যুক্তরাষ্ট্রে আজ শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ইং

|   ঢাকা - 01:26am

|   লন্ডন - 07:26pm

|   নিউইয়র্ক - 02:26pm

  সর্বশেষ :

  ভক্তদের ভালবাসা জানালেন শাহানা কাজী   বাংলাদেশ ক্লাবের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে মাল্টা যাচ্ছে ইতালির রত্না-অর্পিতা   মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত হতে পারেন সু চি   শরীরের ভেতরের যেসব অঙ্গ ছাড়াও আপনি বাঁচতে পারবেন   দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী   আরো আবেদনময়ী হতে চান আনুশকা   পাকিস্তানে শিশু ধর্ষণ ও হত্যাকারীর মৃত্যুদণ্ড   ডিসেম্বরে অবসরে যাওয়ার ঘোষণা দিলেন অর্থমন্ত্রী   মিয়ানমার জেনারেলের ওপর কানাডার নিষেধাজ্ঞা, রোহিঙ্গারা এখনও নৃশংসতার ঝুঁকিতে : ইউরোপীয় পার্লামেন্ট   মার্কিন নির্বাচনে হস্তক্ষেপ, ১৩ রুশ অভিযুক্ত   নাইজেরিয়ায় তিন আত্মঘাতীর হামলায় নিহত ১৮   ইতালীস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের সংবাদ সংগ্রহে বিরত থাকার সিদ্ধান্ত স্থানীয় সাংবাদিকদের   পারিশ্রমিক না পেয়ে চটেছেন প্রিয়াঙ্কা   ভারতকে সাবধান করে দিলো চীন   দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ

মূল পাতা   >>   খেলাধুলা

আল-আমিনের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ

নিউজ ডেস্ক

 প্রকাশিত: ২০১৭-১১-৩০ ১৪:৩৪:৩৫

নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পঞ্চম আসরে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের পেসার আল-আমিন হোসেনের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে রিপোর্ট করা হয়েছে। খুলনা টাইটানসের বিপক্ষে দলীয় ১৫তম ওভারে তার বোলিং নিয়ে সন্দেহ হয় ফিল্ড আম্পায়ারদের। এরপরই অভিযোগ আনা হয় তার বিরুদ্ধে।

২০১৪ সালে আরও একবার আল-আমিনের বোলিং অ্যাকশনে ত্রুটি ধরা পড়েছিল। সেবার দুই দফা পরীক্ষা দিয়ে বোলিং করার বৈধতা পান তিনি।

বোলিং অ্যাকশন রিপোর্টেড হলেও আপাতত খেলতে বাধা নেই আল আমিনের। নিয়ম অনুযায়ী আগামী দুই সপ্তাহ খেলতে পারবেন তিনি। ২৯ নভেম্বর থেকে ১২ ডিসেম্বর- এই দুই সপ্তাহ সুযোগ পাচ্ছেন তিনি খেলার। এর মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে বিপিএলের চলতি আসর। সবমিলিয়ে তার অ্যাকশনে ত্রুটি ধরা পড়লেও বিপিএল মিস হচ্ছে না এই পেসারের।

আল-আমিনের ব্যাপারে বোলিং অ্যাকশন পর্যবেক্ষণ কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেছেন, ‘খুলনা টাইটানসের (২৮ নভেম্বর) বিপক্ষে বোলিং অ্যাকশন নিয়ে আল-আমিনের বিরুদ্ধে রিপোর্ট করা হয়েছে। তবে আগামী ১৪ দিন তার বোলিং করতে কোনও সমস্যা নেই।’

তবে ১৪ দিনের মধ্যেই রিভিউ কমিটির কাছে রিপোর্ট করতে হবে আল-আমিনকে। এরপর তাকে পরবর্তী পদক্ষেপের ব্যাপারে অবহিত করা হবে। জালাল ইউনুস বলেছেন, ‘১৪ দিনের মধ্যে তাকে রিপোর্ট করতে হবে। এরপর তার বোলিং অ্যাকশন দেখা হবে। তখন কোনও সমস্যা পাওয়া গেলে পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত হবে। তারপর তার অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে আমরা সিদ্ধান্ত নেব।’

যদিও বিষয়টি নিয়ে খুব একটা চিন্তিত নন আল আমিন। এই পেসার বলেছেন, ‘আম্পায়ারদের যে কোনও ওভার নিয়েই সন্দেহ হতে পারে। তাই বলে আমার অ্যাকশন অবৈধ হয়ে যাচ্ছে, এমনটা আমি মনে করছি না। আমার দুই সপ্তাহ সময় আছে। এরপর রিভিউ কমিটির তত্ত্বাবধানে কাজ করব।’

এলএবাংলাটাইমস/এস/এলআরটি

এই খবরটি মোট পড়া হয়েছে ১৪২ বার

আপনার মন্তব্য