আপডেট :

        মোহাম্মদপুরে ককটেল বিস্ফোরণে দগ্ধ এক শিশু

        সংসদ সদস্য আনারকে হত্যার আগে মাস্টারমাইন্ড আক্তারুজ্জামান শাহীনের বান্ধবীর সঙ্গে তুলা হয় আপত্তিকর ছবি

        কাউকে জেলে পাঠানোর এজেন্ডা আওয়ামী লীগের নেই

        আন্তর্জাতিক আদালতের আদেশ প্রত্যাখ্যান করলো ইসরায়েল

        আন্তর্জাতিক আদালতের আদেশ প্রত্যাখ্যান করলো ইসরায়েল

        অপার সম্ভাবনাময় খাত পর্যটন ও এমিউজমেন্ট পার্কগুলো ছন্দে ফিরতে পারছে না

        ভৈরব নদের সরু দড়াটানা ব্রিজ অপসারণ করে দৃষ্টিনন্দন নতুন প্রশস্ত ব্রিজ নির্মাণ

        ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ষষ্ঠ দফার ভোট চলছে আজ

        চট্টগ্রাম ওয়াসার স্যুয়ারেজ প্রকল্পের কাজ হয়েছে ৪৫ শতাংশ, মেয়াদ বাড়ানোর প্রস্তাব

        বঙ্গোপসাগরে গভীর নিম্নচাপ, উত্তাল হচ্ছে সাগর

        স্টেশন আছে ১১টি কিন্তু বর্তমানে ছয়টি সচল

        জিডিপির হিসাবে বিনিয়োগ স্থবির

        চা শিল্পে উৎপাদন খরচের তুলনায় নিলাম মূল্য কম

        রোহিঙ্গা শিবিরে আগুন, ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিস

        ভারতের রাজস্থানের তাপপ্রবাহে, ৯ জনের মৃত্যু

        যত প্রভাবশালী হোন, অপরাধী হিসেবে সাব্যস্ত হলে আমরা তাকে প্রটেকশন দিতে যাব নাঃ ওবায়দুল কাদের

        সবজি বাজারে আগুন, কাঁচা মরিচের ডাবল সেঞ্চুরি

        গাজার রাফাতে ইসরায়েলকে অবিলম্বে অভিযানসহ অন্যান্য পদক্ষেপ বন্ধের নির্দেশ

        এক ভিডিও বার্তায় সোনিয়া গান্ধী দিল্লির জনগণের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন

        নিজের জেদ, প্রজ্ঞা, পরিশ্রমের ফল আসবেই

বারের উপর চটেছেন ট্রাম্প

বারের উপর চটেছেন ট্রাম্প

ছবি: এলএবাংলাটাইমস

এটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বারের বক্তব্যে বেশ ক্ষুব্ধ হয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বারকে বরখাস্ত করার পরিকল্পনাও করেছিলেন তিনি। তবে সিনিয়র রিপাবলিকানদের আপত্তির মুখে সে পথে হাঁটেননি ট্রাম্প।

বুধবার (২ ডিসেম্বর) এটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার বলেন, ২০২০ সালের মার্কিন নির্বাচনে জালিয়াতির যে অভিযোগ প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প করেছেন, তার সমর্থনে কোনো প্রমাণ তাঁর বিচার বিভাগ খুঁজে পায়নি।

মূলত উইলিয়াম বারকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ মিত্র হিসেবেই গণ্য করা হতো। বারের করা এমন মন্তব্যে তাই বেশ কোনঠাসা হয়ে গেছেন ট্রাম্প।

তবে উইলিয়াম বারের এই মন্তব্যকে মোটেও সহজ ভাবে নেননি ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্প অফিসের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছে, উইলিয়াম বারের এই বক্তব্যের পর বেশ 'অখুশী' হয়েছেন প্রেসিডেন্ট৷ এমনকি বারের উপর আস্থা হারিয়ে তাঁকে বরখাস্তের চিন্তাও নাকি করেন তিনি। তবে সিনিয়র রিপাবকিলান নেতাদের আপত্তির মুখে এখনই এই পথে হাঁটছেন না ট্রাম্প।

উইলিয়াম বারের উপর ডোনাল্ড ট্রাম্পের এখনো আস্থা আছে কী না বা তাঁকে আদৌ এই পদে এখনো রাখা হবে কী না- এই প্রশ্নের জবাবে ট্রাম্পের প্রেস সচিব কালেহি ম্যাকেনি বলেন, 'যদি এই পদে কোনো রদবদল হয়, তবে সবার প্রথমে গণমাধ্যমে জানানো হবে'।

এদিকে উইলিয়াম বারের সাথে গত সপ্তাহে মিটিং হয়েছে ট্রাম্পের। এরপরই উইলিয়াম বার গণমাধ্যমে বলেন, 'নির্বাচনে জালিয়াতির কোনো প্রমাণ নেই'। মিটিং এর ব্যাপারে কালেহি ম্যাকানি বলেন, এটি নিয়মিত আলোচনার অংশ ছাড়া আর কিছু নয়।

এএলএবাংলাটাইমস/ওএম

 

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত