আক্তার, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ইফরোজা খানম ইফা, সহ মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা জেসমিন আম্বিয়া, সহ দপ্তর সম্পাদক খুশবু,  সহ প্রচার সম্পাদক সালমা পারভিন মনি, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ফাতেমা বেগম, আইন বিষয়ক সম্পাদক মিলভা শাহ্ সহআরো অনেকেই ।

আয়োজক নেতৃবৃন্দরা জানিয়েছেন আমরা প্রতিবছরই এ ধরনের উৎসবের আয়োজন করে থাকি। এবারের পিঠা মেলা ছিল আগের বছরগুলোর তুলনায় ব্যতিক্রমধর্মী ও অনেক বড়। সুন্দরবন রেস্টুরেন্টের উপর ও নিচ তলা উপচে পড়া মানুষের ভিড় লক্ষ করা গেছে।

গ্রামবাংলার পিঠাপুলির স্বাদ প্রবাসের নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতেই এই উদ্যোগ বলে জানান সভাপতি লায়লা শাহ্। তিনি আরো বলেন সকলের সহযোগিতায় বিদেশী ও আমাদের প্রজন্মের কাছে দেশীয় ঐতিয্য পৌচ্ছে দিতে শুধু পিঠা উৎসবই নয়, আরো সুন্দর এবং বড় অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশকে উপস্থাপন করতে সক্ষম হবো। এসময় তিনি সংগঠনের পক্ষ থেকে উপস্থিত সকলের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। পরিশেষে শিশুদের ফেশন শো সহ সঙ্গীতানুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন রোমের বিশিষ্ট শিল্পী শাপলা,পাপ্পু সহ আরো অনেকেই।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইতালিতে মহিলা সংস্থার পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত

 প্রকাশিত: ২০১৯-০১-০৬ ১৩:১৭:০০

‘গত কাল পিঠা’ বাংলাদেশের সংস্কৃতি আর ঐতিহ্যের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। বাংলাদেশের উৎসব-আনন্দের সাথে মিশে আছে রকমারি পিঠার স্বাদ। সুদূর প্রবাসে এসেও দেশীয় ঐতিয্যের নানান স্বাদের পিঠার নিয়ে ইতালীর রোমে সচেতন নারীদের সংগঠন ‘মহিলা সংস্থা, ইতালী’ পিঠা উৎসবের আয়োজনে করেছে ।
রসই রেষ্টুরেন্টে এ উৎসবে শোভা পাচ্ছিল ভাপা-পিঠা, চিতই, পুলি, পাটিসাপটা, নারিকেল তেলের আরো নানা ধরনের লোভনীয় পিঠা।
‘মহিলা সংস্থা, ইতালী’র সভাপতি শান্তা সিকদার এর সভাপতিত্বে ও সৈয়দা মাসুদা আক্তার এর সঞ্চালনায় অতিথি বৃন্দ আয়োজনের ভূয়সী প্রশংসা করেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সমিতি, ইতালীর সাবেক সভাপতি নূরে আলম সিদ্দিকী বাচ্চু, বিশিষ্ট সাংবাদিক হাসান মাহমুদ, বৃহত্তর ঢাকা সমিতির সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল মঞ্জু সহ বিভিন্ন নারী সংগঠনের নেত্রীবৃন্দ।
অতিথিরা বলেন, এই ধরনের আয়োজনের ফলে পিঠার ঐতিহ্য টিকে আছে এবং প্রবাসেও ছড়িয়ে পড়ছে। আয়োজনটা একদিকে যেমন দেশের সেই পরিবারের আন্তরিকতার ছোঁয়া রয়েছে, তেমনি রয়েছে প্রবাসে বেড়ে উঠা প্রজন্মকে দেশীয় ঐতিয্য-সংস্কৃতিকে জানান দেয়ার মহৎ প্রয়াস।
এসময় সংগঠনের সহ-সভাপতি জেসমিন সুলতানা মিরা, সাংগঠনিক সম্পাদক রুপালী গোমেজ ও উপদেষ্ঠা জামিলা মঞ্জুরী সহ সকল নেতৃবৃন্দ মনে করেন, সকলের সহযোগিতায় বিদেশী ও আমাদের প্রজন্মের কাছে দেশীয় ঐতিয্য পৌচ্ছে দিতে শুধু পিঠা উৎসবই নয়, আরো সুন্দর এবং বড় অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশকে উপস্থাপন করতে সক্ষম হবো। এসময় তারা উপস্থিত সকলের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

বিস্তারিত খবর

রোমে নব জাগরণ নারী কল্যাণ সমিতির পিঠা উৎসব

 প্রকাশিত: ২০১৯-০১-০৫ ০৪:৪৫:২৬

দেশীয় ঐতিহ্য ও কৃষ্টিকে এই প্রবাসের মাটিতে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মকে জানাতে নব জাগরণ নারী কল্যাণ সমিতি আয়োজন করে বর্ণাঢ্য একটি পিঠা উৎসবের।

রাজধানী রোমের স্থানীয় একটি হল রুমে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন নব জাগরণ নারী কল্যাণ সমিতির সভাপতি সানজিদা ইসলাম সঙ্গীতা। পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক লিপি আক্তার।

নব জাগরণ নারী কল্যাণ সমিতির এই পিঠা উৎসব  আয়োজনে ভাপা, চিতই, পাটিসাপটা, দুধ চিতই, সেমাই পিঠা, পুলি, পায়েস, ফুল পিঠা সহ প্রায় অর্ধ শতাধিক পিঠার আয়োজন ছিল সত্যিই মনোমুগ্ধকর। সভাপতি সানজিদা ইসলাম সঙ্গীতা বলেন" প্রবাস জীবনের ব্যস্ততা থাকবেই কিন্তু আমাদের মূল যে উৎস ভূমি আমাদের দেশীয় ঐতিহ্য গুলো তা ধরে রাখা এবং উপস্থাপন করাও আমাদের দায়িত্ব।"

এই সময় উপস্থিত ছিলেন নব জাগরণ নারী কল্যাণ সমিতির উপদেষ্টা নয়না আহমেদ, উম্মে হানী চৌধুরী, সিনিয়র সহ সভাপতি রেহেনা আক্তার শিল্পী, সন্মানিত প্রথম সদস্য মমতাজ হাশেম ঝুমানা, সহ সভাপতি সুলতানা বেগম লাকী, তাহমিনা খাতুন, ফরিদা ইয়াসমিন স্মৃতি, শীলা জাহাঙ্গীর, মেহের জান, রওশন আরা খুকু, সুমি বেগম, শিউলি আলমগীর, সিমি মোনোয়ারা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তানিয়া হাসান, নুশরাত জাহান বুবলি, শিউলি শাহজাহান, শাহনাজ আক্তার আঁখি, শাহনাজ আক্তার ইতি, ফারজানা ইয়াসমিন নুপুর, মলিন তাহের, সাংগঠনিক সম্পাদক মনিকা ইসলাম, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক শিমু অন্যান্যা, তানজিম হোসেন, নুরজাহান আক্তার মুনা, ফাতেমা ফেরদৌসি মিরা, পপি আক্তার, শিমুল শিপা, প্রচার সম্পাদক তানিয়া হোসাইন, শামিমা আক্তার নিপা সহ অনেকে।

এই সময়  উপদেষ্টা নয়না আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক লিপি আক্তার বলেন" প্রবাসের মাটিতে এই ধরণের আয়োজন গুলো আরো বেশী বেশী করে করতে হবে। যেন বিদেশীরা আমাদের দেশীয় ঐতিহ্য গুলো সম্পর্কে জানতে পারে।"

শেষে রোমের গজল শিল্পী তাহেরুল ইসলাম, বাউল কন্যা ওলিজা সিরাজী, সানজিদা ইসলাম, মনিকা ইসলাম সঙ্গীত পরিবেশন করেন।

এলএবাংলাটাইমস//এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের শোক

 প্রকাশিত: ২০১৯-০১-০৪ ১০:৪৯:২৭

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং গণ প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ইন্তেকালে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করে তার বিদেহী আতœার মাগফেরাত কামনা করা হয়েছে।
ঢাকায় অবস্থানরত যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের অনুপস্থিতিতে দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহবুবুর রহমান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো: মহিউদ্দিন দেওয়ান দলীয় নেতা ও মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ইন্তেকালে শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন।  

এক শোক বার্তায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ বলেন, সৈয়দ আশরাফুল ইসলামেরর মৃত্যুতে দল ও জাতি একজন সৎ, আদর্শবান, ভালো মানুষকে হারালো। তার শূন্যতা পূরণ হবার নয়। ‘জাতির জনক’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের পতাকাবাহী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যোগ্য সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তিনি দলকে যেভাবে পরিচালিত করেছেন তেমনী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একজন বিশ্বস্ত মানুষ হিসেবে তার মন্ত্রিসভায় যোগ্যতার সাথে দায়িত্ব পালন করে একজন অনুকরণীয় ও অনুস্মরণীয় নেতা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। আমরা যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী পরিবারের পক্ষ থেকে তার বিদেহী আতœার মাগফেরাত কামনা করি এবং তার পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানাই। 

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) থাইল্যান্ডের ব্যাংককের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাহি রাজিউন)। ঢাকায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বৃহস্পতিবার রাতে এই খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। ৬৮ বছর বয়সী সৈয়দ আশরাফ ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে থাইল্যান্ডের বামারুনগ্রাদ হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। হাসপাতালে থেকেই তিনি একাদশ সংসদ নির্বাচনে কিশোরগঞ্জ-১ নৌকার প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছিলেন। আরো উল্লেখ্য, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের প্রবাসী সরকারের অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলামের সন্তান।

দোয়া মাহফিল: মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এমপি’র বিদেহী আতœার শান্তি কামনায় আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় জ্যাকসন হাইটসের খাবার বাড়ীর পালকি পার্টি সেন্টারে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এক দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।  

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বাংলাদেশ বাংকার সমিতি রোমের শীতকালীন মিলনমেলা

 প্রকাশিত: ২০১৯-০১-০৩ ১৪:০৯:০২

পারস্পরিক সম্প্রীতি ও সৌহার্দ বজায় রাখতেই প্রতি বছরের ন্যায় এবার ও বাংলাদেশ বাংকার সমিতি রোম আয়োজন করেছে শীতকালীন মিলন মেলা।

ইটালীর রাজধানী রোমের স্থানীয় ও অভিজাত একটি রেস্টুরেন্টের হল রুমে আয়োজিত এই মিলন মেলার সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ বাংকার সমিতি রোমের সভাপতি জি এম ওমর ফারুক এবং পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আহমেদ সেলিম।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন রোমের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী দিদারুল ইসলাম, বাংলাদেশ বাংকার সমিতি রোমের  উপদেষ্টা তোফায়েল আহমেদ আহসান, মোতাহার হোসেন লিটন, তাজুল ইসলাম, সিনিয়র সহ সভাপতি ওসমান সরদার সোহেল, ১ম সদস্য সারোয়ার জাহিদ, সহসভাপতি জিএম আলমগীর বুলবুল, মাইনুল ইসলাম স্বপন, জামাল বেপারী, আলীম বেপারী, মোঃ ইউনুস মিয়া, জাকির হোসেন, মোঃ মামুন হোসেন, মিজানুর রহমান। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক  হিমেল দেওয়ান, জসি হোসাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান মাতব্বর, সহ সাধারন সম্পাদক সুমন হাওলাদার, মোঃ রুবেল চৌধুরী, আল আমিন খান, জামান আকন্দ, মোঃ জামাল হোসেন, শাহীন মাইনুল ইসলাম, কামরুল হাসান, মাইনুদ্দিন। কোষাধ্যক্ষ মীর কামাল, দপ্তর সম্পাদক আমিরুল ইসলাম খোকন, প্রচার সম্পাদক রফিকুল ইসলাম।

সভাপতি জি এম ওমর ফারুক ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ সেলিম বলেন" আমাদের এই আয়োজন মূলত রোমের বাঙালি কমিউনিটি কে ঐক্যবদ্ধ রাখা এবং ঐক্যবদ্ধ ভাবে সকলের সুখ ও দুঃখ কে ভাগাভাগি করে নেয়া।"

বাংলাদেশ বাংকার সমিতি রোমের সিনিয়র সহ সভাপতি ওসমান সরদার সোহেল ও সাংগঠনিক সম্পাদক শাজাহান মাতব্বর বলেন" এই মিলন মেলার মাধ্যমে সকলের সঙ্গে দেখা ও কথা হলো। প্রবাস জীবনের সকল ব্যস্ততা কে পাশ কাটিয়ে এই অন্তরঙ্গ মুহূর্তে কে আমরা সুন্দর কিছু সৃতি করে রাখবো পরবর্তী সময়ের জন্য।"

এই আয়োজনে আর ও উপস্থিত   ছিলেন বাংলাদেশ বাংকার সমিতি রোমের যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক কাউছার ফারুক, সাইফুল ইসলাম রুবেল, মন্জুর আহমেদ। সহ সাংগঠনিক সম্পাদক রাসেল মৃধা, শরীফ দেওয়ান, শাহীন শেখ। সহ কোষাধ্যক্ষ শরীফ মাহমুদ, সজীব মোল্লা। সহ দপ্তর সম্পাদক আরিফ হোসেন। সাংস্কৃতিক সম্পাদক আরিফ হোসেন, সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মন্জুর হোসেন দীপু, আইন বিষয়ক সম্পাদক আক্তার হোসেন। এছাড়া ও কার্যকরী পরিষদের অন্যান্যদের মধ্যে উপউপস্থিত ছিলেন কবির হোসেন, মোঃ জিল্লুর রহমান কিরণ, আহমেদ আলী, বায়জিত হোসেন, জসিম উদ্দিন, মোঃ মতিন, মুক্তার হোসেন, মিয়া খোকন, শাহাদৎ উল্লাহ্ বুলবুল, মোঃ রানা, মীর আনোয়ার, জহিরুল বেপারী, লিমন সহ অনেকে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বৃহত্তর ঢাকা সমিতি, বৃহত্তর নোয়াখালী বাংকার সমিতি, একতা আর্থ সামাজিক সংগঠন, সান পাওলো সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

রোমের জনপ্রিয় কন্ঠ শিল্পী তাহেরুল ইসলাম , সেলিম, পুতুল , সজীব ও মনিকা ইসলাম  জনপ্রিয় বাংলা গান পরিবেশন করে সকলকে মুগ্ধ করেন।

বিস্তারিত খবর

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ যুক্তরাষ্ট্র কমান্ডের বিজয় দিবস উদযাপন

 প্রকাশিত: ২০১৯-০১-০১ ১৩:৩৫:৪৩

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ যুক্তরাষ্ট্র কমান্ডের উদ্যোগে গত ২৪ ডিসেম্বর  নিউইয়র্ক জ্যাকসন হাইটস্থ পালকি চাইনিজ হল রুমে সংগঠনের কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মুকিত চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সহকারী কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা আমানত উল্লাহ এর পরিচালনায় ৪৭তম মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি রাষ্ট্রদূত ও জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি  মাসুদ বিন মোমেন ও বিশেষ অতিথি বাংলাদশ কনস্যুলেট নিউইয়র্ক -এর কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা-ও ডিপুটি কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা এএসএম মাসুদ ভূঁইয়া।
সভার শুরুতে সমবেত কন্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। এরপর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতা, মুক্তিযুদ্ধে প্রধানসেনা নায়ক জেনারেল এম এ জি ওসমানী, সকল সেক্টর কমান্ডার, মুজিব বাহিনীর চারজন সেক্টর কমান্ডার, ৩০ লক্ষ শহীদ ও ২ লক্ষ মা-বোনের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। । সভাপতির স্বগত বক্তব্যের পর বক্তব্য প্রদান করেন মুক্তিযোদ্ধা আবু জাফর মাহমুদ, মুক্তিযোদ্ধা আলাউদ্দিন সরদার, মুক্তিযোদ্ধা গিয়াসউদ্দিন আহমদ, মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ হোসেন মৃধা, মুক্তিযোদ্ধা  শফিকুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা এস এম রফিকুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা মতিউর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা কাজী শফিকুল হক, মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মোতাহার আলী, মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলী খান, মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আমিন, মুক্তিযোদ্ধা আলেয়া শরীফ, মুক্তিযোদ্ধা  সিকান্দর আলী, মুক্তিযোদ্ধা মঈনউদ্দিন আজহার, মুক্তিযোদ্ধা আমিনুর রহমান, কন্ঠযোদ্ধা শামীমা বেগম, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হাসিব মামুন ও জাতীয় পার্টি ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুর রহমান।
বক্তাগণ মুক্তিযুদ্ধের নিজ নিজ অভিজ্ঞতার বর্ননা করেন ও জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে জাগিয়ে রাখতে সংকল্প ব্যক্ত করেন। বক্তাগণ যুক্তরাষ্ট্রে অনেক অনুষ্ঠানে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধাদের (যাদের নাম বিগত ৪৭ বছরে কোন ালিকায় অর্ন্তভুক্ত নয়) ব্যাপারে সতর্ক থাকার অনুরোধ জানিয়ে এ বিষয়ে উপস্থিত অতিথিদের মনোযোগ আকর্ষণ করেন। তারা উল্লেখ করেন সরকারের ওয়েবসাইট ডডড.গঙখডঅ.এঙঠ.ইউ তে গিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকাতে সার্চ করলেই বেড়িয়ে আসবে মুক্তিযোদ্ধাদের তথ্য। যদি কেউ মুক্তিযোদ্ধা দাবী করেন-তবে ওনার মুক্তিবার্তা নাম্বার, গেজেট নাম্বার-সেক্টর ও সাবসেক্টও জেনে নিবেন। মুক্তিযোদ্ধাগণ তাদের কল্যানে জননেত্রী শেখ হাসিনার বিভিন্ন পদক্ষেপের প্রশংসা করে আগামী নির্বাচনে তার প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেন।
প্রধান অতিথি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন তার বক্তব্যে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডের বিষদ বর্ননা করেন। তিনি মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের জন্য দেশে ও প্রবাসের সকল নাগরিককে আহ্বান জানান। তিনি উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশ্যে বলেন আপনাদেরকে আর কতদিন আমাদের মাঝে পাবো তা জানি না। তবে আপনাদের প্রতি জাতি চিরদিন কৃতজ্ঞ থাকবে। বিশেষ অতিথি কনসাল জেনালে সাদিয়া ফয়জুননেসা বলেন স্বাধীন দেশ অর্জনে বাঙ্গালী জাতির ত্যাগের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে তার কনস্যুলেট থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি সম্মান প্রদানের দৃঢ়তা ব্যক্ত করেন। সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মুকিত চৌধুরী তার বক্তব্যে দেশে ও প্রবাসের মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পক্ষে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অনুসরণ করে দেশ গঠনের কাজ করা আহবান জানান। অনুষ্ঠানে সহযোগিতা করেন যুক্তরাষ্ট্র সুপ্রিম কোর্টের এর্টনী এট ল ও ডেমোক্রেটিক ডিস্ট্রিক্ট লিডার এট লার্জ এর্টনী মঈন চৌধুরী। নৈশভোজের মাধ্যমে অনুষ্ঠান সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।


এলএবাংলাটাইমস//এলআরটি

বিস্তারিত খবর

মালয়েশিয়ায় জাহাজ ডুবে বাংলাদেশি নিহত

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-২৮ ১৩:০৭:৩১

মালয়েশিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকা জোহরের কোতা তিংগী নামক জায়গায় মালবাহী জাহাজ ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এতে এক বাংলাদেশি ও এক চিনা নাগরিক নিহত হয়েছেন। নিখোঁজ রয়েছে আরও এক বাংলাদেশি।

দেশটির জোহর মালয়েশিয়ার মেরিটাইম এনফোর্সমেন্ট এজেন্সির (এমএমইএ) পরিচালক ফার্স্ট অ্যাডমিরাল মেরিটাইম আমিনউদ্দিন আব্দুল রশীদ জানিয়েছেন, মঙ্গলবার (২৫ ডিসেম্বর) দুপুর ২টার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত হওয়া দুইজনের লাশ ঘটনার দিন সন্ধ্যা ৭টা ৪৫ মিনিটে উদ্ধার করে এমএমইএ।

বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে আব্দুল রশীদ বলেন, ‘নিখোঁজ হওয়া বাংলাদেশি ক্রু সদস্য জাহাজে আটকা পড়েছেন এমন সন্দেহে তৃতীয় দিনের মতো আমরা সন্ধান চালিয়েছি। টিআইআর এলাকাটি তিমুর তানজুং এবং তানজুং সেপাঙ্গের জলের মধ্যে ১২০ বর্গ নটিক্যাল মাইল এলাকা নিয়ে বিস্তৃত। ফায়ার অ্যান্ড রেসকিউ বিভাগের পাশাপাশি তানজুং সেপাং এবং তানজুং পেনওয়ারের প্যান্টাই তানজুং পাংগাইয়ের উপকূলীয় এলাকায়ও অনুসন্ধানের চেষ্টা করা হবে।,

দুর্ঘটনার বিষয়ে ৩০ বছর বয়সী বাংলাদেশি ক্যাপ্টেন মিজাম উল হক বলেন, ঘটনাটি তাদের কাঙ্ক্ষিত গন্তব্যের খুব কাছাকাছি ঘটেছে।

ক্যাপ্টেন বলেন- ‘গন্তব্যে ১৪ দশমিক ৪ কি.মি. পথ বাকি থাকতেই জাহাজের জেনারেটর শক্তি হারিয়ে ফেলে। যে কারণে, আমি জাহাজের স্টিয়ারিং নিয়ন্ত্রণ করতে পারিনি। চার থেকে পাঁচ মিটার উচ্চ শক্তিশালী ঢেউগুলো বিভিন্ন দিক থেকে জাহাজে আঘাত হানছিল। ফলে জাহাজটি আরও দূরে সরে যায়।

নিজাম আরও বলেন, ‘পানি জাহাজে প্রবেশ করেছিল এবং আমরা আর নিয়ন্ত্রণ করতে পারিনি। আমি চিৎকার করে ক্রুদের বললাম জাহাজ থেকে সরে যেতে।,

তথ্য মতে, মালবাহী এ জাহাজটিতে মোট নয়জন ক্রু সদস্য ছিলেন। তাদের ছয়জনের প্রাণ বাঁচলেও দুইজনের প্রাণনাশ হয়েছে এবং অপর একজনের সন্ধ্যান তৃতীয় দিনেও পাওয়া যায়নি।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

মিলানে বৃহত্তর নোয়াখালী সমিতির সভা অনুষ্ঠিত

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-২৮ ১২:৪২:৪৯

ইতালির মিলানে বৃহত্তর নোয়াখালী সমিতির ক্ষমতা হস্তান্তর সভায় উপদেষ্টাদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০১৯ এপ্রিল পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে।
বুধবার স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে অনুষ্টিত সভায় এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।সমিতির সভাপতি মীর হোসেন বিপ্লবের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম মামুনের পরিচালনায় সভায় গত দুই বছরের সমিতির কার্যক্রম নিয়ে প্রতিবেদন পেশ করে কার্যকরী কমিটি এবংগ সমিতির বিভিন্ন সুবিধা অসুবিধা গুলো তুলে ধরেন।
বক্তব্য রাখেন সমিতির উপদেষ্টা দুলাল মিয়া,হারুন উর রশিদ,আব্দুল মতিন,ইকবাল হোসেন,গোলাম সারোয়ার,মহি উদ্দিন মিলন,মমতাজুল করিম,জসিম উদ্দিন। এছাড়া ও বক্তব্য রাখেন ফেনী সমিতির সভাপতি নুরুল আফসার বাবুল, সমিতির যুগ্ম সম্পাদক খোরশেদ আলম শ্রাবন,সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল হোসেন ভূঁইয়া।
উপস্থিত সমিতির উপদেষ্টাবৃন্দ এই সমিতির কার্যক্রমকে  ২০১৯ সালের এপ্রিল পর্যন্ত পরিচালনা করার অনুমোদন করেন। এপ্রিল মাসে কার্যকরী কমিটি উপদেষ্টাদের নিকট ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন এবং আগামী জুন মাসে এই সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন উপদেষ্টাবৃন্দ।

এলএবাংলাটাইমস/এল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

এ-এইচ ১৬ ড্রিম ফাউন্ডেশন’র বিজয় দিবস পালন, মুক্তিযোদ্ধাসহ চারজনকে সম্মাননা প্রদান

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-২৭ ১৩:৪৩:৫৮

প্রবাসে বসবাসকারী একাত্তুরের মুক্তিযোদ্ধা সহ চারজনকে সম্মাননা জানানোর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের ৪৭তম মহান বিজয় দিবস পালন করেছে এ-এইচ ১৬ ড্রিম ফাউন্ডেশন, ইউএসএ। এ উপলক্ষ্যে গত ২৩ ডিসেম্বর রোববার সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের একটি মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠা ও সভাপতি আলী হোসেনের সার্বিক সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফজলুল হক। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সোসাইটি ইনক’র সাবেক সভাপতি নার্গিস আহমেদ।

অনুষ্ঠানে রণাঙ্গণের বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে কমিউনিটির পরিচিত মুখ, বিশিষ্ট সঙ্গীত ও চিত্রশিল্পী তাজুল ইমাম সহ মিডিয়া ক্যাডাগরিতে টাইম টেলিভিশন টিম, সাহিত্যে ‘আন্ডার দ্যা ব্লু’ গ্রন্থের টিম এবং ছাড়াকার হিসেবে মনজুর কাদের-কে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্তদের হাতে প্ল্যাক তুলে দেন। এসময় তাজুল ইমাম ও মনজুর কাদের ছাড়াও টাইম টেলিভিশন টিমের পক্ষে প্ল্যাক গ্রহণ করেন প্রতিষ্ঠানটির সিইও আবু তাহের এবং ‘আন্ডার দ্যা ব্লু’ গ্রন্থের পক্ষে প্ল্যাক গ্রহণ করেন বিশিষ্ট কবি ও সাংবাদিক মুক্তিযোদ্ধা ড. মাহবুব হাসান।

অনুষ্ঠানে নার্গিস আহমেদ ছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা-শিল্পী তাজুল ইমাম, মুক্তিযোদ্ধা-কবি ড. মাহবুব হাসান, সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা’র সম্পাদক ও টাইম টেলিভিশন-এর সিইও আবু তাহের, লেখক-গীতিকার ইশতিয়াক রূপু ও ছড়াকার মনজুর কাদের।

অনুষ্ঠানে বক্তারা এ-এইচ (আহমেদ হোসেন) ১৬ ড্রিম ফাউন্ডেশনের কর্মকান্ডের প্রশংসা করে বলেন, স্বল্প পরিসরে হলেও প্রতিষ্ঠানটি ভালো কাজ করে যাচ্ছে। বিশেষ করে বিজয়ের মাসে দেশের কৃতি মানুষদের সম্মানিত করে তারা ফাউন্ডেশনটির উত্তোরত্তর সাফল্য কামনা করেন।

ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি আলী বলেন, মূলত: বাংলাদেশের একাত্তুরের ঐতিহাতিক স্বাধীনতার কথা মনে করে এবং মরহুম পিতা আহমেদ আলী স্মরণে ২০১৫ সালে ‘এ-এইচ ১৬ ড্রিম ফাউন্ডেশন’ প্রতিষ্ঠা করি। সেই থেকে প্রতি বছর ছোট ছোট শিক্ষার্থীদের মাঝে স্কুল সাপ্লাই বিতরণ ছাড়াও বিজয় দিকস স্মরণে প্রবাসে বসবাসকারী দেশের কৃতি সন্তানদের সম্মানিত করা হচ্ছে ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে। তিনি ফাউন্ডেশনের আগামী দিনের পথচলায় সবার সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। 


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

মিলানে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ইতালির আত্মপ্রকাশ

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-২৫ ১৪:১৩:১২

ইতালির মিলানে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ইতালির আয়োজনে বিজয় দিবসের আলোচনা ও কার্যকরী কমিটির পরিচিতি অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হতেছে। রবিবার স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ইতালির সভাপতি হাজী  মোঃ সেলিম হোসাইন এর সভাপতিত্বে সাংগঠনিক সম্পাদক মেসবাহ উল হক মুহিত এর পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান সহ পরিবারের সকল শহীদদের স্মরণে নীরবতা পালন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন,বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি বীর মুক্তিযুদ্ধা শেখ ওয়সিউজ্জামান লেনিন এবং বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সাহাব উদ্দিন।
আলোচনা শেষে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ইতালির সভাপতি ৫১ সদস্য কার্যকরী কমিটির নাম ঘোষণা করেন এবং পরিচয় করিয়ে দেন।
শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ আল আমীন,সহ সভাপতি মাকসদুর রহমান সেতু,সহ সভাপতি হাফিজ উদ্দিন খোকন,সাধারণ সম্পাদক দুলাল মোহাম্মদ,যুগ্ম সাঃ সম্পাদক করিম হাওলাদার,যুগ্ম সাঃ সম্পাদক আমজাদ স্মরণ,সাংগঠনিক সম্পাদক মেসবাহ উল হক মুহিত,যুগ্ম সাঃ সম্পাদক মোঃ নাসির উদ্দিন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ মিজানুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক উদ্দিন মোঃ নাছির,ধর্ম ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ইসলাম শরিফুল, মহিলা সম্পাদিকা ফারজানা আক্তার মিলি,সদস্য বিপ্লব মাতবর, আতিক হাসান,হোসেন জামাল ও অন্যান্য।
পরিশেষে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রবাস থেকে নিজ নিজ এলাকায় নৌকার জন্য ভোট চাওয়ার আহ্বান জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সিলেট বিভাগীয় জাতীয়তাবাদী সমর্থক গোষ্ঠি, ইতালীর আয়োজনে বিএনপির প্রচারণা সভা

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-২৫ ১৪:১২:১৩

সিলেট বিভাগ ধানের শীষের প্রার্থীদের সমর্থনে ইতালীর রোমে সিলেট বিভাগীয় জাতীয়তাবাদী সমর্থক গোষ্ঠি, ইতালীর আয়োজনে রসই রেষ্টুরেন্টে নিবার্চনী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রোম মহানগরের সাবেক দপ্তর সম্পাদক আরমান উদ্দিন এর সভাপতিত্বে ও ইতালী যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহেদুল হক মুকুল এর পরিচালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বৃহত্তর সিলেটের কৃতি সন্তান ফজলুর রহমান।
এছাড়াও প্রাধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ছাত্রদল নেতা ইউ.কে যুবদলের সহ সাধারন সম্পাদক শরিফুল হক সোহেল এবং বিশেষ বক্তা ইতালী যুবদলের সহ সভাপতি  নুরুল ইসলাম।
এসময় বক্তারা বলেন, সিলেটের মাটি যেমন পবিত্র তেমনি রয়েছে খাটি বিএনপির সমর্থক। সিলেটের সকল আসনে বিএনপি জয় আনতে, ভোটের সর্ব শেষ মূহুত্ব পর্যন্ত সজাগ থাকতে হবে।
এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বৃহত্তর সিলেটের কৃতি সন্তান মিনার আহমদ, রানা খান, ইতালি কেন্দ্রীয় বিএনপি ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জিয়াউল হক জিয়া, ইতালী বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি আনিমুল ইসলাম সালাম, ইতালি কেন্দ্রীয় বিএনপি সাধারণ সম্পাদক খন্দকার নাছির, সহ সভাপতি নুরুল আফছার, দেলোয়ার হোসেন, ইতালি যুবদল সভাপতি মাহমুদুল হাছান সহ অনেকে।
বক্তারা আরও বলেন, আওয়ামী লীগ বুঝতে পেরেছে, তাদের সময় শেষ। আর তাই বিএনপি প্রার্থীদের উপর হামলা চালিয়ে জনগণকে ভয় দেখানোর চেষ্টা করছে। তবে যত অত্যাচারই করোক না কেন, আগামী ৩০ ডিসেম্বর দেশের জন গণ ধানের শীষকে জয়যুক্ত করে সঠিক জবাব দিবে।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

একটু সুষ্ঠু নির্বাচন চান ফ্রান্স প্রবাসীরা

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-২৪ ১৫:৪১:০৭

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে দেশে তো বটেই, সারাবিশ্বে ছড়িয়ে থাকা বাংলাদেশির মধ্যে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা বাড়ছেই।

কোনদিকে যাচ্ছে পরিস্থিতি- তার খবর রাখতে শতসহস্র ব্যস্ততা সত্বেও তারা দিনশেষে রাতে চোখ বোলাচ্ছেন দেশের খবরে।

নানা শংকা-আশঙ্কাকে উড়িয়ে সব দেশের প্রবাসীর মতো একটি সুষ্ঠু-সুন্দর নির্বাচন প্রত্যক্ষের স্বপ্ন দেখছেন ফ্রান্স প্রবাসীরাও।

তবে ফ্রান্স প্রবাসীদের দাবী, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড এখনই তৈরি করা জরুরি। আর এটা করতে হবে নির্বাচন কমিশনকেই। এক্ষেত্রে বর্তমান সংসদীয় সরকারের দায়িত্বও কোনো অংশে কম নয়।

প্রবাসীরা জানান, দেশের গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে নির্বাচন কমিশনকে নিরপেক্ষ অবস্থানে থাকতে হবে। তাদের মতে, স্বাধীনতা অর্জনের পর থেকে বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক যে যাত্রা শুরু হয়েছিল, গেল কয়েক বছর থেকে তা কিছুটা হলেও ব্যাহত হয়েছে। এছাড়া দেশে অসহিঞ্চু রাজনৈতিক পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন এখন সময়ের দাবী।

প্যারিস শহরের বাংলাদেশি ব্যবসায়ী আল আমীন বলেন, নির্বাচনের আগে বেশকিছু ক্ষেত্রে অনিশ্চয়তা রয়েই গেছে। এসব বিষয়ে কোনো মীমাংসা না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত কি হবে, তা নিয়ে সবাইকে শেষ দিন পর্যন্ত অস্বস্তিতে থাকতে হবে।

ফ্রান্স প্রবাসী আব্দুল ওয়াদুদ ময়নুল বলেন, বহির্বিশ্বে দেশের সম্মান বৃদ্ধিতে আগামী সংসদ নির্বাচন বেশ গুরুত্ববহ। এজন্য নির্বাচন কমিশনকে একটি সুন্দর নির্বাচন উপহার দিতে নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে হবে।

প্যারিস-বাংলা প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহসভাপতি মো. শামসুল ইসলাম বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে এবং আগামীর সুন্দর বাংলাদেশের জন্য একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের বিকল্প নেই। আর এজন্য বর্তমান সরকারকেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।

যেহেতু তাদের হাতে ক্ষমতা, আগামী দিনগুলোতে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড বজায় রাখতে সরকারকেই মুখ্য ভূমিকা রাখতে হবে।

প্যারিসের সংস্কৃতিকর্মী সাহাদাত হোসেনের মতে, বাংলাদেশের মানুষের কাছে একটা সময় নির্বাচন উৎসব হিসেবে বিবেচিত হতো। নির্বাচনকে ঘিরে নানা আনন্দ আয়োজন হতো। আজ যেন তা কোথায় হারিয়ে গেছে। অথচ, মানুষ তার আগের ঐতিহ্য ফিরে পেতে চায়।

তবে অনেক প্রবাসী বাংলাদেশি নিজেদের ভোটাধিকারের কথাও বলছেন। তারা বলেন- বহির্বিশ্বে প্রায় দেড় কোটি বাংলাদেশি অবস্থান করছেন। এতো বিপুল সংখ্যক জনগণকে বাইরে রেখে বারবার নির্বাচন হয়ে যাওয়াটা দু.খজনক।

দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে অতিগুরুত্বপূর্ণ এ নির্বাচন নিয়ে সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা পূরণে উভয়পক্ষকে সমতা বজায় রেখে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বেশিরভাগ প্রবাসী।

বিস্তারিত খবর

ইতালির ব্রেসিয়া সিটি নির্বাচনে বাংলাদেশি নুরুল হক কমিশনার নির্বাচিত

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-২২ ১৪:০৬:০৬

ইতালির অন্যতম শিল্প নগরী ব্রেসিয়া সিটি স্থানীয় নির্বাচনে বাংলাদেশি নুরুল হক স্থানীয় কমিশনার পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

জানা যায়, ইতালির ব্রেসিয়া সিটির স্থানীয় কমিশনার পদের নির্বাচন সম্প্রতি অনুষ্টিত হয়।  নুরুল হক ব্রেসিয়া সিটি কর্পোরেশনের  Don bosco এলাকা থেকে নির্বাচিত হয়েছেন।

মো নুরুল হক কুমিল্লা জেলার লালমাই উপজেলার নোয়াগাও এলাকার অধিবাসী। তিনি বাংলাদেশ ও ইতালিয়ান নাগরিক হিসেবে বিভিন্ন সামাজিক কাজে নিয়োজিত আছেন। নুরুল হক বৃহত্তর কুমিল্লা সমাজ ব্রেসিয়ার সভাপতিসহ বিভিন্ন সামাজিক ও আঞ্চলিক সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছেন। ৩ মেয়ে ও স্ত্রী কোয়েল ভুইয়াকে নিয়ে ব্রেসিয়ার ভিয়া ক্রসিকা এলাকায় তিনি বসবাস করছেন। ইতালি আসার পূর্বে তিনি বাংলাদেশে আইন পেশায় নিযুক্ত ছিলেন ।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইতালিতে জনতা এক্সচেঞ্জ কোম্পানীর বিনা কমিশনে রেমিটেন্স প্রেরণ কার্যক্রম

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-২২ ১৩:৩৭:০০

আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস ২০১৮ উপলক্ষে বিনা কমিশনে রেমিটেন্স প্রেরণ কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করলেন ইটালীস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত আব্দুস সোবহান সিকদার। ১৮ তারিখ মঙ্গল বার জনতা এক্সচেঞ্জ কোম্পানীর রোমস্থ পিয়াচ্ছা ভিক্টোরিয়ার অফিসে উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সুসম্পন্ন হয়।

রাষ্ট্রদূত বৈধ পথে টাকা দেশে পাঠানোর জন্য সকল প্রবাসীদের আহ্বান করেন। তিনি বলেন" একমাত্র বৈধ পথে টাকা প্রেরণের মাধ্যমেই দেশের অর্থনীতিতে যেমন সেই প্রবাসীর ভূমিকা থাকে। পাশা পাশি দেশ ও দেশের মানুষের উন্নয়নের পথ ও ত্বরান্বিত হয়।"

আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উপলক্ষে প্রবাস বান্ধব সরকার  ১৮, ১৯ ও ২০ ডিসেম্বর  এই তিন দিনের জন্য বিনা কমিশনে শুধু মাত্র জনতা এক্সচেঞ্জ কোম্পানীর মাধ্যমে বাংলাদেশে রেমিটেন্স পাঠানোর কার্যক্রম চালু  করেছেন।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাসের ইকোনমিক কাউন্সিলর ও জনতা এক্সচেঞ্জ কোম্পানী র ডিরেক্টর মানস মিত্র, কাউন্সিলর এরফানুল হক, জনতা এক্সচেঞ্জ কোম্পানীর ম্যানেজিং ডিরেক্টর মোহাম্মদ আলী হোসাইন। এই সময় জনতা এক্সচেঞ্জ কোম্পানীর ম্যানেজিং ডিরেক্টর মোহাম্মদ আলী হোসাইন দেশের উন্নয়নের অগ্রগতি ধরে রাখার জন্য জনতা এক্সচেঞ্জ কোম্পানী র মাধ্যমে রেমিটেন্স পাঠানোর আহ্বান জানিয়েছেন।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইতালীতে বিজয় দিবসে বাংলাদেশ দূতাবাস রোম ইতালীর আয়োজন

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-১৮ ১৪:০৮:০১

স্বাধীনতা সংগ্রামের আত্মত্যাগে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশকে উন্নয়নের পথে আরও এগিয়ে নিতে আহ্বান করেন রাষ্ট্রদূত আবদুস সোবহান সিকদার। বাংলাদেশ দূতাবাস, রোম-ইতালী আয়োজিত মহান বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত এ আহ্বান করেন।
উন্নয়নের পথে দেশকে এগিয়ে নিতে, অবদান রাখার জন্য আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রদূত আব্দুস সোবহান সিকদার তার বক্তব্যে বলেন, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি ও হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ৯ মাসের সশস্ত্র রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধ শেষে ১৯৭১ সালের এই দিনে বাঙালি জাতি, স্বাধীনতা সংগ্রামের চূড়ান্ত বিজয় অর্জন করেছিল। তবে জাতি বিজয় অর্জন করলেও এবার পূর্ণাঙ্গ ভাবে অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য কাজ করতে হবে।
এর আগে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বানী পাঠ করেন, দূতাবাসের কর্মকর্তারা ।

৪৮তম মহান বিজয় দিবসের দুই দিন ব্যপী আয়োজনের প্রথম দিনে শিশুদের চিত্রাংকণ ও আবৃতি প্রতিযোগিতার বিজয়ী প্রতিযোগি সহ সকল শিশুদের রাষ্ট্রদূত ও তারপত্নি পুরস্কার বিতরন করেন এসময় রোমের রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দূতাবাসের দ্বিতীয় সচিব সুফিয়া আক্তারের সঞ্চলনায় অনুষ্ঠানের সাংস্কৃতিক পর্বে রোমের জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী ও শিশু শিল্পীরা দেশাত্মবোধক সংগীত ও নৃত্য পরিবেশন করে আমাদের গৌরবময় বিজয়কে ফোটিয়ে তুলে।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বিজয় দিবস উপলক্ষে সিডনিতে বাংলা মেলা

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-১৮ ১৩:৩৫:০৪

১৬ই ডিসেম্বর বিজয় দিবস উপলক্ষে সিডনীতে আয়োজিত হলো বাংলা মেলা। আমরা বাংলাদেশী’ নামে একটি সাংস্কৃতিক সংগঠনএ মেলারআয়োজন করেছে।মেলার প্রধান পৃষ্ঠপোষকও সার্বিক সহায়তায় ছিল অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশী নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মিচুয়াল হোমস”।

মেলায় বাংলাদেশী ঐতিহ্যের নানা রকম দেশীয় খাবারের পাশাপাশি ছিল পোশাক ও জুয়েলারির পশরা। গত বছরের মতো এবারেও ছিল দুই প্রান্তে দুটি মঞ্চ। প্রধান  মঞ্চে স্থানীয় শিল্পীদের নিয়মিত অনুষ্ঠান মালার পাশাপাশি দ্বিতীয় মঞ্চে চলে লোকগান, কবিতা, গল্প, কৌতুক এবং দর্শকদের অংশগ্রহণে বিশেষ অনুষ্ঠান। এ বছর বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে অনন্য অবদানের কথা স্মরণ করে মরণোত্তর বিজয় সম্মাননা প্রদান করা হয় অস্ট্রেলিয়ার রাজনীতিবিদ ফ্রেডা ব্রাউনকে। এছাড়াও প্রত্যক্ষভাবে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ বাংলা সঙ্গীত, সাহিত্য ও সংস্কৃতিতে বিশেষ অবদানের জন্য সম্মাননা প্রদান করা হয় জনাব আপেল মাহমুদ ও মরণোত্তর সম্মাননা প্রদান করা হয় কাজী জাকির হাসানকে।

মেলায় স্থানীয় সংগঠনের মধ্যে অংশ গ্রহণ করে  বাংলা আর্ট এক্সজিবিশন, কৃষ্টি ঐকতান, কিশলয় কচিকাঁচা, বাংলা ড্যান্স একাডেমী, ধূমকেতু, তান্ত্রিক, কার্নিশ, সৃষ্টি ও স্বপ্ন সহ স্থানীয় প্রবাসী অনেকেই। এবারেও ছিল এসো বিজয়ের রঙে আঁকি’-নামে ছোটদের চিত্রাঙ্গন প্রতিযোগিতা। এসো বিজয়ের সাজে সাজি’- নামে বাংলাদেশী সাজের প্রতিযোগিতা এবং এসো বিজয়ের গল্প শুনি’- নামে মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে তাদের যুদ্ধ অভিজ্ঞতা জানার পর্ব বাংলা মেলা বিজয় সম্মাননা’ প্রদান। ছিল বিশাল ক্যানভাসে উন্মুক্ত চিত্রাঙ্কন এবং চিত্র প্রদর্শনী।এছাড়াও এবারের বিশেষ আয়োজন ছিল বাংলাদেশি তরুণ প্রজন্মের বেশ কয়েকটি শিল্প গোষ্ঠিকে একত্রিত করে সঙ্গীতানুষ্ঠানহারানো কিংবদন্তীর প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ”মিচুয়াল হোমসের পক্ষ থেকে এনাম হক জানান, প্রবাসে জন্ম ও বেড়ে উঠা শিশু- কিশোরদের বাংলা সংস্কৃতি চর্চায় উৎসাহিত করতে, ভিন্ন সংস্কৃতির মানুষের কাছে বাংলাকে পরিচিত করতে এবং বিশ্ব পরিধিতে বাংলাকে তুলে ধরতে এ মেলার আয়োজন।বাংলা মেলারপক্ষ থেকে রেজা করিম জানান, আমাদের মুল উদ্দেশ্য বাংলাদেশী কমিউনিটিকে বিশ্ব কমিউনিটির সাথে পরিচিত করা ও সাংস্কৃতিক বন্ধন সৃষ্টি করা। উল্লেখ্য, ২০১৩ সাল থেকে বাংলা মেলার যাত্রা শুরু। ডিসেম্বর তথা এই বিজয়ের মাসে আর কোন মেলা না থাকায় এবারের মেলায় দর্শক সমাগম ছিল উল্লেখ করার মতো। পাশাপাশি দক্ষিণ গোলার্ধের গ্রীষ্মকালীন পড়ন্ত বিকেলে বিজয়ের আমেজ উপভোগ করতে মেলায় দিন দিন লোক সমাগম বাড়ছে।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

নিউজার্সির প্যাটারসনে বাংলাদেশের ৪৭তম বিজয় দিবস উদযাপন

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-১৭ ১২:৫৩:৩৭

যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সি অঙ্গরাজ্যের প্যাটারসনে বাংলাদেশের ৪৭তম বিজয় দিবস উৎযাপনউপলক্ষে ১৬ই ডিসেম্বর রবিবার দুপুরে প্যাটারসন সিটি চেম্বার হলে বর্ণাঢ্য আয়োজনে “পেটারসন সিটি কাউন্সিল” কর্তৃক  বাংলাদেশ ডে ২০১৮ অনুষ্টিত হয়।

বাংলাদেশী বংশোদভুত  পেটারসন সিটি কাউন্সিলম্যন জনাব শাহিন খালিক এর সৌজন্যে মনমুগ্ধকর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় ।অনুষ্টানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ,সাংস্কৃতিকঅনুষ্টান ও আলোচনা সভা অনুস্তিত হয় ।

কাউন্সিলম্যন শাহীন খালিক-এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের কনস্যুলেট -কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুন্নেসা, জাতিসংঘে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন, মুক্তিযাদ্ধা শামসুল আলম খান, প্যাটারসন সিটির মেয়র আন্দ্রে সায়েগ,সিটি কাউন্সিল প্রেসিডেন্ট ও কাউন্সিল এট্ লারজ মারিছা ডেভিলা, কাউন্সিলম্যন ফ্লাভিওরাইভেরা, কাউন্সিলওম্যান রুবি এন কটন, কাউন্সিলম্যন মাইকেল জ্যাকসন, কাউন্সিলম্যনআল আবদে আজীজ, কাউন্সিলওম্যান ডা: লীজা মীমস্, ডেপুটি মেয়র অব ফাইন্যান্স ফেরদৌস হোসাইন, বোর্ড অব এডুকেশন কমিশনার জোয়েল  ডি রামিরেজ  , বোর্ড অব অ্যাডজাস্টমেন্ট কমিশনার জয়েদ রহিম সামরান , বোর্ড অব প্লেনিং কমিশনার কবিরআহমদ উপস্তিত ছিলেন।

উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের  প্রতিষ্টাতা সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম, , হেলডনবোর্ড অব ইউটিলিটি কমিশনার  দেওয়ান বজলু চৌধুরী, নিউ জার্সি বি এন পি সভাপতি সৈয়দ জুবায়ের আলী, নিউ জার্সি আওয়ামীলীগের সভাপতিআব্দুল মালিক চুন্নু , সাধারণ সম্পাদক  শামিম আহমেদ, নিউ জার্সী আওয়ামীলীগ নেতা সেলিমআহমেদ চৌধুরী,  মৌলভীবাজার ডিস্টিক এসোসিয়েশনেরসাধারন সম্পাদক মুহাম্মদ মহসিন, জার্সি আওয়ামী যুবলীগ সভাপতি নুরুজ্জামান সুহেল ,  যুবলীগ নেতাফয়েজ আহমেদ, ইমরান হোসাইন, শাজাহান হান্নান সাজু, দীপ্ত রায়, মাহমুদুল হাসান, জাকারিয়া আহমদ,  চ্যানেল ৫২ এর প্রেসিডেন্ট ও সিইও এনাম চৌধুরী,  দিনবদল পএিকারসম্পাদক বিশ্বজিৎ দে বাবলু, চ্যানেল ৫২ এর ডাইরেক্টর অপারেশন ফারাহ হাসীন, ইমিগ্র্যান্টএন্ড মিডিয়া এক্টিভিস্ট সোহেল মাহমুদ,  নাসরিন সিদ্দিকী রিতা. সোমা মাহবুব, হাসিনা মুমতাজ,মিনা আশা, আবদীন রহমী, জালালাবাদ ট্রাভেলসের প্রেসিডেন্ট ও নিরাপদ সড়ক চাই নিউ জার্সি শাখার সদস্য সচিব মাশুক আহমদ, দিনবদল পত্রিকার সম্পাদক সাংবাদিক বিশ্বজিৎ দে বাবলু, প্প্যাটারসন পাবলিক স্কুলের স্পেশাল প্রজেক্ট কোওরডিনেটর গিলমান চৌধুরী, প্যাটারসনেরনিউজার্সি হেল্প সেন্টারের অন্যতম পরিচালক জুয়েল খালিক মুনিম, সোনালী এক্সচেঞ্জ প্যাটারসন শাখার পরিচালক ফারুক এ সিদ্দিকী, কমিউনিটি এক্টিবিস্ট আবুসুফিয়ান, ফয়জুর রহমান ফটিক, প্রবীন মুরব্বী আনসার আহমদ, শফিক উদ্দিন, ব্যবসায়ীরোহেল আহমদ, এম রহমান টিপু, আমির উদ্দিন, সৈয়দ সাহেব, কাওছার আহমদ, শহীদ আহমদ, ডা: আব্দুল মতিন, আব্দুররহীম, শাহাব উদ্দিন, মো: গোলাম কবির, মুনির আহমদ, মো: বুলু, শাহজাহান কবির রোমেল, লোকমান তরফদার, মারুফ উদ্দিন, নিরাপদ সড়ক চাই নিউজার্সী শাখার সদস্য শাহজাহানহান্নান সাজু, হোসাইন আলী, মুজিবুর রহমান, ময়েজ আহমেদ সহ আরো অনেকে।

