যুক্তরাষ্ট্রে আজ মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 03:37am

|   লন্ডন - 10:37pm

|   নিউইয়র্ক - 05:37pm

  সর্বশেষ :

  নিয়ন্ত্রণে আসছে ক্যালিফোর্নিয়ার দাবানল 'ববক্যাট ফায়ার'   ক্যালিফোর্নিয়ার ডিজনিল্যান্ড পার্ক খুলতে কর্তৃপক্ষের কাছে আপিল   যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা দুই লাখ ছাড়ালো   নির্বাচনের আগেই বিচারপতি নিয়োগের ভোট হবে সিনেটে: মিচ ম্যাককনেল   করোনার জন্য জাতিসংঘে চীনকে দায়ী করলেন ট্রাম্প   দেশে করোনায় মৃত্যু ৫ হাজার ছাড়ালো   ভিপি নূরের মামলাকে মিথ্যা বললেন ড. কামাল, দেবেন আইনি সহায়তা   বাণিজ্য করার উদ্দেশ্যে গণস্বাস্থ্যের কিটের অনুমতি দেয়নি সরকার: ডা. জাফরউল্লাহ   একের পর এক দুর্যোগে নাজেহাল ক্যালিফোর্নিয়া   ভূরাজনৈতিক বিরোধ জাতিসংঘকে যেন দুর্বল না করে: প্রধানমন্ত্রী   নূরের বিরুদ্ধে অপহরণ-ধর্ষণ ও ডিজিটাল আইনে আরেক মামলা   চীন-রাশিয়া থেকে অস্ত্র কিনবে ইরান   ক্যালিফোর্নিয়ায় প্রথমবারের মতো সংক্রমণ ৩ শতাংশেরও নিচে   ডেঙ্গু আক্রান্তরা হতে পারেন করোনা প্রতিরোধে সক্ষম: গবেষণা   আসছে শীতে যুক্তরাষ্ট্রে 'টুইনডেমিক' আতঙ্ক

>>  নিউইয়র্ক এর সকল সংবাদ

নির্বাচনের আগেই বিচারপতি নিয়োগের ভোট হবে সিনেটে: মিচ ম্যাককনেল

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগেই সুপ্রিম কোর্টের নতুন বিচারপতি নিয়োগের জন্য সিনেটে ভোটাভুটি নিশ্চিত করা হবে বলে জানিয়েছেন সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা মিচ ম্যাককনেল। 

মিচ ম্যাককনেল মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতিতে বলেন, সিনেটের রিপাবলিকানদের সবাই প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মনোনীত প্রার্থীকে নির্বাচনের আগেই ভোট দিতে সম্মত রয়েছে। 

এদিকে, এখন পর্যন্ত কোনো মনোনয়ন চূড়ান্তই করেননি ট্রাম্প। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনে নির্বাচনের আগেই যে কাউকে নিয়োগ দেওয়া হবে, মিচ ম্যাককনেলের বিবৃতির পর

বিস্তারিত খবর

আসছে শীতে যুক্তরাষ্ট্রে 'টুইনডেমিক' আতঙ্ক

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২১ ২৩:৫৭:৩৭

বিশ্বে করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র।  ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত সেখানে দুই লাখ চার হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন। শীতকালে করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গ আসার সম্ভাবনাও রয়েছে প্রবল। তবে এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ইনফ্লুয়েঞ্জা বা ফ্লু-এর প্রকোপের আশঙ্কা। চিকিৎসকেরা এই পরিস্থিতিকে বলছেন,  ‘টুইনডেমিক সিচুয়েশন’। 


শরৎকাল শেষ হয়ে চলে আসছে শীতকাল। সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বর পর্যন্ত এই সময়টাকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে 'ফ্ল‌ু সিজন'ও বলা হয়। অর্থাৎ ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে দেখা দেয় জ্বর-ঠাণ্ডা-কাশির মতো প্রকোপ। চিকিৎসকরা বলছেন, ''সব চেয়ে আতঙ্কের হল, কোভিড-১৯ এবং ফ্লু-এর উপসর্গ প্রায় একই রকম। রোগীর শরীরে উপসর্গ দেখে কী হয়েছে তা বলা বেশ কঠিন।''


এই পরিস্থিতিতে মার্কিন চিকিৎসকেরা আগাম ইনফ্লুয়েঞ্জার ভ্যাকসিন বা ফ্লু-শট নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন দেশের জনগণকে। তবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ফ্লু-শট কোনও কাজ দেবে না বলেও জানিয়েছেন তারা। শুধু ইনফ্লুয়েঞ্জার প্রকোপ আটকাবে। 

সংক্রামক ব্যাধি বিশেষজ্ঞেরা জানাচ্ছেন, মানুষ বলতে পারছেন না, কিসের অসুস্থতা। দুই রোগেরই সাধারণ উপসর্গ হল জ্বর, সর্দিকাশি, প্রবল ঠান্ডা লাগা এবং শ্বাস নিতে কষ্ট। তবে পার্থক্য— কোভিডে গন্ধ, স্বাদের মতো অনুভূতি চলে যায়। কিন্তু করোনা-আক্রান্ত সকলেরই যে আবার স্বাদ-গন্ধ চলে যাওয়ার লক্ষণ দেখা দিচ্ছে, তেমনটা নয়। আবার ফ্লু-তেও অনেক সময় ঠান্ডা লেগে নাক বন্ধ হয়ে যায়, জিভের স্বাদ চলে যায়! অতএব করোনা-পরীক্ষার রিপোর্ট না-পাওয়া পর্যন্ত রোগ নির্ণয় করা বেশ মুশকিল। 

তবে রোগীর পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ হতে যদি ফ্লু ও করোনাভাইরাস একই সঙ্গে হয়। এই দুই রোগ এক সঙ্গে হওয়ার আশঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না বিশেষজ্ঞেরা। 







এলএ বাংলা টাইমস/এমকে

বিস্তারিত খবর

টেক্সাসে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে চারজনের মৃত্যু

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২১ ২৩:৩৭:২২

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে একটি ছোট বিমান বিধ্বস্ত হয়ে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে গন্তব্যের আগে জরুরি অবতরণ করার চেষ্টা করছিল বিমানটি।


রবিবার স্থানীয় সময় রাত ১০টা ৫০ মিনিটে হিলটপ লেকস এয়ারপোর্টে বিমানটি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। বিমানে দুই নারী ও দুজন পুরুষ যাত্রী ছিলেন। তাঁদের প্রত্যেকেরই মৃত্যু হয়।

বিমানটি অস্টিন থেকে লুইসিয়ানায় যাচ্ছিল। মাঝপথে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এটা ঠিক কোন ধরনের বিমান ছিল তা এখনো জানা যায়নি। তবে এটি এক ইঞ্জিন বিশিষ্ট পাইপার মালিবু মেরিডিয়ান ধরণের বিমান। ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে ছুটে যায় উদ্ধারকারী দল।

ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্ট সেফটি বোর্ড তাদের টুইটা জানায়, দুর্ঘটনার কারণ তারা অনুসন্ধান করে দেখছে।এর আগে চলতি মাসেই যুক্তরাষ্ট্রে আরো একটি বিমান দুর্ঘটনা ঘটে। মন্টানায় একটি ছোট বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল দুজনের।

সিসি লেক বিমানবন্দরের উত্তরে রাতের দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটেছিল। পরে ভোরে কর্তৃপক্ষ ওই ভেঙে পড়া বিমানটি খুঁজে পায়।








এলএ বাংলা টাইমস/এমকে

বিস্তারিত খবর

করোনা মোকাবেলায় নিজেকে 'এ প্লাস' দিলেন ট্রাম্প!

