যুক্তরাষ্ট্রে আজ শুক্রবার, ১৪ অগাস্ট, ২০২০ ইং

|   ঢাকা - 01:19am

|   লন্ডন - 08:19pm

|   নিউইয়র্ক - 03:19pm

  সর্বশেষ :

  গ্রিন কার্ডের জন্য সম্পত্তি তলব করতে পারবে ট্রাম্প প্রশাসন   ক্যালিফোর্নিয়ায় বন্ধ হয়ে যেতে পারে উবার!   ক্যালিফোর্নিয়ার ১৪ বছরের কিশোরী নিখোঁজ   বাইডেন-হ্যারিসের একত্রে নির্বাচনী প্রচার অভিযান শুরু   ইসরাইল ও আরব আমিরাতের মধ্যে ঐতিহাসিক শান্তিচুক্তি   যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে কিশোরদের সংঘর্ষ, নিহত ৩   যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে খুলে দেওয়া হচ্ছে 'এএমসি থিয়েটার'   বাড়ছে এঞ্জেলেস ন্যাশনাল ফরেস্টের দাবানল   যুক্তরাষ্ট্রে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ   নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত   মৃত্যুহার কম হওয়াতেই করোনা ব্রিফিং বন্ধ হয়েছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী   দেশে আজও করোনায় ৪৪ জনের মৃত্যু   ‘সরকারের পূর্ব প্রস্তুতি থাকায় দেশে করোনা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে’   ভার্জিনিয়ায় সামরিক হেলিকপ্টারে গুলি, আহত ১   ভ্যাকসিন আবিষ্কারে অগ্রগতির কথা জানালেন ট্রাম্প

মূল পাতা   >>   লস এঞ্জেলেস

করোনা সংক্রমণ রোধে কড়াকড়ি হতে পারে স্বাস্থ্যবিধি

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ২০২০-০৭-০১ ১২:২৫:১৮

এলএ বাংলা টাইমস

নিজস্ব প্রতিবেদক :

করোনাভাইরাস সংক্রমণ দ্রুত হারে বৃদ্ধির কারণে স্টেটের বার ও বিচ বন্ধের পরেও নতুন করে আরও কঠোর স্বাস্থ্য বিধিনিষেধ আরোপের প্রতি ইঙ্গিত দিয়েছেন গভর্নর গেভিন নিউসাম। ৪ জুলাইকে সামনে রেখে এই কঠোর স্বাস্থ্যবিধি আরোপ হতে পারে।  

করোনা মহামারি শুরু হবার পর ১৯ মার্চ গভর্নর নিউসাম নাগরিকদের বাসায় থাকার অর্ডার জারি করেন। অর্থনীতিকে সচল করতে কিছু দিন আগে খোলে দিয়েছেন বেশ কিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। কিন্তু সংক্রমণ  বৃদ্ধির কারণে ফের নতুন করে নাগরিকদের চলাচলে কড়াকড়ি আরোপের প্রতি ইঙ্গিত দিয়েছেন নিউসাম। 

মানুষ সামাজিক দূরত্ব রক্ষা করছেন না। স্টেট থেকে ফেস মাস্ক পড়তে বলা হচ্ছে। কিন্তু পাবলিক হেলথ কর্মকর্তারা বলছেন, সামাজিক দূরত্বের অভাবে ‘মেমোরিয়াল ডে’ তে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধি পেতে পারে।  

ক্যালিফোর্নিয়ায় প্রায় দু লক্ষ তেইশ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত।   গত দু সপ্তাহে আক্রান্তের হার বেড়েছে পঞ্চাশ শতাংশ। স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তির হার বৃদ্ধি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। যা গত দু সপ্তাহে তেতাল্লিশ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।   

স্বাস্থ্য অর্ডার আরও কঠোর ভাবে বাস্তবায়ন করা হবে বলে জানিয়েছেন নিউসাম। তিনি বলেন, ‘যদি আপনি বাসায় না থাকেন, মাস্ক না পড়েন। আমাদের এটা অবশ্যই বাস্তবায়ন করতে হবে।’ 

ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. জর্জ রাদারফোর্ড বলেন,  ‘মানুষকে জড়ো হওয়া থেকে বিরত রাখতে হবে। এখন গ্রীষ্মকাল। মানুষ তাদের বন্ধুদের নিয়ে বারবিকিউ করবে। এটা কিভাবে বাস্তবায়িত করা যাবে তা আমি জানি না।’ 

নিউসামের রহস্যপূর্ণ পূর্বাভাস নিয়ে ব্যবসায়ীরা চিন্তিত হয়ে পড়েছেন।  চালু হওয়া শপিং মল আবার বন্ধ করে দেওয়া হবে কিনা এই নিয়ে তারা চিন্তিত। ক্যালিফোর্নিয়া রিটেইলার এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট রেচেল মিশেলেন বলেন, আবার যদি বন্ধ রাখতে হয়, ‘আমাদের মতো রিটেইলারদের দোকান খোলা সম্ভব না। দশ সপ্তাহ ধরে আমরা দোকান বন্ধ রেখেছি। এটা খুবই কঠিন। আমি জানি না তারা কি করবে।’ 

ইতিমধ্যে স্টেস্টের বিভিন্ন লোকাল গভর্মেন্ট বিধিনিষেধে কড়াকড়ি আরোপ করতে শুরু করেছে। সান ফ্রান্সিসকোর পাশের কাউন্টিগুলো রিওপেনিং প্লান পিছিয়ে দিয়েছে। লস এঞ্জেলেস কাউন্টি বিচ ও আতশবাজি ফাটানো বন্ধ করে দিয়েছে। ভেনতুরা কাউন্টিও ৩ জুলাই থেকে বিচ বন্ধ করে দেবার কথা বলেছে। 

এলএ বাংলা টাইমস/এস/আর

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ৩৮০ বার

আপনার মন্তব্য