Updates :

        লস এঞ্জেলেসের 'অভিবাসীপূর্ণ' এলাকায় সংক্রমণ বেশি

        ফেসবুকের বিকল্প হয়ে উঠছে 'মিউই'

        লস এঞ্জেলেস কাউন্টিতে ছোট ব্যবসায়ীরা পাচ্ছেন ক্ষুদ্র ঋণ

        ক্যালিফোর্নিয়ায় আগামী বছর উচ্ছেদ মামলা হতে পারে দ্বিগুণ

        স্কুল ক্যাম্পাস চালুর দরখাস্ত নাকচ ক্যালিফোর্নিয়া সুপ্রিম কোর্টের

        বাইডেন প্রেসিডেন্ট হওয়ায় মার্কিনিদের পকেটে কেমন প্রভাব পড়বে

        অরেঞ্জ কাউন্টিতে চালু দ্বিতীয় টিকাদান কেন্দ্র

        ২০০ পর্বে পা দিলো ‘রান্নাবান্না’

        লস এঞ্জেলেস কাউন্টি হাসপাতালে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

        নিউ ইয়র্কে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, ৩ সেনার মৃত্যু

        লস এঞ্জেলেস কাউন্টিতে টিকা সংকট চরমে

        ‘চমকের গান, ভাষা, সুর আমাকে মুগ্ধ করে’

        সিনেমায় হালকা ধাঁচের মিষ্টি গান থাকবে: চমক

        করোনা টিকা নিতে কমিউনিটির বয়স্কদের প্রতি আহ্বান

        ৬০ দেশে শনাক্ত নতুন ধরনের করোনা

        ট্রাম্পের বিদায়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে ইরান

        দেশে পৌঁছালো ২০ লাখ ডোজ করোনা টিকা

        ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা এখন রোনাল্ডো

        বয়স্কদের টিকাদান শুরু করেছে সান বার্নার্ডিনো

        ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টির দেখা মিলতে পারে সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়ার কিছু অংশে

নারায়ণগঞ্জ কারাগারে বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের ফোনে কথা বলার সুযোগ

নারায়ণগঞ্জ কারাগারে বন্দিদের সঙ্গে স্বজনদের ফোনে কথা বলার সুযোগ

নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারের বন্দিদের সঙ্গে তাদের স্বজনদের ফোনে কথা বলার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি কারাগারের গার্মেন্টসটিতে বন্দিদের তৈরি করা মাস্ক মাত্র ১০ টাকায় বিক্রি করছে কারা কর্তৃপক্ষ। 

বুধবার (২৫ মার্চ) রাতে জেলা কারাগারের জেল সুপার সুভাষ কুমার ঘোষ এ তথ্য জানান।

এর আগে সকালে জেল সুপার সুভাষ কুমার ঘোষ টেলিফোন বুথ উদ্বোধন করেন। এ বুথে মোট ১০টি টেলিফোন রয়েছে। সেখানে বন্দিদের কথোপকথন রেকর্ড করা হবে। প্রতি সপ্তাহে একবার একজন বন্দি তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে অনধিক পাঁচ মিনিট কথা বলতে পারবেন। এজন্য মিনিট প্রতি বন্দিকে দিতে হবে এক টাকা যা তার প্রিজন ক্যান্টিন (পিসি) অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হবে। মূলত এ পিসি অ্যাকাউন্টে বন্দিদের স্বজনরা বন্দির ব্যক্তিগত খরচের টাকা জমা রাখেন।

জেল সুপার সুভাষ কুমার ঘোষ জানান, সারাবিশ্বে মহামারি করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবে কারাবন্দির স্বজনরা যেমন তাদের নিয়ে চিন্তিত তেমনি স্বজনদের নিয়েও বন্দিরা দুশ্চিন্তা করেন। এর মধ্যে করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি এড়াতে বন্দিদের সঙ্গে সাক্ষাতেও আমরা নিরুৎসাহিত করছি। এজন্য সরকার বন্দিদের এ কথা বলার সুযোগ দিয়েছে। তবে আমরা বন্দিদের এ কথোপকথনের ওপর নজর রাখবো।
 
তিনি বলেন, বন্দিরা  করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবে বাইরের সাধারণ মানুষের জন্য কারাগারের গার্মেন্টসে মাস্ক তৈরি করছেন। যা কারাগারের বাইরে ১০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। এছাড়া কারারক্ষী ও কারাবন্দিদের জন্য মাস্কের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ভেতরে ও বাইরে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান ও পানির পর্যাপ্ত ব্যবস্থা করা হয়েছে যেন কোনো সমস্যা না হয়। বন্দিদের সঙ্গে যারা সাক্ষাতে করতে আসবেন তারাও এ হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধোয়ার পর সাক্ষাৎ করতে পারবেন।



এম/এইচ/টি

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত

এ বিভাগের আরো খবর