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২১ ১৬:৪৭:২৬

করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র শীর্ষে রয়েছে। আর কিছুদিন পরেই মহামারি ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ২ লাখ ছাড়াবে দেশটিতে। করোনা মোকাবেলায় ট্রাম্প প্রশাসনের পদক্ষেপ তীব্র সমালোচিত হয়েছে দেশ ও বহিঃবিশ্বে। 

কিন্তু মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করছেন, করোনা মোকাবেলায় অত্যন্ত সফল ট্রাম্প প্রশাসন। এমনকি করোনা মোকাবেলায় 'সফলতার' জন্য 'এ প্লাস' দিয়েছেন নিজেকে। 

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমের সাথে মতবিনিময় কালে ট্রাম্প দাবি করেন, 'আমরা করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রন করতে সক্ষম হয়েছি। ভ্যাকসিন আসুক বা নাই আসুক, করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রন করা সম্ভব হয়েছে দেশটিতে'।

ট্রাম্প বলেন, বিপক্ষ দল আমাদের এই সফলতাকে সবসময় ঘৃণা করে এসেছে৷ তবে জনগণ এই বিষয়টি যথাযথভাবে অনুধাবন করতে পারছে না, এর কারণ হলো আমাদের বিরুদ্ধে গণমাধ্যম মিথ্যা সংবাদ প্রচার করছে'।

এর আগে, যুক্তরাষ্ট্রে যখন করোনা সংক্রমণ সবচেয়ে তীব্র ছিলো, ট্রাম্প তখন বলেছিলেন করোনা মোকাবেলায় নিজেকে দশে দশ দিবেন তিনি। এছাড়াও প্রখ্যাত সাংবাদিক বব উডওয়ার্ড এর সাথে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ভ্যাকসিন আবিষ্কার হলে নিজেকে এ প্লাস দিবেন ট্রাম্প। 

এদিকে, ট্রাম্পের এই বিবৃতির পরই সমালোচনায় মুখর হয়েছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, ট্রাম্প মূলত একটি 'ফ্যান্টাসি'তে বসবাস করেন। সেখানে তিনিই সবচেয়ে বুদ্ধিমান, সুদর্শন, চতুর৷ প্রকৃতপক্ষে তিনি বাস্তববিবর্জিত কথা বলছেন। 

প্রসঙ্গত, এর আগে গণমাধ্যমে খবর এসেছিলো যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার আগে থেকেই ট্রাম্প জানতেন মহামারির শঙ্কা রয়েছে৷ কিন্তু সঠিক সময়ে স্বাস্থ্যবিধি প্রণয়ন না করে বিভিন্ন সময় ভাইরাসটি নিয়ে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করায় সমালোচনার মুখে পড়েছেন ট্রাম্প। 



এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

ওহাইও থেকে নিখোঁজ ৩৫ কিশোরী উদ্ধার

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২১ ১৬:২৩:১৪

যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইও অঙ্গরাজ্য থেকে বিভিন্ন সময় নিখোঁজ হওয়া ৩৫ কিশোরীকে উদ্ধার করেছে স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। 

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিভিন্ন সময় নিখোঁজ হওয়া এসব শিশুকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ইউএস মার্শালস সার্ভিস। 

ইউএস মার্শালস সার্ভিস সূত্র জানায়, উদ্ধার হওয়া কিশোরীদের বয়স তেরো থেকে আঠারো বছর। এদের অধিকাংশকেই পাচার করার জন্য আটক রাখা হয়েছিলো। এই বিষয়ে বেশ কয়েকটি তদন্ত শুরু করেছে মার্শালস টাস্ক ফোর্স। 

করোনাভাইরাস চলাকালীন সময়ে ওহাইওতে শিশু ও নারী নির্যাতন ও পাচার বেড়ে যাওয়ায় ইতোমধ্যে রাজ্য কর্তৃপক্ষ শিশু ও নারী সুরক্ষায় নতুন একটি ইউনিট গঠন করেছে। উদ্ধার হওয়া কিশোরীদের বেশিরভাগ মিয়ামি, ফ্লোরিডা ও ক্লিভ্যালেন্ডের বাসিন্দা ছিলো বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। 

এলএবাংলাটাইমস/ওএম  

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাষ্ট্রে টিকটকের চুক্তি নিয়ে পরিস্থিতি ধোঁয়াশা

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২১ ১৫:২৭:১৫

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ওরাকল এবং ওয়ালমার্টের সাথে চুক্তিবদ্ধ হতে চলেছে টিকটকের পেরেন্ট প্রতিষ্ঠান বাইটড্যান্স। ডোনাল্ড ট্রাম্প এই চুক্তিকে স্বাগতও জানিয়েছেন। চুক্তি অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে টিকটকের ৮০ শতাংশ মালিকানা থাকবে বাইটড্যান্স এর হাতে, ১২.৫ শতাংশ মালিকানা থাকবে ওরাকলের হাতে ও ৭.৫ শতাংশ মালিকানা থাকবে ওয়ালমার্টের হাতে। 

যুক্তরাষ্ট্রে টিকটকের পাঁচজন বোর্ড সদস্যের মধ্যে চারজনই আমেরিকান থাকবে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে টিকটকের একটি হেডকোয়ার্টারও থাকবে যার মাধ্যমে ইউএস এ টিকটক অপারেট করা হবে। 

তবে, নতুন চুক্তির বিভিন্ন দিক নিয়ে রয়ে গেছে ধোঁয়াশা। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছিলেন, টিকটক সম্পূর্ণ যুক্তরাষ্ট্র থেকে পরিচালিত হবে এবং যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠানই এটি নিয়ন্ত্রণ করবে। এছাড়া আমেরিকার ব্যবহারকারীদের তথ্যও শুধুমাত্র ওরাকলের কাছে থাকবে। 

তবে বাইটড্যান্স জানিয়েছে, ওরাকল চাইলে শুধুমাত্র এপটির সোর্স কোড রিভিউ করতে পারবে। কিন্তু এপটির এলগরিদম ও প্রযুক্তি কোনোভাবেই হস্তান্তর করা হবে না। 

আর এই বিষয়টি নিয়েই আপত্তি জানিয়েছেন অনেকে। রিপাবলিকান সিনেটর মার্কো রুবিও বলেন, বাইটড্যান্স এর কাছে যদি কোড নিয়ন্ত্রন করার সুযোগ থাকে, তবে মার্কিনীদের তথ্য চীনের কাছে চলে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকবেই। ফলে এই চুক্তি নাগরিকদের প্রতিরক্ষার জন্য কোনো কাজেই আসবে না। 

এছাড়াও ট্রাম্প বলেছেন, টিকটকের নতুন চুক্তিতে '৫ বিলিয়ন ডলার' এডুকেশন ফান্ড অন্তর্ভুক্ত করা হবে। কিন্তু এই ফান্ড এর অর্থ কোন কোম্পানি পরিশোধ করবে সেটি উল্লেখ করেননি তিনি। ফলে এটি নিয়েও শুরু হয়েছে জল্পনা কল্পনা। 

বাইটড্যান্স দাবি করছে, ৫ বিলিয়ন ডলার এডুকেশন ফান্ড এর ব্যাপারে তাদের কোনো ধারণাই নেই। ট্রাম্পের মুখেই ফান্ডের ব্যাপারে প্রথম শুনেছে বাইটড্যান্স। 

ফলে, যুক্তরাষ্ট্রে টিকটকের ভবিষ্যৎ কি, এই বিষয়ে এখনো ধোঁয়াশা রয়ে গেছে। 


এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

নতুন বিচারপতি হতে পারেন এমি কোনি ব্যারেট

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২১ ১৪:৩৪:৪৫

সুপ্রিম কোর্টের প্রবীণতম ও নারী আন্দোলনের পুরোধা ব্যক্তিত্ব রুথ বডার গিন্সবার্গের মৃত্যুর পর যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক অঙ্গন উত্তপ্ত হয়ে আছে। ডেমোক্র‍্যাটরা দাবি করছেন, আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পরেই নতুন বিচারপতি নিয়োগ দিতে হবে। এদিকে এই দাবিকে তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়ে ট্রাম্প ঘোষণা দিয়েছেন, আগামী সপ্তাহেই সুপ্রিম কোর্টে রুথ বডার গিন্সবার্গের শূন্যস্থান পূরণ করা হবে। 

আর নতুন বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পেতে পারেন রক্ষণশীল ধর্মীয় ঘরানার বিচারক এমি কোনি ব্যারেট, এমনটাই জানাচ্ছে হোয়াইট হাউজের একাধিক সূত্র। এমি কোনি ব্যারেট ক্যাথলিক খ্রিষ্টান হওয়ায় রক্ষণশীল ধার্মিকদের মধ্যে তিনি বেশ সুপরিচিত। 

এমি কোনি ব্যারেটকে যদি ট্রাম্প মনোনয়ন দেন ও সিনেটে যদি এটি পাশ হয়, তবে সুপ্রিম কোর্টে রিপাবলিকান ঘরানার বিচারপতি হবেন ছয় জন, আর ডেমোক্রেটিক ঘরানার বিচারপতি বর্তমানে রয়েছেন তিনজন। 

তবে বিভিন্ন সূত্র জানাচ্ছে, এমি কোনি ব্যারেটকে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হিসেবে সিনেটের অনেকেই দেখতে চান না। সংখ্যাগরিষ্ঠ রিপাবলিকানদের মধ্যেই অনেকেই কোনি ব্যারেটের বিরুদ্ধে ভোট দেবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

এর আগে, ২০১৭ সালে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কোনি ব্যারেটকে শিকাগোভিত্তিক সপ্তম সার্কিট আপিল কোর্টের বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিলেন। সেসময় কোনি ট্রাম্পের প্রস্তাবিত অভিবাসন ও বন্দুকবহন আইনের পক্ষে ভোট দিয়েছিলেন। 

এছাড়া ধর্মীয় আদর্শ মেনে চলার কারণে বিভিন্ন সময় সিনেটে সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছেন এমি কোনি ব্যারেট। এছাড়া 'এবোরশন রাইট (গর্ভপাতের অধিকার' এর বিরুদ্ধে অবস্থান করার কারণেও সমালোচনা রয়েছে কোনি ব্যারেটকে নিয়ে। 


এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

জাতিসংঘের সদস্যপদ লাভের ৪৬ বছর পূর্তি: যুক্তরাষ্ট্র আ. লীগের আনন্দ সমাবেশ

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২১ ১০:৫৫:৪৬

বাংলাদেশ জাতিসংঘের পূর্ণ সদস্যপদ লাভের ৪৬তম দিবস উদযাপন করেছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ। এ উপলক্ষ্যে ১৭ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার রাতে জাতিসংঘ ভবনের সামনে আনন্দ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। উল্লেখ্য, ১৯৭৪ সালের এই দিনে বাংলাদেশ জাতিসংঘের পূর্ণ সদস্যপদ লাভ করে। এরই ধারাবাহিকতায় সেই বছরের ২৫ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের শীর্ষ সম্মেলনে বাংলায় ভাষণ দেন বাংলাদেশের ‘জাতির পিতা’ তৎকালীন রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। খবর ইউএনএ’র।   
আনন্দ সমাবেশে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ ছাড়াও অন্যান্য অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী যোগ দেন। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশ পরিচালনা করেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ।
সমাবেশে ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, শত বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাংলাদেশ জাতিসংঘের সদস্যপদ লাভ করে। এজন্য যে সকল দেশ সহযোগিতা করেছেন সেইসব দেশের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা জানান। আজ বঙ্গবন্ধুকে বারবার মনে পড়ছে। তিনি বলেন, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশের স্বাধীনতার পরে ২১ ডিসেম্বর জাতিসংঘ ঢাকায় জাতিসংঘের রিলিফ অপারেশনস (ইউএনআরডি) তৈরি করে। যেটির পরিচালনায় ছিলেন রবার্ট জ্যাকসন। যা বাংলাদেশে জাতিসংঘের রিলিফ অপারেশনগুলোতে উন্নীত হয়েছিল (ইউএনআরবি)। অপারেশনটি ১৯৭৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হয়েছিল।
তিনি বলেন, জাতিসংঘের তৎকালীন মহাসচিব কুর্ট ওয়াল্ডহেইম, ১৯৭৩ সালের ৯ জানুয়ারী বাংলাদেশ সফর করেছিলেন। জাতিসংঘ বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার পরে চালনা বন্দরের (বর্তমান মংলা বন্দর) পুনর্গঠনের জন্য সহায়তা প্রদান করে। জাতিসংঘ ১৯৭৩ সালে পাকিস্তানে আটক হওয়া বাঙালীদের বাংলাদেশে প্রত্যাবাসন করতে সহায়তা করেছিল এবং ১৯৭৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর, বাংলাদেশ জাতিসংঘের পূর্ণ সদস্যপদ লাভ করে। তিনি বলেন, ১৯৭৪ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবুর রহমান সাধারণ অধিবেশনে বাংলা ভাষায় ভাষণ দেন।
ড. সিদ্দিক বলেন, বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ তাঁর নেতৃত্বেই প্রবাসে কাজ করছে। আমরা যেকোন দূর্যোগে শেখ হাসিনার পাশে আছি, থাকবো। প্রসঙ্গত তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগে কোন মীর জাফরের জায়গা হবে না। যারা আওয়ামী লীগ করবেন তাদেরকে সত্যিকারের মুজিব সৈনিক হতে হবে।  
আনন্দ সমাবেশে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী ছাড়াও অন্যান্য অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। এসময় উল্লেযোগ্য নেতৃবৃন্দর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সামছদ্দিন আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন দেওয়ান ও আব্দুল হাসিব মামুন, প্রচার সম্পাদক দুলাল মিয়া এনাম, প্রবাসী কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ সোলেমান আলী, কার্যকরী সদস্য সাহানারা রহমান, কানেকটিকাট ষ্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন আহমদ চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ নেতা শাহ সেলিম, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নুরুজ্জামান সরদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল হোসেন রাকিব, নিউইয়র্ক ষ্টেট স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা লিটন, হুমায়ুন কবির, সহ সহিদুল ইসলাম, সদর উদ্দিন আহমদ, মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম, আব্দুল মান্নন, রফিকুল ইসলাম, মুশফিক সালাহিন, আসাদ উজজামান, আব্দুল বাছিত প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


এলএবাংলাটাইমস/এলআরটি/এনওয়াই

বিস্তারিত খবর

গিন্সবার্গের পদে কোনো নারীকে নিয়োগ দিতে চান ট্রাম্প

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২১ ০০:২৯:২৬

যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের প্রয়াত বিচারপতি রুথ বেডার গিন্সবার্গের শূন্য পদে কোনো নারীকে নিয়োগ দেয়ার কথা জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। 


আগামী সপ্তাহেই এ মনোনয়ন চূড়ান্ত করবেন বলেও তিনি মন্তব্য করেছেন। বার্তা সংস্থা এএফপি এ খবর জানায়।

শনিবার নর্থ ক্যারোলিনায় এক সমাবেশে ট্রাম্প বলেন, “আগামী সপ্তাহে আমি একজন বিচারপতি নিয়োগ দিচ্ছি। আমি মনে করি এ পদে কোনো নারীকে নিয়োগ দেওয়া উচিত। সত্যিকার অর্থে পুরুষের চেয়ে আমি নারীদের বেশি পছন্দ করি।”

যুক্তরাষ্ট্রের আইনের আওতায় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুগুলো নিয়ে রুল জারির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ আদালতের মতাদর্শিক ভারসাম্য খুব জরুরি। সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট একজন প্রধান বিচারপতি ও আটজন বিচারপতি নিয়ে গঠিত হয়। প্রেসিডেন্ট মনোনীত বিচারপতিদের নিয়োগ দেয় সিনেট। একবার নিয়োগ দেওয়ার পর পদত্যাগ, অবসর বা অভিশংসন ছাড়া ওই বিচারপতিরা আমৃত্যু দায়িত্ব পালন করতে পারেন।

ট্রাম্প তার শাসন মেয়াদে দুজন বিচারপতিকে নিয়োগ দিতে পেরেছেন। গিন্সবার্গের মৃত্যুর পর তৃতীয় বিচারপতিকে নিয়োগ দেওয়ার সুযোগ তৈরি হয়েছে তার। ৩ নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ট্রাম্প কাজটি শেষ করতে চান। তবে তার ডেমোক্র্যাট প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেন চাইছেন নির্বাচনের আগে যেন বিচারপতি নিয়োগ না পান। 







এলএ বাংলা টাইমস/এমকে

বিস্তারিত খবর

আমেরিকায় করোনায় প্রত্যেকটি মৃত্যুর জন্য ট্রাম্প দায়ী: বাইডেন

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২১ ০০:১৪:১২

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যারা মারা গেছেন তাদের প্রত্যেকের মৃত্যুর জন্য ডোনাল্ড ট্রাম্প দায়ী উল্লেখ করে তাকে পদত্যাগ করতে বললেন ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী জো বাইডেন। 
যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যে এক নির্বাচনি জনসভায়বাইডেন এ কথা বলেন। 

নভেম্বরেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। নির্বাচনী প্রচারনায় ব্যস্ত ডোনাল্ড ট্রাম্প, জো বাইডেনরা। এমনই এক নির্বাচনী প্রচারনায় এবার সরাসরি ব্যর্থতার দায়ভার কাঁধে নিয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ক্ষমতা ছেড়ে দেয়ার কথা বললেন ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী জো বাইডেন। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসকে সামাল দিতে ব্যর্থতার দায় স্বীকার করে ট্রাম্পের পদত্যাগ করা উচিত।

নির্বাচনি জনসভায় বাইডেন বলেন, “আমেরিকায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতিটি মৃত্যুর জন্য ট্রাম্প দায়ী।”

সাবেক মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট বাইডেন আরও বলেন, "প্রেসিডেন্ট যদি শুরু থেকে তার দায়িত্ব পালন করতেন তাহলে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী সব মানুষ এখন জীবিত থাকত।"

তিনি অভিযোগ করেন, শেয়ার বাজার ও নির্বাচন ছাড়া ট্রাম্পের আর কোনো কিছু নিয়ে মাথাব্যথা নেই। কাজেই এমন এক ব্যক্তির প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালনের যোগ্যতা নেই।

আমেরিকায় টানা কয়েক সপ্তাহ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা কম থাকার পর গত সপ্তাহ থেকে আবার তা বেড়ে গেছে। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর দিক দিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সব দেশের শীর্ষে অবস্থান করছে। এজন্য ডেমোক্র্যাট দলের সমর্থকরা এই ভাইরাসের ভয়াবহ ক্ষতিকর দিকটিকে শুরুর দিকে উপেক্ষা করার জন্য প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে দায়ী করে আসছেন।







এলএ বাংলা টাইমস/এমকে

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাষ্ট্রে টিকটকের বাজারমূল্য ৬০ বিলিয়ন!

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২০ ১৫:২৮:১২

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে টিকটক এর উপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সাংবাদিকদের জানান, ওরাকল ও ওয়ালমার্টের এর সাথে টিকটকের চুক্তিকে প্রাথমিকভাবে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ফলে যুক্তরাষ্ট্রে টিকটকের নতুন ডাউনলোড ও ব্যবহারের যে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিলো - সেটি প্রত্যাহার হলো। 

এদিকে, ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম টিকটকের পেরেন্ট প্রতিষ্ঠান বাইটড্যান্স যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বর্তমানে টিকটকের মূল্য ৬০ বিলিয়ন নির্ধারণ করার কথা ভাবছে বলে জানিয়েছে একটি সূত্র। 

চুক্তি অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে টিকটকের ১২.৫ শতাংশ মালিকানা নিবে ওরাকল, ৭.৫ শতাংশ মালিকানা থাকবে ওয়ালমার্টের। আর যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবহারকারীদের তথ্য ও কন্টেন্ট মজুদ থাকবে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলোর হাতে। 

ফলে, যুক্তরাষ্ট্রে টিকটকের বাজারমূল্য যদি ৬০ বিলিয়ন নির্ধারিত হয়, তবে ওরাকল ও ওয়ালমার্টকে সম্মিলিতভাবে ১২ বিলিয়ন ডলার দিতে হবে বাইটড্যান্সকে। তবে এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে টিকটকের বাজারমূল্য কতো হবে, সেটি চূড়ান্ত হয়নি। আর এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি ওরাকল, ওয়ালমার্ট কিংবা বাইটড্যান্স। 

এর আগে ট্রাম্প প্রশাসন ঘোষণা দিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে নতুনভাবে টিকটক এপ এর ডাউনলোড ও ব্যবহার বন্ধ করা হবে। পরেই যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে চুক্তি করে বাইটড্যান্স। 

প্রসঙ্গত, ট্রাম্প প্রশাসন দাবি করেছেন, টিকটকের মাধ্যমে চীনা মালিকানাধীন কোম্পানি বাইটড্যান্স যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছেন ও চীনা সরকারকে সেটি পাচার করে দিচ্ছেন। যদিও এই বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো প্রমাণ হাজির করতে পারেনি যুক্তরাষ্ট্র।


এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

আগামী সপ্তাহেই নতুন বিচারপতি নিয়োগ দেবেন ট্রাম্প!

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২০ ১৪:৩১:৩৬

সুপ্রিম কোর্টের প্রবীণ বিচারপতি ও নারী অধিকার আন্দোলনের পুরোধা ব্যক্তিত্ব রুথ বডার গিন্সবার্গের মৃত্যুর পরপরই উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক অঙ্গন। ডেমোক্র্যাটরা দাবি করেছিলেন, আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পরই শুধুমাত্র গিন্সবার্গের শূন্যস্থানে নতুন বিচারপতি নিয়োগ দিতে হবে। 

কিন্তু ইতোমধ্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা দিয়েছেন, আগামী সপ্তাহেই নতুন বিচারপতি নিয়োগ দেওয়া হবে। এবং নতুন বিচারপতি হিসেবে একজন নারীকেই বেছে নেওয়া হবে। শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) নর্থ ক্যারোলিনার ফয়েটেভিলের এক নির্বাচনী সমাবেশে এই ঘোষণা দেন ট্রাম্প। 

ডোনাল্ড ট্রাম্প সমাবেশে বলেন, রুথ বডার গিন্সবার্গের নৈতিকতা ও নারীদের প্রতি উদারতার প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই নতুন একজন নারী বিচারপতি আগামী সপ্তাহে নিয়োগ দেওয়া হবে। 

ট্রাম্প বলেন, 'সংবিধানের আর্টিকেল ২ এ স্পষ্ট উল্লেখ আছে যে প্রেসিডেন্ট সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি নিয়োগের ক্ষমতা রয়েছে। এই বিষয়ে আর কি বলার থাকতে পারে?' 

ট্রাম্প ইতোমধ্যে জানিয়েছেন, তিনি ৪৫ জন বিচারপতির একটি তালিকা তৈরি করেছিলেন। এরমধ্যে ইতোমধ্যে এখান থেকে কয়েকজনকে বাছাই করাও শেষ। 

ট্রাম্প হোয়াইট হাউজে এক বিবৃতিতে বলেন, 'আমাদের যথাযথ প্রক্রিয়ার প্রতি সম্মান দেখানো উচিত। আর সেটির জন্য আমাদের দ্রুত খালি আসনটিতে দায়িত্বশীল কাউকে বসাতে হবে। আমি সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা মিচ ম্যাককনেল এর বিবৃতির সাথে একমত। খুব দ্রুতই আমরা বিচারপতি নিয়োগ দিবো'।

এদিকে, হোয়াইট হাউজ সংশ্লিষ্ট গোপন এক সূত্র জানিয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্প সুপ্রিম কোর্টের আজীবন বিচারপতি হিসেবে রক্ষণশীল ঘরানার ফেডেরাল কোর্টের বিচারপতি এমি কোনে ব্যারেটকে নিয়োগ দিতে মনস্থির করেছেন। তবে মার্কিন সিনেটে ট্রাম্পের এই মনোনয়ন টিকবে কি না, এই বিষয়ে সন্দেহ রয়েছে। 


এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

উদ্বেগ ও বিষন্নতা বেড়েছে যুক্তরাষ্ট্রে, নেপথ্যে করোনা

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২০ ১১:৪৬:৫৪

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের মধ্যে উদ্বেগ ও বিষন্নতার হার বেড়েছে। চলমান করোনাভাইরাসের কারণে আগের থেকে অনেক বেশি উদ্বিগ্নতা ও বিষন্নতাসহ নানাবিধ মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দারা। 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান জার্নাল সায়েন্স এডভান্স প্রকাশিত এক গবেষণাপত্রে দেখা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দারা অন্যান্য সময়ের থেকে বর্তমানে অনেক বেশি মানসিক অবসাদে ভুগছেন। এরমধ্যে বাসিন্দাদের মধ্যে বিষন্নতা বেড়েছে বহুগুণ। আর নানাবিধ মানসিক সমস্যার মূল কারণ হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে মহামারি করোনাভাইরাস।

গবেষণায় উঠে এসেছে, বিষন্নতার হার বেড়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ হচ্ছে চাকরিহীনতা। চলমান করোনাভাইরাসের কারণে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে কর্মস্থল হারিয়েছে লাখ লাখ বাসিন্দা। ফলে বাসিন্দাদের মধ্যে বেড়েছে বিষন্নতার হার। 

এরপরেই আছে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ভয়। গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষের সাথে মিশতে কিংবা কাছের মানুষের ক্ষেত্রেও এখন অনেকেই উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ছেন। আর ক্রমাগত সংক্রমণের ভয়ের কারণে বাড়ছে বিষন্নতা৷ 

এছাড়াও গবেষণায় বিষন্নতা বাড়ার গুরুত্বপূর্ণ একটি কারণ হিসেবে উল্লেখ্য করা হয়েছে করোনাভাইরাস বিষয়ে গণমাধ্যমের ভূমিকা নিয়ে। করোনাভাইরাসের কারণে মানুষ গড়ে সাত ঘন্টার মতো গণমাধ্যম কিংবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের তথ্য দেখে সময় কাটায়। কিন্তু গণমাধ্যমের বিভ্রান্তিকর ও সাংঘর্ষিক তথ্যের কারণে নাগরিকরা আরো বেশি বিষন্নতায় আক্রান্ত হচ্ছেন। 

এদিকে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আগামী বছরের আগে করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট মহামারি নিয়ন্ত্রণে আসার কোনো সম্ভাবনা নেই। ফলে গবেষকরা ধারণা করছেন, যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে বিষন্নতাসহ নানাবিধ মানসিক ব্যধি বাড়বে। 

প্রসঙ্গত, জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তথ্য অনুসারে, যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে এখন পর্যন্ত ষাট লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। এরমধ্যে মারা গেছেন এক লাখ নিরানব্বই হাজার দুইশো ষাট জন। 


এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতকে হত্যা করতে চায় ইরান!

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২০ ০৫:৪০:১৮

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ আফ্রিকায় নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত লানা মার্কসকে হত্যা করার পরিকল্পনা করছে ইরান। এই হত্যাকাণ্ডের মাধ্যমে ইরানী জেনারেল কাশেম সোলাইমানি হত্যার সম্মানজনক প্রতিশোধ নিতে চায় ইরান।
আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগেই এই হত্যাকাণ্ড ঘটানোর পরিকল্পনা করছে ইরান - এমন খবর বেরিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যমে। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মার্কিন ইন্টিলিজেন্স এর এক কর্মকর্তা এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ইরান কুদস ফোর্সের প্রধান সোলাইমানি হত্যার প্রতিশোধ নেওয়ার পরিকল্পনা করছে। তারা আগামী নভেম্বরের  নির্বাচনের আগে দক্ষিণ আফ্রিকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত লানা মার্কসকে হত্যার মাধ্যমে প্রতিশোধ নিতে চায়।

এদিকে, ইরানের রেভল্যুশনারি গাডর্সের প্রধান বলেছেন, জেনারেল কাশেম সোলাইমানি হত্যায় যারা জড়িত, শুধু তাদের লক্ষ্যবস্তু করে একটি সম্মানজনক প্রতিশোধ নেবে তেহরান। 

এই বিবৃতির পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানকে কড়া হুমকি দেন। তিনি বলেন, তার দেশের উপর কোনো হামলা হলে হাজার গুণ শক্তিশালী জবাব দেওয়া হবে।
এদিকে, দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা শুক্রবার জানায়, রাষ্ট্রদূত মার্কসের বিরুদ্ধে এই জাতীয় ষড়যন্ত্রের কোনো প্রমাণ তারা পায়নি।


এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

হোয়াইট হাউসে ট্রাম্পকে পাঠানো চিঠিতে মেশানো ছিল বিষ!

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-২০ ০২:১৩:৫৫

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নামে হোয়াইট হাউসের ঠিকানায় পাঠানো একটি চিঠিতে রাইসিন নামক এক মারাত্মক বিষাক্ত পদার্থ মেশানো ছিল বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস। 


হোয়াইট হাউসের ঠিকানায় পাঠানো যেকোনো চিঠি সেখানে পৌঁছানোর আগেই পরীক্ষা-নিরীক্ষার একটি আলাদা কার্যালয় রয়েছে। সেখানেই বিষয়টি ধরা পড়ে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানায়।

এই চিঠি কোথা থেকে পাঠানো হয়েছে, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই এবং প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সিক্রেট সার্ভিস তা তদন্ত করছে। এ ছাড়া অন্য আরো কাউকে একই ধরনের চিঠি পাঠানো হয়েছে কিনা, সেটিও তদন্ত করছে সংস্থা দুটি।

বিবিসি জানায়, ক্যাস্টর অয়েল তৈরি হয় যে বীজ থেকে, সেই একই বীজ থেকেই তৈরি করা হয় এই রাইসিন বিষ।

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিস কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন বা সিডিসির তথ্য মতে, রাইসিন এতটাই বিষাক্ত যে একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটাতে মাত্র কয়েক ফোঁটা লবণদানার সমপরিমাণ রাইসিনই যথেষ্ট। কতটুকু পরিমাণ রাইসিন শরীরে প্রবেশ করেছে, তার ওপর নির্ভর করে ৩৬ থেকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে মৃত্যু হতে পারে। রাইসিনের বিষক্রিয়া প্রতিরোধে এখন পর্যন্ত কোনো প্রতিষেধক নেই। 

সিডিসি বলছে, রাইসিন দিয়ে তৈরি গুঁড়া ও স্প্রে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা সম্ভব।

উল্লেখ্য, হোয়াইট হাউসকে উদ্দেশ করে রাইসিন মেশানো চিঠি পাঠানোর ঘটনা এর আগেও ঘটেছে।সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও অন্য কয়েকজন কর্মকর্তাকে রাইসিনের গুঁড়া মেশানো চিঠি পাঠানোর দায়ে ২০১৪ সালে মিসিসিপির এক ব্যক্তিকে ২৫ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

এর চার বছর পরে, ২০১৮ সালে একজন সাবেক সেনাসদস্য অভিযুক্ত হন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সদর দপ্তর ও হোয়াইট হাউসে একই ধরনের চিঠি পাঠানোর দায়ে।







এলএ বাংলা টাইমস/এমকে

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাষ্ট্রের ৪টি অঙ্গরাজ্যে শুরু আগাম ভোট

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-১৯ ২১:০৯:৫৮

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগাম ভোট শুরু হয়েছে। শুক্রবার থেকে চারটি অঙ্গরাজ্যে এ ভোটগ্রহণ শুরু হয়। রাজ্যগুলো হলো, মিনেসোটা, ভার্জিনিয়া, সাউথ ডাকোটা ও ওয়াইওমিংয়ে।


যুক্তরাষ্ট্রে স্থানীয় সময় শুক্রবার ভোট শুরু হওয়ার পর ভার্জিনিয়া ও মিনেসোটাতে দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। করোনাভাইরাসের মহামারী উপেক্ষা করেই ভোট দিতে আসেন ভোটাররা।

মিনেসোটায় মুখোমুখি প্রচারণা চালিয়েছেন দুই নেতা ট্রাম্প ও বাইডেন। ২০১৬ সালে ট্রাম্প তার তৎকালীন ডেমোক্রেটিক প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারি ক্লিনটনের কাছে রাজ্যটিতে ১.৫ শতাংশ পয়েন্টে হেরেছিলেন। সম্প্রতি রাজ্যটির মিনিয়াপোলিসে পুলিশের হাতে জর্জ ফ্লয়েড নামের এক কৃষ্ণাঙ্গের নির্মম হত্যা ঘিরে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখা দেয়।
 এই নির্বাচনী প্রচারে ট্রাম্প ইসরায়েলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের চুক্তিকে কাজে লাগাচ্ছেন। এদিকে বিজ্ঞাপন তৈরি করে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালাচ্ছেন বাইডেন।

মিনেসোটার মিনেয়াপোলিসে ভোটকেন্দ্র খোলার ৩০ মিনিটের মধ্যে ৪৪ জন ভোট দিয়েছেন বলে জানা গেছে। কয়েকজন ভোটার জানিয়েছেন, ভীড় এড়াতে সকাল সকাল ভোট দিতে চান তারা।

মিনেসোটায় জনমত জরিপে এগিয়ে আছেন বাইডেন। জরিপ বিষয়ক ওয়েবসাইট রিয়েলক্লিয়ারপলিটিকস অনুসারে, শুক্রবার পর্যন্ত রাজ্যটিতে ট্রাম্পের চেয়ে গড়ে ১০.২ শতাংশ পয়েন্ট নিয়ে এগিয়ে আছেন তিনি। 

ভার্জিনিয়ার ফেয়ারফ্যাক্স ও আরলিংটনে নির্বাচনী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সেখানে ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি দেখা গেছে। ভোটকেন্দ্রের বাইরে তারা লাইন ধরে দাঁড়িয়ে ছিলেন।







এলএ বাংলা টাইমস/এমকে

বিস্তারিত খবর

দ্রুত ‘ফ্লু শট’ নিতে বলছেন বলছেন যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-১৯ ২০:৪০:৪৯

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা দেশটির জনগণকে এ বছর আগেভাগেই ফ্লু শট গ্রহণের জন্য সতর্ক করে দিচ্ছেণ যাতে একই সাথে কোভিড-১৯ এবং ফ্লু সামলাতে না হয়। 


ওয়াশিংটনে জর্জ ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের সংক্রামক রোগ বিভাগের পরিচালক গ্যারি সাইমন বলেছেন, কোভিড-১৯ ও ফ্লু রোগের প্রকোপের আশঙ্কা ২০২০ সালকে "অত্যন্ত কঠিন বছর" করে তুলেছে।

দুটোই অত্যন্ত সংক্রামক এবং একইরকম লক্ষণসম্পন্ন অসুখ। ফ্লু অবশ্য মৌসুমী, যদিও কোভিড-১৯ এর কোন সময়সীমা নেই। সারা বছরই এতে সংক্রমিত হবার আশঙ্কা রয়েছে। কোভিড-১৯ এর এখনও কোন টিকা আসেনি তবে ফ্লুর টিকা কয়েক দশক ধরে পাওয়া যাচ্ছে। কেউ একটি নাকি ঐ দুটি রোগেই আক্রান্ত কিনা, তা নির্ধারণের একমাত্র উপায় ল্যাবরেটরির পরীক্ষা।

ইউরোপীয় দেশগুলি শুক্রবার নতুন করে করোনাভাইরাস বিধিনিষেধের ঘোষণা করেছে। এর একদিন আগেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সতর্ক করে দিয়েছিল যে, এই মহাদেশ জুড়ে আশঙ্কাজনক হারে "আবার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে"। 

স্পেনে, যেখানে অন্য ইউরোপীয় দেশগুলির চেয়ে বেশি লোক সংক্রমিত হয়েছেন যার সংখ্যা ৬ লক্ষ ৪০ হাজার, সেখানকার মাদ্রিদের আঞ্চলিক সরকার সোমবার কিছু দরিদ্র অঞ্চলে সংক্রমণ ছড়িয়ে যাওয়ার পরে লকডাউনের নির্দেশ কার্যকর করার কথা বলেছে।

জন্স হপকিনস করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার শনিবার সকালে তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ এ সংক্রমিত হয়েছেন তিন কোটি পাঁচ লক্ষ লোক। মারা গেছেন প্রায় ১০ লক্ষ লোক। যুক্তরাষ্ট্রে ৬৭ লক্ষ লোক করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন, তারপরে রয়েছে ভারত। সেখানে এ রোগে সংক্রমেণর সংখ্যা ৫৩ লক্ষ আর ব্রাজিলে এ পর্যন্ত ৪৫ লক্ষ লোক কোভিড-১৯ এ সংক্রমিত হয়েছেন।







এলএ বাংলা টাইমস/এমকে

বিস্তারিত খবর

নিউইয়র্কে পার্টিতে গোলাগুলির ঘটনায় দুইজনের মৃত্যু, আহত ১৪

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-১৯ ১৪:৫১:২৫

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে পার্টিতে গোলাগুলির ঘটনায় দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ১৪ জন। নিউইয়র্কের রচেস্টার শহরে শুক্রবার (১৯ সেপ্টেম্বর) শেষরাতে এই ঘটনা ঘটে। 

রচেস্টারের পুলিশ প্রধান মার্ক সিমনস জানান, শহরের একটি বাড়ির পেছন দিকের বাগানে এক পার্টিতে গোলাগুলির খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। সেখানে যেয়ে পুলিশ দেখতে পায় প্রায় ১০০ মানুষ প্রাণ বাঁচাতে ছোটাছুটি করছে।

মার্ক সিমনস বলেন, বেআইনিভাবে ও করোনার স্বাস্থ্যবিধি লংঘন করে ওই পার্টির আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে ১৬ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এর মধ্যে এক তরুণ ও এক তরুণী মারা গেছেন। তাঁদের বয়স ১৮ বছর থেকে ২৩ বছরের মধ্যে।

তাৎক্ষণিকভাবে তাঁদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। আহত ১৪ জনকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। তবে তাঁদের আঘাত গুরুতর নয় বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা মার্ক সিমনস। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। এমনকি কতজন মিলে হামলা চালিয়েছিল, তাও জানা যায়নি।

পার্টির আয়োজককে জিজ্ঞাসাবাদ করলে পুলিশকে সে জানায়, সে অল্প কয়েকজন বন্ধুকে দাওয়াত করেছিলো। এরপর ওই বন্ধুরা আরো কয়েকজন বন্ধুকে দাওয়াত করে। এভাবেই পার্টিতে শতাধিক মানুষ জড়ো হয়। 

 এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

বিচারপতি গিন্সবার্গের মৃত্যু: পাল্টে যেতে পারে নির্বাচনী সমীকরণ

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-১৯ ১৩:০৬:১৯

মারা গেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের সবচেয়ে প্রবীণ বিচারপতি ও নারী অধিকার আন্দোলনের পুরোধা ব্যক্তিত্ব রুথ বডার গিন্সবার্গ। শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ক্যান্সারের সাথে লড়াই করে ৮৭ বছর বয়সে মারা যান তিনি। 

আর রুথ বডার গিন্সবার্গের মৃত্যুর পরেই আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সমীকরণ কিছুটা পাল্টে গেলো। আসন্ন নির্বাচনের আগে কে গিন্সবার্গের স্থলাভিষিক্ত হবেন- এটি নিয়ে ডেমোক্র‍্যাট ও রিপাবলিকানদের মধ্যে শুরু হয়েছে স্নায়ুযুদ্ধ। 

এর কারণ হচ্ছে, যুক্তরাষ্টের সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের মধ্যে পাঁচজন ছিলেন ডেমোক্র‍্যাট মনোনীত ও চারজন ছিলো রিপাবলিকান মনোনীত। এরমধ্যে গিন্সবার্গ ডেমোক্র‍্যাট ঘেঁষা বিচারপতিদের মধ্যে বেশ প্রভাবশালী ছিলেন। ফলে গিন্সবার্গের শূণ্যস্থানটি দখল করতে উঠেপড়ে লেগেছে রিপাবলিকান ও ডেমোক্র‍্যাট। 

ডেমোক্র‍্যাট মনোনীত প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেন বলছেন, প্রেসিডেন্ট নির্বাচন শেষ হওয়ার পর সুপ্রিম কোর্টে নতুন বিচারপতির মনোনয়ন দিতে হবে। অপরদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্প ইতোমধ্যে রিপাবলিকান ঘেঁষা বিচারপতিদের মনোনয়নের তালিকা প্রকাশ করে ফেলেছেন। আর সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা রিপাবলিকান মিচ ম্যাককনেল বলেছেন, প্রেসিডেন্ট মনোনয়নের পক্ষে নির্বাচনের আগেই সিনেটে বিচারপতি নিয়োগের ভোট করা সম্ভব। 

গিন্সবার্গের মৃত্যুর পরই জো বাইডেন এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, নির্বাচনের পরই শুধুমাত্র নতুন বিচারপতি মনোনয়ন করা হবে। এর আগে কোনোভাবেই বিচারপতি মনোনয়ন মেনে নেওয়া হবে না। 

জো বাইডেনের সাথে সুর মিলিয়েছেন সাবেক ডেমোক্র‍্যাট প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তিনি বলেন, ওবামা প্রশাসনের সময়ও বিচারপতি নিয়োগের ক্ষেত্রে নির্বাচনের আগে বাঁধা প্রদান করেছিলো রিপাবলিকানরা। পরবর্তীতে তাদের দাবি মেনে নিয়ে নির্বাচনের পরই বিচারপতি নিয়োগ দেওয়া হয়েছিলো। এবার ট্রাম্প প্রশাসনেরও একই নীতি অনুসরণ করা উচিত। 

এদিকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইতোমধ্যে বিচারপতি নিয়োগের জন্য মনোনয়ন তালিকা প্রকাশ করেছেন। এখন সেটি সিনেটে ভোট হওয়ার অপেক্ষা। সিনেটররা যদি মনোনয়ন এর পর ভোট দিতে রাজি হয়, তবে ট্রাম্পের পছন্দের বিচারপতিই নিয়োগ পাবে। এর কারণ সিনেটে রিপাবলিকানদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। ফলে ডেমোক্র‍্যাটদের ভোটে হেরে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। 

তবে স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, নতুন বিচারপতি নিয়োগের ক্ষেত্রে গিন্সবার্গের মতো উদার ও ন্যায়পরায়ণ কাউকে বেছে নিতে হবে। 

যদি নির্বাচনের আগেই নতুন বিচারপতি নিয়োগ হয়, তবে যুক্তরাষ্ট্রের গত ৫০ বছরের মধ্যে এই প্রথম মার্কিন সুপ্রিম কোর্টে রিপাবলিকানরা সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে। ফলে আদর্শিকভাবে বিভক্ত যুক্তরাষ্ট্রের সমাজে রিপাবলিকানদের প্রাধান্য চলে আসবে। 

সব মিলিয়ে নির্বাচনের ছয় সপ্তাহ আগে যুক্তরাষ্ট্রের বিচারপতি নিয়োগের বিষয়টি নির্বাচনের সমীকরণ পাল্টে দিয়েছে। 


এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

হারিকেন স্যালির আঘাতে যুক্তরাষ্ট্রে বিদ্যুৎহীন ৫ লক্ষাধিক মানুষ

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-১৭ ২৩:০৪:১১

যুক্তরাষ্ট্রে গ্রীষ্মমণ্ডলীয় হারিকেন স্যালির কারণে সৃষ্ট প্রবল বর্ষণে উপকূলীয় অঞ্চলের পাঁচ লাখের বেশি মানুষের ঘরবাড়ি বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে।


ক্যাটাগরি টু হারিকেন হিসেবে বুধবার স্যালি ভূমিতে আঘাত হানার পর ঝোড়ো হাওয়ার গতি মন্থর হয়ে আসে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা ও আলাবামা অঞ্চলে ঝড় অব্যাহত রয়েছে। ধীরগতিতে এসব অঞ্চল অতিক্রম করছে হারিকেন স্যালি। এ ছাড়া স্যালির কারণে সৃষ্ট বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি বেশি হয়েছে। 

আলাবামা অঙ্গরাজ্যের উপকূলীয় অঞ্চলে স্থানীয় সময় গতকাল বুধবার ভোর ৪টা ৪৫ মিনিটে স্যালি আঘাত হানে। এ সময় বাতাসের সর্বাধিক গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১০৫ মাইল।

বর্তমানে বাতাসের গতি কমে ঘণ্টাপ্রতি ৬০ মাইলে নেমে এসেছে। তবে লাগাতার বর্ষণ এবং ঝড়ের কারণে সৃষ্ট স্বাভাবিকের চেয়ে উঁচু জলোচ্ছ্বাসে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, উপকূলীয় অঞ্চল থেকে ঝড় উত্তর দিকে সরে আসার পর ওই অঞ্চলের অন্তত সাড়ে পাঁচ লাখ মানুষ গতকাল বুধবার রাত থেকে বিদ্যুৎহীন অবস্থায় রয়েছে।

হারিকেনের প্রভাবে সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ফ্লোরিডার পেনসাকোলা শহরে। ঝড়ে শহরের একটি সেতু আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শহরটির অগ্নিনির্বাপণ কর্মকর্তা গিনি ক্রানোর বলেন, ঝড়ের কারণে ‘চার মাসের বৃষ্টি চার ঘণ্টায় হয়েছে’। 

হারিকেন স্যালি আটলান্টিক মহাসাগরে সৃষ্ট একাধিক ঝড়ের একটি। ইংরেজি বর্ণমালাক্রম অনুসারে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা মহাসাগরে সৃষ্ট হারিকেন বা ঝড়ের নামকরণ করে থাকেন। কিন্তু মহাসাগরে একের পর এক ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি হওয়ায় বার্ষিক বর্ণমালার তালিকার শেষদিকে চলে এসেছেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।








এলএ বাংলা টাইমস/এমকে

বিস্তারিত খবর

নতুন আরও এক লাখ কর্মী নিয়োগ দেবে আমাজন

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-১৭ ২২:৪৫:২৮

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে যুক্তরাষ্ট্রসহ সারা বিশ্বেই লাখ লাখ মানুষ বিশ্বজুড়ে চাকরি হারিয়েছে। তবে অনলাইন পন্য বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান আমাজনের ক্ষেত্রে এর উল্টো ব্যাপার ঘটেছে। মহামারীর সময়ে তাদের আয় বেড়েছে কয়েকগুন বেশি এবং কর্মী ছাটাইয়ের বদলে বরং নতুন কর্মী নিয়োগ দিয়েছে তারা। সম্প্রতি আবারও নতুন এক লাখ কর্মী নিয়োগ দেয়ার কথা ঘোষণা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। 


কোম্পানির নিয়োগ পরিকল্পনা সংক্রান্ত খবরে জানা গেছে, জিনিস তুলে প্যাক করে তা ক্রেতার দরজায় পৌঁছে দিতে বিপুল পরিমাণ কর্মীর প্রয়োজন তাদের। খবর: ফক্স নিউজের।

শেষ ত্রৈমাসিকে আমাজনের বিক্রির পরিমাণ বেড়েছে ৪০ শতাংশ। গত ২৬ বছরের ইতিহাসে এটাই সর্বাধিক বৃদ্ধি। আমাজনের যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা শাখায় প্রচুর ফুল টাইম ও পার্ট টাইম চাকরির পর খালি হয়েছে। চলতি মাসে যে শতাধিক ওয়ার হাউসের কাজ চলছে, তাতে অসংখ্য কর্মীর প্রয়োজন। 

কোম্পানির বিশ্বব্যাপী গ্রাহকের চাহিদা বিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট বোলার ডেভিস এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, “সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে সার্বিক অগ্রগতির লক্ষ্যে আমরা যাবতীয় ব্যবস্থা নেব।“

তিনি বলেন, এক লাখ কর্মসংস্থানের পাশাপাশি শীতকালীন ছুটির জন্যও কোম্পানির কী পরিমাণ কর্মী প্রয়োজন, তারও হিসেব নিকেশ করা হচ্ছে।

এর আগে চলতি মাসের গোড়ার দিকেও ৩৩ হাজার কর্মী নিয়োগের কথা বলেছিল আমাজন। গত মার্চ আর এপ্রিলেও লোক নিয়োগের কথা জানিয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি। করোনার কারণে যারা বেকার হয়ে গিয়েছিল তাদের জন্য এক বিশেষ ‘ক্যারিয়ার ডে’ আয়োজনের মাধ্যমে ওই পদগুলো অফার করেছিল তারা। 









এলএ বাংলা টাইমস/এমকে

বিস্তারিত খবর

বাইডেনের নির্বাচনী প্রচারণায় হস্তক্ষেপ করতে চাইছে রাশিয়া

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-১৭ ১৭:০২:৪২

আসন্ন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেনের নির্বাচনী প্রচারণায় রাশিয়া হস্তক্ষেপ করতে চাইছে বলে সতর্ক করেছেন ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন ( এফবিআই) এর ডিরেক্টর ক্রিস্টোফার রে। 

বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) হোমল্যান্ড সিকিউরিটি কমিটির সাথে বৈঠকে এফবিআই প্রধান ক্রিসোফার রে বলেন, রাশিয়া ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করতে চাইছে। মূলত রাশিয়া জো বাইডেনের নির্বাচনী প্রচারণা বিষয়ে ভুল ও বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়াচ্ছে ও আসন্ন নির্বাচনের বিশ্বাসযোগ্যতা কমাতে বিভিন্ন অপচেষ্টা চালাচ্ছে। 

এর আগে ন্যাশনাল কাউন্টার ইন্টিলিজেন্স এন্ড সিকিউরিটি সেন্টার জানিয়েছিলো, যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে চীন, রাশিয়া ও ইরানের হ্যাকাররা হস্তক্ষেপ করতে চাইছে। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি সংস্থার তদন্তে দেখা গেছে, ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনেও রাশিয়া ট্রাম্পের হয়ে কাজ করেছিলো এবং হিলারি ক্লিনটনের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়েছিলো। 

এদিকে স্বয়ং ট্রাম্পও করোনাভাইরাসের কারণে নতুন ভোট পদ্ধতি 'মেইল-ইন-ব্যালট' এর সমালোচনা করেছেন। বৃহস্পতিবার এক টুইট পোস্টে ট্রাম্প লিখেন, 'এবারের নির্বাচন কতোটা সত্য এটা জানা অসম্ভব হয়ে পড়বে'।


এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

যুক্তরাষ্ট্রের দাবানলের ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়লো ইউরোপেও

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-১৬ ১৯:৫২:০৭

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চলে শুরু হয়েছে ভয়াবহ দাবানল। প্রায় ১০০টি দাবানলে ভস্মীভূত হচ্ছে ক্যালিফোর্নিয়া, অরেগন ও ওয়াশিংটনসহ বেশ কিছু রাজ্যের বন ও জমি। মারাত্মক দূষিত হয়েছে উঠেছে আক্রান্ত অঞ্চলের বাতাস৷ 

ন্যাশনাল এয়ার ইনডেক্স সূত্র জানিয়েছে, দাবানলের ধোঁয়ায় উত্তর আমেরিকার আকাশ ছেয়ে গেছে। এমনকি দাবানলের ধোঁয়া ইউরোপের আকাশেও পৌঁছে গেছে। 

ইউরোপীয় ইউনিয়ন কপারনিসাস এটমোস্ফিয়ার মনিটরিং সার্ভিস (সিএএমএস) জানিয়েছে, ইউরোপের আকাশে প্রায় ৮০০০ মাইল দূর থেকেও ধোঁয়ার কুণ্ডলী দেখা দিয়েছে। এই ধোঁয়া বায়ুমণ্ডলে মারাত্মক দূষণ ঘটাচ্ছে। আমেরিকা থেকে আসা ধোঁয়ার মাত্রা ও স্কেল নিয়মিত মনিটরিং করছে সংস্থাটি। 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ছাই ও ধোঁয়া মিশ্রিত বাতাসের কারণে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকির সম্ভাবনা রয়েছে। অরেগনের বেশ কয়েকটি শহরের বাতাসে সর্বকালের সবচেয়ে ভয়াবহ দূষণ দেখা দিয়েছে।

দাবানলের কারণে ক্যালিফোর্নিয়া, অরেগন ও ওয়াশিংটনে কমপক্ষে ৩৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ১২টির বেশি বৃহৎ দাবানলে গত মাস থেকে এখন পর্যন্ত রাজ্য তিনটির প্রায় ৪০ লাখ একর জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া ওয়াশিংটনের বেশ কয়েকটি ছোট শহরসহ প্রায় ৪০০০ কাঠামো ধসে গেছে।

ক্যালিফোর্নিয়া ডিপার্টমেন্ট অব ফরেস্ট্রি এন্ড ফায়ার প্রটেকশন সূত্র জানিয়েছে, ২৫টি দাবানল ক্যালিফোর্নিয়ায় সক্রিয় রয়েছে। এরমধ্যে বেশ কয়েকটি দাবানল গত মাসের মাঝামাঝি থেকে সক্রিয় রয়েছে। এখন পর্যন্ত দাবানলে ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। দাবানল নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে প্রায় ১৭ হাজার ফায়ার সার্ভিস কর্মী। 

অরেগন রাজ্যেও দাবানলের কারণে পুড়ছে লাখ লাখ একর জমি ও বনভূমি। এখন পর্যন্ত দাবানলের কারণে রাজ্যটিতে আটজনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার ট্রাম্প অরেগন রাজ্যে 'জরুরি বিপর্যয়' এর ঘোষণা দেন। 


এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

স্যালির পর যুক্তরাষ্ট্রে এবার ধেয়ে আসছে হারিকেন 'টেডি'

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-১৬ ১৬:৪৫:৫৭

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিম উপকূল এখনো সামলে উঠতে পারেনি হারিকেন ল্যাসির তাণ্ডব। ফ্লোরিডাসহ  উপকূলের বেশ কিছু অঞ্চলে ল্যাসির প্রভাবে দেখা দিয়েছে বন্যা। এরইমধ্যে ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার জানিয়েছে, এবার উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে হারিকেন টেডি। 

ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার সূত্র জানিয়েছে, টেডি সবেমাত্র এক মাত্রার হারিকেনে পরিণত হয়েছে। হারিকেন টেডি বর্তমানে লেজার এন্টিলিসের ৮৫০ মাইল পূর্বে অবস্থান করছে। হারিকেনটির কেন্দ্রে ১৭৫ মাইল বেগে ঘূর্ণনের সৃষ্টি হয়েছে, আর কেন্দ্র থেকে বাইরের দিকে এর ঘূর্ণনের গতি ঘণ্টায় ২৫ মাইল। খুব শীঘ্রই হারিকেনটি চার মাত্রার হারিকেনে পরিণত হতে পারে। 

এদিকে, হারিকেন স্যালির প্রভাবে হওয়া ভারী বৃষ্টিপাতে ফ্লোরিডা ও পেনসাকোলার কিছু অঞ্চল পাঁচ ফুট পানির নিচে তলিয়ে গেছে। এছাড়াও উপকূলের বিভিন্নস্থানে ১৮ ইঞ্চি জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। 

এছাড়াও হারিকেন স্যালির কারণে ৫ লাখ আবাসিক বাড়ি ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় ছিলো। এখনো কিছু এলাকার বাসিন্দারা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় রয়েছে। 

এলএবাংলাটাইমস /ওএম

বিস্তারিত খবর

বেলারুশের সরকারবিরোধী আন্দোলনে মদদ যোগাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র: পুতিন

 প্রকাশিত: ২০২০-০৯-১৬ ১৫:২১:৪০

বিতর্কিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভে উত্তাল বেলারুশ। দেশটির প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোর বিরুদ্ধে গত মাস থেকে বিক্ষোভ করছে দেশটির লাখো জনগণ। 

এই বিক্ষোভের প্রভাব পড়েছে বহিঃবিশ্বের রাজনৈতিক অঙ্গনেও। আন্দোলনের শুরুতেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা দিয়েছিলেন, তিনি বেলারুশের জনগণের পক্ষে আছেন ও নৈতিকভাবে তিনি জনগণের দাবি সমর্থন করেন। 

অপরদিকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বেলারুশের সদ্য নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোর পক্ষ নিয়েছেন। এরমধ্যে চলমান আন্দোলন বিষয়ে কথা বলতে সাক্ষাৎ করেছেন পুতিন ও লুকাশেঙ্কো।

আর বেলারুশে চলমান আন্দোলনকে ইস্যু করে রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্র ক্রমাগত বাকযুদ্ধে লিপ্ত হচ্ছে। এরই প্রেক্ষিতে বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দাবি করেন, যুক্তরাষ্ট্র বেলারুশের চলমান বিক্ষোভ আন্দোলনকে আরো উস্কে দিতে চাইছে। 

তিনি দাবি করেছেন, যুক্তরাষ্ট্র লুকাশেঙ্কোকে ক্ষমতাচ্যুত করতে বেলারুশের বিক্ষোভকে আরো উস্কে দিচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র বেলারুশে একটি বর্ণবাদী বিক্ষোভ ও সংবিধানবিরোধী একটি ক্যু উস্কে দিচ্ছে, সেইসাথে এনজিও ট্রেনিং ও অর্থের মাধ্যমে সরকারবিরোধী ব্লগার ও এক্টিভিস্টদের সহায়তা করছে। তাছাড়া বেলারুশের বিরোধী দলীয় নেতা শ্বেতলানা তিখানোভস্কায়াকে সহায়তা করছে যুক্তরাষ্ট্র। 

এর আগেও জর্জিয়া ও উকরাইনের বিক্ষোভ আন্দোলনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ী করেছিলো রাশিয়া। 

রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু ইতোমধ্যে বেলারুশের প্রেসিডেন্ট লুকাশেঙ্কোর সাথে বৈঠক করেছেন। বৈঠকে লুকাশেঙ্কো পুতিনের কাছে বেশ কয়েকটি অস্ত্র দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন। তবে কি ধরণের অস্ত্র চেয়েছে বেলারুশ, এই বিষয়ে কিছু জানায়নি শোইগু। 

রাশিয়া ও বেলারুশ ইতোমধ্যে এক যৌথ সামরিক মহড়ার যুক্তি করেছে। সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহ পর্যন্ত এই যৌথ মহড়া চলবে। লুকাশেঙ্কো জানিয়েছেন, রাশিয়া ও বেলারুশের এমন যৌথ মহড়া আরো বেশি হওয়া উচিত। 



এলএবাংলাটাইমস/ওএম 

বিস্তারিত খবর

সাম্প্রতিক খবর

সর্বাধিক পঠিত