জন এফ কেনেডির মেধাবী ছাএ ইমদাদুল হক এর বক্তব্যের মাধ্যমে বাংলাদেশের সংক্ষিপ্তইতিহাস উঠে আসে। সব শেষে ছিল এনাম চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্টান। সৃষ্টি একাডেমীর ছাত্র ছাত্রীদের পরিবেশনায় অনন্য একটি গীতি নৃত্য নাট্য । উপস্থিত সবাইকে আনন্দে আপ্লুত করে।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইতালিতে মিলান কন্স্যুলেটের আয়োজনে মহান বিজয় দিবস পালিত

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-১৭ ১২:৪৬:৫৪

ইতালির মিলানে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হলো ৪৭ তম মহান বিজয় দিবস ।

বাংলাদেশ কন্স্যুলেট জেনারেল মিলানের উদ্যোগে কন্স্যুলেট প্রাঙ্গনে সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয় জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে। শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত এবং গীতা থেকে পাঠ করা হয়।

এরপর মহান মুক্তি যুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে ১মিনিট নিরবতা পালন ও বিশেষ দোয়া প্রার্থনা করা হয়।মুক্তিযুদ্ধে বীর শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা ও সবাইকে বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করে সভাপতির বক্তব্য রাখেন কনসাল জেনারেল ইকবাল আহমেদ ।
অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি, প্রধান মন্ত্রী,পররাষ্ট্র মন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করে শোনান কনসাল এ,কে,এম,শামসুল আহসান এবং( শ্রম) কনসাল মোঃ রফিকুল করিম।আলোচনায় অংশ নেয় মিলান লোম্বার্দিয়ার আওয়ামী লীগ,মিলান বাঙলা প্রেস ক্লাব সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ সহ কমিউনিটি ব্যক্তিবর্গ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধাদেরকে ফুলেল শুভেচ্ছায় সম্মাননা প্রদান করা হয়।এতে অংশ নেয় স্হানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ মিলান বাঙলা প্রেস ক্লাব ইতালির সাংবাদিক বৃন্দ, প্রবাসী বাংলাদেশী কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ,সহ প্রবাসীরা।
অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধের একটি বিশেষ প্রামান্য চিত্র প্রদর্শণ করা হয়।শেষে সাংস্কৃতিক পর্বে আবৃত্তি ও সঙ্গীত পরিবেশন করেন স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ।

বিজয়ের এইদিনে একটি সুখী সমৃদ্ধ,দারিদ্র্য,সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মুক্ত স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ বির্নিমানের প্রচেষ্টায় কাজ করার প্রত্যাশা সবার।সবশেষে আপ্যায়নের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

রোমে সেন্তসেল্লে আদর্শ বিদ্যা নিকেতনে মহান বিজয় দিবস উদযাপন

 প্রকাশিত: ২০১৮-১২-১৭ ১২:৪৩:৫৮

মহান বিজয় দিবস। ৪৭ বছর আগে ১৯৭১ সালের এই দিনে মুক্তিযুদ্ধে আমাদের চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হয়েছিল। গৌরবময় বিজয়ের এই ইতিহাস শিশুদের জানাতে ইতালির রোমে সেন্তসেল্লে আর্দশ বিদ্যানিকেতন প্রতিবছরের মত এবারও আয়োজন করেছে বিজয় দিবসের বিশেষ অনুষ্ঠান।
“সেন্তসেল্লে আদর্শ বিদ্যা নিকেতন” এর প্রতিষ্ঠাতা ও  চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা’র সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন ইতালীয়ান ও বাংলাদেশী বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।
প্রধান অতিথি গোলাম মোস্তফা বলেন, গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে মুক্তিযুদ্ধের সেই মহান শহীদদের আত্মত্যাগের কথা স্মরণ করছি। দীর্ঘ ৯ মাসের যুদ্ধে রক্ত আর সম্ভ্রমের বিনিময়ে অর্জিত বিজয়ের কথা শিশুদের জানানো আমাদের কর্তব্য।
এসময় আগত শিশুরা বলে এই অণুষ্ঠানের মাধ্যমে তারা যুক্তিযোদ্ধ, স্বাধীনতা ও বিজয় সর্ম্পকে জানতে পারছে।
সেন্তসেল্লে আর্দশ বিদ্যানিকেতনের আয়োজনে শুধুমাত্র প্রবাসীরাই উপস্থিত ছিলেন না, উপস্থিত ছিলেন অনেক ইতালীয়ান ও পিডি’র স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। এসময় শিশু শিল্পীদের উপস্থাপনা ও পরিবেশনায় বাংলাদেশের যুক্তযুদ্ধ ও বিজয়ের গৌরব ইতিহাস তুলে ধরা হয়।
এছাড়াও প্রধান শিক্ষিকা মনোয়ারা আক্তারের  পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে ইতালীয়ান বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং বাংলাদেশী কমিউনিটির সম্মানীত ব্যক্তি মো: ফয়সাল সকল শিশুদের পুরস্কার বিতরণ করেন।
এর আগে স্কুলের সহ শিক্ষিকা অতসী সাহা, রেশমা ফারিহা ও আছমা আক্তারের সহযোগিতায় শিশুরা চিত্রাঙ্কন ও আবৃতিতে অংশগ্রহন করে শিক্ষার্থীরা।
অভিভাবকরা মনে করেন, আয়োজনটি অবশ্যই প্রশংসনীয় একটি উদ্যোগ, এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শিশুরা যেমন আমাদের প্রজন্মকে বাংলাদেশ সর্ম্পকে জানাতে পারছে, তেমনি ইতালিয়ানরাও জানতে পারছে আমাদের গৌরবের ইতিহাস।
এছাড়াও আজ সকালে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে পতাকা উত্তোলন সহ সংক্ষিপ্ত আয়োজনে বিজয় দিবসের কার্যক্রম শুরু করে। এসময় রাষ্ট্রদূত আবদুস সোবহান সিকদার মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় অনুপ্রাণিত হয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে এবং বিজয়ে ইতিহাস শিশুদের মাঝে তুলে ধরতে আহ্বান করেন। আগামীকাল রোমের আর্কো দি ত্রাভেরতিনো হলে বিজয় দিবসের মূল আয়োজনে সকলকে আমন্ত্রন জানান।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত