যুক্তরাষ্ট্রে আজ মঙ্গলবার, ১৭ Jul, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 01:22pm

|   লন্ডন - 08:22am

|   নিউইয়র্ক - 03:22am

  সর্বশেষ :

  মানবতাবিরোধী অপরাধ : মৌলভীবাজারের ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড   প্রাইজমানির ৫ লক্ষ ডলার প্রতিবন্ধী শিশুদের দিয়ে দিচ্ছেন এমবাপে   বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টে রাখা সোনা হয়ে গেল মিশ্র ধাতু!   লং বিচ কাইট ফেস্টিভ্যাল-এর ৫ম আসর ১২ আগস্ট   ওসমানী মেডিকেলে রোগীর নাতনিকে ধর্ষণ, ইন্টার্ন চিকিৎসক আটক   ছাত্রলীগকে ‘আবার মানুষ হওয়ার’ পরামর্শ ঢাবি শিক্ষকের   ফিনল্যান্ডে ট্রাম্প-পুতিন বৈঠক   শিরোপা উদযাপন করতে গিয়ে প্যারিসে সহিংসতা, নিহত ২   ঘিঞ্জি মহল্লা থেকে বিশ্বমঞ্চে কিলিয়ান এমবাপ্পে   ভারতে মোদির জনসভায় শামিয়ানা ভেঙে আহত ৬৭   লিবিয়ায় কনটেইনার লরি থেকে বাংলাদেশিসহ ৯০ অভিবাসী উদ্ধার   কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের পূর্ণ সমর্থন দিলো বিএনপি   যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে ইরানের মামলা   কোটার রায় কি বৈধ ছিল?   ‘প্যান্ট ফুলে থাকায়’ কৃষ্ণাঙ্গকে হত্যা পুলিশের, শিকাগোয় সংঘর্ষ

>>  প্রবাসী কমিউনিটি এর সকল সংবাদ

ইতালিতে কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করছেন বাংলাদেশী রাজিব

ইতালির ঐতিহ্যবাহী ও ইতিহাস বিখ্যাত বন্দরশহর নাপলির “কমুনে দি নাপলি” নির্বাচনে প্রথমবারের মত কোন প্রবাসী বাংলাদেশী কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। আগামী ১৫ই জুলাই অনুষ্ঠেয় এই নির্বাচনে শহরটিতে বসবাসরত বিদেশীদের মধ্য থেকে সৈয়দ রাজিব নামের এক প্রবাসী বাংলাদেশী সরাসরি কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছেন।

প্রথমবারেরমত এতো বড় পরিসরে নির্বাচনে সরাসরি অংশগ্রহণ করতে পেরে নিজেকে খুব ভাগ্যবান বলে মনে করেন বাংলাদেশী কাউন্সিলর পদপ্রার্থী সৈয়দ রাজিব।

এবিষয়ে তিনি বলেন, বিদেশে প্রবাসীদের বিভিন্ন খাতে নানা ধরনের

বিস্তারিত খবর

জ্যামাইকায় ‘বিশাল মেলা’ ৫ আগস্ট

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-১৩ ১৫:০০:১০

নিউইয়র্কের বাংলাদেশী অধ্যুষিত জ্যামাইকায় বাংলা শিল্প-সংস্কৃতি আর সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড নিয়ে ‘বিশাল মেলা’ আয়োজন করা হচ্ছে। আগামী ৫ আগষ্ট রোববার দিনব্যাপী স্থানীয় সুসান বি এন্থনী স্কুলের প্লে গ্রাউন্ডের খোলা মাঠে অনুষ্ঠিতব্য ‘এনওয়াই ইন্স্যুরেন্স বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল এন্ড ওপেন এয়ার কনসার্ট’ শীর্ষক বিশাল মেলার প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে। এতে দেশ ও প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পরা সঙ্গীত পরিবেশন করবেন। এছাড়া মেলায় থাকবে রকমারী স্টল সহ শিশু-কিশোরদের বিনোদনের জন্য বিভিন্ন রাইড।

বিশাল মেলা আয়োজন উপলেক্ষ্যে গত ৫ জুলাই বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জ্যাকসন হাইটসের একটি রেষ্টুরেন্টে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে মেলা আয়োজক কমিটির কর্মকর্তারা এসব তথ্য তুলে ধরেন। এসময় কমিটির আহ্বায়ক এবাদ চৌধুরী, সদস্য সচিব মাকসুদুল হক চৌধুরী ছাড়াও অন্যান্য কর্মকর্তাদের মধ্যে সিনিয়র এক্সিকিউটিভ কো-অর্ডিনেটর বিলাল আহমেদ চৌধুরী, চীফ কো অর্ডিনেটর এএফ মিসবাহ উজ্জামান ও আমানত হোসেন আমান সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত থেকে বিশাল মেলার বিস্তারিত তুলে ধরেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মধ্যে চট্টগ্রাম সমিতি ইউএসএ’র সাবেক সভাপতি কাজী আজম ছাড়াও সঙ্গীত শিল্পী কৃষ্ণা তিথিও উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে আয়োজকরা জানান, প্রবাসে বাংলাদেশের শিল্প, সংস্কৃতি আর ঐতিহ্য তুলে ধরার পাশপাশি বিনোদনের জন্য বিশাল মেলা’র আয়োজন করা হচ্ছে। মেলায় প্রবাসে বসবাসকারী স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের দুই গুণী শিল্পী যথাক্রমে কন্ঠযোদ্ধা রথীন্দ্র নাথ রায় ও শহীদ হাসানকে সম্বর্ধিত করা হবে। এছাড়াও বাংলাদেশ থেকে আগত জনপ্রিয় শিল্পী শাহনাজ বেলী ও সেলিম চৌধুরী সহ প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পীরা এতে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন। এই মেলায় ১০ হাজার প্রবাসীর সমাবেশ ঘটবে বলে আয়োজকরা আশা প্রকাশ করেন।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ফ্লোরিডায় বাংলাদেশী ছাত্রের মর্মান্তিক মৃত্যু

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-১১ ১৫:০২:৪১

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে তানভিরুল আরেফীন  (অমি) নামের এক বাংলাদেশী ছাত্র মর্মান্তিকভাবে মৃত্যুর শিকার হয়েছেন। সে সাউথ ফ্লোরিডা ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলো। ইউনিভারসিটি ক্যাম্পাস সংলগ্ন তার ভাড়া বাসায় সে গত ২ জুলাই মৃত্যুবরণ করেন বলে প্রাথমিক খবরে জানা গেছে। ঢাকায় জন্ম নেয়া এবং বড় হওয়া অমি’র বাপ-দাতার বাড়ী নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলার আলাদিনগর। তার বাবার নাম মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ আর মাতার নাম নাসরিন আকতার। অমি’র স্বপ্ন ছিলো সে বড় কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হবে। এদিকে পারিবারিক সিদ্ধান্তে অমি’র মরদেহ গত ৯ জুলাই সোমবার দুপুরে নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ডস্থ ওয়াশিংটন মেমোরিয়াল কবর স্থানে দাফন করা হয়েছে। খবর ইউএনএ’র।
জানা গেছে, অমি’র জন্ম ১৯৯৬ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর। সেই হিসেবে অমি’র বয়স ২২ বছর। সুঠাম দেহেরে টঘবগে যুবক। যার চোখে-মুখে বড় কম্পিউটার বিজ্ঞানের ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার। কিন্তু না, তার কোন স্বপ্নই পুরণ হলো না। সেই সাথে বাবা-মা’র স্বপ্নও পূরণ হলো না। অথচ অপরিণত বয়সে তাকে চলে যেতে হলো। তাও আবার  না ফেরার দেশে, কাউকে না বলে, কিছু না বলে। এ এক মর্মান্তিক বিদায় অমি’র।
তানভিরুল আরেফীন অমি’র স্বপ্ন ছিলো সে বড় কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হবে। সন্তানের স্বপ্নও বাবা-মায়ের স্বপ্ন হয়ে উঠে। তাদের পরিবারে অমি ছাড়াও তার দু’টি ছোট বোন রয়েছে। সেই লক্ষ্যে এগিয়েও যাচ্ছিল। ঢাকার উত্তরা মডেল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে জিপিএ ফাইভ পেয়ে ভর্তি হয় নটরডেম কলেজে। সেখান থেকে এইচএসসি-তে গোলেন্ডন জিপিএ ফাইভ পেয়ে স্বপ্ন পুরণের প্রত্যাশায় ভর্তির চেষ্টা করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জীব বিজ্ঞানে ভর্তির সুযোগ পাওয়ায় তার মন খারাপ হয়ে যায়। সে ঢাকা ছাড়া সিদ্ধান্ত নেয় এবং ২০১৬ সালের ১ জানুয়ারী স্টুডেন্ট ভিসায় যুক্তরাষ্ট্র এসে সাউথ ফেøারিডা ইউনিভার্সিটিতে কম্পিউটার সায়েন্সে ভর্তি হয়। সন্তানের স্বপ্ন পূরনের জন্য বাবা-মা জায়গা-জমি বিক্রি করে অর্থ যোগ দিতে থাকেন। অমিও নানা কষ্ট শিকার করে এগুতে থাকে। সে ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসের পাশেই ভাড়া বাসায় বসবাস করেতো। এবছর তার তৃতীয় বর্ষ চলছিলো। স্বপ্ন পুরণ হওয়ার আর মাত্র কিছু দিন। কিন্তু না হঠাত করেই সবার সাথে তার যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেলো। কোন খোঁজ খবর নেই।
নিউইয়র্কের রিচমন্ড হীলের বসবাসকারী অমি’র আপন চাচা জহিরুল ইসলাম বার্তা সংস্থা ইউএনএ প্রতিনিধি-কে জানান, অমি শান্ত-শিষ্ট ছেরে ছিলো। পড়াশুনা ছাড়া কিছুই বুঝতো না। বই আর কম্পিউটার নিয়ে বসলে অনেক সময় খাওয়ার কথাও ভুলে যেতো। গত ১৬ জুন চাচা-ভাতিজার মধ্যে ফোনে সর্বশেষ কথা হয়। এরপর ৩/৪দিন কোন কথা হয়নি। কেউ কাউকে ফোনও দেয়নি। চাচা ভেবেছেন অমি হয়তো পড়াশুনা নিয়ে ব্যস্ত, তাই কল দিচ্ছে না। কিন্তু গত সপ্তাহে সপ্তাহে তার খোঁজ নিতে গিয়ে কোন খববও পাওয়া যায়নি। ফোনও পিকআপ করছে না। চাচা সহ পরিবারের লোকজনের বুক কেঁপে উঠে। নিউইয়র্ক থেকেন অমি’র এক বন্ধুর কাছে ফোন করে তার খোঁজ-খবর নিতে বলায় বেরিয়ে আসে আসল খবর। অমির বন্ধুরাও জানতো না তার করুণ মৃত্যুর কথা।
অমি’র চাচা জহিরুল ইসলাম জানান, অমির খোঁজ নিতে বলায় তার এক বন্ধু অমি’র বাসায় গিয়ে দেখতে পায় তার (অমি) ঘরের ভিতর আলো জ্বরছে, কিন্তু দরজা বন্ধ। অমি চারতলা বাসার চতুর্থ তলায় একা থাকতো। পরবর্তীতে ডাকাডাকি করে অমির কোন খোজ না পাওয়ায় পুলিশ কল কররৈ পুলিশ এসে দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে অমি’র মরদেহ উদ্ধার করে। দেখা যায় অমির মরদেহ গোসল খানার বাসটবে পড়ে রয়েছে আর ঝর্না দিয়ে পানি পড়ছে। প্রথমিকভাবে পুলিশের ধারণা গোসল করার সময় অমি হার্ট অ্যাট্যাক করে কয়েকদিন আগেই মারা গেছে।  ইতিমধ্যেই তার দেহও বিকৃত হয়ে গেছে। পরবর্তীতে মরদেহ উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নেয়া হয় এবং প্রাথমিক ময়না তদন্তে অমি’র স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে।  
অমি’র মৃত্যুে খবর পেয়ে তার চাচা-চাচি ও স্বজনরা ফ্লোরিডা ছুটে যান এবং সেখানে ২/৩দিন অবস্থান করে অমির মরদেহ গত ৬ জুলাই শুক্রবার রাতের ফ্লাইটে নিউইয়র্ক নিয়ে আসেন এর অমি’র মরদেহ নিউইয়র্কের রিজউডস্থ পাক ফিউরেনাল হোমে রাখা হয়। পরবর্তীতে ৮ জুলাই রোববার বাদ মাগরিব পাক ফিউরেনাল হোম মসজিদে অমি’র নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরদিন ৯ জুলাই সোমবার দুপুরে অমি’র মরদেহ লং আইল্যান্ডস্থ ওয়াশিংটন মেমোরিয়াল কবর স্থানে দাফন করা হয়। এব্যাপরে বাংলাদেশ সোসাইটি ইনক’র কর্মকর্তা বিশেষ সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। এছাড়াও অনেক প্রবাসী প্রবাসী এগিয়ে আসেন।
এদিকে অমি’র মা গুরুতর অসুস্থ্য থাকায় তার বাবা স্ত্রীকে নিয়ে চিকিৎসার জন্য বর্তমানে ভারতে (এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত) রয়েছেন। অমি’র আকাল মৃত্যুর খবরে দেশ ও প্রবাসের স্বনজদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইতালীতে আওয়ামী লীগ-বিএনপির পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি, শঙ্কায় প্রবাসীরা

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-১০ ১৬:২১:১২

ইতালী আওয়ামী লীগ ও বিএনপি পৃথক পৃথক কর্মসূচী দিয়েছে একই সময়ে আগামীকাল বেলা দুইটায়। পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী বিএনপি তাদের দলীয় চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের কর্মসূচি। এই কর্মসূচির কারণে বিএনপি দূতাবাসে স্মারক দিতে যাবে।

এদিকে ইতালি  আওয়ামী লীগ দূতাবাসের সামনে  সমাবেশ করবে বলে জানিয়েছে।

এখন প্রশ্ন দেখা দিয়েছে, যদি বিএনপি কর্মসূচী শেষে অথবা কর্মসূচির মাঝখানে একটি প্রতিনিধি দল দূতাবাসে স্মারকলিপি দিতে যায়, সেখানে বিএনপি আওয়ামী লীগের সঙ্গে মুখোমুখি হবে এবং এতে  সম্ভাব্য সংঘর্ষের  আশঙ্কা করছে প্রবাসীরা। তারা মনে করছেন এই দুই দল মুখোমুখি হলে একটি অপ্রীতিকর ঘটনারও সৃষ্টি হতে পারে।

এদিকে বিএনপি নেতা শাহ মোঃ সাইফুর রহমান ছোটন বলেন" ইটালী বি এন পির পক্ষ থেকে দূতাবাসে স্মারক লিপি প্রদান করতে যাবে। এখানে কোন অপশক্তি তা ঠেকাতে পারবেনা।

এদিকে ইটালী আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসান ইকবালও বলেছেন" ইটালী আওয়ামী লীগ ঐক্য বদ্ধ ও সুসংগঠিত কাজেই আওয়ামী লীগ সরকারের এই উন্নয়নের ধারায় জামাত-বিএনপির কোন রকম বাঁধাগ্রস্থ   করতে চাইলে কঠিন ভাবে তা দমন করা হবে।
আগামী কালের দুই দলের কর্মসূচির দিকে এখন প্রবাসী বাংলাদেশিদের নজর।

বিস্তারিত খবর

সাংবাদিকতায় মাল্টিমিডিয়ার শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেলেন মিনহাজ

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০৭ ১৪:৩৫:২১

ইতালিতে  জগতে মোঃ মিনহাজ হোসেন একটি পরিচিত নাম। ইতালির নাপলী থাকাকালে তিনি প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ায় সংবাদ পরিবেশন করে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেন। তার এই যোগ্যতাকে সম্মান দেখিয়ে বাংলা প্রেসক্লাব,ইতালী তাদের সর্বশেষ সাধারণ সভায় জনাব মিনহাজকে প্রচার সম্পাদকের দায়িত্ব দিয়েছে। বাংলাদেশের সিলেট বিভাগের এই তরুণ সাংবাদিক বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথেও কাজ করছেন।
মিনহাজ হোসেন ১৯৯৩সালে সিলেটের বিয়ানীবাজার থানার কসবা গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। তার পিতা আব্দুন নূর, মাতা ছালেহা বেগম, তারা ৩ ভাই ২ বোন তিনি সকলের ছোট, তার বাবা একজন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক, বড় ভাই দেশে বিভিন্ন ব্যাবসা বাণিজ্য সাথে সংশ্লিষ্ট রয়েছেন এবং আরেক ভাই দেশের বাহিরে বর্তমানে কুয়েতে অবস্থান করছেন। মিনহাজ হোসেন গত ২০১৪ সালের ডিসেম্বর বাংলাদেশ ত্যাগ করে প্রবাসে পাড়ি জমান, বাংলাদেশে পড়ালেখার পাশাপাশি বিভিন্ন প্রিন্ট অনলাইন মিডিয়ার সাথে অতরপত ভাবে জড়িত ছিলেন।

বিদেশে প্রথমে ২০১৪ সালে রাশিয়া আসলে পরবর্তীতে তিনি বিভিন্ন দেশ সফর শেষে ইতালীতে এসে থমকে দাঁড়ান। প্রথমে নাপলিতে গার্মেন্টসের কাজ করলেও পাশাপা‌শি সাংবাদিকতাও করতেন। একটা সময়ে তিনি গার্মেন্টসের কাজ ছেড়ে দিয়ে শুধু সাংবাদ সংগ্রহের খুজে সাংবাদিকতা শুরু করেন। তিনি বাংলাদেশে সাপ্তাহিক আগামী প্রজন্ম পত্রিকা সহ অনলাইন বিয়ানীবাজার কন্ঠের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করতেন। ইতালী পাড়ি জমানোর পর তার হঠাৎ ইচ্ছে হয় নাপলি শহরে একটি পাত্রিকা প্রকাশনা করার। তারপর তিনি বিভিন্ন বাংলা কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গদের সাথে আলোচনার মাধ্যমে সকলের সহযোগিতায় সাপ্তাহিক প্রবাস কন্ঠ নামে একটি পত্রিকা প্রকাশিত করতেন। এবং তার এই পত্রিকার ও অনলাইন সহ অনলাইন পি টিভি ইউরোপ সহ ইতালীতে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

তিনি শুধু এই পত্রিকা নয় রোম থেকে প্রকাশিত দৈনিক ধূমকেতু পত্রিকা ও দৈনিক জন্মভূমি পত্রিকার প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন। তার এই অগ্রযাত্রাকে ইতালীস্হ বাংলা কমিউনিটির গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গেরা তাকে সাধুবাদ জানান ও প্রার্থনা করেন তার আগামীর পথচলা আরো সুন্দর ও সাফল্য অর্জন করেন। তার এই সাফল্যেতার কারনে তিনি গত ৩০জুন রবিবার ইতালীতে ইসলামিক ট্যালেন্টশোতে সংবাদ সংগ্রহে মাধ্যমে সাংবাদিকতার শ্রেষ্ঠ পুরস্কার লাভ করেন, তিনি গত ২জুলাই সোমবার ইসলামিক ট্যালেন্টশো ২০১৮ এর অর্গেনাইজার মাল্টিমিডিয়া সত্বধিকারী এ কে জামান তাকে সাংবাদিকতায় শ্রেষ্ঠ সাংবাদিক ও ফটোগ্রাফার হিসেবে সম্মাননা সরূপ ক্রেষ্ট ও সম্মাননা সনদ প্রদান করে তার উত্তর উত্তর সাফল্য কামনা করেন।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০৭ ১৪:৩২:২১

বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা আর সম্প্রতির বন্ধনকে আরো জোরদারের প্রত্যয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২৯ ও ৩০ জুন দু’দিনব্যাপী মিলন মেলা স্থানীয় লাগোর্ডিয়া ম্যরিয়েট হোটেলে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন ঢাকাস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান ও বিএনপি দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য সালাউদ্দিন আহমেদ। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশন (এমএমসিএএ) আয়োজিত এ পুনর্মিলনীতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের বিপুল সংখ্যক প্রবাসী প্রাক্তন শিক্ষার্থী অংশ নেন। তাদের অনেকেই উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে চিকিৎসা সহ অন্যান্য পেশায় কর্মরত এবং সপরিবারে বসবাস করছেন। উল্লেখ্য, নিউইয়র্কে এটা ছিল সংগঠনটির দ্বিতীয় পুনির্মলনী। এর আগে ২০০৬ সালে লং আইল্যান্ডের একটি পার্টি হলে এমএমসিএএ প্রথম পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়। খবর ইউএনএ’র।
উৎসবমুখর পুনির্মলনী অনুষ্ঠানে প্রথম দিন ২৯ জুন শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত প্রায় ১টা পর্যন্ত টানা প্রায় ৬ ঘন্টা চলা অনুষ্ঠানমালার মধ্যে ছিলো স্মৃতিচারণ, গান পরিবেশন, কৌতুক ও আড্ডা পর্ব। দীর্ঘদিন পর সহপাঠী, অনুজ ও অগ্রজ সতীর্থদের সাথে দেখা ও কথা বলার সুযোগ পাওয়ায় অনেকেই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। কিছুটা সময়ের জন্য হলেও তারা ফিরে যান কলেজ জীবনের নস্টালজিয়ায়। অতীতের সুখময় দিন ও সুবর্ণ মুহূর্তগুলোর স্মৃতি আবারো আনন্দঘন করে তুলে ম্যারিয়টের পরিবেশকে।

পুনর্মিলনীর দ্বিতীয় দিন ৩০ জুন শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলা কর্মকান্ডের মধ্যে ছিলো আলোচনা, নতুন চিকিৎসকদের চাকরি সুবিধা, এলামনাই এসোসিয়েশনের সাংগঠনিক কর্মকান্ড ও স্মৃতিচারণ প্রভৃতি। এদিন সন্ধ্যায় ম্যারিয়টের বল রুমে মূল অনুষ্ঠান শুরু হয় সন্ধ্যা ৭টায়।

বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। এই পর্ব পরিচালনা করেন ডা. সিনহা মনসুর। এ পর্বে আমন্ত্রিত অতিথি ডা. কামরুল হাসান খান, সাবেক সংসদ সদস্য ডা. সালাউদ্দিন আহমেদ, এমএমসি এলামনাই’র প্রেসিডেন্ট ডা. এম আবিদুর রহমান এবং ডা. সেতারা বেগম (বীর প্রতীক) প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এ পর্বে এমএমসিএএ’র পক্ষ থেকে অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, ডা. সালাহউদ্দিন আহমেদ ও ডা. সেতারা বেগমকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

অতিথিবৃন্দ তাদের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের অতীত এবং বর্তমান সময়ের বিভিন্ন গৌরবোজ্জ্বল দিক নিয়ে আলোচনা করেন। বিশেষ করে দেশ-বিদেশে চিকিৎসক হিসেবে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীগণ অত্যন্ত সুনামের সাথে কর্মরত রয়েছেন বলে উল্লেখ করেন। পুনর্মিলনীর মধ্য দিয়ে ভবিষ্যতে প্রতিষ্ঠানটির প্রাক্তন শিক্ষার্থীগণ নিজেদের মাঝে পারস্পরিক সম্পর্ক ও সৌহার্দ্য অব্যাহতভাবে বজায় রাখবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তারা।

আলোচনা শেষে শুরু হয় সাংস্কৃতিক পর্ব। এতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের ডাক্তার এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের অনেকে নাচ, গান ও কৌতূক পরিবেশন করেন। এছাড়াও বাংলাদেশের জনপ্রিয় শিল্পী রিজিয়া পারভীন এবং স্থানীয় শিল্পী কামরুজ্জামান বকুল অনেকগুলো জনপ্রিয় গান পরিবেশন করেন। সাংস্কৃতিক পর্ব চলে রাত প্রায় ১টা পর্যন্ত।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ চিকিৎসা বিজ্ঞান শিক্ষা ক্ষেত্রে অনন্য ভূমিকা পালন করে আসছে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ। ১৯২৪ সালে বাঘমারায় ‘লিটন মেডিকেল স্কুল’ প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে এর যাত্রা শুরু। তখন শুধুমাত্র এলএমএফ ডিগ্রী দেয়া হতো প্রতিষ্ঠানটি থেকে। পরবর্তীতে ১৯৬২ সালে ৩২ জন ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে শুরু হয় প্রথম এমবিবিএস কোর্স। সে সময় থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন ফ্যাকাল্টির অধীনে এমবিবিএস ডিগ্রী প্রদান করা হচ্ছিল। বর্তমানে কলেজটি থেকে ¯œাতোকত্তর ডিগ্রীও দেয়া হচ্ছে।

এমবিবিএস ছাড়াও ডেন্টাল ডিগ্রী বিডিএস ছাড়া বিভিন্ন বিষয়ে পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন ডিগ্রী দেয়া হচ্ছে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ থেকে। বর্তমানে প্রতি বছর ১৯৭ জন এমবিবিএস, ৫২ জন ছাত্র-ছাত্রী বিডিএস এ ভর্তি হচ্ছে। অনেক বিদেশী ছাত্র-ছাত্রীও এখানে পড়াশোনা করছে। মেডিকেল কলেজটি থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ১০ হাজার চিকিৎসক বেরিয়েছেন।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

রোমে তুসকোলানা নারী সংস্থা ইতালীর ঈদ পূর্ণমিলন ও অভিষেক অনুষ্ঠিত

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০৬ ১৩:৩২:০৮

প্রবাসে মহিলাদের অন্যতম সংগঠন তুসকোলানা নারী সংস্থা রোম ইতালীর প্রবাসী নারীদের উদ্যোগে সামাজিক উন্নয়ন ও সমাজে নারীদের অগ্রণী ভুমিকা পালনে কমিটির বর্ণাঢ্য ও জাকজমক অভিষেক অনুষ্ঠিত হয়েছে। হল ভর্তি তুসকোলানা নারী সংস্থা সহ ইতালীস্হ বাংলা কমিউনিটির গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের স্বত:স্ফূর্ত উপস্থিতিতে অভিষেক অনুষ্ঠানটি গতকাল সন্ধ্যায় তুসকোলানা একটি হলরুমে অনুষ্ঠিত হয়।

দুই পর্বে বিভক্ত এই অনুষ্ঠানটি আমন্ত্রিত অতিথিরা প্রাণভারে উপভোগ করেন। অনুষ্ঠানে উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ সমিতি ইতালীর সাবেক সভাপতি, ধুমকেতু’র কর্নধার নুরে আলম সিদ্দিকী বাচ্চু, অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে ছিলো আলোচনা সভা সভায় নারী সংস্থার সভাপতি মেরীন খান এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সোনিয়া রহমান এর সঞ্চালনায় তুসকোলানা নারী সংস্থার সকল নেতৃবৃন্দদের উপস্থিতিতে অভিষেক উপলক্ষে একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

দ্বিতীয় পর্বে তুসকোলানা নারী সংস্থা কমিটির অভিষেক এবং শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। দ্বিতীয় পর্বে পরিচয় পর্বের অভিষেক অনুষ্ঠানে সভার সভাপতিত্ব করেন মহিলা সংস্থা ইতালীর সিনিয়র সহ সভাপতি সানজিদা আহমেদ ববি, বাংলাদেশ সমিতি ইতালীর সাবেক সভাপতি, ধুমকেতু’র কর্নধার নুরে আলম সিদ্দিকী বাচ্চুর পরিচালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সমিতি ইতালীর ভারপ্রাপ্ত  সভাপতি মোঃ নায়েব আলী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সমিতির সাধারন সম্পাদক আবুল কালাম সায়মন,সহ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ইমরান চৌধুরী বাবু, বৃহত্তর ঢাকা সমিতির সভাপতি কাজী মুনসুর আহমেদ শিপু, জালালাবাদ কল্যান সংঘ বৃহত্তর সিলেট ইতালী সভাপতি অলিউদ্দিন শামিম, ইতালী আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কিটন সিকদার, মুক্তার জামান, বাংকার ব্যবসায়ি সমিতি ইতালির সভাপতি মইনুল হোসাইন ময়না, সাধারন সম্পাদক সাখাওয়াত হোসাইন, মহিলা সমাজ কল্যান সমিতির সভাপতি লায়লা শাহ, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দা রুনা ,সেলিনা আক্তার শেলী সহ আরো অনেকে। পরে নব গঠিত কমিটিকে ফুল দিয়ে বরন করে নেন তুসকোলানা সমাজ কল্যান সমিতি, বাংকার ব্যবসায়ি সমিতি ইতিলী, বৃহত্তর ঢাকা সমিতি, জালালাবাদ কল্যান সংঘ বৃহত্তর সিলেট ইতালী, মহিলা সংস্থা ইতালী, সানপাওলো সামাজিক সংগঠন, মহিলা সমাজ কল্যান সমিতি, গাজিপুর সমিতি সহ প্রমুখ।
সভায় মহিলা নেত্রীরা তাদের বক্তব্যতে বলেন, প্রবাসে নারীরা তাদের পরিবারের সকল কর্ম ব্যস্ততা শেষ করে পরিবারের সদস্যদের এবং প্রবাসের নারীদের আনন্দ বিনোদনের কিছুটা সময় ভাগাভাগি করে সুন্দর ভাবে প্রবাস জীবন যাপনের লক্ষে এই নারী সংগঠনটি কাজ করে যাবে। সমিতির কার্যক্রমে সকলের সহযোগিতা ও সঠিক পরামর্শ পেলে আগামীতে এই নারী সংগঠনটি প্রবাসের মাঠিতে এক উজ্জল স্থাপনা হয়ে থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়। পরিশেষে সংস্থার সভাপতি মেরীন খান তার সমাপনী বক্তব্যে বলেন, আমরা গত ১ বছর থেকে এই সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেছিলাম। এই সংগঠন প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্য ছিলো প্রবাসে বসবাসরত মহিলাদের ঐক্যবদ্ধ করা এবং তাদের সুখে- দু:খে পাশে থাকা। আপনাদের সকলের সহযোগিতা পেলে আমরা সামনে আরো এগোতে পারব। এবং আজকের অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বিশেষ অতিথিরা সহ উপস্থিত সুধীজনদের আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

রোমে বিএনপিকে প্রতিহত করার ঘোষণা ইটালী আওয়ামী লীগের

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০৫ ১৪:২৭:১৮

ইটালী আওয়ামী লীগ আয়োজিত একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে রোমের বাংলাদেশ সমিতির কার্যালয়ে। ইটালীর রাজধানী রোমের পিয়াচ্ছা ভিক্টোরিয়ার এই কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভাটি ইটালী আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আলী আহমেদ ঢালীর সভাপতিত্বে ও পরিচালনা করেন ইটালী আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক হাসান ইকবাল।

আলোচনা সভায় সর্ব ইউরোপ আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি কে এম লোকমান হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক জি এম কিবরিয়া, ইটালী আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আলী আহমেদ ঢালী, রব ফকির, নজরুল ইসলাম মাঝি, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আফতাব বেপারী, শোয়েব দেওয়ান, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ মোজাফফর হোসেন বাবুল, দীন মোহাম্মদ, মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক নয়না আহমেদ।

আলোচনা সভায় আলোচ্য বিষয় ছিল আগামী আগামী ১১তারিখে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীর ইটালী আগমন উপলক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা এবং ইটালী  বিএনপির পিয়াচ্ছা রিপাবলিকায় তাদের দলীয় এজেন্ডা সমাবেশ ও বিক্ষোভ প্রদর্শন ঠেকানোর জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ।

বক্তারা আরো বলেন" ইটালী আওয়ামী লীগ সব সময়ই  ঐক্য বদ্ধ ছিল। কাজেই সকল মত পার্থক্য কে দুর করে শুধু মাত্র বঙ্গবন্ধুর আদর্শ কে ধারণ করে আওয়ামী লীগ তথা প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত কে এই প্রবাস থেকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান।

এই আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন আতিয়ার রাসুল কিটন, হাবিব মোকদম, ইউসুফ চৌধুরী,  শেখ মামুন, মোহাম্মদ আলী, এনায়েত করিম, উম্মে হানি,  শামিম পপি, বাবলি ইউসুফ, মহিউদ্দিন মহি, জহিরুল ইসলাম, ফারুক ফরাজী, আব্দুল মুজাহিদ বাবুল, বাবু ঢালী, মাসুদ রানা, ওলিউর তালুকদার, আমিন বেপারী, মহিউদ্দিন হাওলাদার সহ ইটালী আওয়ামী লীগের অন্যান্য অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সর্ব স্তরের নেতা ও কর্মী বৃন্দ।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সৌদি আরবে বাস দুর্ঘটনায় ৬ বাংলাদেশি নিহত

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০৪ ১৪:০০:২২

সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় ৬ বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। ৪ জুলাই, বুধবার সকাল ৭টার দিকে জেদ্দায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতের মধ্যে পাঁচজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন—নড়াইলের মনিরুল, সিলেটের সুজন, চট্টগ্রামের সৈয়দ, মাগুড়ার শাহ আলম ও ইলাহী।

দুর্ঘটনায় আরও সাতজন আহত হন। আহতদের স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে আহতদের পরিচয় জানা যায়নি।

ওই বাসে থাকা শ্রমিকরা পুলিশকে জানান, দুর্ঘটনাকবলিত মিনিবাসটিতে করে ১৬ জন শ্রমিক কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন। হঠাৎ বাসটির টায়ার বিস্ফোরণ হলে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারায়। একপর্যায়ে সেটি রাস্তার পাশে থাকা একটি বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে ধাক্কা লেগে উল্টে যায় এবং বাসটি রাস্তার পাশে ছিটকে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই ৬ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়। এ সময় আহত হন আরও সাতজন। তাদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এ বিষয়ে জেদ্দা কনস্যুলেটের কাউন্সিলর (শ্রম) আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘দুর্ঘটনার খবর পেয়ে হাসপাতালে আমাদের লোক পাঠানো হয়েছে।’

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

স্মৃতির অণুরণনে সিডনীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের পুনর্মিলনী

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০৩ ১৫:১৬:২৯

পহেলা জুলাই রোববার ২০১৮ সিডনীতেঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের পুনর্মিলনী ছিল দিনব্যাপী। দুপুর ১২টায় শুরু হয় বার্ষিক সাধারণ সভা। বর্তমান সভাপতি মোঃ মোস্তফাআবদুল্লাহ এর সভাপতিত্বে সাধারণ সভায় সাংগঠনিক কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা করেনসাধারণ সম্পাদক জনাব আনিস মজুমদার ও কোষাদক্ষ জনাব কামরুল ইসলাম। এ পর্বে সংগঠনের বিভিন্ন বিধিমালা পরিবর্তন ও পরিবর্ধন, কার্যকরী পরিষদের কার্যক্রম সহ আরও নানা বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর ও সমাধানের ব্যাপারে আলোচনা করা হয়।
আলোচনা শেষে মধ্যাহ্ন ভোজের পাশাপাশি শুরু হয় স্মৃতি-চারণ পর্ব। এ পর্বটি পরিচালনা করেন ডক্টর খাইরুল চৌধুরী। এ সময়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীরা তাদের ক্যাম্পাস জীবনের আনন্দ বেদনার নানা মুহূর্তগুলোকে স্মৃতির পর্দা থেকে বাস্তবেতুলে নিয়ে আসেন। এ যেন এক অবিস্মৃত মূর্ছনা।এবারের পুনর্মিলনীতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের নাটক ও সিনেমা জগতের জনপ্রিয় শিল্পী ডলি যহুর ও প্রখ্যাত কণ্ঠ শিল্পী আপেল মাহমুদ। ডলি যহুর ও আপেল মাহমুদ তাদের কথা ও পরিবেশনায় অনুষ্ঠানটিকে আরও আনন্দ মুখর করে তোলেন।


পরবর্তী পর্বে শুরু হয় স্থানীয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তনছাত্র-ছাত্রীদের ও নতুন প্রজন্মের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এ পর্বটি সঞ্চালনা করেন সেলিমা বেগম। এবারের পুনর্মিলনীতে নতুন প্রজন্মের অংশগ্রহণ ছিল একটি অভিনব সংযোজন। প্রবাসে বেড়ে উঠা প্রজন্ম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে জানতে ও এর পরিধিকে আরো পরিব্যাপ্ত করতে তাদের অংশগ্রহণ প্রয়োজন বলে অনেকেই মতামত ব্যক্ত করেন।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি ছিল নানা অনুসন্ধানমূলক প্রশ্নমালা নিয়ে সাজানো ট্রিভিয়া পর্ব। ট্রিভিয়া পর্বে বরাবরের মতো মুল দায়িত্বে ছিলেন নাফিজা চৌধুরী। ট্রিভিয়া পর্বে জয়ী হন, এহসান আহমেদ, ইমরান হোসেন ও সুলতানা নুর। সবশেষে অনুষ্ঠিত হয় রাফেল ড্র, এতে জয়ী হন আইভি রহমান, তানভীর আবির ও রাসেল মালিক। এ পর্বটি পরিচালনায় ছিলেন লিঙ্কন শফিউল্লাহ।
উল্লেখ্য,সিডনীতেঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানটিস্থানীয়দের জন্য সরাসরি সম্প্রচার করেন অন-লাইন পত্রিকাbangla-sydney.comএর সম্পাদক আনিসুর রহমান।অনুষ্ঠানটির সার্বিক ত্বত্তাবধানে ছিলেন, ডক্টর খায়রুল চৌধুরী, ডক্টর জাকিয়া হোসাইন, হায়াত মাহমুদ, কামরুল মান্নান আকাশ, রফিক উদ্দিন, মাহমুদুর রহমান বাদল সহ আরও অনেকে। পুনর্মিলনী উপলক্ষে এবারেও প্রকাশিত হয়েছে লেখালেখির সংকলন ‘নানান রঙের দিনগুলি’। সর্বোপরি, ১লা জুলাই ছিলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদেরজন্য আনন্দ-বেদনা ও ভালোলাগার এক অপূর্ব অণুরণন। 



বিস্তারিত খবর

রোমে গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতিকে সংবর্ধনা

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০৩ ১৫:০৭:৪০

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের গোপালগঞ্জ জেলার সভাপতি জি এম শাহাবুদ্দিন আজম ইটালী সফরে আসলে রোমে গোপালগঞ্জ জেলা সমিতি একটা ফুলেল সংবর্ধনার আয়োজন করে।

ইটালীর রাজধানী রোমের তরপিন্তারাস্থ সুন্দরবন রেস্টুরেন্টের হলরুমে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন ডক্টর সাইদুর রহমান লস্কর এবং পরিচালনা করেন হেকমত আলী সুজন।

বক্তারা প্রধান অতিথির কাছে গোপালগঞ্জ জেলা সমিতির সৃষ্টি লগ্ন থেকে এই পর্যন্ত বিভিন্ন কল্যাণ ময় কাজ ও রোমে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের সেবা প্রদানের বিভিন্ন কার্যক্রম গুলো তুলে ধরেন। পাশা পাশি গোপালগঞ্জ সহ আশে পাশের এলাকার বিভিন্ন অংশের আরো বেশী উন্নয়নের কথা বলেন। বিশেষ করে সুপেয় পানির কষ্ট চলছে যুগের পর যুগ ধরে। যার সমাধান আজও গোপালগঞ্জ জেলার মানুষ পায়নি। অথচ এই গোপালগঞ্জেই ঘুমিয়ে আছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তারপরও এই জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল গুলো নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত সেই সঙ্গে উন্নয়নের স্পর্শ থেকেও।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন " আপনারা গোপালগঞ্জ জেলার যারা রয়েছেন তারা ঐক্যবদ্ধ হয়ে নিজেদের উন্নয়নের পাশাপাশি  গোপালগঞ্জ জেলায় যেন সেই উন্নয়নের চিত্র দেখা যায়। তা যেন হয় একটি রোল মডেলের মতো। যেন আপনাদের দেখে অন্য সব প্রবাসী রাও তাদের নিজ এলাকার উন্নয়নের কাজে অংশ গ্রহণ করে।" তিনি আরো বলেন" প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা সমগ্র বাংলাদেশ কেই উন্নয়ন এবং আধুনিক জীবন যাপনের উপযোগী করে গড়ে তুলছেন  যা  বহিঃবিশ্বে ও একই সঙ্গে সমাদৃত হয়েছে। এখন আগামী নির্বাচনে যেন আওয়ামী লীগ আবারও  সরকার গঠন করতে পারে, সেই লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য আপনারা যারা প্রবাসে থাকেন তারা কাজ করবেন।"

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন গোপালগঞ্জ জেলা সমিতির মিজানুর রহমান( সভাপতি), বদরুজ্জামান তালুকদার ( সাধারণ সম্পাদক), শেখ তামজিদ ( যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক), শহিদুল ইসলাম ( সাংগঠনিক সম্পাদক)। আরো বক্তব্য রাখেন মাহবুবুর রহমান, সোহাগ শেখ, সরদার আজাদ, কাজী মোস্তাফা, কাজী আলীম, নাসির উদ্দিন, পারভেজ মুন্সী, মনির কাজী, শরীফ মামুন।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে ইউরোপে আন্দোলনের হুমকি ইতালি যুবদলের

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০১ ১৪:২০:৫৬

"যুগে-যুগে, কালে-কালে যুবকদের মাধ্যমেই বদলে গেছে অনেক ইতিহাস। রচিত হয়েছে নতুন অধ্যায়। আর এই যুব শক্তিকে কাজে লাগিয়েই দেশ ও দেশের মানুষের ভোটের অধিকার সহ গনতন্ত্র ও  পুনরায় ফিরিয়ে আনতে হবে। সেই সঙ্গে  কারাগার থেকে মুক্ত করে আনতে হবে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে"-জাতীয়তাবাদী যুবদল ইটালী শাখা কর্তৃক আয়োজিত একটি প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি ইটালী শাখার সাধারন সম্পাদক ঢালী নাসির উদ্দিন একথা বলেন। প্রধান অতিথি সহ বিশেষ অতিথিরা বলেন" বি এন পি যেন আগামী নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে না পারে এজন্যই বেগম জিয়া কে অন্তরীণ করে রাখা হয়েছে। কারণ সরকার জানে বি এন পির জনপ্রিয়তা ১৬ কোটি জনতার কাছে। কিন্ত বেগম জিয়া মুক্তি না দিলে প্রতিটি ঘরে ঘরে  রয়েছে জিয়ার সৈনিকরা। যারা  আন্দোলন ও সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে তাদের নেত্রী কে মুক্ত করে আনবে"।

স্মরণ কালের এই প্রতিবাদ সভার সভাপতিত্ব করেন যুব দল ইটালী শাখার সভাপতি জাকির হোসেন গনি। পরিচালনা করেন যৌথ ভাবে যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন মিয়াজী। ইটালীর রাজধানী রোমে পিয়াচ্ছা ভিক্টোরিয়াস্থ একটি চাইনিজ রেস্টুরেন্ট আয়োজিত এই প্রতিবাদ সভার বিশেষ অতিথি হিসেবে  বক্তব্য রাখেন  ইটালী বিএনপির সহসভাপতি আব্দুর রহমান রবিন, মইনুল আলম খোকন, শাহজাহান তালুকদার, মোঃ জহিরুল আলম, মাসুম বিল্লাহ,  হাজী নুরে আলম, আব্দুল কাদের বেপারী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ্ মোঃ তৌহিদ কাদের, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান রতন, রোম মহানগর বিএনপির সাধারন সম্পাদক কাজী আবুল বাসার, ইটালী বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আল আমিন বিশ্বাস, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ন খান, প্রচার সম্পাদক মৃধা শহিদুল ইসলাম, সহ দপ্তর সম্পাদক বেলাল হোসাইন, শ্রম বিষয়ক মোঃ হোসেন, সমবায় বিষয়ক সম্পাদক কাশেম পাটোয়ারী, প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মোতালেব লিটন, সহ প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক জলিলুর রহমান, রোম মহানগর বি এন পি সিনিয়র সহ সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মৃধ্যা, আবু সাইদ।

ইটালী  যুবদলের সভাপতি জাকির হোসেন গনি এবং সাধারন সম্পাদক ওমর ফারুক তাদের বক্তব্যে বলেন" ইটালী যুব দল সব সময়ই ইটালী বিএনপির সঙ্গে প্রতিটি আন্দোলন ও সংগ্রামে ছিল এবং ভবিষ্যতে ও থাকবে। সেই সঙ্গে বাংলাদেশ জাতীয়তা বাদী দল বি এন পির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কে মিথ্যা মামলায় কারাগারে রাখার জন্য তীব্র ভাবে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়।" তারা আরো বলেন " রাজনীতিতে প্রতিযোগিতা থাকতে পারে কিন্তু প্রতি হিংসা আমাদের বর্জন করতে হবে। দেশে বি এন পি কে কোন সভা ও সমাবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। কোন গনতন্ত্রের দেশে এমন হয়না। যা বর্তমানে বাংলাদেশের এই সরকার করছে। বক্তারা অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার দাবী জানান।"

আরো বক্তব্য রাখেন ইটালী যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি এ কে আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম ও ফরহাদ হোসেন রাসেল, যুব নেতা তৌহিদ সুমন, নাপলী যুব দলের সভাপতি আবু নাসির, সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম সোহাগ, নাপলী মহানগর বিএনপির সভাপতি ফরহাদ মাতবর, সাধারন সম্পাদক সৈয়দ মাহি ও  সুলেমান বেগ।

মুহুর্মুহু শ্লোগান ও প্রতিবাদের ভাষায় বার বার প্রতিধ্বনিত হয় এই রেস্টুরেন্টের বিশাল এই হলরুম। প্রতিবাদ সভায় ইটালী বি এন পির অন্যান্য অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও নাপলী ও তেরেসিনা থেকে বি এন পির নেতা ও কর্মীরা অংশ গ্রহণ করে।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বর্ণাঢ্য আয়োজনে ব্রঙ্কসে বিএসিএ’র পথ মেলা ॥ মানুষের ঢল

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-৩০ ১২:৪৭:৫০

বাংলাদেশী আমেরিকান কালচারাল এসোসিয়েশন (বিএসিএ)-এর আয়োজনে গত ২৪ জুন রোববার বাংলাদেশী অধ্যুষিত ব্রঙ্কসের ওয়াটার বুরি এভিনিউতে পঞ্চম ব্রুশ ফিসার বাংলা মেলা-২০১৮ অর্থাৎ পথমেলা অনুষ্ঠিত হয়। বর্ণাঢ্য আয়োজেনের এই পথমেলায় প্রাণের আবেগ আর হৃদয়ের ছোঁয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশীরা পুরো এলাকা নতুন আলোয় উদ্ভাসিত করে তুলেছিলেন। রং বে রং আর বাহারী সাজে সেজে উঠেছিল ব্রঙ্কসের জেরিগা এভিনিউ সংলগ্ন সমগ্র এলাকা। বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলে মেলার কার্যক্রম। তবে দুপুরের পর শুরু হওয়া মেলা পূর্ণতা পায় পড়ন্ত বেলায়। মেলায় নামে মানুষের ঢল। সর্বস্তরের মানুষের পদভারে মেলাস্থল পরিণত হয় জনসমুদ্রে। মে কমিউনিটিতে স্ব স্ব ক্ষেত্রে অবদানের জন্য মেলায় ৯জন বিশিষ্ট ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানকে সম্মানিত করা হয়। মে কমিউনিটিতে স্ব স্ব ক্ষেত্রে অবদানের জন্য মেলায় ৯জন বিশিষ্ট ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানকে সম্মানিত করা হয়। মেলায় কমিউনিটিতে স্ব স্ব ক্ষেত্রে অবদানের জন্য মেলায় সঙ্গীত শিল্পী কৃষ্ণা তিথি ও রোকসানা মির্জা সহ ৯জন বিশিষ্ট ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানকে ষ্টেট  ও সিটি কাউন্সিল থেকে সম্মানিত করা হয়।
মেলার দিন অর্থাৎ উইকেন্ডের ছুটির দিন ও চমৎকার আবহাওয়ায় মেলায় দর্শক সমাগম হয় প্রচুর। বেলা যত বাড়তে থাকে নারী-পুরুষ আর শিশুদের পদচারণায় মুখরিত হতে থাকে মেলা চত্ত্বর। মনকাড়া ডিজাইনের ড্রেস ক্রয় ও ঐতিহ্যবাহী দেশী খাবার উপভোগের জন্য ষ্টলগুলিতে ক্রেতাদের ভীড় করতে দেখা যায়। মেলায় বাঙালী খাবার, রকমারী পোষাক, উপহার সামগ্রী, ঐতিহ্যবাহী অলংকার, নিউইয়র্ক সিটি ও স্টেট হেলথ ডিপার্টমেন্টের অনুমোদিত বাংলাদেশী ব্যবস্থাপনায় বিভিন্ন ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী ও স্বাস্থ্য সেবা সহ বিভিন্ন ধরনের ষ্টল ছিলো।
এক গুচ্ছ বেলুন উড়িয়ে মেলা উদ্বোধন করেন এটর্নী ব্রুস ফিশার। অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ছিলেন মূলধারার রাজনীতিক আব্দুস শহীদ, জেবিবিএ’র সভাপতি শাহ নেওয়াজ, ওয়েল কেয়ারের সিনিয়র ম্যানেজার সালেহ আহমদ, বিএসিসি’র প্রেসিডেন্ট এডভোকেট এন মজুমদার, নর্থ ব্রঙ্কস বাংলাদেশী কমিউনিটির সাধারণ সম্পাদক কাউসার আহমেদ, বাংলাদেশী আমেরিকান ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক সোসাইটির সভাপতি সোলেমান আলী, লাকসাম ফাউন্ডেশনের সভাপতি আব্দুস তিতুমীর, ওসমানী নগর কল্যাণ সমিতির সভাপতি বশীর আহমেদ প্রমুখ।
উদ্বোধনী পর্বে বিএসিএ’র সভাপতি আব্দুল হাসিম হাসনু, সাধারণ সম্পাদক আহবাব চৌধুরী খোকন, বিএসিসি’র প্রেসিডেন্ট এডভোকেট এন মজুমদার, মুলধারার রাজনীতিবিদ আব্দুস শহীদ, মেলা কমিটির সদস্য সচিব সারওয়ার চৌধুরী, প্রধান সমন্বয়কারী সৈয়দ ইলিয়াস খসরু, আহ্বায়ক মোশাহিদ চৌধুরী, যুগ্ম আহ্বায়ক লোকমান হোসেন লুকু, সমন্বয়কারী সাদী মিন্টু, যুগ্ম সদস্য সচিব আলমগীর কবির শামী, মাকসুদা আহমেদ, জে মোল্লা সানি, মোহাম্মদ রানা মিয়া, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট আবুল খায়ের আকন্দ, শাহ কামাল উদ্দিন, সোহেল আহমদ, ইয়াকুব আলী, আলতাফ মিয়া, বরকত চৌধুরী সহ কমিউনিটির বিপুল সংখ্যক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উদ্বোধনী পর্ব পরিচালনা করেন আহবাব হোসেন চৌধুরী খোকন।
পরে পথ মেলার সংকলন ‘মোহনা’র মোড়ক উন্মোচন করেন বিশিষ্ট রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টর মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্ধ ছাড়াও শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন মেলা কমিটির সদস্য সচিব সারওয়ার চৌধুরী, মেলা কমিটির আহ্বায়ক মোশাহিদ চৌধুরী, মাকসুদা আহমেদ, রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
বিএসিএ’র সাধারণ সম্পাদক আহবাব চৌধুরী খোকন ইউএনএ প্রতিনিধিকে জানান, কমিউনিটিতে স্ব স্ব ক্ষেত্রে অবদানের জন্য মেলায় ৯জন বিশিষ্ট ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানকে সম্মানিত করা হয়। এরা হলেন সঙ্গীত শিল্পী কৃষ্ণা তিথি ও রোকসানা মির্জা, সংগঠক আব্দুল হাসিম হাসনু, আহবাব চৌধুরী খোকন ও মাকসুদা আহমদ এবং বিশিষ্ট ব্যবসায়ী লোকমান হোসেন লুকু ও মোহাম্মদ আলী, বাংলা টাউউনের কাওসারুজ্জামান কাওসার, এশিয়ান ড্রাইভিং স্কুলের সাইদুর রহমান লিংকন-কে সম্মানিত করা হয়। এদের মধ্যে নিউইয়র্ক ষ্টেট সিনেট ও নিউইয়র্ক সিটি’র পক্ষ থেকে সাইটেশন পান শিল্পী কৃষ্ণা তিথি সহ মাকসুদা আহমদ, লোকমান হোসেন লুকু, মোহাম্মদ আলী, কাওসারুজ্জামান কাওসার, সাইদুর রহমান লিংকন। অপরদিকে নিউইয়র্ক সিটি সিটি’র পক্ষ থেকে সাইটেশন পান আব্দুল হাসিম হাসনু, আহবাব চৌধুরী খোকন ও শিল্পী রোকশানা মির্জা।
নিউইয়র্ক ষ্টেট সিনেটর লুইস সেপুলভেদা এবং নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলম্যান রাফায়েল স্পানিয়েল ও কাউন্সিলম্যান রুবিন দিয়াজ-এর পক্ষ থেকে উল্লেখিতদেরকে ‘সিনেট’ ও ‘সিটি কাউন্সিল’ রিকগনেশন/সাইটেশন প্রদান করা হয়। এটর্নী ব্রুস ফিসার ও কাউন্সিলম্যান রুবিন দিয়াজ সংশ্লিস্টদের হাতে সাইটেশন তুলে দেন।  
মেলার শুরু থেকেই উন্মুক্ত মঞ্চে ছিলো দেশ ও প্রবাসের শিল্পীদের পরিবেশিত গান। এছাড়াও মেলায় বিশেষ আকর্ষণীয় ছিলো র‌্যাফল ড্র। প্রথম পুরস্কার ছিলো- নিউইয়র্ক ঢাকা নিউইয়র্ক বিমান টিকেট, দ্বিতীয় পুরস্কার ছিলো ৪২ ইঞ্চি টেলিভিশন এবং তৃতীয় পুরস্কার  ছিলো একটি ল্যাপটপ।
পথমেলায় দেশ ও প্রবাসের সঙ্গীত শিল্পীদের মনমাতানো গান আর সুরের মূর্ছনায় মেতেছিলেন দেশী-বিদেশী সবাই। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশ থেকে আগত জনপ্রিয় শিল্পী এস আই টুটুল ও সেলিম চৌধুরী, প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পী কৃষ্ণা তিথি, রোকসানা মির্জা, শাহ মাহবুব, রানো নেওয়াজ, শারমিন তানিয়া, কামরুজ্জামান বকুল, নাজিয়া লীনা, রোজী কবির প্রমুখ।
মেলাটি সফল করার জন্য আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আব্দুল হাসিম হাসনু ও সাধারণ সম্পাদক আহবাব চৌধুরী খোকন সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
পথমেলা উপলক্ষে ‘মোহনা’ নামে একটি স্মরণিকা প্রকাশ করা হয়। মেলার গ্রান্ড স্পন্সর ছিলেন বিশিষ্ট সমাজসেবী ও রিয়েল ইষ্টেট ইনভেষ্টর মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ব্রাসেলসে ইউই পার্লামেন্টে বাংলাদেশের উন্নয়ন ও ভবিষ্যৎ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-৩০ ১২:৪২:৪২

সম্প্রতি বাংলাদেশ নিম্ন আয়ের দেশ থেকে মাধ্যম আয়ের দেশের স্বীকৃতি পাওয়া, সন্ত্রাস নির্মূল, দারিদ্র বিমোচন, আর্ত সামাজিক উন্নয়ন, নারীর ক্ষমতায়ন অর্থনৈতিক মুক্তি ও বিশ্ব শান্তির পক্ষে বাংলাদেশের  প্রধানমন্ত্রী, শেখ হাসিনা এবং তার সরকারের ধারাবাহিক অভূতপূর্ব সাফল্যকথা বিশ্বময় ছড়িয়ে দেবার নিমিত্বে ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসাবে বেলজিয়াম আওয়ামী লীগ ইউরোপীয়ান পার্লামেন্টে কনফারেন্সের আয়োজন করে।
ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের  'এম ই পি' ও দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক প্রতিনিধি দলের ভাইস প্রেসিডেন্ট 'মি: রিচার্ড কর্বেটের' সভাপতিত্বে এবং  কনফারেন্সের আয়োজকদের  সমন্বয়ক, বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর চৌধুরী রতনের সঞ্চালনায় এতে পেনেলিস্ট ও বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মি সাজ্জাদ করিম,এম ই পি, বেলজিয়াম, ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাদত হোসেন, বাংলাদেশের বন্ধু, দক্ষিণ এশীয়ান ডেমোক্রেটিক ফোরামের পরিচালক ও সাবেক পর্তুগিজ এম ই পি, মি. 'পাওলো কসাকা' সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের  সভাপতি শ্রী অনিল দাস গুপ্ত,সাধারণ সম্পাদক এম এ গনি, সম্মেলনের উদ্যোক্তা ও সমন্বয়ক ও সর্ব ইউরোপীয় আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক
খোকন শরীফ।
সম্মেলনে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত অতিথিদের উক্ত সম্মেলনে আসা ও সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ প্রদান করে
স্বাগত বক্তব্য রাখেন সম্মেলনের উদ্যোক্তা ও বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল হক। তিনি বাংলাদেশের উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সকলের আরো অধিক সহযোগীতার আহব্বান জানান এবং এই সম্মেলনের সাফল্য কামনা করেন।
সম্মেলনের সভাপতি 'মি: রিচার্ড কর্বেট' তার মূল বক্তব্যের পূর্বে সম্মেলন উপলক্ষে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রদত্ত বাণী  পাঠ করে শোনান, এর পর তিনি তার মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন। তিনি বিভিন্ন সেক্টরে বাংলাদেশের উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন, এবং এই উন্নয়ন যাত্রাকে ধরে রাখার জন্য সবাইকে আরো বেশি সক্রিয় ভূমিকা পালনের উপর জোড় দেন।  আগামী নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন সচ্চ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য তারা সচেষ্ট থাকবেন এবং এজন্য সার্ভিক ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন বাংলাদেশকে সহযোগিতা করবেন। তিনি রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে বলেন, যুগ যুগ ধরে রোহিঙ্গাদের এই সমস্যা জিইয়ে রাখা সম্ভব না। তাদের পরবর্তী প্রজন্মকেও এখানে বেড়ে উঠতে দেয়া যায় না। তারা রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আরো বেশি সক্রিয় ভূমিকা রাখবেন।
তিন পর্বের সম্মেলনের, দ্বিতীয় পর্বে বক্তব্য রাখেন ইউ কে, লেভার পার্টি থেকে নির্বাচিত এম ই পি সাজ্জাদ করিম। তার দীর্ঘ বক্তব্যে বাংলাদেশের প্রশংসার করেন। তিনি বাংলাদেশের সাথে দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশের সাথে বিভিন্ন উন্নয়ন সূচকের প্রশংসনীয় উর্ধ্বস্থানের তুলনা মূলক ব্যাখ্যা করেন। এবং বলেন বাংলাদেশ এশিয়া ও ক্ষেত্রভেদে বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। তিনি ই ইউ সহ বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী দেশ ও সংস্থাকে বাংলাদেশের প্রতি সহযোগিতার হাতকে আরো প্রসারিত করার আহব্বান জানান।
সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ সরকারের উন্নয়ণের বিশদ ব্যাখ্যা তুলে ধরার পাশাপাশি ই ইউ সহ সকল উন্নয়ন সহযোগীকে বাংলাদেশ সরকারের সাথে থাকার অনুরোধ জানান।

সম্মেলনের সমন্বয়ক এম এম মোর্শেদ তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের আজকের এই উন্নয়ন মূল চাবী হিসাবে কাজ করেছে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সাহসী ও বলিষ্ঠ নেতৃত্ব। গত দশ বৎসর যাবৎ দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা। তিনি বলেন আগামীতে এদেশকে আরো এগিয়ে নিয়ে উন্নত বিশ্বের কাতারে দাড় করতে হলে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ও সরকারের ধারাবাহিকতা ও যে জরুরি এদিকে সকল উন্নয়ন সহযোগীদের গুরুত্ব দেয়া জরুরী।
এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন ব্যারিস্টার নাদিয়া, ড. বিদ্যুৎ বড়ুয়া।
 উক্ত সম্মেলনে যারা উপস্থিত ছিলেন  আই সির পক্ষ থেকে নিযুক্ত ই ইউ রাষ্ট্রদূত, মিসেস ইসমত জাহান। বাসুগ সভাপতি বাবু বিকাশ বড়ুয়া, ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ ফোরামের সভাপতি আহম্মেদ আনছার উল্লাহ,সাংবাদিক রিয়াজ হোসেন। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন, ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সম্মানিত নেত্রী বৃন্দ, ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে তথা ফ্রাঞ্চ, জার্মানী, হল্যান্ড, স্পেন, পর্তুগাল, সুইডেন, ইউ কে, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, ইটালী, সুইজারল্যান্ড
সহ ইউরোপ ও বাংলাদেশ থেকে আগত আওমী লীগ, যুব লীগ, ছাত্রলীগ ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের বিপুল সংখ্যাক নেতা কর্মী। এছাড়া বেলজিয়াম আওয়ামী লীগ যুবলীগ, বঙ্গবন্ধু  পরিষদ, ছাত্র লীগ ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঘঠনের বিপুল পরিমাণ নেতা কর্মীর উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত।
সবশেষে ছিল সবার জন্য উন্মুক্ত প্রশ্ন উত্তর পর্ব এতে সবার প্রশ্নের উত্তর দেন রিচার্ড করবেট।

বিস্তারিত খবর

মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতি ইতালীর আয়োজনে কাবাব পার্টি অনুষ্ঠিত

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৯ ১৪:৩৫:২৬

ইতালীতে প্রবাসী বাংলাদেশী মহিলা সংগঠন মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতি ইতালীর উদ্দোগে এক কাবাব পার্টির আয়োজন করা হয়েছে। ইউরোপে গরমের সময়টা বিশেষ করে বেশ আনন্দ উল্লাসে মধ্য দিয়ে কাটানোর চেষ্টা করেন প্রাবাসীরা।

এ দিকে সেই আমেজ কাটেনোর জন্য মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির সভাপতি লায়লা শাহ' ও সাধারন সম্পাদক শামীমা জামান সহ সমিতির সকল নেতৃবৃন্দদের আমন্ত্রণে গত রবিবার ঈদ পূর্ণমিলন অনুষ্ঠানটি সফল ভাবে সম্পন্ন হওয়ায় গতকাল বৃহস্প‌তিবার সন্ধ্যায় এক কাবাব পার্টির আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানটি পার্কে থাকলেও বৃষ্টির বিলম্ভতার করনে সমিতির সভাপতি লায়লা শাহ'র নিজ বাসভবনে এক কাবাব পার্টিটি অনুষ্ঠিত হয়। এতে যোগদেন করেন রোমে বসবাসরত সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দে সহ মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির সকল নেতৃবৃন্দেরা। অনুষ্ঠানে নারী, পুরুষ, শিশুরাও মেতে ওঠে আনন্দ উল্লাসে। এক ভিন্ন ধর্মী আয়োজন যেন মুগ্ধ করে দেয় সবাইকে।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিরা জানান মনোরম পরিবেশে প্রবাসে থেকেও মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির নেতৃবৃন্দেদের এ আয়োজনটি প্রশংসনিয়। এবং আমন্ত্রিত অতিথিরা মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির সকল নেতৃবৃন্দদের ধন্যবাদ জানান। পরিশেষে সমিতির সভাপতি লায়লা শাহ্ আমন্ত্রিত সুসিল সমাজের নেতৃবৃন্দে সহ মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির সকল নেতৃন্দেরা উপস্থিত হওয়ায় ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইতালীতে ‘মানুষ মানুষের জন্য' সংগঠনের মিলনমেলা

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৮ ১৬:৫৬:১৬

ইতালীর আরেচ্ছো শহরে প্রবাসী বাংলাদেশীদের জনপ্রিয় সংগঠন ” মানুষ মানুষের জন্য” এর উদ্যোগে, অনুস্ঠিত হল ঈদ পূর্নমিলনী অনুষ্ঠান।সংগঠনের সভাপতি ফরহাদ হোসেন খোকন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথী হিসাবে উপ্সথিত ছিলেন ইমিগ্রেশন কনসে্লার , ফিরেন্স ইতালির মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান বোরহান

বিশেষ অতিথী ছিলেন আরেচ্ছোর বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী মোহাম্মদ বাবুল ।
আমন্ত্রিত অতিথীরা সংগঠনের দেশ বিদেশের সকল প্রকার সামাজিক কাজে মানুষ মানুষের জন্য সংগঠনের পাশে থাকার কথা বলেন । সংগঠনের সভাপতি ফরহাদ হোসেন খোকন প্রথম সময়কে জানান মানুষ মানুষের জন্য এই সংগঠন্টি প্রবাসিদের কে নিেয় কাজ করেছে মানুষের জন্য করে কাজে শুধু প্রবাসে নয় দেশ বিদেশে সবার পাশে থাকবে।

প্রতিষ্ঠানের সার্বিক সহযোগীতায়,অপু আলীম । রিতু মিয়া ।রেজাউল করিম এর সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে- অনুষ্ঠানে বাচ্চাদের চিএাংকন,কবিতা,ও হামনাথ সহ বাংলার পিঠা মেলা প্রতিয়োগিতা অনুষ্ঠিত হয়।
সংগঠনের লোকমান হোসেন । জাহাংগীর হোসেন । সাইফুল ইসলাম । মাসুম বিল্লাহ । সাইফুল ।পরমান উল্লাহ । রোবেল ইসলাম । সোহেল রানা ।সেতু মিয়া । পলি আলমগীর । সাবরিন সোহানা ।তানিয়া আক্তার ।ইয়াসমিন সুলতানা । ফরিদা পারবীন । নুসরাত সালমান এর সহযোগিতায় প্রতিয়োগীতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন প্রধান অতিথি।এছাড়াও। আরেচ্চোর সফল ব্যবসাহীদের মদ্ধ্যে ২১টি প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা ক্রেষ্ঠ প্রদান করেন সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতকর্মীরা।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বেন’র ২০ বছরপূর্তি অনুষ্ঠান ৩০ জুন ॥ সফল করতে সবার সহযোগিতা কামনা

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৮ ১৬:৫৩:৩৩

বাংলাদেশ পরিবেশ নেটওয়ার্ক (বেন)-এর বিশ বছর পূর্তি উপলক্ষে ৩০ জুন শনিবার জ্যাকসন হাইটসের পিএস ৬৯ মিলনায়তনে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে। সকাল ৯টা থেকে শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত অনুষ্ঠান চলবে। অনুষ্ঠানে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক প্রবাসী এবং বাংলাদেশ থেকে আগত পরিবেশ বিশেষজ্ঞ এবং পরিবেশ আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ যোগ দেবেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পরিবেশের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে আলোচনা, পর্যালোচনা এবং পরিবেশ আন্দোলনের দীর্ঘকালের অভিজ্ঞতা এবং ভবিষ্যত করণীয় আলোচিত হবে। অনুষ্ঠানটি সফল করতে সকল প্রবাসীর সার্বিক সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে।
বেন’র বিশ বছরপূর্তি উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে বেন-এর নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথা বলেন। সিটির জ্যাকসন হাইটস্থ বাংলাদেশ প্লাজা’র কনফারেন্স কক্ষে গত ২৬ জুন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সাংবাদিক সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য এবং অনুষ্ঠানের কর্মসূচী তুলে ধরেন অনুষ্ঠান আয়োজন কমিটির আহ্বায়ক নিনি ওয়াহেদ।
সাংবাদিক সম্মেলনে বেন-এর বিশ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানের সফলতা কামনা করে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন নিউইয়র্ক সফররত বাংলা একাডেমীর মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান ও নিউইয়র্ক বইমেলা-২০১৮’র আহ্বায়ক, মুক্তিযোদ্ধা ও নিউজার্সীর প্লেইন্স বরো সিটির কাউন্সিলম্যান ড. নুরুন নবী। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন বেন-এর ড. নজরুল ইসলাম এবং সংগঠনের অন্যতম উপদেষ্টা পানি বিশেষজ্ঞ ড. সুফিয়ান খন্দকার। স্বাগত বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠান আয়োজন কমিটির সদস্য সচিব মোহাম্মদ হারুন।
সাংবাদিক সম্মেলনে শামসুজ্জামান খান বেন-এর অনুষ্ঠানের সফলতা কামনা করে বলেন, বাংলাদেশের পরিবেশ উন্নয়ন করতে হবে সবার আগে দরকার সামাজিক সচেতনতা। সরকারের একার পক্ষে সার্বিকভাবে পরিবেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। এজন্য সকল মহলকেই এগিয়ে আসতে হবে। সেই ক্ষেত্রে প্রবাসী বাংলাদেশীরা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে পারেন।
ড. নূরুন নবীও অনুষ্ঠানের সফলতা কামনা করে বলেন, বেন আর বাপা বাংলাদেশের পরিবেশ আন্দোলন নিয়ে সাধ্যমতো কাজ করে চলেছে। সরকারও এগিয়ে আসছে। তারপরও সমস্যার সমাধান হচ্ছে না। তিনি বলেন, বাংলাদেশের পরিবেশ সমস্যা একটি ভয়াবহ সমস্যা। এই সমস্যা মোকাবেলায় সচেতনতার সাথে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। 
সাংবাদিক সম্মেলনে নিনি ওয়াহেদ বলেন, বেন-এর বিশ বছর পূর্তি উপলক্ষে ৩০ জুন শনিবার দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার মধ্যে অন্যতম আকর্ষন থাকবে সাংস্কৃতিক পর্ব। যাতে পরিবেশের ইস্যু উপজীব্য করে নাটিকা, কবিতা আবৃত্তি, সঙ্গীত এবং নৃত্য অন্তর্ভূক্ত থাকবে। এ উপলক্ষ্যে পরিবেশের উপর শিশুদের চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা আয়োজন থাকবে।
এছাড়াও বাংলাদেশের পরিবেশের বিভিন্ন বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপনা ও আলোচনায় অংশ নেবেন লক হ্যাভেন বিশ্ববিদ্যালয় ড. খালেকুজ্জামান, জর্জ মেসন বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. আবুল হুসাম, আর্কাদিসের ড. সুফিয়ান খন্দকার ও ঢাকা ওয়াসার প্রকৌশলী তাকসীম খান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন হাওড় অঞ্চলের বন্যা ও অন্যান্য সমস্যা, বাংলাদেশের ভূগর্ভস্থ পানিতে আর্সেনিক সমস্যা, ঢাকা শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে সবুজ অবকাঠামো, সুপেয় পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশনে ঢাকা ওয়াসার সাফল্য বিষয়ে।
অনুষ্ঠানে ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. আহমেদ বদরুজ্জামান, ব্র্যান্ডাইজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. সাজেদ কামাল, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. খন্দকার মোকাদ্দেম হোসেন, রিভারসাইড কলেজের ড. দীপেন ভট্টাচার্য। তাঁরা বাংলাদেশে আণবিক বিদ্যুতের উপযোগিতা, বাংলাদেশে সৌর শক্তির ব্যবহার, বর্তমান ও ভবিষ্যত, উপকূলীয় অঞ্চলের জনগণের জীবিকার উপর জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাত, বঙ্গীয় বদ্বীপ, পলিভরণ প্রক্রিয়া এবং জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে আলাদা আলাদা প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন।
এছাড়াও পরিবেশ আন্দোলনের অভিজ্ঞতা ও শিক্ষা বিষয়ে আলোচনা করবেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সাধারণ সম্পাদক ড. আব্দুল মতিন, বাংলাদেশ পরিবেশ নেটওয়ার্কের (বেন) (ওহায়ো ষ্ট্রেট বিশ্ববিদ্যালয়) ড. সালেহ তানভীর, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) যুগ্ম সম্পাদক শরীফ জামিল অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। পরিবেশ আন্দোলনে তরুণ প্রজন্মের ভূমিকা নিয়েও থাকবে নবীন প্রজন্মের বিশেষ আলোচনা।
সাংবাদিক সম্মেলনে বাংলাদেশের পরিবেশ রক্ষায় বেন-বাপা’র কর্মকান্ড, সরকারী উদ্যোগ ও সম্পর্ক, ঢাকার জলাবদ্ধতা, বুড়িগঙ্গা নদীর পরিবেশন দূষণ ও নাব্যতা, টিপাইমুখী বাঁধ, রূপপুর প্রকল্প, তিস্তা প্রকল্প প্রভৃতি বিষয়েও উপস্থিত সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন এবং অনুষ্ঠানের সেমিনার সিম্পোজিয়ামে বিষয়গুলো আলোচনায় স্থান পাবে বলে বেন নেতৃবৃন্দ জানান।
এক প্রশ্নের উত্তরে বেন-এর ড. নজরুল ইসলাম জানান, বেন-এর আর্থিক সীমাবদ্ধতার মাঝেও বেন বাংলাদেশের পরিবেশের উন্নয়নে সরকারের সাথে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করে চলেছে। সরকারের পরিবেশন রক্ষা বিষয়ক জাতীয় কমিটি জেলা পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে এবং এসব কমিটিতে বেন/বাপা সম্পৃক্ত আছে। ফলে বেন/বাপা’র পক্ষ থেকে সরকারকে পরিবেশন রক্ষায় নানা পরামর্শ/চাপ দেওয়া ছাড়াও বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করা হচ্ছে।
অপর এক প্রশ্নের উত্তরে বেন-এর ড. নজরুল ইসলাম জানান, বেন একটি স্বেচ্ছাসেবীমূলল ইন্টারনেট/ওয়েব সাইট ভিত্তিক সংগঠন এবং মূলত: পরিবেশ বিষয় নিয়েই বেন-এর কাজ। সদস্যদের অনুদানে এর কর্মকান্ড পরিচালিত হয় এবং ফান্ড রেইজিং-এর মাধ্যমে ফান্ড তৈরী করা হয়। বেন-এর আয়-ব্যয়ে ১০০% সততা নিশ্চিত করা হয় এবং বাংলাদেশ ছাড়াও ফ্রান্স, জাপান, অষ্ট্রেলিয়া প্রভৃতি দেশে কার্যকর বেন-এর শাখা রয়েছে। তিনি বলেন, যেকেউ যেকোন সময় বেন-এর সদস্য হতে পারেন আবার ভালো না লাগলে সদস্য পদ ছেড়ে দিতে পারেন। 
ড. আবু সুফিয়ান বলেন, নিউইয়র্কের পরিবেশ আন্দোলনের আলোকে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট তুলে ধরা হবে দিনব্যাপী নানা সেমিনার-সিম্পোজিয়ামে। এছাড়াও জয়বায়ু পরিবর্তন অভিঘাত বিষয়ক ১০ মিনিটের ভিডিও তুলে ধরবেন আমেরিকান সারাহ ক্যামেরন সুনডে। বাংলাদেশের সেন্ট মর্টিন্স দ্বীপে ২৪ ঘন্টা অবস্থান করে এই ভিডিও তৈরী করা হয়েছে। এছাড়াও ঢাকা শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে সবুজ অবকাঠামো’র কথাও তুলে ধরা হবে।
এদিকে বেন সূত্রে জানা গেছে, বেন-এর বিশ বছর পূর্তির দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের সাংস্কৃতিক পর্বে থাকবে খ্যাতিমান ছড়াকার লুৎফর রহমান রিটন রচিত পরিবেশ বিষয়ক ছড়ানাট্য নিয়ে বাংলাদেশের বিশিষ্ট অভিনয়শিল্পী শিরীন বকুলের একক অভিনয়। থাকছে বাংলাদেশের খ্যাতিমান রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী লিলি ইসলাম, সঙ্গীত শিল্পী কাবেরী দাশের একক পরিবেশনা এবং দলগত নৃত্য।
শিশু-কিশোর প্রতিযোগিতার মধ্যে থাকবে রচনা লিখন ও চিত্রাঙ্কন (বাই ল্যাঙ্গুয়েল)। সকাল ১০টায় এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিযোগিতায় ৫-৮ বছর বয়সীদের জন্য বাংলাদেশের ৫টি করে ফুল ও ফলের নাম, ৯-১২ বছর বয়সীদের জন্য ‘বৃষ্টির প্রয়োজনীয়তা’,  ১৩-১৬ বছর বয়সীদের জন্য ‘আমরা কিভাবে পরিবেশ সংরক্ষণ করতে পারি?’। এছাড়াও চিত্রাঙ্কন থাকবে। এতে ৫-৮ বছর বয়সীদের জন্য ফুলের বাগান,  গ্রাম বাংলার চিত্র এবং প্রকৃতিতে জলবায় পরিবর্তনের প্রভাব।
উল্লেখ্য, সাংবাদিক সম্মেলনে বেন-এর বিশ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য নিনি ওয়াহেদকে আহবায়ক এবং মোহাম্মদ হারুনকে সদস্য সচিব করে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

৭-৮ জুলাই মুনা নভেনশন-২০১৮ ॥ সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৮ ১৬:৫১:৩০

মুসলিম উম্মাহ অফ নর্থ আমেরিকা (মুনা) আয়োজিত চলতি বছরের ‘মুনা কনভেনশান-২০১৮’ সফল করতে সবার সার্বিক সহযোগিতা কামনা করে মুনা নেতৃবৃন্দ বলেছেন, আগামী ৭-৮ জুলাই শনি ও রোববার ফিলাডেলফিয়ায় অবস্থিত পেনসিলভেনিয়া কনভেনশন সেন্টারে এবারের সম্মেলন আয়োজন করা হয়েছে। কনভেনশনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন এবং এতে ১০ হাজার লোকের সমাবেশ ঘটবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। চলছে অংশগ্রহণকারীদের রেজিষ্ট্রেশন। মুনা নেতৃবৃন্দ বলেন, সবার মাঝে শান্তির ধর্ম ইসলামের দাওয়াত পৌছে দেয়াই মূলত: এই কনভেনশনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। কনভেনশনের মূল থিম হচ্ছে ‘মুহাম্মদ (সা:) শান্তি ও রহমতের পয়গম্বর’।
‘মুনা কনভেনশান-২০১৮’  উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথা বলেন। সিটির জ্যাকসন হাইটস্থ পালকি সেন্টারে গত ২৬ জুন মঙ্গলবার রাতে এই সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ও সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন মুনা কনভেনশনের চেয়ারম্যার আবু আহমেদ নূরুজ্জামান। শেষে সমাপনী বক্তব্য রাখেন মুনা’র ন্যাশনাল এক্সিকিউভিট ডাইরেক্টর হারুন অর রশীদ। এসময় মুনা নিউইয়র্ক জোন নর্থের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল আরিফ মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন। সাংবাদিক সম্মেলন পরিচালনা করেন মুনা নিউইয়র্ক সাউথ জোন কর্ম পরিষদ সদস্য মাহবুবুর রহমান।

সাংবাদিক সম্মেলনে মুনা কনভেনশনের চেয়ারম্যার আবু আহমেদ নূরুজ্জামান তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, মুনা এ বছরের ৭-৮ জুলাই ফিলাডেলফিয়ায় অবস্থিত পেনসিলভেনিয়া কনভেনশন সেন্টারে বিশাল এক সম্মেলন/কনভেনশন করতে যাচ্ছে। যে সম্মেলন বাংলা ভাষাভাষীদের সর্ববৃহৎ ইসলামিক মিলনমেলা। এই সম্মেলন মুসলিম জীবনে গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। আমরা মনে করি, মুনা একটি আদর্শিক দাওয়াতী ও সামাজিক সংগঠন। মানুষের ব্যক্তিগত, নৈতিক ও সামাজিক মান উন্নয়নের জন্য সার্বিক প্রচেষ্টা চালানোর মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের নিমিত্তে প্রতিষ্ঠিত হয় মুনা। এই সংগঠনটি ১৯৯০ সালে নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে কর্পোরেশন-ভুক্ত করা হয়। মুনা এদেশে মুসলিমদেরকে প্রাত্যহিক সামাজিক ও ধর্মীয় কর্মকান্ড এবং জাতীয় নাগরিক জীবনে ভূমিকা পালনের নিমিত্তে সংগঠিত করতে ঐকান্তিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, যাতে করে এই সমস্ত ব্যক্তিবর্গ আল্লাহ এবং তার রাসূল হযরত মোহাম্মদ (সা.)এর অনুসরণ ও কমিউনিটির সেবা করে যেতে পারেন সুচারুভাবে।
তিনি বলেন, একটি আদর্শিক সংগঠন হিসাবে মুনা মুসলিমদেরকে আহবান করে তাদের ব্যক্তিগত ও সামাজিক জীবনে ইসলাম পালনের এবং অমুসলিমদের কাছে ইসলামের সঠিক শিক্ষা তুলে ধরতে।
একটি অলাভজনক সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় সংগঠন হিসাবে নিজস্ব স্বতন্ত্র সংবিধান এবং কর্মসূচি ও কর্মপদ্ধতির আলোকেই এ সংগঠনটি পরিচালিত হচ্ছে জন্মলগ্ন থেকে। মুনা প্রধানত ঐ সমস্ত কর্মকান্ড পরিচালনা করে থাকে যাতে করে একজন ব্যক্তিকে সংশোধনের মাধ্যমে সর্বাঙ্গীন ও সামাজিকভাবে কল্যাণকর ব্যক্তিতে পরিণত করা যায়। এ লক্ষ্যে মুনা ব্যক্তিদেরকে আধ্যাত্মিক, নৈতিক এবং সামাজিক-সাংস্কৃতিক শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছে। মুনা চায় এমন সব প্রশিক্ষিত মানব সম্পদ,যারা তাদের ¯্রষ্টা ও প্রতিপালক আল্লাহ তা’আলার সাথে সুসম্পর্ক রক্ষা করে চলে এবং একই সময়ে সমাজের সর্বক্ষেত্রে উৎপাদনমুখী ভূমিকা পালন করে। ইসলামিক শিক্ষার বিভিন্ন কর্মসূচীর আয়োজন করে থাকে; যাতে শিক্ষা দান করা হয় ইসলামের বিভিন্ন দিক ও বিভাগ এবং মানুষের দৈনন্দিন সাধারণ সামাজিক-সাংস্কৃতিক জীবনসম্পর্কিত বিষয়াবলী। মানুষের ব্যক্তিগত মানোন্নয়ন ছাড়াও মুনা স্থানীয় ও জাতীয় জীবনের বিভিন্ন পর্যায়ে নানা সামাজিক ও নাগরিক অধিকার সংশ্লিষ্ট কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করে থাকে। নিজেদের সাধ্য ও সামর্থানুযায়ী মুনা সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের সদস্যদেরকে বিভিন্ন ধরনের দাতব্য ও সমাজকল্যাণমূলক কর্মকান্ডে প্রতিনিয়ত উৎসাহিত ও সংযুক্ত করছে; যাতে করে তারা যুক্তরাষ্ট্র সহ বিশ্বের বিভিন্নস্থানে দুঃস্থ মানবতার পাশে দাঁড়াতে পারে।

আবু আহমেদ নূরুজ্জামান বলেন, মুনা নিজের জনশক্তি ও অন্যান্য মুসলিমদেরকে নিয়ে এমন একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করে দিতে চায় যাতে করে তারা অন্যধর্মাবলম্বী ও ভিন্ন ভাষাভাষী, বর্ণ ও গোত্রের জনগোষ্ঠী এবং প্রতিবেশীদের সাথে পারস্পরিক সংলাপে নিয়োজিত হতে পারে,যার মাধ্যমে অন্ত: ও আন্ত:সাম্প্রদায়িক বোঝাপড়া, সামাজিক প্রসার ও উন্নয়ন ঘটানো যায়। মুনা মনে করে, এ প্রক্রিয়ায় এ সমাজে সৌহার্দ ও শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান নিশ্চিত করা সম্ভব। মুনা আমেরিকায় জাতীয় ভিত্তিক সংগঠন হলেও মুনার প্রাথমিক ফোকাস হচ্ছে বাংলা ভাষাভাষী তথা বাংলাদেশী-আমেরিকান কমিউনিটি। মুনা প্রধানত: বাংলা ভাষাভাষীদের মাঝেই এর কর্মকান্ড পরিচালনা করে থাকে। এদের দুনিয়াবী ও পরকালীন কল্যাণ নিশ্চিত করতেই মুনা তার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এই দেশে বাংলাভাষাভাষী মুসলিমরা ও অন্যান্যরা কিভাবে এখানকার মূলধারার জীবনে অংশ গ্রহণ করে নিজেদের অধিকার নিশ্চিত করবে এবং একই সাথে নিজের আধ্যাত্মিক, নৈতিক ও সাংস্কৃতিক উত্তরাধিকারের সংরক্ষণ করবে সে বিষয়ে মুনা সচেতন। আর তাই মুনা চায় বাংলাদেশী-আমেরিকানরা মুনার কর্মতৎপরতায় বেশি বেশি করে সক্রিয় অংশগ্রহণ করুক। সাথে সাথে বর্তমান তরুণ প্রজন্মকে গড্ডলিকা প্রবাহ থেকে বাঁচাতে মুনা চায় প্রতিটি বাংলা ভাষাভাষী অভিভাবক তাঁদের সন্তানদেরকে ইসলামিক কর্মকান্ডে অংশ গ্রহণ করুক। ইসলামে শ্বাশত বিধানের সাথে সম্পৃক হউক। এক্ষেত্রে মুনার ইয়ুথ সংগঠন ‘মুনা ইয়ুথ’ এবং ‘ইয়াং সিস্টার অফ মুনা’র সাথে সম্পৃক্ত হউক।
তিনি বলেন, বাংলাদেশী-আমেরিকানদের কাছে মুনার কর্মকান্ড তুলে ধরা এবং তাদের জন্য আমেরিকার মূলধারার মুসলিম স্কলার ও নেতৃবৃন্দ থেকে জ্ঞানগর্ভ দিকনিদের্শনা নেয়া এবং নতুন প্রজন্মকে একি ষ্ট্রান্ডারে উন্নতি করার নিমিত্তেই বিগত কয়েকটি কনভেনশনের মতো আরো ব্যাপকভাবে মুনা এবারও আয়োজন করেছে ‘মুনা কনভেনশন’ ২০১৮। এ লক্ষেই এ বছরের কনভেনশনের মূল থীম (কেন্দ্রীয় আলোচ্য বিষয় ‘মুহাম্মাদ (সা.): শান্তি ও রহমতের পয়গম্বর’। কনভেনশনে  ইংরেজী ভাষার আলোচকদের সাথে সাথে থাকবেন বাংলাদেশ ও অন্যান্য দেশ থেকে আগত বাংলা ভাষার আলোচকগণ।
আবু আহমেদ নূরুজ্জামান বলেন, বিশ্বাস করি, আমাদের প্রাত্যাহিক জীবনের সকল সমস্যা সমাধানের সর্বোত্তম পন্থা সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ তায়লা কর্তৃক প্রদত্ত পন্থা। তিনি তার প্রেরিত রাসুল (সা:) কে দিয়ে তা বাস্তবায়ন ক্ষেত্রে দৃষ্টান্ত স্থাপন করে দিয়েছিন। আল- কুরআন আল্লাহ তায়ালা তার স্পষ্ট করে বলে দিয়েছেন। “নিশ্চয় তোমাদের জন্য রাসুলুল্লাহ (সা:) এর জীবনেই রয়েছে অনুকণীয় সর্বোত্তম আদর্শ”। একজন মুসলিম হিসেবে একই সাথে একজন উত্তম মানুষ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার অভিপ্রায়ী প্রতিটি মানুষের জন্য মুহাম্মদ (সা:) এর অনুসরণের কোন বিকল্প নেই। এই শাশ্বত স্বীকৃতিকে সামনে রেখেই মুসলিম উম্মাহর এবারের আয়োজন ‘মুনা কনভেশন’ ২০১৮। আমাদের প্রত্যাশা এবারের কনভেনশনে দশ সহ¯্রাধিক মুসলিম নরনারী শিশুকিশোর অংশগ্রহন করবে।

তিনি বলেন, আমাদের কেউ এদেশে জন্ম গ্রহণ করেছেন, কেউ জন্ম গ্রহন করেছেন বাংলাদেশে। আমাদের কৃষ্টি কালচারে ভিন্ন ভিন্ন প্রোকটিস থাকতে পারে। কিন্তু আমাদের আর্দশিক ভিত্তি এক, আমাদের বিশ্বাসের মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। সে বিশ্বাস নির্ভূল গ্রন্থ আল কুরআন কৃর্তক নির্দেশিত। এই বিশ্বাসের ভিত্তিতে তৈরী হওয়া তাহযিব তামাদ্দুনই আমাদের পারিবারিক জীবনে শান্তি নিশ্চিত করতে পারে। নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত একটি মিডিয়ার খবরে প্রকাশ, বাংলাদেশী কমিউনিটি বিপুল সংখ্যক যুবক যুবতী ড্রাগ-এর সাথে সম্পৃক্ত, কেউ কেউ জড়িত হযে পড়েছে বিভিন্ন অসামাজিক কাজেও। একটি উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ফ্যামিলিতে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে বিরাজ করেছে বিচ্ছেদ সাদৃশ্য সর্ম্পক। বার্ধক্যে উপনীত হওয়া বাবা-মা’দের করুন চিত্র ক্রমেই  নিদারুন চিত্র অংকন করে চলছে। এহেন অবস্থায় ইসলামী আদর্শিক বিশ্বাসের প্রোটটিসের কোন বিকল্প নেই। মুনার এবারের কনভেনশন সেই তাহযিব তামাদ্দুনের ভিত্তি পরিবার গুলোতে পৌঁছে দেয়া একটি গুরুত্বপুর্ণ উদ্দেশ্য।

আবু আহমেদ নূরুজ্জামান বলেন, এবারের কনভেনশনে কর্মসূচীতে সকলের জন্যে থাকছে বিশ্ববিখ্যাত ইসলামিক স্কলারদের গুরুত্বপুর্ণ আলোচনা, তরুণ ছেলে-মেয়েদের জন্য থাকবে আলাদা ‘ইয়ুথ কনভেনশন’। মহিলাদের জন্য থাকবে পরিবার গঠন সংক্রান্ত প্যারালাল গ্রোগ্রাম। এ ছাড়াও থাকবে মনোজ্ঞ ইসলামিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বিভিন্ন ইসলামী ও অন্যান্য সামগ্রীর দোকান নিয়ে বাজার, ছোট ছেলে-মেয়েদের জন্য বিভিন্ন রাইড এর ব্যবস্থা। সর্বোপরি ফিলাডেলফিয়া ভ্রমণকারীদের জন্য থাকবে আমেরিকার স্বাধীনতা আন্দোলনের স্মৃতিবহুল ‘ভ্রাতৃপ্রতিম ভালবাসার শহর’ নানা দর্শণীয় স্থান পরিভ্রমণের সুযোগ।
তিনি মুনা কনভেনশন ২০১৮-তে যোগদানের যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত বাংলা ভাষাভাষী সকল ফ্যামিলির প্রতি সবিনয় অনুরোধ জানান এবং কনভেনশনকে সফল করার ক্ষেত্রে সংশিষ্ট সবার ভূমিকার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে এক প্রশ্নের উত্তরে আবু আহমেদ নূরুজ্জামান বলেন, আমেরিকা আমাদের দেশ। কেননা এই দেশে আমরা বসবাস করছি, ট্যাক দিচ্ছি, এই দেশের সকল সুযোগ-সুবিধাও ভোগ করছি। ইসলামের করার প্রচার করার জন্য আমেরিকা একটি চমৎকার দেশ। বিশেষ করে আমাদের আমাদের নতুন প্রজন্মকে সুন্দর জীবন উপহার দেয়ার পাশাপাশি অন্যান্য দেশ ও ধর্মের মানুষকে ইসলামের সুন্দর জীবনের প্রতি আকৃষ্ট করা, ইসলামের দাওয়াত দেয়া একজন মুসলমান হিসেবে সবার নৈতিক দায়িত্ব।

অপর এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, মুনা’র সদস্য, শুভাকাঙ্খী আর পৃষ্ঠপোষকদের আর্থিক সহযোগিতায় কনভেনশনের সকল ব্যয় বহন করা হয়ে থাকে। পাশাপাশি বিভিন্ন স্পন্সর আর স্টল থেকেও ব্যয় নির্বাহ করা হয়। অতীতের কনভেনশনগুলোর অভিজ্ঞতার আলোকে এবারের কনভেনশনে সবমিলিয়ে এক মিলিয়ন ডলারের উপর ব্যয় হবে।
অপর এক প্রশ্নের উত্তরে আবু আহমেদ নূরুজ্জামান বলেন, আমরা ব্যাপক অর্থে ‘মুনা’র নাম রাখা হলেও মুলত: প্রবাসী বাংলাদেশী বা বাংলাদেশী-আমেরিকান মুসলিম কমিউনিটি ঘিরেই মুনার কর্মকান্ড চলচে। ইতিপূর্বে কানাডা সহ ‘উত্তর আমেরিকা’ কেন্দ্রীক মুনা’র কর্মকান্ড শুলু করা হলেও ২০০১ সালের ৯/১১ ঘটনার পর পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে মুনা যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে।
সাংবাদিক সম্মেলনে মুনা’র ন্যাশনাল এক্সিকিউভিট ডাইরেক্টর হারুন অর রশীদ সবাইকে পেনসিলভেনিয়া কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিতব্য মুনা কনভেনশনে যোগ দেয়ার আনুরেঅদ জানিয়ে বলেন, ইসলাম শান্তি ধর্ম। ইসলাম শুধু মুসলামানদের জন্য নয়, হযরত মুহাম্মদ (সা:)ও শুধু মুসলমানদের জন্য নন। তাই ইসলামের কথা আর মুহাম্মদ (সা:)-এর আদর্শ সকল মানুষের কাছে পৌছে দিতে হবে।

বিশেষ দোয়ার মাধ্যমে সাংবাদিক সম্মেলনের সমাপ্তি করা হয়। মুনাজাত পরিচালনা করেন আবু আহমেদ নূরুজ্জামান।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

১ জুলাই ক্যালিফোর্নিয়া যুবলীগের সম্মেলন, ব্যাপক প্রস্তুতি

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৭ ১৩:২৬:২৮

আগামী ১ জুলাই রোববার ক্যালিফোর্নিয়া ষ্টেট আওয়ামীযুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ভেন্যু কর্তৃপক্ষের সাথে সমঝোতা না হওয়ায় ইতিপূর্বে ঘোষিত চার্চ অব সায়েন্টোলজির পরিবর্তে নবনির্ধারিত ভেন্যু হুবার্ট কলেজ মলিনায়তন, ৩২০ নর্থ ভারমন্ট আভেন্যু, লস এঞ্জেলেস, ক্যালিফোর্নিয়া- ৯০০০৪ ঠিকানায়  সম্মেলন ও অভিষেক অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

সম্মেলনকে কেন্দ্র করে যুবলীগ কর্মি সমার্থকদের মাঝে বে উৎশাহ্‌ উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে। সম্মেলন উপলক্ষে একটা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠন করা হয়েছে। সব ধরনের প্রস্তুতিই প্রায় সম্পন্ন হয়েছে। সম্মেলন উপলক্ষে প্রকাশিতব্য সুভেন্যির এর কাজও প্রায় সমাপ্তির পথে।

সম্মেলন উপলক্ষে নিউইয়র্ক থেকে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক এ কে এম তারিকুল হায়দার চৌধুরী, যুগ্ম আহ্বায়ক বাহার খন্দকার সবুজ সহ বিভিন্ন ষ্টেট থেকে আওয়ামী যুবলীগের নেতৃবৃন্দের উপস্থিতি নিশ্চিত হয়েছে। ইতিমধ্যে ঢাকা থেকে কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম শাহিন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক এ কে এম তারিকুল হায়দার চৌধুরী, যুগ্ম আহ্বায়ক বাহার খন্দকার সবুজ সহ ক্যালিফোর্নীয়া ষ্টেট আওয়ামীলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ সহ কম্যুনিটির বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ ভিডিওবার্তায় ষ্টেট আওয়ামী যুবলীগের সম্মেলন সম্মেলন সফল করার আহ্বান জানিয়ে শুভেচ্ছাবার্তা পাঠিয়েছেন।

সম্মেলনের পরে আগত অতিথিদের নৈশভোজে আপ্যায়িত করার ব্যাবস্থাসহ এবং স্থানীয় সঙ্গীত ও নৃত্যশিল্পীদের সমন্বয়ে এক মনজ্ঞ সাংকৃতিক অনুষ্ঠানের ব্যাবস্থাও রাখা হয়েছে।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন যুক্তরাষ্ট্র শাখার কমিটি অনুমোদন

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৭ ১৩:১৯:২৬

মুজিব আদর্শে নিবেদিতপ্রাণ ব্যক্তিত্ব এবং যুক্তরাষ্ট্র সেনসাস ব্যুরোর সাবেক মহাপরিচালক ড. মনসুর খন্দকারকে সভাপতি, খ্যাতনামা রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ড. অধ্যাপক জিল্লুর আর খানকে জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি এবং তরুণ সমাজকর্মী ও মুজিব আদর্শে উজ্জীবিত সংগঠক আব্দুল কাদের মিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের যুক্তরাষ্ট্র শাখার অনুমোদন দেয়া হয়েছে।
২০ জুন এ অনুমোদনের তথ্য ঢাকা থেকে এ সংবাদদাতাকে জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডেন্ট ও সাবেক রাষ্ট্রদূত ড. এ কে এ মোমেন। ড. মোমেন উল্লেখ করেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের আদর্শ লালনকারি অসংখ্য প্রবাসী রয়েছেন, যারা আওয়ামী লীগ অথবা তার কোন সহযোগী কিংবা অঙ্গ সংগঠনের সাথে সরাসরি যুক্ত নন, তাদের নিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে চলমান বঙ্গবন্ধুর নীতি-আদর্শের পক্ষে জনমত সোচ্চার রাখতে কাজ করবে এই কমিটি। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় প্রত্যাবর্তনকারি বাংলাদেশের ইমেজ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে এই কমিটির ভ’মিকা অপরিসীম। মাঝেমধ্যেই ইস্যুভিত্তিক সেমিনার-সিম্পোজিয়াম করবেন তারা। প্রবাস-প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবনের সাথে পরিচিত করার কার্যক্রমও গ্রহণ করবে এই কমিটি।
আপাতত: ৩১ সদস্যের কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এই ৩১ জন বৈঠকে বসে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী পূর্ণাঙ্গ কমিটি করবেন। যেখানে সহ-সভাপতি-৫, যুগ্ম সম্পাদক-২, সাংগঠনিক-১, সহ-সাংগঠনিক-২, কোষাধ্যক্ষ-১, দপ্তর, প্রচার ও প্রকাশনা, নারী ও শিশু, যুব-ক্রীড়া, ছাত্র, আইন, সমাজসেবা, তথ্য-প্রযুক্তি, সাহিত্য-সংস্কৃতি, ধর্ম, ঐতিহ্য ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদকসহ মোট ৬১ সদস্যের কমিটি করতে হবে। যুক্তরাষ্ট্রকে জেলার মর্যাদা দেয়া হলেও পরবর্তীতে বাংলাদেশী অধ্যুষিত অঙ্গরাজ্যসমূহেও কমিটি করা হবে কেন্দ্রের সমন্বয়ে।
নবগঠিত কমিটির সদস্যরা হলেন : কন্ঠযোদ্ধা শহীদ হাসান, অধ্যাপক জাহাঙ্গির শাহনেওয়াজ ডিকেন্স, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সউদ চৌধুরী, লেখক গাজী এ কাশেম, ব্যবসায়ী ও সমাজকর্মী নজরুল ইসলাম বাবুল, কম্যুনিটি লিডার মোহাম্মদ হানিফ, লেখক ও মূলধারার রাজনীতিক জুনায়েদ আহমেদ, সমাজকর্মী মোবস্বির হোসেন, লেখক-সাংবাদিক শামসাদ হুসাম, কবি আমিনুর রশীদ পিন্টু, মূলধারার রাজনীতিক ও ফোবানার নির্বাহী চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান, সাংস্কৃতিক সংগঠক সবিতা দাস, সাংবাদিক-পেশাজীবী আবিদ রেজা, কম্যুনিটি লিডার হেলাল মাহমুদ, মূলধারার রাজনীতিক শেরশাহ মিজান এবং আবুল খান, সমাজকর্মী ডা. আবুল কালাম আজাদ, শাহ আলম মজুমদার, ড. সুলতান সালাহউদ্দিন, আলমগীর কবির, আরিফুল ইসলাম, কামাল হোসেন মিঠু, মোস্তফা কামাল পাশা মানিক, এডভোকেট আনিসুর রহমান, ড. গোলাম মোস্তফা, জিবক বড়ুয়া এবং মো. আবুল কাশেম।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইতালিতে বাংলাদেশি মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির ঈদ পূর্ণমিলন ও আনন্দ ভ্রমণ অনুষ্ঠিত

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৭ ১২:৩৯:১৮

ইতালিতে বাংলাদেশি মহিলা সংগঠন ‘মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতি’র ঈদ পূর্ণমিলন ও আনন্দ ভ্রমণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার বর্ণাঢ্য আয়োজন ও আনন্দ-উৎসবের মধ্য দিয়ে ঈদ পূর্ণমিলন সম্পন্ন হয়।

কর্মব্যস্ততার ক্লান্তি থেকে মুক্তি ও আনন্দ দিতে মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির ঈদ পূর্ণমিলনে অংশ নেন ইতালিতে বসবাসরত মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির নেতৃবৃন্দেরা, এছাড়াও বিপুলসংখ্যক প্রবাসীদের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণে ঈদ পূর্ণমিলন এক মিলনমেলায় পরিণত হয়। এতে মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতি ইতালীর সভাপতি লায়লা শাহ'র সভাপতিত্বে ও শামিমা জামান এর সঞ্চালনায় রোববার রোমের তরপিনাত্তারা থেকে মনোমুগ্ধকর রসাত্মক বচনে ১টি বাস সহযোগে আনন্দ যাত্রা অন্য রকম অনন্দ উপভোগ করে সবাই। পথি মধ্যে সবাইকে সকালের নাস্তা পরিবেশন করানো হয়।

রোমের অদূরে সাগর ও পাহাড় আচ্ছাদিত প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি লাগো ( স্পেরলোঙ্গা ) পর্যটন কেন্দ্রে ঈদ পূর্ণমিলন অনুষ্ঠিত হয়।সেখানে দুপুরের খাবার শেষে লেকের মনোরম দৃশ্য (লাগো স্পেরলোঙ্গা ) বিচের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য অবলোকন, দল বেঁধে সমুদ্র স্নান, সাঁতার, বেলাভূমিতে ফুটবল, শিশুদের দৌড়, ভলিবল খেলাসহ নানা ধরনের খেলা চলতে থাকে দিনব্যাপী।এরই ফাঁকে ঈদ পূর্ণমিলনি আনন্দ ভ্রমণে আগত পরিবারগুলোর ছেলে-মেয়ে নিয়ে আনন্দ আড্ডায় মেতে উঠেন। এ যেন প্রবাসে অনন্য এক টুকরো বাংলাদেশ।
আনন্দ ভ্রমণে মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতি ইতালীর নেতৃবৃন্দদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নিলুফা বানু, সায়মা পিংকি, তাহমিনা আক্তার, রোকেয়া খাতুন মিরা, নাসরিন চৌধুরী,  মাহবুবা আক্তার চৌধুরী বাবলি, মেহেনাজ তাবাস্সুম শেলি, মিলি, নার্গিস আক্তার, মনি আক্তার, ইফরোজা খানম ইফা , জেসমিন আম্বিয়া , সুরাহিয়া আক্তার, খুশবু , হেনা আক্তার ফাহিমা , সালমা পারভিন মণি, ফাতেমা বেগম সহ আরো অনেকেই। এছাড়াও আনন্দ ভ্রমণে আরো অংশগ্রহণ করে সহযোগিতা করেন অল ইউরোপ বাংলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এন টিভি ইউরোপ বুরো প্রধান মনিরুজ্জামান মনির, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবু সাঈদ, ইতালী কেন্দ্রীয় যুবদল শাখার প্রচার সম্পাদক রবিন খান প্রমুখ। পরিশেষে মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতি ইতালীর সভাপতি লায়লা শাহ বলেন প্রবাসে ব্যস্ততার মাঝে একটু সুখের পরশ পেতে প্রতি বছর আমরা ঈদ পূর্ণমিলন সহ বিভিন্ন আয়োজন করে থাকি। সবাইকে বিনোদন দিতে এবং ক্লান্তি দূর করতে মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির এ আয়োজন। এবং ঈদ পূর্ণমিলন ও আনন্দ ভ্রমণে সহযোগিতা ও অংশগ্রহণের জন্য উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ইতালী আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৭ ১২:৩৩:০২

ইতালী আওয়ামী লীগের উদ্যোগে  গতকাল সন্ধ্যায়  রোমের বাংলাদেশীদের প্রাণকেন্দ্র পিয়াচ্ছ ভিত্তরিওস্থ ভিয়া ফসকোলো একটি হলরুমে উদযাপিত হয়েছে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ।
ইতালী আওযামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাহাঙ্গীর ফরাজীর সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক হাসান ইকবালের পরিচালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন সর্বইউরোপীয়ান আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি কে এম লোকমান হোসেন, বিশেষ অতিথি ছিলেন সর্ব ইউরোপীয়ান আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক জি. এম কিবরিয়া, মহিলা সম্পাদিকা হোসনেয়ারা বেগম। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইতালী আওযামী লীগ সহ সভাপতি আলী আহাম্মেদ ঢালি, নজরুল ইসলাম মাঝি, আব্দুর রউফ ফকির, জাসদের এডঃ আনিচুজ্জামান, ইতালী আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আফতাব বেপারী, সাংগঠনিক সম্পাদক দিন মোহাম্মদ দিনু, জামান মোক্তার, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক তুহিনা জামান মলি, উপপ্রচার সম্পাদকেএলিন আহমেদ মিঠু, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক বাবু ঢালী, যুবলীগ ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক এনায়েত করিম, দপ্তর সম্পাদক সোহেল বকসি, যুবনেতা মহিউদ্দিন মহি, মহিলা আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদিকা নয়না আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদিকা শামিমা পপি, ইতালী আওয়ামী লীগ সদস্য ফারুক ফরাজীসহ আওয়ামী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় ইতালী আওয়ামী লীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি  জাহাঙ্গীর ফরাজী বলেন, ইতালী আওয়ামী লীগের সম্মেলন এখন সময়ের দাবি। তিনি এ ব্যাপারে সর্বইউরোপীয়ান আওযামী লীগ ও ইতালী আওয়ামী লীগের নেতদের দৃষ্ঠি আকর্ষন করেন। ইতালী আওযামী লীগ সাধারণ সম্পাদক হাসান ইকবাল  বলেন ,এই সমাজের কতিপয় মুখোশধারী ব্যাক্তি নেতৃবৃন্দকে জড়িয়ে মিথ্যা, বানোয়াট, নোংরা অপপ্রচার চালাচ্ছে, যারা এধরনের গর্হিতকর কাজ করছেন তাদেরকে  ছাড় দেওয়া হবে না।
অনুষ্ঠান শেষে কেক কেটে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করা হয়।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ভেনিসে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ঈদ পুনর্মিলনী উৎসব

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৫ ১৪:৩৯:২২

ইতালির ভেনিসে প্রবাসী বাংলাদেশিদের উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনী উৎসবের আয়োজন করা হয়।  বাংলা টিভির আয়োজনে ঈদ উৎসবের এই অনুষ্ঠান।

ভেনিসের মেস্ত্রে বাংলা টিভির ইতালির ভেনিস প্রতিনিধি ও ভেনিস বাংলা প্রেস ক্লাব এর আহবায়ক মেসবাহ উদ্দিনের সভাপতিত্বে যৌথ পরিচালনা করেন  ভেনিস বাংলা প্রেস ক্লাব এর সদস্য সচিব জুম্মন হোসাইন অনিক ও ভৈরব পরিষদ এর মহিলা সম্পাদিকা দোলন জাবেদ।
 অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাস এর কনস্যুলার এডভোকেট জানালবেরতো স্কার্পা বাস্তেরি, সাথে উপস্থিত ছিলেন তাঁর সহধর্মীনি এডভোকেট লুদোভিকা লিউচ্ছি।
অনুষ্ঠানে শুভ সূচনা করেন  ভেনিসের শিল্পপতি ও বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের সভাপতি, ভেনিস বাংলা প্রেস ক্লাব এর প্রধান উপদেষ্টা মোহাম্মদ  আলী, বক্তব্য রাখেন  ভেনিস বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক  জব্বার মাঝী।  অতিথি ইতাল আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি জনাব রেহান উদ্দিন দুলাল, এটিএন বাংলার ইতালি প্রতিনিধি হাসান মাহমুদ, এনটিভি ইউরোপ ব্যুরো প্রধান  মনিরুজ্জামান মনির, বাংলা টিভি ইউরোপ ব্যুরো প্রধান  শাওন আহম্মদ, চ্যানেল আই'র বিশেষ প্রতিনিধি  ইমদাদুল হক ইমদাত, ইতালি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিম দেওয়ান, ভেনিস আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহজাহান কবির ইদ্রিস, বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের সিনিয়র সহ সভাপতি আক্তার বেপারী, ভেনিস আওয়ামীলীগের সহসভাপতি  তাহের খান ডালু, মোহান্মদ মিলন,  সোলেমান হোসাইন, সালাউদ্দিন হোসাইন,  তাজুল ইসলাম,  আল মামুন ( নাছির উদ্দিন), হোসেন আলী , কিশোর খন্দকার,  ভেনিস রোমান মাল, ভৈরব পরিষদ ভেনিসের সভাপতি মাহাবুবুর রহমান চঞ্চল,   দোহার - নবাবগঞ্জ ঐক্য ফ্রন্ট এর সভাপতি আমিনুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক গোপালগঞ্জ জেলা সমিতি জনাব গাজী আমিরুল ইসলাম, শরীয়তপুর জেলা সমিতি সহসভাপতি কাজী আসাদুজ্জামান লিজ,ভেনিস,আজাদ খান,সোহানুর রহমান উজ্জ্বল, ভৈরব পরিষদ ভেনিস এর সাধারণ সম্পাদক সেলিম জাবেদ ,  নিয়ামুল চৌধুরী, সহসভাপতি বাংলাদেশ এসোসিয়েশন ভেনিস  সবুজ, দোহার - নবাবগঞ্জ ঐক্য ফ্রন্ট সাংগঠনিক সম্পাদক  লিটন শেখ, কাজী আব্দুল আল রোনাক প্রমুখ  এবং ভেনিস বাংলা সংগীত শিল্পীগোষ্ঠী। 

বক্তারা  প্রবাসীদের কল্যাণে নির্মিত একমাত্র প্রবাসী বান্ধব বাংলা টিভি কে ভেনিসে ঈদ উৎসব আয়োজনের জন্য বাংলা টিভি পরিবারকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানান।
স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনায় এবারের ঈদ উৎসব এর মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা প্রবাসী বাঙ্গালী ও স্থানীয় ইতালিয়ানদের এক সৌহার্দের মিলনমেলায় রুপ নেয়।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

নিউজার্সিতে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৫ ১৪:৩৬:০১

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে  যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সি ষ্টেট আওয়ামী লীগ ।।

এ উপলক্ষে শনিবার রাতে নিউজার্সি অঙ্গরাজ্যর প্যাটারসন সিটির ইউনিয়ন এভিনিউ-এর বেঙ্গল ইন্সুরেন্সের হল রুমে অনুষ্ঠিত ওই  আলোচনা সভায়  সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি আব্দুল মালিক চুন্নু ।

সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদের পরিচালানায় অনুষ্ঠিত ওই অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন  নিউজার্সি ষ্টেট আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি রেজাউল করিম চৌধুরী, সাবেক যুগ্ন আহবায়ক সেলিম আহমেদ চৌধুরী, যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক বিশ্বজিৎ দে বাবলু, সাংগঠনিক সম্পাদক রকিবুল হাসান রিপন, প্রচার সম্পাদক নৃপেন্দ্র কুমার পাল,বিজ্ঞান-প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হেলাল আহমেদ, মোহাম্মদ আব্দল হামিদ, মোহাম্মদ জি রব্বানী, সৈয়দ আলী, মোশাহিদ আলী খান, কাউসার আহমেদ, নিউজার্সি ষ্টেট যুবলীগের সহসভাপতি শাহজান হান্নান সাজু, ইমরান হোসেন, যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক শায়েক হোসেন প্রমুখ।


এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

ড. সিদ্দিকুর রহমানের রোগ মুক্তি কামনায় নিউজার্সি স্টেট আ.লীগের দোয়া

 প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৫ ১৪:৩৩:৪১

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ডের উইনথ্রপ ইউনিভার্সিটি হসপিটালে চিকিসাধীন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি কৃষিবিদ ড. সিদ্দিকুর রহমান দ্রুত রোগ মুক্তি চেয়ে দোয়া চেয়েছেন নিউজার্সি ষ্টেট আওয়ামী লীগ।।

এ উপলক্ষে শনিবার রাতে নিউজার্সি অঙ্গরাজ্যর প্যাটারসনের ইউনিয়ন এভিনিউর একটি হলে এক আবেগঘন পরিবেশে নিউজার্সি ষ্টেট আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ পবিত্র জোহরের নামাজের পর দোয়ার আয়োজন করা হয়।

সংগঠনের সভাপতি  আব্দুল মালিক চুন্নুর সভাপতিত্ব ও সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদের পরিচালানায় অনুষ্ঠিত ওই দোয়া অনুষ্ঠানে আরও অংশ নেন সহ সভাপতি রেজাউল করিম চৌধুরী, সাবেক যুগ্ন আহবায়ক সেলিম আহমেদ চৌধুরী, যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক বিশ্বজিৎ দে বাবলু,  সাংগঠনিক সম্পাদক রকিবুল হাসান রিপন, প্রচার সম্পাদক নৃপেন্দ্র কুমার পাল, বিজ্ঞান-প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হেলাল আহমেদ, মোহাম্মদ আব্দল হামিদ, মোহাম্মদ জি রব্বানী, সৈয়দ আলী, মোশাহিদ আলী খান, কাউসার আহমেদ, নিউজার্সি ষ্টেট  যুবলীগের সহসভাপতি শাহজান হান্নান সাজু, ইমরান হোসেন যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক শায়েক হোসেন প্রমুখ।

এলএবাংলাটাইমস/এএল/এলআরটি

বিস্তারিত খবর

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত